দেশের সম্পদ লুটতেই জনগণকে জুলুম-শোষণ – রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, জনগণের ওপর জুলুম ও শোষণ নির্যাতন চালিয়ে দেশের সম্পদ লুট এবং জনগণের রক্ত চুষতে একের পর এক গণবিরোধী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে যাচ্ছে অবৈধ আওয়ামী সরকার। শুক্রবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের বিক্ষোভ মিছিল শেষ সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। রিজভী বলেন, বর্তমান ফ্যাসিবাদী সরকার জনগণের নার্ভ বুঝতে পেরেছে যে, জনগণ আওয়ামী দুঃশাসনের কারণে তাদের ঘৃণা করে। আর ঘৃণা করার প্রতিশোধের অংশ হিসেবে ধারাবাহিক জুলুম চালানো হচ্ছে জনগণের ওপর। সেটিরই আরও একটি নির্মম বহির্প্রকাশ ভোক্তাপর্যায়ে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি। তিনি আর বলেন, জনগণের ওপর নিপীড়ন চালিয়ে অবৈধ অর্থ উপার্জন করে সরকারের লোকজন ‘আঙুল ফুলে কলাগাছ’ হয়ে উঠছে। আর এই অনৈতিক সুযোগ করে দিচ্ছে সরকার। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির গণবিরোধী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে ভোক্তাপর্যায়ে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি বন্ধ করার জন্য দাবি জানান বিএনপির এ নেতা। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল করা না হলে জনগণের উত্তাল আন্দোলন ও ক্ষোভে-বিক্ষোভে বিএনপি শামিল হতে দৃঢ় অঙ্গীকারাবদ্ধ বলে জানান তিনি। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, বর্তমান মধ্যরাতের ভোটের সরকার জনগণের ভোটে বিশ্বাসী না হওয়ার কারণে তারা জনগণ নয়; বরং নিজেদের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্যের নীতিতেই বিশ্বাস করে। প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, সরকারপ্রধান শেখ হাসিনা এখন বিশ্বজুড়ে যুগে যুগে স্বৈরাচারী শাসকদের জুলুমের শাসনকে ডিঙিয়ে সেরা স্বৈরশাসকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ প্রশাসন যন্ত্র ও দলীয় সন্ত্রাসীদের ওপর ভর করে দেশে ভয়াবহ নব্য বাকশালী দুঃশাসন জারি রাখা হয়েছে।’ তিনি বলেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দেশের জনগণ যাতে বর্তমান অবৈধ সরকারের এ জুলুমের শাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে না পারে, সে জন্য তাকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে কারান্তরীণ করা হয়েছে।

রিজভী বলেন, মধ্যরাতের ভোটের সরকার বলেই বর্তমান অবৈধ শাসকগোষ্ঠী জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকারকে মাটিচাপা দিয়ে বিএনপিসহ সব বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করার লক্ষ্যে একদলীয় বাকশালী শাসন প্রতিষ্ঠা করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। ‘কিন্তু জনগণ আওয়ামী শাসকগোষ্ঠীর লালিত অলিক-অবাস্তব স্বপ্ন কোনোদিনই বাস্তবায়িত হতে দেবে না। দেশের আপামর জনগণের আস্থাভাজন নেত্রী খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করে মানুষের মৌলিক মানবাধিকার ও গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে জাতীয়তাবাদী শক্তি দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ।’ এর আগে সকাল ১০টায় মহিলা দলের নেতাকর্মীদের একটি বিক্ষোভ মিছিল বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে আবারও নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। মিছিলে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ মহিলা দল সভানেত্রী রাজিয়া আলিম, উত্তরের সভানেত্রী পেয়ারা মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক আমেনা বেগম, সহসাংগঠনিক সম্পাদক তাহমিনা শাহীন, মিলি জাকারিয়া, কেন্দ্রীয় মহিলা দলের শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক মিনা বেগম মিনি, স্বনির্ভরবিষয়ক সম্পাদক জেসমিন জাহান, সহদফতর সম্পাদক গুলশান আরা মিতা, সদস্য স্বপ্না আহমেদসহ কয়েকশ নেতাকর্মী অংশ নেন।

গাংনীতে নারী ঘটিত বিষয় নিয়ে সংঘর্ষে  আহত-৭

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার হোগলবাড়ীয়া গ্রামে নারী ঘটিত বিষয় নিয়ে সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ৭জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন- নজু পক্ষের  নামাজ আলীর ছেলে নজরুল ইসলাম ওরফে নজু (৪৫), আজাহার আলী (৩০), আবু তাহের (৫৫), ইজারুল হক (২৭), এবং রিপন পক্ষের মৃত বাছের আলীর ছেলে খোরশেদ আলী (৪০),মৃত আঃ সাত্তারের ছেলে ইদবার আলী (২৮) ও নবীছদ্দীনের ছেলে ইব্রাহীম হোসেন (২০)। গত বুধবার রাতে  হোগলবাড়ীয়া গ্রামের ফকিরপাড়ায় সংঘর্ষ ঘটে। একটি নারী ঘটিত বিষয় নিয়ে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় কালে উভয় পক্ষের মধ্যে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষ ঘটে। আহতদের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. এম কে রেজা জানান,এদের মধ্যে মাথায় ও হাতে মারাত্মক আহত নজু ও তাহের এর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যায় হোগলবাড়ীয়া ফকিরপাড়া গ্রামে  আঃ সাত্তারের ছেলে রিপন প্রতিবেশী নজুর ছেলে সাকিলকে নারী ঘটিত অপবাদ দেয়। এসময় প্রমাণ চাই নজুর পরিবার। এনিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে সংঘর্ষের সূচনা হয়। পরে রাতে উভয় পক্ষ দেশীয় লাঠিসোটা , ধারালো অস্ত্র দিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটে।

 

বামনগাড়ী ঈদগাহ রাস্তার কাজের ফলক উদ্বোধন

মিলন আলী ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমবাড়ীয়া ইউনিয়নের বামনগাড়ী গ্রামে ঈদগাহ কবরস্থানের রাস্তার আর সি,সি ঢালায়ের কাজ, ইউপি সদস্য মনিরুজ্জামানা বাবু মেম্বরের সভাপতিত্বে আমবাড়ীয়া ইউপির জন প্রিয় চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মিলন, জাসদ সাধারন সম্পাদক হেলাল উদ্দীন শিলু সহ গ্রামের গন মান্য ব্যক্তির উপস্থিতিতে ফলক এর শুভ উদ্বোধন করা হয়। এল,জি,এস,পি প্রায় ৫ লক্ষ, ৩৫ হাজার টাকা ব্যয় এই রাস্তার আর,সি,সি ঢালায়ের কাজে সমাপ্ত হওয়া ফলে অত্র বামনগাড়ী গ্রামের মানুষের ঈদগাহ ও কবরর স্থানে লাশ নিয়ে যাওয়ার চরম দুর্ভোগ লাঘব হবে ।আমবাড়ীয়া ইউপির জন নন্দিত চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মিলন বলেন গ্রামের মানুষ বর্ষা মৌসুমে মৃত্যু ব্যক্তির লাশ কবর সহজে স্থানে নিয়ে যাওয়ার জন্য অধিক গুরুত্ব দিয়ে স্থায়ী ভাবে আর, সি,সি, ঢালায় করে সড়কের পাকা করন কাজ করা হচ্ছে। জন প্রিয় মেম্বর বাবু বলেন আমাদের গ্রাম বাসির ঐক্যের জন জনাব মশিউর রহমান মিলন চেয়ারম্যান অধিক গুরুত্ব দিয়ে আমার মাধ্যমে এই কাজ সমাপ্ত করাচ্ছে। রাস্তা পাকাকরন কাজের ফলক উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন, গ্রামের ,প্রধান মন্ডল আলম, আজিজুর রহমান সাহেব, ঈতগাহ কমিটির সভাপতি সিদ্দিক আলী মন্ডল, মাদরাসার সভাপতি নোমাজ আলী,মসজিদের সেক্রেটারী মনিরুল ইসলাম মোরাদ হোসেন।বিশেষ দোয়া পরিচালনা করেন হাজী হাসমত আলী।

হালসা বাজারে সাজেদা ফাউন্ডশনের অফিস উদ্বোধন

মিলন আলী ॥ অত্যন্ত জাক জমক আয়োজনে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় হালসা বাজারে জহুরুল ইসলাম মার্কেটের দ্বোতলা সাজেদা ফাউন্ডশনের অফিস উদ্বোধন করা হয় । পাটিকাবাড়ী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান,হাজী মসলিম উদ্দীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে হালসা আদর্শ ডিগ্রী অধ্যক্ষ জহরুল ইসলাম, প্রধন বক্তা সাজেদা ফাউন্ডশনের আর,এম,ও রিজভী নেওয়াজ খাঁন, হালসা হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আ: সালাম ,উক্ত সাজেদা ফাউন্ডশনে কর্মকর্তা ও হালসা বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়িদের উপস্থিতিতে সাজেদা ফাউন্ডেশনে অফিস এর শুভ উদ্বোধন করেন। সাজেদা ফাউন্ডশনের অফিস উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন হালসা হাই স্কুলের প্রধান, শিক্ষক আ:সালাম,আ,লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বাবু , আ,লীগ নেতা মনিরুজ্জামান বাবু মেম্বর,সাজেদা ফাউন্ডশনের অফিস কর্মকর্তা সহিদুল ইসলাম, সাজেদা ফাউন্ডশনের হালসা শাখার ম্যানেজার সাজেদুর রহমান, আ,লীগ নেতা আহমেদ আলী,তরুন সমাজ সেবক সাইফুল ইসলাম,তোফাজ্জেল হোসেন ভুট্টো,আ:মালেক,কাবিল হোসেন ,জহুরুল ইসলাম,জাহাগীর মালিথা,আব্দুর রাজ্জাক মন্ডল,সহ এলাকার ধন্যমান্য ব্যক্তরা । জাক জমক আয়োজনে অফিস উদ্বোধন অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রহিদুল ইসলাম।

আলমডাঙ্গায় বৃষ্টি উপেক্ষা করে শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের উল্টো রথযাত্রা উদযাপিত

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা উপজেলা রথযাত্রা উৎযাপন কমিটির উদ্দ্যোগে শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের উল্টো রথ যাত্রা উদযাপিত হয়েছে। গতকাল বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে আলমডাঙ্গা ৪তলা মোড়ে

মন্দিরের সামনে থেকে রথ যাত্রা শুরু হয়, রথযাত্রার প্রাক্কালে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন শুশিল কুমার ভৌতিকা। প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন আলমডাঙ্গা থানার সেকেন্ড অফিসার উপ-পরিদর্শক জিয়াউর রহমান। তিনি বলেন বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক ও ধর্ম নিরেপেক্ষ দেশ। এই দেশে আমরা যার যার ধর্ম সেই সেই পালন করি,সম্প্রদায়িকতার কোন স্হান নেই, ধর্ম যার যার উৎসব সবার।উপজেলা রথযাত্রা কমিটির সাধারন সম্পাদক  বিশ্বজিৎ সাধুখাঁর উপস্হাপনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি ডাঃ অমল কুমার বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা মনীন্দ্র নাথ দত্ত, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি প্রশান্ত অধিকারি, আওয়ামীলীগ নেতা সমির কুমার দে, সুপ্রিয় সুজিত দা, আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও পৌর পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি পরিমল কুমার কালু ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক জয় কুমার বিশ্বাস,পৌর ছাত্র লীগের সভাপতি নয়ন সরকার,নিমাই রায়, হারান অধীকারি,বিদ্যুৎ সাহা,অশোক সাহা,পলাশ আচার্য,শম্ভ দত্ত,প্রশান্ত দত্ত, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও প্রেসক্লাব সভাপতি খন্দকার শাহ আলম মন্টু, রাজকুমার রমেকা,বিজয় সিহি,উৎপল দত্ত,মদন সাহা,রিপন দত্ত,গনেশ আচার্য সহ শত শত সনাতন ধর্মালম্বি উল্টো রথ যাত্রায় সামিল হয়। গতকাল বিকেলে প্রচুর বৃষ্টি উপেক্ষা করে সনাতন ধর্মালম্বিদের পুরুষ ও মহিলারা উল্টো রথযাত্রায় অংশ নেয়। প্রথমে মহিলারা রথের দড়ি ধরে টেনে এনে আলমডাঙ্গা মন্দিরের সামনে দাড় করায়,এখান থেকে যুবক,বৃদ্ধ সহ সকলে একত্রে রথের দড়ি  ধরে যাত্রা শুরু করে।শহরের হাফিজ মোড় হয়ে  রথ ঘুরিয়ে পুনঃরায় মন্দির প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়,এখানে ভোগ বিতরন করে রথযাত্রা কমিটি।

শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটাল করার কাজ চলছে – পূর্তমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটাল করার জন্য বহুমূখী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। শুক্রবার বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির পিরোজপুর জেলা শাখার ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ তিনি এ তথ্য জানান। মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষা ব্যবস্থাকে উন্নত করার জন্য নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটাল করার জন্য বহুমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। এ কারণেই এ বছরের বাজেটে শিক্ষা ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। বঙ্গবন্ধু এ দেশে প্রথম প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থাকে জাতীয়করণ করেছেন, আর এরপরে তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদেশের বাকি সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। শিক্ষকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, শিক্ষকরা সব সময়ই শিক্ষার্থীদেরকে নৈতিকতা ও মূল্যবোধের শিক্ষা দেবেন। শিক্ষকের নামে শিশু নির্যাতনকারী নরপশুর পাশে কেউ দাঁড়াবেন না। শিক্ষার্থীদের পিতৃ-মাতৃস্নেহে বড় করতে হবে। যারা শিক্ষকের আদর্শের জায়গাটা ধারণ করতে পারবে না তাদের বর্জন করুন। তিনি আরও বলেন, যে যার ধর্মের জায়গা থেকে ধর্মকে লালনের মাধ্যমে ভালো থাকবেন। শিক্ষকতাকে চাকরির সঙ্গে তুলনা করবেন না। কারণ আপনারা দেশ ও মানুষ গড়ার কারিগর। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে দলীয় রাজনীতির অংশ করবেন না।

মুক্তির উদ্যোগে হাসিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যলয় বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত

গতকাল মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে টমাস আলভা এডিসন বিজ্ঞান ক্লাব ও হাসিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় আয়োজনে, বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশন (বিএফএফ) এর সহযোগিতায় বিজ্ঞান শিক্ষার উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় সকাল ১১ ঘটিকায় হাসিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যলয়ের হল রুমে বিজ্ঞান মেলা এবং কুইজ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়। শুরুতে কুরআন থেকে তেলয়াত করেন সহকারী শিক্ষক জনাব আবুল কাশেম এর পরে মেলার উদ্বোধন করেন হাসিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যলয়ের সহ-সভাপতি জনাব মোঃ আজিজুল হক গামা। মেলাতে টমাস আলভা এডিসন বিজ্ঞান ক্লাবের সদস্যরা ২০ টি প্রজেক্ট তৈরী করেন। মেলার পাশাপাশি বিদ্যালয়ের সকল সাধারন ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে বিজ্ঞান ভিত্তিক কুইজ প্রতিযোগীতা আয়োজন করা হয়, কুইজ প্রতিযোগীতা পরিচালনা করেন সহকারী শিক্ষক জনাব মোঃ আনিছুর রহমান। দিন শেষে সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজ্ঞান মেলা এবং কুইজ প্রতিযোগীতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরুস্কার বিতরন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন হাসিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যনেজিং কমিটির সহ-সভাপতি জনাব মোঃ আজিজুল হক গামা, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান শিক্ষার উন্নয়ন প্রকল্পের সমন্বকারী জনাব কাজী আরিফুল ইসলাম। সভায় সভাপতিত্ব করেন হাসিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যলয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মুহাম্মদ নূরউদ্দীন। বিজ্ঞান মেলাটি পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে ছিলেন হাসিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যলয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মুহাম্মদ নূরউদ্দীন, বিজ্ঞান বিষয়ক সহকারী শিক্ষক আনিছুর রহমান ও বিজ্ঞান শিক্ষার উন্নয়ন প্রকল্পের সহকারী কো-অর্ডিনেটর আবিদা সুলতানা হানি । সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

 

কুমারখালী চাপড়া ইউনিয়ন বিএনপি ১ ও ৩ নং ওয়ার্ডের কমিটি গঠন

কুমারখালী চাপড়া ইউনিয়ন বিএনপির ১ ও ৩ নং ওয়ার্ড এর কমিটি গঠনের লক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার সকালে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। চাপড়া ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক ফরহাদ হুসাইন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য কেন্দ্রিয় কৃষকদলের যুগ্ম আহবায়ক ও জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী। তিনি বলেন, প্রতিকুল পরিস্থিতির মধ্যেও বিএনপি তার সাংগঠনিক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। নেতাকর্মীরা নির্যাতন-নিপীড়ন সহ্য করেও দুঃশাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার রয়েছে। তিনি বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনসমূহের সর্বস্তরের নেতাদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত কথা বলছেন। জেলা নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করছেন। তাদের যৌক্তিক পরামর্শ গ্রহণ করে বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় কমিটিগুলো গঠনতান্ত্রিক ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় পুনর্গঠন ও সাংগঠনিক কার্যক্রম তত্ত্বাবধান করছেন। তিনি আরও বলেন, তারেক রহমানের নির্দেশনায় সারা দেশে সাংগঠনিক কর্মকান্ডে এসেছে নতুন গতি। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লড়াইয়ে প্রস্তুত হচ্ছেন সর্বস্তরের নেতাকর্মী-সমর্থকরা। তিনি বলেন, বিএনপির মূললক্ষ্য খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং গণতন্ত্র পুনদ্ধার। কারণ দেশে সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনের নেতৃত্বে ছিলেন বেগম জিয়া। তার মুক্তি না হলে, দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবে না। আর আমরা সেই লক্ষ্যে কাজ করছি। তৃনমূল থেকে ঐক্যবদ্ধ করে গণআন্দোলনের মুখে এ সরকারের পতন ঘটাতে হবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বাচ্চু, যুব বিষয়ক সম্পাদক মেজবাউর রহমান পিন্টু, কুমারখালী থানা যুবদলের সভাপতি এ্যাড.শাতীল মাহমুদ। বক্তব্য রাখেন চাপড়া ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক আব্দুল্লাহ শেখ, যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল মজিদ, মোঃ ফারুক হোসেন, আলী আজম, শহীদুল ইসলাম শহীদ, আব্দুল মজিদ(২), একরামুল হক, আব্দুল হাকিম শলক, আনিসুজ্জামান, আব্দুর রউফ, মিজানুর রহমান শাহিন, আব্দুল করিম, আমিরুল ইসলাম, মন্টু শেখ প্রমুখ। সভা শেষে কুমারখালী চাপড়া ইউনিয়ন বিএনপির ১ নং ওয়ার্ডে রহব আলীকে সভাপতি, আব্দুল মতিনকে সাধারণ সম্পাদক ও ৩ নং ওয়ার্ডে আব্দুল মজিদকে সভাপতি, শহিদুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

আমলার শিক্ষা ক্যাডারের কু-কৃত্তি!

গভীর রাতে এক ছাত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা

নিজ সংবাদ ॥ পাবনার সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের (টিটিসি) ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তা সুজাউদ্দৌলাকে গভীর রাতে এক ছাত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে পুলিশে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে টিটি কলেজের গেস্টরুম থেকে তাদের আটক করে থানায় নেয় পুলিশ। ওই শিক্ষিকার নাম ফৌজিয়া আলম বাবলি। তার বাড়ি সিরাগঞ্জ জেলায়। তিনি বিএড শেষ করে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে এমএড করছেন। এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুল হক বলেন, ‘পাবনা সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের (টিটিসি) ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তা সুজাউদ্দৌলাকে এক ছাত্রীর সঙ্গে রাতে অবস্থান করার সময় সাধারণ শিক্ষার্থীরা ওই কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয়। এ সময় তারা অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত ছিল বলে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।’ একাধিক প্রত্যক্ষ্যদর্শী শিক্ষার্থীরা জানান, গত দুই বছর ধরে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনের বিএড কোর্সের এক শিক্ষার্থী সিরাজগঞ্জ থেকে প্রতি বৃহস্পতিবার এসে দুই দিন কলেজের ছাত্রী হোস্টেলে অবস্থান করে। মাঝে মধ্যেই ওই শিক্ষার্থী অধ্যক্ষের কক্ষে রাতে অবস্থান করতেন। বিষয়টি নিয়ে আবাসিক শিক্ষার্থীরা চরম বিব্রত ও ক্ষুদ্ধ ছিলেন। বৃহস্পতিবার রাতে ওই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলে শিক্ষার্থীরা তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলে বাইরে থেকে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে বিক্ষোভ করে। ঘটনাটি জানাজানি হলে পাশ্ববর্তী পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যায়ের শিক্ষার্থীরাও কলেজ ক্যাম্পাসে জড়ো হয়। পাবনা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবনে মিজান বলেন, এ ঘটনায় ওই নারী শিক্ষার্থী বাদী হয়ে পাবনা সদর থানায় মামলাটি করেন। এ মামলায় অধ্যক্ষ সুজাউদ্দৌলাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। ওই নারী অভিযোগ করেন, অধ্যক্ষ তাকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতেন। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার রাতে অধ্যক্ষ তাকে গেস্ট হাউসে তার কক্ষে আসতে বলেন। এ সময় তিনি আমার গায়ে হাত দেন এবং অনৈতিক প্রস্তাব দেন। সুজাউদ্দৌলার বাড়ী কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমলা ইউনিয়নের খয়েরপুর গ্রামে।

নুরুল ইসলাম সভাপতি, ইন্তাজুল সাধারণ সম্পাদক

কুষ্টিয়া পৌর ১৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া পৌর এলাকার ১৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে ২০নং চেšড়হাস সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জেব-উন-নিসা সবুজ। সম্মেলন উদ্বোধন করেন শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি তাইজাল আলী খান। এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা মমিনুর রহমান, শহর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও ১৯নং পৌর কাউন্সিলর মীর রেজাউল ইসলাম, কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক মোমিন মন্ডল, শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মানজিয়ার রহমান চঞ্চল প্রমুখ। সম্মেলন শেষে মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামকে সভাপতি, ইন্তাজুল হককে সাধারণ সম্পাদক করে ৬৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ হলেন সহ-সভাপতি হারুনুর রশিদ হিরু, ইমানুর রহমান, মহাম্মদ আলী, সাইদ হোসেন চিকু, হবিবর রহমান হবি, তুতা মিয়া, চলেমান শাহ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী বিশ্বাস, তৌহিদুল শেখ, আইন বিষয়ক সম্পাদক এাড.দেবাশীষ, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক আমিরুল ইসলাম আমু, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আব্দুল মান্নান, ত্রান ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিন্টু, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এনামুল হক,প্রচার সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, বন ও পরিবেশ সম্পাদক শের আলী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হামিদ স্বপন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সাহেদা বেগম, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মকবুল হোসেন, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক বছির উদ্দিন শাহ, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক জিয়ারুল হক, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সুজন মন্ডল, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক হাসান মালিথা, স্বাস্থ্য জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক মিরাজুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান, সহ দপ্তর সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, সহ-প্রচার সম্পাদক মীর জাকির হোসেন, কোষাধ্যক্ষ মিনাজ শেখ মিনা। সদস্যরা হলেন মীর রেজাউল ইসলাম বাবু, পারভীন হোসেন, রেজাউল হক, মিজানুর রহমান, ইমদাদুল হক, কাজী আব্দুর রব দিলু, নজরুল ইসলাম বাবু, মজিবর রহমান বাবু, হুমায়ুন, নজিম উদ্দিন, হিসাব আলী, ছালেক, ছামসুল আলম বাবু, জাকির হোসেন গামা, নবিছদ্দিন, রব আলী, আজাদ, ছামিউল, আমিরুল ইসলাম খান, রাজু  আহামেদ, মোস্তাফিজুর রহমান মিলন, ওলিউর রহমান,আব্দুর রশিদ, মহন, সন্টু, মোজাম্মেল হক, রীনা আক্তার, টুুলি আক্তার, হামিদুর রহমান বাবু, সীমা আক্তার, আনোয়ার হোসেন, তোফা, রেজাউল হক, তারিকুল, বুদো, হাবু।

মিরপুরে মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে উপজেলা চিথলিয়া ইউনিয়নের চিথলিয়া আমতলায় বায়তুল নুর জামে মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়। মসজিদ কমিটির সভাপতি তেজের আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান মর্জিনা খাতুন, চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন, চিথলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এনামুল হক, সাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম, চিথলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল্লাহেল বাকী, পাহাড়পুর-লক্ষীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জিহাদ আলী প্রমুখ।

সাংবাদিক নুরুল কাদের সড়ক দুর্ঘটনায় আহত

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের ক্রীড়া ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক এবং দৈনিক নয়া দিগন্তের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আ.ফ.ম.নুরুল কাদের সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন। গত সোমবার আছর নামাজ শেষে মোটর সাইকেলে অফিসে যাওয়ার মুহুর্তে মজমপুরগেট ঝাউতলায় হাইওয়ের উপরে আকর্ষিক ভাবে একটি কার গাড়ি দৈনিক নয়া দিগন্তে কুষ্টিয়া প্রতিনিধি নুরুল কাদেরের সামনে দাড়িয়ে যায়। এ সময় মোটর সাইকেলটিকে চেক দিতে না পারায় পাশ দিয়ে বেরুনের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে কারের পিছন সাইডে সজোরে আঘাত পেয়ে রাস্তায় ছিটকে পড়েন তিনি । পথচারীরা দ্রুত তাকে এবং মোটর সাইকেলটি উদ্ধার করে। দ্রুত হাসপাতাল এবং সেখান থেকে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের প্রভাষক ডাঃ আনিছুর রহমানের (অর্থপেডিক ও স্পাইন সার্জন) চেম্বারে নিয়ে যাওয়া হয়। এক্সরে শেষে ধরা পড়ে পায়ের হাড় ভেঙ্গে গেছে। ডাঃ আনিসুর রহমান তার পায়ের প্ল¬াষ্টার করেন। তিনি এখন তার বাসায় অসুস্থ অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। তিনি সকলের দোয়া কামনা করেছেন।  বাংলাদেশ মানবাদিকার সাংবাদিক সংস্থা ও কুষ্টিয়া রিপোটার্স ইউনিটির দোয়া কামনা বাংলাদেশ মানবাদিকার সাংবাদিক সংস্থা ও কুষ্টিয়া রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি শামসুল আলম স্বপন ও সাধারণ সম্পাদক রবিউল হক খান দৈনিক নয়া দিগন্তের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আ,ফ,ম,নুরুল কাদেরের দ্রুত সুস্থ্যতা কামনা করে মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করেছেন।

 

 

খোকসায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রী উত্যক্তের অভিযোগ

শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে দাবি সভপতির

খোকসা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার খোকসার সেনগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের বিরুদ্ধে অষ্টম শ্রেণির তিন ছাত্রীকে উত্যক্ত করায় অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে অভিযুক্ত শিক্ষক নজরুল ইসলামকে মৌখিক ভাবে সাময়ীক বরখাস্ত করা হয়েছে। জানা গেছে, উপজেলার সেনগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নজরুল ইসলাম ওরফে দুখু অষ্টম শ্রেনির একাধিক ছাত্রীদের নানা সময়ে প্রেম নিবেদনসহ নানা প্রকার কু-প্রস্তাব দিয়ে আছেন। বৃহস্পতিবার সকালে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে বিদ্যালয়ের লাইব্রেরীতে ডেকে নেয়। ছাত্রীর বোরকার নেকাব খুলতে বাধ্য করে। এক পর্যায়ে ছাত্রীটির মুখে চুমু দেবার চেষ্টা করে। ছাত্রীটি এ ঘটনা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জানিয়েদেয়। শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে জমায়েত হলে তাৎক্ষনিক ভাবে বিদ্যালয়টি বন্ধ ঘোষনা করে শিক্ষার্থীদের চলে যেতে বাধ্য করা হয়। প্রধান শিক্ষক লাল মুহাম্মদ ৮ম শ্রেণির ওই তিন ছাত্রীকে আটকে ঘটনাটি ধামা চাপাদেবার চেষ্টা করে। বিকালে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের শান্ত করতে ওই শিক্ষককে মৌখিক ভাবে সাময়ীক বরখাস্ত করার ঘোষনা দেন প্রধান শিক্ষক। শিক্ষক নজরুল ইসলাম সাত বছর আগে এই বিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করে। তার সংসারে ৫ বছর বয়সী একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। গতকাল শুক্রবার উত্যক্তের শিকার তিন ছাত্রীর সাথে বলা হয়। তাদের সবার সেনগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী। বাড়ি উপজেলার আমবাড়িয়া গ্রামে। বোরকার নেকার খুলতে বাধ্য করা ছাত্রী জানায়,  বুধবার দুপুরের পর শিক্ষক নজরুল ইসলাম তাকে লাইব্রেরীতে দেখা করতে বলেন। কিন্তু সে দিন সে আর দেখা করেনি। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে শিক্ষক তাকে আবারো লাইব্রেরীতে ডাকেন। এক পর্যায়ে সে লাইব্রেরীতে গেলে ছাত্রীর বোরকার নেকাব খুলতে বাধ্য করেন শিক্ষক নজরুল। তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয় এবং মুখে চুমুদেবার চেষ্টা করে। বিষয়টি সে তাৎক্ষনিক ভাবে নিজের সহপাঠিদের জানায়। একই ভাবে একই শ্রেণির আরো দুই শিক্ষার্থী তাদের উপর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ করে। তারা অভিযোগ করেন, শিক্ষক নজরুল ইসলাম তাদেরও স্কুলের লাইব্রেরীতে নিয়ে গিয়ে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। অংকে ফেল করিয়ে দেওয়া ভয়ে তারা প্রথম দিকে মুখ খোলেনি। যৌন হয়রানির শিকার এক ছাত্রীর অভিভাবক জানান, তিনি সাত সন্তানের পিতা। তাদের মধ্যে ৫টি মেয়ে। কাউকে তিনি স্কুলে পড়াতে পাড়েন নি। সব থেকে ছোট মেয়েটি নিজের চেষ্টায় বড় স্কুল (মাধ্যমিক) পর্যন্ত উঠেছে। মাষ্টারের কুকিত্তির পর থেকে মেয়ে আর স্কুল মুখে যেতে চাচ্ছে না। সত্তুর উর্দ্ধবছরের এই বৃদ্ধ চোখের পানি ছেড়ে দিয়ে বিচার দাবি করেন। নজরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু ফোন ধরেন নি। তার স্ত্রী (সাবেক ছাত্রী) বৃষ্টি খাতুন শুনেছেন তার স্বামী নজরুলকে মৌখিক ভাবে স্কুল থেকে সাময়িক বরখাস্ত করার হয়েছে। নিজের স্বামীর চরিত্র খারাপ নয় বলেও তিনি দাবি করেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লাল মহম্মদের সাথে কথা বলার জন্য ফোন করা হয়। তিনি ফোন রিসিভও করেন। কিন্তু নামাজে আছেন বলে জানিয়ে ফোন কেটে দেন। পবে আর ফোন রিসিভ করেনি। বিদ্যালয়ের সভাপতি উত্তম কুমার সাহা বলেন, অভিযুক্ত শিক্ষক নিজের দোষ স্বীকার করেছে। তাকে কারোণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া সাময়ীক বরখাস্ত করা হয়েছে। দুই একদিনের মধ্যে সাধারণ সভা ডেকে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নাজমূল হকের সাথে কথা বলা হলে তিনি জানান, এ বিষয়ে তার কাছে কোন তথ্য নেই। রবিবারে তিনি এসে তিনি শুনবেন বলেও জানান।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯’র ফাইনাল কাল

লর্ডসে নতুন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড না নিউজিল্যান্ড ?

সুজন কর্মকার ॥ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এর ফাইনাল খেলা আগামীকাল ১৪ জুলাই রবিবার। লর্ডসে নতুন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড না নিউজিল্যান্ড তা এখন দেখার বিষয়। এবার বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলবে ইংল্যান্ড। শিরোপাও কী স্বাগতিক ইংল্যান্ড শিবিরই তাহলে উঁচিয়ে ধরবে, নাকি চড়াই-উতরাই পেরিয়ে ফাইনালে ওঠা নিউজিল্যান্ড শেষ পর্যন্ত বাজিমাত করবে? যে দলই চ্যাম্পিয়ন হোক রবিবার লর্ডসে নতুন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মিলবে। কখনই বিশ্বকাপ জেতেনি ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। এবার বিশ্বকাপে দুই দলই খেলবে ফাইনালে। ইংল্যান্ড ২৭ বছর পর ফাইনালে উঠেছে। শিরোপা খরাতো তারা ঘোচানোর চেষ্টা করবেই। যে দল রবিবার জিতবে তাদের হাতেই শিরোপা ধরা দেবে। কিন্তু কোন্ দল শিরোপা জিতবে? নতুন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হবে কোন দল ইংল্যান্ড না নিউজিল্যান্ড? এ প্রশ্নই এখন চতুর্দিকে। নিউজিল্যান্ড টানা দ্বিতীয়বার ফাইনালে খেলছে। তারাও বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হতে প্রস্তুত। গত বিশ্বকাপের ঘটনা। বাংলাদেশের সঙ্গে গ্রুপপর্বে ম্যাচ ইংল্যান্ডের। কোয়ার্টার ফাইনালে খেলতে হলে ইংল্যান্ডকে জিততেই হবে। এমন কঠিন সমীকরণের মুখে পড়ে বাংলাদেশের কাছে হেরে গেল ইংল্যান্ড। ২০১৫ বিশ্বকাপে হারের আগে ২০১১ বিশ্বকাপেও বাংলাদেশের কাছে হারে ইংল্যান্ড। এই একটি হারে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ল ইংলিশরা। এই হার এমনই ক্ষত তৈরি করল যে ইংল্যান্ড দল পুরোই নতুনরূপে হাজির হলো। নিজেদের ব্যাটিং-বোলিং স্টাইল পুরোই পরিবর্তন করে ফেলল। সাড়ে তিন শ’ রান যে কোন বিষয়ই না, ইংল্যান্ড তা দেখিয়ে দিল। একের পর এক ম্যাচে তিন শ ছড়ানো রান করল, প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দিল। যখন ইংল্যান্ড অধিনায়ক দলের এমন পরিবর্তন কিভাবে হলো? এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হন। তখন বাংলাদেশের কাছে গত বিশ্বকাপে হারের দুঃস্মৃতির কথাই তুলে ধরেন। এই একটি হার যে পুরোই নতুন ইংল্যান্ডকে সামনে তুলে ধরেছে। নিজেরা বুঝতে পেরেছেন, যেভাবে খেলছিলেন সেভাবে খেললে কিছুই হবে না। তাই খেলার ধরন বদলালো ইংলিশরা। তাতেই বাজিমাত। ১৯৯২ সালের পর আবার বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলবে ১৯৭৯, ১৯৮৭ সালের বিশ্বকাপসহ তিনবার ফাইনালে খেলে প্রতিবারই রানার্সআপ হওয়া ইংল্যান্ড। এবার ইংল্যান্ড দলটিকে বিশ্বকাপে যেভাবে দেখার মিলছে, বিশ্বকাপের আগেও চ্যাম্পিয়ন হবে ইংলিশরা এই দাবি ওঠে। ফেবারিট ইংল্যান্ডরাই ছিল। কিন্তু লীগপর্বের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে দিয়ে পাকিস্তানের কাছে হার হয়। এরপর বাংলাদেশকে সহজেই হারায়। ওয়েস্ট ইন্ডিজকেও পাত্তা দেয়নি। আফগানিস্তানকেও হারায়। খুব সুন্দরভাবেই সব চলছিল। হঠাৎ করেই ছন্দপতন হয়ে যায়। শ্রীলঙ্কার কাছে হারে যেন ইংল্যান্ডের মানসিকতায় ধাক্কা লাগে। এরপর অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারায় বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলার স্বপ্নই শেষ হতে চলেছিল। শেষ পর্যন্ত ভারত ও নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে সেমিফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে ইংল্যান্ড। সেমিফাইনালে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকেও কুপোকাত করে ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে। ইংল্যান্ড দলটি ফাইনালে ফেবারিটই ধরা হচ্ছে। কিন্তু যে দলটির বিপক্ষে খেলা ইংল্যান্ডের সেই দলটি কিন্তু গচ্ছপ গতিতে এগিয়ে চলেছে। এমনই বিপদ প্রতিপক্ষের ঘাড়ে তৈরি করছে, ছিটকেই পড়ছে। তা না হলে সেমিফাইনালে ভারতের মতো সেরা ব্যাটিং লাইন আপের সামনে ২৪০ রানের টার্গেট দিয়েও জিতে নিউজিল্যান্ড। গত বিশ্বকাপের মতো এবারও ফাইনালে উঠে যায়। তারা এমনভাবে বিশ্বকাপ খেলছে একবার বিদায় হয়, আরেকবার সেমিফাইনালে ওঠে এমন অবস্থায় পড়ে। প্রথম পাঁচ ম্যাচ টানা জিতেই আসলে নিজেদের ওপরের দিকে তুলে রাখে কিউইরা। শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারায় নিউজিল্যান্ড। সঙ্গে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়। তাতে করে সেমিফাইনালে ওঠার জন্য যে পয়েন্ট এবং রানরেট দরকার নিউজিল্যান্ড সেই পুঁজি করে রাখে। শেষে পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের কাছে হারলেও রানরেটে এগিয়ে থেকে সেমিফাইনালে খেলে নিউজিল্যান্ড। সেমিফাইনালে ভারতকে হারিয়ে ফাইনালেও খেলছে। নিউজিল্যান্ডও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দাবিদার। বিশ্বকাপ শুরুর আগে যে চার দলকে সেমিফাইনালের দল ধরা হয়েছে (ইংল্যান্ড, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড) তারাই খেলেছে। কিন্তু ফাইনালের দল হিসেবে আসলে নিউজিল্যান্ডকে নিচের সারিতেই রাখা হয়েছিল। সেই নিউজিল্যান্ড দলটিই এখন খেলবে ফাইনাল। এমন এক ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াই করবে নিউজিল্যান্ড যে ফাইনাল ইতিহাস রচনা করবে নতুন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন কে হবে। ইংল্যান্ড এর আগে তিনবার ফাইনালে খেলেছে। একবারও বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। যারা ক্রিকেটটাই পুরো বিশ্বের কাছে ছড়িয়ে দিল তারাই এখন পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন হয়নি। তাতে ইংল্যান্ডের ক্রিকেট ইতিহাসে কালিমা লেগেই আছে। নিউজিল্যান্ড এর আগে শুধু ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ফাইনালে খেলেছে। এবার দ্বিতীয়বারের মতো টানা বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলছে। নিউজিল্যান্ডকে ‘ডার্ক হর্স’ বলা হচ্ছে ফাইনালেও। ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যানদের এবং বোলারদের যে দাপট তাতে কিউইদের হিসেবে রাখা হচ্ছে না। কিন্তু সেটিতো সেমিফাইনালেও হিসেবের খাতা থেকে নিউজিল্যান্ডকে বাদ দেয়া হয়েছিল। নিউজিল্যান্ডতো দেখিয়ে দিয়েছে স্কোর যাই হোক বিশ্বাসটা তাদের এত বেশি যে কোন দলই সামনে পড়লে ছাড় পাবে না। নিউজিল্যান্ডকে সেমিফাইনালের দল বলা হতো। সেই দল মোট আটবার সেমিফাইনাল খেলে টানা দুইবার ফাইনালে উঠেছে। ১৯৯২ সালের পরতো ইংল্যান্ড কখনও সেমিফাইনালেই খেলতে পারেনি। এর আগে তিনবার ফাইনালে ও দুইবার সেমিফাইনালে খেলে। কিন্তু এখনকার ইংল্যান্ড দল যে ভয়ঙ্কর তা সবাই বুঝে গেছে। নিউজিল্যান্ডও বুঝেছে। আর তাইতো নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন হুঙ্কার দিয়ে ইংল্যান্ড ক্রিকেটারদের নড়বড় করার পথ খুঁজেছেন, ‘আমরা ইনজুরিযুক্ত দল হয়েও এতদূর এসেছি। কিছু একটা করে দেখাব।’ ইংল্যান্ড অধিনায়ক ইয়ন মরগান আবার এত হুঙ্কার-টুঙ্কারে বিশ্বাসী না। তার সোজাসাপ্টা কথা, ‘আমরা যদি ফাইনালে ভাল খেলি তাহলে জিতব। একটি দিনের খেলায় যে কেউ জিততে পারে। তবে আমরাও বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হতে চাই।’ সেই ১৯৭৫ সাল থেকে পুরুষ ক্রিকেট বিশ্বকাপ হচ্ছে। অস্ট্রেলিয়া সর্বোচ্চ পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ভারত দুইবার করে শিরোপা জিতেছে। পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা জিতেছে একবার করে। শ্রীলঙ্কা যখন জিতে তখন চার বছর পরই নতুন চ্যাম্পিয়ন মিলে। এরপর আর নতুন চ্যাম্পিয়ন দেখা যায়নি। এবার ২৩ বছর পর নতুন চ্যাম্পিয়ন মিলবে। কিন্তু ইংল্যান্ড এর আগে তিনবার ও নিউজিল্যান্ড একবার ফাইনালে উঠেও শিরোপা জয়ের স্বপ্ন বাস্তব করতে পারেনি। ৪৪ বছর ধরে বিশ্বকাপ হচ্ছে। প্রতিবারই ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড অংশ নিয়েছে। কিন্তু অধরা শিরোপা একবারও ধরা দেয়নি। এবার ইংল্যান্ড না নিউজিল্যান্ড বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হবে? যে কোন একদলের স্বপ্ন ডানা হয়ে উড়বে তা নিশ্চিত। কিন্তু কোন দল নতুন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হবে, প্রথমবার শিরোপা উঁচিয়ে ধরবে, শিরোপা নিয়ে মাঠ প্রদক্ষিণ করবে, খুশিতে আত্মহারা হয়ে পড়বে, তার ফয়সালার দিকেই ক্রিকেট বিশ্বের দৃষ্টি রয়েছে। অপেক্ষা করতে হবে রবিবার পর্যন্ত। ক্রিকেটের তীর্থস্থান খ্যাত লর্ডসে যে নতুন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন পাওয়ার মধ্য দিয়ে বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরের পর্দাও নামবে।

এরশাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক – জিএম কাদের

ঢাকা অফিস ॥ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলের নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। গতকাল শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের। তিনি বলেন, সকালে সিএমএইচে গিয়ে চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা জানিয়েছেন, এরশাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার শরীরের কোনও অঙ্গ ঠিক মতো কাজ করছে না, কৃত্রিমভাবে চলছে। জিএম বলেন, সাবেক এই রাষ্ট্রপতির কিডনি, লিভারসহ অন্যান্য অর্গান (অঙ্গপ্রত্যঙ্গ) এখনো কাজ করছে না বলে তার সার্বিক অবস্থা যন্ত্রের মাধ্যমে স্বাভাবিক রাখা হয়েছে। গত ২২ জুন থেকে ৯০ বছর বয়সী এরশাদ সিএমএইচে চিকিৎসাধীন। এরশাদ হিমোগে¬াবিন-স্বল্পতা, ফুসফুসে সংক্রমণ ও কিডনির জটিলতায় ভুগছেন। তার রক্তে হিমোগে¬াবিনের মাত্রা কম। তার অস্তিমজ্জা পর্যাপ্ত হিমোগে¬াবিন উৎপাদন করতে পারছে না। তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

ত্রাণ মেরে খাবে, তেমন লোক আর দেখেন না প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ দেশে এখন ত্রাণ চুরি করে বা মেরে খাওয়ার মত লোক নেই বলে মন্তব্য করেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান। সচিবালয়ে শুক্রবার আন্তঃমন্ত্রণালয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সমন্বয় কমিটির সভা শেষে ত্রাণ বিতরণ নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে তিনি এ মন্তব্য করেন। এনামুর বলেন, “বাংলাদেশ এখন মধ্যম আয়ের দেশে এগিয়ে যাচ্ছে। আমাদের আর্থিক সঙ্গতি সবারই বেড়েছে, সেই দিন আর এখন আর বাংলাদেশে নেই যে ত্রাণটাকেও চুরি করে খাবে, মেরে খাবে, আমরা কিন্তু এ রকম রিপোর্ট এখন আর পাই না। “এখন আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন হয়েছে, আমাদের দেশপ্রেমও অনেক ভালো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বেৃ ত্রাণ মেরে খাওয়ার মত লোক দেখছি না, কারণ অতীতে আমরা দেখেছি অত্যন্ত সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় (ত্রাণ বিতরণ) হয়েছে, আশা করি এবারও অত্যন্ত সুষ্ঠুভাবে ত্রাণ বিতরণ করব।” ভারী বর্ষণের কারণে ১০ জেলার নদ-নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। আন্তঃমন্ত্রণালয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সমন্বয় কমিটির সভায় এ বিষয়ে আলোচনার পর বন্যা মোকাবেলায় সরকারের প্রস্তুতি জানাতে সাংবাদিকদের সামনে আসেন প্রতিমন্ত্রী। তিনি জানান, দুর্গত জেলাগুলোতে দুই কোটি ৯৩ লাখ টাকা, সাড়ে ১৭ হাজার মেট্রিকটন চাল এবং ৫০ হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার পাঠানো হয়েছে। এছাড়া প্রতি জেলায় দুয়েক দিনের মধ্যে পাঠানো হবে ৫০০টি করে তাঁবু। এসব ত্রাণ সামগ্রী ঠিকমত বিতরণ হবে কি না, ত্রাণ প্রতিমন্ত্রীর কাছে সেই প্রশ্ন রাখেন একজন সাংবাদিক। এনামুর বলেন, ঢাকা থেকে ‘সার্বক্ষণিক মনিটরিং’ চলছে, জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তারাও ‘অত্যন্ত সক্রিয়’। “আমি অনেকগুলো জেলা ভিজিট করেছি, জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সঙ্গে মিটিং করেছি, আমি আশ্চর্য হয়েছি তাদের গুণগত মানের উন্নয়ন দেখে, তারা প্রত্যেকেই প্রতিটি প্রত্যন্ত অঞ্চলের খবর রাখেন এবং কোথায় কখন কী পরিমাণ সাহায্য যাচ্ছে, কী পরিমাণ বিতরণ হচ্ছে, কী পরিমাণ স্টক আছে, এত সুন্দর একটি তালিকা মেনটেইন করেন, আমি অভিভূত। “আমি আশাবাদী যে এই নেতৃত্বে, রাষ্ট্রযন্ত্রের যারা কর্মকর্তা আছেন, তাদের হাতে বাংলাদেশ এখন নিরাপদ, আমাদের ত্রাণ সামগ্রীও নিরাপদ, ইনশাল্লাহ সবাই এটার সুষ্ঠু বণ্টন করবেন।”

বিএনপি আমলে স্বাস্থ্য সেবায় ব্যাপ লুটপাট হয়েছে – বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, বিএনপি সরকারের আমলে এদেশে স্বাস্থ্যসেবা খাতে ব্যাপক লুটপাট হয়েছে। বর্তমান সরকার স্বাস্থ্যসেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমনত্রী শেখ হাসিনা এখন মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি হাসপাতালগুলোতে ফ্রি চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। কেরানীগঞ্জের কদমদলী এলাকায় মা প¬াজায় ইবনে সিনা ডায়াগনেস্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার কেরানীগঞ্জ শাখার উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী একথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে কিছু ট্রাষ্টি রাজনীতিতে জড়িয়ে বিতর্কিত হয়েছে। যারা বাংলাদেশকে অস্বীকার করে এবং স্বাধীনতার বিপক্ষে অবস্থান করে এধরনের লোক দ্বারা পরিচালিত কোন হাসপাতাল বা স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র কেরানীগঞ্জে করতে দেয়া হবে না। তিনি বলেন, কেরানীগঞ্জের মানুষ যেন স্বাস্থ্যসেবা তাদের হাতের নাগালে পায় সেজন্য ঝিলমিল প্রকল্পের ভিতর ৫’শ শয্যা বিশিষ্ট একটি আধুনিক হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে। শুভাঢ্যা খালটি সংস্কারের জন্য প্রায় ১২শ’ কোটি টাকা সরকার বরাদ্দ দিয়েছে। সেই প্রকল্পের কাজ শিগগিরই শুরু হবে। ইবনে সিনা ট্রাষ্টের সদস্য (প্রশাসন) ও ইবনে সিনা কেরানীগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রফেসর ড. একেএম সদরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ, জিনজিরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী সাকুর হোসেন সাকু ও ইবনে সিনা কেরানীগঞ্জ শাখার ভাইস চেয়ারম্যান হাজী মনির হোসেন।

পানি ও পয় – নিষ্কাশনে বিশ্ব ব্যাংক দিচ্ছে ১০ কোটি ডলার

ঢাকা অফিস ॥ বাংলাদেশের ৩০টি পৌরসভায় উন্নত পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থার সুযোগ বাড়াতে ১০ কোটি ডলারের  ঋণ সহায়তা অনুমোদন করেছে বিশ্বব্যাংক। ‘বাংলাদেশ মিউনিসিপ্যাল ওয়াটার সাপ¬াই অ্যান্ড স্যানিটেশন’ শিরোনামে প্রায় ২১ কোটি ডলারের এ প্রকল্পে আন্তর্জাতিক এই ঋণদাতা সংস্থাটির প্রতিশ্রুত অংশ বৃহস্পতিবার অনুমোদন দেওয়া হয় বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে ওই সব পৌরসভার পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন পরিষেবার ক্ষমতা তৈরি হবে। এর অধীনে ছোট শহরগুলির প্রায় ৬ লাখ বাসিন্দাকে পাইপলাইনে নিরাপদ পানি সরবরাহ করা হবে। এজন্য এই ৩০টি পৌরসভায় পানি শোধন সুবিধা, পানি সংরক্ষণের ব্যবস্থা, পাইপলাইনে সঞ্চালন ও সরবরাহ নেটওয়ার্ক ও ঘরে মিটারসহ সংযোগসহ সাবিক পানি অবকাঠামো গড়ে তোলা হবে। বাংলাদেশের প্রায় ৮৭ শতাংশ পরিবারের উন্নত উৎস থেকে পানি পাওয়ার সুযোগ থাকলেও ১০ শতাংশের বেশি মানুষ পাইপলাইনের পানি পায় না। প্রায় অর্ধেক পৌরসভায় পাইপলাইনে পানি সরবরাহের ব্যবস্থা থাকলেও তার সুবিধা শুধু শহরের কেন্দ্রস্থলের গুটিকতক মানুষ ভোগ করতে পারে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ প্রকল্প পৌরসভাগুলোর পয়ঃনিষ্কাশন ও নালা ব্যবস্থাকে উন্নত করবে। মানববর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও নিষ্কাশন, গণশৌচাগার ও গুরুতর পয়ঃনিষ্কাশন অবকাঠামো তৈরিতে এপ্রকল্প বিনিয়োগ করবে। এর আওতায় মানববর্জ্য ব্যবস্থাপনায় নিয়োজিত পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের (মেথর) প্রশিক্ষণ দেওয়া ও সরঞ্জাম সরবরাহ করা হবে। বিশ্বব্যাংকের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার (আইডিএ) দেওয়া সহজ শর্তের এ ঋণ ৩০ বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে, যার মধ্যে প্রথম পাঁচবছর ঋণের কিস্তি দিতে হবে না। সোয়া এক শতাংশ সুদ ও পৌনে এক শতাংশ সার্ভিস চার্জ মিলিয়ে এই ঋণের বাংলাদেশকে বাড়তি ২ শতাংশ অর্থ পরিশোধ করতে হবে। মোট ২০ কোটি ৯৫ লাখ ৩০ হাজার ডলারের এই প্রকল্পের বাকি অর্থের মধ্যে এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক (এআইআইবি) দেবে ১০ কোটি ডলার। বাকি ৯৫ লাখ ৩০ হাজার ডলারের বাংলাদেশ সরকার যোগান দেবে। বাংলাদেশের জনস্বাস্থ্য ও প্রকৌশল অধিদপ্তর এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।

 ভেড়ামারায় নাসিমার মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় নাসিমা খাতুন (৪৬) নামের ৪ সন্তানের জননীর মস্তক বিহীন লাশ উদ্ধার করেছে ভেড়ামারা থানা পুলিশ। শুক্রবার সকাল অনুমান ৯.০০ ঘটিকার সময় গোলাপনগর গোপিনাথপুর হাড্রিঞ্জব্রীজ সংলগ্ন পশ্চিম দিকে রেললাইনের পাশে মাঠের আখ খেতের মধ্যে থেকে নাসিমার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সে দৌলতপুর উপজেলার সোনাইকুন্ডি গ্রামের মবিদুল ড্রাইভারের স্ত্রী। তার ২ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা যায়। ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা খবির আহমেদ জানান, আঁখ খেতে সকালে একদল কৃষক কাজ করতে গেলে মস্তক বিহীন লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে সংবাদ দেয়। এই সংবাদের ভিত্তিতে  ভেড়ামারা থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত লাশের সংবাদ দ্রুত এলাকাসহ পাশর্^বর্তী এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে নিহতের পরিবারের সদস্যরা এসে লাশটি সনাক্ত করেন। কে বা কাহারা এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বন্যা পরিস্থিতির অবনতির শঙ্কা

ঢাকা অফিস ॥ ভারী বর্ষণের কারণে ১০ জেলায় নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এসব জেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে সরকার। দুর্গত জেলাগুলোতে পাঠানো হয়েছে সাড়ে ১৭ হাজার মেট্রিকটন চাল এবং ৫০ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার এবং দুই কোটি ৯৩ লাখ নগদ টাকা। দুয়েক দিনের মধ্যে এসব জেলায় ৫০০টি করে তাঁবু এবং মেডিকেল টিমের পৌঁছে যাবে বলে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান জানান। সচিবালয়ে শুক্রবার আন্তঃমন্ত্রণালয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সমন্বয় কমিটির এক সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বৃষ্টির কারণে দেশের কয়েকটি অঞ্চলে বন্যার আশঙ্কা দেখা দেওয়ায় মাঠ পর্যায়ের সঙ্গে সমন্বয় করে ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। “আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আগামী কয়েক দিন ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকতে পারে, তাতে বন্য পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে।” প্রতিমন্ত্রী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় লালমনিরহাট, গাইবান্ধা, বগুড়া, সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোণা, চট্টগ্রাম, বান্দরবান, কক্সবাজার এবং নীলফামারী জেলায় বন্যা পরিস্থির অবনতি হয়েছে। ভারতে ব্রহ্মপুত্রের পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশে যমুনা নদীতে পানি আরও বাড়বে। পাশাপাশি বিহারে গঙ্গার পানি বাড়ায় বালাদেশে পদ্মা অববাহিকায় বন্যা দেখা দিতে পারে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের নদনদীগুলোর ৬২৮টি ঝুঁকিপূর্ণ পয়েন্ট নির্ধারণ করা হয়েছে, এর মধ্যে ২৬টি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। “সেসব পয়েন্টে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়, ৫৫১টি সেন্টারকে ঝুঁকিমুক্ত করতে কাজ করা হচ্ছে।” মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে নদী ভাঙন দেখা দিয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, জামালপুরে ভাঙনের প্রবণতা লক্ষ্য করা গেছে এবং লালমনিহাটে তিস্তা নদীতে ভাঙন দেখা দিয়েছে, এগুলো মোকাবেলায় কাজ শুরু হয়েছে। ত্রাণ সচিব শাহ কামাল বলেন, যেসব জেলা দুর্গত হতে পারে সেগুলোর পাশাপাশি অন্য জেলাগুলোতেও সমান প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। “প্রতিটি জেলায় দুই হাজার প্যাকেট করে মোট ৫০ হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার পাঠানো হয়েছে। একটি প্যাকেটে চিড়া, মুড়ি, বিস্কুট, তেল, আটা, মসুরের ডাল, শিশু খাবারসহ একটি পরিবারের সাত দিনের খাবার রয়েছে।” এখন পর্যন্ত দুই কোটি ৯৩ লাখ টাকা এবং দুই দফায় সাড়ে ১৭ হাজার মেট্রিক টন চাল বিভিন্ন জেলায় পাঠানো হয়েছে জানিয়ে শাহ কামাল বলেন, কোনো জেলা প্রশাসক চাহিদা পাঠানোর সঙ্গে সঙ্গে চাল দেওয়া হবে। ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী জানান, কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় মেডিকেল টিম গঠন করেছে এবং প্রচুর পরিমাণে পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট প্রস্তুত রেখেছে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরেও কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এবং সরকারি দপ্তর বন্যা মোকাবেলায় যেসব প্রস্তুতি নিয়েছে সেগুলো বিস্তারিতভাবে তুলে ধরেন এনামুর। তিনি বলেন, আশ্রয়কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত করা হয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো যাতে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা যায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সেই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বন্যাকবলিত জনগণকে আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নিতে সব ধরনের স্বেচ্ছাসেবকদের প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সিভিল সার্জনদের নেতৃত্বে টিম গঠন করা হয়েছে যাতে পানিবাহিত রোগ বিস্তার রোধ করা যায়। খাদ্যগুদামের কর্মরতদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। “আমরা আশা করি, এই বন্যায় আমরা মানুষের জীবন রক্ষা করতে তো পারবই, গবাদিপশু এবং খাদ্যশষ্যেরও নিরাপত্তা দিতে পারব।“প্রতিমন্ত্রী জানান, রোববার থেকে ডিসি সম্মেলনে অংশ নিতে সব ডিসি ঢাকায় থাকবেন। ভারপ্রাপ্ত ডিসি হিসেবে যারা দায়িত্বে থাকবেন তাদের কেন্দ্রের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে দায়িত্ব পালনের জন্য ইতোমধ্যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। “আমরা আশা করি সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে প্রতিবারের মত বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমরা সফল হব।” প্রতিমন্ত্রী জানান, আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে জায়গার অভাব হলে ব্যবহারের জন্য দুর্গত এলাকাগুলোতে ৫০০টি করে তাঁবু পাঠাতে বলা হয়েছে। প্রত্যেক তাবুতে ২০ জন করে থাকতে পারবে। প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব নজিবুর রহমান ছাড়াও কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও দপ্তরের কর্মকর্তারা এই সভায় উপস্থিত ছিলেন।

গণভবনে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ এবং কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী

আ’লীগের উপদেষ্টাদের আরো সক্রিয় হতে হবে

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যদের আরো সক্রিয় হতে বলেছেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল শুক্রবার বিকেলে গণভবনে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ এবং কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকের সূচনা বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, উপদেষ্টারা থিঙ্কট্যাংকের মতো। আমি এইটুকু চাইবো আপনাদের সবাইকে আরেকটু সক্রিয় হতে হবে। আমাদের অফিস, সব ব্যবস্থা কিন্তু আছে। প্রত্যেকটা বিষয়ের উপ-কমিটিও করা আছে। আপনারা অনেকে বসেন মিটিং করেন, সেমিনার করেন, সেগুলো অব্যাহত রাখতে হবে এবং ভবিষ্যতের জন্য পরিকল্পনাগুলো নিতে হবে। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে তা ধরে রাখতে হবে। আর এখানে রাজনৈতিক শক্তি খুব বেশি প্রয়োজন। সংগঠন প্রয়োজন, জনগণের সমর্থন প্রয়োজন। আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, সংগঠনকে শক্তিশালী করে গড়ে তোলা প্রয়োজন, পাশাপাশি আগামী দিনে আমরা দেশকে কোথায় নিয়ে যেতে চাই সেই পরিকল্পনা আমাদের আছে। এরইমধ্যে আমরা তা বলেছি। কিন্তু সেই প্রস্তুতিটাও আমাদের নিতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের ধাপে ধাপে এগিয়ে যেতে হবে, বাধাগুলো অতিক্রম করতে হবে। তার জন্য আমাদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন, সাংগঠনিকভাবে দলকে শক্তিশালী করা, জনমত সৃষ্টি করা। যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা করার ক্ষমতা বাংলাদেশের রয়েছে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন বৃষ্টি হচ্ছে, বন্যা হচ্ছে বা কোথায়ও নদীভাঙন হতে পারে, পাহাড়ধস নামতে পারে। আমরা কিন্তু প্রতিনিয়ত সারাদেশে কোথায় কি ঘটছে তার খবর নিচ্ছে। কার কি দায়িত্ব সেটা দেওয়া আছে, তারা সঙ্গে সঙ্গে দায়িত্বগুলো পালন করে যাচ্ছে। এখানে কিন্তু এতটুকু শৈথিল্যের সুযোগ নেই। তাদের কাজ করে সঙ্গে সঙ্গে আমাকে মেসেজ দিয়ে জানাতে হয়। মানুষকে অবহেলা করে রাষ্ট্র পরিচালনা করি না মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষের সুখ-দুঃখের সঙ্গী হয়ে মানুষের বিপদে তাদের পাশে দাঁড়ানো মানুষের কল্যাণ ও উন্নয়ন নীতি নিয়ে আমরা কাজ করি বলেই আজকে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সভায় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।