ট্যাংকার জব্দ: ব্রিটেনের প্রতিক্রিয়া, ইরানের ভিডিও

ঢাকা অফিস ॥ হরমুজ প্রণালী থেকে ব্রিটিশ পতাকাবাহী ট্যাংকার স্টেনা ইমপেরিও জব্দের ঘটনাকে ইরানের ‘শত্রুতামূলক কর্মকান্ড’ হিসেবে অভিহিত করেছে যুক্তরাজ্য। পারস্য উপসাগরে দুর্ঘটনায় জড়ানোয় ওই ট্যাংকারটি আটক করা হয়েছে, তেহরানের এমন ভাষ্যও প্রত্যাখ্যান করেছে তারা। ট্যাংকার জব্দের ঘটনায় লন্ডন যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূতকে তলবও করেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এদিকে শনিবার ইরানের বিপ্লবী রক্ষীবাহিনী উপসাগর থেকে ব্রিটিশ ট্যাংকারটি আটকের ঘটনার একটি ভিডিও অনলাইনে পোস্ট করেছে। এতে কয়েকটি ইরানি স্পিডবোটের পাশে স্টেনা ইমপেরিওকে চলতে দেখা যায়। ফুটেজে নৌযানটির নামও স্পষ্ট দৃষ্টিগোচর হয়। উপরে থাকা একটি হেলিকপ্টার থেকে স্কি মাস্ক পরিহিত সৈন্যদের ওই ট্যাংকারের ডেক বরাবর বন্দুক ধরে রাখার দৃশ্যও ভিডিওতে ছিল। একই কৌশলে দুই সপ্তাহ আগে ব্রিটিশ রাজকীয় মেরিন বাহিনীর সদস্যরাও জিব্রাল্টার প্রণালী থেকে ইরানি সুপার ট্যাংকার গ্রেস ১-কে আটক করেছিল। সিরিয়ার বানিয়াস শোধনাগারে তেল নিয়ে যাচ্ছে সন্দেহে ইরানি ওই ট্যাংকারটিকে আটক করার কথা জানিয়েছিল জিব্রাল্টার। সিরীয় ওই শোধনাগারের ওপর ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) নিষেধাজ্ঞা আছে। জিব্রাল্টারে আটক ট্যাংকার ছেড়ে না দিলে ‘পাল্টা ব্যবস্থা’ নেওয়ার হুঁশিয়ারি ছিল ইরানের; মাঝে একবার তাদের কয়েকটি নৌযান ব্রিটিশ একটি জাহাজকে হেনস্তা করেছিল বলেও লন্ডন অভিযোগ করে। বৈশ্বিক তেল বাণিজ্যের ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জলসীমা হিসেবে পরিচিত হরমুজ প্রণালীতে এ ট্যাংকার আটকের ঘটনা পশ্চিমাদের সঙ্গে তেহরানের উত্তেজনা বৃদ্ধির নতুন নজির হিসেবেই দেখছেন পর্যবেক্ষকরা। গত তিন মাস ধরে ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ক্রমবর্ধমান উত্তেজনা এমনিতেই দেশদুটিকে যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে দাঁড় করিয়ে রেখেছে। শনিবার ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী পেনি মরডন্ট হরমুজ প্রণালী থেকে স্টেনা ইমরেপিও আটককে ‘শত্রুতামূলক কর্মকান্ড’ অ্যাখ্যা দেন। ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফের সঙ্গে আলোচনায় ট্যাংকার জব্দে ‘গভীর হতাশা’ ব্যক্ত করেন যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট। ইরানের বিপ্লবী রক্ষীবাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার-জেনারেল রামেজান শরীফ বলেছেন, ট্যাংকার স্টেনা ইমপেরিওর পাহারায় একটি ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজও ছিল। বিপ্লবী রক্ষীবাহিনী ওই যুদ্ধজাহাজের ‘প্রতিরোধ ও হস্তক্ষেপ’ সত্বেও ট্যাংকার জব্দে সক্ষম হয়েছে। যদিও অনলাইনে প্রকাশ করা ভিডিওতে কোনো ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজ দেখা যায়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স। ইরানি বার্তা সংস্থা ফার্স জানিয়েছে, ইরানি একটি মাছধরার নৌকার সঙ্গে সংঘর্ষের পর শুক্রবার সৈন্যরা স্টেনা ইমপেরিওর নিয়ন্ত্রণ কেড়ে নেয়। সংঘর্ষের আগে মাছধরার নৌকাটি ব্রিটিশ ট্যাংকারটিকে সরে যেতে বললেও তারা তাতে গা করেনি। যুক্তরাজ্যের ওই নৌযানটিকে পরে ইরানি সমুদ্রবন্দর বন্দর আব্বাসে নিয়ে যাওয়া হয়। সংঘর্ষের ঘটনার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কার্গোবিহীন এ নৌযানটির ক্রুরাও সেখানেই অবস্থান করবেন বলে ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় হরমোজগান প্রদেশের বন্দর ও সমুদ্র কর্তৃপক্ষের প্রধান আল¬ামুরাদ আফিফিপুরের বরাত দিয়ে জানিয়েছে ফার্স। স্টেনা ইমপেরিওর ২৩ ক্রুর ১৮ জনই ভারতীয়। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের কাছে লেখা এক চিঠিতে যুক্তরাজ্য জানিয়েছে, তাদের নৌযানটিকে আটক করার সময় সেটি ওমানের জলসীমায় ছিল, এবং সব নিয়ম মেনেই প্রণালীটি পার হচ্ছিল। চিঠিতে স্টেনা ইমপেরিওর আটককে তেহরানের ‘অবৈধ হস্তক্ষেপ’ হিসেবেও অ্যাখ্যা দিয়েছে তারা। “এখনকার উত্তেজনা খুবই উদ্বেগজনক, আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে উত্তেজনা নিরসন। আমরা ইরানের সঙ্গে কোনো ধরনের সংঘাত চাই না। কিন্তু আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি  ট্রানজিট করিডর দিয়ে জাহাজের মাধ্যমে বৈধ বাণিজ্যের ক্ষেত্রে এ ধরনের হুমকি একেবারেই অগ্রহণযোগ্য ও উস্কানিমূলক,” বলেছে তারা। ট্যাংকার জব্দের পর এ নিয়ে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী হান্টের সঙ্গে কথা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।“তারা কী দেখেছে, কী জানে, কী ধরনের প্রতিক্রিয়ার চিন্তা শুরু করেছে, তা নিয়ে কথা বলেছি আমরা। ইরান আজ এমন এক জায়গায় পৌঁছেছে, যেখানে তারা নিজেরাই নিজেদের নিয়ে গেছে,” শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রকাশিত ওয়াশিংটন এক্সামিনারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন পম্পেও।  শুক্রবার ইরান হরমুজ উপকূল থেকে মেসদার নামে আরেকটি তেলবাহী ট্যাংকারকে আটক করলেও পরে তাকে ছেড়ে দেয়। ওই ট্যাংকারটি আলজেরিয়ার রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি সোনাত্রাচের মালিকানাধীন বলে শনিবার জানিয়েছে আলজেরীয় বার্তা সংস্থা এপিএস।ফ্রান্স, জার্মানির পাশাপাশি ইউরোপীয় ইউনিয়নও ট্যাংকার স্টেনা ইমপেরিও জব্দের ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে।ব্রিটিশ এ ট্যাংকারটির গন্তব্য ছিল সৌদি আরবের একটি বন্দর; কিন্তু হরমুজ প্রণালী অতিক্রমের সময়ই তার যাত্রাপথ বদলে যায়। তেহরানের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে শুক্রবারই সৌদি আরবে ৫০০ সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দিয়েছে ওয়াশিংটন। ২০০৩ সালের পর এবারই প্রথম শিয়া সংখ্যাগরিষ্ঠ ইরানের আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দ্বী সুন্নি সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটিতে মার্কিন সেনা যাচ্ছে।

ত্রাণ সহায়তা জরুরী

পদ্মায় ভাসছে কালুখালীর হাজারো মানুষ

কালুখালী প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ী জেলার কালুখালীতে পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় পদ্মা তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়ে ভাসছে হাজারো মানুষ। গত কয়েকদিনে পদ্মার পানি বৃদ্ধি পেয়ে ফসলি জমি তলিয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন কৃষকেরা। ঘরে তোলার আগেই তলিয়ে গেছে পাট ও ধানের ক্ষেত। বন্যার কারণে মানবেতর জীবন-যাপন করছে পানিবন্দিরা। রয়েছে বিষধর সাপের ভয় ও বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে উপজেলার ১নং রতনদিয়া ইউনিয়নের ৪টি ওয়ার্ডের হরিণবাড়ীয়া, লস্করদিয়া, আলোকদিয়া, নারায়নপুর, বিজয়নগর, কৃষ্ণনগর, মাধবপুর ও ২নং কালিকাপুর ইউনিয়নের ঠাকুরপাড়া, কালুখালী ও গোতমপুর এলাকা। পানির কারণে এই অঞ্চলের লস্করদিয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম উচ্চ বিদ্যালয় ও হরিণাডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ ৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত হতে পাড়ছে না। নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় অনেকেই পরিবার পরিজন ও গৃহপালিত পশু-পাখি নিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন আশ্রয়কেন্দ্র, আত্মীয়-স্বজন ও উঁচু এলাকায়। এদিকে উপজেলা কৃষি অফিস কি পরিমাণ ফসলের ক্ষতি হয়েছে তা নিরূপণে কাজ করছে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে ২নং কালিকাপুর ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান মোঃ বিল্লাল হোসেন বলেন, ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে অতিদ্রুত শুকনা খাবার ও খাবার স্যালাইনের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন। আমি এ বিষয়ে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। রতনদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী হাচিনা পারভীন নিলুফা বলেন, আমার ইউনিয়নের ৪ টি ওয়ার্ডের ১০-১২ হাজার মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় আছে। আমি ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করে তাদের খোজ-খবর নিয়েছি এবং তাদের তালিকা তৈরী করা হচ্ছে।  উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুন নাহার বলেন, পদ্মার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী তীরবর্তী এলাকা প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দি মানুষের একটি তালিকা তৈরীতে কাজ চলছে। তাদের ত্রাণ সহায়তা দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা আমরা গ্রহণ করছি। আমরা সার্বক্ষনিক বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। পরিস্থিতি মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে।

গাংনীতে শান্তি ও সামাজিক সম্প্রীতি বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার রাইপুর ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামে শান্তি ও সামাজিক সম্প্রীতি বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে চাঁদপুর গ্রামের দাশপাড়ায় এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর সহযোগিতায় পিস প্রেসার গ্র“প-এর গাংনী উপজেলা শাখা কর্মশালার আয়োজন করে। কর্মশালায় বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর রাইপুর ইউনিয়ন সমন্বয়কারী জিএস সাজু।

ঝিনাইদহের রামচন্দ্রপুর স্কুল এন্ড কলেজ জাতীয়করণের দাবি এলাকাবাসীর

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পশ্চিম অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রামচন্দ্রপুর স্কুল এন্ড কলেজ। প্রতিষ্ঠানটি জাতীয়করণের জন্য এলাকাবাসী দীর্ঘদিন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও বিভিন্ন মহলের কাছে দাবি জানিয়ে আসছে। প্রতিষ্ঠানটি এলাকার বিশাল দরিদ্র জনগোষ্ঠির উচ্চশিক্ষা ও কারীগরি শিক্ষার অন্যতম বিদ্যাপিঠ। প্রতিষ্ঠানটি জাতীয়করণ হলে এলাকার সুবিধা বঞ্চিত শ্রমজীবি মানুষের সন্তানদের স্বল্পব্যয়ে উচ্চ শিক্ষার দ্বার উম্মোচিত হবে। প্রতিষ্ঠানটি ১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়ে সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি ইতিমধ্যে কারীগরি ও উচ্চ মাধ্যমিক শাখার অনুমোদন পেয়েছে। যাতে এলাকার স্বল্প আয়ের খেটে খাওয়া মানুষের সন্তানদের উচ্চ শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টি করেছে। বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানে প্রায় ১২শ ছাত্র ছাত্রী লেখাপড়া করে। এলাকাবাসী প্রতিষ্ঠানটি জাতীয়করণের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, ও শিক্ষামন্ত্রীর সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।

গাংনীর রাইপুর ইউপিতে মতবিনিময় সভা

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার রাইপুর ইউনিয়ন পরিষদে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে পরিষদের হলরুমে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। সভায় সভাপতিত্ব করেন-পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম সাকলায়েন ছেপু। এ সময় বক্তব্য রাখেন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান আজাদ, পরিষদের সদস্য আব্দুল জাব্বার, বকুল হোসেন, হাসান আলীসহ অন্যান্য সদস্য-সদস্যাবৃন্দ। সভাটি পরিচালনা করেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর ধানখোলাা ইউনিয়ন সমন্বয়কারী গোলাম আম্বিয়া। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর রাইপুর ইউনিয়ন সমন্বয়কারী জিএস সাজু। সভায় বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, নারী নির্যাতন প্রতিরোধ,বিভিন্ন ভাতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়।

 

কালুখালীতে রতনদিয়া বাজারে মৎস্য চাষ বিষয়ে উদ্বুদ্ধকরণ সভা ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন

ফজলুল হক ॥ গতকাল সোমবার রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালীতে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৯ উপলক্ষ্যে রতনদিয়া বাজারে মৎস্য চাষ বিষয়ক উদ্বুদ্ধকরণ সভা ও ভিডিও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে। উপজেলা মৎস্য দপ্তর এর আয়োজনে বিকাল ৪টায় এ উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভায় উপজেলা সহকারী মৎস্য অফিসার শাহরিয়ার জামান সাবুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আব্দুস সালাম। তিনি তার বক্তব্যে, উপস্থিত মৎস্যচাষীদের উদ্দেশ্যে বিজ্ঞান ভিত্তিক মাছ উৎপাদন সম্পর্কে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা প্রদান করেন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে ক্ষেত্র সহকারী মোঃ হিমু, রতনদিয়া বাজার বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি রিয়াজুল ইসলাম, মোঃ জিন্নাহ সহ মৎস্যচাষী, মাছ ব্যবসায়ীসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

 

তালবাড়ীয়ার ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন

সভাপতি মায়েত আলী, সম্পাদক রাসেল আহাম্মেদ

নিয়ামুল হক ॥ মিরপুরের তালবাড়ীয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্টিত হয়েছে। গতকাল সন্ধায় চাঁড়–লিয়া বাজারে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন তালবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আমিরুল ইসলাম। প্রথম অধিবেশনে আলোচনা সভা শেষে দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতি পদে দুইজন সাধারন সম্পাদক পদে তিনজন প্রতিদ্বন্তীতা করেন। প্রতিদ্বন্তিতা ও জন সমর্থন এর আলোকে উপজেলা পর্যায়ের নেতা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতারা প্রার্থীদের গুন চরিত্র ন্যায় নিষ্ঠা পর্যাচালনা করে সভাপতি মায়েত আলী, সাধারন সম্পাদক রাসেল আহাম্মেদকে নির্বাচীত করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতির বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগের সাভাপতি রবিউল ইসলাম, বিশেষ অথিতির বক্তব্য রাখেন মিরপুর থানা আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও মানব সম্পাদক মোহাম্মদ আলী যোয়ার্দার, তালবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আমিরুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক তালবাড়ীয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হান্নান মন্ডলসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সিকান্দার কবিরাজ। বক্তরা নবগঠিত নেতৃবৃন্দকে ন্যায় নিষ্ঠার সাথে ব্যক্তি সার্থকে দুরে ঠেলে জনগনের সার্থে কাজ করার নির্দেশ দেন। ভালো ভালো কাজের মাধ্যমে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

ট্রাম্পকে প্রলুব্ধ করে যুদ্ধে নামাতে ব্যর্থ বোল্টন

ঢাকা অফিস ॥ ব্রিটিশ পতাকাবাহী তেল ট্যাংকার আটকের পর ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেছেন, শতাব্দির যুদ্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে প্রলুব্ধ করতে না পেরে দেশটির নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন তার বিষাক্ত ফনা ব্রিটেনের দিকে ঘুরিয়ে দিয়েছে। যাতে বিট্রেনকেও এই কঠিন সংকটের ভেতরে টেনে আনা যায়। রোববার এক টুইটে তিনি বলেন, ব্রিটেনের বিরুদ্ধে তার দেশের উত্তেজনা একমাত্র বিচক্ষণতা ও দূরদৃষ্টি দিয়েই লাঘব করা সম্ভব। এদিকে শুক্রবার পারস্য উপসাগরে ইরানের হাতে আটক বিট্রিশ জাহাজ স্টেনা ইমপেরোর বিষয়ে তেহরানের ব্যাখ্যাকে প্রত্যাহার করে ব্রিটেন বলছে এটি শত্রুতাবশত করা হয়েছে। এর আগে গত ৪ জুলাই জাবাল আল-তারিক প্রণালীতে ইরানের গ্রেস-১ সুপারট্যাংকারটি জব্দ করে ব্রিটিশ নৌবাহিনী। এরপরই দেশ দুইটির মধ্যে উত্তেজনা বাড়তে থাকে। ওই সময় ইরান ঘোষণা দেয়ে যে কোনো মূল্যে তাদের তেল ট্যাংকার আটকের প্রতিশোধ নেবে। তেহরানের তেল ট্যাংকার আটকের কারণ হিসেবে যুক্তরাজ্য জানিয়েছিল সিরিয়ায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তেহরানের জাহাজটি নিষেধাজ্ঞা লংঘন করেছে ফলে ব্রিটিশ নৌবাহিনী ওই জাহাজটি আটক করেছে।

 

খোকসা থানা পৌর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের প্রস্তুতি সভা

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আগামী ২৫ জুলাই খুলনা বিভাগে মহাসমাবেশ কর্মসূচি সফল করতে খোকসা থানা পৌর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার বিকালে  খোকসা বিএনপির কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। খোকসা উপজেলা বিএনপির সভাপতি সৈয়দ আমজাদ আলীর সভাপতিত্বে সবায় বক্তব্য রাখেন খোকসা উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান কাজল, খোকসা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নাফিজ আহমেদ খান রাজু, খোকসা থানা বিএনপির নেতা আব্দুল আজিজ, জাহাঙ্গীর আলম, শফি আলম, আব্দুল মমিন, আবুল কালাম, মিজানুর রহমান মির্জাসহসহ খোকসা থানা পৌর ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সভায় বক্তারা বলেন, আগামী ২৫ জুলাই খুলনায় মহাসমাবেশ কর্মসূচি সফল করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে চেষ্টা করতে হবে। এই শান্তিপূর্ণ মহাসমাবেশগুলোতে যোগ দিতে মানুষের আগ্রহের কোনও কমতি  নেই। মহাসমাবেশ ঘিরে সাধারণ জনগণের অভাবনীয় সাড়া  ফেলেছে। তাই আগামী ২৫ জুলাই খুলনায় মহাসমাবেশে খোকসার প্রতিটি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকার ওয়ার্ড থেকে শত শত জনতা যোগ দিবে ইনশাআল্লাহ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

প্রিয়া সাহার বক্তব্য বিভ্রান্তিমূলক ও নীতি গর্হিত – বারকাত

ঢাকা অফিস ॥ বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতনের বিষয়ে নিজের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে প্রিয়া সাহা যার গবেষণা থেকে তথ্য পাওয়ার কথা বলেছেন, সেই অর্থনীতিবিদ আবুল বারকাতই তার বিরুদ্ধে ‘তথ্য বিকৃতির’ অভিযোগ করেছেন। গতকাল সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেন, “একজন সমাজ গবেষক হিসেবে আমি নিশ্চিত হতে চাই যে প্রিয়া সাহা আমার নাম উল্লেখপূর্বক যেসব বিভ্রান্তিমূলক ও নীতি গর্হিত বক্তব্য দিয়েছেন তিনি অতি দ্রুত তা প্রত্যাহার করবেন।”দেশজুড়ে আলোচনার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত প্রিয়া সাহা ইউটিউবে প্রকাশিত এক ভিডিওতে নিজের ব্যাখ্যা হাজির করার পর বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি আবুল বারকাতের এই প্রতিক্রিয়া এলো।  দলিত সম্প্রদায় নিয়ে কাজ করা বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা‘শারি’র পরিচালক প্রিয়া সাহা বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের একজন সাংগঠনিক সম্পাদক। ধর্মীয় স্বাধীনতা নিয়ে ওয়াশিংটনে আয়োজিত এক সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের সঙ্গে গত ১৭ জুলাই হোয়াইট হাউজে যান তিনি। সেখানে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে তিনি বলেন, বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা মৌলবাদীদের নিপীড়নের শিকার হচ্ছেন। প্রায় ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান নিখোঁজ (ডিজঅ্যাপিয়ার্ড) হয়েছেন। তারা যেন দেশে থাকতে পারেন, সেজন্য ট্রাম্প যেন সহায়তা করেন। তার ওই বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয় বিভিন্ন মহলে। সরকারের তরফ থেকে বলা হয়, বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ‘ক্ষুণেœর উদ্দেশ্যেই’ প্রিয়া সাহা ওই ধরনের ‘বানোয়াট ও কল্পিত অভিযোগ’ করেছেন। দেশে ফিরলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলেও ঘোষণা দেন একজন মন্ত্রী। এরপর একজন সাংবাদিককে প্রিয়ার সাক্ষাৎকার দেওয়ার একটি ভিডিও রোববার তার এনজিও শারির ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা হয়; সেখানে তিনি নিজের বক্তব্যের একটি ব্যাখ্যা দেন।

প্রিয়া সাহা বলেন, সরকারের আদমশুমারি প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী দেশভাগের সময় বাংলাদেশের জনসংখ্যার ২৯.৭ শতাংশ ছিল ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নাগরিক। ওই হার এখন নেমে এসেছে ৯.৭ শতাংশে।

“এখন দেশের মোট জনসংখ্যা প্রায় ১৮০ মিলিয়ন। সংখ্যালঘু জনসংখ্যা যদি একই হারে বৃদ্ধি পেত, তাহলে অবশ্যই যে জনসংখ্যা আছে, এবং যে জনসংখ্যার কথা আমি বলেছি ক্রমাগত হারিয়ে গেছে, সেই তথ্যটা মিলে যায়।” প্রিয়া সাহা বলেন, সরকারের ওই পরিসংখ্যানের ওপর ভিত্তি করেই অধ্যাপক আবুল বারকাত ২০১১ সালে একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিলেন, যেখানে বলা হয়েছিল, প্রতিদিন ৬৩২ জন হিন্দু দেশ ছাড়ছেন। ২০১১ সালে ওই গবেষণার সময় আবুল বারকাতের সঙ্গে সরাসরি কাজ করেছেন বলেও বলে দাবি করেন এই এনজিওকর্মী। কিন্তু বারকাত বলছেন, প্রিয়া সাহা কখনও তার সহ-গবেষক, গবেষণা সহযোগী অথবা গবেষণা সহকারী ছিলেন না। আর তার বক্তব্যের সঙ্গে গবেষণায় পাওয়া তথ্য-উপাত্তেরও কোনো মিল নেই।  “আমার হিসেবে প্রায় পাঁচ দশকে (১৯৬৪ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত) আনুমানিক ১ কোটি ১৩ লক্ষ হিন্দুধর্মাবলম্বী মানুষ নিরুদ্দিষ্ট হয়েছেন (উৎস: আবুল বারকাত, ২০১৬, বাংলাদেশে কৃষি-ভূমি-জলা সংস্কারের রাজনৈতিক অর্থনীতি, পৃ:৭১)। অর্থাৎ আমি কোথাও ‘৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান নিখোঁজ রয়েছেন’ এ কথা বলিনি। উপরন্তু তিনি কোথাও বললেন না যে আমার গবেষণা তথ্যটির সময়কাল ৫০ বছর – ১৯৬৪ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত।” বারকাত বলেছেন, ওই গবেষণা প্রতিবেদনে তিনি ২০১১ সালের সরকারি আদমশুমারির তথ্যের ভিত্তিতে ১৯০১ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত মোট জনসংখ্যায় বিভিন্ন ধর্মগোষ্ঠির আনুপাতিক হারই কেবল উল্লেখ করেছেন।

 

দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র গরু মোটাতাজাকরণ প্রশিক্ষন কর্মশালার উদ্বোধন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র ব্যবস্থাপনায় গরু মোটাতাজাকরণ প্রশিক্ষন কর্মশালার উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার দুপুর ১টায় উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে সপ্তাহব্যাপী এ কর্মশালার উদ্বোধন করেন ৪৭ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. রফিকুল আলম (পিএসসি)। এসময় উপস্থিত ছিলেন, দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলী ও প্রাগপুর ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফুজ্জামান মুকুল। ৪৬ প্রশিক্ষনার্থী এ কর্মশালায় অংশ নিচ্ছেন। আগামী ২৫ তারিখ পর্যন্ত চলবে এ কর্মশালা। অপরদিকে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে একই ব্যাটালিয়নের জামালপুর বিজিবি বিওপি’র টহল দল জামালপুর পূর্বমাঠে ২২ বোতল ভারতীয় বেঙ্গল টাইগার মদ উদ্ধার করেছে।

দৌলতপুরে কর্নেল তাহের দিবস উপলক্ষে জাসদের সভা অনুষ্ঠিত

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে কর্নেল তাহের দিবস উপলক্ষে জাসদের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বিকেলে উপজেলার ফিলিপনগর ইউপির আবেদের ঘাটে কর্নেল তাহের দিবস পালন উপলক্ষে দৌলতপুর জাসদের এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা জাসদের সভাপতি সঈর উদ্দিনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির জনসংযোগ বিষয়ক সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় যুবজোটের সাধারন সম্পাদক শরিফুল কবির স্বপন। অন্যানদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম নান্নু মাষ্টার, সাংগাঠনিক সম্পাদক সাইদুর রহমান, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক হাফিজুর রহমান মাষ্টার, উপজেলা যুবজোটের সভাপতি চাঁদ মাহামুদ, যুগ্ন সম্পাদক মাহাবুব খাঁন সালাম, আতিয়ার রহমান, ফজল হক, সোহেল আহম্মেদ ও আরিফ রেজা। সভায় আগামী ৩০ জুলাই জাসদেও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শহীদ কর্নেল তাহেরের মৃত্যু বার্ষিকী পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

ভাড়া গাড়ির চালকদের লাইসেন্স তদারকিতে ইবি ছাত্রলীগ

ইবি প্রতিনিধি ॥ ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের ভাড়ায় চালিত বাস চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স ও গাড়ির ফিটনেস তদারকি করেছে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। গতকাল সোমবার বেলা ৪টায় সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবের নেতৃত্বে ক্যাম্পাস  থেকে ছেড়ে যাওয়া কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহগামী বাসে এ তদারকি করেন তারা। এসময় ছাত্রলীগ নেতা জুবায়ের রহমান, রেজওয়ানুল ইসলাম, আব্দুল মান্নান মেসবাহসহ শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব বলেন, আমাদের বিশ^বিদ্যালয় একটি পরিবহন নির্ভর বিশ^বিদ্যালয়। বিশ^বিদ্যালয়ের প্রায় অর্ধেকের বেশি শিক্ষার্থীই পরিবহন নির্ভরশীল। এক্ষেত্রে একজন গাড়ি চালকের উপরে অনেক শিক্ষার্থীর জীবন নির্ভর করে। চালকদের হাতে আমাদের শিক্ষার্থীরা কতটুকু নিরাপদ তা দেখতেই ছাত্রলীগ আজকে এ উদ্দ্যোগ হাতে নিয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমরা চালকদের লাইসেন্সের সাথে গাড়িগুলোর ফিটনেস ঠিক আছে কিনা তাও দেখেছি। অতি দ্রুত আমরা বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে লাইসেন্সবিহীন গাড়ি চালকদের একটি তালিকা দিতে চাই। যা  থেকে বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসন একটি কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারবে।

জাতীয় পার্টিতে যোগ দিলেন বিএনপি নেতা সৈয়দ মঞ্জুর

ঢাকা অফিস ॥ বিএনপি ঢাকা মাহানগর উত্তরের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন জাতীয় পার্টিতে (এরশাদ) যোগ দিয়েছেন। গতকাল সোমবার দুপুরে রাজধানীর বনানীতে পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের হাতে ফুল দিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন তিনি। এ সময় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেন, আগামি দিনে জাতীয় পার্টি থাকবে জাতীয়তাবাদের মূল শক্তি হিসেবে। তাই জাতীয় পার্টির পতাকা তলে সব জাতীয়তাবাদী শক্তিকে একত্র হতে হবে। তিনি বলেন, জাপার রাজনীতিতে বিশ্বাস করেই বিএনপি নেতা-কর্মীরা যোগদান করছেন। আগামীতে আরো নেতাকর্মী জাতীয় পার্টিতে যোগ দেবেন। অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা সাবেক রাষ্ট্রদূত মেজর (অব.) আশরাফ-উদ-দৌলা, যুগ্ম মহাসচিব হাসিবুল ইসলাম জয়, কেন্দ্রীয় নেতা মাসুদুর রহমান চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আবু তৈয়ব, জাকির হোসেন খানসহ কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

মিরপুরে ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টায় আটক-১

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে চার বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে রমজান আলী (৫২) নামের একজনকে গনধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার চিথলিয়া ইউনিয়নের চিথলিয়া গ্রামের ছিন্নিতলা পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। রমজান আলী উক্ত এলাকার মৃত হারেজ আলীর ছেলে। স্থানীয়রা জানায়, সোমবার বেলা ১১টার দিকে রমজান আলী বিস্কুট  দেবার কথা বলে প্রতিবেশি চার বছরের এক শিশুকে নিজ কক্ষে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। এ সময় ঐ শিশু চিৎকার করলে শিশুর মা ও এলাকাবাসী ছুটে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। ঘটনাটি উক্ত এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুদ্ধ জনতা রমজান আলীকে গনধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, স্থানীয় এলাকাবাসীরা থানার খবর দিলে অভিযুক্ত ঐ ব্যক্তিকে আটক করে থানায় নেওয়া হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে জানায় ওসি।

গাংনীতে ডা. রেজার উপর হামলাকারী ক্লিনিক মালিক বিজয় গ্রেফতার

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা (স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে) হাসপাতালের চিকিৎসক এম.কে রেজার উপর হামলাকারী গাংনী সনো ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক বিজয় (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  রোববার দিবাগত রাতে গাংনী শহরের সুন্দরীপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গাংনী থানার এস.আই হাবিব (সিনিয়র) জানান-ডাক্তার রেজার উপর হামলাকারী গাংনী ডিগ্রী কলেজপাড়ার মন্টু মিয়ার ছেলে বিজয় গাংনী পৌর এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডের সুন্দরীপাড়ায় অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।  গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ (ভারপ্র্াপ্ত কর্মকর্তা) ওবাইদুর রহমান জানান-হামলার ঘটনায় ডাক্তার এম.কে রেজা বাদি হয়ে বিজয়ের নাম উল্লেখ করে আরো কয়েকজন অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ২২ তাং ২১/০৭/১৯ ইং। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত)  সাজেদুল ইসলাম জানান, বিজয়কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ইতো মধ্যে বিজয়ের কয়েকজন সহযোগির নাম পাওয়া গেছে।  তাদের কেউ আইনের আওতায় আনা হবে। উল্লেখ্য : গত রোববার দুপুর ২টার দিকে গাংনী হাসপাতাল কোয়ার্টারে একটি রিপোর্ট দেখাকে কেন্দ্র করে গাংনী সনো ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক বিজয় হোসেনসহ তার ক্যাডার বাহিনী ডাক্তার এম কে রেজার উপর হামলা করে। এ ঘটনায় তাৎক্ষনাৎ বিজয় সহ জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে ।

বন্যা থেকে বাঁচতে ঐক্যবদ্ধ পদক্ষেপের আহ্বান ড. কামালের

ঢাকা অফিস ॥ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে যে বন্যা দেখা দিয়েছে, সেটা থেকে বাঁচতে ঐক্যবদ্ধ ও সম্মিলিত প্রচেষ্টা চালাতে হবে বলে জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেছেন, ভবিষ্যতে যেন এ ধরনের বন্যার শিকার হওয়া থেকে আমরা বাঁচতে পারি, সেজন্য ঐক্যবদ্ধ পদক্ষেপ নিতে হবে। গতকাল সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে গণফোরাম আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ড. কামাল এ কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে পাঠ করেন গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়ীদ। ড. কামাল বলেন, বন্যা থেকে মানুষকে, এলাকাগুলোকে, দেশকে বাঁচাতে হলে ঐক্যবদ্ধভাবে আমরা কিছু করবো। যেন আমরা সরাসরি অবদান রাখতে পারি। দেশের স্বাধীনতালাভের ৪৮ বছর হয়ে গেছে, এখন থেকে যে ঘাটতিগুলো আছে, সেগুলো চিহ্নিত করতে হবে। এটা কাউকে দোষারোপ করার জন্য নয়। আমাদের বাঁচার জন্য চিহ্নিত করতে হবে। কেন এটা হচ্ছে, কীভাবে বন্ধ করা যায়, তা ঠিক করতে হবে। গণফোরাম সভাপতি বলেন, বন্যার বিষয়টি আমাদের এক নম্বর চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিতে হবে। সামনে আমাদের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্ণ হতে যাচ্ছে। আগামি দশকগুলোতে যেন এ ধরনের পরিস্থিতির সম্মুখীন না হই। এই চিন্তা সামনে রেখে, সাংবাদিক সমাজের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমে আসল জিনিসগুলো চিহ্নিত করতে পারি। করণীয় কী কী, সে বিষয়ে দেশে একটা ঐকমত্য গড়ার চেষ্টা করি। গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়িদ অভিযোগ করে বলেন, সারা দেশে বন্যাদুর্গতদের রিলিফ দেওয়ার নামে সরকার প্রহসন করছে। আবু সাইয়িদ বলেন, কুড়িগ্রামে বিগত কয়েক দিন ধরে গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) আমসা আ আমীনের নেতৃত্বে রিলিফ টিম কাজ করছে। এখনো বহু প্রত্যন্ত এলাকায় ত্রাণ পৌঁছেনি। খাবার নেই, ওষুধ নেই এবং পানি নেই। এবার সাহায্য সংস্থার লোকজনও তেমন তৎপর নয়। অথচ বন্যার প্রকোপ এবার সবচেয়ে বেশি। আর কুড়িগ্রামে ৭০.০৮ শতাংশ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করে। তিনি আরো বলেন, বন্যাদুর্গত ১২ লাখ মানুষের জন্য দেড় সপ্তাহে সরকার থেকে বরাদ্দ হয়েছে জনপ্রতি মাত্র ১.১২ টাকা, চাল ৬৬ গ্রাম এবং শুকনো খাবার তিন হাজার প্যাকেট। এটি রিলিফের নামে প্রহসন। আবু সাইয়িদ আরো জানান, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বাজেটে বরাদ্দ সাত হাজার ৯১৪ কোটি টাকা, এর সঙ্গে দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের বাজেট যোগ করলে দাঁড়ায় ১৭ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। এত টাকা বাজেট বরাদ্দ সত্ত্বেও বন্যার ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের চালচিত্রের তেমন পরিবর্তন হয়নি, হয়েছে গুটিকয় কর্মকর্তা, আমলা ও ঠিকাদারদের, যাঁরা বাঁধ নির্মাণ ও বন্যা নিয়ন্ত্রণের নামে জনগণের টাকা লুটপাট করছেন। গণফোরামের এ নেতা বলেন, আমরা বলতে চাই, বানভাসি মানুষের নিরাপদ জীবন ও আশ্রয়ের ব্যবস্থা, সরকারি ত্রাণ তৎপরতার পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোগও প্রয়োজন, জনগণের কার্যকর অংশগ্রহণপূর্বক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহির ভিত্তিতে রিলিফ কমিটি করে ত্রাণ তৎপরতা চালানো দরকার। নদীভাঙন কবলিত চরাঞ্চলের বিপন্ন মানুষদের জন্য ত্বরিত গতিতে ত্রাণ তৎপরতা গ্রহণ। সংবাদ সম্মেলনে আবু সাইয়িদ কুড়িগ্রামের চিলমারী-রাজীবপুর ও রৌমারী এলাকাসহ অধিকতর বন্যা আক্রান্ত উপজেলাকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করার দাবি জানান। বাংলাদেশ-ভারত-নেপাল-ভুটান এমনকি প্রয়োজনে চীনের সঙ্গে একত্রে কার্যকর আঞ্চলিক উদ্যোগে পানি সমস্যার সমাধান ও নদী ব্যবস্থাপনা ও পরিকল্পিত বন্যা নিয়ন্ত্রণ করা অত্যন্ত জরুরি বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে গণফোরাম নেতা ড. কামাল হোসেন, সুব্রত চৌধুরী, জগলুল হায়দায় আফ্রিক, মোহাম্মদ আজাদ হোসেন, লতিফুর বারি হামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গুজবে কান না দিয়ে সন্দেহভাজনকে আইনের হাতে তুলে দিন ঃ আইনমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ ছেলেধরা গুজবে কান না দিয়ে কাউকে সন্দেহ হলে তাকে আইনের হাতে তুলে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। গতকাল সোমবার দুপুরে নেত্রকোনা জেলা আইনজীবী সমিতির পাঁচতলা ভবন উদ্বোধনকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী এসব কথা বলেন। অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেন, পদ্মা সেতুতে মাথা লাগবে -এ ধরনের একটি গুজব ছড়ানো হয়েছিল। ছেলেধরা গুজবে কান না দিয়ে কাউকে সন্দেহ হলে আইনকে নিজের হাতে তুলে না নিয়ে তাকে আইনের হাতে তুলে দিন। পরে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সিতাংশু বিকাশ আচার্য্যর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আমিনুল হক খান মুকুলের সঞ্চালনায় আইনজীবীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় যোগ দেন আইনমন্ত্রী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নেত্রকোনা-৩ আসনের সংসদ সদস্য অসীম কুমার উকিল, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য হাবীবা রহমান খান শেফালী, জেলা ও দায়রা জজ আবু মো. আমিমুল এহসান, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান, আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব বিকাশ কুমার সাহা, জেলা প্রশাসক মঈনুল ইসলাম, পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরীসহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তা ও আইনজীবী সমিতির সদস্যরা। সরকারি অর্থায়নে প্রায় ছয় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয় জেলা আইনজীবী সমিতির পাঁচতলা ভবন।

ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকা অফিস ॥ হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগ এনে ব্যারিস্টার সৈয়দ সাইয়্যেদুল হক সুমনের বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন গৌতম কুমার নামের এক ব্যক্তি। গতকাল সোমবার বাংলাদেশ সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আস সামশ জগলুল হোসেনের আদালতে বাদী গৌতম এ মামলা করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই এ মামলার শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী সুমন কুমার রায়। হিন্দু আইনজীবী পরিষদের সভাপতি সুমন কুমার রায় বলেন, সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালে দুপুরে মামলা করা হয়েছে। কিছুক্ষণের মধ্যে মামলার শুনানি হবে। এ ছাড়া ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আবেদন করা হয়েছে। মামলার আরজিতে জানানো হয়, গত ১৯ জুলাই ব্যারিস্টার সাইয়্যেদুল হক সুমন তাঁর ফেসবুক পেজে বলেন, পৃথিবীর মধ্যে নিকৃষ্ট এবং বর্বর জাঁতি হচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বী, যাদের ধর্মের কোনো ভিত্তি নেই। মনগড়া বানানো ধর্ম। হয়তো দু-একটি খবর নিউজে প্রকাশিত হয়। এ ছাড়া আরো অনেক ঘটনা ধামাচাপা পড়ে যায় তাদের নৃশংসতার আড়ালে। আরজিতে আরো বলা হয়, ব্যারিস্টার সুমন গত ১৯ এপ্রিল সনাতন ধর্ম ও হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের নিয়ে মিথ্যা, অশ্লীল ও চরম আপত্তিকর মন্তব্য করেন। যার ফলে হিন্দুসমাজ তথা গোটা জাতির মধ্যে এ নিয়ে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। আসামির এ রকম আচরণ এবং সোশ্যাল মিডিয়ার অশ্লীল অবমাননাকর ও অরুচিপূর্ণ বক্তব্যর ফলে রাষ্ট্র ও হিন্দুসমাজের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয় এবং ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে। আসামির এ ধরনের উসকানিমূলক বক্তব্য প্রদানের ফলে সাধারণ জনগণ নীতিভ্রষ্ট, অসৎ হতে উদ্যত হওয়ার ফলে আইনশৃঙ্খলা বিঘœ হওয়ার আশঙ্কা আছে। এ বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, কোনো ব্যক্তি সংক্ষুব্ধ হলে মামলা দায়ের করা তাঁর সাংবিধানিক অধিকার। ফেসবুকের যে অ্যাকাউন্ট থেকে এটি ছড়ানো হয়েছে, সেটা আমার নামে ভুয়া আইডি ছিল। ব্যারিস্টার সুমন আরো বলেন, এ মামলার মাধ্যমে প্রমাণিত, হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা এ দেশে স্বাধীনভাবে বসবাস করছে এবং আদালতে তারা ন্যায়বিচার পাচ্ছে। এর আগে গত রোববার ব্যারিস্টার সুমন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে মামলা করলে বিচারক জিয়াউল হাসান তা খারিজের আদেশ দেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ১৭ জুলাই হোয়াইট হাউসে তাঁর কার্যালয়ে ধর্মীয় স্বাধীনতা ও সহিষ্ণুতার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন ধর্মীয় নেতা ও প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলেন। এতে বাংলাদেশি পরিচয় দিয়ে এক নারী ট্রাম্পকে বলেন, আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। এখানে (বাংলাদেশে) প্রায় ৩৭ মিলিয়ন (তিন কোটি ৭০ লাখ) হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ডিসঅ্যাপেয়ার (নিখোঁজ) হয়ে গেছে। দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন। আমরা আমাদের দেশে থাকতে চাই। এখনও সেখানে (বাংলাদেশে) ১৮ মিলিয়ন (এক কোটি ৮০ লাখ) সংখ্যালঘু মানুষ রয়েছে। আমার অনুরোধ, দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন। আমরা আমাদের দেশ ছাড়তে চাই না। শুধু আমাদের (বাংলাদেশে) থাকতে সাহায্য করুন। আমি আমার বাড়ি হারিয়েছি। তারা আমার বাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে। তারা আমার জমি কেড়ে নিয়েছে। কিন্তু কোনো বিচার হয়নি। এ সময় ট্রাম্প জানতে চান, ‘কারা জমি দখল করেছে? কারা বাড়ি দখল করেছে?’ জবাবে ওই নারী বলেন, ‘মুসলিম মৌলবাদী গ্রুপ এগুলো করছে। তারা সব সময় পলিটিক্যাল শেল্টার (রাজনৈতিক ছত্রছায়া) পায়।

 

ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করছে সরকার – স্পিকার

ঢাকা অফিস ॥ স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে বর্তমান সরকার কাজ করছে। তিনি ‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০১৯’ উপলক্ষে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়াধীন মৎস্য অধিদপ্তরের উদ্যোগে গতকাল সোমবার দুপুরে সংসদ ভবন লেকে পোনা অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। পরে তিনি পোনা অবমুক্ত করেন। তিনি বলেন, বিগত দুই মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ মৎস্য চাষে সফলতা লাভ করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ বর্তমানে মৎস্য উৎপাদনে বিশ্বে চতুর্থ স্থানে রয়েছে। এধারা অব্যাহত থাকলে মৎস্য উৎপাদনে বাংলাদেশ ভবিষ্যতে আরও এগিয়ে যাবে । সরকারের বাস্তবমুখী পদক্ষেপের কারণে বাংলাদেশ আজ খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ। পোনা অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চিফ হুইপ নূর-ই- আলম চৌধুরী । অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মৎস অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবু সাইদ মো. রাশেদুল হক। ড. শিরীন শারমিন বলেন, পুষ্টি চাহিদা পূরণে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সে লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। সরকার মৎস্যজীবীদের কল্যাণে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। মৎস্য চাষ সম্পর্কে সকলকে সচেতন করার পাশাপাশি মৎস্য সম্পদের সংরক্ষণ ও উৎপাদন বৃদ্ধিতে মৎস্য সপ্তাহ অবদান রাখছে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ বি তাজুল ইসলাম, রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী , সাবেক চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ , কাজী ফিরোজ রশীদ, উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম ও অপরাজিতা হক। এছাড়া সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. রাইসুল আলম মন্ডলসহ সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০১৯ এর মূল প্রতিপাদ্য ‘মৎস্য চাষে গড়বো দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ কে সামনে রেখে সংসদ ভবন লেকে ৩ প্রজাতির ১০ হাজার পোনা মাছ অবমুক্ত করা হয়। এর মধ্যে কাতলা ২০৫০ টি, রুই ৪ হাজার ২শ’ টি এবং মৃগেল ৩ হাজার ৭৫০টি। মৎস্য অধিদপ্তর হতে পর্যায়ক্রমে সংসদ ভবন লেকে আরও ২০ হাজার পোনা অবমুক্ত করা হবে।

কুষ্টিয়া জেলা ট্রাক মালিক গ্র“পের নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ ও অভিষেক

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া জেলা ট্রাক মালিক গ্র“পের ২০১৯-২০২২ ত্রি-বার্ষিক মেয়াদী নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির নেতৃবৃন্দ দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। ২২ জুলাই সোমবার সকালে কুষ্টিয়া জেলা ট্রাক মালিক গ্র“প কার্যালয়ে নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির নেতৃবৃন্দ দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এদিকে দায়িত্ব গ্রহণ করার পর, কুষ্টিয়া জেলা ট্রাক মালিক গ্র“পের ২০১৯-২০২২ ত্রি-বার্ষিক মেয়াদী নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা ট্রাক মালিক গ্র“পের ২০১৯-২০২২ ত্রি-বার্ষিক মেয়াদী নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নির্বাচন কমিশনার এ্যাডঃ সুধীর কুমার শর্মা, নির্বাচন বোর্ডের সদস্য এ্যাডঃ গোলাম সরওয়ার ও এ্যাডঃ প্রবীর কুমার স্যান্নাল। নির্বাচন কমিশনার তাঁর উপর অর্পিত দায়িত্ব নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের কাছে হস্তান্তর করেন। এ সময় তিনি উপস্থিত সকল নেতৃবৃন্দকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। দায়িত্ব গ্রহণ ও অভিষেক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা ট্রাক মালিক গ্র“পের নবনির্বাচিত সভাপতি আব্দুর রশিদ, সহ-সভাপতি আলহাজ্ব সিরাজুল হক, আখতারুজ্জামান, আলহাজ্ব এম.এ. মালেক, আশরাফ উদ্দিন নজু, আবু জাফর মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক নরেন্দ্রনাথ সাহা, সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে গণেশ জোয়ার্দ্দার, আব্দুল জলিল, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে এ.কে.এম.সিদ্দিকুর রহমান (হেলাল), কোষাধ্যক্ষ স্বপন কুমার সাহা, দপ্তর সম্পাদক আসাদুর রহমান (লোটন), প্রচার সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, নির্বাহী সদস্য এ.এন.এম.আ: হাই তপো, গোলাম মহিউদ্দিন (দিলু), খাদেমুল ইসলাম, আরশাদ আলী প্রধান, জমসের আলী, আহসান হাবীব আসকর, মতিউর রহমান, আতিয়ার রহমান, হাসানুজ্জামান, রাজু আহমেদ, আলী জিন্নাহ, মুজাহিদুল ইসলাম (বাবলু), রেজাউল করিম, তারাদাস ভৌমিক, আইনুর রহমান টিটু। উল্লেখ্য যে, গত ৫ জুলাই ২০১৯ তারিখ শুক্রবার সুষ্ঠু-সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে কুষ্টিয়া জেলা ট্রাক মালিক গ্র“পের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন (২০১৯-২০২২) সম্পন্ন হয়।