তিস্তার জল না দেয়ায় ইলিশ দিচ্ছে না বাংলাদেশ – মমতা

ঢাকা অফিস ॥ তিস্তার পানি না পাঠানোয় ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ইলিশ পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছে বাংলাদেশ। এমন মন্তব্য করে এ বিষয়ে গতকাল মঙ্গলবার বিধানসভায় জনগণের কাছে দুঃখপ্রকাশ করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার আশ্বাস, আগামী দিনে এ রাজ্যে প্রচুর ইলিশ উত্পাদন করা হবে এবং তখন আর বাংলাদেশের ইলিশের দরকার হবে না। -খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া। এদিন পদ্মার ইলিশ ওপার বাংলার না যাওয়ায় বিধানসভায় আক্ষেপের সুর যায় মমতার গলায়। বিধানসভার প্রশ্নোত্তর পর্বে বিধায়ক রহিমা বিবির এক প্রশ্নের উত্তরে মমতা বলেন, ‘’বাঙালি মাছে-ভাতে থাকতে ভালবাসে। কিন্তু বাংলাদেশকে আমরা তিস্তার জল দিতে পারিনি। তাই ওরা আমাদের ইলিশ মাছ দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। ওরা আমাদের বন্ধু দেশ। কিন্তু জল নেই তো কোথা থেকে দেব?’’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ইলিশ মাছ নিয়ে রিসার্চ সেন্টার করেছি। আমাদের বাংলায় এখন ইলিশ মাছের অভাব নেই। আগামী দিনে গবেষণা শেষ হলে গোটা দেশে আমরা ইলিশ সরবরাহ করতে পারব। দু-এক বছরের মধ্যে আর বাইরে থেকে আনতে হবে না মাছ।’

খাদ্য নিরাপদতায় ও পোল্ট্রি ব্যবসার উন্নয়নে কুমারখালীতে কর্মশালা

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ খাদ্য নিরাপদতায় সুশাসন  প্রতিষ্ঠায় ও পোল্ট্রি খাতে ব্যবসায়িক উন্নয়নে দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বীজ বিস্তার ফাউন্ডেশনের আয়োজনে গতকাল বেলা ১১টায় উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তার কার্যালয়ের সভাকক্ষে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কুমারখালী পৌরসভার মেয়র মো: সামছুজ্জামান অরুণ। উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা: নূর এ আলম সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে এ কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, প্রাণি সম্পদ দপ্তরের ভেটেরিনারী সার্জন ডা: নাহিদ হাসান, উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মো: আরাফাত আলী। কর্মশালায় প্রকল্পের লক্ষ্য উদ্দেশ্য তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বীজ বিস্তার ফাউন্ডেশনের মাঠ সমন্বয়কারি ডলি ভদ্র। এ ছাড়াও বক্তব্য রাখেন, বীজ বিস্তার ফাউন্ডেশনের  ভোক্তা কমিটির সদস্য ও বনিক সমিতির সহ সভাপতি কে, এম আলম টমে, ভোক্তা কমিটির সদস্য ও সাংবাদিক হাবীব চৌহান, পোল্ট্রি খাদ্য বিক্রেতা (ডিলার) স্বাধীন হোসেন প্রমূখ। এ কর্মশালায় সাধারন ভোক্তাসহ পোল্ট্রি ফিড কোম্পানীর প্রতিনিধি, পোল্ট্রি ফিড বিক্রেতা (ডিলার), জীবন্ত মুরগী বিক্রেতা ও খামারীরা অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালায় জনপ্রতিনিধি (মেয়র), প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা, ভেটেরিনারি সার্জন, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর ও সচেতন সাধারন ভোক্তারা খাদ্য নিরাপদতায় পোল্ট্রি সেক্টরে সুশাসন প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই। আর সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও সর্বস্তরে সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমেই পোল্ট্রি ব্যবসার উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব। এ জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চয়তায় নিরাপদ পোল্ট্রি ফিড উৎপাদন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অনিরাপদ পোল্ট্রি ফিড, এন্টিবায়োটিক ও গ্রোথ হরমোন মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। তাই খাদ্য নিরাপদতায় নিরাপদ পোল্ট্রি উৎপাদন ও বাজারজাতকরণে ২০১০ সালের মৎস্য ও পশুখাদ্য আইনের আওতায় খামারি ও ডিলারদের রেজিষ্ট্রেশন ও লাইসেন্স গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করা হয়। এ কর্মশালায় কুমারখালী পৌরসভার মেয়র মো: সামছুজ্জামান অরুণ পৌর বাজারের জীবন্ত মুরগী বিক্রয় কেন্দ্রের সার্বিক পরিবেশ দুইমাসের মধ্যে নিরাপদ ও স্বাস্থসম্মত করার ঘোষনা দেন।

স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে এলাকাবাসি

গাংনীতে লোকালয়ে ব্রয়লার মুরগীর ফার্ম

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে পরিবেশ আইন উপেক্ষা করে লোকালয়ে ব্রয়লার ও হাঁস মুরগীর খামার গড়ে উঠেছে। এতে করে ব্রয়লার ফার্মের পার্শ্বস্থ বসবাসকারী লোকজন বিশেষ করে শিশুরা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ লোকজন ফার্মের দুর্গন্ধের কারনে অসুস্থ শরণাপন্ন হলেও প্রতিকার মিলছে না। উপজেলার কসবা ভাটপাড়া গ্রামে গড়ে উঠেছে এরকম কয়েকটি ব্রয়লার মুরগীর ফার্ম। এমনিভাবে গাংনী উপজেলার প্রায় ১৫০ টি মুরগী খামার লোকালয়ে গড়ে উঠলেও প্রশাসন নির্বিকার। সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ধানখোলা ইউনিয়নের ভাটপাড়া (ভিটাপাড়া) গ্রামের নওশাদ আলীর ছেলে শাহ আলম ৩ শ’ ব্রয়লার মুরগী নিয়ে বাড়ীর পার্শ্বে অবৈধভাবে পরিবেশ সংরক্ষণ আইন না মেনে ফার্ম গড়ে তুলেছে। একইভাবে প্রতিবেশী আবু সিদ্দিকের ছেলে জহুরুল হক বাড়ীর উঠানে ৩২০ টি মুরগী  ও বাড়ীর ছাদের উপর ৪ শ’ মুরগী  নিয়ে খামার গড়ে তুলেছে। ৭/৮ বছর যাবৎ বাড়ীর মধ্যে খামার করায় প্রতিবেশীরা বার বার গ্রামের মেম্বর, সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যান ও উপজেলা পর্যায়ে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ তুললেও অদ্যাবধি কোন প্রতিকার মেলেনি। প্রতিবেশীদের স্বাস্থ্যসম্মতভাবে বসবাসের বাঁধা করা হচ্ছে এমন প্রশ্নের উত্তরে জহুরুলের স্ত্রী রেশমা খাতুন সাংবাদিকদের উপর চড়াও হয়। এমনকি বলে, আমার বাড়ীতে আমি  ব্যবসা করে খাই, তাতে সরকারের কি ? এছাড়াও বলে আমার বাড়ীর পার্শ্বে যারা দুর্গন্ধে থাকতে পারবে না তারা এখান থেকে চলে যাক। রেশমা আরও বলে, সরকার আমাদের কি করবে। আসমানখালী গ্রামের মুরগী ডিলার মামুন ও বগাদীর সিফাউল হকের বিরুদ্ধে কিছুই করতে পারবে না প্রশাসন।এনিয়ে গ্রামের ছাত্রলীগ নেতা তোফাজ্জেল হোসেন জানান, অবৈধভাবে ব্রয়লার মুরগীর ফার্ম তৈরী করায় বিশ্রী দুর্গন্ধে প্রতিবেশী মহিলারা বিশেষ করে স্কুল পড়–য়া শিক্ষার্থীরা ঠিকমত খাওয়া দাওয়া ও লেখাপড়া করতে পারে না। মাঝে মধ্যে দুর্গন্ধের কারণে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। এখানে বসবাসের একেবারেই অযোগ্য হয়ে গেছে। এক্ষনি ফার্মগুলো বন্ধ করা না হলে লোকজন বিশৃংখলা ঘটাতে কুণ্ঠাবোধ করবে না। নাম না বলার স্বার্থে একজন প্রতিবেশী বলেন, জহুরুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আমরা টিকতে পারবো না। কারণ সে দিনের বেলায় ট্রলিচালক হলেও রাতে সে নিষিদ্ধ দলের সদস্যদের নিয়ে ঘোরাঘুরি করে। তার স্ত্রী রেশমা খুব খারাপ মহিলা। প্রতিবেশীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে কাউকে কিছু বলতে দেয় না। এনিয়ে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পালের নিকট রাত ৮-২০ মিনিটে একাধিকবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা চেষ্টা করেও সংযোগ পাওয়া যাইনি।

প্রভাবশালী যারা থাকবে, আমরা নিশ্চয়ই তাকেও বের করব – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রিফাতের নৃশংস হত্যাকান্ডে যে বর্বরতা ছেলেরা চালিয়েছে, এ ধরনের ঘটনা যেন বাংলাদেশে আর না হয় আমরা সেটিই চাই। রিফাত হত্যায় প্রভাবশালী অনেকেই জড়িত, তাদের শেল্টার দেয়া হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা তো সবাইকে ধরেছি। প্রভাবশালী যারা থাকবে, আমরা নিশ্চয়ই তাকেও বের করব। আপনারা নিশ্চয়ই দেখেছেন কোনো প্রভাবশালী- এমনকি আমাদের নির্বাচিত প্রতিনিধিকেও আমরা কিন্তু ক্ষমা করছি না। বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলার অন্যতম প্রধান আসামি সাব্বির হোসেন নয়ন ওরফে নয়ন বন্ড ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়া প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে সম্প্রীতি বাংলাদেশ আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য যা যা করা দরকার সবই করছেন। এর জন্য কোনো প্রভাবশালী, কোনো জনপ্রতিনিধি বা কোনো নেতা আমাদের কাছে অন্তরায় নয়। যে অন্যায় করবে সে আইনের মুখোমুখি হবে। উল্লেখ্য, বরগুনায় প্রকাশ্য সড়কে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যার অন্যতম প্রধান আসামি সাব্বির হোসেন নয়ন ওরফে নয়ন বন্ড মঙ্গলবার ভোরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন।

জনগণকে কষ্টে ফেলতেই গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি – রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি কার্যকর না করার জন্য দাবি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল না করলে বিএনপি আন্দোলন গড়ে তুলবে। তিনি বলেন, সরকার জনগণকে কষ্টে ফেলতেই ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করেছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে রিজভীর নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি তাদের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিলটি বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে আবারও দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের এসে শেষ হয়। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এই মিছিল হয়। একপর্যায়ে বিজয়নগরে বক্তব্য দেন রিজভী। বর্তমান সরকারকে অবৈধ সরকার উল্লেখ করে রিজভী বলেন, একের পর এক গণবিরোধী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে জনগণের ওপর নিপীড়ন চালিয়ে সরকারের লোকদের পকেট ভারী করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় নতুন করে জনগণের কাঁধে চাপানো হলো গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির ভারী বোঝা। ভোক্তা পর্যায়ে দ্রুত গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি কার্যকর না করার দাবি জানিয়ে রিজভী বলেন, সরকার এ সিদ্ধান্ত বাতিল না করলে বিএনপি আন্দোলন গড়ে তুলবে। এ ছাড়া খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে আটকে রাখা হয়েছে অভিযোগ করে এই বিএনপি নেতা তাঁর মুক্তি দাবি করেন। মিছিলে অংশ নেন বিএনপির প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, সহসভাপতি ইউনুস মৃধা, নবী উল্লাহ নবী প্রমুখ।

গ্যাসের দাম বৃদ্ধি সহ্যসীমার মধ্যে – বাণিজ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ গ্যাসের দাম গড়ে ৩২ দশমিক ৮ শতাংশের বেশি বাড়লেও তা জনগণের জন্য সহনীয় মাত্রায় রয়েছে বলে দাবি করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে দক্ষিণ কোরীয় রাষ্ট্রদূত হু ক্যাং-ইলের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গ্যাসের দাম বাড়ায় আবাসিক গ্রাহকদের উপর চাপ বাড়বে। কিন্তু এর জন্য যে ভর্তুকি দেওয়া হয় তা বাকি ১৩ কোটি মানুষকে বহন করতে হয়। “কত সাবসিডি দিয়ে আমরা এই সেক্টর চালাব?… এ জায়গায় সরকারকে অ্যাডজাস্ট করতে হবে। তারপরও এমনভাবে (দাম) বাড়ানো হয়েছে যাতে (মানুষ) সহ্য করতে পারে। গ্যাসে যে পরিমাণ খরচ হয় তা চাপিয়ে দেওয়া হয়নি।” সমাজের বিভিন্ন অংশের আপত্তির মধ্যেই সব পর্যায়ে গ্যাসের দাম গড়ে ৩২.৮ শতাংশ বাড়িয়েছে সরকার, যা কার্যকর হয়েছে জুলাইয়ের প্রথম দিন থেকেই। এতে আবাসিক গ্রাহকদের এক চুলার জন্য মাসে ৯২৫ টাকা এবং দুই চুলার জন্য ৯৭৫ টাকা দিতে হবে, যা এতোদিন ছিল যথাক্রমে ৭৫০ টাকা ও ৮০০ টাকা। গ্যাসের দাম বাড়ানোর যৌক্তিতা ব্যাখ্যা করে টিপু মুনশি বলেন, “আমাদের সোর্স থেকে গ্যাস শেষ হয়ে আসছে। আপনারা যদি ক্যালকুলেশন করে দেখেন বিদেশ থেকে আমদানি করে কত কস্ট পড়ছে, সেই পরিমাণ কস্ট কিন্তু সরকার চাপিয়ে দেয়নি।” দক্ষিণ কোরীয় রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ১৩ জুলাই কোরীয় প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফর নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কোরীয় প্রধানমন্ত্রী দুই রাত বাংলাদেশে থাকবেন এবং সফর সঙ্গী সব মিলে ১৫০ জনের মত। দুই দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে ১৪ জুলাই বৈঠক হবে।

সভাপতি মুজিবুর রহমান ॥ সাধারণ সম্পাদক মোজাফ্ফর হোসেন

কুষ্টিয়া জেলা রড ব্যবসায়ী মালিক সমিতির কমিটি গঠন

নিজ সংবাদ ॥ গত ২৯ শে জুন রোজ শনিবার রাত আট ঘটিকার সময় কুষ্টিয়া পুনাক ফুড পার্কে সকলের উপস্থিতি ও মতামতের ভিত্তিতে কুষ্টিয়া জেলা রড ব্যবসায়ী মালিক সমিতির কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সভাপতি মেসার্স রহমান ট্রেডিং কর্পোরেশন এর আলহাজ্ব মোঃ মুজিবুর রহমান, সহ-সভাপতি মেসার্স পদ্মা ট্রেডার্স এর আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক মেসার্স ফয়সাল এন্টারপ্রাইজ এর হাজী মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন, সহ-সাধারণ সম্পাদক মেসার্স মনির আয়রন এর মোঃ আরিফুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মেসার্স আর, রহমান কর্পোরেশন এর হাজী মোঃ ইদ্রিস আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক মেসার্স তামান্না এন্টারপ্রাইজ এর মোঃ মতিয়ার রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মেসার্স টোটাল আয়রন এর মোঃ সিরাজুল ইসলাম মাসুদ। উপদেষ্টা মন্ডলিরা হলেন, মেসার্স সৈকত ট্রেডার্স এর মোঃ মোকাররম হোসেন, মেসার্স সালাম এন্ড সন্স এর মোঃ আব্দুস সালাম, মেসার্স হক এন্টারপ্রাইজ এর মোঃ রাহিদুল হক, মেসার্স আর রহমান কর্পোরেশন এর হাজী মোঃ নাজিম উদ্দিন, মেসার্স ফজলু এন্টারপ্রাইজ এর হাজী মোঃ ফজলুর রহমান। প্রচার সম্পাদক মেসার্স সোনালী ট্রেডিং এর মোঃ আবুল বাসার। নির্বাহী সদস্যগণ হলেন, মেসার্স বিশ্বাস ট্রেডার্স এর মোঃ বেলাল হোসেন, মেসার্স এস জি এন্টারপ্রাইজ এর মোঃ ইফতেখার মাহমুদ তুহিন, মেসার্স আল মাহদী ট্রেডার্স এর মোঃ কামরুল ইসলাম, মেসার্স জি এন এন্টারপ্রাইজের মোঃ জীবন, মেসার্স লিটন আয়রন এর মোঃ লিটন, মেসার্স ভাই ভাই এন্টারপ্রাইজ এর মোঃ ইউনুস আলী। উক্ত কমিটিতে সমিতির ভর্তি ফি এক হাজার টাকা এবং মাসিক চাঁদা পাঁচশত টাকা নির্ধারণ করা হইয়াছে বলে জানা যায়। ১৫ ই জুলাই ২০১৯ ইং এর মধ্যে ভর্তি ফি পরিশোধ করিতে হইবে। এবং মাসিক চাঁদা পরবর্তী মাসের ১০ ইং তারিখের মধ্যে পরিশোধ করিতে হইবে।

কুষ্টিয়া পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিক্ষোভ কর্মসূচী ও কর্মবিরতী

গতকাল মঙ্গলবার সকালে কুষ্টিয়া জেলা পৌরসভা এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের আয়োজনে পাঁচ পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ভাতাদী ও পেনশন গ্রাচুইটি সরকারী কোষাগার থেকে প্রাপ্তির দাবীতে কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচী ও কর্মবিরতী পালন করা হয়। পরে কুষ্টিয়া পৌরসভার ম,আ,রহিম মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। কুষ্টিয়া পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের সভাপতি আমান উল্লাহ’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম। এসময় বক্তব্য রাখেন ভেড়ামারা পৌরসভার সচিব গোলাম সারোয়ার, খোকসা পৌরসভার সচিব আব্দুল হান্নান, বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের কেন্দ্রিয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক একরামুল হক, কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ বাবু, সহ সভাপতি রফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলতাফ হোসেন, কুষ্টিয়া পৌরসভা এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি গোলাম ছারয়ার। আলোচনা সভায় বক্তারা তাদের বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছে। অথচ পৌরসভার ৩২৮ টি পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সরকারী  সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। এমনকি ১ হতে ৫৭ মাস পর্যন্ত বেতন না পেয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছি। ৩২৮ টি পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ২০১৮ সাল পর্যন্ত সাতশত বিরানব্বই কোটি টাকা বকেয়া আছে। এই বকেয়া সহ বেতন ভাতাদী ও পেনশন গ্রাচুইটি  সরকারী কোষাগার থেকে দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট আকুল আবেদন জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া পাঁচ পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

নোঙর-কুষ্টিয়া জেলার সম্মানিত সদস্য মনোনীত হলেন তরুণ সংগঠক সালেকউদ্দিন শেখ সুমন

বাংলাদেশের নদী ও পরিবেশ সুরক্ষার কপোতাক্ষ নদীর অতন্দ্র প্রহরী, তরুণ উদ্যোক্তা ও সংগঠক সালেকউদ্দিন শেখ সুমন (কুষ্টিয়া শহর) কে নদী নিরাপত্তার সামাজিক সংগঠন নোঙর-কুষ্টিয়া জেলার সম্মানিত সদস্য মনোনীত করা হয়েছে।

নদী নিরাপত্তার সামাজিক সংগঠন ‘নোঙর’ প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সুমন শামস ২৭ জুন ২০১৯ইং এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

নদী নিরাপত্তার সামাজিক সংগঠন নোঙর দেশজুড়ে নদী ও পরিবেশ সুরক্ষার লক্ষ্যে সারা দেশের নদী যোদ্ধাদের সংগঠিত করার উদ্দেশ্যে দেশব্যাপী ইতিমধ্যেই জেলা কমিটি গঠন করার কাজ শুরু করেছে।

সালেকউদ্দিন শেখ সুমন কুষ্টিয়াশহর.কম অনলাইন সাংবাদপত্রের প্রতিষ্ঠাতা, সফটওয়্যার ডেভেলপার এবং গবেষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

নোঙর পরিবার সালেকউদ্দিন শেখ সুমন এর সুদীর্ঘ জীবন ও সাফল্য কামনা করছে।

১. ঢাকা ২. খুলনা ৩. চট্রগ্রাম ৪. রাজশাহী ৫. বরিশাল ৬. সিলেট ৭. রংপুর ৮. ময়মনসিংহ বিভাগের কমিটির পাশাপাশি ৬৪ জেলার নদী প্রকৃতি সুরক্ষার লক্ষ্যে তরুণদের সমন্বয়ে এই জেলা কমিটি গঠন প্রক্রিয়ার ধরাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে। নদীমাতৃক দেশের নদী ও পরিবেশ সুরক্ষায় এগিয়ে আসুন, নোঙর পতাকা তলে একতাবদ্ধ হোন। “নদী বাঁচান-পরিবেশ বাঁচান-জীবন বাঁচান” :  নোঙর । সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

গ্যাসের দাম নিয়ে হরতালে সাড়া দেবে না জনগণ – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ যৌক্তিক কারণে গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এর প্রতিবাদে বিরোধীরা হরতাল ডাকলে জনগণ সাড়া দেবে না। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানকে দেখার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, “গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির পেছনে যৌক্তিক কিছু কারণ আছে। আমাদের দেশের মানুষ বাস্তবতা বোঝেন। বাস্তব কারণে যৌক্তিক কিছু দাম এখানে সমন্বয় করা হয়েছে। দেশের মানুষ বিষয়টাকে সহজভাবে নেবেন- এটাই আমরা আশা করি। “এখন বিরোধী দল প্রতিবাদ করবে এটাই সাভাবিক এবং আমার কাছে মনে হয়, তাদের এই প্রতিবাদ বিক্ষোভ বিশেষ করে হরতালে জনগণের কোনো সাড়া মিলবে- এটা আমার বিশ্বাস হয় না।” সমাজের বিভিন্ন অংশের আপত্তির মধ্যেই সব পর্যায়ে গ্যাসের দাম গড়ে ৩২.৮ শতাংশ বাড়িয়েছে সরকার, যা কার্যকর হয়েছে জুলাইয়ের প্রথম দিন থেকেই। আবাসিক গ্রাহকদের এক চুলার জন্য মাসে ৯২৫ টাকা এবং দুই চুলার জন্য ৯৭৫ টাকা দিতে হবে, যা এতোদিন ছিল যথাক্রমে ৭৫০ টাকা ও ৮০০ টাকা। গৃহস্থালিতে মিটারে যারা গ্যাসের বিল দেন, তাদের প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের ব্যবহারের জন্য ১২ টাকা ৬০ পয়সা করে দিতে হবে। এতোদিন প্রতি ঘনমিটারে তাদের বিল হত ৯ টাকা ১০ পয়সা। অর্থাৎ, রান্নার গ্যাসের জন্য চুলাভিত্তিক গ্রাহকদের প্রতি মাসে ২৩ শতাংশ এবং মিটারভিত্তিক গ্রাহকদের ৩৮ শতাংশ বেশি অর্থ খরচ হবে। যানবাহনে জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাসের (সিএনজি) দাম সোমবার থেকে প্রতি ঘনমিটারে ৩৮ টাকা থেকে বেড়ে ৪৩ টাকা হবে। এই হিসাবে গাড়ির গ্যাসের জন্য মালিকদের খরচ বাড়বে সাড়ে ৭ শতাংশ। স্বাভাবিকভাবেই গণপরিবহনে এর প্রভাব পড়বে; এর মাসুল দিতে হবে যাত্রীদের। গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে ৭ জুলাই দেশজুড়ে আধাবেলা হরতাল ডেকেছে বামপন্থি দলগুলোর জোট। তাদের অভিযোগ, সরকার ‘দেশি-বিদেশি লুটরাদের সুবিধা দিতে’ সাগরের গ্যাস না তুলে সংকট জিইয়ে রেখে ব্যয়বহুল এলএনজি আমদানি চালু রেখেছে। এদিকে গ্যাসের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে মঙ্গলবার জেলা ও মহানগরে প্রতিবাদ কর্মসূচি দিয়েছে বিএনপি।

পদ্মার তীরে কুষ্টিয়া ও ভেড়ামারায় কর্মরত ইলেকট্রনিক্স, জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকার সাংবাদিকদের মিলন মেলা

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়া ও ভেড়ামারায় কর্মরত ইলেকট্রনিক্স, জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকার সাংবাদিকদের নিয়ে ভেড়ামারার গোলাপনগর মনি পার্কে বর্ণাঢ্য এক সাংবাদিকদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পদ্মার তীরে এক মনোমুগ্ধকর পরিবেশে সাংবাদিকদের এই মিলন মেলা নতুন উদ্দীপনা সৃষ্টি করেছে। দুপুর ১২টায় মনি পার্কে একে একে জড়ো হতে থাকে কুষ্টিয়া এবং ভেড়ামারার মেধাবী সাংবাদিকরা। দুপুর ১টা  বাজতেই সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে প্রানোবন্ধ হয়ে ওঠে। এ যেন এক মিলন মেলা। উপস্থিত হন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি গাজী মাহবুব রহমান, সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সাগর, এডিটরস্ ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ও এসএ টিভির জেলা প্রতিনিধি নুর আলম দুলাল, প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও কালের কন্ঠের জেলা প্রতিনিধি তারিকুল হক তারিখ প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও দৈনিক মাটির ডাকের সম্পাদক লুৎফর রহমান কুমার, টিভি জার্নালিষ্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও বাংলা ভিশনের জেলা প্রতিনিধি হাসান আলী, সাধারণ সম্পাদক ও সময় টিভির জেলা প্রতিনিধি এস.এম রাশেদ, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও চ্যানেল টোয়েন্টি ফোর’র শরিফ বিশ্বাস, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সময়ের কাগজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নুরুন্নবি বাবু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক ও বাংলা টিভির জেলা প্রতিনিধি এম.লিটন-উজ-জামান, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি ও প্রেসক্লাবের প্রচার প্রকাশনা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক তৌহিদী হাসান, টিভি জার্নালিষ্ট অ্যাসোসিয়েশনের দপ্তর সম্পাদক ও দৈনিক দিনের খবর পত্রিকার প্রকাশক সম্পাদক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু, প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও দৈনিক মাটির পৃথিবীর সম্পাদক এম.এ জিহাদ, চ্যানেল নাইনের জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক আজকের আলোর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক দেবাশীষ দত্ত, , দৈনিক কুষ্টিয়ার বার্তার সম্পাদক খাদেমুল ইসলাম। ভেড়ামারা থেকে যোগ দেন ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের সাবেক আহবায়ক দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ভেড়ামারা প্রতিনিধি রেজাউল করিম, যুগ্ন আহবায়ক হয়েছেন, দৈনিক ভোরের কাগজ পত্রিকার সাংবাদিক ইসমাইল হোসেন বাবু, সাপ্তাহিক কুষ্টিয়ার মুখ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সাংবাদিক ডাঃ আমিরুল ইসলাম মান্নান, দৈনিক কুষ্টিয়ার কাগজ পত্রিকার প্রতিনিধি ওয়ালিউল ইসলাম ওলি, দৈনিক খোলা কাগজ পত্রিকার সাংবাদিক আবু ওবাইদা আল মাহাদী, দৈনিক নয়াদিগন্ত পত্রিকার সাংবাদিক মাসুদ করিম, দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার সাংবাদিক শাহ্ জামাল, দৈনিক আমার সংবাদের সাংবাদিক ফিরোজ মাহমুদ  দৈনিক হাওয়া পত্রিকার সাংবাদিক এ্যাড. মনির উদ্দীন মনির, দৈনিক দিনের খবর পত্রিকার সাংবাদিক আজিজুল হাকিম, দৈনিক আজকের সূত্রপাত পত্রিকার সাংবাদিক অধ্যাপক ফারুক হোসেন, দৈনিক মাটির পৃথিবীর সাংবাদিক আসমান আলী,  দৈনিক মানবকন্ঠ পত্রিকার মাসুদ রানা, দৈনিক আজকের আলো পত্রিকার ভেড়ামারা প্রতিনিধি সাংবাদিক নোমান জহির রাজা, দৈনিক দেশের বানী পত্রিকার সাংবাদিক জাহিদ হাসান, দৈনিক আল আমীন পত্রিকার সাংবাদিক আজিজুর রহমান, দৈনিক সরেজমিন পত্রিকার সাংবাদিক মিলন আলী, দৈনিক টিচার পত্রিকার সাংবাদিক মাহমুদ্দোল্লাহ সোহেল, কুষ্টিয়ার মুখ পত্রিকার সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম, কুষ্টিয়ার দিগন্ত পত্রিকার সাংবাদিক সাগর হোসেন পবন, সিনিয়র সাংবাদিক সাহাবুদ্দিন সাবু, রেজাউর রহমান তনু। দুপুরের মধ্যাহ্নভোজ শেষে মনোমুগ্ধকর পরিবেশে আলোচনায় অংশ নেন সাংবাদিকরা।

নাগরিক সেবা বন্ধ রেখে আন্দোলন !

সরকারি বেতনভাতা সহ পেনশনের দাবীতে কুমারখালী পৌরকর্মচারীদের কর্মবিরতি

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ সকল প্রকার নাগরিক সেবা কার্যক্রম বন্ধ রেখে কুষ্টিয়ার কুমারখালী পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আবারো রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে শতভাগ বেতন-ভাতাসহ পেনশন সুবিধা ও জনপ্রতিনিধিদের সম্মানি ভাতা প্রদানের দাবীতে কর্মবিরতি ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে। বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী সার্ভিস এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির আহবানে কুমারখালী পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী সার্ভিস এসোসিয়েশন দুই দিনব্যাপী (১লা ও ২রা জুলাই) কর্মবিরতি কর্মসূচী পালন করে। দাবী আদায়ের লক্ষ্যে আয়োজিত কর্মবিরতি কর্মসূচী পালনের অংশ হিসাবে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে পৌর কর্মচারীরা শহরের বঙ্গবন্ধু’র ম্যুরাল চত্বরে সমবেত হয়ে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন, পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী সার্ভিস এসোসিয়েশন কুমারখালী শাখার সভাপতি আব্দুল হালিম, সাধারন সম্পাদক মনিরুজ্জামান টুটুল, সাংগঠনিক সম্পাদক মকলেছুর রহমান, সহ সভাপতি আল আমিন প্রমূখ। এর আগে গত সোমবার পৌরসভা ভবনের প্রধান গেইটের সামনে অবস্থান নিয়ে “এক দেশে দুই নীতি মানি না, মানবো না” স্লোগান দেন এবং বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। দিনব্যাপী এই কর্মবিরতি কর্মসূচীতে প্রায় পঞ্চাশের অধিক সংখ্যক কর্মকর্তা- কর্মচারী অংশগ্রহণ করেন। কর্মবিরতি কর্মসূচী পালনকালে অনতিবিলম্বে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে শতভাগ বেতন-ভাতা সহ বোনাস প্রদান ও জনপ্রতিনিধিদের সম্মানীভাতা প্রদান করতে সরকারের কাছে দাবী করেন পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এদিকে, সকল প্রকার নাগরিক সেবা বন্ধ রেখে নিজেদের দাবী আদায়ের আন্দোলনে অংশ নেওয়ায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সর্বস্তরের সাধারন পৌর নাগরিকদের। দাপ্তরিক কার্যক্রম সহ নিয়মিত পানি সরবরাহ ও সড়কবাতি বন্ধ করে দেওয়ায় গত দুইদিন যাবৎ চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে পৌর নাগরিকদের। কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নাগরিক সেবা কার্যক্রম বন্ধ করে নিজেদের দাবী আদায়ের আন্দোলনে অংশ নিতে দপ্তরের বাহিরে অবস্থান করায় পৌরসভা ভবনে প্রায় জনশূন্য অবস্থা। আর পৌর সভার মেয়র সহ অন্যান্য জনপ্রতিনিধিরাও রয়েছেন অনেকটাই কর্মহীন।

 

দৌলতপুর সীমান্তে ১০৯ বোতল ফেনসিডিল ও ৭কেজি গাঁজা উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র পৃথক অভিযানে ১০৯ বোতল ফেনসিডিল ও ৭ কেজি গাঁজা উদ্ধার হয়েছে। সোমবার রাত ৮টার দিকে রামকৃষ্ণপুর বিওপি’র টহল দল সরকারপাড়া মাঠে অভিযান চালিয়ে ৭৪বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। অপরদিকে প্রাগপুর বিওপি’র টহল দল একই রাত সোয়া ২টার দিকে ময়রামপুর মাঠে অভিযান চালিয়ে ৭ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে। এছাড়াও সোমবার রাত পৌনে ১২টার দিকে ঠোটারপাড়া বিওপি’র টহল দল পাকুড়িয়া মাঠে অভিযান চালিয়ে ৩৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। তবে বিজিবি’র এসব মাদক বিরোধী অভিযানে কোন মাদক ব্যবসায়ী বা পাচারকারী আটক হয়নি।

জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনুর শোক

আজ সকাল ৯টায় জানাযা

জাসদ নেতা আহাম্মদ আলী পিতা আর নেই

 

 

 

আমলা অফিস ॥ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ মিরপুর উপজেলার সাধারণ সম্পাদক আহাম্মদ আলী’র পিতা ডা: জহুরুল ইসলাম বার্ধক্য জনিত অসুস্থ্যতায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার বেলা ১২টায় মৃত্যু বরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি….. রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ১০২ বছর। তিনি ৬ পূত্র, ৪ কণ্যা নাতি-নাতনীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে জাসদ নেতা আহাম্মদ আলী জানান, বুধবার সকাল ৯টায় মরহুমের নিজ গ্রাম মিরপুর উপজেলার বুরাপাড়া গ্রামে নামাজে জানাযা ও দাফন সম্পন্ন হবে। মরহুমের নামাজে জানাযায় সকলকে শরীক হওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ এবং মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া করতে অনুরোধ জানান। জাসদ নেতা আহাম্মদ আলীর পিতার মৃত্যুতে জাসদ সভাপতি ও কুষ্টিয়া-২ আসনের সংসদ সদস্য হাসানুল হক ইনু এমপি এক শোক বার্তায় গভীর শোক প্রকাশ করেন। এছাড়াও গভীর শোক প্রকাশ করেছেন কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সভাপতি গোলাম মহসীন, সাধারন সম্পাদক ও  কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলিম স্বপন, জাসদ নেতা বীরমুক্তিযুদ্ধা শাহাবুব আলী, ভেড়ামারা উপজেলা জাসদের সভাপতি এমদাদুল ইসলাম আতা, সাধারন সম্পাদক এস এম আনসার আলী, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক জিললুর রহমান, জেলা জাসদের নেতা অসিত কুমার সিংহ রায়, কারশেদ আলম, আমিরুল ইসলাম মুকলু, দৌলতপুর উপজেলা জাসদের সভাপতি সহির উদ্দীন, সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম নান্নু, কুমারখালী উপজেলা জাসদের সভাপতি আব্দুল হান্নান, সাধারন সম্পাদক এ্যাডঃ জয়দেব কুমার বিশ্বাস, মিরপুর উপজেলা জাসদের সভাপতি আহম্মেদ শরীফসহ জাসদের সকল সহযোগী সংগঠনের  নেতৃবৃন্দ।

আহবায়ক রেজাউল, যুগ্ন আহবায়ক বাবু, ডাঃ মান্নান, মাসুদ করিম, শাহ্ জামাল, মাহাদী, ফিরোজ

২৪ সদস্য বিশিষ্ট ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের আহবায়ক কমিটি গঠন

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের নাম ভাঙ্গিয়ে অপসাংবাদিকতা রোধ, অসাংবাদিক ও নামকাওয়াস্তে সাংবাদিকদের দিয়ে পকেট কমিটি গঠন করে সাংবাদিকদের অধিকার, ঐতিহ্য, সুনাম, নষ্টে’র অপতৎপরতা রোধ এবং সাংবাদিকদের  অধিকার ও সম্মান পূর্ন প্রতিষ্ঠাকরনের লক্ষে ভেড়ামারায় কর্মরত জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিকদের নিয়ে গঠিত হয়েছে ২৪ সদস্য বিশিষ্ট ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের আহবায়ক কমিটি। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে কুষ্টিয়া এবং ভেড়ামারায় কর্মরত ইলেকট্রনিক্স, জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিকদের নিয়ে ভেড়ামারার মনি পার্কে সাংবাদিকদের মিলন মেলা শেষে এই আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি গাজী মাহবুব রহমান, সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সাগর, এডিটরস্ ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ও এসএ টিভির জেলা প্রতিনিধি নুর আলম দুলাল, প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও কালের কন্ঠের জেলা প্রতিনিধি তারিকুল হক তারিখ প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও দৈনিক মাটির ডাকের সম্পাদক লুৎফর রহমান কুমার, টিভি জার্নালিষ্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও বাংলা ভিশনের জেলা প্রতিনিধি হাসান আলী, সাধারণ সম্পাদক ও সময় টিভির জেলা প্রতিনিধি এস.এম রাশেদ, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও চ্যানেল টোয়েন্টি ফোর’র শরিফ বিশ্বাস, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সময়ের কাগজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নুরুন্নবি বাবু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক ও বাংলা টিভির জেলা প্রতিনিধি এম.লিটন-উজ-জামান, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি ও প্রেসক্লাবের প্রচার প্রকাশনা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক তৌহিদী হাসান, টিভি জার্নালিষ্ট অ্যাসোসিয়েশনের দপ্তর সম্পাদক ও দৈনিক দিনের খবর পত্রিকার প্রকাশক সম্পাদক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু, প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও দৈনিক মাটির পৃথিবীর সম্পাদক এম.এ জিহাদ, চ্যানেল নাইনের জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক আজকের আলোর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক দেবাশীষ দত্ত, দৈনিক কুষ্টিয়ার বার্তার সম্পাদক খাদেমুল ইসলাম, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সদস্য আক্রামুজ্জামান আরিফ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সর্বসম্মতিক্রমে কমিটির আহাবায়ক মনোনিত হয়েছে, ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের সাবেক আহবায়ক দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ভেড়ামারা প্রতিনিধি রেজাউল করিম কমিটির যুগ্ন আহবায়ক মনোনিত হয়েছেন, দৈনিক ভোরের কাগজ পত্রিকার সাংবাদিক ইসমাইল হোসেন বাবু, সাপ্তাহিক কুষ্টিয়ার মুখ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সাংবাদিক ডাঃ আমিরুল ইসলাম মান্নান, দৈনিক কুষ্টিয়ার কাগজ পত্রিকার প্রতিনিধি ওয়ালিউল ইসলাম ওলি, দৈনিক খোলা কাগজ পত্রিকার সাংবাদিক আবু ওবাইদা আল মাহাদী। এছাড়াও নির্বাহী সদস্য করা হয়েছে, দৈনিক নয়াদিগন্ত পত্রিকার সাংবাদিক মাসুদ করিম, দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার সাংবাদিক শাহ্ জামাল, দৈনিক আমার সংবাদের ফিরোজ মাহমুদ কে। এছাড়াও সদস্য রয়েছেন, ভেড়ামারার সিনিয়র সাংবাদিক দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকার সাংবাদিক আলহাজ্ব আনছারুল হক, দৈনিক বাংলাদেশ বার্তা পত্রিকার সাংবাদিক রাইসুল ইসলাম আসাদ, দৈনিক হাওয়া পত্রিকার সাংবাদিক এ্যাড. মনির উদ্দীন মনির, দৈনিক দিনের খবর পত্রিকার সাংবাদিক আজিজুল হাকিম, দৈনিক আজকের সূত্রপাত পত্রিকার সাংবাদিক অধ্যাপক ফারুক হোসেন, দৈনিক মাটির পৃথিবীর সাংবাদিক আসমান আলী,  দৈনিক মানবকন্ঠ পত্রিকার মাসুদ রানা, দৈনিক জনকন্ঠ পত্রিকার সাজেদুল ইসলাম তুহিন, দৈনিক আজকের আলো পত্রিকার ভেড়ামারা প্রতিনিধি সাংবাদিক নোমান জহির রাজা, দৈনিক দেশের বানী পত্রিকার সাংবাদিক জাহিদ হাসান, দৈনিক আল আমীন পত্রিকার সাংবাদিক আজিজুর রহমান, দৈনিক সরেজমিন পত্রিকার সাংবাদিক মিলন আলী, দৈনিক টিচার পত্রিকার সাংবাদিক মাহমুদ্দোল্লাহ সোহেল, কুষ্টিয়ার মুখ পত্রিকার সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম, কুষ্টিয়ার দিগন্ত পত্রিকার সাংবাদিক সাগর হোসেন পবন, সিনিয়র সাংবাদিক সাহাবুদ্দিন সাবু। আহবায়ক কমিটি গঠন শেষে ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের আহবায়ক রেজাউল করিম সকল সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে ঘোষনা দিয়েছেন, ভেড়ামারা উপজেলায় সাংবাদিকতার মত মহান পেশায় কর্মরত অথচ এই তালিকার বাহিরে রয়েছেন, তারা আবেদন করে আগামী ৭ দিনের মধ্যে সদস্য পদ গ্রহন করতে পারবেন। আহবায়ক কমিটি আগামী ৩ মাসের মধ্যে সুন্দর, স্বচ্ছ এবং সাংবাদিকদের নিয়ে একটি পরিপূর্ন কমিটি গঠন করবে। যে কমিটি মানবিক একটি ভেড়ামারা উপজেলার উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে।

ডিআইজি মিজান কারাগারে

ঢাকা অফিস ॥ অবৈধ সম্পদের মামলায় সাময়িক বরখাস্ত ডিআইজি মিজানুর রহমানের জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। হাই কোর্টের নির্দেশে গ্রেপ্তার ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালতে হাজির করা হলে বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ এ আদেশ দেন। মিজানের পক্ষে জামিন আবেদনের শুনানি করেন আইনজীবী এহসানুল হক সমাজী। রাষ্ট্রপক্ষে এর বিরোধিতা করেন মোশারফ হোসেন কাজল ও মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর। দুদকের দায়ের করা এ মামলায় আগাম জামিনের আবেদন নিয়ে সোমবার হাই কোর্টে গিয়েছিলেন আলোচিত এ পুলিশ কর্মকর্তা। কিন্তু বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামানের হাই কোর্ট বেঞ্চে জামিন নাকচ করে ডিআইজি মিজানকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেয়। তাকে পুলিশ হেফাজত রেখে গ্রেপ্তারের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মহানগর বিশেষ জজ আদালতে হাজির করার নির্দেশ দেওয়া হয় পুলিশের রমনা জোনের উপ-কমিশনারকে। সে অনুযায়ী মিজানকে রাতে শাহবাগ থানায় রেখে মঙ্গলবার সকালে তাকে পুরান ঢাকার আদালত পাড়ায় নেওয়া হয়। পরে হাজির করা হয় জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ ইমরুল কায়েশের আদালতে। এক নারীকে জোর করে বিয়ের পর নির্যাতন চালানোর অভিযোগ ওঠায় গত বছর জানুয়ারিতে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় ডিআইজি মিজানুর রহমানকে। তার অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধানে থাকা এক দুদক কর্মকর্তাকে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ দেওয়ার কথা নিজেই ফাঁস করে দিয়ে সম্প্রতি নতুন করে আলোচনায় আসেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। এরপর মিজান, তার স্ত্রী সোহেলিয়া আনার রতœা, ভাগ্নে মাহমুদুল হাসান এবং ছোট ভাই মাহবুবুর রহমানকে আসামি করে গত ২৪ জুন এই মামলা দয়ের করেন দুদকের পরিচালক মনজুর মোরশেদ। দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা -১ এ দায়ের করা এ মামলায় তিন কোটি সাত লাখ ৫ হাজার ২১ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন এবং তিন কোটি ২৮ লাখ ৬৮ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয় আসামিদের বিরুদ্ধে। মনজুর মোরশেদের আবেদনে ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালত ইতোমধ্যে ডিআইজি মিজানের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি এবং ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ দিয়েছে। মামলা হওয়ার পর রাষ্ট্রপতির অনুমোদন নিয়ে ডিআইজি মিজানকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞাও জারি করা হয়েছে।

কুষ্টিয়ার মুন্নী হত্যার বিচার ও দেশব্যাপী নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার সদরপুর ইউনিয়নের কাতলামারী গ্রামের হেকমত আলী ভাষার মেয়ে, ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী চাঁদনী আক্তার মুন্নী(১৪) হত্যার বিচারসহ  দেশব্যাপী নারী নির্যাতন, হত্যা ও ধর্ষনের প্রতিবাদে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা ও বাস্তবায়ন সংস্থা, কুষ্টিয়া জেলা শাখার আয়োজনে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে শহরের এনএস রোডস্থ মিশন স্কুলের সামনে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংগঠনের সভাপতি তোছিকুল ইসলাম বিপ্লবের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ড. মোফাজ্জেল হকের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মানবাধিকার কর্মী এ্যাড. আবদুর রশিদ, তাজনিহার বেগম তাজ, হাসান জামিল বাবু, কারশেদ আলম, জেসমিন হোসেন, সালমা সুলতানা ও কমিশনার রীনা নাসরিনসহ নিহত মুন্নীর স্বজনরা। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আইনের শাষন ও বিচার ব্যবস্থা বিলম্বিত হওয়াই দেশে অপরাধমূলক কর্মকান্ড বৃদ্ধি পাচ্ছে। এসব অপরাধীদের দ্রুত ট্রাইব্র“নাল আইনে বিচার নিস্পত্তি করতে হবে। বখাটেদের নির্মম নির্যাতনে আত্বহননের পথ বেছে নেয় ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী চাঁদনী আক্তার মুন্নী। তার হত্যার বিচার হয়নি। আসামীরা বীরদর্পে ওপেন ঘোরাফেরা করছে এবং মুন্নীর পরিবারকে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। নিরাপত্তা হীনতায় রয়েছে মুন্নীর পরিবার। বক্তারা মুন্নীর পরিবারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবীসহ সারদেশে সকল নারী নির্যাতন, হত্যা ও ধর্ষণের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এক্ষেত্রে বক্তারা কঠোর প্রশাসনিক পদক্ষেপ ও সামাজিক আন্দোলনের উপর গুরুত্বারোপ করেন। মানবাধিকার আইনজীবী পরিষদ ও স্থানীয় মানবাধিকার সংগঠনের বিপুল সংখ্যক মানুষ মানববন্ধনে অংশগ্রহন করেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ শঙ্কামুক্ত নন – জিএম কাদের

ঢাকা অফিস ॥ সিএমএইচে চিকিৎসাধীন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে বলে জানিয়েছেন তার ভাই দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের। এরশাদের সর্বশেষ অবস্থা জানাতে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “উনার কিডনি কিছু কিছু ফাংশান করছে। সম্পূর্ণভাবে স্বাভাবিক হয়নি। শ্বাসকষ্ট কালকে যেমন ছিল আজকে এমনই আছে। উন্নতি কিংবা অবনতি হয়নি। “ফুসফুসে যে পনি জমেছিল তা আগের মতোই আছে। পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি। এই পরিস্থিতিতে অবস্থার অবনতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে।” ৯০ বছর বয়সী এরশাদের রক্তে হিমোগ্লোবিন স্বল্পতা আগেই ছিল, গত ২২ জুন সিএমএইচে ভর্তি হওয়ার পর তার ফুসফুসে সংক্রমণের সঙ্গে দেখা দিয়েছে কিডনির জটিলতা। এরশাদকে ‘ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে’ রাখার কথা জাতীয় পার্টি এতদিন বলে এলেও সোমবার সকালে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ কে এম মোস্তফার ফেইসবুক পোস্ট থেকে জানা যায়, তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়েছে। মোস্তফা একটি ছবি দিয়ে ক্যাপশনে লিখেছেন, “পল্লীবন্ধু এরশাদ স্যারের পাশে কোরআন তেলোয়াত করছেন স্ত্রী বেগম রওশন এরশাদ। আল্লাহ স্যারকে সুস্থ করে দেও।” সোমবার বিকালে হাসপাতালে বিরোধীদলীয় নেতা এরশাদকে দেখে আসার পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সাংবাদিকদের বলেছিলেন, এরশাদ ‘লাইফ সাপোর্টে’ আছেন, তার অবস্থা ‘ক্রিটিক্যাল’। তবে জিএম কাদের বরাবরই বলে আসছেন, তার ভাইকে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে, ‘লাইফ সাপোর্ট’ নয়। মঙ্গলবার এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “লাইফ সাপোর্ট বলতে আমরা যা বুঝি যে- ভেন্টিলেশনের মাধ্যমে, সম্পূর্ণ কৃত্রিমভাবে নিশ্বাস-প্রশ্বাস চালু রাখা, ওই অবস্থায় তিনি (এরশাদ) যাননি। তার অবস্থা আগের মতোই স্থিতিশীল আছে।” জিএম কাদের বলেন, “উনি ডাকলে চোখ মেলছেন, তাকাচ্ছেন। ডাক্তারদের ভাষায় উনি তন্দ্রাচ্ছন্ন অবস্থার মধ্যে আছেন। কোনো সময় সজাগ হচ্ছেন, কোনো সময় আবার ঘুমিয়ে যাচ্ছেন। একেবারে সজ্ঞানে আছেন বলা যাবে না, তবে রেসপন্স করছেন। আমি দেখেছি।” এরশাদের পরিস্থিতি সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানতে হলে তার আনুষ্ঠানিক ব্রিফিংয়ের ওপর ভরসা করতে সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ করেন জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, “প্রয়োজন হলে আইএসপিআর ব্রিফ করবে। তবে এখন পর্যন্ত আমাদের সোর্সটাকেই জেনুইন সোর্স ধরে নেবেন। “যদি কোনো খারাপ খবর থাকে আমরা সঙ্গে সঙ্গে জানাব। বাকি সময়ে ধরে নিতে হবে যে উনি স্থিতিশীল অবস্থার মধ্যে আছেন।” জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁও উপস্থিত ছিলেন এ সংবাদ সম্মেলনে।

রিফাত হত্যার আসামি নয়ন ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

ঢাকা অফিস ॥ বরগুনা শহরে প্রকাশ্য রাস্তায় শাহনেওয়াজ রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যার প্রধান সন্দেহভাজন সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার ভোর সোয়া ৪টার দিকে সদর উপজেলার বুড়ির চর ইউনিয়নের পূর্ব বুড়ির চর গ্রামের পায়রা নদীর তীরে গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে বলে বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেনের ভাষ্য। তিনি বলছেন, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল রাতে নয়নকে ধরতে অভিযানে বের হয়। “ভোরের দিকে বুড়ির চর গ্রামে নদীর তীরে নয়নের সহযোগীরা পুলিশের দিকে গুলি করে। পুলিশ ও তখন আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। কিছু সময় গোলাগুলি চলার পর নয়নের সহযোগীরা পালিয়ে যায়। পরে সেখানে নয়নের গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়।” পুলিশ সুপার বলছেন, ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি গুলি এবং তিনটি দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহজাহান হোসেনসহ চার পুলিশ সদস্য এই অভিযানে আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। গত ২৫ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জেলা শহরের কলেজ রোডে রিফাত শরীফকে (২৩) স্ত্রীর সামনেই কুপিয়ে জখম করে একদল যুবক। বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রিফাতের মৃত্যু হয়। রিফাতের ওপর হামলার ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে দেশজুড়ে শুরু হয় আলোচনা। সেখানে দেখা যায়, দুই যুবক রামদা হাতে রিফাতকে একের পর এক আঘাত করে চলেছে। আর তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি স্বামীকে বাঁচানোর জন্য হামলাকারীদের ঠেকানোর চেষ্টা করছেন। বরগুনার সরকারি কলেজের ডিগ্রি প্রথম বর্ষের ছাত্রী মিন্নি হামলাকারী সবাইকে চিনতে না পারার কথা জানালেও নয়ন বন্ড, রিফাত ফরাজী ও রিশান ফরাজীর নাম বলেন। দুই মাস আগে রিফাতকে বিয়ে করা মিন্নি বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেন, বিয়ের আগে থেকেই তাকে উত্ত্যক্ত করত, হুমকি দিত নয়ন। বিভিন্ন সময় পথেঘাটে হেনস্তাও করেছে। রিফাত খুন হওয়ার পরদিন তার বাবা দুলাল শরীফ ১২ জনকে আসামি করে বরগুনা থানায় মামলা করেন। অভিযানে নেমে পুলিশ এ পর্যন্ত নয়জনকে গ্রেপ্তার করার কথা জানিয়েছে, যাদে মধ্যে এজাহরভুক্ত রয়েছেন চারজন। নয়ন কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হলেও তার দুই সহযোগী রিফাত ফরাজী ও রিশান ফরাজীর নাগাল পুলিশ এখনও পায়নি। বরগুনা সদর থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন জানান, পৌর শহরের বিকেবি রোডের ধানসিঁড়ি এলাকার আবু বক্কর সিদ্দিকীর ছেলে নয়নের বিরুদ্ধে মাদক কেনাবেচা, চুরি, ছিনতাই, হামলা, সন্ত্রাস সৃষ্টিসহ নানা অভিযোগে অন্তত আটটি মামলা রয়েছে। পরিবারের দেওয়া নাম সাব্বির আহম্মেদ হলেও নিজেকে জেমস বন্ড ভাবতে ভালোবাসেন বলে ২৫ বছর বয়সী নয়ন নিজের নাম নেন নয়ন বন্ড। ওই নামেই তিনি বরগুনা শহরে পরিচিত ছিলেন। জেমস বন্ডের কোড নম্বর ‘০০৭’ এর সঙ্গে মিল রেখে তিনি একটি ফেইসবুক গ্র“প খুলেছিলেন, যার মাধ্যমে তার সহযোগীদের মধ্যে যোগাযোগ হত। বলা হচ্ছে, ওই ফেইসবুক গ্র“পেই রিফাতকে হত্যার পরিকল্পনা সাজানো হয়। নয়নের গড়ে তোলা গ্যাং ০০৭ শহরের কলেজ রোড, ডিকেপি, দীঘির পাড়, কেজি স্কুল ও ধানসিঁড়ি এলাকায় নানা ধরনের অপরাধ চালিয়ে আসছিল বলে স্থানীয়দের ভাষ্য। তারা বলছেন, ওই গ্র“পে নয়নের প্রধান সহযোগী হলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেনের ভায়রার দুই ছেলে রিফাত ফরাজী ও রিশান ফরাজী।

বন্দুকযুদ্ধে নয়ন নিহতের খবর শুনে যা বললেন মিন্নি

ঢাকা অফিস ॥ বরগুনায় রাস্তায় প্রকাশ্যে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যার অন্যতম প্রধান আসামি সাব্বির হোসেন নয়ন ওরফে নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। এ খবরে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন করেছেন নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। গতকাল মঙ্গলবার ভোর সোয়া ৪টার দিকে জেলার পুরাকাটার পায়ারা নদীর পাড়ে এক বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় নিহত হন নয়ন বন্ড। সকালে তা বাবার কাছ থেকে প্রথমে জানতে পারেন মিন্নি। তাৎক্ষণিক আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি। গণমাধ্যমকে আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি বলেন, ঠিক এমন একটা খবরের অপেক্ষায় ছিলাম। হৃদয়ে শান্তি এসেছে। মহান আল্লাহর কাছে অশেষ শুকরিয়া যে, বিচারের জন্য আদালতে দৌড়াতে হলো না। এর পর মিন্নি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ। তিনি দ্রুত সময়ের মধ্যে আমাদের ডাকে সাড়া দিয়েছেন। ওরা ধরা পড়বে কি পড়বে না তা নিয়ে খুব আশংকায় ছিলাম। সুবিচার পাওয়া নিয়ে আতঙ্ক কাজ করছিল মনে। নয়নের নিহতের মধ্য দিয়ে সব শঙ্কা এবং আতঙ্ক দূর হয়েছে। রিফাতের আত্মা শান্তি পেয়েছে। মূল আসামি নয়ন নিহতের খবরে খুব খুশি হয়েছেন জানিয়ে মিন্নি প্রধানমন্ত্রীর কাছে আরও আবেদন জানান, নয়ন নিহতের ঘটনায় আমি অনেক খুশি হয়েছি। পাশাপাশি এ ঘটনায় জড়িত অন্যদের আমি শাস্তি চাই। তারাও যেন কঠোর শাস্তি পায় এই প্রার্থনা করি। মেয়ের মুখে স্বস্তির ছায়া দেখে গণমাধ্যমকে মিন্নির বাবা মোজাম্মেল বলেন, শুধু মিন্নিই নয়, আমরা পুরো পরিবার খুশি। বাজারে গিয়ে সবার মুখে সন্ত্রাসী নয়নের নিহতের খবর শুনেই দ্রুত বাসায় এসে মিন্নিকে জানাই। আমার বিধ্বস্ত মেয়েটির মুখে আত্মতৃপ্তির ঝলক দেখতে পাই। প্রশান্তির ছায়া নেমে আসে তার চোখে-মুখে। দিনদুপুরে জামাতাকে কুপিয়ে হত্যা করার সঙ্গে জড়িত বাকিদেরও যেন এমন শাস্তি হয় সেই কামনা করেন তিনি। এ হত্যাকান্ডের আরেক আসামি রিফাত ফরাজীরও যেন নয়ন বন্ডের মতোই অবস্থা হয় সেই কামনা করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী দ্রুত বিচার পাইয়ে দিয়েছেন। আমরা তার কাছে কৃতজ্ঞ। এখন বাকিদের শাস্তি হলেই রিফাতের আত্মা শান্তি পাবে। প্রসঙ্গত মঙ্গলবার ভোর সোয়া ৪টার দিকে বরগুনার পুরাকাটার পায়ারা নদীর পাড়ে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন রিফাত হত্যার অন্যতম প্রধান আসামি সাব্বির হোসেন নয়ন ওরফে নয়ন বন্ড। বরগুনার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মারুফ হোসেন এ খবর নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি, দুটি শটগানের গুলির খোসা এবং তিনটি দেশীয় ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এএসপি শাজাহানসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। নয়ন বন্ডের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এম. ইউ. ভূঁইয়া এন্ড অম্বিকা দাস চক্রবর্তী শিক্ষা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বৃত্তি প্রদান

এম. ইউ. ভূঁইয়া এন্ড অম্বিকা দাস চক্রবর্তী শিক্ষা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায়  কুষ্টিয়া  পৌরসভার মেয়র কার্যালয়ে  দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে এই বৃত্তি প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে এম. ইউ. ভূঁইয়া এন্ড অম্বিকা দাস চক্রবর্তী শিক্ষা ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলীর সভাপতিত্বে  বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া অধ্যাপক এম. ইউ ভূঁইয়া এবং অধ্যাপক অম্বিকা দাস চক্রবর্তী শিক্ষা ফাউন্ডেশনের  সদস্য  মাসুদুর রহমান তোতা।  সভাপতি বক্তব্যে মেয়ার আনোয়ার আলী বলেন, অধ্যাপক এম. ইউ ভূঁইয়া এবং অধ্যাপক অম্বিকা দাস চক্রবর্তী এই দুই গুণী স্যারকে সম্মান করার জন্যই এই নামে শিক্ষা ফাউন্ডেশন করা হয়েছে। যে জাতি গুণীজনকে সম্মান করেন না সে জাতির উন্নতি করতে পারে না। মেয়র আরো বলেন, অধ্যাপক এম. ইউ ভূঁইয়া এবং অধ্যাপক অম্বিকা দাস চক্রবর্তী সারা জীবন শিক্ষা ও সংস্কৃতির জন্য কাজ করে গিয়েছেন। মেয়র আরও বলেন, অধ্যাপক অম্বিকা দাস চক্রবর্তীর নামে ভারতে একটি কলেজ হয়েছে এবং তাকে ভারত সরকার জাতীয় শিক্ষক হিসেবে রাষ্ট্রীয় খেতাব দিয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে মেয়র বলেন, তাদের মত শিক্ষিত হতে হবে এবং মানুষের মত মানুষ হয়ে দেশ ও জাতির সেবা করবে এই প্রত্যাশা করি। তোমাদের মধ্যে থেকে একদিন অধ্যাপক এম. ইউ ভূঁইয়া এবং অধ্যাপক অম্বিকা দাস চক্রবর্তী মত মানুষ হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ চালকল মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুর রশিদ। বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন অধ্যাপক এম. ইউ ভূঁইয়া এবং অধ্যাপক অম্বিকা দাস চক্রবর্তী শিক্ষা ফাউন্ডেশন  সাধারণ সম্পাদক  ও জ্যোতি ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সৈয়দা হাবিবা। আলোচনা সভার শেষে ১৮ জন্য দরিদ্র মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে চেক প্রদান করেন মেয়র আনোয়ার আলী। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি