খয়েরপুরে নসিমনের ধাক্কায় অটোরিক্সার যাত্রী নিহত

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে স্যালো ইঞ্জিনচালিত নসিমনের ধাক্কায় শরিফা খাতুন (৫৮) নামের এক অটোরিক্সার যাত্রী নিহত হয়েছেন। গতকাল  মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়কের খয়েরপুরে এলাকায় এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত শরিফা খাতুন মিরপুর পৌরসভার ভাঙ্গা বটতলা এলাকার আজিবার আলী স্ত্রী। স্থানীয়রা জানায়, মিরপুর থেকে অটোরিক্সা যোগে শরিফা খাতুন আমলা এলাকায় তার মেয়ের বাড়ীতে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে উক্ত স্থানে পৌঁছালে একটি দ্রুতগামী নসিমন অটোটিকে ধাক্কা দেয় এবং অটোরিক্সাটি উল্টে নাসিমা খাতুন গুরুত্বর আহত হয়। পরে স্থানীয়া তাকে উদ্ধার করে মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। স্থানীয় ইউপি সদস্য কামাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

খোকসায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরন

খোকসা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার খোকসায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের সমাপনী অনুষ্ঠানে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ করা  হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মৎস্য অফিসের আয়োজনে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৯ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাফফারা তাসনীনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ¦ সদর উদ্দিন খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র প্রভাষক তারিকুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা গোপেস চন্দ্র সরকার, উপজেলা কৃষি অফিসার সবুজ কুমার সাহা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা মৎস্য অফিসার রাসেদ হাসান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা উপজেলা সমবায় অফিসার সাঈদ হাসান, যুব উন্নয়ন অফিসার বদিউজ্জামান, খোকসা জানিপুর সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহম্মদ আলী, শোমসপুর বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুজ্জামান বিল্লু, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবু হানিফ, জানিপুর ইউপি চেয়ারম্যান হবিবুর রহমান, ওসমানপুর ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান বাবলু, গোপগ্রাম ইউপি চেয়াম্যান আলমগীর হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি হাজী রহিম উদ্দিন খান, মৎস্য চাষী মহম্মদ আলী, আরিফুল আলম তশর, শেখ সাইদুল ইসলাম প্রবীন প্রমুখ। পরে উপজেলা পরিষদ পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করে করেন প্রধান অতিথি আলহাজ¦ সদর উদ্দিন খান। অনুষ্ঠানে মৎস্য চাষে বিশেষ অবদান রাখায় মহম্মদ আলী, আরিফুল আলম তশর ও আবুল কালামকে পুরস্কৃত করা হয়।

কালুখালীর কালিকাপুরে বন্যার্তদের মাঝে চাউল বিতরণ

ফজলুল হক ॥ রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নে অতিবৃষ্টি ও বন্যার্ত মানুষের মাঝে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর আওতায় জিআর চাউল বিতরণ করা হয়েছে। বেলা ১১ টায় কালিকাপুর ইউপির হরিণবাড়ীয়া বাজারে ইউনিয়নের ৩৭৫ টি পরিবারের মাঝে ৩০ কেজি করে চাউল বিতরণ করা হয়। এ চাউল বিতরণ কর্মসুচীর উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুন নাহার। এসময় কালিকাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিউর রহমান নবাব, ট্যাগ অফিসার যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আবুল বাসার চৌধুরী, ইউপি আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আকমল হোসেন বাচ্চু, ইউপি সদস্য মনোয়ার হোসেন মনো, আঃ জব্বার জুলু, ইউপি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজির হোসেন সহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ারবাজারে ব্যাপক ধসের জন্য সরকার দায়ী – রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ শেয়ারবাজারে ধসের জন্য সরকারকে দায়ী করে অবিলম্বে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এ দাবি জানান তিনি। এর আগে দলীয় কার্যালয়ের নিচ থেকে শুরু করে মিছিলটি নাইটিঙ্গেল মোড় হয়ে আবার কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। রিজভী বলেন, ‘শেয়ারবাজারে এক দিনেই চার হাজার কোটি টাকার বেশি দর হারিয়েছে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলো। এখন বিনিয়োগকারীদের মাথায় হাত। এক দিনেই ৪ হাজার ৩৫৮ কোটি টাকার লোকসান গুণতে হয়েছে বিনিয়োগকারীদের। এতে সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়েছেন ঋণগ্রস্ত বিনিয়োগকারীরা। এখন সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আতঙ্ক বেড়েছে। তিনি বলেন, গত ৩০ জুন ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট পাস হওয়ার পর থেকে গত সোমবার পর্যন্ত মাত্র ১৫ কার্যদিবসে বিনিয়োগকারীদের লোকসান হয়েছে প্রায় ২৭ হাজার কোটি টাকা। শেয়ারের মূল্যমান কমে যাওয়ায় প্রায় ৪ লাখ কোটি টাকা থেকে ডিএসইর বাজার মূলধন নেমে এসেছে ৩ লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকায়। রিজভী বলেন, শেয়ারবাজারে এই ব্যাপক ধসের জন্য সরকার দায়ী। অবিলম্বে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানাচ্ছি। ক্ষুদ্র ব্যবসায় কর আরোপের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, গরিবের টাকা চুরি ও তাদের পেটে লাথি মারতে এখন ছোট ছোট ব্যবসায়ীর ওপরও করের বোঝা চাপাচ্ছে জনবিদ্বেষী সরকার। ইতোমধ্যে প্রায় পৌনে ২০০ পণ্য উৎপাদন, সরবরাহ ও সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে ব্যবসায় নিবন্ধন নেয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে, যা ভ্যাট নিবন্ধন হিসেবে পরিচিত। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) গত রোববার এ আদেশ দিয়েছে। ভ্যাট নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ছোট ব্যবসার তালিকায় আছে রেস্তোরাঁ, মিষ্টির দোকান, আসবাব বিক্রেতা, কোচিং সেন্টার, শরীরচর্চা কেন্দ্র (জিম), বিউটি পার্লার, মোটর ওয়ার্কশপ, ডেকোরেটরের দোকান, যানবাহন ভাড়া প্রদানকারী ইত্যাদি। তিনি বলেন, ‘আমি অবৈধ সরকার কর্তৃক ছোট ছোট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ওপর ভ্যাট আরোপের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং এ ধরনের গণবিরোধী সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

কালুখালীতে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ

কালুখালী প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীর কালুখালীতে মঙ্গলবার জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৯ এর সমাপনী অনুষ্ঠান ও মৎস্য চাষে বিশেষ অবদানের জন্য পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। উপজেলা মৎস্য দপ্তরের আয়োজনে বেলা ১২ টায় উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাদিয়া ইসলাম লুনা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা শাহরিয়ার জামান সাবু, সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জয়ন্ত কুমার দাস, ক্ষেত্র সহকারী মোঃ হিমু প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। পরে আইড় ও কার্প জাতীয় মাছ চাষে মোঃ সহিদুল ইসলাম বাচ্চু, গুলশা  টেংড়া ও পাবদা মাছ চাষে বাবু বিশ্বাস, বাণিজ্যিকভাবে পোনা ও কার্প জাতীয় মাছ চাষে আঃ গফুর, বড় মাছ ও কার্প জাতীয় মাছ চাষে মোঃ লুৎফর রহমান খান কে মৎস্য চাষে বিশেষ অবদানের জন্য ক্রেষ্ট ও উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়। এছাড়াও মৎস্য চাষ বিষয়ে বিতর্ক প্রতিযোগীতায় শ্রেষ্ঠ বক্তা হিসেবে সূর্য্যদিয়া মদাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের  দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান রুফা ও বিজয়ী দল হিসেবে গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয়কে ক্রেস্ট ও পুরস্কার বিতরণ করা হয় এবং শ্রেষ্ঠ লিফ হিসেবে জগৎ কুমার ঘোষকে পুরস্কৃত করা হয়। সমাপনী বক্তব্যে মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আব্দুস সালাম বলেন, সফলতার সাথে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ -২০১৯ উদযাপনে সকলের সহযোগীতার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

জাতীয় দৈনিক বর্তমান কথা’র কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি হলেন শৈবাল আদিত্য

ঢাকার বহুল প্রচারিত জাতীয় দৈনিক বর্তমান কথা’র কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি হিসেবে নিয়োগ পেলেন কবি, সাংবাদিক ও সংগঠক শৈবাল আদিত্য। সাংবাদিক ও কবি শৈবাল আদিত্য প্রায় দুই যুগ ধরে সাংবাদিকতা পেশার সাথে জড়িত। তিনি কুষ্টিয়া থেকে প্রকাশিত দৈনিক আন্দোলনের বাজার, দৈনিক কুষ্টিয়া ও দৈনিক দেশতথ্য পত্রিকার সূচনালগ্নে দায়িত্বশীল পদে কর্মরত ছিলেন। এছাড়াও ঢাকার বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকা এবং টেলিভিশন চ্যানেলে কাজ করেছেন। দৈনিক বর্তমান কথা পত্রিকার কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি হিসেবে তিনি জেলার সুধী সমাজ, প্রশাসন, রাজনীতিক, সাংবাদিক সহ সকল স্তরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেছেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ’২০১৯ পুরষ্কার বিতরন

ভেড়ামারার শ্রেষ্ঠ মৎস্য চাষী লিটন

আল-মাহাদী ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় শ্রেষ্ঠ মৎস্যচাষী নির্বাচিত হয়েছেন মির্জাপুরের লিটন মৎস্য খামারের মালিক লিটন আলী। গতকাল মঙ্গলবার সকালে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ’২০১৯ উপলক্ষ্যে আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠানের শেষ দিনে মুল্যায়ন ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে এ ঘোষনা দেওয়া হয়। এসময় সম্মান সূচক শ্রেষ্ঠ মৎস্যচাষী’র কেষ্ট তুলে দেন ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আখতারুজ্জামান মিঠু, ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল মারুফ, ভাইস চেয়াম্যান বুলবুল হাসান পিপুল, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদসহ কর্মকর্তারা।

ঝিনাইদহে বর্ণাঢ্য আয়োজনে কসাসের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ এক যুগে পদার্পন করলো জয়বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত সংগঠন ঝিনাইদহের কথন সাংস্কৃতিক সংসদ(কসাস)। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে সরকারি কেসি কলেজ চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে কসাসের কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। কসাসের সভাপতি উম্মে সায়মা জয়ার সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ আদিত্য বিশ্বাস ও সহ-সভাপতি শফিক মেহমুদ জুয়েল এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, সরকারি কেসি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. বিএম রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন কলেজ উপাধ্যক্ষ প্রফেসর অশোক কুমার মৌলিক, শিক্ষক পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আব্দুর রশীদ,  কসাসের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান। পরে কেক কেটে ১১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়। এর আগে শুরুতে পায়রা উড়িয়ে কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়। ‘ মেধার চর্চায় মুক্তির অণে¦ষ’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে ২০০৮ সালের ২৩ জুলাই সরকারি কেসি কলেজের একঝাক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীর হাত ধরে পথচলা শুরু করে সংগঠনটি। সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে অবদান রাখায় ২০১৭ সালে সংগঠনটি অর্জন করে জয়বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ড।

আমলাপাড়া সার্বজনীন পূজা মন্দিরে মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান

নিজ সংবাদ ॥ বিশ্বশান্তি ও সকল সন্তানের কল্যাণ কামনায়, কুষ্টিয়া শহরস্থ ‘আমলাপাড়া সার্বজনীন পূজা মন্দির’ প্রাঙ্গনে ৩২ প্রহর ব্যাপী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজন চলছে। ‘আমলাপাড়া সার্বজনীন পূজা মন্দির’ কমিটির সভাপতি সনৎ কুমার পাল ও সাধারণ সম্পাদক বুদ্ধদেব কুন্ডু জানান, অত্র মন্দির কমিটির প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে আছেন কুষ্টিয়া আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডঃ অনুপ কুমার নন্দী। তার সাথে পরামর্শক্রমে সুন্দরভাবে মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান সম্পর্ন করতে  আয়োজন চলছে। অনুষ্ঠানের মধ্যে ২৬ জুলাই শুক্রবার শ্রীমদ্ভগবদ গীতা পাঠ অন্তে মঙ্গলঘট স্থাপন ও শুভ অধিবাস। ২৭, ২৮, ২৯ ও ৩০ জুলাই ৩২ প্রহর (৪দিন) ব্যাপী অখন্ড শ্রীশ্রী তারকব্রম্ম মহানাম সংকীর্তন পরিবেশিত হবে। ৩১ জুলাই বুধবার মহাপ্রভুর ভোগ ও মহাপ্রসাদ বিতরণ করা হবে। নাম সুধা পরিবেশনায় থাকছে যশোর, মাগুরা, রাজবাড়ী, ঝিনাইদহসহ বিভিন্ন স্থানের কীর্তনীয় দল। উক্ত অনুষ্ঠানে ‘আমলাপাড়া সার্বজনীন পূজা মন্দির’ কমিটির পক্ষ থেকে সকল ভক্তবৃন্দকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

গাংনীতে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার

মেহেরপুর প্রতিনিধি  ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুর ১টায় উপজেলার করমদী গ্রাম থেকে ফেন্সিডিলগুলো উদ্ধার করা হয়। গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: ওবাইদুর রহমান জানান, করমদি গ্রামের আনারুল ইসলামের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী শরিফুল ইসলাম ফেন্সিডিল নিয়ে তার বাড়িতে অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে বামুন্দী পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই বুলবুল হোসেন অভিযান চালায় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে শরিফুল ইসলাম পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে ১৫০ বেতাল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। বামুন্দী পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এস আই বুলবুল হোসেন বলেন- মাদক ব্যবসায়ী শরিফুলের নামে অন্তত ১০ টি মাদকের মামলা রয়েছে। ১৫০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধারের ঘটনায় মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করা হবে।

দৌলতপুরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের সমাপনী ও মূল্যায়ন সভা

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ, মৎস্য সেক্টরের সমৃদ্ধি, সুনীল অর্থনীতির অগ্রগতি’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশের ন্যায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুরেও শেষ হয়েছে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ। এ উপলক্ষে মূল্যায়ন ও সমাপনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১টায়  দৌলতপুর উপজেলা পরিষদ কনফারেন্স রুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে মূল্যায়ন ও সমাপনী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এজাজ আহমেদ মামুন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর মৎস্য অফিসার সহিদুর রহমান। এসময় দৌলতপুর কৃষি অফিসার একেএম কামরুজ্জামানসহ উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

মেহেরপুরে দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্য গোলাগুলিতে নিহত-১

মেহেরপুর প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুর সদর উপজেলার গোভিপুর গ্রামে দুই দল মাদক ব্যাবসায়ীদের মধ্য গোলাগুলিতে হামিদুল ইসলাম (৩০) নামের এক মাদক ব্যাবসায়ী নিহত হয়েছে।  সোমবার রাত তিনটার দিকে গোভিপুর গ্রামের মাথাভাঙ্গা মোড় নামক স্থানে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটারগান, দুই রাউন্ড গুলি ও ১২ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। নিহত হামিদুল ইসলাম সদর উপজেলার বুড়িপোতা গ্রামের আরজ আলীর  ছেলে। তার নামে সদর থানায় এক ডজন মামলা রয়েছে। মেহেরপুর সদর থানার ওসি শাহ দারা খান জানান,  সোমবার দিবাগত রাত তিনটার সদর উপজেলার গোভিপুর গ্রামে দুই দল মাদক ব্যাবসায়ীদের মধ্য গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। পরে গোলাগুলির খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গ্রামবাসীদের সহযোগীতায় মাথাভাঙ্গা মোড়ে গুলিবৃদ্ধ হামিদুল ইসলামের মরাদেহ দেখতে পায়। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে মাদক ভাগাভাগি নিয়ে দু’পক্ষের মধ্য গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

গাংনীতে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ’১৯ উপলক্ষে মূল্যায়ন, পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠান

মেহেরপুর প্রতিনিধি ॥ ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ ‘মৎস্য সেক্টরের সমৃদ্ধি সুনীল অর্থনীতির অগ্রগতি’ এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে গাংনীতে  জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ’র মূল্যায়ন, পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা  হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার সময় মৎস্য সপ্তাহ-১৯ উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে মূল্যায়ন, পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয় মৎস্য  সপ্তাহ উদযাপন কমিটির সভাপতি উপজেলা  নির্বাহী অফিসার সুখময় সরকারের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির মনোনীত প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট আ.লীগ নেতা মনিরুজ্জামান আতু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা মৎস্য অফিসার মীর মোহাম্মদ জাকির হোসেন (অতিরিক্ত দায়িত্ব)। এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, গাংনী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ খালেক। অসময় উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন, গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জের  প্রতিনিধি এসআই হাবিবুর রহমান, সাবেক পৌর মেয়র আহমেদ আলী, গাংনী পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আনারুল ইসলাম বাবু, মৎস্য সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ইকবাল শরীফ প্রমুখ। অন্যান্যদের  মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, গাংনী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিরুল ইসলাম অল্ডাম সহ উপজেলা মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই এবছর উপজেলার মৎস্য চাষীদের মধ্যে সফল মৎস্যচাষী ও সফল মৎস্যজীবি তেরাইল গ্রামের সফল পাঙ্গাস মাছ উৎপাদনকারী হিসাবে আলমগীর হোসেন বিশ্বাস, মনোসেক্স তেলাপিয়া উৎপাদনকারী হিসাবে মিজানুর রহমান, সফল বড় মাছ উৎপাদনকারী  হিসাবে চাঁদপুরের  আহমেদ আলী (সাবেক পৌর মেয়র) ও মাছ উৎপাদনকারী হিসাবে এলাঙ্গীর আব্দুল মান্নানকে পুরস্কার হিসাবে ক্রেষ্ট উপহার দেয়া হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে গাংনী উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মৎস্য চাষী ও মৎস্যজীবিরা উপস্থিত ছিলেন।

 ॥ নাজির আহমেদ জীবন ॥

সময়ের চিন্তা

শুরু হয়েছে ‘নিষিদ্ধ’ চার মাসের অন্যতম একটি ‘জিল্কদ’। কোরআনে সূরা তওবার ৩৬ নং আয়াতে চারটি মাসকে ‘নিষিদ্ধ’ বলা হয়েছে। এই মাস গুলোতে নিজেদের প্রতি জুলুম করতে নিষেধ করা হয়েছে। বুখারী শরীফে বর্ণিত এই চার মাস হলোÑজিল্কদ; জিলহজ্ব; মহরম ও রজব। আরবরা প্রাচীন কাল হতেই যে, চারটি মাসে যুদ্ধ-বিগ্রহ, লুটতরাজ ও অশ-ীল কার্য অবৈধ মনে করতো এ মাসটি তাদের অন্যতম। আইয়েমে জাহিলিয়াতের যুগেও আরবরা প্রচলিত নিয়মানুসারে কোন যুদ্ধ শুরু হয়ে থাকলেও এই পবিত্র মাসের সম্মানে তা মুলতবী ঘোষণা করতো। রাসূল (সাঃ) বলেছেন, “তোমরা জিল্কদ মাসকে সম্মান কর কেননা ইহা সম্মানিত মাসগুলোর মধ্যে প্রথম মাস”। বলেছেন; “যে ব্যক্তি  জিল্কদ মাসের একদিন রোযা রাখবে করুনাময় আল্লাহতা’আলা তার আমল নামায় একটি মক্বুল হজ্বের সোওয়াব লিখে দেবেন।”

বিষয়টা হচ্ছে  ইসলাম আর্বিরভাবের পূর্ব থেকে আরবে ইব্রাহিমী’র কিছু বিষয় প্রচলিত ছিল। এরপর রাসূল (সাঃ) কে ও ইসলাম প্রচার করতে হল তাও “ইব্রাহিমী ইসলাম।” তাই বারোশরীফের ইমাম (রঃ) বলেছিলেন “কোরান ইব্রাহিমী বিষয় যা মোহাম্মদের (সাঃ) উপর নাযিল হ’ল।” এই চারমাস ও ইব্রাহিমী বিষয়। যার জন্য রাসূলের মি’রাজ হয় রজব মাসে। জিল্কদ মাসকে বলা হয় হজ্বের প্রস্তুতি মাস। আমাদের মাস হলোÑপবিত্র রবিঃ আউঃ, শাবান, রমযান আর জামাদিউসসানী। এখানে জ্ঞান দিয়ে চিন্তার বিষয় আল্লাহ তাঁর হাবীব (সাঃ) কে ঐ সব মাসে না পাঠিয়ে স্বতন্ত্র একটা মাসে দুনিয়াতে পাঠালেন স্বতন্ত্র একটা বারেকেন? কারণ; আল¬াহ চান নায় যে তাঁর হাবীব অন্য কারও সম্মানে সম্মানিত হন বরং তিনি নিজ মহিমায় নিজ সম্মানে সম্মানিত হন। জুমার দিনটি অন্যসব নবীর বিশেষ করে নবী ইব্রাহিম এর সম্মেলন দিন। তাই রাসূল (সাঃ) বলেছেন, “তোমরা জুমার দিন আমার প্রতিবেশি দরুদ পাঠ কর।” জিজ্ঞাসা করা হয় হে আল্লাহর রাসূল! আপনাদের অর্থাৎ আহ্লে বাই্তের ওপর আমরা কি দরুদ পড়ব? তিনি বলেন; তোমরা পড়বে, হে আল¬াহ! মোহাম্মদ (সাঃ) ও তাঁর বংশধরের ওপর রহমত বর্ষন কর যে ভাবে ইবরাহীম (আঃ) ও তাঁর বংশধরের প্রতি রহমত  বর্ষন করেছ। হে আল্লাহ! মোহাম্মদ (সাঃ) ও তাঁর বংশধরের প্রতি বরকত দান কর যে ভাবে ইবরাহীম (আঃ) ও তাঁর বংশধরের প্রতি বরকত দান করেছ।” এখানে রাসূল নিজেকে ইব্রাহীম এর উপর বা ওভারটেক করতে চান নাই। কারণ, সময়টা ইবরাহিমী। তাই, সোমবার ও দরুদ পাঠ তাঁর নিজস্ব বিষয় হওয়া সত্ত্বেও শুক্রবার ও ইব্রাহিম নবীকে প্রাধান্য দিলেন।

এসব বিষয়গুলো আজ আমাদেরকে জ্ঞান দিয়ে চিন্ত করতে হবে। কারণ; আল্লাহ ও রাসূল দয়া করেছেন বারো শরীফের ইমাম হযরত শাহসূফী মীর মাস্উদ হেলাল (রাঃ) এর মাধ্যমে “মোহাম্মদী” প্রচারিত হচ্ছে। আল¬াহ সর্বজ্ঞ ও সর্বদ্রষ্টা। তাই, শেষ জামানায় যে আওলাদে রাসূলের মাধ্যমে “মোহাম্মদী” প্রচার করাবেন তা পূর্বে নির্দ্ধারিত ছিল।

সে ক্ষেত্রে এমন একজন আধ্যাত্মিক মহানায়ককে কি করে জিল্কদ মাসে দুনিয়াতে পাঠাবেন। তাই স্বতন্ত্র একটা পবিত্র মাস “জামাদিউস্সানীতে”, পবিত্র মঙ্গলবার দুনিয়াতে পাঠন। এ মাস হিজরী ৬ষ্ঠ মাস। এ চাঁদের প্রথম তারিখে হযরত আবু বকর (রাঃ) ১২ রেকাত নফল নামায পড়তেন। অনেক সাহাবা ১০ দিন রোযা এবং ২০ রেকাত নফল নামায পড়তেন।

ইমাম (রঃ) বলে গেছেন, “ইব্রাহিমী দরজা বন্ধ হয়ে গেছে, হজ্ব ও নামাযের শক্তি কমে গেছে। এর দ্বারা মুক্তি আশা করা যায় না। এখন থেকে আমার ভক্তরা সপ্তাহে একদিন আর মাসে একদিন মাহ্ফিল করবে। এতেই রাসূল মুক্তির ব্যবস্থা করে দেবেন।”

জিজ্ঞাসা করেছিলাম মুসলমানরা একতাবদ্ধ হবে কবে? বলেছিলেন “যতদিন না  মোহাম্মদীর মধ্যে না আসবে। ইব্রাহিমী তো এ  বিভেদ করে রেখেছে। একমাত্র দ্বীনে মোহাম্মদী পারবে, বিশ্বশান্তি আনতে বিশ্ব মুসলমানকে একত্র করতে।”

ইবির সহকারী প্রক্টর হিসেবে তিন নতুন মুখ

ইবি প্রতিনিধি ॥ ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ে তিন শিক্ষককে নতুন সহকারী প্রক্টর হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। সোমবার রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ স্বাক্ষরিত এক প্রেস-বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়। নিয়োগ প্রাপ্তরা হলেন- ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাসিমুজ্জামান, ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের হাফিজুল ইসলাম ও বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আরিফুল ইসলাম। এ ব্যাপারে রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ বলেন, আগামী এক বছরের জন্য উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী তাদেরকে এ পদে নিয়োগ প্রদান করেন।

জমি সংক্রান্ত দ্বন্দ্বের জের

কুষ্টিয়ার মিরপুরে পুত্রের হাতে পিতা খুন, মা আহত

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে জমি সংক্রান্ত দ্বন্দ্বের জেরে পিতাকে পুত্রের আঘাত ঠেকাতে গিয়ে মায়ের মাথায় আঘাত লেগে রক্তাক্ত জখম হয়। এই দৃশ্য দেখে পিতা রুহুল আমীন (৭০) প্রথমে জ্ঞানশুন্য হন পরে মৃত্যুবরন করেন। এ ঘটনায় রক্তাক্ত জখম গুরুত্বর আহত মা মাহিমা খাতুন (৬০) মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে মিরপুর উপজেলার চৌদুয়ার গ্রামে নিহতের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রুহুল আমীন স্থানীয় মৃত আফসার মন্ডলের ছেলে। আহত মাহিমা খাতুন রুহুল আমীনের স্ত্রী। স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের বড় ছেলে আব্দুল হালিম জানান, পিতার নিজ নামীয় জমিজমা চার ছেলের মধ্যে মৌখিকভাবে ভাগ বন্টন করে দেন। এতে আমাদের ৩ ভাইয়ের কোন আপত্তি না থাকলেও ছোট ভাই সাজু নিয়ে আমার পিতা রুহুল আমীনের সাথে সকালে আমার ভাই সাজু (৩০) এর বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে তাদের মাঝে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। আমার মা ছুটে গেলে সাজু মায়ের মাথায় আঘাত করে এবং মাথা ফেটে যায়। এসময় আমার পিতা রুহুল আমীন মায়ের মাথা থেকে রক্তঝরা দেখে মাটিয়ে পড়ে যায়। আমরা দ্রুত মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন। নিহতের সুরতহাল প্রস্তুতকারী মিরপুর থানার এসআই জালাল উদ্দিন বলেন, মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিহত রুহুল আমীনের মরদেহে তেমন কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মোহা: সেলিম হোসেন ফরাজী বলেন, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে রুহুল আমীন (৭০) নামে জ্ঞানশুন্য এক রোগীকে জরুরী বিভাগে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কার্ডিয়াক ফেইলরে তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম বলেন, সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। ফরেনসিক রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারন জানা যাবে। তবে মারামারির ঘটনায় জড়িত নিহতের ছেলে সাজু ও তার স্ত্রী সালমা খাতুন পলাতক রয়েছে।

ক্যারিয়ার প্লানিং ও উচ্চ শিক্ষা শীর্ষক সেমিনারে প্রফেসর ড. মো: জহুরুল ইসলাম

মূল্যবোধ ভিত্তিক পরিকল্পনার মাধ্যমে সঠিক ক্যারিয়ার গঠন সম্ভব

নিজ সংবাদ ॥ ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ও রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ^বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ভাইস চেয়ারম্যান ও অনুষ্ঠানের মূখ্য আলোচক প্রফেসর ড. মো: জহুরুল ইসলাম বলেন মূল্যবোধ ভিত্তিক পরিকল্পনার মাধ্যমে সঠিক ক্যারিয়ার গঠন সম্ভব। মঙ্গলবার কুষ্টিয়ার মিরপুরে নিমতলা কলেজে অনুষ্ঠিত ক্যারিয়ার প্লানিং ও উচ্চ শিক্ষা শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন। নিমতলা কলেজের অধ্যক্ষ মো: শাহজাহান আলীর সভাপতিত্বে উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন নিমতলা কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আহমদ আলী। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মিরপুর জাসদের যুগ্ম সম্পাদক কারশেদ আলম। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন অত্র কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোস্তফা এফ রায়হান। সেমিনারে শতাধিক শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে ক্যারিয়ার প্লানিং এর বিভিন্ন দিক নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। সেমিনারে মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশন এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার প্লানিং বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ে ধারণা প্রদান করা হয়। সেমিনার অনুষ্ঠানে কলেজের শিক্ষকমন্ডলী ছাড়াও রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ^বিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ট্রাস্টি জুলফিকার আলী ও ই ই ই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক প্রকৌশলী একরামুল আলীম উপস্থিত ছিলেন।

খুলনা বিভাগীয় মহাসমাবেশ উপলক্ষে কুষ্টিয়ায় বিএনপির মতবিনিময় সভা

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আগামী ২৫ জুলাই খুলনা বিভাগে মহাসমাবেশ কর্মসূচি সফল করতে বিএনপির বিএনপি অঙ্গসংগঠনের মতবিনিময় ও মতবিনিময় সভা হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সদর থানা বিএনপির কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সদর থানা বিএনপির সভাপতি বশিরুল আলম চাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ও জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন। আরো বক্তব্য রাখেন শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক একে বিশ^াস বাবু, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড.শামীম উল হাসান অপু, যুব বিষয়ক সম্পাদক মেজবাউর রহমান পিন্টু, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম বিপ¬ব, জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ জাকারিয়া উৎপল, জেলা যুবদল নেতা জিল¬ুর রহমান জনি, জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাব্বী, সাংগঠনিক সম্পাদক রোকনুজ্জামান রাসেল, সরকারী কলেজ ছাত্রদলের সহ-সভাপতি রবিউল ইসলাম, বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান ডিউক, সেচ্ছাসেবকদল নেতা দেবোত্তম বিশ^াস, ছাত্রদল নেতা হৃদয় প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের গণতন্ত্রের নেত্রী, কৃষক শ্রমিক মেহনতি মানুষের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী, গণমানুষের কাজ করার জন্য অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। ক্ষমতার বাইরে থেকেও যিনি এদেশের মেহনতী মানুষ ও কৃষকদের জন্য কাজ করেছেন। একটি মিথ্যা বানোয়াট মামলায় তথাকথিত বিচারের নামে একটি ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির মধ্যদিয়ে সেই দেশনেত্রীকে বন্দি করে  রেখেছে। জনগণের একটায় প্রত্যাশা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, তাকে জেলে রেখে যেভাবে দেশে নির্বাচন করা হয়েছে, জনগণের  ভোটাধিকারসহ মৌলিক অধিকার, বাক স্বাধীনতা, আইনের শাসন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা কেড়ে নেয়া হয়েছে। মানুষের পিঠ দেয়ালে  ঠেকে গেছে। সভায় বক্তারা আরো বলেন, সরকারের অমানবিকতা, নির্দয়-নিষ্ঠুরতার কোপানলে পড়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এখন কারাগারে, তিনি গুরুতর অসুস্থ। তাঁর নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আগামী ২৫ জুলাই খুলনায় মহাসমাবেশ কর্মসূচি সফল করতে আমাদের ব্যাপক প্রস্তুতি রয়েছে। জেলার প্রতিটি উপজেলায় প্রস্তুতি সভা হয়েছে।  সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

গণপিটুনির সঙ্গে জড়িতদের বিচারের মুখোমুখি করা হবে – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ গণপিটুনির মত অপরাধে যারাই যুক্ত হবেন, তাদের সবাইকে গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করা হবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।  গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানিয়েছেন, গত কয়েক দিনে দেশের বিভিন্ন স্থানে গুজব রটিয়ে ৬ জনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এসব ঘটনায় মামলা হয়েছে নয়টি, জিডি হয়েছে ১৫টি।  “আমরা কিন্তু বসে নেই, আমরা সবগুলো ঘটনাকে সামনে এনে, এদের ভিডিও ফুটেজ দেখে, কারা কারা সম্পৃক্ত হয়েছিলেন, এগুলো দেখে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি। ইতোমোধ্য আমরা ৮১ জনকে গ্রেপ্তার করেছি, আমরা আরও গ্রেপ্তার করব।” পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজে ‘মানুষের মাথা লাগবে’ বলে সম্প্রতি ফেইসবুকে গুজব ছড়ানো হয়, যাতে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল সরকার। গুজব ছড়ানোর অভিযোগে বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়। এরমধ্যে গত বৃহস্পতিবার নেত্রকোণা শহরে এক যুবকের ব্যাগ তল্লাশি করে ‘শিশুর মাথা’ পাওয়ার পর তাকে পিটিয়ে হত্যা করে এলাকাবাসী। তারপরও দেশের বিভিন্ন স্থানে গণপিটুনির ঘটনা ঘটে চলছে প্রতিদিন। পুরনো শত্রুতার জেরে মিথ্যা অভিযোগ তুলে জনতাকে লেলিয়ে দিয়ে হত্যার ঘটনাও রয়েছে এর মধ্যে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, যেসব অভিযোগে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে, তার সবগুলাই নিছক গুজব, সবগুলোই ভিত্তিহীন।“একজনে যদি হত্যাকা- ঘটান, কিংবা ১০০ জনে ঘটান, শাস্তি কিন্তু একই রকম। এই ধরনের হত্যাকা- ঘটালে অবশ্যই আমরা তাকে আইনের মুখোমুখি করব। আইন অনুযায়ী শাস্তি পেতেই হবে।“যারা ঘটনার সত্যতা বিচার না করে নিজেরা আইন হাতে তুলে নিচ্ছেন, তাদর নিকট সবিনয় অনুরোধ করব, আপনারা কোনোক্রমেই আইন হাতে তুলে নেবেন না।”কারও বিষয়ে কোনো সন্দেহ হলে তাকে প্রয়োজনে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার হাতে সোপর্দ করতে, অথবা আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাকে ফোন করে জানাতে, অথবা জাতীয় জরুরি সেবার নম্বর ৯৯৯ এ ফোন করে জানাতে, অথবা এলাকার সবাইকে জানাতে বলেন মন্ত্রী।ছেলেধরার সন্দেহে ঢাকার বাড্ডায় এক নারীকে পিটিয়ে মারার প্রসঙ্গ টেনে মন্ত্রী বলেন, “মা তার সন্তানকে ভর্তির তথ্য নিতে গিয়ে স্কুলের সামনে যে ঘটনার শিকার হলেন, এটা সারা দেশবাসীকে ব্যথিত করেছে। আমরাও এ ঘটনা খুব গুরুত্বের সঙ্গে দেখছি।

“কেন এই ঘটনা ঘটাল, যারা যারা সম্পৃক্ত ছিল, এই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে ইতোমধ্যে আমরা সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছি। যারা যারা সেখানে ছিল, সবাইকে শনাক্ত করে তার ব্যবস্থা আমরা নেব।”গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, “আমি আবেদন রাখছি, কেউ যেন সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে অহেতুক উত্তেজিত না হয়ে ঘটনাটা জানতে চেষ্টা করেন, বুঝতে চেষ্টা করেন। এটা তো একটা বোঝারও বিষয় আছে। মা গেছে সন্তানকে স্কুলে ভর্তি করার জন্য, সে কোনো দিন এই ধরনের ঘৃণ্য ঘটনা করতে পারে না, এটা তো নিজেরও বোঝা উচিৎ।”আর গুজব ছড়ানোর বিষয়ে সতর্ক করে তিনি বলেন, “ফেইসবুকে যারা রটনায় ঘটনা ঘটাচ্ছেন, আমাদের পুলিশ কিন্তু বসে থাকবে না। যারাই ঘটাবেন, তাদেরকে আমরা শনাক্ত করব, তাদেরকে আইনের মুখোমুখি আমরা অবশ্যই করব। আমাদের পুলিশকে আর এত অদক্ষ ভাববেন না।” ‘পদ্মা সেতুর জন্য মাথা লাগবে’ বলে যারা গুজব ছড়িয়েছে, তাদের মধ্যে চারজনকে শনাক্ত করে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে তিনি মন্ত্রী।তিনি বলেন, “মানসিক প্রতিবন্ধী, তাকেও এই পিটুনির শিকার হতে হয়েছে। সমাজের যে শাসন সেইটার মনে হয় অবক্ষয় ঘটেছে, সেইজন্যই এই ধরনের ঘটনাও আমাদের দেখতে হচ্ছে।”এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “এ ধরনের গুজব যারা রটিয়েছে, তাদের একটা উদ্দেশ্য নিশ্চয় ছিল। উদ্দেশ্যমূলকভাবে তারা এ ধরনের ঘটনা হয়তো ঘটিয়েছে। “অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করা, মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করার জন্যই এই গুজব। এই গুজবের নিশ্চয়ই কোনো উদ্দেশ্য আছে, আমরা তা দেখছি।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে – রাষ্ট্রপতি

ঢাকা অফিস ॥ রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ সরকারের চলমান উন্নয়নকে টেকসই করার লক্ষ্যে সকল স্তরে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতের জন্য সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘এখন প্রশাসনের প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে জনগণের সেবা করা। আপনাদেরকে প্রতিটি ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।’ আব্দুল হামিদ গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে জনপ্রশাসন পদক-২০১৯ প্রদান অনুষ্ঠানে একথা বলেন। রাষ্ট্রপতি সরকারি কর্মকর্তা ও জনগণের মধ্যে বিশ্বাস ও আস্থার সম্পর্ক গড়ে তোলা এবং জনগণের মনোভাব নিয়ে দায়িত্ব পালনের জন্য তাদের প্রতি আহ্বান জানান আহ্বান জানান। আব্দুল হামিদ সরকারি কর্মকর্তাদের পরামর্শ দিয়ে বলেন, আপনাদেরকে তদবির ছাড়াই সরকারি কর্মকর্তাদের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় সেবা পাওয়া যায়, সেজন্য সেবা প্রত্যাশীদের এমন আস্থা অর্জন করতে হবে। তিনি জেলা প্রশাসক ও অন্যান্য তৃণমূল পর্যায়ের কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আপনাদের এমন ভাবে কাজ করতে হবে, যেন জনগণ আপনাদেরকে তাদের বন্ধু ভাবে। আব্দুল হামিদ কোন সুযোগসন্ধানী যেন বিভিন্ন সামাজিক ইস্যুকে কেন্দ্র করে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্য সতর্ক থাকার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি আরো বলেন, ‘এ ব্যাপারে আপনাদের ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে।’ হামিদ বলেন, ‘জনগণের জন্যই প্রশাসন, প্রশাসনের জন্য জনগণ নয়।’ রাষ্ট্রপতি বলেন, উন্নত বাংলাদেশ গড়তে সরকারি কর্মকর্তাদেরকে তাদের মেধা ব্যবহার করে নিজ দায়িত্ব আন্তরিকভাবে পালন করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর চোখে অস্ত্রোপচার

ঢাকা অফিস ॥ যুক্তরাজ্যে সরকারি সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাম চেখে সোমবার লন্ডনের একটি হাসপাতালে অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহ্সানুল করিম লন্ডন থেকে জানান, সোমবার বিকেলে লন্ডনের একটি হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রীর বাম চোখে অস্ত্রোপচার হয়েছে। তিনি বলেন, অস্ত্রোপচারের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুস্থ্য আছেন। প্রেস সচিব আরো জানান, প্রধানমন্ত্রী লন্ডন থেকে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ফাইল ডিজিটাইলি স্বাক্ষর করেছেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী গত ১৯ জুলাই লন্ডনে পৌঁছার পর একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ইলেক্ট্রোনিক ফাইল স্বাক্ষর করেন। প্রেস সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী লন্ডন থেকে দেশের বন্যা পরিস্থিতি সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষন করছেন এবং এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী ও কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দিচ্ছেন। শেখ হাসিনা বাংলাদেশী দূতদের সম্মেলনে এবং অন্যান্য কর্মসূচিতে যোগ দিতে গত ১৯ জুলাই লন্ডনে যান। প্রধানমন্ত্রী আগামী ৫ আগস্ট দেশে ফিরবেন।