কালুখালীতে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে বিশাল মিছিল

ফজলুল হক ॥ গতকাল শনিবার কালুখালীতে রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিমের পক্ষে বিশাল মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য আশিক মাহমুদ মিতুলের প্রচেষ্টায় রাজবাড়ী-২ আসনের নির্বাচনী এলাকার কালুখালী উপজেলার যুবলীগ ও ছাত্রলীগের যৌথ আয়োজনে এ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের যুবলীগ ও ছাত্রলীগের তৃণমূল পর্যায়ের সহস্রাধিক নেতাকর্মীবৃন্দ বিকাল ৪টায় রতনদিয়া রজনীকান্ত মডেল সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে একত্রিত হয়ে জিল্লুল হাকিমের পক্ষে নৌকার স্লোগানে কালুখালী (অরুণগঞ্জ) বাজারে বিশাল একটি মিছিল বের করে। মিছিলটি বাজারের বিভিন্ন অলিগলি প্রদক্ষিণ করে বাগপাড়া মোড় হয়ে কালুখালী ঐতিহ্যবাহী রেলস্টেশন চত্বরে গিয়ে মিলিত হয়ে এক পথসভার মধ্যদিয়ে সমাপ্ত করে। পথসভায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদের সদস্য খায়রুল ইসলাম খায়ের, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাকিবুল ইসলাম লাবু, মোঃ সোহেল আলী মোল্লা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ জাহিদুল ইসলাম সুমন, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান নুর রুকু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৌরভ প্রামানিক, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সফিকুল ইসলাম এছাড়াও যুবলীগের সদস্য জামির হোসেন জয়, মোঃ সেলিম উর রেজা, হাফিজুর রহমান লাল্টু, মোঃ পিকুল, মাইনুল ইসলাম হিমেল, শেখ মোহাম্মদ ফারুক, কালিকাপুর ইউপি যুবলীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফা, সাবেক যুবলীগ নেতা আশরাফ সিদ্দিকী বাচ্চু, রতনদিয়া ইউপি ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ মোঃ রিপন, সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি, বোয়ালিয়া ইউপি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হেদায়েতুল ইসলাম সোহাগ সহ উপজেলার বিভিন্ন নেতাকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।  পথ সভায় বক্তারা আগামী একাদশ সংষদ নির্বাচনে রাাজবাড়ী-২ আসনের বিভিন্ন উন্নয়নের রূপকার বলিষ্ঠ রাজনৈতিক নেতৃত্বের অধিকারী গণমানুষের নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিমকে পুনরায় রাজবাড়ী-২ আসনের এমপি হিসেবে দেখতে চাই এবং নেতাকর্মীরা তার পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবে বলে বক্তব্য প্রদান করেন। মিছিলে নেতাকর্মীরা আবির মাখামাখি করে ব্যান্ডপার্টি সহ  জিল্লুল হাকিমের পক্ষে নৌকার স্লোগানে বাজার এলাকা মুখরিত করে তোলে।

গাংনীতে পরকিয়া প্রেমিক-প্রেমিকার রঙ্গলীলা দেখে ফেললো স্বামী

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার রামনগর কামারপাড়া গ্রামে প্রেমিক রতন আলীর সাথে প্রকাশ্য দিবালোকে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকাবস্থায় স্বামীর হাতে ধরা পড়েছে বিপাশা ওরফে শিল্পী নামের এক গৃহবধূ। গত বুধবার সকাল ১১টার সময় উপজেলার রামনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শিল্পী খাতুন রামনগর গ্রামের সুলতান হোসেনের স্ত্রী ও রতন আলী একই গ্রামের আব্দুল আলিমের ছেলে। সুলতান হোসেন জানান- তার স্ত্রী শিল্পী খাতুন বাড়ির পার্শে একটি বাঁশবাগানের মধ্যে রতনের সাথে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকাবস্থায় হাতে-নাতে ধরা হয় তাদের।  সাবেক ইউপি সদস্য পান্না জানান, অনৈতিক কর্মকান্ডের বিষয়ে সালিস বৈঠক বসানো হয়। বৈঠকে কোন সূরাহা হয়নি। সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে মাতব্বরদের দ্বারে-দ্বারে ঘুরছে। উভয় পরিবারকে বিষয়টা ভেবে দেখার জন্য গত শুক্রবার পর্যন্ত সময় দেয়া হয়েছিল। স্থানীয় আ.লীগ নেতা মোহাম্মদ আলী বলেন- শিল্পী ও রতনের অনৈতিক কর্মকান্ডের সময় সুলতান তাদের হাতে-নাতে ধরে। পরে এ বিষয়টি জানাজানি হলে সালিস বৈঠক বসানো হয়। গত শুক্রবার এ বিষয়টি আবার বৈঠক বসানোর কথা থাকলেও অজ্ঞাত কারণে সালিস বৈঠক হয়নি। শনিবার বিকালে পুণরায় উভয় পরিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সমাধান করার জন্য বৈঠক বসানো হয়। শিল্পীর বরাত দিয়ে আ.লীগ নেতা মোহাম্মদ আলী বলেন- শিল্পী বৈঠকে সবার কাছে বলেছেন যে রতনের সাথে তার দেড় বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। স্থানীয়রা জানান, শিল্পী বলেছেন তার স্বামী সুলতান আলী যেহেতু আর নেবেনা। তাই তিনি রতনের সাথে বিয়ে দিতে সমাজপতিদের কাছে দাবি করেছেন। এছাড়া শিল্পী ও সুলতানের ঘরে ৪ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। শিশু সন্তানের ভবিষ্যত নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছে  বৈঠকে উপস্থিত সদস্যরা। এ বিষয়ে কথা বলতে চাইলে শিল্পী তার নানা বাড়ি ব্রজপুরে রয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা।শিল্পীর নানা বাড়ীতে গেলেও শিল্পী না থাকায় তার কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

পবিত্র আশুরা উপলক্ষে দৌলতপুরে লাঠি খেলা ও গ্রামীণ মেলা

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ ১০ মহরম পবিত্র আশুরা উপলক্ষে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য লাঠি খেলা ও গ্রামীণ মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার সোনাইকুন্ডি বাজারে লাঠি খেলা ও গ্রামীণ মেলার আয়োজন করা হয়। লাঠি খেলায় বিভিন্ন এলাকার লাঠিয়াল দল তাদের লাঠি খেলা প্রদর্শন করে। আর এ খেলা দেখতে শিশু থেকে সব বয়সীরা ভিড় করে। মেলা উপলক্ষে দোকানীরা বা মৌসুমী ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা হরেক রকম পসরা সাজিয়ে বসে এবং তা কিনতে ভিড় করে মেলায় আগত দর্শনার্থীরা। তবে লাঠি খেলা দেখতে আসা দর্শকরা এবং লাঠি খেলা প্রদর্শনকারীরা গ্রাম বাংলার এ ঐতিহ্য ধরে রাখতে পৃষ্ঠপোষকতার পাশাপাশি বেশী বেশী করে এ খেলার আয়োজন করার দাবি জানান।

ভেড়ামারার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ইতিহাস ও ঐতিহ্য ভিত্তিক ম্যাগাজিন প্রণয়ণের লক্ষ্যে সভা

আল মাহাদী ॥ কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ইতিহাস ও ঐতিহ্যভিত্তিক তথ্য সমৃদ্ধ ম্যাগাজিন (আর্কাইভ) প্রণয়ণের লক্ষ্যে শুক্রবার সকালে স্থানীয় বিজেএম কলেজ মিলনায়তনে একসভা অনুষ্ঠিত হয়। কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ আসলাম উদ্দীনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ওই ইউনিয়নের কৃতিসন্তান ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডক্টর এম আলাউদ্দীন। প্রভাষক সাইফুজ্জামান ফিরোজের সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) এর কর্মকর্তা ডক্টর অলীউল আলম, তাজউদ্দীন মাস্টার, আলহাজ্ব নূর মোহাম্মদ মাস্টার, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মোফাক্কার হোসেন বাবুল, ফিরোজ কবীর, রুবেল মাহমুদ রতন, আক্তারুজ্জামান মুক্তার, রোকনুজ্জামান খোকন, আলহাজ্ব আবু বকর, সহকারী অধ্যাপক ফেরদৌস হোসেন মানিক, সহকারী অধ্যাপক মোঃ ফারুক হোসেন, প্রভাষক মিজানুর রহমান, প্রভাষক মাসুদ হাসান, প্রভাষক মোঃ সাইফুল ইসলাম, হাফিজুর রহমান আজাদ, আজমিরা শ্যামা, নেহেরুল ইসলাম, অঞ্জনউর রহমান প্রমুখ। সভা শেষে প্রফেসর ডক্টর এম আলাউদ্দীনকে প্রধান পৃষ্ঠপোষক, অধ্যক্ষ আসলাম উদ্দীনকে আহবায়ক, রতন মাহমুদ রতনকে সদস্য সচিব করে ‘আমরা বাহাদুরপুর ইউনিয়নবাসী’ নামে একটি কমিটি গঠন করা হয় এবং ফিরোজ কবীরকে সম্পাদনা পরিষদের প্রধান করে আর একটি সম্পাদনা পরিষদ গঠন করা হয়। সভায় ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

পবিত্র আশুরা উপলক্ষে হযরত বাবা নফর শাহ্ মাজার থেকে তাজিয়া র‌্যালি

নিজ সংবাদ ॥ ১০ মহররম পবিত্র আশুরা উপলক্ষে, হযরত বাবা নফর শাহ্ (রঃ) মাজার প্রাঙ্গন থেকে এক তাজিয়া র‌্যালি বের করা হয়েছে। ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ১০ টায় কুষ্টিয়া শহরের আড়–য়াপাড়াস্থ হযরত বাবা নফর শাহ্ (রঃ) মাজার প্রাঙ্গন থেকে এ তাজিয়া র‌্যালি বের করা হয়। কুষ্টিয়া শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এর মধ্যে র‌্যালিটি মীর মোশাররফ সড়ক হয়ে, পৌর গোরস্থানের সামনে দিয়ে পবিত্র বারো শরীফ দরবারে এসে, পবিত্র বারো শরীফ দরবার জিয়ারত করা হয়। এর পর র‌্যালিটি বক চত্বর হয়ে এন.এস রোড দিয়ে বড় বাজার রেল গেট হয়ে হযরত বাবা নফর শাহ্ (রঃ) মাজর প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে হযরত বাবা নফর শাহ্ (রঃ) এর ভক্তবৃন্দ ও আশেকান ধর্মপ্রাণ মুসলমান উপস্থিত ছিলেন। তাজিয়া র‌্যালির পরিচালনায় ছিলেন হযরত বাবা নফর শাহ্ (রঃ) মাজার এর খাদেম ওসমান গনি। তাজিয়া এ র‌্যালির সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও সহযোগিতা করেন হযরত বাবা নফর শাহ্ (রঃ) মাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজাউল হক।

আলমডাঙ্গায় ভ্রাম্যমান আদালত

অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে ৪ জনকে জরিমানা

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গার একটি পার্কে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে ৪ জনকে ৮ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। গতকাল শনিবার বেলা ২টার দিকে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজেষ্ট্রেট সহকারী কমিশনার (ভূমি) সিমা শারমীন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে সোয়াদ পার্কের ম্যানেজার পার আলমডাঙ্গা গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে রফিকুল ইসলাম গফুর (৪০) কে ৫ হাজার টাকা, খেজুরতলা গ্রামের আমিরুল ইসলামের স্ত্রী শিলা খাতুন (২৭) কে ১ হাজার টাকা, মুন্সিগঞ্জ রেলপাড়ার আজমত আলীর ছেলে রাকিব আলী (২৫) কে ১ হাজার টাকা ও মুন্সিগঞ্জ গড়চাপড়ার রাজু আহমেদের স্ত্রী পাখী খাতুন (২০) কে ১ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আলমডাঙ্গা থানার এসআই নাজিমুদ্দিন, এএসআই শহিদুল ইসলাম, এএসআই মোস্তফা।

গ্রেনেড হামলার বিচার সরকারের ‘গাইডলাইনে’ – রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার বিচারিক কার্যক্রম সরকারের ‘গাইডলাইন’ মেনে চলছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। গতকাল শনিবার দুপুরে নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এই সংশয় প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, “আজ জনগণের মধ্যে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে ২১ আগস্টের বোমা হামলার আইনি প্রক্রিয়া নিয়ে। আদালত দিয়ে প্রতিশোধ গ্রহণের রমরমা রাজনৈতিক সফলতায় ক্ষমতাসীনরা উল্লসিত। এই সরকারের গাইডলাইন অনুযায়ী ২১ আগস্ট মামলার বিচারিক কার্য্ক্রম চলছে কিনা তা নিয়ে জনগণের মনে বড় ধরনের সন্দেহ সৃষ্টি হয়েছে।” এই মামলার সম্পূরক অভিযোগপত্রে তারেক রহমানসহ বিএনপি নেতাদের জড়ানোর বৈধতা নিয়ে আবারও প্রশ্ন তুলে রিজভী বলেন, “১/১১ এর সরকার বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নাম তদন্ত করে পেল না। আওয়ামী লীগ ২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসে নজিরবিহীনভাবে তারেক রহমানকে ফাঁসানো জন্য নিজেদের দলের মনোভাবসম্পন্ন ব্যক্তিকে, যিনি কয়েকবছর আগে অবসরে গেছেন তাকে ডেকে নিয়ে এসে পদোন্নতি পর পদোন্নতি দিয়ে তারেক রহমানের নাম সম্পূরক অভিযোগপত্রে যুক্ত করা হয়েছে। ” আগামী ১০ অক্টোবর ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলায় রায় ঘোষণা করা হবে। কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেওয়ার দাবি আবারো জানিয়ে রিজভী বলেন, “দেশনেত্রী হাত-পায়ের ব্যথা আরো তীব্র হয়েছে। শারীরিক অসুস্থতাকে আরো অবনতির দিকে ঠেলে দিতেই তাকে ইচ্ছাকৃতভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে না। অসুস্থতা লাঘবের জন্য বেগম খালেদা জিয়ার আস্থা হাসপাতাল  ও তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের উপেক্ষা করা হচ্ছে। খালেদার রোগ নির্ণয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ‘প্রস্থিসিস কমপেটিবল এমআরআই মেশিন’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল ইউনির্ভাসিটিতে (বিএসএমএমইউ) নেই দাবি করে তিনি বলেন,  “ইউনাইটেড হাসপাতাল অথবা অন্য বিশেষায়িত হাসপাতালে এটা রয়েছে, বিএসএমএমইউতে নেই।… সুতরাং দেশনেত্রীর যথাযথ চিকিৎসার জন্য বিশেষায়িত হাসপাতালের দাবি কী অন্যায্য? এবিষয়ে রাষ্ট্রপতি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নেওয়ার ঘটনা তুলে ধরে রিজভী বলেন, “সেখানে যদি এতো ইকুইপড হয় তাহলে তারা কেন বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা নিচ্ছেন না, বিদেশে যাচ্ছেন কেন?” সংবাদ সম্মেলনে দলের ভাইস চেয়ারম্যান এজেডএম জাহিদ হোসেনসহ কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাধীনতা বিরোধীদের ক্ষমতায় যেতে দেয়া হবে না – তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, জঙ্গি-সন্ত্রাস ও স্বাধীনতা বিরোধীদের ক্ষমতায় যেতে দেয়া হবে না। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা অটুট রাখতে হলে আমাদের মধ্যে ঐক্য বজায় রাখতে হবে। বিএনপির হাতে বাংলাদেশ নিরাপদ নয়। খালেদা জিয়া অগ্নি-সন্ত্রাস করে রাজাকার, তেঁতুল হুজুর ও জঙ্গিদের নিয়ে দেশ দখল করতে চান। গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে জাতীয় সমাজতান্ত্রিকদল জাসদ মনোনীত ও ১৪ দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদির সমর্থনে শনিবার দুপুরে পলাশবাড়ী উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার মাঠে অনুষ্ঠিত পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। পলাশবাড়ী উপজেলা জাসদ সভাপতি নুররুজ্জামান প্রধানের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বগুড়া (নন্দীগ্রাম-কাহালু) আসনের সংসদ সদস্য রেজাউল করিম তানসেন, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি শফিউদ্দিন মোল্লা, (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে জাসদ মনোনয়ন প্রত্যাশী ও জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিয়ষক সম্পাদক এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদি, গাইবান্ধা জেলা জাসদের সভাপতি শাহ্ শরিফুল ইসলাম বাবলু ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম মারুফ মনা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুর রহমান, জাসদ নেতা মনোহরপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চট্টু ও গাইবান্ধা যুব জোটের সাধারণ সম্পাদক সুজন প্রসাদ প্রমুখ।

কুষ্টিয়ার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়া জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হিসাবে মনোনীত হয়েছেন মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফিন। গত বুধবার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আনন্দ কিশোর শাহা স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশের মাধ্যমে তাকে শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান মনোনীত করা হয়।  জেলা প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৮ এর জেলা পর্যায়ে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ এ পদক দেওয়া হবে।  এতে শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসাবে মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফিনকে মনোনীত করা হয়েছে। ২০১৪ সালের ২৯ ফেব্র“য়ারী উপজেলা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে। ২০১৪ সালের ২রা এপ্রিল শপথ গ্রহনের মধ্যদিয়ে কামারুল আরেফিন উপজেলা  চেয়ারম্যান হিসেবে মিরপুরবাসীর সেবা প্রদান শুরু করেন। মাদকের বিরুদ্ধে তিনি জিরো টলারেন্স ভুমিকা নিয়েছেন। সেই সাথে তিনি ২০১৫ সালে দেশরতœ পদকে ভূষিত হন।

আলমডাঙ্গার জামজামী ইউনিয়ন আ’লীগের কর্মীসমাবেশে হুইপ ছেলুন

তৃণমূল নেতাকর্মীরাই দলের মূল শক্তি

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জামজামী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে এক কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র হাসান কাদির গনুর সভাপতিত্বে কর্মীসমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের হুইপ বীরমুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। তিনি তার বক্তব্যে বলেন জননেত্রী শেখ হাসিনর নেতৃত্বে দেশ যখন মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হতে চলেছে ঠিক সে মুহুর্তে বিএনপি-জামায়াত ও তথা কথিত ঐক্যজোট নামধারী কিছু ব্যক্তি দেশে বিচ্ছৃংখলা সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে। আমরা একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল, জনগণের ভোটের উপর আস্থা রেখেই নির্বাচনে জয়ী হতে চাই, কোন অশুভ শক্তির দ্বারা নই। তাই দেশ ও জাতির স্বার্থে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। তৃণমূল নেতাকর্মীরাই দলের মূল শক্তি। আওয়ামী লীগ সব সময় দলের কথা বলে। কেননা জনতাই গণতান্ত্রিক দেশের সকল ক্ষমতার উৎস। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খুস্তার জামিল, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমঙ্গীর হান্নান, মাসুদুজ্জামান লিটু বিশ্বাস, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম খান, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী খালেদুর রহমান অরুন, জামজামী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী, হারদী ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক শামসুজ্জোহা মল্লিক হাসু, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু মুছা, সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শিক্ষানুরাগী আওয়ামী লীগ নেতা লিয়াকত আলী লিপু মোল্লা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মজিবর রহমান। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাষ্টারের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন  জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আশরাফুল হক আশা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম মন্টু, উপজেলা শিক্ষা মানবকল্যাণ আব্দুর রউফ শিলু, সাংগঠনিক সম্পাদক আতিয়ার রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা ইন্দ্রজিত দেব শর্মা, বিআরডিবির চেয়ারম্যান মহিদুল ইসলাম মোহিদ, উপপ্রচার সম্পাদক মাসুদ রানা তুহিন, জেলা যুবলীগের সদস্য আজাদ আলী, তপন কুমার বিশ্বাস, পৌর কাউন্সিলার মতিয়ার রহমান ফারুন, সাইফুর রহমান পিন্টু, পৌর যুবলীগের সভাপতি আব্দুল গাফ্ফার, সাবেক উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সাহানুজ্জামান, সম্পাদক সোনাহার মন্ডল, জামজামী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, জামজামী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা দিদার আলী, সাধারণ সম্পাদক রাহাব উদ্দিন, ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক আবু মুছা, যুগ্ম আহবায়ক লাল্টু মিয়া, কামাল হোসেন, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি গিটার, সম্পাদক ইজাল উদ্দিন, মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী আরজিনা খাতুন, সাধারণ সম্পাদক আফরোজা খাতুন, রাজেয়া খাতুন, নয়ন তারা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালমন আহমেদ ডন, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশরাফুল হক, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি নয়ন সরকার। এছাড়াও  ১নং ওয়ার্ড সভাপতি সিরাজ উদ্দিন, ২নং ওয়ার্ড সভাপতি মিজানুর রহমান, সম্পাদক খাইরুল ইসলাম, ৩নং ওয়ার্ড সভাপতি রিজাল উদ্দিন, সম্পাদক রিপন শাহ, ৪নং ওয়ার্ড সভাপতি শহিদুল ইসলাম, সম্পাদক হামিদ আলী, ৫নং ওয়ার্ড সভাপতি হোসেন আলী, ৬নং ওয়ার্ড সভাপতি আলী হোসেন, সম্পাদক মতিয়ার রহমান, ৭নং ওয়ার্ড সভাপতি মনিরুজ্জামান, সম্পাদক কোরবান আলী, ৮নং ওয়ার্ড সভাপতি  তোফাজ্জেল হোসেন, সম্পাদক নুরুল ইসলাম, ৯নং ওয়ার্ড সভাপতি ইসলাম উদ্দিন, সম্পাদক আতিয়ার রহমান প্রমুখ।

 

দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে মাদক উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে মাদক উদ্ধার হয়েছে। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চিলমারী ইউনিয়নের ডিগ্রিরচর সীমান্ত এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫১২ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। তবে এ ঘটনায় কেউ আটক হয়নি। বিজিবি সূত্র জানিয়েছে, মাদক পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে ৪৭ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনস্থ উদয়নগর বিওপি’র নায়েব সুবেদার মো. সেলিম ভুইয়ার নেতৃত্বে বিজিবি’র টহলদল ডিগ্রিরচর সীমান্ত এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫১২ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করে। যার আনুমানিক মূল্য দেড় লক্ষাধিক টাকা বলে বিজিবি সূত্র নিশ্চিত করেছে।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সংস্কার কাজ পরিদর্শন

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সংস্কার কাজের পরিদর্শন করেছেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ শামসুল আবেদীন খোকন। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে তিনি প্রেসক্লাবে সংস্কার কাজ পরিদর্শন শেষে কাজের অগ্রগতি দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন। উল্লেখ্য চলতি অর্থবছরে জেলা পরিষদ কর্তৃক অনুদানের অর্থে এই সংস্কার কাজ পরিচালিত হচ্ছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি খন্দকার শাহ্ আলম মন্টু, সাধারণ সম্পাদক  হামিদুল ইসলাম, সহসভাপতি আতিয়ার রহমান মুকুল, ইউনুচ আলী মন্ডল, সহসম্পাদক রুনু খন্দকার, প্রচার সম্পাদক শরিফুল ইসলাম, সাংস্কৃতিক বিষয়ে সম্পাদক ডাঃ আতিকুর রহমান, নির্বাহী সদস্য শাহাবুল ইসলাম, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সফর সঙ্গী ছিলেন উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক নাজমুল হক স্বপন, শাহীন রেজা, জেলা কৃষক লীগ নেতা দিপক বিশ্বাস, যুবলীগ নেতা প্রিন্স প্রমুখ।

আলমডাঙ্গা কলেজের সাবেক ভিপি মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমানের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা কলেজের সাবেক ভিপি মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সাংগঠনিক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমানের লাশ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গত ২০ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকা ইউনাইটেড প্রাঃ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। বেশ কিছুদিন ধরে তিনি অসুস্থ্য অবস্থায় ছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। গত ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ১০টায় আলমডাঙ্গা দারুস সালাম প্রাঙ্গণে মরহুমের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন হয়। গার্ড অব অর্নার প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শেখ শামসুল আবেদীন খোকন, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. আব্দুর রশীদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী খালেদুর রহমান অরুন, থানা পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত লুৎফুল কবীর, মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক ডাঃ শাহাবুদ্দিন সাবু, সাবেক পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা এম. সবেদ আলী, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার শফি উর রহমান জোয়ার্দ্দার সুলতান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস, পৌর কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শেখ নুর মোহাম্মদ জকু। এছাড়াও জানাযায় অংশ গ্রহণ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক, এ্যাড. নাসির উদ্দিন, নাজিমুদ্দিন, ওয়াজেদ আলী মাষ্টার, আব্দুল জব্বার, শফি উদ্দিন, মনি মাষ্টার, ফেরাজুল ইসলাম, আলহাজ্ব খন্দ. ইসমাইল হোসেন, আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাব সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দ. শাহ্ আলম মন্টু, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দ. হামিদুল ইসলাম আজম, বীর মুক্তিযোদ্ধা অমর ফারুক, রেজাউল ইসলাম, শওকত আলী জোয়ার্দ্দারসহ প্রায় শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।

জেএসসি পরীক্ষা দেওয়া হলো না শাহানাজের

হাবিবুর রহমান ॥ চলতি বছরের নভেম্বরে জেএসসি পরীক্ষা শাহানাজের। সেই অনুযায়ী পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়েছে সে। ভাবতেই পারেনি পরীক্ষা দেওয়া হবে না তার। পরীক্ষার আগেই বিয়ের পিড়িতে বসতে হয়েছে শাহানাজকে। পরীক্ষা বাদ দিয়ে যেতে হয়েছে শশুর বাড়ী। শুক্রবার দুপুরে বিয়ে হওয়ার কথা থাকলেও নাটকীয় কায়দায় বিয়ে হয়েছে রাতে। শাহানাজ আক্তার কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার সদরপুর ইউনিয়নের বড়বাড়ীয়্ াস্কুলপাড়া এলাকার আব্দুর সাত্তার এর মেয়ে এবং কাতলামারী কেবিএইচ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এবার জেএসসি পরীক্ষার্থী। স্থানীয় ইউপি সদস্য আশরাফুল ইসলাম জানান, শুক্রবার দুপুরে শাহানাজ আক্তারের বিয়ে (বাল্য) হওয়া কথা। তবে পুলিশ বিয়ে বাড়ীতে উপস্থিত হয়ে সেটা পন্ড হয়ে যায়। পরে রাতে আবার বিয়ে হয়ে যায় তার। কাকিলাদহ পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই জালাল জানান, বাল্য বিয়ের খবর শুনে আমি ঐ বিয়ে বাড়ীতে অভিযান চালায়। সাত্তারের বাড়ীতে বিয়ের আয়োজন চলছিলো তবে শাহানাজের বাবা ও মা পালিয়েছিলো। আমি বিয়ে দিতে নিষেধ করে এসেছিলাম। পরে বিয়ে হয়েছে কিনা আমার জানা নেই।  কেবিএইচ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম সেলিম জানান, আমি বিষয়টি জানি না।

কালুখালীতে বন্যাদুর্গত পরিবারদের মাঝে জিআর চাউল বিতরণ

ফজলুল হক ॥ গতকাল রাজবাড়ীর কালুখালীতে মানবিক সহায়তা কর্মসূচীর আওতায় অতি বৃষ্টি ও বন্যাদুর্গত পরিবারের মাঝে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জিআর এর চাউল বিতরণ করা হয়েছে। সকাল ১০টায় উপজেলার কালিকাপুর ইউপির পাড়া বেলগাছি দত্তপাড়া নামক স্থান থেকে বন্যাদুর্গত ইউনিয়নের ৫০০ পরিবারের মাঝে এ চাউল বিতরণ করা হয়। এসময় রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক মোঃ শওকত আলী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোফায়েল আহমেদ, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা, ট্যাগ অফিসার সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জয়ন্ত কুমার দাস, কালিকাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আতিউর রহমান নবাব এছাড়াও ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফা, আঃ জব্বার জুলু, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য সাবিনা ইয়াসমীন, শেফালী খাতুন ও রেহেনাসহ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান কর্তৃক চেক প্রদান অনুষ্ঠান

সুজন কর্মকার ॥ কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ রবিউল ইসলাম কর্তৃক আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাব ও আমলাপাড়া ১৭ হাঁত উচ্চতা বিশিষ্ট কালি পূজা মন্দিরে চেক প্রদান করা হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত ৮ টায় কুষ্টিয়া শহরস্থ আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাব প্রাঙ্গনে এ চেক প্রদান করা হয়। আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাবের আয়োজনে এ উপলক্ষে এক চেক প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ রবিউল ইসলাম। তিনি বলেন, স্বাধীনতা চেতনাধারী সরকার আছে বলেই আমি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হতে পেরেছি। তিনি আরো বলেন, সার্বজনীন নেতা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া সদর এমপি মাহবুবউল আলম হানিফ। কারণ মাহবুবউল আলম হানিফ কুষ্টিয়ায় যে উন্নয়ন করেছে, তা এর আগে আর কখনও কেউ করতে পারেনি। তাই নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি (পি.পি) এ্যাডঃ অনুপ কুমার নন্দী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ও অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম তোতা। বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বদরুল ইসলাম বাদল, আমলাপাড়া ১৭ হাঁত উচ্চতা বিশিষ্ট কালি পূজা মন্দির কমিটির সভাপতি এ্যাডঃ অঘোর কুমার সরকার, আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাবের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম মানিক, আমলাপাড়া ১৭ হাঁত উচ্চতা বিশিষ্ট কালি পূজা মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুজিত কুমার ঘোষ, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী কুষ্টিয়া জেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক গোপা সরকার প্রমুখ। এ সময় আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাবের সহ-সভাপতি ওমর ফারুক, আমলাপাড়া ১৭ হাঁত উচ্চতা বিশিষ্ট কালি পূজা মন্দির কমিটির সহ-সভাপতি সনৎ কুমার পাল সহ আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাব ও আমলাপাড়া ১৭ হাঁত উচ্চতা বিশিষ্ট কালি পূজা মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ রবিউল ইসলাম আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাবকে ২ লক্ষ টাকা ও আমলাপাড়া ১৭ হাঁত উচ্চতা বিশিষ্ট কালি পূজা মন্দিরকে ১ লক্ষ টাকার চেক প্রদান করেন।

দৌলতপুরে বিএনপি নেতা-কর্মীদের নিয়ে আওয়ামীলীগের মোটরসাইকেল র‌্যালি

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে বিএনপি নেতা-কর্মীদের নিয়ে আওয়ামীলীগের মোটরসাইকেল র‌্যালি অনুষ্ঠিত হওয়ার অভিযোগ করেছেন দৌলতপুর যুবলীগের সভাপতিসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। দৌলতপুর যুবলীগের সভাপতি বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, সাবেক সংসদ সদস্য ও তার ছেলে এ্যাড. মামুন নৌকার পক্ষে আওয়ামীলীগ দলীয় নেতা-কর্মীদের না পেয়ে তাদের আত্মীয় বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য বাচ্চু মোল্লার স্মরনাপন্ন হয়ে বিএনপি দলীয় নেতা-কর্মীদের ধার নিয়ে মোটরসাইকেল র‌্যালি করেছে যা অত্যন্ত দু:খজনক। তিনি আওয়ামীলীগ দলীয় বিভিন্ন নেতাদের বরাত দিয়ে আরও বলেন, গতকাল শনিবার বিকেলে মোটরসাইকেল র‌্যালি বের করার জন্য সাবেক সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দিন আহমেদের ছেলে এ্যাড. মামুন দৌলতপুরের বিভিন্ন এলাকায় আওয়ামীলীগ দলীয় নেতা কর্মীদের ফোন দিয়ে মোটর সাইকেল র‌্যালিতে যোগ দিতে বললে তাতে সাড়া না পেয়ে মামা বাচ্চু মোল্লার স্মরনাপন্ন হয়। দৌলতপুর আওয়ামীলীগের শত্র“ বাচ্চু মোল্লা বিভিন্ন এলাকায় তার নেতা-কর্মীদের মোটরসাইকেল র‌্যালিতে যোগ দিতে বললে বিএনপি নেতা-কর্মীদের নিয়ে মোটরসাইকেল র‌্যালি বের করে মামুন। টোকেন চৌধুরী আরও বলেন, আফাজ উদ্দিন আহমেদ আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন পেলে বিএনপি দলীয় প্রার্থী বাচ্চু মোল্লার ভোট করা সহজ ও বিজয় নিশ্চিত হবে বলে তার দলের নেতা-কর্মীদের দিয়ে আফাজ উদ্দিনের মোটর সাইকেল র‌্যালি করেছে বাচ্চু মোল্লা।

দৌলতপুরে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা ও পথসভায় নৌকা প্রতীকে ভোট চাইলেন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে আওয়ামীলীগের মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা ও নির্বাচনী গণসংযোগকালে বিভিন্ন পথসভায় নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়েছেন দৌলতপুর আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ। গতকাল শনিবার বিকেলে উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা ও নির্বাচনী গণসংযোগকালে পথসভায় দলীয় নেতৃবৃন্দ আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট চান। কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও দৌলতপুর আওয়ামীলীগের সভাপতি আফাজ উদ্দিন আহমেদের কনিষ্ঠ পুত্র এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুনের নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ ও যুবলীগসহ অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের সহস্রাধিক মোটরসাইকেল বহর প্রাগপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করে। মথুরাপুর বাজার, ডাংমড়কা বাজার, প্রাগপুর বাজার, মহিষকুন্ডি বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিত পথসভায় বক্তব্য রাখেন, সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুর রশীদ বাবলু, ডিএম সাইফুল ইসলাম শেলি দেওয়ান, প্রাগপুর ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফুজ্জামান মুকুল মাষ্টার, এ্যাড. মাসুদ করিম মিঠু দেওয়ান, মুক্তিযোদ্ধা হিসাব উদ্দিন, আব্দুল মান্নান ও এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট চান।

ইভিএম নিয়ে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে সিইসি

আইনি ভিত্তি পেলেই ইভিএম, তবে বাড়তি চাপ নয়

ঢাকা অফিস ॥ আইনি ভিত্তিতে সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার হলেও তা নিয়ে বাড়তি কোনো সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেওয়া চলবে না বলে সতর্ক করে দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা। গতকাল শনিবার রাজধানীর নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে ইভিএম নিয়ে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের এক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। সিইসি বলেন, “আমরা প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি। যদি আইনগত ভিত্তি পায় তখনই ইভিএম চালু করা করা হবে। এবং যে ইভিএম আছে সেটা যদি ব্যবহার উপযোগী হয়, ক্রটি না থাকে তবে তখনই ইভিএম ব্যবহার হবে। ইভিএম নিয়ে আমাদের অবস্থান- যতটুকু পারবো সম্পূর্ণভাবে নিশ্চিত হয়ে… এই ইভিএম এখন নিশ্চিতভাবে ব্যবহার করা যায়, ততটুকু ব্যবহার করবো। অতিরিক্ত চাপিয়ে দেওয়া… অতিরিক্তভাবে এটার অবস্থানে… আমরা এটার দায়িত্ব নেব না কখনও।” একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ইভিএম কেনা ও সংরক্ষণের প্রকল্প চলতি মাসে একনেকের অনুমোদন পেয়েছে। আগামী ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় এই ভোটে ইভিএম ব্যবহারে নির্বাচনী আইন গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধনের লক্ষ্যে প্রস্তাব এবং এই প্রকল্পটিও অনুমোদনের জন্য এর মধ্যে সরকারের কাছে পাঠিয়েছে সাংবিধানিক সংস্থাটি। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ইভিএম ব্যবহারের পক্ষে হলেও অধিকাংশ রাজনৈতিক দল সংসদ নির্বাচনে এখনই যন্ত্রে ভোটগ্রহণের বিরোধিতা করছে। ইভিএমের ঘোরবিরোধী বিএনপি দাবি করেছে, প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকায় ইভিএম কেনার এই প্রকল্পে লুটপাট হবে। এই প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি এক সভায় ইভিএম ব্যবহারের পক্ষে ধীরে চলার কথা বলেন। নির্বাচনী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের ওই অনুষ্ঠানে সিইসি বলেন, “ইভিএম নিয়ে কথা হয়েছে। ইভিএম নিয়ে মানুষের মধ্যে সন্দেহ থাকবে, প্রশ্ন থাকবে। ভোট মানুষের একটি পবিত্র আমানত। সেটা কোথায় দিল, কীভাবে দিলো, সঠিকভাবে দিল কিনা সেটা জানার আগ্রহ থাকবে না- এটা হতেই পারে না। সেটা কীভাবে ব্যবহার করে, সেই জ্ঞান যদি না থাকে তাহলে তাদের মধ্যে প্রশ্ন থেকেই যাবে। আমাদের প্রয়োজন হবে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ইভিএম কি, এর কি উপকারিতা সেটা আপনাদের (নির্বাচনী কর্মকর্তা) মাধ্যমে দেশব্যাপী প্রচার-প্রচারণা চালাতে হবে।” নুরুল হুদা বলেন, “ইভিএম ব্যবহার নিয়ে নির্বাচন কমিশনের একটা স্বপ্ন আছে। ম্যানুয়াল ভোটিংয়ে কত রকমের অসুবিধা আপনারা জানেন। ২৫-৩০ রকমের ফরম এনভেলপ ছাপাতে হয়। ইভিএম হলে ১০-১৫ মিনেটের মধ্যে রেজাল্ট পাওয়া যায়। একজনের ভোট, আরেকজন দিতে পারে না। রাতে ব্যালট বক্স পাহারা দিতে হয় না। ইভিএম হলে কী কী উপকার হবে, কী কী হবে, কী কী হবে না। এগুলো মানুষকে জানাতে হবে। যখন ভোটার জানবে তখনই শুধু তারা এর ওপর আস্থা রাখবে।” ইভিএমের কারিগরি বিষয়ে জনসাধারণকে পরিপূর্ণভাবে ধারণা দেওয়ার বিষয়ে জোর দিয়ে তিনি বলেন, “আমরা ইভিএম নিয়ে গেলাম, কিন্তু মানুষ ব্যবহার করলো না। তখন তাদের ওপর দোষ চাপালে হবে না। নতুন একটা জিনিস যদি ব্যবহার করার সময় মানুষ পরিপূর্ণভাবে তার কারিগরি দিক সম্পর্কে ধারণা না থাকে তাহলে প্রশ্ন থাকবেই। এটা ব্যক্তিগত বিষয় নয়, জনসাধারণকে নিয়ে বিষয়।” নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক মোস্তফা ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ইসি সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোখলেছুর রহমান ও পরিচালক (প্রশিক্ষণ) বেলায়েত হোসেন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

ষড়যন্ত্রের ঐক্য কোন ফল দেবে না – মেনন

ঢাকা অফিস ॥ সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ড. কামাল হোসেন ও বদরুদ্দোজা চৌধুরীর জাতীয় ঐক্যের মূলশক্তি থাকবে বিএনপি-জামাত। তিনি বলেন, ‘তারা থাকবেন শুধু স্বাক্ষী গোপাল মাত্র। ষড়যন্ত্রের এই ঐক্য কোন ফল দেবে না। আন্দোলন দূরে থাক, তারা একত্রে কোন কাজই করতে পারবেন না।’ সমাজকল্যাণ মন্ত্রী গতকাল শনিবার রাজধানীর শাহজাহানপুরের ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে দেশের চলমান উন্নয়ন কার্যক্রম নিয়ে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন। এলাকার স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, শিক্ষকবৃন্দ, মসজিদ কমিটির সদস্যবৃন্দ, ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের সাথে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। কামাল হোসেনের নেতৃত্বে নতুন ঐক্যে বিএনপি’র সংশ্লিষ্টতা বিষয়ে সমালোচনা করে রাশেদ খান মেনন বলেন, কামাল হোসেনের মত জনবিচ্ছিন্ন ব্যক্তির নেতৃত্বে গড়ে ওঠা আন্দোলনটি এখন জগাখিচুড়ি অবস্থায় দাঁড়িয়েছে। যেখানে বিএনপি গত নয় বছরে নয়টি আন্দোলনও করতে পারেনি সেখানে এই ঐক্য আন্দোলনের ডাক দিয়ে সরকার পতনের কথা বলছে। আন্দোলনতো দূরের কথা, এই ঐক্য আসলে তাদের মধ্যে কোন ঐক্যই আনতে পারবে না। বর্তমান সরকারের উন্নয়নের কাছে তাদের ষড়যন্ত্রের ঐক্য ধুয়ে বিলীন হয়ে যাবে। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশ এক অবিশ্বাস্য উন্নয়নের পথে এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশে এ বছর স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রী বলেন, জাতীয় প্রবৃদ্ধি পরপর গত দু’বছর ৭ শতাংশের কোটা ছাড়িয়ে গেছে। দেশের জিডিপি বেড়েছে কয়েকগুণ। দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় ২০০৫ সালের বিএনপি-জামাত শাসনের ৫৪০ ডলার থেকে এখন দাঁড়িয়েছে ১৭৫২ ডলারে। দারিদ্র্য কমে নেমে এসেছে ২২ শতাংশে। তিনি বলেন, খাদ্যশস্য উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন নিজের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানীর কথা ভাবতে পারছে। মৎস্যচাষে বাংলাদেশ পৃথিবীর চতুর্থ ও সবজি উৎপাদনে তৃতীয়, গার্মেন্টস রপ্তানীতে দ্বিতীয়। এছাড়াও ঔষধ, সিমেন্ট, চামড়াজাত দ্রব্য, চিংড়ি, কাকড়া, কচ্ছপ ও কুটির শিল্পপণ্য ব্যাপক হারে বিদেশে রপ্তানী করছে। ১১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুজ্জামান বাবুলের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে শাহজাহানপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল লতিফ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুকিত হাওলাদার, ১১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ ইসমাত জামিল লাভলুসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও ওয়ার্কার্স পার্টির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুরে সরকারের ‘উন্নয়ন শীর্ষক’ পথসভায় ড. মোফাজ্জেল হক

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার বৈরাগীর চর ও ফিলিপনগর দারগার মোড়ে জনত্রেী শেখ হাসিনার ‘উন্নয়ন শীর্ষক’ পথসভা ও লিফলেট বিতরণ করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য এবং বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ খুলনা বিভাগীয় শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. মোফাজ্জেল হক। গতকাল শনিবার বিকেলে দৌলতপুরের বৈরাগীর চর ও সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ফিলিপনগর দারগার মোড়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের ‘উন্নয়ন শীর্ষক’ পথসভা ও সাধারণ জনগণের মাঝে “যে কারণে দরকার শেখ হাসিনার সরকার” শিরোনামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের বার্তা লিফলেট বিতরণ করেন ড. মোফাজ্জেল হক। ড. মোফাজ্জেল হক বলেন, দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে চলছে। উন্নয়নে অসম্ভব গতিতে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ। উন্নয়নে শেখ হাসিনা সরকারের কোন বিকল্প নাই। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে। ড. মোফাজ্জেল হক শেখ হাসিনা সরকারের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ, তথ্যপ্রযুক্তি, ক্রীড়া, পরিবেশ, কৃষি, খাদ্য, টেলিযোগাযোগ, সংস্কৃতি, সামাজিক নিরাপত্তা, মানবসম্পদসহ বিভিন্ন উন্নয়ন তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন।

বৈরাগীর চরে পথসভায় সভাপতিত্ব করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম রহমান। বক্তব্য রাখেন নয়ন মেম্বর, সাবেক যুবলীগ নেতা মতলেব হোসেন, যুবলীগ নেতা নাসির উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আসলাম হোসেন প্রমুখ। ফিলিপনগর দারগার মোড়ে পথসভায় সভাপতিত্ব করেন ফিলিপ নগর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আবু বক্কর। বক্তব্য রাখেন যুবলীগ নেতা নাসির উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা নাসির উদ্দিন, অঅন্টু মেম্বার প্রমুখ।

অপরদিকে বৃহস্পতিবার দৌলতপুর উপজেলার পিয়ারপুর ইউনিয়নের কামালপুর ও শেরপুর বাজারে জনত্রেী শেখ হাসিনার ‘উন্নয়ন শীর্ষক’ পথসভা ও লিফলেট বিতরণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য এবং বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ খুলনা বিভাগীয় শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. মোফাজ্জেল হক।