ভেড়ামারায় জাসদের ইফতার মাহফিলে এমপি ইনু

জাসদ সরকারে থেকেই দেশ ও জনগনের কথা বলবে

আল-মাহাদী ॥ তথ্যমন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, কুষ্টিয়া-২ (ভেড়ামারা-মিরপুর) আসনের সংসদ সদস্য, জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বাংলাদেশের মাটিতে নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে রাজনীতি করবে জাসদ। তিনি বলেন, জঙ্গী, সন্ত্রাসী, লুটেরাদের মতই দেশটাতে ভরে গেছে ভেজাল কারবারীতে। সব কিছুতেই ভেজাল। খাদ্যে ভেজালকারীরা দেশ ও জাতির শক্র। যারা খাদ্যে ভেজাল মেশায়, ফরমালিন দেয়, কৃষকদের ন্যায্য দাবী পূরন করে না, তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে জাসদ। তিনি বলেন, কৃষকদের দাবী দাওয়া নিয়ে ইতোমধ্যেই জাসদ রাজপথে নেমে এসেছে। জাসদ সরকারে থেকেই দেশ ও জনগনের কথা বলবে। হাসানুল হক ইনু গতকাল শুক্রবার ভেড়ামারা উপজেলা জাসদ আয়োজিত বর্ণাঢ্য ইফতার মাহফিল পূর্ব আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা গুলো বলেন। উপজেলা জাসদের সভাপতি এমদাদুল ইসলাম আতার সভাপতিত্বে উপজেলা অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত ইফতার পূর্ব আলোচনায় অংশ নেন, ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল মারুফ, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল আলীম স্বপন, কুষ্টিয়া জেলা সভাপতি গোলাম মহসীন, সাংগঠনিক সম্পাদক অসিত কুমার সিংহ রায়, ভেড়ামারা বিজেএম কলেজের অধ্যক্ষ আসলাম উদ্দীন, বাহাদুরপুর ইউনিয়ন পরিষদ’র চেয়ারম্যান আশিকুর রহমান ছবি, চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাফিজ তপন, হাজী কল্যান পরিষদের সাধারন সম্পাদক কৃষিবিদ আলহাজ্ব জৈমুদ্দীন আহম্মেদ, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সুজা উদ্দীন, উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক এসএম আনছার আলী, জাসদ নেতা বশির উদ্দীন বাচ্চু, হাজী নুর ইসলাম, হাসান সরোয়ার প্রমুখ।

আজ দৃশ্যমান হচ্ছে পদ্মা সেতুর দুই কিলোমিটার

ঢাকা  অফিস ॥ পদ্মা সেতুর ১৩তম স্প্যান ১৫ নম্বর খুঁটির সামনে এনে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এটি শনিবার বসছে। শুক্রবার সকাল ১০টা ২০ মিনিটে কুমারভোগের কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে রওনা হয় স্প্যানটি। সোয়া ১১টার দিকে ১৫ নম্বর খুঁটির কাছে আসে। পদ্মাসেতুর দায়িত্বশীল প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির জানান, অ্যাংকরিং করার পর দেখা গেছে, বাকী যে সময় রয়েছে এতে বসানোর পর পুরো কাজ শেষ করা সম্ভব নয়। তাই শনিবার সকালে এটি খুঁটির ওপর স্থাপন করা হবে। আবহাওয়াসহ নানা কারণে সকালে এটি জেডি থেকে রওনা হতে কিছুটা বিলম্ব হয়। সব ঠিকঠাক থাকলে শনিবার বসছে। এই স্প্যানটি স্থাপন হলে পদ্মা সেতু দৃশ্যমান হবে প্রায় দুই কিলোমিটার। ‘৩বি’ নামের স্প্যানটি মাওয়া প্রান্তে ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারে বসানোর হচ্ছে। ধূসর রংয়ের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে ও তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি ‘তিয়ান ই’ ক্রেন বহন করে নিয়ে আসে। এর আগে ২০ মে বসানোর কথা থাকলেও পদ্মায় নাব্যতা সংকট আর লিফটিং ক্রেনের স্বল্পতার কারণে সেটা সম্ভব হয়নি। স্প্যানবহনকারী ক্রেনের রুটে পদ্মায় নাব্যতা-সংকট রয়েছে।

 

বাংলাদেশ সাংবাদিক অধিকার ফোরাম’র দোয়া ও ইফতার মাহফিল

সমাজের অসঙ্গতি লেখনির মাধ্যমে তুলে ধরাই সাংবাদিকের কাজ – আজাদ জাহানসাংবাদিকতার পেশাকে কোনভাবেই অন্যভাবে ব্যবহার করা ঠিক নয়- আতা

নিজ সংবাদ ॥ বাংলাদেশ সাংবাদিক অধিকার ফোরাম’র কুষ্টিয়ার আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে গতকাল  শুক্রবার কুষ্টিয়া শহরের পুনাক ফুড পার্কে সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ, প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ, জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন পেশাজীবির মানুষ একত্রিত হয়েছিলেন। বাংলাদেশ সাংবাদিক অধিকার ফোরাম কুষ্টিয়া শাখার সভাপতি নুর আলম দুলালের সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিল পুর্ব আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক আজাদ জাহান বলেন, সমাজ ও রাষ্ট্রের অসঙ্গতি তুলে ধরাই সাংবাদিকদের কাজ। আপনাদের লেখনির মাধ্যমে প্রশাসন, সরকারী কর্মকর্তারা তাদের ভুল বুঝতে পেরে সঠিক পথে পরিচালিত হবে। সাধারণ মানুষ আপনাদের মাধ্যমে রাষ্ট্রের সেবা পাবে। সাংবাদিক অধিকার ফোরাম সাংবাদিকদের অধিকার নিয়ে কথা বলে, নির্যাতিত-নীপিড়িত সাংবাদিকদের পাশে থেকে কাজ করে। পাশাপাশি দেশ ও জাতির কল্যাণেও কাজ করবে এটা আশা রাখি। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তব্যে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা বলেন, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দরা যেমন রাষ্ট্র পরিচালনায় ভুল ক্রটি তুলে ধরে সরকারকে সহযোগীতা করে তেমনিভাবে সাংবাদিকরা সমাজ ও রাষ্ট্রের বিবেক। তারাও তাদের লেখনির মাধ্যমে রাষ্ট্র পরিচালায় সরকারের সমালোচনা করে সঠিক দিক নির্দেশনা প্রদান করে থাকে। এ মহত পেশাকে কোন ভাবেই অন্যভাবে ব্যবহার করা ঠিক নয়। তিনি বলেন, এই কুষ্টিয়ায় জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপির উদ্যোগে জননেত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতায় উন্নয়নের যে ধারা শুরু হয়েছে। আগামীতে আরও উন্নয়ন হবে সে আশাবাদ ব্যক্ত করছি। পাশাপাশি এ উন্নয়নের বার্তা দেশ ও জাতির সামনে তুলে ধরতে এ জেলার সকল সাংবাদিকদের আহবান জানাচ্ছি। তিনি সাংবাদিক অধিকার ফোরামের উত্তোরোত্তর সাফল্য কামনা করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি গাজী মাহবুব রহমান, সাধারণ সম্পাদক ও চ্যানেল আই’র কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আনিস্জ্জুামান ডাবলু, শহর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও কাউন্সিল মীর রেজাউল ইসলাম বাবু প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও চ্যানেল টুয়েন্টি ফোরের স্টাফ রিপোর্টার শরীফ বিশ্বাস, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি তৌহিদী হাসান শিপলু, বাংলাদেশ প্রতিদিন ও একুশে টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি জহুরুল ইসলাম, ডিবিসি ও সমকালের জেলা প্রতিনিধি সাজ্জাদ রানা প্রমুখ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক ফখরুল ইসলাম, প্রাক্তন পরিদর্শক ইমরান আলী, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক ও বাংলা টিভির জেলা প্রতিনিধি লিটন উজ জামান, দি ডেইলী সানের জেলা প্রতিনিধি রেজাউল করিম রেজা, নিউজ টুডের জেলা প্রতিনিধি মীর আল আরেফিন বাবু, বাংলাভিশনের জেলা প্রতিনিধি হাসান আলী, দৈনিক আজকের আলোর স্টাফ রিপোর্টার আরিফুল ইসলাম, সনি, এন এন বির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি রেজাউল করিম, পল্লী বিদ্যুত সমিতির সভাপতি সাইফুদৌলা তরুন, কুষ্টিয়া রিপোর্টাস ক্লাবের সভাপতি ও রবি বার্তার সম্পাদক ডাঃ গোলাম মওলা, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ইলিয়াস হোসেন, জহুরুল ইসলাম রাজ, এনএনবি’র কুষ্টিয়া প্রতিনিধি রেজাউল করিম, পাখি পর্যবেক্ষক ও কুষ্টিয়া বার্ড ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এস আই সোহেল, সাংবাদিক মিজানুর রহমান ভিজা, ৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ আফিল উদ্দিন, কুষ্টিয়ার কাগজ’র স্টাফ রিপোর্টার হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমুখ। সার্বিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সাংবাদিক অধিকার ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ও চ্যানেল টুয়েন্টি ফোরের জেলা প্রতিনিধি দেবাশীষ দত্ত। আলোচনা সভা শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন পশ্চিম মজমপুর বায়তুল জান্নাত জামে মসজিদের ঈমাম মাওলানা আশরাফ আলী।

রমজান মাসের রোজার তাৎপর্য ও গুরুত্ব

আ.ফ.ম নুরুল কাদের ॥ রোজা শব্দটি ফারসি ভাষা হতে উৎপত্তি লাভ করেছে। এ শব্দটির আরবি প্রতিশব্দ হচ্ছে ‘সওম’। সওমের আভিধানিক অর্থ হলো ‘বিরত থাকা’ বা ‘বর্জন করা’। শরিয়াহর পরিভাষায় ‘সুবহে সাদেক’ থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে পানাহার ও ইন্দ্রিয় তৃপ্তি থেকে বিরত থাকার নাম ‘সওম’ বা ‘রোজা’। রোজা ইসলামের তৃতীয় স্তম্ভ। নামাজের পরই এর স্থান। প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক ও দৈহিকভাবে সামর্থ্যবান মুসলিম নর-নারীর ওপর রোজা রাখা ফরজ। এ প্রসঙ্গে মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ রাব্বুল আল আমিন পবিত্র কুরআন শরিফে ঘোষণা করেছেন, ‘ওহে তোমরা যারা ঈমান এনেছ, তোমাদের ওপর সিয়াম বা রোজা ফরজ করা হলো যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের, যাতে তোমরা তাকওয়া অর্জন করতে পারো।’ -সূরা বাকারা : ১৮৩

 রোজা যুগে যুগে : ঐতিহাসিকভাবে রোজার প্রচলন বহুযুগ আগে। এটি একটি প্রাচীন অনুশাসন। ইহুদি খ্রিষ্টানসহ প্রায় সব ঐশী ধর্মের অনুসারীদের ওপরই রোজা পালনের আদেশ কার্যকর ছিল। আল্লামা আলোসির মতে, হজরত আদমের (আ:) যুগেও রোজার প্রচলন ছিল। বিখ্যাত তাফসিরকারক মাহমুদুল হাসান (রহ:) বলেছেন, ‘রোজার হুকুম হজরত আদম (আ:) থেকে আজ পর্যন্ত অব্যাহত আছে।’ আল্লামা ইবনে কাছির তার বিখ্যাত তাফসির গ্রন্থে লিখেছেন, ‘হজরত নূহের (আ:) যুগ থেকে প্রত্যেক মাসে তিনটি রোজা রাখার হুকুম ছিল এবং তা শেষ নবী হজরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পর্যন্ত বহাল ছিল। হজরত দাউদ (আ:) তার শিশুপুত্রের অসুস্থতার সময় সাত দিন রোজা রেখেছিলেন বলে প্রমাণ পাওয়া যায়। হজরত মূসা (আ:) চল্লিশ দিন রোজা রাখতেন এবং মহররমের দশ তারিখেও তিনি  রোজা রাখতেন। হজরত ঈসা (আ:) ও চল্লিশ দিন রোজা রাখতেন এবং তার অনুসারীদের রোজা রাখার নির্দেশ দিতেন। ইতিহাস থেকে জানা যায়, মানুষের আত্মশুদ্ধির জন্য আদিকাল থেকেই বিভিন্ন ধর্মে রোজা পালনের প্রচলন ছিল। তবে তার ধরন ও পরিপালন পদ্ধতি ছিল আলাদা। প্রাচীন চীনা সম্প্রদায়ের মধ্যে কয়েক সপ্তাহ একটানা রোজা রাখার নিয়ম প্রচলিত ছিল। পারসিক অগ্নিপূজক, খ্রিষ্টান পাদ্রী এবং হিন্দু যোগীরাও রোজা পালন করতেন। ইসলামে রোজার প্রবর্তন : ইসলাম  শেষ নবী হজরত মুহাম্মদ (সা:)-এর মাধ্যমে পূর্ণতা লাভ করে। রোজার বর্তমান বিধানও তখন থেকে শুরু হয়। ইসলামে রোজা ফরজ হওয়ার পূর্বে মহানবী (সা:) মহররমের দশ তারিখে রোজা রাখতেন। তখন তিনি ইহুদিদের রীতি অনুযায়ী রোজা পালন করতেন। নবী করিম (সা:) ইহুদিদের থেকে আলাদা হতে চাইলেন এবং এজন্য মহান আল্লাহর কাছে দোয়াও করলেন। মহানবীর (সা:) প্রার্থনা অনুযায়ী হিজরি দ্বিতীয় বর্ষে অর্থাৎ ৬২৩ খ্রিষ্টাব্দে রোজা ফরজ হওয়ার নির্দেশ জারি করা হয়। পবিত্র কুরআনের সূরা বাকারার ১৮৩ নম্বর আয়াতে বর্ণিত নির্দেশ ছিল এ রকম : ‘ওহে তোমরা যারা ঈমান এনেছো, তোমাদের ওপর সিয়াম বা  রোজা ফরজ করা হলো যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের ওপর, যাতে তোমরা তাকওয়া অর্জন করতে পারো।’ সূরা বাকারা : ১৮৩। আল্লামা হাফেজ ইবনুল ফাইয়িম (রহ:) বলেছেন, ‘ রোজার মতো গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত ইসলামের প্রাথমিক অবস্থায় ফরজ করা হয়নি। সাহাবারা তাওহিদ, নামাজের শিক্ষা পূর্ণাঙ্গভাবে গ্রহণ করার পরই রোজার বিধান তাদের ওপর প্রবর্তিত হয়। পবিত্র কুরআনে রোজার গুরুত্ব ও মাহাত্ম্য স¤পর্কে বলা হয়েছে : ১. রমজান মাস হলো সেই মাস যাতে নাজিল করা হয়েছে কুরআন, যা মানুষের হেদায়াত ও সত্য পথযাত্রীদের জন্য রয়েছে সুস্পষ্ট পথ নির্দেশ আর ন্যায় ও অন্যায়ের মাঝে পার্থক্য নির্ধারণকারী। কাজেই  তোমাদের মধ্যে যে লোক এ মাসটি পাবে সে এ মাসে রোজা রাখবে। -সূরা আল বাকারা : ১৮৫ । ২. তোমরা খাও এবং পান করো তখন পর্যন্ত যখন তোমাদের সামনে সুবহে সাদিকের আলো স্পষ্ট হয়ে ওঠে কাল রেখা থেকে। অতঃপর সুবহে সাদিক থেকে রাত আসা পর্যন্ত রোজা পূর্ণ করো। -সূরা আল-বাকারা : ১৮৭ ।৩. নবী করিম (সা:) বলেছেন,  যে ব্যক্তি ঈমান সহকারে ও সওয়াবের আশায় রমজানের রোজা রাখে এবং এমনিভাবে রাতে ইবাদত করে তার আগের সব গুনাহ মাফ করে দেয়া হবে। -বুখারি। ৪. রাসূল করিম (সা:) বলেছেন, যে ব্যক্তি আল্লাহর জন্য একদিন রোজা রাখবে আল্লাহ তাকে দোজখ থেকে সত্তর বছরের দূরে রাখবেন। -বুখারি। রোজার ফজিলত : রোজার ফজিলত অফুরন্ত। রোজা মানুষকে পূতপবিত্র করে এবং তার গুনাহ খাতাকে নির্মূল করে দেয়। আল্লাহ রাব্বুল আল আমিন বলেন, ‘রোজা আমার জন্য এবং আমি নিজেই এর প্রতিদান দেবো’। দুনিয়ার পুণ্যের কাজের জন্য বিভিন্ন পুরস্কার এবং প্রতিদানের কথা রয়েছে। কিন্তু রোজার যে নিয়ামত ও প্রতিদান তার কোনো সীমা পরিসীমা নেই। মহানবী (সা:) বলেছেন, সব কাজের পুণ্য দশগুণ হতে শত শত গুণ পর্যন্ত বৃদ্ধি হতে পারে, কিন্তু রোজা একমাত্র আল্লাহর জন্য বিধায় তার পুণ্য আল্লাহ নিজেই দিবেন। রমজান মাসে রোজার মাধ্যমে মুসলমানরা ধৈর্য্য এবং সংযমের গুণাবলি অর্জন করে। আর যারা ধৈর্যের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন তারা আল্লাহ পাকের সন্তুষ্টি অর্জনের মাধ্যমে জান্নাত লাভ করতে সমর্থ হন। তাই মহানবী (সা:) বলেছেন, রমজান মাস ধৈর্য্যরে মাস এবং ধৈর্যের বিনিময় হচ্ছে বেহেশত। রমজান মাস রোজাদারদের গুনাহ থেকে মুক্ত করে নিষ্পাপ করে  দেয়। এ প্রসঙ্গে মহানবী (সা:) অপর এক হাদিসে বলেছেন, ‘মাতৃগর্ভ হতে শিশু যেরূপ নিষ্পাপ হয়ে ভূমিষ্ঠ হয় রমজানের একটি রোজা পালন করলে বান্দাহ ঠিক সেরূপ নিষ্পাপ হয়ে যায়। মহানবী (সা:) অপর এক হাদিসে বলেছেন, ‘রোজা ঢালস্বরূপ’। ঢাল যে রকম শক্রর আক্রমণ হতে রক্ষা করে, তেমনি রোজা ঢাল স্বরূপ মানুষকে গুনাহ তথা জাহান্নামের আগুন থেকে বাঁচিয়ে রাখে। রোজার সামাজিক গুরুত্ব : ধর্মীয় কর্তব্যের বাইরে  রোজা পালনে রয়েছে সামাজিক, নৈতিক এবং  দৈহিক গুরুত্ব। রোজার সামাজিক আবেদন বা শিক্ষা নামাজের সামাজিক শিক্ষার  চেয়েও বেশি কার্যকর। মহানবী (সা:) বলেছেন, কুপ্রবৃত্তির বিরুদ্ধে যুদ্ধের একমাত্র হাতিয়ার হচ্ছে রোজা। একজন রোজাদার ব্যক্তি রোজা রাখার মাধ্যমে তার সব কুপ্রবৃত্তিকে শাসন করে। ঝগড়া, ফাসাদ, খুন-খারাবি, অশ্লীল কথাবার্তা সব কিছু  থেকে বিরত থাকে। এতে রোজাদার উন্নত নৈতিক চরিত্রে বলীয়ান হয়ে উঠতে পারে। রোজা মানুষের কুপ্রবৃত্তিগুলোকে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে শেষ করে দেয়। রোজার মাধ্যমে রোজার ক্ষুধা, উপবাস ও পানাহারের কষ্ট অনুভব করে। এতে সে গরিব, দুঃখী ও অভাবী মানুষের দুঃখ কষ্ট অনুধাবন করতে পারে। ফলে তার মধ্যে সৃষ্টি হয় সাম্য,  মৈত্রী ও সহানুভূতির অনুপম গুণাবলি। এতে গরিব দুঃখী নির্বিশেষে সামাজিক বন্ধন সুদৃঢ় হয়। সমাজ হয়ে ওঠে সুন্দর। রোজাদারের মধ্যে সহানুভূতির মনোভাব  তৈরি হওয়ায় তারা অভাবী ও গরিব মানুষকে বেশি বেশি করে দান-খয়রাত করে থাকে। ফলে তারা সমাজের অভাবী মানুষের দুঃখ লাভ করার সুযোগ পায়। রমজানের রোজার মাসে ফিতরা, জাকাত ইত্যাদি প্রদান করে ধনীরা। এতে সমাজে দারিদ্র্য দূরীকরণে এক বিরাট সুযোগের সৃষ্টি হয়। আধুনিক বিজ্ঞান গবেষণায় দেখা  গেছে, রোজা মানুষের দৈহিক দিক থেকেও উপকৃত করে। চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের মতে, ‘ রোজা মানুষকে কোষ্ঠকাঠিন্য, উচ্চ ও নিম্নরক্তচাপ, ডায়াবেটিস, গ্যাস্ট্রিক ইত্যাদি রোগ-শোক থেকে বাঁচায়। অতএব, দেখা যায় রমজানের রোজা মুসলমানদের জন্য একটা গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণের মাস। আত্মার উন্নতি, ইহলৌকিক কল্যাণ এবং পারলৌকিক মুক্তির জন্য রোজা মুসলিম জীবনে আসে রহমত, বরকত ও মাগফিরাতের বার্তা নিয়ে।

৩৯তম বিসিএসে কেউ নন-ক্যাডার নন

ঢাকা অফিস ॥ ৩৯তম বিসিএসে উত্তীর্ণ কেউ এখনও নন-ক্যাডারে নেই। তবে বেশ কয়েকজনকে শুধু উত্তীর্ণের তালিকায় রাখা হয়েছে। একটা বিসিএসে যতটা পদ ক্যাডারে থাকে ততটা পদে আমরা সুপারিশ করি। আর বাকিদের একটি তালিকা করা থাকে। যদি পরবর্তীতে চাহিদা আসে সেক্ষেত্রে নন-ক্যাডারে তাদের সুপারিশ করা হয়। আর ক্যাডারে তো প্রশ্নই আসে না। গতকাল শুক্রবার বিকালে পিএসসির শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, জেলখানায় ডাক্তার আছে, ফ্যামিলি প¬্যানিংয়ে মেডিকেল অফিসার ডাক্তার আছে, এগুলো নন ক্যাডারে মাঝে মাঝে খালি হয়। যদি চাহিদা আসে সেক্ষেত্রে ওই পদগুলোতে আমরা তাদের জন্য একটা সুযোগ রাখছি। আর বিসিএস তো পাস করার পরীক্ষা না। এটা তো প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা। পৌনে পাঁচ হাজার লোক সুপারিশ পেয়েছে। এই পৌনে পাঁচ হাজারের মধ্যে যারা আছে তাদের সুপারিশ তো আমরা পাঠিয়ে দিয়েছি। আর এদের তো আমরা রাখছি যদি নন-ক্যাডারে কোনো চাহিদা আসে সেক্ষেত্রে এই তালিকা যারা আছে তাদের নন-ক্যাডারের জন্য সুপারিশ করা হবে। আর যারা নন-ক্যাডারে সুপারিশ পাইনি তারা তো নন-ক্যাডার না। আর এই পরিস্থিতিতে তাদের নন-ক্যাডার আন্দোলন করাটা একদম অযৌক্তিক। এই আন্দোলনে পিএসসির কিছু করার নেই। তিনি বলেন, দেশে হাজার হাজার নন-ক্যাডার আছে। যার ম্যাজিস্ট্রেট-ফরেইন ক্যাডার হওয়ার কথা ছিল সে হয় প্রাইমারি স্কুলের হেডমাস্টার। এটাতো আন্দোলনের বিষয় না। উদাহরণস্বরূপ তিনি বলেন, এমন যদি হতো যে আমি পৌনে পাঁচ হাজার পোস্টের ঘোষণা দিয়ে দুই হাজার পোস্টের সুপারিশ করেছি, আর তিন হাজার পোস্টের সুপারিশ করিনি, সেক্ষেত্রে আন্দোলন করলে একটা বিষয় ছিল। কিন্তু এখানে তো সেই পরিস্থিতি না। প্রতিটি বিসিএসে হাজার হাজার পরীক্ষার্থী পাস করে। পাস করলেই কি চাকরি হয়? এটা তো বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা না। এটা প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা।

শুল্ক বাড়লেও দাম কমেছে চালের

ঢাকা অফিস ॥ ধানের দরপতন নিয়ন্ত্রণে আনতে চাল আমদানিতে শুল্ক বাড়ানোর পরও রাজধানীর বাজারগুলোতে চালের দাম কমেছে; এছাড়া নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার কমবেশি স্থিতিশীল রয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, এক সপ্তাহে সব ধরনের চালের দাম কেজিতে অন্তত ৩ টাকা করে কমেছে। রাষ্ট্রায়ত্ত বিপণন সংস্থা টিসিবির হিসাবেও একই চিত্র দেখা গেছে। টিসিবির হিসাবে গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে সব ধরনের চালের দাম কেজিতে ৩ টাকা থেকে ৪ টাকা করে কমেছে। সরু চাল বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ৪৮ টাকা থেকে ৫৬ টাকার মধ্যে যা এক সপ্তাহ আগেও ৫২ টাকা থেকে ৬৪ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। এক বছর আগের তুলনায় সরু চালের দাম কমেছে ১৬ শতাংশ। একইভাবে স্বর্ণা চাল কেজিতে দুই টাকা কমে ৩৫ টাকা থেকে ৪০ টাকায়, পাইজাম কেজিতে অন্তত চার টাকা কমে ৪৮ টাকা থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, মিনিকেট বিক্রি হচ্ছে ৫২ টাকা থেকে ৫৬ টাকা, কেজিতে কমেছে অন্তত চার টাকা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, এই মওসুমে ধানের বাম্পার ফলন, নতুন মওসুমে ধানের দাম কমে যাওয়াসহ বিভিন্ন কারণে এবার চালের বাজারও অনেক কমে গেছে। বিশেষ করে নতুন চালের দাম অনেক কম। কুষ্টিয়া অঞ্চলের মিনিকেটের ৫০ কেজির বস্তা এখন দুই হাজার ১০০ টাকা। নওগাঁ অঞ্চলের মিনিকেটের দাম আরও একশ টাকা কম। একমাস আগেও এই চাল দুই হাজার ৩৫০ টাকা করে বিক্রি হতো। একইভাবে বিআর আটশ চালে বস্তা একহাজার ৮০০ টাকা থেকে কমে গিয়ে একহাজার ৬৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। পাইজাম ও গুটি স্বর্ণা বিক্রি হচ্ছে একহাজার ৩০০ টাকা থেকে এক হাজার ৪০০ টাকার মধ্যে। চলতি মওসুমে গত ২৫ এপ্রিল থেকে সরকার ৩৬ টাকা কেজি দরে চাল এবং ২৬ টাকা কেজি দরে ধান সংগ্রহের ঘোষণা দিয়েছে। অগাস্ট পর্যন্ত মোট ১০ লাখ টন-ধান চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে খাদ্য মন্ত্রণালয়। সরকার এক হাজার ৪০ টাকা ধানের দর নির্ধারণ করলেও কৃষকরা ধানের দামে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়ায় সরকার চাল আমদানিতে মোট করভার দ্বিগুণ করে ৫৫ শতাংশে উন্নীত করেছে।

আ’লীগ সম্পাদকমন্ডলীর সভা শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে কাদের 

মোদির নতুন মেয়াদে অমীমাংসিত সমস্যাগুলোর সমাধান হবে

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আশা প্রকাশ করে বলেছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নতুন মেয়াদে দুই দেশের মধ্যে অমীমাংসিত সমস্যাগুলোর সমাধান হবে। গতকাল শুক্রবার ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সম্পাদকমন্ডলীর সভা শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদির গত মেয়াদে আমরা অনেক সমস্যার সমাধান করতে সক্ষম হয়েছি। আগামীতে অমীমাংসিত তিস্তাচুক্তিসহ অনেক সমস্যার সমাধান হবে।’ তিনি বলেন, মোদি দীর্ঘমেয়াদি সীমান্ত বিরোধ সমস্যা সমাধান করেছেন। ছিটমহল সমস্যার সমাধান তার সরকার বিগত সময়ে করেছে। মোদি দুই দেশের মধ্যকার বিদ্যমান সমস্যার সমাধান করতে আগ্রহী। খালেদা জিয়ার চিকিৎসা-সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, সরকার তার (খালেদা জিয়া) চিকিৎসার যথেষ্ট মানবিক। সাংগঠনিক কার্যক্রম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রায় আড়াই মাস পরে আমি সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করলাম। বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে আমরা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। ঈদের পরে সাংগঠনিক সম্পাদকদের নেতৃত্বে ৮টি টিম মাঠে নামবে। তারা তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠনকে সম্মেলনের মাধ্যমে শক্তিশালী করে গড়ে তুলবে। এ সময় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, এনামুল হক শামীম, আহমেদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, আইন বিষয়ক সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম, আবদুস সাত্তার, সুজিত রায় নন্দী, শামছুননাহার চাপা, ফরিদুন্নাহার লাইলী, দেলোয়ার হোসেন, ব্যারিস্টার বিপ¬ব বড়–য়া, মারুফা আকতার পপি, প্রকৌশলী আবদুস সবুর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অভিনয়ের ফিরলেন কারিশমা

বিনোদন বাজার ॥ দীর্ঘদিন ধরেই রূপালী পর্দার আড়ালে রয়েছেন কারিশমা কাপুর। সবশেষ ২০১২ সালে ‘ডেঞ্জারাস ইশক’ ছবিতে দেখা গেছে বলিউডের এই অভিনেত্রীকে। দীর্ঘ বিরতির আবার অভিনয়ের ফিরলেন কারিশমা। মেন্টালহুড’ শিরোনামের একটি ওয়েব সিরিজের মধ্য দিয়ে আবার অভিনয় জগতে প্রত্যাবর্তন করেছেন ৪৪ বছর বয়সী এই তারকা। এর মধ্য দিয়েই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে অভিষেক হলো কারিশমার। এ প্রসঙ্গে কারিশমা বলেন, আমি এখন আমার সন্তান ও পরিবারের সঙ্গেই সময় কাটাতে চাই। কিন্তু ওয়েব সিরিজটির চিত্রনাট্য পড়ার পর দারুণ লেগেছে। কেননা চিত্রনাট্যটি সাজানো হয়েছে আজকের দিনের শক্তিশালী মায়েদের গল্প নিয়ে। গত ২২ মে প্রকাশ পেয়েছে ‘মেন্টালহুড’ ওয়েব সিরিজটির প্রথম পোস্টার। যেখানে দেখা যাচ্ছে সন্তানদের যন্ত্রণায় কানে হাত দিয়ে বিছানায় বসে রয়েছেন কারিশমা কাপুর। তার পেছনেই খেলাধুলা করছে বাচ্চারা। কারিশমা কোহলি পরিচালিত ‘মেন্টালহুড’-এ মায়রা শর্মা চরিত্রে দেখা যাবে কারিশমা কাপুরকে।

নজরুল জয়ন্তীতে ‘রাক্ষুসী’

বিনোদন বাজার ॥ ২৫ মে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করবে মাছরাঙা টেলিভিশন। নজরুলের গল্প অবলম্বনে টেলিফিল্ম ‘রাক্ষুসী’ প্রচারিত হবে রাত ৮টা ৩০ মিনিটে। রুশো রকিবের পরিচালনায় এতে অভিনয় করেছেন শর্মীমালা, শাহাদাত, নাজিরা মৌ প্রমুখ। এ ছাড়াও মাছরাঙায় সকাল ৯টায় প্রচারিত হবে নজরুলের গল্প অবলম্বনে মুস্তাফা মনোয়ারের পাপেট শো ‘লিচু চোর’। দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে থাকছে নজরুলের গান ও কবিতার অনুষ্ঠান ‘গানে ও কবিতায় নজরুল’। কবি আসাদ চৌধুরী, খিলখিল কাজী ও খায়রুল আনাম শাকিলের অংশগ্রহণে আলোচনা অনুষ্ঠান ‘জাতীয় কবি নজরুল’ রয়েছে বিকেল ৩টা ৩০ মিনিটে।

মিরপুরে নিরাপদ পান উৎপাদনে মাঠ দিবসে চন্ডীদাস কুন্ডু

পান হলো তামাক, পাট এর চেয়ে অধিক লাভবান

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে নিরাপদ উপায়ে পান চাষের উপর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার (২৪ মে) সকালে উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে উপজেলার বারুইপাড়া ইউনিয়নের ফকিরাবাদ গ্রামে “নিরাপদ পান উৎপাদন প্রযুক্তি সম্প্রসারণ কর্মসূচী” এর আওতায় এ মাঠ দিবস অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। মাঠদিবস অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের হর্টিকালচার উইং এর পরিচালক কৃষিবিদ চন্ডীদাস কুন্ডু বলেন, পান একটি অর্থকারী ফসল। পানের অর্থনৈতিক গুরুত্ব অনান্য ফসলের তুলনায় কোনো অংশে কম নয়। দেশে বিদেশে রয়েছে এর ব্যাপক চাহিদা। এছাড়াও এতে অনেক ঔষধি গুণ বিদ্যমান। তিনি পানের অর্থনৈতিক দিক তুলে ধরে বলেন, এক বিঘা জমিতে পান চাষ করে দুই থেকে আড়াই লাখ টাকা লাভ করা যায়। এটা তামাক, পাট এর চেয়ে অধিক লাভবান। তাই আপনারা অর্থনৈতিক ফসল হিসাবে তামাকের পরিবর্তে পান চাষ করুন। আর বিষমুক্ত পান বিদেশে রপ্তানী করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব। মিরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ রমেশ চন্দ্র ঘোষের সভাপতিত্বে মাঠ দিবস অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক সুশান্ত কুমার প্রামানিক, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বিষ্ণুপদ সাহা, মিরপুর উপজেলা সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা অশোক কুমার। মাঠ দিবসে উপসকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ, স্থানীয় পান চাষীসহ প্রায় দেড় শতাধিক কৃষক-কৃষানী উপস্থিত ছিলেন।

পর্তুগাল দলে রোনালদোর নতুন সঙ্গী ফেলিস

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ আগামী জুনে হতে যাওয়া উয়েফা নেশন্স লিগের মূল পর্বে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো খেলবেন বলে আগেই জানিয়েছিলেন পর্তুগাল কোচ ফের্নান্দো সান্তোস। তারকা ফরোয়ার্ডসহ বেনফিকার হয়ে চমক জাগানো তরুণ জোয়াও ফেলিসকে নিয়ে দল ঘোষণা করেছে দেশটি। প্রতিযোগিতাটির অভিষেক আসরের ফাইনালসে ইউরো চ্যাম্পিয়নদের নেতৃত্ব দিবেন দেশটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ ১৫৬ ম্যাচ খেলে সর্বাধিক ৮৫ গোল করা রোনালদো। গত বছর রাশিয়া বিশ্বকাপের পর নেশন্স লিগের বাছাই পর্বসহ জাতীয় দলের ছয়টি ম্যাচে খেলেননি ৩৪ বছর বয়সী রোনালদো। চলতি বছরের মার্চে ইউরো ২০২০ এর বাছাইপর্বের ম্যাচ দিয়ে আবারও জাতীয় দলে ফেরেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার। ৫ জুন নেশন্স লিগের সেমি-ফাইনালে সুইজারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে পর্তুগাল। এ ম্যাচের জয়ী দল চার দিন পর শিরোপা লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড বা নেদারল্যান্ডসের। বেনফিকার হয়ে অভিষেক মৌসুমেই নজরকাড়া পারফরম্যান্সে কোচ সান্তোসের আস্থা অর্জন করেছেন ১৯ বছর বয়সী ফেলিস। পর্তুগালের অনূর্ধ্ব-১৮, অনূর্ধ্ব-১৯ ও অনূর্ধ্ব-২১ দলের হয়ে খেলা এই উইঙ্গার পর্তুগালের সেরা লিগে দলকে শিরোপা জেতানোর পথে করেছেন ১৫ গোল। পাশাপাশি সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন সাতটি।

 

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলার ইচ্ছা আলভেসের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ক্যারিয়ারে এ পর্যন্ত ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের তিনটিতে খেলেছেন দানি আলভেস। সম্ভব হলে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগেও খেলতে চান পিএসজির অভিজ্ঞ এই ডিফেন্ডার। ৩৬ বছর বয়সী আলভেসের ভান্ডারে এ পর্যন্ত লা লিগা, সেরি আ ও লিগ ওয়ানে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে। চলতি মৌসুমে পিএসজির হয়ে লিগ ওয়ান ও ফরাসি সুপার কাপ শিরোপা জয়ের পর ব্রাজিলের এই ফুটবলারের ক্যারিয়ারে মোট জেতা ট্রফির সংখ্যা এখন ৪০টি। সম্প্রতি ইএসপিএন এফসির সঙ্গে সাক্ষাৎকারে ইংল্যান্ডে খেলার ইচ্ছা প্রকাশ করেন আলভেস। অবশ্য পিএসজিতে তার আরও এক মৌসুম থাকার বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে বলে জানান ব্রাজিলিয়ান এই রাইট-ব্যাক। “(ইংল্যান্ডে খেলার বিষয়ে) আমি বলেছিলাম, আমি হয়তো পছন্দ করতাম। এটা একটা স্বপ্ন নয় কারণ প্রচেষ্টার মাধ্যমে আমি আমার স্বপ্নকে সত্যি করে তুলি।” “এটা খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটা লিগ। পেশাদার খেলোয়াড়দের যে সম্মান দেওয়া হয় তা আমি পছন্দ করি। যদি একজন খেলোয়াড় নিজের সর্বোচ্চটা দেয়, সে সম্মান পায়।” “ইউরোপের অন্য লিগগুলোতে, আপনি যদি ম্যাচ না জিতেন তাহলে আপনি কোনো সম্মান পাবেন না। আমার সে সমস্যা নেই আমি একজন বিজয়ী।”

মাশরাফি দলে চান কোহলিকে, দু প্লেসিকে কোহলি

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বিশ্বকাপ শুরুর আগে বৃহস্পতিবার ১০ অধিনায়ককে নিয়ে বিশেষ আয়োজন ছিল আইসিসির। অধিনায়কদের মঞ্চের পথে এগিয়ে নিয়েছেন স্থানীয় কিছু একাডেমির শিশু ক্রিকেটাররা। সংবাদমাধ্যমের পাশাপাশি তাদের প্রশ্ন করার সুযোগও ছিল। তাদের মধ্যেই শিশুর লিখিত প্রশ্ন সোরগোল তুলল তুমুল। হাসির হুল্লোড় উঠল, করতালি আদায় করল প্রচুর। প্রতিপক্ষের কোন ক্রিকেটারকে নিজ দলে চান? উত্তরের শুরু স্বাগতিক অধিনায়ক ওয়েন মর্গ্যানকে দিয়ে। গত বিশ্বকাপের পর থেকে ওয়ানডেতে অবিশ্বাস্য ক্রিকেট খেলতে থাকা দলের অধিনায়ক নিজ দলে আর কাউকে প্রয়োজন মনে করছেন না। তবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার একজন কোচকে তার পছন্দ। “আমার মনে হয় না আমাদের দলে আর কাউকে প্রয়োজন আছে। যথেষ্ট শক্তিশালী স্কোয়াড, খুব ভালো খেলছি আমরা। রিকি পন্টিংয়ের কোচিং আমার ভালো লাগে, সম্ভব হলে তাকে চাইতাম।” দুই বারের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক পন্টিং এবার বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার সহকারী কোচ। দলের মূল কোচ পন্টিংয়েরই সাবেক সতীর্থ জাস্টিন ল্যাঙ্গার।  বিরাট কোহলিও নিজ দল নিয়ে তৃপ্ত। তবু তার কণ্ঠে উঠে এলো একজনের কথা। “আমার মনে হয়, আমাদের স্কোয়াড বেশ শক্তিশালী। বাইরে থেকে কাউকে নিতে হলে এবি ডি ভিলিয়ার্সকে নিতাম। সে যেহেতু অবসর নিয়েছে, আমি তাহলে ফাফকে (দু প্লেসি) চাইব।” পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ সরাসরিই বলে দিলেন জস বাটলারের নাম। সম্প্রতি দুই দলের সিরিজে বিস্ফোরক এক সেঞ্চুরি করেছেন ইংল্যান্ডের বাটলার, পাকিস্তানের বিপক্ষে তার রেকর্ড দুর্দান্ত। বাটলারের মর্ম সরফরাজ ভালোই জানেন! ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডারকে দিয়ে কোনোভাবেই কোনো নাম বলানো গেল না। নিজ দল নিয়ে তিনি খুশি। গুলবদিন নাইবও কারও নাম বললেন না। তাদের বিপক্ষে যে দিনে যার ভালো করার সম্ভাবনা বেশি, আফগানিস্তান অধিনায়ক নিজ দলে চান তাকেই। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা খুব ভাবলেন না। ভারত অধিনায়ক কোহলির দিকে ইশারা করে বললেন, “দ্যাট ম্যান বিরাটকে চাই।” এবারের বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা পেস আক্রমণ অস্ট্রেলিয়ার। অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ তবু সম্ভব হলে দলে নিতেন দক্ষিণ আফ্রিকার এক ফাস্ট বোলারকে, “কাগিসো রাবাদা দুর্দান্ত। অসাধারণ এক বোলার সে, সত্যিকারের সুপারস্টার।” রাবাদার অধিনায়ক ফাফ দু পে¬সি আবার একজনকে বেছে নিতে হিমশিম খেলেন। তিনি কয়েকজনকে চান, সবাই বোলার। “জাসপ্রিত বুমরাহকে চাইব অবশ্যই, এই মুহূর্তে তার চেয়ে ভালো কজন আছে! সব ফরম্যাটে সে অসাধারণ করছে। রশিদ খানের মতো একজনকে যে কেউ দলে চাইবে। অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্স আছে, পার্থক্য গড়ে দেওয়ার মতো পেসার। এমন ক্রিকেটারদেরই দলে চাই।” আফগান লেগ স্পিনারকে দলে চান কেন উইলিয়ামসনও। আইপিএলে দুজন একসঙ্গে খেলেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদে, নিউ জিল্যান্ড অধিনায়ক এবার ছিলেন হায়দরাবাদের অধিনায়কও। রশিদের জাদুকরী বোলিং তো কাছ থেকেই দেখছেন! দিমুথ করুনারনতেœর চাওয়া, বেন স্টোকসকে নিজ দলে পাওয়া। শ্রীলঙ্কান অধিনায়কের মতে এই ইংলিশ অলরাউন্ডার ‘গেম চেঞ্জার’। পুরো আয়োজনের সবচেয়ে আকর্ষণীয় পর্ব ছিল এটিই। জানা হলো অধিনায়কদের ‘ফ্যান্টাসি’। পরে সবার কণ্ঠে উঠে এলো বাস্তবতাও। যার যা শক্তি, শোনা গেল সেটি নিয়েই স্বপ্ন পূরণের প্রত্যয়।

ঈদের আনন্দমেলায় মমতাজ

বিনোদন বাজার ॥ বিটিভির ঈদ ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান আনন্দমেলায় অংশ নিয়েছেন ফোক সম্রাজ্ঞী খ্যাত সঙ্গীতশিল্পী মমতাজ। প্রথমবার এ অনুষ্ঠানে দুই মেয়েকে সঙ্গে নিয়েছেন তিনি।সম্প্রতি বিটিভি স্টুডিওতে মমতাজ ‘দোয়েল পাখি কন্যারে’ গানটি পরিবেশন করেন। গান গাওয়ার সময় মেয়েরাও মায়ের সঙ্গে কণ্ঠ মেলান। ‘দোয়েল পাখি কন্যারে’ গানটি লিখেছেন রাকিব হাসান রাহুল এবং সুর ও সঙ্গীত করেছেন সঙ্গীতশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক প্রীতম হাসান।এ প্রসঙ্গে মমতাজ বলেন, ‘বাংলাদেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ঈদ আনন্দমেলায় প্রথমবার আমার দুই মেয়ে রোজ ও রুহানিকে নিয়ে উপস্থিত হয়েছি। আমার গাওয়া গানটি শুনতে এবং উপভোগ করতে অপেক্ষা করতে হবে আগামী ঈদ পর্যন্ত।বিটিভি কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ এমন একটি সুন্দর আয়োজন করার জন্য। আশা করি, দর্শক এ সুন্দর আয়োজন প্রাণভরে উপভোগ করবেন।’ঈদ ‘আনন্দমেলা’ গবেষণা, গ্রন্থনা ও পরিকল্পনা করেছেন এসএম হারুন অর রশীদ। প্রযোজনা করেছেন মো. মাহফুজার রহমান। অনুষ্ঠানটি ঈদুল ফিতরের দিন রাত ১০টার ইংরেজি সংবাদের পর বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচার হবে।

এবার সুরকাররূপে আসছেন মোশাররফ করিম

বিনোদন বাজার ॥ এ সময়ের ব্যস্ত অভিনেতা মোশাররফ করিম। নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনা ও রচনায় অনেক আগেই নাম লিখিয়েছেন। কয়েকটি নাটকে গানও গেয়েছেন তিনি। এবার নতুন পরিচয়ে দর্শকদের সামনে হাজির হতে যাচ্ছেন এ অভিনেতা।সম্প্রতি একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন মোশাররফ করিম। গানটির সুরও করেছেন তিনি। ‘ডালে বইসা কুক দিও না’ শিরোনামে এ গানের প্রথম দু’লাইন মোশাররফ করিমের লেখা এবং পরের কথাগুলো লিখেছেন নাট্যনির্মাতা আজাদ কালাম।নতুন গানে কণ্ঠ দেয়ার পাশাপাশি সুর করা প্রসঙ্গে মোশাররফ করিম বলেন, ‘আমি পেশাদার কণ্ঠশিল্পী নই। কখনো পেশাদার হবও না। তবে নাটকে গান গাওয়ার ইচ্ছা আছে, তাই মাঝে মধ্যে গাই। এবার গাইলাম এবং এ গানে সুরও করলাম। খুব ভালো লাগছে নিজের কাছে। সুর করা কঠিন বিষয়, চেষ্টা করেছি ভালো করার। কতটা ভালো করেছি দর্শকই তার বিচার করবেন। আশা করছি, দর্শকদেরও ভালো লাগবে।’গানটি ঈদের জন্য নির্মিত আজাদ কালামের পরিচালনায় ‘যমজ ১১’ নামে একটি নাটকে ব্যবহার করা হবে। এ গানে মোশাররফ করিম তিন চরিত্রে মডেল হিসেবে থাকবেন।নাটকটি আরটিভির ঈদের অনুষ্ঠানমালায় প্রচার করা হবে বলে নির্মাতা জানান। এদিকে মোশাররফ করিম বর্তমানে ঈদের জন্য নির্মিত একাধিক খন্ড ও ধারাবাহিক নাটকের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। এছাড়াও প্রচার চলতি ধারাবাহিক নাটকের শুটিং ব্যস্ততাও রয়েছে এ অভিনেতার।

ঐশ্বরিয়াকন্যার নাচের ভিডিও ভাইরাল

বিনোদন বাজার ॥ মা বিশ্বসুন্দরী। শুধু সুন্দরী নয়, বলিউডের সেরা অভিনেত্রী।যার প্রতিটি ছবি হিট হয়েছে। গ¬ামার নাচ সবকিছুতে অসাধারণ নৈপূণ্য দেখিয়েছেন এক দশকেরও বেশি সময়।সেই মায়ের সন্তান বলে কথা। বলছি ঐশ্বরিয়া রাইয়ের মেয়ে আরাধ্যার কথা।বয়স মাত্র সাত। আর এই বয়সেই নাচে যে বেশ পটু হয়ে উঠেছে তা বেশ ভালো করেই বুঝিয়ে দিলো ঐশ্বরিয়া-অভিষেক বচ্চনের মেয়ে।সম্প্রতি জনপ্রিয় কোরিওগ্রাফার শমীক দাভারের সামার ফ্রাঙ্ক শোতে অংশ নেয় সে।আরাধ্যার নাচের সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।আরাধ্যাকে ‘গলি বয়’-সিনেমার গানের সঙ্গে নাচতে দেখা যায়।তার নাচের প্রশংসায় পঞ্চমুখ অনেকেই। তবে সমালোচনকরাও বসে নেই। টুইটারে ডান্স পারফরম্যান্সের ভিডিও দেখে ঐশ্বরিয়া কন্যাকে আক্রমণ করেছেন অনেকেই।কউ লিখেন, ‘আরাধ্যার হাত-পা যেন বড় বেশি রোগা।’, কেউ লিখেছেন, ‘আমি শুধু মাত্র আরাধ্যর পায়ের দিকে দেখছি, এটা যেন অসম্ভব রোগা।’আবার কেউ লিখেছেন,‘আমি আরাধ্যার ডান্স পারফরম্যান্স দেখলাম, সেটা যথেষ্ট ভালো, তবে ওর পায়ে মনে হয় কিছু সমস্যা রয়েছে।’ কেউ আবার আরাধ্যকে ‘পোলিও আক্রান্ত’ বলতেও ছাড়েননি। আরাধ্যা বচ্চনের নাচের এই অনুষ্ঠান দেখতে হাজির ছিলেন বচ্চন পরিবারের সদস্যরাও।তারা সবাই আরাধ্যার নাচে খুশি।দর্শকসারিতেও ছিল আরাধ্যার নাচের প্রশংসা।

ঢাকায় একসঙ্গে হলিউডের ৩ সিনেমা

বিনোদন বাজার ॥ স্টার সিনেপ্লেক্সে গতকাল শুক্রবার থেকে একসঙ্গে হলিউডের তিনটি ছবি প্রদর্শিত হচ্ছে। ছবিগুলো হলো ‘জন উইক : চ্যাপ্টার ৩’, ‘ব্রাইটবার্ন’ এবং ‘আলাদিন’। জন উইক সিরিজের তৃতীয় কিস্তি ‘জন উইক : চ্যাপ্টার ৩’ পরিচালনা করেছেন ক্যাড স্টেহলস্কি। ভৌতিক ছবি ‘ব্রাইটবার্ন’-এর পরিচালক জেমস গুন। আর আলাদিন সিরিজের নতুন সংস্করণটি পরিচালনা করেছেন শালর্ক হোমসখ্যাত ব্রিটিশ পরিচালক গাই রিচি। ছবিটির সবচেয়ে বড় চমক, এতে আলাদিনের দৈত্যরূপে দেখা যাবে হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা উইল স্মিথকে। ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া ‘জন উইক’ ও ২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া ‘জন উইক : চ্যাপ্টার ২’-এর কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করে দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছেন কিয়ানু রিভস। যথারীতি এবারের পর্বেও প্রধান চরিত্রে থাকছেন তিনি।ছবিতে সোফিয়া চরিত্রে দেখা যাবে হ্যালি বেরিকে। ব্রাইটবার্ন সিনেমার কাহিনীতে দেখা যাবে নিঃসন্তান খামারি দম্পতি টোরি এবং কাইলি। অনেকদিন ধরে সন্তান লাভের চেষ্টা করছেন, কিন্তু হচ্ছে না। এ নিয়ে তারা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। একদিন আচমকা আকাশ থেকে একটি উল্কা এসে পড়ে তাদের খামারের পাশে। দুজন ছুটে গিয়ে দেখেন সেখানে একটি বাচ্চা পড়ে আছে। কয়েক বছর পর ব্র্যান্ডন আবিষ্কার করেন তার মধ্যে অতিমানবীয় শক্তি আছে। অন্যদিকে এক আশ্চর্য প্রদীপ, একটি দৈত্য, এক যুবক, আর সঙ্গে মিষ্টি প্রেমের গল্প এ নিয়েই আরব রূপকল্প ‘আলাদিন’। রিচির আলাদিনে বড় বদল ঘটেছে দৈত্যের ক্ষেত্রে। সেই নীল বাতির ভেতর থেকে বেরোনো দৈত্য ঠিক আছে, কিন্তু এ দৈত্য অনেক বেশি পিতৃসুলভ। রিচি মনে করেছেন, দৈত্যের চরিত্রটির বড় সুবিধা হলো এটি চরিত্র হিসেবেও শক্তিশালী।

প্রেমে কেন এত জ্বালা নিয়ে তামান্না

বিনোদন বাজার ॥ ঈদে নতুন গান নিয়ে আসছেন সাংবাদিক ও কণ্ঠশিল্পী সানি আজাদ। গানের শিরোনাম ‘প্রেমে কেন এতো জ্বালা’। গানটির কথা লিখেছেন এমদাদ সুমন। সুর করেছেন কণ্ঠশিল্পী মাসুম। মিউজিক করেছেন মনিরুল কবির জনি। সম্প্রতি গাজীপুরের বিভিন্ন লোকেশনে গানটির মিউজিক ভিডিওর শুটিং হয়েছে। আর এই গানে মডেল হিসেবে কাজ করছেন মডেল-অভিনেত্রী তামান্না সরকার। সানি আজাদ বলেন, আমি প্রথম ফোক গান করলাম। আর এটা সম্ভব হয়েছে এমদাদ ভাইয়ের কারণেই। তিনি আমাকে গানটি করার জন্য সাহস দিয়েছেন। গানের কথাগুলো খুবই সুন্দর। আমি আমার গায়কিতে যথেষ্ট চেষ্টা করেছি। আশা করছি সবার ভালো লাগবে। তামান্না বলেন, এই গানের গল্পটি বেশ সুন্দর। সবার ভালো লাগবে বলে আশা করি।