আজ বৃক্ষ মেলার সমাপনী

কৃষি প্রতিবেদক \ গত ৫ জুলাই কুষ্টিয়া কালেক্টরেট চত্বরে শুরু হওয়া দশ দিনব্যাপী বৃক্ষ মেলার সমাপনী আজ বিকেলে জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানাগেছে। নানা অব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া বৃক্ষ মেলা শেষ পর্যমত্ম নিরবেই বিদায় নিচ্ছে। সাধারণকে বৃক্ষ রোপণের প্রতি আগ্রহী করতে এবং নানা প্রজাতির বৃক্ষের সাথে পরিচিতি ঘটাতে বৃক্ষ মেলার আয়োজন করা হলেও কেবল প্রচারণার অভাবে শেষ পর্যমত্ম লোকসমাগম ছাড়াই ইতি টানতে হচ্ছে বৃক্ষ মেলার। বিগত বছরে মেলায় অর্ধশত বৃক্ষ চারা সমৃদ্ধ ষ্টল বসলেও এবার মাত্র ৯টি ষ্টল বসেছিল। এর মধ্যে সরকারী প্রতিষ্ঠানের তিনটি, বিএটিবির প্রদর্শনী স্টল এবং মালিকানা নার্সারী প্রতিষ্ঠান ৫টি। মালিকানা এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বৃক্ষ চারা প্রদর্শন করেছে আকাবা নার্সারী, আলমগীর নার্সারী এবং সরকার ফাউন্ডেশনের ‘আদর্শ গ্রাম নার্সারী’। প্রচারণার অভাবে ক্রেতা সমাগম না ঘটায় নার্সারী প্রতিষ্ঠানের যেমন লোকসান গুনতে হয়েছে অনুরূপ কুষ্টিয়ার সাধারণ মানুষ প্রযুক্তিগত উপায়ে উৎপাদিত নানা প্রজাতির উচ্চ ফলনশীল বৃক্ষের সাথে পরিচিতি থেকে বঞ্চিত হয়েছে। আয়োজনের ভিতরকার এ সব অব্যবস্থাপনা চলতে থাকলে আগামীতে কুষ্টিয়ায় বৃক্ষ মেলার আয়োজন হবে কিনা এনিয়ে সাধারণের মাঝে সংশয় দেখা দিয়েছে।

’যে কোনো উইকেটে জেতার সামর্থ্য ভারতের আছে’ঃ হরভজন সিং

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ স্পিনার হরভজন সিং বলেছেন, ইংল্যান্ডের কঠিন পরিবেশ জয় করে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ জেতার মতো খেলোয়াড় পূর্ণ শক্তির ভারতীয় দলের রয়েছে বলে মনে করছেন। হিন্দুস্তান টাইমসকে হরভজন বলেন, ‘ইংল্যান্ডে সবুজ, পেস ও বাউন্সি উইকেট আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে। কিন্তু এতে মন খারপ করার কিছুই নেই। কেননা আমরা জানি, যে কোনো উইকেটে জেতার সামর্থ্য আমাদের আছে। ইংল্যান্ডের মাটিতে ইংল্যান্ডকে হারানোর ক্ষমতা আমাদের আছে। উইকেট যেমনই হোক, আমাদের সঠিক লেন্থে- বল করতে হবে পরিকল্পনা অনুযায়ী, বল করে যতো বেশি সম্ভব উইকেট আমাকে নিতে হবে।’ তবে সুনির্দিষ্ট কোনো ব্যাটসম্যানকে আউট করার লক্ষ্য তিনি নির্ধারণ করেননি বলে জানান। বিশ্রামের পাশাপাশি বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় চোটে পড়ায় স?প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর করে খর্ব শক্তির ভারত দল। তারপরও জিতে নেয় টেস্ট ও একদিনের সিরিজ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজে দলে ফিরেছেন মূল খেলোয়াড়দের সবাই। সিরিজের প্রথম খেলা শুরু হবে ২১ জুলাই লর্ডসে। এটি হবে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে ২০০০তম ম্যাচ। এছাড়া সফরে ভারত পাঁচটি একদিনের ও একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে। মূল খেলোয়াড়দের মধ্যে রয়েছেন শচীন টেন্ডুলকার, বীরেন্দর শেবাগ, গৌতম গম্ভির, জহির খান, শান্তাকুমারন শ্রীশান্ত ও যুবরাজ সিং। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তাদের কেউ দলে ছিলেন না। ইংল্যান্ড দল সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে হরভজন সিং বলেন, ‘ইংল্যান্ড বেশ ভালো দল। তবে আমরা যে ফলাফল পেতে চাই তা আদায় করে নিতে পারবো বলে আশা করছি।’ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তিন টেস্টে হরভজন নেন ১১ উইকেট। ডমিনিকায় তৃতীয় ও শেষ টেস্টে ৪০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন হরভজন (৪০৪ উইকেট)। এর আগে ভারতের হয়ে চার শ’র বেশি উইকেট শিকার করেন কেবল লেগ-স্পিনার অনিল কুম্বলে (৬১৯) ও মিডিয়াম পেসার কপিল দেব (৪৩৪)। এর আগে ২০০৭ সালে রাহুল দ্রাবিড়ের নেতৃত্বে ইংল্যান্ডে টেস্ট সিরিজ জেতে ভারত।

আজ উদ্বিগ্ন ব্রাজিলের সামনে ইকুয়েডর

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল কোপা আমেরিকায় চাপে আছে। গ্রুপের (বি) দুই ম্যাচে পয়েন্ট ভাগাভাগি করায় উদ্বিগ্ন সাম্বারা। শেষ ম্যাচে জয় না পেলে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য ভাগ্যই হবে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের একমাত্র অবলম্বন। কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করতে আজ বৃহস্পতিবার (বাংলাদেশ সময় সকাল ৬.৪৫ মিনিটে) গ্রুপের শেষ খেলায় মানো মেনেজেসের দল মুখোমুখি হবে পয়েন্ট তালিকার তলানীতে থাকা ইকুয়েডরের। ইকুয়েডরের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে ব্রাজিলের অনুপ্রেরণা হতে পারে চিরপ্রতিদ্বনদ্বী আর্জেন্টিনা। প্রথম ও দ্বিতীয় ম্যাচে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মেসিদের পিঠ ঠেকে যায় দেওয়ালে। সম্ভাবনা দেখা দেয় প্রতিযোগিতা বিদায় নেওয়ার। কিন্তু শেষ ম্যাচে কোস্টারিকার বিপক্ষে ৩-০ গোলে জিতে সেই সম্ভাবনা মিথ্যা প্রমাণ করে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে সার্জিও বাতিস্তার দল। ‘বি’ গ্রুপের দুই খেলায় চার পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ভেনেজুয়েলা। সমান ম্যাচে দুই পয়েন্ট করে নিয়ে তালিকায় ব্রাজিল দ্বিতীয় আর প্যারাগুয়ের আছে তৃতীয় স্থানে। ইকুয়েডরের পয়েন্ট এক। তাই জয় পেলে কোয়ার্টার নিশ্চিত ব্রাজিলের। আর ড্র হলে তাকিয়ে থাকতে হবে ভেনেজুয়েলা ও প্যারাগুয়ের ম্যাচের ফলাফলের দিকে। এখনো জ্বলে উঠতে পারেননি নেইমার, পাতো ও গানসোরা। কাজ করতে করছে না মানোর ৪-২-১-৩ পদ্ধতির পরিকল্পনাও। দানি আলভেস বলছিলেন,‘‘আমি করি, দলে কার কি ভূমিকা সে বিষয়ে প্রত্যেকেই সর্তক। আমাদের আরও ধারাবাহিক হতে হবে। জনগণ চায় তাৎক্ষণিক সাফল্য। কিন্তু আমরা একেবারে হতাশ করছি না। সমালোচনা থেকে আমরা শিক্ষা নিচ্ছি। আশা করি, ভালো করবো।’’ জয় পেতে বুদ হয়ে থাকা ব্রাজিলকে সামালাতে কিছুটা বেকাদায় পড়তে হবে ইকুয়েডরকে। কেননা চোট পেয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের উইঙ্গার অ্যান্তনিও ভ্যালেন্সিয়া। তাই দলের তারকা খেলোয়াড়কে ছাড়াই বাংলাদেশ সময় ভোর ৬টা ৪৫ মিনিটে ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে তারা। ব্রাজিল সম্ভাব্য স্কোয়াড: হুলিও সিজার, দানিয়েল আলভেস, লুসিও, থিয়াগো সিলভা, আন্দ্রে সান্তোস, লুকাস লেইভা, র‌্যামিরেস, জাদসন, গানসো, নেইমার ও আলেক্সান্দ্রে পাতো। ইকুয়েডর সম্ভাব্য স্কোয়াড: এলিজাগা, রেয়াস্কো, আরেজো, ইরেজো, আইওভি, কাস্তিলো, নোবোয়া, মেন্দেজ, অরোইয়ো, বেনেতিজ ও কেইসেদো।

ইরাকে আরও একটি গণকবরের সন্ধান

আইএনবি \ ইরাকের রাজধানী বাগদাদের দক্ষিণে আরও একটি গণকবরে ২২২টি মৃত দেহের সন্ধান পাওয়া গেছে।  রোববার ইরাকি কর্তৃপক্ষ এই তথ্য জানিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ১৯৮৭ সালে সাবেক প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের শাসনামলে কুর্দিদের হত্যা করে এখানে মাটি চাপা দেওয়া হয়েছিল। গণকবর বিষয়ে দায়িত্বরত মানবাধিকার কর্মকর্তা করিম জিয়াদ গণকবরের সন্ধান পাওয়ার খবর নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, মৃতদেহগুলো নাজাফ প্রদেশের মর্গে পাঠানো হয়েছে। গত বুধবার সানাফিয়াহ অঞ্চলের দিওয়ানিয়াহ শহরের কাছে আরও একটি গণকবর পাওয়ার কথা জানিয়েছিল কর্তৃপক্ষ। এই গণকবরে ৯০০টি মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছিল। জিয়াদ আরো জানান, ৬টি গর্ত বিশিষ্ট এই গণকবরের  লাশগুলোর বেশিরভাগের শরীরেই গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে। এরা প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের শাসনামলে সংগঠিত কুর্দি হত্যাকান্ডের শিকার। সাদ্দাম হোসেনের শাসনামলে সংগঠিত কুর্দি হত্যাকান্ডের গণকবর অনুসন্ধানের বিষয়ে তদন্তরত প্রাদেশিক সততা ও জবাদিহিতা কমিশনের প্রধান দাখিল সৈয়দ জানান, তিনি এখানে ১৭টি গর্ত থাকার কথা শুনেছেন। এই কবরে আরো ১০০টি মৃতদেহ থাকতে পারে বলে জানান দাখিল। ইরাকের মানবাধিকার বিষয়ক মন্ত্রী শিয়া আল-সুদানি জানান, ‘আমাদের কাছে ৮৪টি গণকবরের তালিকা রয়েছে। আমরা এ পর্যন্ত ৩৪টির কাজ শেষ করেছি।’ সাদ্দাম হোসেনের সরকারের কঠোর সমালোচনা এবং বিরোধীতা করার জন্য সে সময়ে কুর্দিদের ব্যাপক হারে হত্যা করা হয়েছিল।

পাকিস্তানে মার্কিন ড্রোন হামলায় ৩০ জঙ্গি নিহত

আইএনবি \ পাকিস্তানের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে সন্দেহভাজন মার্কিন চালকবিহীন বিমান (ড্রোন) হামলায় অন্ততপক্ষে ৩০ জঙ্গি নিহত হয়েছে। আফগান সীমান্তের কাছে ১২ ঘণ্টারও কম সময়ে পৃথক তিন দফা হামলায় জঙ্গিরা নিহত হয় বলে মঙ্গলবার স্থানীয় এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা জানান। উত্তর ওয়াজিরিস্তানে সোমবার রাতে জঙ্গিদের বহনকারী একটি গাড়ি লক্ষ করে ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এতে ছয় জঙ্গি নিহত হয়। পরবর্তী সময়ে জঙ্গিদের একটি কম্পাউন্ডের কাছাকাছি আরো ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হলে ১৯ জঙ্গি নিহত হয় বলে ওই কর্মকর্তা জানান। ওই কর্মকর্তা আরো জানান, সোমবার রাতের পর মঙ্গলবার সকালে দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তানে আবারো ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এতে পাঁচ জঙ্গি নিহত হয়েছে। স্থানীয় গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের বিবৃতি অনুযায়ী রয়টার্সের হিসেবে জুন থেকে এ পর্যন্ত মার্কিন ড্রোন হামলায় ৯০ জনেরও বেশি জঙ্গি নিহত হয়েছে। মার্কিন ড্রোন হামলার বিরুদ্ধে পাকিস্তান নিয়মিত অভিযোগ করে থাকে। তাদের দাবি, এসব হামলার ফলে পাকিস্তানি জনগণের সমর্থন আদায় ও সীমান্তে জঙ্গিদের নির্মূলে ইসলামাবাদ জটিলতার সম্মুখীন হচ্ছে। গত বছরের জানুয়ারিতে সিআইএ’র এক ঠিকাদার দুই পাকিস্তানি নাগরিককে হত্যা করার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে পাকিস্তানের সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হয়। চলতি বছরের মে মাসে পাকিস্তানের সামরিক শহর অ্যাবোটাবাদে এক গোপন আস্তানায় মার্কিন কমান্ডো হামলায় আল কায়েদার শীর্ষনেতা ওসামা বিন লাদেন নিহত হওয়ার পর দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্কে আরো অবনতি ঘটে। বিন লাদেন হত্যা মিশনকে পাকিস্তান তার সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত বলে অভিযোগ করেছে। চলতি সপ্তায় পাকিস্তানকে দিতে চাওয়া ৮০ কোটি মার্কিন ডলারের সামরিক সহায়তা স্থগিত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্য দিয়ে মার্কিন সেনা প্রশিক্ষক কমানো, মার্কিন নাগরিকদের ভিসা সীমিতকরণসহ পাকিস্তানের বিভিন্ন পদক্ষেপে যুক্তরাষ্ট্রের অসন্তুষ্টিই প্রকাশ পেয়েছে।

আফগান সীমান্ত থেকে সেনা সরানোর হুমকি দিল পাকিস্তান

আইএনবি \  পাকিস্তানকে সামরিক সহায়তা দেয়া বন্ধ করা হলে আফগান সীমান্ত থেকে সব সেনা সরিয়ে নেবে ইসলামাবাদ। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে এ হুঁশিয়ারি দিয়েছে পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আহমদ মোখতার। তিনি বলেছেন, আফগান সীমান্তে মোতায়েন প্রায় এক লাখ সেনা এবং এক হাজার একশ’ নিরাপত্তা চৌকি প্রত্যাহার করা হবে। আহমদ মোখতার বলেন, সামরিক সহায়তা হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র যে অর্থ দেয় তার মধ্যে ৩০ কোটি ডলার খরচ হয় আফগান সীমান্তে মোতায়েন পাকিস্তানি সেনাদের পেছনে। এ অর্থ বন্ধ হলে পাকিস্তানি সেনাদের দুর্গম পার্বত্যাঞ্চলে মোতায়েন রাখা কোনোভাবেই সম্ভব হবে না। গত রোববার হোয়াইট হাইজের চীফ অব স্টাফ উইলিয়াম ডালমে এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, পাকিস্তানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক এক কঠিন সময় পার করছে এবং দু’দেশের মধ্যকার সম্পর্ক উন্নয়ন না হলে ইসলামাবাদকে সামরিক সহায়তা দেয়া হবে না। ডালমের এ ঘোষণার পর পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আজ এসব কথা বললেন। এর আগে, গতকাল পাকিস্তানের সেনাবাহিনী বলেছে, মার্কিন সামরিক সহায়তা বন্ধ হলেও তারা তাদের স্বাভাবিক কাজকর্ম অব্যাহত রাখতে পারবে। গত ২ মে সেনা শহরে অ্যাবোটাবাদে মার্কিন কমান্ডো অভিযানের পর পাকিস্তান ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কে টানাপড়েন দেখা দিয়েছে। পাকিস্তান বলছে, ইসলামাবাদকে না জানিয়ে ওই অভিযান চালানো ছিল বেআইনি এবং অবৈধ।

ক্ষমতায় থাকার বৈধতা হারিয়েছেন আসাদ : হিলারি

আইএনবি \ সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ ক্ষমতায় থাকার বৈধতা হারিয়েছেন এবং দেশটির জন্য তিনি ‘অপরিহার্য নন’ বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। আসাদের অনুসারীরা সোমবার দামেস্কে যুক্তরাষ্ট্র ও ফরাসি দূতাবাসে হামলা চালানোর পর এ মন্তব্য করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। একইসঙ্গে তিনি এ হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেন, সিরিয়ার এই একনায়ক তার শাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সামাল দিতে প্রতিশ্রম্নত সংস্কার করবে বলে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বাস করে না। ওয়াশিংটনে ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান ক্যাথেরিন অ্যাস্টোনকে সাথে নিয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের দৃষ্টিকোণ থেকে তিনি বৈধতা হারিয়েছেন, প্রতিশ্রম্নতি পূরণে ব্যর্থ হয়েছেন এবং জনগণকে কিভাবে দমন করতে হয় সে বিষয়ে ইরানের কাছ থেকে সাহায্য নিয়েছেন। ক্লিনটনের এ মন্তব্য থেকে আসাদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান অনেকটাই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। কয়েকমাস ধরে সিরিয়ায় প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদের শাসনের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন চলছে। কিন্তু এই আন্দোলন দমনে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন বাশার। তিনি জনগণের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীকে ব্যবহার করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

নৌঘাঁটি বিস্ফোরণে সাইপ্রাসের নৌপ্রধান নিহত

আইএনবি  \  সাইপ্রাসের নৌসেনা ঘাঁটিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে দেশটির নৌবাহিনীর প্রধান আন্দ্রেস আয়োআন্নিদেস নিহত হয়েছেন। ওই ঘটনায় নিহত ১২ জনের একজন তিনি। সোমবার দক্ষিণ সাইপ্রাসের প্রধান নৌসেনা ঘাঁটি ইভানগেলস ফ্লোরাকিসে ভয়াবহ বিস্ফোরণে ১২ জন নিহত ও ৬২ জন আহত হয়। এদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে বিবিসি জানায়। বিস্ফোরণে শুধু নৌবাহিনী প্রধানই নয়, ইভানগেলস ফ্লোরাকিস নৌঘাঁটির কমান্ডার ল্যামব্রোস ল্যামব্রউও নিহত হয়েছেন। নিহত অন্যান্যদের মধ্যে চারজন নৌবাহিনীর সদস্য ও বাকী ছয়জন অগ্নিনির্বাপন কর্মী। এ ঘটনায় সাইপ্রাসে তিনদিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। ঘটনার জেরে সাইপ্রাসের প্রতিরক্ষামন্ত্রী কোস্তাস পাপাকোস্তাস ও সেনাবাহিনীর প্রধান পেত্রস জালিকিদিস পদত্যাগ করেছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। জঙ্গলের আগুন থেকে নৌঘাঁটির খোলা জায়গায় থাকা বিস্ফোরকে আগুন ধরে গেলে এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন সাইপ্রাসের সরকারী কর্মকর্তারা। সোমবার স্থানীয় সময় ভোর ৬ টার দিকে (বাংলাদেশ সময় সকাল ৯টা) প্রচন্ড বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে দক্ষিণ সাইপ্রাসের জাইজির ইভানগেলস ফ্লোরাকিস নৌসেনা ঘাঁটি। বিস্ফোরণের পর আগুন লেগে সাইপ্রাসের সবচেয়ে বড় বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র পুড়ে যায়। এতে দ্বীপদেশটির অনেক এলাকার বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। সাইপ্রাসের ৬০ শতাংশ বিদ্যুৎ ওই কেন্দ্রটি থেকে উৎপাদিত হতো। সাইপ্রাসের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেছেন, সাম্প্রতিক এক বৈঠকে নৌঘাঁটিটির নিরাপত্তা ব্যবস্থা উন্নত করা দরকার বলে সিদ্ধান্ত হয়েছিল। কিন্তু সেটি কার্যকর করা হয়নি। নিহত নৌপ্রধান আয়োআন্নিদেসের ছেলে অভিযোগ করেছেন, তার বাবা বিস্ফোরকের নিরাপত্তা বিষয়ে বারবার সতর্ক করা সত্ত্বেও নৌবাহিনীর অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তরা বিষয়টি অগ্রাহ্য করেন। ২০০৯ সালে জাহাজযোগে সিরিয়ায় পাঠানো ইরানি বিস্ফোরকের আটককৃত চালানের মালামাল সাইপ্রাসের ওই নৌঘাঁটির খোলা জায়গায় রাখা হয়েছিল। ইরানের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার আওতায় সাইপ্রাস ওই চালান আটক করে। আটক নববই কন্টেইনারেরও বেশি গান পাউডার সেখানে মজুদ ছিল। বিস্ফোরণের কিছুক্ষণ আগে গুদাম এলাকার একটি ছোট পরিসরের আগুন নেভানোর জন্য অগ্নিনির্বাপন কর্মীদের খবর দেওয়া হয়। তারা এসে কাজ শুরু করার কিছুক্ষণের মধ্যেই ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণে নৌঘাঁটির দুটি বহুতল ভবনের দেয়াল ধ্বসে পড়ে এবং আশপাশের এলাকার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। ঘটনাস্থলের প্রায় তিন কিলোমিটার দূরের একটি জনপ্রিয় অবকাশযাপন কেন্দ্রের সমুদ্রতীরবর্তী রেস্তোরাঁগুলোর দরজা-জানালা উড়ে যায়। বিস্ফোরণের ছিটকে যাওয়া ধ্বংসাবশেষ তিন কিলোমিটার দূরে গিয়ে পড়ে এবং আশপাশের কয়েকশ’ গাছ উপড়ে যায়। নিকোস অ্যাঞ্চস্প্রোস নামের এক কৃষক রয়টার্সকে জানান, বিস্ফোরণের ধাক্কায় আমার ট্রাক্টরটি লাফিয়ে আধ মিটার উপরে উঠে যায়। এ এলাকায় এমন কোন বাড়ি নেই যা ক্ষতিগ্রস্ত হয় নি।

গাড়ি দুর্ঘটনায় রক্ষা পেলেন মারাদোনা

আইএনবি \ আর্জেন্টিনার সাবেক ফুটবলার ও কোচ দিয়াগো মারাদোনা গাড়ি দুর্ঘটনায় অল্পের জন্য গুরুতর আহত হওয়া থেকে রক্ষা পেয়েছেন। সোমবার বুয়েন্স আয়ার্সে নিজের বাড়ির কাছে একটি বাসের সাথে মারাদোনার গাড়ির সংঘর্ষ হয় বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ও কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। দুর্ঘটনার সময় মারাদোনার বান্ধবীও সাথে ছিলেন। তিনিও অক্ষত রয়েছেন বলে হাসপাতালসূত্র জানিয়েছে। হাসপাতালের চিকিৎসক অস্কার সিকো বলেন, দু’জনেই ঠিক আছেন, সুস্থ অবস্থায় রয়েছেন। দুর্ঘটনার পর অভ্যন্তরীণভাবে তারা আহত হয়েছেন কি না বিষয়টি পরীক্ষার জন্য নিজেরাই হাসপাতালে এসেছিলেন। ৫০ বছর বয়সী মারাদোনা আরব আমিরাতের আল ওয়াসাল ক্লাবের কোচ হিসেবে কাজ শুরুর অপেক্ষায় রয়েছেন। এরআগে তিনি আর্জেন্টিনার জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেন। কিন্তু ২০১০ সালের বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা শোচনীয়ভাবে ব্যর্থ হলে মারাদোনা কোচের পদ থেকে সরে যেতে বাধ্য হন।

লাদেনের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহে ভুয়া টিকা দান কর্মসূচি শুরু করেছিল সিআইএ

এনএনবি \ মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ ওসামা বিন লাদেনের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহে একটি ভুয়া টিকা দান কর্মসূচি গ্রহণ করেছিল। গতকাল মঙ্গলবার দৈনিক ডনের অন লাইন সংস্করণে এ খবর প্রকাশিত হয়। এ দৈনিককে একজন মার্কিন কর্মকর্তা জানান, পাকিস্তানি ডা. শাকিল আফ্রিদী এবোটাবাদে এ কর্মসূচি পরিচালনা করতেন। তিনি বিন লাদেনের কম্পাউন্ডে প্রবেশের সুযোগ পেলেও তাকে কখনো দেখতে পাননি। তাকে না পাওয়ায় তিনি তার পরিবারের সদস্যদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহে ব্যর্থ হন। ডা. শাকিল আফ্রিদীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্রকে সহযোগিতা করার সন্দেহে তাকে নিরাপত্তা হেফাজতে রাখা হয়েছে। লন্ডনের দ্য গার্ডিয়ানে প্রথম এবোটাবাদে ভুয়া টিকা দান কর্মসূচির খবর প্রকাশিত হয়। সোমবার লন্ডন টাইমসেও একই খবর প্রকাশিত হয়েছে। বার্তা সংস্থা এপি টাইমসের রিপোর্টের সত্যতা সম্পর্কে জানতে চাইলে সিআইএ জবাব দানে অস্বীকৃতি জানায়।

ভারতের মন্ত্রিসভায় রদবদল তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ত্রিবেদি রেলমন্ত্রী

আইএনবি \ ভারতের মন্ত্রিসভায় রদবদল করা হয়েছে। আজ সকালে সরকারের পক্ষ থেকে নয়া মন্ত্রিদের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর মধ্যে গতকালের বৈঠকের পর ওই তালিকা প্রকাশ করা হলো। ভারতে দূর্নীতির অভিযোগে কয়েক জন মন্ত্রী পদত্যাগ করার পর গত কিছু দিন ধরেই মন্ত্রীসভায় রদবদলের কথা শোনা যাচ্ছিল। স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটার দিকে মন্ত্রীরা শপথ নেবেন বলে কথা রয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস নেতা দিনেশ ত্রিবেদিকে রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তৃণমুল কংগ্রস প্রধান মমতা ব্যানার্জি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় তিনি রেলমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর পর তার দলেরই প্রভাবশালী নেতা দিনেশ ত্রিভেদিকে ওই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়া হলো। তবে পদত্যাগী টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আন্ডিমুথু রাজা এবং দয়ানিধি মারানের স্থলে ডিএমকের কোন নেতাকে মন্ত্রী করা হয়নি বলে জানা গেছে। টেলিযোগাযোগমন্ত্রী হিসেবে কাপিল শিবালই বহাল থাকছেন। রেল মন্ত্রণালয় ছাড়াও আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ে পরিবর্তন এসেছে। জয়রাম রামেশকে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় থেকে সরিয়ে গ্রাম উন্নয়নমন্ত্রী করা হয়েছে। জয়ন্তী নাতারাজানকে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সালমান খুরশিদকে আইন মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি সংখ্যালঘুদের বিষয়াদি দেখাশুনার বাড়তি দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। বিলাস রাও দেশমুখ পেয়েছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। ভিরাপ্পা ময়লিকে আইন মন্ত্রণালয় থেকে সরিয়ে কপোর্রেট বিষয়ক মন্ত্রী করা হয়েছে। বেনি প্রসাদ পেয়েছেন ইস্পাত মন্ত্রণালয়। কিশোর চন্দ্র দেওকে দেয়া হয়েছে উপজাতি ও পঞ্চায়েতি রাজ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। বানিজ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব বেড়েছে। তাকে টেক্সটাইলের দায়িত্বও দেয়া হয়েছে। সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী পবন কুমার বনশালকেও বাড়তি দায়িত্ব হিসেবে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় দেয়া হয়েছে। মুকুল রায়কে রেল মন্ত্রণালয় থেকে সরিয়ে শিপিং মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে। এছাড়া প্রতিমন্ত্রী হিসেবে কয়েক জন নতুন মুখ এসেছেন। ই, আহম্মেদকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন জিতেন্দ্র সিং। অর্থমন্ত্রী প্রণব মুখার্জি, প্রতিরক্ষামন্ত্রী একে এ্যান্থনি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি.চিদাম্বরাম এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসএম কৃষ্ণা স্ব স্ব পদে বহাল থাকছেন। তবে মুরলি দেওরা ও এম.এস গিলসহ কয়েক জন নেতা মন্ত্রীত্ব হারিয়েছেন।

আততায়ীর গুলিতে হামিদ কারজাইয়ের ভাই নিহত

আইএনবি \ আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইয়ের সৎ ভাই আততায়ীর গুলিতে নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার কর্মকর্তারা এ তথ্য জানান। প্রেসিডেন্ট মুখপাত্র ওয়াহিদ ওমর জানান, হামিদ কারজাইয়ের নিহত ভাইয়ের নাম আহমাদ ওয়ালি কারভাই। তিনি কান্দাহার প্রাদেশিক কাউন্সিলের নেতা। তিনি একজন বিতর্কিত নেতা। পশতুন জনগোষ্ঠীর অধিকার আদায়ের লড়াইয়ে তিনি ছিলেন। প্রাথমিক প্রতিবেদনে বলা হয়, কান্দাহারে নিজ বাড়িতে তার দেহরক্ষী তাকে খুন করে। সমালোচকরা বলছেন, ওয়ালি একজন যুদ্ধবাজ নেতা। দুর্নীতি ও মাদক ব্যবসার সঙ্গে তিনি সরাসরি জড়িত। তার নিজস্ব সামরিক বাহিনীও আছে।

প্রেসিডেন্ট কারজাই বারবার তার পক্ষে কথা বলে আসছেন। ওয়ালির বিরুদ্ধে অভিযোগের ব্যাপারে তিনি বলেন, তার ভাই কোনো অপরাধমূলক তৎপরতায় জড়িত নন।

পুলিশের মামলায় ফারুকের জামিন

এনএনবি \ পুলিশের দায়ের করা মামলায় বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুকের তিন মাসের আগাম জামিন মঞ্জুর করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে বাধা দেয়া হবেনা বলেও আশা প্রকাশ করেছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার বিচারপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি আনোয়ারুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

ইউনাইটেড হাসপাতালের একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টা ২০ মিনিটে জয়নুল আবদিন ফারুককে হাইকোর্টে নিয়ে আসা হয়। তিনি প্রায় আধঘণ্টা অ্যাম্বুলেন্সে অবস্থান করেন। ১০টা ৪০ মিনিটে বিচারপতিরা এজলাসে আসেন। ১০টা ৫৩ মিনিটে অক্সিজেন দেওয়া অবস্থায় স্ট্রেচারে করে তাঁকে আদালত কক্ষে আনা হয়। এরপর আদালত ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদকে অনুমতি দিয়ে বলেন, তাকে (ফারুককে) অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে রাখা হোক।

১১টা ৪২ মিনিটে শুনানিতে অংশ নিয়ে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ফারুকের ৬ মাসের জামিন আবেদন করে আদালতকে বলেন, হরতালে ফারুককে পুলিশ অত্যন্ত নির্মমভাবে পিটিয়ে আহত করেছে। এটা জাতির ইতিহাসে বিরল। ফারুকের এ ঘটনায় দেশ ও জাতি মারাত্নকভাবে ব্যাথিত হয়েছে। এটি ছিল নজিরবিহীন ঘটনা। জবাবে আদালত বলেন, ইতিপূর্বে আপনারা ক্ষমতায় ছিলেন। তখন আপনারা মেরেছেন। আজ যারা ক্ষমতায়, তখন তারা মার খেয়েছে। আবার আপনারা ক্ষমতায় গেলে মারবেন, তারা মার খাবে। বস্ত্তত এগুলো দেশের জন্য কল্যাণকর নয়। এতে করে প্রতিহিংসা বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা উদ্বেগজনক। এ সময় ফারুকের আইনজীবী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদকে উদ্দেশ্য করে আদালত আরো বলেন, এখন এক আহমেদ আমাদের সামনে আছেন। আরেক আহমেদ আগে আমাদের সামনে থাকতেন। এখন তিনি চেয়ারে আছেন। আপনি চেয়ারের বাইরে আছেন। আপনারা দুই আহমেদ এক জায়গায় বসে জাতিকে রক্ষা করবেন বলেই আমরা আশা করছি।

এক পর্যায়ে ব্যারিস্টার মওদুদ বিরোধী দলীয় চিফ হুইপের ৬ মাসের জামিন আবেদন করে বলেন, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দীর্ঘদিন বিদেশে থাকতে হবে। তাই ফারুকের ছয় মাসের আগাম জামিন মঞ্জুর ও রুল জারির আরজি জানাচ্ছি। এ পর্যায়ে আদালত জানতে চান, তাঁকে (ফারুক) কি গ্রেপ্তার করা হয়েছে? উত্তরে মওদুদ বলেন, তাঁকে এখনো গ্রেপ্তার করা হয়নি। রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ উল্লাহ কিসলু এর বিরোধিতা করেন। শুনানি শেষে আদালত তিন মাসের আগাম জামিন মঞ্জুর করেন।

আদালতের আদেশের পর ১২টা পাঁচ মিনিটে ফারুককে অ্যাম্বুলেন্সে করে আবার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এর আগে ফারুকের এক আবেদনের প্রেক্ষিতে সোমবার বিকেল ৪টায় ফারুকের উপস্থিতিতে তার জামিন আবেদনের শুনানি হওয়ার সময় নির্ধারন করেন আদালত। কিন্তু ফারুককে হাসপাতাল থেকে হাইকোর্টে আসতে পুলিশ বাধা দিয়েছে বলে আদালতকে জানান তাঁর আইনজীবী মওদুদ আহমদ। আদালত তাৎক্ষনিক এক আদেশে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার মধ্যে জয়নুল আবদিন ফারুককে আদালতে হাজির করতে ডিএমপি কমিশনারকে নির্দেশ দেন।

প্রসঙ্গ, গত ৬ জুলাই বিএনপি-জামায়াতের ডাকা টানা ৪৮ ঘণ্টার হরতালের প্রথম দিনে মানিক মিয়া এভিনিউ এলাকায় সংসদ ভবনের সামনে পুলিশের লাঠিপেটায় জয়নুল আবদিন গুরুতর আহত হন। পরে তাকে আহত অবস্থায় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পুলিশের ওপর হামলা ও সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে ওই দিন জয়নুল আবদিনসহ ১০-১২ জনের বিরুদ্ধে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা করে পুলিশ।

বিএনপি’র গণঅনশন আজ পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আন্দোলনঃ ফখরুল

এনএনবি \ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, পদত্যাগ না করা পর্যন্ত সরকারবিরোধী চলমান আন্দোলন কর্মসূচি চলবে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে রমনা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে আজকের গণঅনশন কর্মসূচির মঞ্চ ও প্যান্ডেল নির্মাণ কাজ পরিদর্শনকালে তিনি এ কথা জানান।

ফখরুল বলেন, সরকারের ক্ষমতায় থাকার আর কোনো নৈতিক অধিকার নেই। তাই অবিলম্বে পদত্যাগ করে নতুন নির্বাচনের ব্যবস্থা নিতে হবে। পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আমাদের চলমান আন্দোলন কর্মসূচি চলতেই থাকবে।

বিরোধী দলীয় প্রধান হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুকের ওপর পুলিশি হামলার প্রতিবাদ, সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর বিরুদ্ধে জনগণের অনাস্থা জ্ঞাপন এবং আন্দোলনে জনগণকে সম্পৃক্ত করতে গণঅনশন কর্মসূচি ঘোষণা করে বিএনপি।

বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আজ বুধবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৬টা পর্যন্ত ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে এ কর্মসূচি পালন করা হবে।

গণঅনশন কর্মসূচিতে বাধার আশঙ্কা প্রকাশ করে ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, সরকার অতীতে আমাদের শান্তির্পূর্ণ সব কর্মসূচিতে বাধা দিয়েছে। এবারও আমাদের আশঙ্কা রয়েছে। আশা করছি, সরকারের শুভ বুদ্ধির উদয় হবে। তারা এ কর্মসূচিতে কোনো প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করবে না।

এ সময় অন্যদের মধ্যে দলের সহসভাপতি আবদুল্লাহ আল নোমান, যুগ্ম মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, মোহাম্মদ শাহজাহান, বরকত উল্লাহ বুলু, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুর রহমান হাবিব, মহানগর সদস্য সচিব আবদুস সালাম, যুব দল সিনিয়র সহসভাপতি আবদুস সালাম আজাদ, কাইয়ুম চৌধুরী, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল বারী বাবু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ইন্টারনেটে সরাসরি সম্প্রচার

গণঅনশন কর্মসূচি ইন্টারনেটের মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করবে বিএনপি। ww w.bnplive.com- এই ঠিকানায় ইন্টারনেটে সরাসরি গণঅনশন কর্মসূচি দেখা যাবে বলে জানিয়েছেন দলে দলের ভারপ্রাপ্ত সহ দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি। তিনি বলেন, সারাদেশসহ বিশ্ববাসী যাতে গণঅনশন কর্মসূচি সরাসরি দেখতে পারেন, সেজন্য এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

‘মহাজাতীয় ঐক্য’ গড়তে বিএনপিকে জামায়াতের আহবান

এনএনবি \ বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম বিরোধী দল বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রতি আহবান জানিয়ে বলেছেন, রাজপথে ‘মহাজাতীয় ঐক্য’ গড়ে তুলতে হবে। তিনি বলেন, আর ছিটেফোঁটা আন্দোলন নয়, সরকার পতনের এক দফা আন্দোলন করতে হবে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর পুরানা পল্টনে দলের ঢাকা মহানগর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে এ টি এম আজহার এসব কথা বলেন। জামায়াতের এই নেতা বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আপসহীন নেত্রী। তিনি বলেন, দেশ ও দেশের জনগণ অসহায়। আলেম-ওলামারাও অসহায়। খালেদা জিয়ার প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনি কর্মসূচি দিন। আপনার নেতৃত্বে জনগণ ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে যাবে।’ দলের শীর্ষ নেতাদের মুক্তির দাবি ও হরতালের আগের দিন ৯ জুলাই জামায়াত শিবিরের নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে গতকাল বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে দলটি। সমাবেশে দলের সহকারী সেক্রেটারি শফিকুল রহমান, প্রচার সেক্রেটারি তাসনীম আলম, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদের সদস্য ইজ্জত উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর কমিটির আমির রফিকুল ইসলাম খান।

কোকো এখন মালয়েশিয়ায়

এনএনবি \ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো থাইল্যান্ডে নেই, তিনি এখন রয়েছেন মালয়েশিয়ায়। এ কথা বলেছেন বাংলাদেশে থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত তাসানাওয়াদি মিনাশ্যারোয়েন। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার থাইল্যান্ড দূতাবাসে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে থাই রাষ্ট্রদূত এ কথা বলেন। কোকো থাইল্যান্ডে নেই বলে বিভিন্ন সূত্র থেকে খবর পাওয়া গেলেও এই প্রথম দায়িত্বশীল কর্মকর্তার মুখ থেকে তা জানা গেলো। থাই রাষ্ট্রদূত বলেন, কোকো থাইল্যান্ডে নেই, তিনি আছেন মালয়েশিয়ায়। এ বিষয়ে আপনারা মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রদূতকে জিজ্ঞাসা করতে পারেন। ২০০৭ সালে জরুরি অবস্থা জারির পর ওই বছরের ৩ সেপ্টেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে কোকোও গ্রেপ্তার হন। পরে সরকারের নির্বাহী আদেশে ২০০৮ সালের ১৭ জুলাই ছাড়া দেন তিনি। এর এক দিন পরই চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ড যান তিনি। এরপর কোকোর বিরুদ্ধে মুদ্রাপাচার আইনে একটি মামলা হয়। সে মামলায় গত ২৩ জুন তাকে ছয় বছর কারাদন্ড দেয় আদালত। সেই সঙ্গে তার ১৯ কোটি টাকা জরিমানাও হয়। কোকো থাইল্যান্ড যাওয়ার পর তার মুক্তির মেয়াদ কয়েকদফা বাড়ানো হলেও বর্তমান সরকার গত বছর তা আর না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়। এরপর কোকোর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাও জারি করা হয়।

সরকারবিরোধী আন্দোলনকে বেগবান করতে আরো কঠিন কর্মসূচীর কথা ভাবছে বিএনপি

এনএনবি \ চলমান সরকারবিরোধী আন্দোলনকে বেগবান করতে সামনের দিন গুলোতে হরতালসহ আরো কঠিন কর্মসূচীর কথা ভাবছে বিএনপি। এ জন্য দলের সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধির পাশাপাশি জোটের শরীকদের রাজপথে সক্রিয় করা ও জোটে শরীকদলের সংখ্যা বাড়ানোর চিন্তা ভাবনা করছে দলের নীতি নির্ধারণী নেতারা। জানা গেছে, আজকের গণঅনশনে বেগম খালেদা জিয়া নেতৃত্ব দেবেন। তাই দলের পক্ষ থেকে রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি সংহতি প্রকাশের আহবান জানিয়েছেন। সূত্র বলেছে, বিএনপির জোটে শামিল হতে কয়েকটি ইসলামী দল ইতিমধ্যে যোগাযোগ করেছে। বিএনপির পক্ষ থেকেও এলডিপি, বিকল্পধারা, কল্যাণ পার্টি সহ কয়েকটি দলের নেতাদের সাথে কথা বলা হয়েছে। এদের কেউ কেউ আজকের গণঅনশনে সংহতি প্রকাশ করতে হাজির হতে পারে। এ প্রসঙ্গে, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সকল গণতান্ত্রিক দলের প্রতি আহবান জানানো হয়েছে ঐক্যবদ্ধ কর্মসূচী নিয়ে সরকারবিরোধী আন্দোলনকে জোরদার করতে। অনেকে এতে সাড়া দিয়ে জোটবদ্ধ হতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে। তিনি দলগুলোর নাম বলেননি। তবে অচিরে বিএনপি জোটের পরিধি বাড়ার আভাস দেন তিনি। যতই দিন যাচ্ছে বিএনপিতে শরীক দল ও সমমনা সংগঠনের গুরুত্ব বাড়ছে। একই সঙ্গে গুরুত্ব বাড়ছে বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠন, জোটের বাইরের রাজনৈতিক দলগুলোর। ফলে জোটগত অভিন্ন কর্মসূচিও গুরুত্ব পাচ্ছে।  বিএনপির  হরতাল কর্মসূচীর সাথে জামায়াতে ইসলামীও যুগপৎ কর্মসূচি পালন  করেছে। চারাদলীয় জোটের শরীক বিজেপি, ইসলামী ঐক্যজোটসহ সমমনা দলগুলোও ছিলো নৈতিক সমর্থন দিয়ে। সূত্রমতে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তত্ত্বাবধায়ক সরকার বিষয়ে বিরোধী দলকে সংসদে এসে প্রস্তাব দেয়ার আহবান জানিয়েছেন। নইলে আদালতের রায় অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আদালত তত্ত্বাবধায়ক সরকার অবৈধ বলে রায় দিয়েছে। বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াও সংবাদ সম্মেলন করে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করার যে কোন উদ্যোগকে টানা কর্মসূচী দিয়ে প্রতিহত করা হবে। সরকার ও বিরোধী দলের এমন ঘোষণার মধ্যে জোটগত তৎপরতা  বাড়িয়ে দিয়েছে  বিএনপি। বিএনপির সঙ্গে ১/১১-এর পর জামায়াতের সম্পর্ক বিভিন্ন কারণে ভালো যাচ্ছিল না। যুদ্ধাপরাধের ইস্যুতেও দল দুটি প্রকাশ্যে খুব কাছে আসতে পারেনি। কিন্তু এবার তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ইস্যুতে দুটি দল একসঙ্গে হরতাল কর্মসূচি দিয়েছে। সঙ্গে রয়েছে বিজেপি, ইসলামী ঐক্যজোটসহ সমমনা দলগুলো। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে অন্ততপক্ষে এ ইস্যুতে চারদলীয় জোটের ঘনিষ্ঠতা বাড়লো। এখন তারা প্রকাশ্যেই এ ইস্যুকে সামনে রেখে বিভিন্ন ইস্যুতে মাঠ গরম করবে। গত ১০-১১ ১২টি ইসলামী দলের ডাকা ৩০ ঘন্টা হরতালে বিএনপি সমর্থন দিয়ে রাজনৈতিক দল গুলোর সাথে সখ্যতা বাড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছে। ইসলামী দলগুলোও বিএনপির আনুঙ্গুল্য পেতে হুমরি খেয়ে পড়ছে। বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের সম্পর্কের বিষয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সংসদ সদস্য হামিদুর রহমান আজাদ বলেন, বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের কখনোই খারাপ সম্পর্ক ছিল না।  আগে দলগতভাবে সরকারবিরোধী কর্মসূচি দেয়া হতো। বর্তমানে জোটগতভাবে দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিকল্প নেই। দেশের মানুষ এখনো ভোটের বিষয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রতি আস্থা বেশি রাখে। বিএনপির নীতিনির্ধারণী নেতাদের মতে, তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে রাজপথের  আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই। এ জন্য জোটের শরিকদের কাছে রাখা জরুরি। দলটি মনে করে, ’৯৬ সালে তাদের সময় ওই ব্যবস্থার বিপক্ষে গিয়ে তারা তা বাস্তবায়ন করতে পারেনি। আওয়ামী লীগ এ বিষয়ে ক্ষমতার জোরে ১৫ ফেব্রুয়ারি কিংবা ’৮৮ সালের মতো ভোটারবিহীন নির্বাচন করতে পারবে। কিন্তু ক্ষমতায় থাকতে পারবে না।

বিএনপি এমন আন্দোলন করছে না যে, মোকাবিলা করতে হবেঃ সৈয়দ আশরাফ

এনএনবি : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, ‘বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলো এমন কোনো আন্দোলন করছে না যে, তা আমাদের মোকাবিলা করতে হবে।’ গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমন্ডি কার্যালয়ে সম্পাদকমন্ডলীর বৈঠক শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনের আগেই আওয়ামী লীগকে সাংগঠনিকভাবে সম্পূর্ণ প্রস্তুত করা হবে। যাতে দল সর্বশক্তি নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিতে পারে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, রোজার আগেই ১৯টি বৃহত্তর জেলায় দলের সাংগঠনিক সফর শেষ করা হবে। রোজার পর ওয়ার্ডগুলোতে সম্মেলন শুরু হবে। তিনি বলেন, দলের সদস্য সংগ্রহ অভিযান গতিশীল করা হবে। সহযোগী সংগঠনগুলোর সম্মেলন করারও উদ্যোগ নেওয়া হবে। বৈঠকে আগামী ১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্টের কর্মসূচি নির্ধারণ নিয়ে আলোচনা করা হয় বলে সৈয়দ আশরাফ জানান। বৈঠকে আশরাফুল ইসলাম সভাপতিত্ব করেন। এতে খাদ্য ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনামন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক, যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নেতা মাহবুব-উল আলম হানিফ, নূহ-উল-আলম লেনিন, আ ফ ম মুস্তফা কামাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মূল্যসংযোজন কর মুসক সপ্তাহ উপলক্ষে কুষ্টিয়ায় বর্নাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা

নিজ সংবাদ \ ভ্যাট দিন, দেশ গড়ুন। সবাই মিলে দিব কর, দেশ হবে স্বনির্ভর। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে  গতকাল মঙ্গলবার কাস্টমস এক্সসাইজ ও ভ্যাট কুষ্টিয়া বিভাগের উদ্যোগে মূল্য সংযোজন কর মুশক সপ্তাহ পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে সকাল ১০টায় এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়। কাস্টমস এক্সসাইজ ও ভ্যাট কুষ্টিয়া বিভাগের সহকারী কমিশনার এস এম শামসুজ্জামানের নেতৃত্বে র‌্যালীটি কুষ্টিয়া বিভাগীয় কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে বড়বাজার রেল গেট হয়ে পুনরায় কাস্টমস অফিস চত্বরে এসে র‌্যালী শেষ হয়। র‌্যালী শেষ বিভাগীয় কার্যালয় মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সহকারী কমিশনার এস এম শামসুজ্জামানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল হালিম, সহকারী কমিশনার হারুন অর রশীদ, ভেড়ামারা রাজস্ব কর্মকর্তা এমদাদুল হক প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্য জাতীয় রাজস্ব আয়ে মূল্য সংযোজন করার আহবান জানিয়ে এস এম শামসুজ্জামান বলেন, মূল্য সংযোজন কর প্রদান করা প্রত্যেক নাগরিকের আইনী দায়িত্ব। নিজে মূল্য সংযোজন কর প্রদান করুন এবং অন্যকে কর প্রদানে উৎসাহিত করার মূল্য সংযোজন কর প্রদান করে জাতীয় উন্নয়নে গর্বিত অংশীদার হোন। মূল্য সংযোজন কর প্রদান বিষয়ে যেকোন সেবা গ্রহনের জন্য স্থানীয় মূল্য সংযোজন কর কার্যালয় (সার্কেল অফিস) কাস্টমস, এক্সাইজ এন্ড ভ্যাট কমিশনারেট অফিসে যোগাযোগ করার আহবান জানান তিনি।

কাল রবীন্দ্রস্মরণ উপলক্ষে সঙ্গীতানুষ্ঠান

নিজ সংবাদ \ আগামীকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে ‘রবীন্দ্রস্মরণ’ উপলক্ষে জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ ও আনন্দধারা’র যৌথ পরিবেশনায় সঙ্গীতানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে, জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অশোক সাহা সকলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

দৌলতপুরে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

দৌলতপুর প্রতিনিধি \ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার হোসেনাবাদ এলাকা থেকে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পুলিশ ২০ বোতল ফেনসিডিলসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ। জানা গেছে, দৌলতপুর থানার এএসআই আলমগীর হোসেন গতকাল সন্ধ্যায় উপজেলার হোসেনাবাদ বাজারে একটি যাত্রীবাহী বাসে তলস্নাশি চালিয়ে ২০ বোতল ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আবজাল হোসেন ওরফে ঝর্না (২৫) কে আটক করে। সে উপজেলার গোপালপুর এলাকার মুক্তারুজ্জামান মন্টুর ছেলে। দৌলতপুর থানার ওসি মাছুদুল আলম জানান, আটককৃত আবজাল হোসেন ঝর্না ওই ফেনসিডিল তার নয় বলে নিজেকে পুলিশের কাছে নির্দোশ দাবি করায় বিষয়টি তদমত করে দেখা হচ্ছে। তবে এলাকাবাসী জানায়, সে দীর্ঘদিন ধরে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিলো।