ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়ে বাংলাদেশের যুবাদের শুরু

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ত্রিদেশীয় যুব ওয়ানডে সিরিজে শুভ সূচনা করেছে অনূর্ধ্ব-১৯ দল। ব্যাটে-বলে নিজেদের মেলে ধরে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। উস্টারের কাউন্টি গ্রাউন্ডে সোমবার ৬ উইকেটে জিতেছে সফরকারীরা। ২০১ রানের লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে ৭১ বল বাকি থাকতে। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করে ইংল্যান্ড। দশম ওভারের শেষ বলে ড্যান মোজলির রান আউটে ভাঙে ৪৯ রানের উদ্বোধনী জুটি। তানজিম হাসানের দারুণ বোলিংয়ে ছয় রান যোগ করতে আরও তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় স্বাগিতকরা। পরে অধিনায়ক জর্জ হিলকে বিদায় করেন পেসার মৃত্যঞ্জয় চৌধুরী। এরপর কিপার ফিনলে বিন রান আউট হয়ে গেলে বিপদে পড়ে যায় ইংল্যান্ড। ২৭তম ওভারে ৮৭ রানে ৬ উইকেট হারানো দলটি প্রতিরোধ গড়ে লুইস গোল্ডসওয়ার্থি ও কেসি অলড্রিজের ব্যাটে। ৫ চারে ৭৮ বলে ৫৮ রান করা অলড্রিজকে বোল্ড করে ১১১ রানের জুটি ভাঙেন তানজিম। ৪৯ রানে চার উইকেট নেন এই পেসার। চারটি চারে ৬৯ রানে অপরাজিত থাকেন গোল্ডসওয়ার্থি। ছোট রান তাড়ায় শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। দুই ওপেনার তানজিদ হাসান ও প্রান্তিক নওরোজ ফিরেন দ্রুত। থিতু হয়েও নিজের ইনিংস বড় করতে পারেননি মাহমুদুল হাসান জয়। ক্রিজে গিয়েই শট খেলতে শুরু করেন শাহাদাত হোসেন। প্রস্তুতি ম্যাচে ফিফটি করা এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান প্রথম ১৫ বলে হাঁকান পাঁচ বাউন্ডারি। তৌহিদ হৃদয় খেলেন আস্থার সঙ্গে। দ্রুত জমে যায় তাদের জুটি। দলকে জয়ের কাছে নিয়ে ফিরেন শাহাদাত। ৬০ বলে ৮ চারে ৫৭ রান করে তার বিদায়ে ভাঙে ১১৪ রানের জুটি। অধিনায়ক আকবরকে নিয়ে বাকিটা সহজেই সারেন হৃদয়। চার বাউন্ডারিতে ৭০ রানে অপরাজিত থাকেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। উদ্বোধনী ম্যাচে ইংল্যান্ডকে হারানো ভারতের বিপক্ষে আগামী বুধবার একই মাঠে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে খেলবে বাংলাদেশ। সংক্ষিপ্ত স্কোর: ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ৫০ ওভারে ২০০/৭ (মোজলি ২০, ক্লার্ক ২৭, হেইন্স ৩, এভিসন ০, গোল্ডসওয়ার্থি ৬৯*, হিল ৫, বিন ৮, অলড্রিজ ৫৮, কিম্বার ২*; শরিফুল ০/৫৭, তানজিম ৪/৪৯, শামিম ০/২৭, মৃত্যঞ্জয় ১/৩১, রাকিবুল ০/৩৫)। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ৩৮.১ ওভারে ২০৪/৪ (তানজিদ ৯, প্রান্তিক ১৪, মাহমুদুল ৩৬, হৃদয় ৭০, শাহাদাত ৫৭, আকবর ৯*; লিচ ০/৪১, অলড্রিজ ২/৩০, কিম্বার ১/৩১, মোরলে ১/৪৪, এভিসন ০/১৮, হিল ০/২১, গোল্ডসওয়ার্থি ০/১৯)। ফল: বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৬ উইকেটে জয়ী।

 

ধর্ষণের মামলা থেকে বাঁচলেন রোনালদো

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ইউভেন্তুসের তারকা ফরোয়ার্ড ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ গঠন করা হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের কৌঁসুলিরা। ক্যাথরিন মায়োরগা নামের ৩৪ বছর বয়সী এক নারী ২০০৯ সালে লাস ভেগাসের একটি হোটেলে তাকে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন রোনালদোর বিরুদ্ধে। রোনালদো অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন। তবে ওই ঘটনা নিয়ে আদালতের বাইরে ২০১০ সালে পর্তুগিজ অধিনায়কের সঙ্গে মায়োরগা সমঝোতায় পৌঁছেছিলেন বলে খবর এসেছিল। তবে ২০১৮ সালে তিনি পুনরায় অভিযোগ দাখিল করেন। সোমবার এক বিবৃতিতে লাস ভেগাসের কৌঁসুলিরা জানান, ওই অভিযোগ প্রমাণ করা যাচ্ছে না। ক্লার্ক কাউন্টি ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি অফিস জানায়, ২০০৯ সালে মায়োরগা নির্যাতিত হওয়ার অভিযোগ করেছিলেন, কিন্তু কোথায় ঘটনা ঘটেছিল এবং আক্রমণকারী কে ছিল, সে বিষয়ে জানাতে অস্বীকৃতি জানান। যে কারণে পুলিশ ‘অর্থপূর্ণ তদন্ত চালাতে’ পারেনি। অভিযোগকারীর অনুরোধে ২০১৮ সালের আগস্টে লাস ভেগাসের পুলিশ পুনরায় তদন্তে নেমেছিল। জার্মান সাময়িকী ডের স্পিগেল গত অক্টোবরে প্রথম এই খবর প্রকাশ করে। সাময়িকীটি জানিয়েছিল, ঘটনা ঘটার অল্প সময়ের মধ্যে লাস ভেগাসের পুলিশকে জানিয়েছিলেন মায়োরগা। তাদের প্রতিবেদনটিতে আরও বলা হয়, ২০১০ সালে আদালতের বাইরে রোনালদোর সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে একটি সমঝোতায় পৌঁছান মায়োরগা। তিন লাখ ৭৫ হাজার ডলারের বিনিময়ে কখনও এই অভিযোগ প্রকাশ না করার ব্যাপারে রাজি হন তিনি। মায়োরগার আইনজীবী জানিয়েছিলেন, মিটু মুভমেন্টে অনুপ্রাণিত হয়ে তার মক্কেল মামলা পুনরায় চালুর সিদ্ধান্ত নেন। ২০০৯ সালে লাস ভেগাসে দুজনের সাক্ষাতের বিষয়টি অস্বীকার করেননি রোনালদো। তবে দাবি করেন, দুজনের মধ্যে যা-ই হয়েছিল, পারস্পরিক সমঝোতায় হয়েছিল। সে সময় রোনালদো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে খেলছিলেন এবং ওল্ড ট্র্যাফোর্ড ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদে যাওয়ার পথে ছিলেন। রিয়ালে নয়টি বছর কাটানো পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড গত জুলাইয়ে ইউভেন্তুসে যোগ দেন।

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেই মালিঙ্গার শেষ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ওয়ানডে ক্রিকেটকে বিদায় জানাচ্ছেন লাসিথ মালিঙ্গা। শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক দিমুথ করুনারতেœ জানিয়েছেন, বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ খেলার পর ওয়ানডে থেকে অবসর নেবেন অভিজ্ঞ এই পেসার। বিশ্বকাপেও শ্রীলঙ্কার সেরা বোলার ছিলেন মালিঙ্গা। ম্যাচের যে কোনো পর্যায়ে এখনও উইকেট এনে দেওয়ার সামর্থ্য আছে ৩৫ বছর বয়সী এই পেসারের। তার বিদায়ের পর উইকেট-টেকিং বোলার খুঁজে বের করতে হবে বলে করুনারতেœ জানান। “সামনের মাসগুলোতে আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা হবে উইকেট-টেকিং বোলার চিহ্নিত করা। আমাদের এমন বোলারদের খুঁজে বের করতে হবে যারা শুরু উইকেট নিতে পারে, মাঝের ওভারগুলোতেও উইকেট নিতে পারে।” “আমরা জানি, এই সিরিজের পর থেকে আর লাসিথ মালিঙ্গাকে পাওয়া যাবে না। লাসিথ শুধু প্রথম ম্যাচটিই খেলবে এরপর অবসর নেবে। আমাকে অন্তত সে এটাই বলেছে।” বিশ্বকাপে ৭ ম্যাচে ২৮.৬৯ গড়ে ১৩ উইকেট নিয়েছিলেন মালিঙ্গা। দলের অন্য যে কোনো বোলারের চেয়ে সংখ্যাটা দ্বিগুণ। সমান ম্যাচ খেলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬ উইকেট নিয়েছিলেন পেসার ইসুরু উদানা। আগামী শুক্রবার কলম্বোর আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে।

প্রস্তুতি ম্যাচে মিঠুন-মুশফিকের ফিফটিতে বাংলাদেশের জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ মোহাম্মদ মিঠুন ও মুশফিকুর রহিমের জোড়া ফিফটিতে প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ জয় পেয়েছে। শ্রীলংকা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের বিপক্ষে প্রস্তুতি জোরদারের ম্যাচে ৫ উইকেটে জয় পেয়েছে তামিম ইকবালের নেতৃত্বাধীন দলটি। ২৮৩ রানের লক্ষ্য ১১ বল বাকি থাকতে ছুঁয়ে ফেলে তারা। ব্যাটিংয়ের চেয়ে বোলিং নিয়ে বাংলাদেশের ভাবনা বেশি। তাই আগে থেকেই ঠিক করে রেখেছিল শুরুতে বোলিং করবে। সফরাকারীদের চাওয়া পূরণ করতে টসে জিতে ব্যাটিং নেন নিরোশান ডিকভেলা।   কলম্বোর পি সারা ওভালে মঙ্গলবার ম্যাচের তৃতীয় বলে অধিনায়ক ডিকভেলাকে এলবিডবি¬উ করে বিদায় করেন পেসার রুবেল। পরে তুলে নেন ওশাদা ফার্নান্দোর উইকেট। দ্রুত রান তোলার চেষ্টায় থাকা দানুশকা গুনাথিলাকাকে থামান আরেক পেসার তাসকিন। আট ওভারের মধ্যে টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে ফেরত পাঠায় বাংলাদেশ। ম্যাচে নয় বোলার ব্যবহার করেন তামিম। অনেক দিন পর এই ম্যাচেই প্রথমবারের মতো বোলিং করেন মাহমুদউল্লাহ। ৩ ওভারে ১৫ রান দিয়ে থাকেন উইকেটশূন্য। ভানুকা রাজাপাকসাকে ফিরিয়ে ৮২ রানের জুটি ভাঙেন সৌম্য। পরে থামান ৬ চারে ৫৬ রান করা শিহান জয়াসুরিয়াকে। সাতে নেমে বিস্ফোরক এক ইনিংসে দলকে ২৮২ পর্যন্ত নিয়ে যান দাসুন শানাকা। ৬৩ বলে ছয়টি করে ছক্কা ও চারে এই বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান অপরাজিত থাকেন ৮৬ রানে। অনিয়মিত পেসার সৌম্য ২৯ রানে নেন ২ উইকেট। রুবেল ২ উইকেট নেন ৩১ রানে। রান তাড়ায় সাবধানী শুরু করেন সৌম্য। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলেন তামিম। গতিময় পেসার লাহিরু কুমারার বলে ক্যাচ দিয়ে সৌম্যর বিদায়ে ভাঙে ৪৫ রানের উদ্বোধনী জুটি। ৬ চারে ৩৭ রান করা তামিমকেও ফেরান কুমারা। ক্রিজে গিয়েই শট খেলতে থাকেন মুশফিকুর রহিম। শুরু থেকেই আস্থার সঙ্গে খেলছিলেন মিঠুন। দ্রুত জমে যায় তাদের জুটি। পঞ্চাশ ছুঁয়ে ফিরেন মুশফিক। ৪৬ বলে ৬ চার ও এক ছক্কায় করেন ৫০ রান। ভাঙে ৭৩ রানের জুটি। মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে আরেকটি পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটিতে দলকে টানেন মিঠুন। তিন চারে ৩৩ রান করা মাহমুদউল্লাহকে ফিরিয়ে ৯৬ রানের জুটি ভাঙেন আকিলা দনাঞ্জয়া। দলকে জয়ের কাছে নিয়ে ফিরেন মিঠুন। ৯ রানের জন্য পাননি তিন অঙ্কের দেখা। সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতিতে তিনে নেমে ১০০ বলে খেলা তার ৯১ রানের ইনিংস গড়া ১১ চার ও ১ ছক্কায়। মোসাদ্দেক হোসেনকে নিয়ে বাকিটা সহজেই সারেন সাব্বির। ৩১ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। চার হাঁকিয়ে ম্যাচ শেষ করা মোসাদ্দেক করেন ১৫ রান। আগামী শুক্রবার আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। সংক্ষিপ্ত স্কোর: শ্রীলঙ্কা বোর্ড সভাপতি একাদশ: ৫০ ওভারে ২৮২/৮ (ডিকভেলা ০, গুনাথিলাকা ২৬, ওশাদা ২, রাজাপাকসা ৩২, জয়াসুরিয়া ৫৬, অ্যাঞ্জেলো ৭, শানাকা ৮৬*, হাসারাঙ্গা ২৮, দনাঞ্জয়া ৯, আপন্সো ১৩*; রুবেল ৭-০-৩১-২, তাসকিন ৮-০-৫৭-১, মুস্তাফিজ ৭-০-২৯-১, মোসাদ্দেক ৬-১-২৫-০, মিরাজ ৪-০-২৫-০, মাহমুদউল্লাহ ৩-০-১৫-০, সৌম্য ৬-০-২৯-২, তাইজুল ৬-০-৪২-০, রেজা ৩-০-২২-১)। বাংলাদেশ: ৪৮.১ ওভারে ২৮৫/৫ (তামিম ৩৭, সৌম্য ১৩, মিঠুন ৯১, মুশফিক ৫০, মাহমুদউল্লাহ ৩৩, সাব্বির ৩১*; মোসাদ্দেক ১৫*; বিশ্ব ৬.১-০-২৫-০, রাজিথা ৮-০-৫৭-১, গুনাথিলাকা ৩-১-১৫-০, কুমারা ৬-০-২৬-২, দনাঞ্জয়া ৭-০-৪৭-১, আপন্সো ৬-০-৪৩-০, হাসারাঙ্গা ৭-০-৩৯-১, অ্যাঞ্জেলো ৩-০-১৭-০, শানাকা ২-০-১৫-০)। ফল: বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী।

বাংলাদেশকে ধবলধোলাই করতে চায় শ্রীলংকা

ক্রীড়া প্রবিবেদক ॥ ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে উপরে উঠতে মরিয়া শ্রীলংকা। এজন্য বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে চোখ তাদের। আসন্ন ৩ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে টাইগারদের হোয়াইটওয়াশ করে এ পথে এগিয়ে যেতে চান লংকানরা। দলটির প্রধান নির্বাচক আসান্থা ডি মেল মনে করেন, র‌্যাংকিংয়ে উপরে ওঠার সিঁড়ি হিসেবে তামিম-মুশফিকদের ৩-০ ব্যবধানে হারানো জরুরি। আইসিসি র‌্যাংকিংয়ে আট নম্বরে রয়েছে শ্রীলংকা। দলটির রেটিং পয়েন্ট ৭৯। লংকার চেয়ে ঢের এগিয়ে বাংলাদেশ। ৯০ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে সাত নম্বরে আছে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। অবশ্য এ সিরিজে বাংলাদেশকে ধবলধোলাই করলেও র‌্যাংকিংয়ে উপরে ওঠা সম্ভব নয় লংকানদের। তবে রেটিং পয়েন্টে কিছুটা উন্নতি হবে তাদের। ডি মেল বলেন, এ সিরিজে আমাদের প্রধান লক্ষ্য র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি করা। আমরা আট নম্বরে আছি এবং তারা সাত নম্বরে। উপরের স্থান অর্জন করতে বাংলাদেশকে ৩-০ ব্যবধানে হারাতে হবে। মইয়ে এক ধাপ উপরে ওঠার দিকেই নজর আমাদের। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ-শ্রীলংকা ৩ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ। ২৬ জুলাই হবে সিরিজের প্রথম ম্যাচ। দ্বিতীয় ম্যাচ গড়াবে ২৮ জুলাই। ৩১ জুলাই সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ খেলবে দুই দল। সিরিজ শুরুর আগে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ-শ্রীলংকা। সব ম্যাচই হবে কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে।

বিশ্বকাপে সহযোগী দলগুলোকে দেখতে চান রশিদ খান

ক্রীড়া প্রবিবেদক ॥ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পরই তিন ফর্মেটেই আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের নতুন অধিনায়ক নির্বাচিত হয়েছেন স্পিন তারকা রশিদ খান। তিন ফর্মেটেই আরো ধারাবাহিক হতে দলের কি প্রয়োজন, প্রিয় টেস্ট ভেন্যু,আগামী বিশ্বকাপসহ অনেক কিছু নিয়ে কথা বলেছেন ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোর সঙ্গে। প্রশ্ন : অধিনায়কত্ব পেয়ে বিস্মিত হয়েছেন? রশিদ: না। বআমি মোটেই বিস্মিত হয়নি। আমি আগে থেকেই । সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছিলাম, যার অর্থ হচ্ছে আপনি আগামী অধিনায়ক। মানসিকভাবে আমি এ জন্য প্রস্তুত ছিলাম। হ্যাঁ, খুব দ্রুতই এটা ঘটেছে। তবে যখন জাতীয় দল, দেশের বিষয়টি আসবে তখন অবশ্যই নেতৃত্ব দেয়ার জন্য আপনাকে সব সময় প্রস্তুত থাকতে হবে। সাধ্যমত আমি সর্বোচ্চ চেস্টা করব। প্রশ্ন : আপনার কাছ থেকে আফগানিস্তানের কি দরকার আছে? রশিদ : অনেক কিছুই করতে হবে। একজন নেতা হিসেবে এখান থেকে আমাদের পদক্ষেপ নিতে হবে। আমরা বিশ্বকাপ দেখছি, আমরা প্রতিপক্ষ দলগুলো দেখেছি, তাদের জন্য সঠিক প্রস্তুতি কি হওয়া উচিত এবং আমাদের খুব শক্ত মানসিকতার হতে হবে। এ ধরনের প্রতিযোগিতার জন্য আমাদের পুরোপাুরি ফিট থাকতে হবে এবং আমাদের ভালভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে। এ বিষয়গুলো আমাদের অর্জন করতে হবে। এই মুহূর্তে আমরা সহযোগি দেশগুলোর বিপক্ষে খেলছিনা। আমরা পুর্ন সদস্য দেশগুলোর বিপক্ষে খেলছি। সুতরাং আমাদের ভাল পরিকল্পনা ও প্রস্তুতি থাকতে হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন বিষয় হচ্ছে ফিটনেস। আমাদের খুব ভাল ফিট থাকতে হবে। যারা যেকোন প্রতিপক্ষকে হারাতে পারে তেমন একটা ভাল দল হতে হলে আগামী বছরগুলোতে আমাদের এ বিষয়গুলোতে উন্নতি ঘটাতে হবে। আমাদের মেধা আছে, দক্ষতা আছে। আমাদের কেবলমাত্র এসব বিষয়ে উন্নতি ঘটাতে হবে।

প্রশ্ন: জাতীয় দলে আসছে আফগানিস্তানের এমন তরুণ খেলোয়াড়দের প্রতি আপনার পরামর্শ কি? রশিদ: প্রথম বিষয় হচ্ছে ফিটনেস। জাতীয় দলে আসলে আপনাকে পুরোপুরি ফিট হতে হবে। আপনি আপনার দেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন। অপর বিষয়টি হচ্ছে আপনার দক্ষতার ওপর আপনার কাজ করতে হবে। বিষয়টা এমন নয় যে, আপনি জাতীয় দলে এসে এ বিষয়ে কাজ শুরু করবেন। একবার জাতীয় দলে প্রবেশ করলে আপনার মানসিকতার বিষয়েও আরো বেশি কাজ করতে হবে। এবং একজন তরুণ তারকা হিসেবে আপনাকে সব সময় আত্মবিশ্বাসী হতে হবে এবং কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। তারপর আপনি যে কোন কিছু অর্জন করতে পারেন।

প্রশ্ন: ২০২৩ বিশ্বকাপকে একটা লক্ষ্য হিসেবে রেখে আফগানিস্তানকে কি করতে হবে? রশিদ: বিষয়টা আমাদের জন্য খুবই বড় একটা চ্যালেঞ্জ। যেমনটা আমি বলেছি, আমাদের মেধা ও দক্ষতা থাকতে হবে। তবে আমাদের উন্নতি ঘটাতে হবে। বড় দলগুলোর বিপক্ষে কিভাবে খেলতে হয় এবং তাদের বিপক্ষে সঠিক প্রস্তুতি কি হওয়া দরকার-আমাদের সেগুলো জানতে হবে। যেমনটা দেখেছি- এই বিশ্বকাপে আমাদের ধুকতে হয়েছে। তবে ২০২৩ বিশ্বকাপ এখনো অনেক দূরে। এই মুহূর্তে আমাদের নজর ও লক্ষ্য অস্ট্রেলিয়ায় ২০২০ টি-২০ বিশ্বকাপ। দেখাব আমরা কতটা ভাল দল এবং গত বিশ্বকাপের তুলনায় আমরা আমরা কতটা ভাল করতে পারছি। আমাদের কেবলমাত্র উন্নতি করা এবং অতীতে যে ভুলগুলো করেছি সেগুলো কমিয়ে আনা দরকার। বিশেষ করে টি-২০তে আমাদের সামর্থ্য আছে এবং অতীতের তুলনায় এখন আমরা আরো ভাল দল। ২০২৩ বিশ্বকাপে আমাদের এখান থেকে শিক্ষা নিতে হবে, ৫০ ওভারের জন্য যথার্থ প্রস্তুতি নিতে হবে। আমরা বড় দলগুলোর বিপক্ষে যত বেশি খেলব, আমরা তত ভাল হবো। সুতরাং আমরা আরো বেশি ম্যাচ এবং বড় দলগুলোর বিপক্ষে সিরিজ খেলতে মুখিয়ে আছি। প্রশ্ন: আপনি টেস্ট দলেরও অধিনায়ক।এ চ্যালেঞ্জটা কিভাবে নিচ্ছেন? রশিদ: টেস্ট ক্রিকেট হচ্ছে আসল ক্রিকেট এবং এখানে সত্যিকারার্থেই তিন ফর্মেটেই আপনার পরীক্ষা মিলবে। আপনি কতটা ধীরস্থির, ঠান্ডা এবং আক্রমন করতে সঠিক সময়ের জন্য অপেক্ষা করতে পারেন-এ বিষয়ের পরীক্ষা মিলবে। সেখানে যদি আমাদের উন্নতি ঘটে তবে সংক্ষিপ্ত ভার্সনের মত সেখানেও আমরা পারফর্ম করতে পারব। আমরা টেস্ট ক্রিকেটের প্রতি অনেক বেশি নজর দিচ্ছি এবং আমাদের কেবল বড় দলগুলোর বিপক্ষে আরো বেশি টেস্ট খেলা দরকার। দেশে চার দিনের ক্রিকেটের আমাদের ভাল একটা অবকাঠামো আছে। সুতরাং সেখানে আমরা উন্নতি করতে পারি। আমরা যথার্থ সুযোগ-সুবিধা এবং মাঠ পাচ্ছি এবং আগামী বছরগুলোতে আপনারা আফগানিস্তান ক্রিকেট থেকে তারকা দেখতে পাবেন। প্রশ্ন: পুর্ন সদস্য হওয়ার আগে আফগানিস্তান এক সময় সহযোগি সদস্য ছিল। আপনি কি মনে করেন ৫০ ওভার ফর্মেটে ২০২৩ বিশ্বকাপের পর আরো বেশি সহযোগি দেশ থাকা উচিৎ( আগামী ২০২৩ বিশ্বকাপেও ১০ দলের বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে আছে)? রশিদ: অবশ্যই। এমনটা হলে প্রতিদ্বন্দিতা খুব বেশি উপভোগ্য হবে। ঐ সকল দল যদি আসে এবং বড় দলগুলোর বিপক্ষে ভাল করতে শুরু করেৃঅতীতে আমরা দেখেছি সহযোগি দেশগুলো বিশ্বকাপ খেলেছে এবং তারা পুর্ন সদস্য দেশগুলোকেও হারাতে পারে। যেমন ইংল্যান্ডকে হারিয়েছে আয়ারল্যান্ড। এটা ঘটেছে। সহযোগি দেশগুলো সে ধরনের পারফরমেন্স করেছে। তারা কঠোর পরিশ্রম করছে এবং সব সময়ই তারা বিশ্বকাপ খেলতে চায়। সুতরাং আমি অবশ্যই চাইব সহযোগি দেশগুলো বিশ্বকাপ খেলুক। এর মাধ্যমে দলগুলো বুঝতে পারবে-উন্নতি করতে তাদের কতটা কঠোর পরিশ্রম দরকার, নিজেদের দক্ষতা ও ক্রিকেটের জন্য আরো কত বেশি কঠোর পরিশ্রম তাদের করতে হবে। প্রশ্ন একজন টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে আপনি কোন ভেনুূতে নামতে পছন্দ করেন?

রশিদ: লর্ডস। লর্ডসে একটা টেস্ট খেলা সব সময়ই অনেক বেশি গর্ব ও আনন্দের মুহূর্ত। অধিনায়কের কথা ভুলে যান নিজ দেশর হয়ে সেরা একাদশে লর্ডসে টেস্ট খেলাই একটা স্বপ্নের চেয়েও অনেকক বেশি বড়। লর্ডসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট খেলতে পারলে আমি খুশি হবো। অপর প্রিয় ভেন্যু এডিলেড। এডিলেডে আমি দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে চাই। এটা এমন একটা কিছু- আমি যার স্বপ্ন দেখি। প্রশ্ন: কেন? রশিদ: আমি এ দুই ভেন্যুতে খেলতে পছন্দ করি। টেস্ট ক্রিকেট পাঁচ দিনের। সুতরাং আপনি বার বার আসবেন এবং প্রতি দিন খেলবেন। যেটা করতে আমি ভালবাসি। এবং এ দুটি গ্রাউন্ড আমার প্রিয়।

 

পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে বিশ্ব সেরা করতে চান ইমরান খান

ক্রীড়া প্রবিবেদক ॥ ইংল্যান্ডের মাটিতে সদ্য সমাপ্ত বিশ্বকাপ থেকে বাজেভাবে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়ার পর পাকিস্তান দলের উন্নতি ঘটাতে চান দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাকিস্তানকে ‘বিশ্ব সেরা ক্রিকেট’ দলে পরিণত করতে তিনি একটি পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছেন বলে আমেরিকায় বসবাসকারী পাকিস্তানী-আমেরিকানদের কাছে অঙ্গীকার করেন প্রধানমন্ত্রী। ওয়াশিংটন ডিসিতে পাকিস্তানী- আমেরিকানদের এক সমাবেশ বক্তব্যকালে এ অঙ্গীকার করেন ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ইমরান। পাকিস্তান ক্রিকেটকে পুনর্গঠন করবেন বলে জানান তিনি। সম্প্রতি বিশ্বকাপ ফাইনালে পাকিস্তান দলের দুর্বল পারফরমেন্সে কথা উল্লেখ করে ইমরান বলেন, ‘সেরা খেলোয়াড়দের দলে এনে আগামী টুর্নামেন্টে পাকিস্তানকে বিশ্ব সেরা ক্রিকেট দলে পরিণত করতে ইতোমধ্যেই তিনি কাজ শুরু করেছেন।’ ১৯৯২ বিশ্বকাপ জয়ী পাকিস্তান দলের নেতৃত্ব দেয়া প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বকাপের পর আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমি এই পাকিস্তান দলটির উন্নতি ঘটাবো। আমি পাকিস্তান ক্রিকেটকে পুনর্গঠন করছি। এখানে অনেক ভুল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। আশা করছি পরবর্তী বিশ্বকাপে আপনারা অনেক বেশি পেশারদার, সেরা পাকিস্তান দল দেখবেন। আমার প্রতিশ্রুতি মনে রাখবেন’ তবে নিজের পরিকল্পনার বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি খান। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আমন্ত্রণে বর্তমানে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন ইমরান খান। আইসিসি বিশ্বকাপে গত ১৬ জুন চিরপ্রতিদ্বন্দি ভারতের কাছে হেরে যাওয়ার ভয় দূর করার জন্য খান দেশের ক্রিকেট দলকে কিছু উৎসাহ ব্যঞ্জক কথা বলেন । তিনি বলেন নেতিবাচকও রক্ষণাত্মক কৌশলে হারাতে ভয়। দশ দলের টুর্নামেন্টে সেমিফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয়েছে সরফরাজ আহমেদের দলটি। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সাবেক চেয়ারম্যান নাজাম শেঠি বিশ্বকাপে দলের খারাপ পারফরমেন্সে জন্য বর্তমার বোর্ডকে দায়ী করেছেন।

 

বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপ্সে ৬২তম জুয়েল

ক্রীড়া প্রবিবেদক ॥ বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপ্সে ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে হতাশ করেছেন জুয়েল আহমেদ। ৬৩ প্রতিযোগীর মধ্যে ৬২তম হয়েছেন তিনি। দক্ষিণ কোরিয়ার গুয়াঞ্জুতে ১ মিনিট ৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে সাঁতার শেষ করা জুয়েল জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে গড়া নিজের সেরা টাইমিংয়ের ধারে কাছেও যেতে পারেননি। গত মার্চে ১ মিনিট ০ দশমিক ৭৬ সেকেন্ড সময় নিয়েছিলেন জুয়েল। এ ইভেন্টে হিট পেরিয়ে সেমি-ফাইনালে ওঠা ১৮ প্রতিযোগীর মধ্যে সর্বশেষ জনের টাইমিং ৫৪ দশমিক ০৭ সেকেন্ড। এর আগে ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে ১ মিনিট ৭ দশমিক ৭৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৮৭ প্রতিযোগীর মধ্যে ৭৮তম হন বাংলাদেশের আরেক সাঁতারু আরিফুল ইসলাম।

ধোনিকে ছাড়াই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভারত

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ মহেন্দ্র সিং ধোনির ভবিষ্যৎ নিয়ে তুমুল জল্পনা-কল্পনার মধ্যে অভিজ্ঞ এই কিপার-ব্যাটসম্যানকে ছাড়াই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের দল ঘোষণা করেছে ভারত। দল ঘোষণার সময় রোববার প্রধান নির্বাচক এমএসকে প্রসাদ জানান, এই সফরে না খেলার কথা আগেই জানিয়েছিলেন ধোনি। তাই দল গঠনের সময় ৩৮ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারকে বিবেচনায় নেননি নির্বাচকরা। পুরো সফরেই বিশ্রামে থাকবেন অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে বিশ্রাম পেয়েছেন পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ। চোট কাটিয়ে এক বছর পর টেস্ট দলে ফিরেছেন ঋদ্ধিমান সাহা। টেস্টে তার সঙ্গে উইকেটরক্ষক হিসেবে থাকা রিশাব পান্ত আছেন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলেও।  চোট কাটিয়ে ফিরেছেন অফ স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। টেস্ট দলে স্পিন আক্রমণে তার সঙ্গী রবীন্দ্র জাদেজা ও কুলদীপ যাদব। এখনও কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলা পেসার নবদীপ শাইনি আছেন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলে। লেগ স্পিনার রাহুল চাহার ডাক পেয়েছেন টি-টোয়েন্টি দলে। শ্রেয়াস আয়ার, মনিশ পান্ডে ও খলীল আহমেদ ফিরেছেন ওয়ানডে দলে। বাদ পড়েছেন দিনেশ কার্তিক। আঙুলের চোটে বিশ্বকাপের মাঝপথ থেকে দেশে ফিরে যাওয়া বাঁহাতি ওপেনার শিখর ধাওয়ান ফিরেছেন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলে। ওই টুর্নামেন্টেই পায়ের আঙুলে চোট পাওয়া বিজয় শঙ্কর এখনও পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠতে পারেননি। বিশ্বকাপ থেকেই দলে ধোনির জায়গা নিয়ে বিতর্ক চলছে। তার অবসরের ব্যাপারেও চলছে জল্পনা-কল্পনা। ভারতের প্রধান নির্বাচক প্রসাদ এই ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ধোনির না খেলার কোনো নির্দিষ্ট কারণ জানাননি তিনি।  ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিনটি করে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে এবং দুটি টেস্ট খেলবে ভারত। ৩ অগাস্ট ফ্লোরিডায় প্রথম টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু হবে সফর। টেস্টের ভারত দল: মায়াঙ্ক আগারওয়াল, লোকেশ রাহুল, চেতেশ্বর পুজারা, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), অজিঙ্কা রাহানে, হনুমা বিহারী, রোহিত শর্মা, রিশাব পান্ত (উইকেটরক্ষক) ঋদ্ধিমান সাহা (উইকেটরক্ষক), রবিচন্দ্রন অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব, ইশান্ত শর্মা, মোহাম্মদ শামি, জাসপ্রিত বুমরাহ, উমেশ যাদব। ওয়ানডের ভারত দল: লোকেশ রাহুল, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), শ্রেয়াস আয়ার, মনিশ পান্ডে, রোহিত শর্মা, রিশাব পান্ত (উইকেটরক্ষক), রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব, যুজবেন্দ্র চেহেল, কেদার যাদব, মোহাম্মদ শামি, ভুবনেশ্বর কুমার, খলীল আহমেদ, নবদীপ শাইনি। টি-টোয়েন্টির ভারত দল: লোকেশ রাহুল, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), শ্রেয়াস আয়ার, মনিশ পান্ডে, রোহিত শর্মা, রিশাব পান্ত (উইকেটরক্ষক), ক্রুনাল পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, ওয়াশিংটন সুন্দর, রাহুল চাহার, দীপক চাহার, ভুবনেশ্বর কুমার, খলীল আহমেদ, নবদীপ শাইনি।

দ্রুত রিয়াল ছাড়ছেন বেল – জিদান

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ রিয়াল মাদ্রিদে গ্যারেথ বেলের সময় ফুরিয়ে যাওয়াটা অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গেছে জিনেদিন জিদানের মন্তব্যে। দলটির কোচ জানিয়েছেন, এই গ্রীষ্মে ওয়েলসের ফরোয়ার্ডের ট্রান্সফার নিয়ে কাজ করছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। শনিবার ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৩-১ গোলে হেরে যাওয়া ম্যাচে বেলকে খেলাননি জিদান। ম্যাচের পর ৩০ বছর বয়সী ওয়েলস ফরোয়ার্ডের না খেলা নিয়ে ওঠা প্রশ্নের উত্তরে রিয়াল কোচ জানান বেলকে দলে প্রয়োজনের অতিরিক্ত অনুভব করছেন তিনি। “বেল খেলেনি কারণ সে চলে যাওয়ার খুব কাছাকাছি আছে। আমরা আশা করি, সে দ্রুতই চলে যাবে। এটা সবার জন্য সবচেয়ে ভালো হবে। তাকে নতুন দলে পাঠানোর জন্য আমরা কাজ করছি।” “একটা সময় আসে, যখন বিষয়গুলো শেষ হয়ে যায়; কেননা সেটা হতেই হয়। আমাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আমাদেরকে বদলাতে হবে।” “এই চলে যাওয়াটা কোচের সিদ্ধান্ত এবং খেলোয়াড়ের সিদ্ধান্তও, যে নিজেও পরিস্থিতিটা জানে।” “পরিস্থিতি বদলাবে। আমি জানি না এটা ২৪ বা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কিনা কিন্তু বদলাবে। এটা সবার জন্যই ভালো।” সূত্রগুলো ইএসপিএনকে নিশ্চিত করেছে, বেলকে আনার ব্যাপারে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড জোর চেষ্টা করছে না। মঙ্গলবার স্পেনের  দৈনিক মার্কা জানায়, বেলের সাবেক ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পার তাকে ফিরিয়ে আনার প্রস্তাব দিয়েছে। ২০২২ সালে পর্যন্ত রিয়ালের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ বেল গত মৌসুমে দলের হয়ে ৪২ ম্যাচ খেলেন। এর মধ্যে ২১ ম্যাচে ছিলেন শুরুর একাদশে। চোট সমস্যায় গত চার মৌসুমে লা লিগায় সম্ভাব্য ১৫১ ম্যাচের মধ্যে মাত্র ৭৯টি ম্যাচ খেলতে পারেন তিনি।

নেইমারের কাছে ডিফেন্ডার হিসেবে রামোস সেরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ যাদের মুখোমুখি হয়েছেন তাদের মধ্যে ডিফেন্ডার হিসেবে রিয়াল মাদ্রিদের সের্হিও রামোসকে সেরা মনে করেন পিএসজির ফরোয়ার্ড নেইমার। বার্সেলোনায় থাকার সময় বেশ কয়েকবার রামোসের বিপক্ষে খেলেছেন নেইমার। স্প্যানিশ ক্রীড়া  দৈনিক মার্কা জানায়, এক অনুষ্ঠানে নিজের মুখোমুখি হওয়া সবচেয়ে কঠিন ডিফেন্ডার হিসেবে রিয়াল মাদ্রিদের অধিনায়কের নাম বলেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। “যাদের বিপক্ষে আমি খেলেছি, তার মধ্যে সের্হিও রামোস সেরা।” “সে দুর্দান্ত একজন সেন্টার-ব্যাক। আরও ভালো যে সে গোলও করতে পারে।” গত বছর রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়া তরুণ ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার ভিনিসিউস জুনিয়রকে নিয়ে নিজের আশাবাদের কথাও জানান নেইমার। “সে খুবই তরুণ একজন খেলোয়াড়। সময়ের সঙ্গে সে অবিশ্বাস্য একজন খেলোয়াড় হয়ে উঠতে পারে।” “ সে অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হয়ে উঠবে এবং ব্যালন ডি’অরের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। সে যেখানে থাকতে চায় সেখানেই থাকবে।”

ঢাকা ডায়নামাইটসে ইংল্যান্ড অধিনায়ক মর্গ্যান

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ওয়েন মর্গ্যানকে দলে নিয়েছে ঢাকা ডায়নামাইটস। প্রথমবারের মতো বিপিএলে খেলবেন বাঁহাতি এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। ২০১৬ সালে ঢাকায় সন্ত্রাসী হামলার পর নিরাপত্তা শঙ্কায় অ্যালেক্স হেলসের মতো দলের সঙ্গে বাংলাদেশ সফরে আসেননি ইংল্যান্ডের নিয়মিত অধিনায়ক মর্গ্যানও। ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিতে ৩২ বছর বয়সী মর্গ্যানের ক্যারিয়ারের বেশ সমৃদ্ধ। ২৬৮ ম্যাচে ১২৮.২৫ গড়ে করেছেন সাড়ে পাঁচ হাজারের বেশি রান। ডাবলিন ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে খেলবেন আসন্ন ইউরো টি-টোয়েন্টি স্ল্যামে। ঢাকায় সঙ্গী হিসেবে পাবেন বিশ্বকাপের আরেক উজ্জ্বল তারকা সাকিব আল হাসানকে। সময়ের সেরা এই অলরাউন্ডার ঢাকার অধিনায়ক। প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি দুই জন করে বিদেশি খেলোয়াড়কে সরাসরি দলে নিতে পারে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বিপিএলের সপ্তম আসর শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। গত আসরে রানার্সআপ হয়েছিল ঢাকা।

 

সেনেগালকে হারিয়ে আফ্রিকা নেশন্স কাপ চ্যাম্পিয়ন আলজেরিয়া

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ সেনেগালকে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো আফ্রিকা নেশন্স কাপের শিরোপা জিতেছে আলজেরিয়া। মিশরের রাজধানী কায়রোয় শুক্রবার শিরোপা লড়াইয়ে ১-০ গোলে জিতে আলজেরিয়া। ১৯৯০ সালে প্রথম এর শিরোপা জিতেছিল দেশটি। ম্যাচের শুরুতেই একমাত্র গোলটি পেয়ে যায় আলজেরিয়া। অধিকাংশ সময় বল দখলে রেখেও ম্যাচে ফিরতে পারেনি সেনেগাল। দ্বিতীয় মিনিটে প্রথম আক্রমণেই এগিয়ে যায় আলজেরিয়া। ডি-বক্সের বাইরে থেকে ফরোয়ার্ড বাগদাদ বুনেজার জোরালো শটে বল প্রতিপক্ষের এক জনের পায়ে লেগে উপরে উঠে গিয়ে ক্রসবার ঘেঁষে জালে জড়ায়। একটু এগিয়ে থাকা গোলরক্ষক যেন ভাবতেই পারেননি বল ভিতরে ঢুকতে পারে, কোনো চেষ্টাও তাই করেননি তিনি। ২০০২ সালে প্রথমবার আফ্রিকা নেশন্স কাপের ফাইনালে উঠে ক্যামেরুনের কাছে হেরে স্বপ্ন গুঁড়িয়েছিল সেনেগালের। এবারের পরাজয়ে প্রথম শিরোপা জয়ের অপেক্ষা তাদের আরও বাড়লো। বুধবার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে তিউনিসিয়াকে ১-০ গোলে হারায় নাইজেরিয়া।

মাশরাফির অনুপস্থিতিতে শ্রীলঙ্কা সফরে অধিনায়ক তামিম

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ চোটের জন্য মাশরাফি বিন মুর্তজা ছিটকে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কায় তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। আগেই ছুটি চাওয়ায় দলে নেই সহ-অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। মাশরাফির সফর শেষ হয়ে যাওয়ায় বিসিবি অধিনায়ক বেছে নেয় ৩০ বছর বয়সী তামিমকে। ২০১৭ সালে মুশফিকুর রহিমের চোটে নিউ জিল্যান্ডে একটি টেস্টে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তামিম। ২০০৭ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান দুই দফায় ছিলেন সহ-অধিনায়ক। ঘরোয়া ক্রিকেটে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই শ্রীলঙ্কায় তিনটি ওয়ানডে খেলতে শনিবার দুপুরে দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ। ২৩ জুলাই খেলবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ। ওয়ানডের বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, তাসকিন আহমেদ, মুশফিকুর রহিম, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, ফরহাদ রেজা, মোসাদ্দেক হোসেন, তাইজুল ইসলাম, এনামুল হক।

কলম্বো পৌঁছেছে বাংলাদেশ দল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ আগামী ২৬ জুলাই থেকে শুরু হতে যাওয়া তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কায় পৌঁছেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। গতকাল শনিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ছয়টার দিকে তামিম ইকবালের নেতৃত্বে ১৪ সদস্যের দলটি কলম্বোতে পৌঁছায়। এর আগে, শনিবার বাংলাদেশ সময় দুপুর একটার দিকে শ্রীলঙ্কার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ে টাইগাররা। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের সব কয়টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ২৬, ২৮ এবং ৩১ জুলাই। বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, এনামুল হক বিজয়, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ মিঠুন, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, ফরহাদ রেজা, তাসকিন আহমেদ। শ্রীলঙ্কা দল: দিমুথ করুনারতেœ (অধিনায়ক), কুশাল পেরেরা, আবিস্কা ফার্নান্দো, কুসল মেন্ডিজ, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, লাহিরু থিরিমান্নে, শেহান জয়সুরিয়া, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, নিরোশান দিকবেলা, দাসুন সানাকা, বান্দিু হাসারাঙ্গা, আকিলা ধনঞ্জয়া, আমিলা আপনসো, লক্ষণ সান্দাকান, লাসিথ মালিঙ্গা, নুয়ান প্রদীপ, কাসুন নাজিথা, লাহিরু কুমারা, থিসারা পেরেরা, ইসুরু উদানা, লাহিরু মুদাশাংকা।

 

পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রতি ওয়াসিম আকরামের পরামর্শ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ গত রোববার লর্ডসে ফাইনাল ম্যাচের মধ্যদিয়ে শেষ ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ। টুর্নামেন্টে আশানুরূপ পল করতে পারেনি পাকিস্তান ক্রিকেট দল। এরপরই নিজ দলের প্রতি কিছু পরামর্শ দিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও লিজেন্ডারি ফাস্ট বোলার ওয়াসিম আকরাম। তার মতে বিশ্ব ক্রিকেটে শক্তভাবে দাঁড়াতে চাইলে পাকিস্তান দলকে তাদের ফিল্ডিংয়ের মান উন্নত করতে হবে। স্থানীয় গণমাধ্যমকে আকরাম বলেন, ‘এবারের বিশ্বকাপে আমরা দেখেছি ভারতসহ ব্যাটিং এবং বোলিং দক্ষতা ছাড়াও ফিল্ডিংয়ে শক্তিশালী দলগুলো সেমিফাইনালে উঠেছে। যদিও সেমিতে ভারত পরাজিত হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘একটা দল কিভাবে তাদের ফিল্ডিংয়ের উন্নতি ঘটাকে? প্রথমমত একজনকে বিশেষ করে ৫০ ওভার ফর্মেটে শারিরীকভাবে ফিট হতে হবে। পাকিস্তান দলকে শারীরিকভাবে ফিট হওয়া শিখতে হবে এবং অন্য সকল দলের ন্যায় তাদের উঁচুমানের ফিল্ডিং অব্যাহত রাখতে হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘ভারত, বাংলাদেশ যদি তাদের ফিল্ডিংয়ের মানোন্নয়ন ঘটাতে পারে তবে আমরাও পারব।’ পাকিস্তান দলের ফিল্ডিংয়ের মান কখনোই খুব ভাল ছিলনা এবং নিয়মিতভাবে ক্যাচ ফেলে দেয়া অব্যাহত থাকায় এবারের টুর্নামেন্টেও তার প্রমান মিলেছে। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা, আফগানিস্তান, নিউজিল্যান্ড ও বাংলাদেশের বিপক্ষে টানা চারটিসহ লীগ পর্বে নয় ম্যাচের মধ্যে পাঁচটি জিতে জয়ের ধারায়ই টুর্নামেন্ট শেষ করতে পেরেছে পাকিস্তান।

ইংল্যান্ডের সমান আয় একা জোকোভিচের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ক্রিকেট নিয়ে যত মাতামাতি হোক, টেনিসে বিজয়ী যে অর্থপুরস্কার পান, তার ধারেকাছে নেই তিন কাঠির খেলা। ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের প্রাইজমানির সমান অর্থ একাই পেয়েছেন নোভাক জোকোভিচ। গত রোববার লর্ডসে বিশ্বকাপ ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। আর উইম্বলডন সেন্টার কোর্টে মুখোমুখি হয়েছিলেন নোভাক জকোভিচ ও রজার ফেদেরার। দুটি খেলাই শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত ছিল টানটান উত্তেজনাপূর্ণ। ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন হয় ইংল্যান্ড। আর উইম্বলডন জেতেন জোকোভিচ। বিশ্বকাপের মোট পুরস্কারমূল্য ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এ পরিমাণ অর্থ বিশ্বকাপজয়ী দল, পরাজিত ফাইনালিস্ট এবং সেমিফাইনালে হেরে যাওয়া অপর দু’দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়ের মধ্যে ভাগ করে দেয় আইসিসি। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড পেয়েছে চার মিলিয়ন মার্কিন ডলার। রানার্সআপ নিউজিল্যান্ড পেয়েছে দুই মিলিয়ন মার্কিন ডলার। সেমিফাইনালে পরাজিত দু’দল আট লাখ মার্কিন ডলার করে পেয়েছে। মজার বিষয় হল, উইম্বলডনের মোট পুরস্কার মূল্য ৪৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা আইসিসি বিশ্বকাপের পুরস্কারমূল্যের প্রায় পাঁচগুণ। জোকোভিচ ও সিমোনা হালেপ একাই পেয়েছেন ৩.?১৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ফিফা বিশ্বকাপের পুরস্কারমূল্য ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ফাইনালের প্রায় ছয়গুণ বেশি পুরস্কারমূল্য ফিফা বিশ্বকাপ ফাইনালের। এবারের ফিফা বিশ্বকাপ জয়ী দল ফ্রান্স পেয়েছে ৩৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়া ২৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

ক্যান্সারে আক্রান্ত ইয়ান চ্যাপেল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক ও বর্তমান ধারাভাষ্যকার ইয়ান চ্যাপেল স্কিন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে শুরুতেই এটি ধরা পড়ায় তিনি এখন রেডিওথেরাপি নিচ্ছেন। ৭৫ বছর বয়সী চ্যাপেল অস্ট্রেলিয়ার জার্সি গায়ে ১৯৬৪ থেকে ১৬ বছরে ঠিক ৭৫টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। তিনি নিজেই জানিয়েছেন ক্যান্সারের কথা। তবে সবাইকে আশ্বস্ত করে নিশ্চিত করেছেন আগস্টের ১ তারিখ থেকে শুরু হতে যাওয়া অ্যাশেজ সিরিজেও ধারাভাষ্য কক্ষে থাকবেন তিনি। এরই মধ্যে পাঁচ সপ্তাহের চিকিৎসায় কাঁধ, ঘাড় ও বগল থেকে ক্যান্সারের জীবাণু দূর করেছেন চ্যাপেল। তিনি বলেন, ‘আমি ইচ্ছে করেই শুরুতে কাউকে কিছু বলিনি। কারণ আমি নিশ্চিত ছিলাম না রেডিওথেরাপিতে কী হয় এবং এটা আমাকে কতোটা ক্লান্ত করে ফেলবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘তবে থেরাপি শুরুর পর দেখলাম এটা খুব একটা খারাপ নয়। রাতে খানিক ক্লান্তি এবং ত্বকে জ্বালাপোড়া ছাড়া বাকি কোনো সমস্যাই হয় না। আমি শুরুতে আমার পরিবার ও কিছু বন্ধুকে জানিয়েছি। সবাই নিয়মিত খোঁজ রাখছে। যা খুবই দারুণ ব্যাপার।’ ইয়ান চ্যাপেলের আগে একই রোগে আক্রান্ত হয়ে ২০১৫ সালে পরলোক গমন করেছেন আরেক প্রখ্যাত ধারাভাষ্যকার রিচি বেনো। ২০১২ সালে ফুসফুস ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেছেন টনি গ্রেগ। তাদের মৃত্যুর পর থেকেই এসব রোগের আক্রমণকে স্বাভাবিক হিসেবেই ধরে নিয়েছেন চ্যাপেল। তিনি বলেন, ‘যখন রিচি এবং টনি চলে গেল…তখন যেনো আবারও মনে করিয়ে দেয়া হলো যে এটি সবার সঙ্গেই হবে।’

আইসিসির হল অব ফেমে জায়গা পেলেন শচিন

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বৃহস্পতিবার লন্ডনে জাঁকজমকপূর্ণ এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে আইসিসির হল অব ফেমে জায়গা করে দেয়া হয়েছে ভারতীয় কিংবদন্তি শচিন টেন্ডুলকার, দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার অ্যালান ডোনাল্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রমীলা ক্রিকেটার ক্যাথরিন ফিৎজপ্যাট্রিককে। আরও আগেই আইসিসির এ সম্মানসূচক স্থানটি পেতে পারতেন শচিন। তবে নিয়মে বলা রয়েছে অবসরের পাঁচ বছরের মধ্যে কাউকে হল অব ফেমে জায়গা দেয়া যাবে না। তাই ২০১৩ সালে অবসর নেয়া শচিনকে হল অব ফেমে নিতে ২০১৯ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হলো আইসিসিকে। ভারতের ষষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে এ সম্মান পেলেন শচিন। তার আগে যথাক্রমে সুনিল গাভাস্কার, বিষাণ সিং বেদি, কপিল দেব, অনিল কুম্বলে এবং রাহুল দ্রাবিড় পেয়েছেন এ সম্মান। এ খুশির উপলক্ষে শচিন বলেন, ‘আজ এ আনন্দের দিনে আমি প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানাতে চাই, যারা পুরো ক্যারিয়ার জুড়ে আমার পাশে ছিলেন, সাহস দিয়েছে। আমার বাবা-মা, ভাই অজিত এবং স্ত্রী অঞ্জলি আমার শক্তির উৎস ছিল। ক্যারিয়ার শুরুর সময় রামাকান্ত আর্চেকারের মতো একজনকে কোচ হিসেবে পাওয়া আমার সৌভাগ্য ছিল।’ এদিকে তর্কসাপেক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার সবচেয়ে দ্রুতগতির বোলার ধরা হয় অ্যালান ডোনাল্ডকে। যে কারণে তার নামই দেয়া হয়েছে ‘হোয়াইট লাইটনিং’। প্রোটিয়া জার্সি গায়ে টেস্টে ৩৩০ ও ওয়ানডেতে ২৭২ উইকেট শিকার করেছেন ডোনাল্ড। এছাড়া বিশ্বের অষ্টম নারী ক্রিকেটার হিসেব হল অব ফেমে জায়গা পেয়েছেন ফিৎজপ্যাট্রিক। যিনি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে জিতেছেন দুইটি বিশ্বকাপ। তাকেই ধরা হতো সবচেয়ে দ্রুতগতির প্রমীলা পেসার। ১৬ বছরের ক্যারিয়ারে অসিদের হয় ১৩ টেস্টে ৬০ এবং ১০৯ ওয়ানডে ১৮০ উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

 

আফগানিস্তানের বিপক্ষে পাত্তাই পেল না বাংলাদেশ ‘এ’ দল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ মোহাম্মদ মিঠুন, সাব্বির রহমান ও এনামুল হকের ব্যর্থতার দিনে আফগানিস্তান ‘এ’ দলের বিপক্ষে পাত্তাই পায়নি বাংলাদেশ ‘এ’ দল। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে একপেশে ম্যাচে ১০ উইকেটে হেরেছে স্বাগতিকরা। ২০২ রানের লক্ষ্য ৩৭ বল বাকি থাকতে ছুঁয়ে ফেলে আফগানিস্তান। হারের হতাশার সঙ্গে যোগ হয়েছে রুবেল হোসেনের চোট শঙ্কা। প্রাথমিক অবস্থায় অবশ্য তা গুরুতর নয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে শুক্রবার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করে বাংলাদেশ। থিতু হয়ে ইমরুল কায়েসের বিদায়ে ভাঙে ৫২ রানের উদ্বোধনী জুটি। এরপর আর তেমন কোনো জুটি গড়তে পারেনি স্বাগতিকরা। দ্রুত ফিরেন মিঠুন। থিতু হয়ে বিদায় নেন এনামুল। দুই ব্যাটসম্যানই ফিরেন করিম জানাতের বলে বোল্ড হয়ে। চারে নেমে দুই অঙ্ক ছুঁয়ে বিদায় নেন সাব্বির। ১০৬ রানে ৬ উইকেট হারানো বাংলাদেশকে দুইশ রানে নিয়ে যান আফিফ হোসেন ও ফরহাদ রেজা। অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার আফিফ চারটি বাউন্ডারিতে ৭১ বলে করেন ৫৯ রান। দুই ছক্কায় ৩০ রান করেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার রেজা। ছোট লক্ষ্য শুরুর জুটিতেই ছুঁয়ে ফেলে আফগানিস্তান। আট বোলার ব্যবহার করেও রহমানউল্লাহ গুরবাজ ও ইব্রাহিম জাদরানের জুটি ভাঙতে পারেনি বাংলাদেশ। ১৩৮ বলে তিন ছক্কা ও ১১ চারে ১০৫ রানে অপরাজিত ছিলেন রহমানউল্লাহ। ১২৫ বলে আট চার ও দুটি ছক্কায় ৮৬ রান করেন ইব্রাহিম। অষ্টম ওভারটি শেষ করতে পারেননি রুবেল। ২৪ রান দিয়ে উইকেট শূন্য থাকেন এই পেসার। দলের সঙ্গে থাকা নির্বাচক হাবিবুল বাশার জানান, গোড়ালির গাঁটে চোট পেয়েছেন রুবেল। সতর্কতার অংশ হিসেবে পরে আর বোলিং করেননি। সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ ‘এ’ দল: ৫০ ওভারে ২০১/৮ (ইমরুল ২৮, এনামুল ১৯, মিঠুন ৩, সাব্বির ১৫, মাহমুদ ৯, আফিফ ৫৯, মেহেদি ৪, রেজা ৩০, নাজমুল ১৩*, রুবেল ২*; শারজাদ ০/৪৩, নাভিন ২/৪৯, করিম ২/১৭, ফজল ১/২৬, আশরাফ ১/২৮, কায়েস ১/৩০)। আফগানিস্তান ‘এ’ দল: ৪৩.৫ ওভারে ২০২/০ (রহমানউল্লাহ ১০৫*, ইব্রাহিম ৮৬*; রুবেল ০/২৪, আবু জায়েদ ০/৩৬, অপু ০/৩৬, রেজা ০/৩৬, মেহেদি ০/২৬, সাব্বির ০/২৩, আফিফ ০/১৬, মাহমুদ ০/১)। ফল: আফগানিস্তান ‘এ’ দল ১০ উইকেটে জয়ী।

টটেনহ্যাম থেকে আতলেতিকোয় ট্রিপিয়ার

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ টটেনহ্যাম হটস্পার থেকে ইংল্যান্ডের ডিফেন্ডার কিরান ট্রিপিয়ার আতলেতিকো মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন।

লা লিগার ক্লাবটির সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি হয়েছে ট্রিপিয়ারের। ২৮ বছর বয়সী এই রাইট ব্যাককে কিনতে কত খরচ হয়েছে তা অবশ্য জানায়নি স্পেনের ক্লাবটি। তবে ব্রিটিশ গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, দুই কোটি পাউন্ড গুণতে হয়েছে দলটিকে। ২০১৫ সালে বার্নলি থেকে টটেনহ্যামে যোগ দিয়ে দলটির হয়ে ১০০ এর বেশি ম্যাচ খেলেছেন ট্রিপিয়ার। লন্ডনের ক্লাবটির সঙ্গে ২০২২ সাল পর্যন্ত চুক্তি ছিল তার। ২০১৮ সালে রাশিয়া বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের সেমি-ফাইনালে ওঠায় বড় অবদান ছিল ট্রিপিয়ারের। শেষ চারে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ২-১ গোলে হারের ম্যাচে ফ্রি-কিক থেকে গোল করেছিলেন তিনি। আর গত মৌসুমে টটেনহ্যামের প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ওঠাতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল ট্রিপিয়ারের। এবারের গ্রীষ্মে এই নিয়ে তৃতীয় ডিফেন্ডার হিসেবে আতলেতিকোয় যোগ দিলেন ট্রিপিয়ার। এর আগে দুই ব্রাজিলিয়ান সেন্টার-ব্যাক ফেলিপে ও লেফট-ব্যাক রেনান লোদিকে দলে নিয়েছিলেন কোচ দিয়েগো সিমেওনে।