ইরানের সঙ্গে ‘যুদ্ধ চান না’ ট্রাম্প

ঢাকা অফিস ॥ শীর্ষ উপদেষ্টাদের সঙ্গে আলোচনায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে তার অনাগ্রহের বিষয়টি জানিয়েছেন বলে প্রশাসনের তিন কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন। “তিনি যুদ্ধে যেতে চান না। যারা যেতে চায়, তিনি তাদের মধ্যে নেই,” বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এমনটাই বলেছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা। হরমুজ প্রণালী নিয়ে ওয়াশিংটন ও তেহরানের মধ্যে বাড়তে থাকা উত্তেজনার মধ্যেই সামরিক সংঘাতে ট্রাম্পের অনিচ্ছার বিষয়টি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এলো। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে ইরান ও ওই অঞ্চলের তেহরানঘনিষ্ঠ গোষ্ঠীগুলোর কর্মকান্ড মার্কিন গোয়েন্দাদের দুশ্চিন্তা বাড়িয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যে শিয়া সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটির প্রভাব শক্তিশালী হলে তা মার্কিন স্বার্থের জন্য ক্ষতিকর- এ ভাবনা থেকে পেন্টাগন এরই মধ্যে অতিরিক্ত একটি বিমানবাহী রণতরী ও বেশ কয়েকটি বোমারু বিমানও পাঠিয়েছে। উপসাগরে সৌদি তেলের ট্যাঙ্কারসহ চারটি জাহাজে হামলার ঘটনার পর গত সপ্তাহে ওয়াশিংটন বাগদাদের দূতাবাস থেকে কিছু কর্মকর্তাকে জরুরি ভিত্তিতে সরিয়েও নিয়েছে। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ইরানের রেভ্যুলেশনারি গার্ড বাহিনীকে ‘বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠনের’ তালিকাতেও অন্তর্ভুক্ত করে। পাল্টা ব্যবস্থা নিয়ে তেহরান জানায়, মধ্যপ্রাচ্যে থাকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সব স্থাপনা ও সৈন্য এখন তাদের নিশানায় পরিণত হয়েছে। ফুটতে থাকা উত্তেজনার মধ্যেই ট্রাম্প তার জাতীয় নিরাপত্তা দলের সদস্য ও অন্য উপদেষ্টাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বলে তার প্রশাসনের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ওই অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থ সুরক্ষায় সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়টিও স্পষ্ট করেছেন তিনি, বলেছেন এক কর্মকর্তা। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে ট্রাম্প আফগানিস্তান ও ইরাকের মতো ব্যয়বহুল যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আর জড়ানো উচিত নয় বলে অবস্থান ব্যক্ত করেছিলেন। চলতি বছরের শুরুতে সিরিয়া থেকে মার্কিন সৈন্য ফিরিয়ে আনারও ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি। সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট উয়েলি মরেরের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথোপকথনেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইরাকের সঙ্গে যুদ্ধে না জড়ানোর ইঙ্গিত দেন। “আশা করছি (হবে) না,” বলেছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে সরাসরি কূটনৈতিক সম্পর্ক  নেই; সুইজারল্যান্ডই তাদের মধ্যে লিয়াজোঁ রাখে। “প্রেসিডেন্ট স্পষ্ট করে বলেছেন- যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সঙ্গে সামরিক সংঘাত চায় না; তিনি ইরানের নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনার দ্বারও খোলা রেখেছেন। যদিও ইরান গত ৪০ বছর ধরে সহিংসতার পথেই হেঁটেছে, আমরাও ওই অঞ্চলে মার্কিন সেনা ও স্বার্থ রক্ষা করে যাবো,” বলেছেন হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা দলের মুখপাত্র গ্যারেট মার্কুজ। ট্রাম্প ও উয়েলি মরেরের বৈঠকে মধ্যপ্রাচ্য সংকট ও ভেনেজুয়েলাসহ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে, এক বিবৃতিতে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। ২০১৫ সালে ছয় বিশ্বশক্তির সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত চুক্তি থেকে গত বছর নিজেদের প্রত্যাহার করে নিয়েছিল ওয়াশিংটন। জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনসহ বেশ কয়েকজন উপদেষ্টা তেহরানের সঙ্গে যুদ্ধের পক্ষে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ব্যক্তিগত আলোচনায় তিনি এ নিয়ে উদ্বেগও জানিয়েছেন, বলেছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মার্কিন প্রশাসনের দুই কর্মকর্তা।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে তার উপদেষ্টাদের বিরোধ নেই এবং তিনি ভিন্নমতকে স্বাগত জানান বলে ফক্স নিউজ চ্যানেলকে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স।

গাংনীতে অস্ত্র-মাদক উদ্ধার

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সীমান্ত এলাকা থেকে অস্ত্র-গুলি ও ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে বিজিবি সদস্যরা। গতকাল শুক্রবার সকালের দিকে গাংনী উপজেলার সহড়াতলা সীমান্ত থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় এগুলো উদ্ধার করা হয়।  বিজিবি সূত্র জানায়, গাংনী উপজেলার সহড়াতলা গ্রাম সংলগ্ন আন্তজার্তিক সীমান্তের ১৪২ এর ৬/এস নং পিলারের পাশ দিয়ে অস্ত্র ও মাদক পাঁচার হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবি সদস্যরা অভিযান চালায়। বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারিরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে  পরিত্যক্ত অবস্থায় ১টি ভারতীয় ওয়ান শার্টারগান ,৪ রাউন্ড গুলি ও ১০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

খোকসায় মাদক ও অসামাজিক আস্তানা অপসারণের লক্ষে থানায় গণঅভিযোগ দায়ের

শেখ সবুজ আহমেদ ॥ কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার জয়ন্তী হাজরা ইউনিয়নের ভবানীগঙ্গ গ্রামের সচেতন নাগরিক  খোকসা থানায় এসে গণঅভিযোগ দায়ের করেন। শুক্রবার  বেলা ১২ টার দিকে  ভবানীগঙ্গ গ্রামের সচেতন নাগরিক ও ওয়ার্ড মেম্বার আরিফুল ইসলাম নয়ন’র নেতৃত্বে শতাধিক  লোকজন এসে গনঅভিযোগ দায়ের করেন। এসময় তারা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে পাগল আশ্রমের নামে মাদক ব্যবসায়ী এবং খোকসায় মাদক ও অসামাজিক আস্তানার অন্তরালে চলছে মাদক ব্যবসা। খোকসায় রয়েছে বিভিন্ন ভন্ড পীরের নামে এ সব অসামাজিক আস্তানা অপসারণের জন্য থানায় গনঅভিযোগ দায়ের। তারা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে পাগল আশ্রমের নামে মাদক ব্যবসায়ী এবং সেবনকারী স্বর্গীয় রুপকুমারের বাড়ি ব্যবহার করে আসছে এবং এখানে যারা প্রতিনিয়ত আসা যাওয়া করে তারা সমাজের অসামাজিক ও নেতিবাচক মানুষ হিসাবে পরিচিত। এই সব মানুষ বাড়ীটি ব্যবহার করে মাদক বিকিকিনি করে আসছে, অসামাজিক কার্যকলাপ এবং গান বাজনা করে থাকে। এতে গ্রামবাসীর সমস্যা ও যুব সমাজের প্রতি আকৃষ্ট করে তুলছে এবং সহজেই তাদের মাদকাসক্ত করে তুলছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গ্রামের লোকজন একত্রিত হয়ে খোকসা থানায় এসে গন অভিযোগ করেন এবং তারা আশাবাদী খোকসা ভবানীগঙ্গ গ্রামে পাগল আশ্রমের নামে স্বর্গীয় রুপকুমার এর বাড়ি মাদক আস্তানা এবং অসামাজিক কার্যকলাপ অপাসারণ জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করেন।

কুষ্টিয়ায় রমজানের তাৎপর্য শীর্ষক ইসলামী ছাত্র মজলিসের আলোচনা সভা

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস কুষ্টিয়া জেলা ও ইবি শাখার উদ্যেগে রমজানের তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে কুষ্টিয়া মজলিস মিলনায়তনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। কেন্দ্রিয় প্রতিনিধি সদস্য ও ইবি শাখার সভাপতি রায়হান আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনেরর কেন্দ্রিয় প্রকাশনা ও স্কুল সম্পাদক মুহাম্মাদ শাহীন। সংগঠনের জেলা শাখার সভাপতি মশিউজ্জামানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জোনের সহকারী তত্বাবধায়ক শরীফুল ইসলাম, সিলেট মহানগরীর সাবেক সেক্রেটারী মু.জামিরুল ইসলাম, জেলা সেক্রেটারী মশিউর রহমান, বায়তুল মাল সম্পাদক মু.মনিরুল ইসলাম, শহর শাখার বায়তুল মাল সম্পাদক হাসিবুল ইসলাম। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কৃষকের পাকা ধান পুড়িয়ে ফেলা অশনিসংকেত – মোশাররফ

ঢাকা অফিস ॥ মূল্য না পেয়ে কৃষকের পাকা ধান জমিতে পুড়িয়ে ফেলা অশনিসংকেত বলে মনে করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেছেন, ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে অনেক কৃষক ক্ষেতেই আগুন দিয়ে ধান পুড়িয়ে ফেলছেন। এটা দেশের জন্য অশনিসংকেত। এটাকে ছোট করে দেখার কোনো সুযোগ নেই। গতকাল শুক্রবার রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। মোশাররফ হোসেন বলেন, দেশের কৃষকরা হাড়ভাঙা পরিশ্রমে ফলানো ধানের মূল্য পাচ্ছে না। মূল্য না পাওয়ার কারণের তারা পাকা ধান জমিতে পুড়িয়ে ফেলছে। এটা দেশের জন্য খুবই অশনিসংকেত। সরকার বিষয়টি গুরুত্ব দিচ্ছে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের দেশ কৃষিনির্ভর। ভাত হচ্ছে আমাদের প্রধান খাদ্য। সেই দেশের কৃষকরা পাকা ধান পুড়িয়ে দিচ্ছে, এটি ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। কিন্তু সরকার এ বিষয়ে ভ্রুক্ষেপ করছে না।  দেশে ২৫-৩০ লাখ টন ধান মজুদ আছে খাদ্যমন্ত্রীদের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে বিএনপির এ জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, সরকার বলছে খাদ্য মন্ত্রণালয় কিছু চাল বিদেশে রফতানি করার চেষ্টা করছে। অন্যদিকে আবার দেখা যাচ্ছে, সরকার চাল আমদানি করছে। এখানেই প্রশ্ন তৈরি হচ্ছে। কৃষকদের কাছ থেকে যদি বেশি দামে ধান কেনা হতো, তা হলে তারা পুড়িয়ে ফেলত না।’ পাচারকারীদের সুযোগ করে দিতে চাল আমদানির ব্যবস্থা করা হচ্ছে অভিযোগ করে মোশাররফ হোসেন বলেন, আপনারা বলছেন- দেশে খাদ্য মজুদ বেশি আছে, তা হলে আমদানি করা হচ্ছে কেন? গুঞ্জন আছে, যারা বাংলাদেশ থেকে টাকা পাচার করতে চাচ্ছে, তাদের সুযোগ করে দেয়ার জন্য ধান-চাল আমদানির কথা বলা হচ্ছে।’ বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তি দাবি করে মোশাররফ বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে খালেদা জিয়া আজ কারাগারে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য থেকে এটিই প্রমাণিত যে, আইনের মাধ্যমে নয়; বর্তমান সরকার তাকে কারাগারে রেখেছে। অনুষ্ঠানে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গামাটির মৈত্রী বৌদ্ধবিহারের সদস্য কৌন্ডণ্য ভিক্ষু, পাঞ্চা বংশ ভিক্ষু, সুশীল বড়ুয়া, জন গোমেজ ও জিয়া পরিষদের নেতা সুভাষ চন্দ্র চাকমা। বিএনপির নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লা বুলু, সেলিমা রহমান প্রমুখ।

মেহেরপুর পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

মেহেরপুর প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুর সদর উপজেলার রাজনগর গ্রামে পানিতে ডুবে তানজিল হেসেন (৮) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তানজিল রাজনগর শেখপাড়ার ছামিদুল ইসলামের ছেলে ও স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২য় শ্রেণীর ছাত্র। গতকাল শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে রাজনগর গ্রামের পাশে ছেউড়িয়া নদীতে গোসল করতে গিয়ে  পানিতে ডুবে শিশু তানজিল মারা যায়। স্থানীয়রা জানান, দুপুর ১২টার দিকে তানজিল তার পরিবারের লোকজনের সাথে ছেউড়িয়া নদীতে গোসল করতে যায়। গোসলের এক পর্যায়ে সে পানিতে তলিয়ে যায়। পরবর্তীতে তানজিলকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু হয়। স্থানীয়রা প্রায় দু’ঘণ্টাব্যাপি খোঁজাখুজি করার পর দুপুর ২ টার দিকে নদী থেকে তানজিলের মৃত দেহ উদ্ধার করা হয়।

আলমডাঙ্গায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ব্যবসায়ীর মৃত্যু

আলমডাঙ্গা প্রতিনিধি ॥ চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রাশেদুল ইসলাম (৫০) নামে এক মুদি ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে উপজেলার কুলপাড়া পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত রাশেদুল ওই এলাকার মহির উদ্দীনের ছেলে। নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, দুপুরের দিকে নিজ ঘরের বৈদ্যুতিক পাখার একটি খোলা তার মেরামতের চেষ্টা করেন রাশেদুল। এ সময় ওই পাখার খোলা তারে স্পর্শ করতেই তিনি বিদ্যুতায়িত হয়ে পড়েন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। সদর হাসপাতালের চিকিৎসক নুরুন্নাহার খানম মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রয়োজনে চাল রপ্তানি করে কৃষককে ন্যায্যমূল্য দেওয়া হবে – কৃষিমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ ধানের দাম কম হওয়ায় প্রয়োজনে চাল রপ্তানি করে কৃষককে ন্যায্যমূল্য দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক। একই সঙ্গে ধানের দাম কম হওয়ার সাময়িক এ সমস্যা থাকবে না বলেও জানান তিনি। গতকাল শুক্রবার আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি একথা জানান। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ মিলনায়তনে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। সদস্য কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ খাদ্যে স্বয়সম্পূর্ণ হয়েছে। বাংলাদেশ খাদ্যে উদ্বৃত্ত দেশে পরিণত হয়েছে। আমরা জানি খুব আলোচনা চলছে, ধানের দাম খুব কম। আমরা চাই ক্ষেতমজুর, নিম্নআয়ের মানুষদের জন্য চালের দাম কম থাকুক। আবার এটাও চাই যারা ধান উৎপাদন করে সেই কৃষক যেনো ধানের ন্যায্যমূল্য পায়। তিনি বলেন, আমাদের যে টার্গেট ছিল তার থেকেও ধান অনেক বেশি উৎপাদন হয়েছে। খাদ্যশস্য উদ্বৃত্ত উৎপাদন হয়েছে। আমরা গভীরভাবে চিন্তায় আছি কীভাবে কৃষক তাদের উৎপাদিত ধানের ন্যায্যমূল্য পাবে সেটা নিয়ে, কীভাবে কৃষকের ন্যায্যমূল্য দেওয়া যায়। প্রয়োজনে আমরা চাল রপ্তানি করে কৃষকে ন্যায্যমূল্য দেবো।

জাতির প্রয়োজনে ঐক্যফ্রন্ট প্রতিষ্ঠিত হয়েছে – নোমান

ঢাকা অফিস ॥ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট একটি বিশেষ পরিস্থিতিতে জাতির প্রয়োজনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান। গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের মওলানা মুহাম্মদ আকরাম খাঁ হলে সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ’র স্মরণ সভায় তিনি এসব কথা বলেন। নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম নামে একটি সংগঠন এই স্মরণ সভার আয়োজন করে। আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আমাদের প্রয়োজনে, জাতির প্রয়োজনে, একটি বিশেষ পরিস্থিতিতে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তাই বলে আমাদের সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সব কর্মসূচি এক হবে বিষয়টি তেমন নয়। পাটকল শ্রমিকদের দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, সারাদেশের পাটকল শ্রমিকরা বকেয়া মজুরি-ভাতার দাবিতে রাস্তায় নেমেছেন। রাস্তায় নামার পরও এ নিয়ে তাদের সঙ্গে সরকারের কোনও কথা হচ্ছে না। কিন্তু সরকার কী করছে, যারা ব্যাংক লুট করেছে, যারা দুর্নীতি করেছে, তাদের অর্থ, ঋণ সবকিছু স্বাভাবিক দৃষ্টিতে দেখছে। এই সরকার গরিব, শ্রমিক, কৃষক, মেহনতী মানুষের সরকার নয়। আমরা চাই দেশে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা হোক। বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ‘নাসিম সাহেবের মতো লোক বললেন ‘পয়সা দিয়ে আইন-শৃংখলা বাহিনী কেনা যায়, এমনকি বিচার-আদালত কেনা যায়।’ আজকে হাইকোর্ট পারে না একটি রুল দিয়ে আদালত অবমাননা করতে। অথচ খালেদা জিয়াকে শাস্তি দিয়ে খুব বীরত্ব দেখাতে পারে। নাসিম সাহেব যখন স্বীকার করেছেন, তখন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হিসেবে দল থেকে পদত্যাগ করে একটা দৃষ্টান্ত দেখান যে, এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলে আমি পদত্যাগ করলাম। আওয়ামী লীগের আগের মর্যাদা নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী এবং শেখ মুজিবুর রহমানের যে আওয়ামী লীগ, সেই আওয়ামী লীগের সঙ্গে এই আওয়ামী লীগ যায় না। সেই আওয়ামী লীগের একটা সম্মান ছিল, গৌরব ছিল, মর্যাদাবোধ ছিল। আলাল আরও বলেন, ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোটের সঙ্গে বিএনপির দূরত্ব তৈরি হয়েছেÑ বিষয়টি ঠিক না। বরং এটা থেকে আপনাদের প্রশংসা করা উচিত, বিএনপির সঙ্গে ২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র চর্চা আছে। শেখ হাসিনার মতো মুখের ওপরে ধমক দিয়ে এখানে সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেওয়া হয় না। প্রয়াত সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহকে স্মরণ করে তিনি বলেন, অনেক সময় নদীপথে আবহাওয়া খারাপ হয়। তখন নৌযানগুলো যেন বিভ্রান্ত না হয়, তার জন্য মোহনাগুলোতে লাইটহাউস থাকে। যেখান থেকে সিগন্যাল দেওয়া হয় এই পথে না, আপনি ওই পথে যাবেন। সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ সাহেব ছিলেন তেমনই একজন মানুষ। স্মরণ সভায় শ্রমিকদল সভাপতি আনোয়ার হোসেন এবং নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের উপদেষ্টা সাঈদ আহমেদ আসলামসহ সংগঠনের অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

 

কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের আয়োজনে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার কুষ্টিয়ার ফুড জোন রেস্টুরেন্টে এক ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি ও সাপ্তাহিক রবি বার্তার সম্পাদক ডাঃ গোলাম মওলার সভাপতিত্বে উক্ত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জজ কোর্টের বিজ্ঞ জিপি এ্যাডঃ আ.স.ম আক্তারুজ্জামান মাসুম। বিশেষ অতিথি ছিলেন শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা তাইজাল আলী খান, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নব-নির্বাচিত সভাপতি ও দৈনিক আজকের আলো পত্রিকার সম্পাদক গাজী মাহাবুব রহমান, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নব-নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক ও দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকার সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও দৈনিক জয়যাত্রা পত্রিকার সম্পাদক আল মামুন সাগর, দৈনিক মুক্তমঞ্চ পত্রিকার সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি চৌধুরী মুরশেদ আলম মধু, চেম্বার অব কমার্স এরসহ সভাপতি মোকাররম হোসেন মোয়াজ্জেম, কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারন সম্পাদক হাসিবুর রহমান রুবেলের পরিচালনায় এবং কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক ইলিয়াস খান এর উপস্থাপনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, দৈনিক কুষ্টিয়ার কাগজ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক নুর আলম দুলাল, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নব-নির্বাচিত যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও চ্যানেল ২৪ এর কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি শরীফ বিশ^াস, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নব নির্বাচিত সহ সভাপতি ও দৈনিক মাটির ডাকের সম্পাদক লুৎফর রহমান কুমার, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নব নির্বাচিত প্রচার প্রকাশনা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি তৌহিদী হাসান শিপলু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নব নির্বাচিত দপ্তর সম্পাদক ও বাংলা টিভির কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি লিটন উজ জামান, দৈনিক কুষ্টিয়া বার্তার সম্পাদক ও প্রকাশক খাদেমুল ইসলাম, দৈনিক সুত্রপাত এর সম্পাদক ডাঃ মোকাদ্দেস হোসেন সেলিম, দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি আরিফ মেহমুদ, দৈনিক আজকের সুত্রপাত পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আক্তার হোসেন ফিরোজ, দৈনিক সাগরখালী পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ডাঃ রবিউল হক খান, দৈনিক মাটির পৃথিবী পত্রিকার সম্পাদক এম এ জিহাদ, প্রেসক্লাবের সদস্য ও জেলা মৎস্যজীবী লীগের আহবায়ক মোঃ সাইদুল ইসলাম, এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সি. সহ সভাপতি আহসান আলী বিশ^াস, সহ সভাপতি আশরাফ আলী, দৈনিক অর্থনীতির কাগজের কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি মোঃ সালমান শাহেদ, কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও গড়াইনিউজ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আতিকুজ্জামান ছন্দ, সাংগঠনিক সম্পাদক তারেক বিন আজিজ, সাবেক প্রচার সম্পাদক ও গড়াইনিউজ২৪.কম পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক মোঃ নাজমুল হোসেন, অর্থ সম্পাদক মোঃ জুয়েল রানা, দপ্তর সম্পাদক রবিউল ইসলাম, পিআইবির কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি কাজী সোহান, কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সদস্য মোঃ মিজানুর রহমান, দৈনিক সন্ধ্যাবাণী পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি মাহফুজ আহমেদ তৌহিদ, প্রবাসী বাংলা টিভির ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি মোঃ জিয়াউল হক জিয়া, নাজমুস সাকিব শুভ, মোঃ সাব্বির হোসেন, প্রত্যয় যুব সংঘের সভাপতি এস এম সুমন, মোঃ মিন্টুসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুর থানার ৮ পুলিশের বদলি

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানার ৮ জন পুলিশের বদলি হয়েছে। এদের মধ্যে ৬জন এসআই ও ২জন এএসআই। জেলার বিভিন্ন থানা ও ক্যাম্পে এদের বদলি করা হয়েছে। দৌলতপুর থানা পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, দৌলতপুর থানার এসআই আব্দুর রহিম, এসআই শরিফ, এসআই জাহাঙ্গীর, এসআই সাইফুল, এসআই রাজ্জাক ও এসআই ফিরোজকে জেলার কুমারখালী থানা, সদর থানা, খোকসা থানা, ঝাউদিয়া ক্যাম্পে বদলি করা হয়েছে। একই সাথে এএসআই সাহেব আলী ও এএসআই ওবাইদুরকে ইবি থানা ও আব্দালপুর ক্যাম্পে বদলি করা হয়েছে।

কুষ্টিয়ার খোকসায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়েছে পূজা উদযাপন পরিষদ

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার খোকসায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়েছে পূজা উদযাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দ। শুক্রবার বেলা ১১ টায় কুষ্টিয়ার খোকসা কালী মন্দির প্রাঙ্গনে পূজা উদযাপন পরিষদ কুষ্টিয়া ও খোকসা শাখার  নেতৃবৃন্দ রাধানগর গ্রামে ধর্মীয় সংখ্যালঘু পরিবারের ওপর হামলা ও চাঁদাবাজির ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) এ্যাডঃ জয়দেব বিশ্বাস বলেন, চাঁদাবাজিরা যতই শক্তিশালী হোক না কেন আমরা সংঘবদ্ধভাবে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করবো। এ দেশ সবার। আমরা সবাই অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে চাই। সন্ত্রাসীদের এদেশে কোন স্থান নেই। প্রতিবাদ সভায় এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, ভারত-বাংলাদেশ সম্প্রতি পরিষদের সভাপতি নিতাই কুন্ডু, পূজা উদ্যাপন পরিষদ খোকসার সাধারন সম্পাদক  নারায়ণ মালাকার, সাংবাদিক রঞ্জন ভৌমিক, প্রকৌশলী দিলিপ সেন, মোহন বিশ্বাস প্রমুখ। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ি, প্রশাসনের নির্বিকার ভূমিকার জন্য আগামী ২১মে মঙ্গলবার খোকসায় বিশাল সমাবেশ ও মানব বন্ধন কর্মসূচি পালন করার ঘোষনা দেন নেতৃবৃন্দ। জানা যায়, আসামীরা হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে নির্যাতিত হিন্দু পরিবারের ওপর আবারও হুমকি ধামকি দিচ্ছে। এ ব্যাপারে পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। উল্লেখ্য যে, গত ১ মে ২০১৯ তারিখে ওই এলাকার রাজ কুমারের পরিবারের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। ২ তারিখে খোকসা থানায় মামলা হয়। মামলা নং ৩৯/১৯।

ই-কমার্সে গ্রাহক সন্তুষ্টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে – জব্বার

ঢাকা অফিস ॥ গ্রাহক সন্তুষ্টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে ক্রেতাদের আস্থা অর্জন করতে ই-কমার্স ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। গতকাল শুক্রবার জেনারেল পোস্ট অফিসে (জিপিও) দুদিনের ই-কমার্স মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “ব্যবসায় সফল হতে চাইলে একদিন-দুইদিনের জন্য চিন্তা করলে হবে না। একবার-দুইবার চিন্তা করে প্রতারক; যারা স্থায়ী ব্যবসা করতে আসে তারা তাৎক্ষণিক লাভটাকে মুখ্য বিষয় হিসেবে দেখে না।” প্রথাগত ক্যাশ অন ডেলিভারির জায়গায় অদূর ভবিষ্যতের ডিজিটাল পেমেন্ট পদ্ধতি প্রবর্তনে প্রস্তুতি নিতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানান মোস্তাফা জব্বার। দেশজুড়ে ই-কমার্স ছড়িয়ে দিতে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) ও ডাক বিভাগের উদ্যোগে ‘ই-কমার্সে ডাক’ স্লোগানে গত ৩০ মার্চ থেকে বিভাগীয় শহর পোস্ট অফিস অফিসগুলোতে চলছে ই-কমার্স মেলা। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার থেকে শুরু হয় ঢাকায় ই-কমার্স মেলা। দুই দিনের এই ডাক মেলার মধ্য দিয়েই শেষ হবে বিভাগীয় পর্যায়ের জাতীয় ই-কমার্স ডাক মেলা। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মেলায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে থাকবে নানা অফার ও উপহার। মেলায় প্রবেশের জন্য কোনো ফি লাগবে না। মেলায় ছয়টি প্যাভিলিয়ন ও ছয়টি মিনি প্যাভিলিয়নসহ মোট ৮০টি স্টল রয়েছে। অন্যদের মধ্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব আশোক কুমার বিশ্বাস, ডাক মহাপরিচালক সুধাংশু শেখর ভদ্র, ই-ক্যাব সভাপতি শমী কায়সার ও ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহেদ তমাল অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

 

ঝিনাইদহে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ সদর উপজেলার দূর্গানারায়ণপুর গ্রামের মিম খাতুন (৪) ও ফাতেমা খাতুন (৫) নামের দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধায় ওই গ্রামের একটি পুকুরের পানিতে ডুবে শিশু দুটির মৃত্যু হয়। মিম খাতুন ওই গ্রামের বজলু জোয়ার্দ্দার ও ফাতেমা খাতুন বাবলু জোয়ার্দ্দারের মেয়ে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। শিশু মিম ও ফাতেমা সম্পর্কে চাচাতো বোন। শিশুর চাচা ওলিয়ার রহমান জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়ির পাশের্^ খেলাধুলা করছিল মিম ও ফাতেমা। সন্ধ্যায় বাড়িতে না ফেরায় পরিবারের লোকজন খোজাখুজি করতে থাকে। খোজাখুজির একপর্যায়ে বাড়ির উত্তর পাশের্^ পুকুরের ভিতর পানিতে তাদের লাশ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পায়। ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান খান বার্তা বাজারকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গাম্বিয়া রোহিঙ্গা ইস্যুকে আন্তর্জাতিক আদালতে উত্থাপন করতে চায়

ঢাকা অফিস ॥ রোহিঙ্গা ইস্যুকে আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে (ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস) নিয়ে যেতে গাম্বিয়া প্রতিশ্র“তিবদ্ধ বলে জানিয়েছেন দেশটির সফররত পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. মামাদো তাঙ্গারা। গতকাল শুক্রবার সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতকালে গাম্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। ড. মামাদো তাঙ্গারা বলেন, রোহিঙ্গা সংকট মানবিক ইস্যু। তার দেশ এই ইস্যুতে বাংলাদেশকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের ব্যাপক উন্নয়ন, বিশেষ করে নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন। গাম্বিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী তাঁর দেশের প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে একটি চিঠি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট হস্তান্তর করেন। তিনি বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বৈদেশিক অফিস প্রটোকল স্বাক্ষরের বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সেক্টরে বাংলাদেশের সঙ্গে পারস্পরিক সহযোগিতার বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন। গাম্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতে সহযোগিতা করতে চাই।’ এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকের হাতে নির্মমভাবে বঙ্গবন্ধু নিহত হওয়ায় বিদেশে নির্বাসিত জীবন কাটানোর পর ১৯৮১ সালের এই দিনে দেশে ফিরে আসার এবং গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠায় তাঁর দীর্ঘ সংগ্রামের কথা উল্লেখ করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুসহ তাঁর পরিবারের সবাইকে হত্যা করা হয়। বিদেশে অবস্থান করায় তিনি তাঁর ছোট বোন প্রাণে বেচেঁ যান। শেখ হাসিনা বলেন, ‘ দেশে ফিরে আসার পর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য দীর্ঘ সংগ্রাম করতে হয়েছে। এখন আমরা দেশের মানুষের জীবন-মান উন্নত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি।’ এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের জিডিপি ৮ দশমিক ১ শতাংশ অর্জন এবং দারিদ্রের হার ২১ শতাংশে নামিয়ে আনার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে গ্রামীণ মানুষের উন্নয়নে।’ কর্মসংস্থান ও দেশের অর্থনীতির আরও উন্নতির জন্য প্রধানমন্ত্রী ১শ’টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার চলমান উদ্যোগের প্রসঙ্গও এ সময় টেনে আনেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন, প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী এবং প্রধামন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

হরিনারায়নপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ইফতার ও দোয়া মাহফিল

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিনারায়নপুর  ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপির আয়োজনে বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজগর আলী। সম্মানিত অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান আতা। বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বিশ্বাস। সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সরকার আক্তারুজ্জামান টগর। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন হরিনারায়নপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান মহি উদ্দিন মন্ডল। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রতন শেখ, কুষ্টিয়া জেলা কৃষকলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক লিয়াকত আলী বিশ্বাস, শহর আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মীর রেজাউল ইসলাম বাবু, হরিনারায়নপুর বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক একরামুল হোসেন, শহর ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ডা. আফিল উদ্দিন, জেলা বঙ্গবন্ধু মানব কল্যান পরিষদ সভাপতি সেলিম রেজা, সাধারন সম্পাদক মীর অনিক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক বজলুর রশিদ, সদর থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক জাকির হোসেন,  স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জহুরুল ইসলাম, হরিনারায়নপুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক ফারুক হোসেন, ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য শাহিন ও ডাবলু, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ইমন সহ আওয়ামী অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। অনুষ্ঠানে ১৭ মে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করা হয়। এছাড়াও কুষ্টিয়া উন্নয়নের রুপকার সাংসদ মাহবুবউল আলম হানিফের দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়ার অনুষ্ঠান শেষ হয়।

বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত

ঢাকা  অফিস ॥ বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে গতকাল শুক্রবার রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত হয়েছে। ১৯৭৫ এর বিয়োগান্তক অধ্যায়ের পর শেখ হাসিনা প্রবাসে দীর্ঘদিন কাটাতে বাধ্য হবার পর আওয়ামী লীগ তাকে সভাপতি নির্বাচন করলে ১৯৮১ সালের এই দিনে তিনি দেশে ফিরে আসেন। এদিন বিকেল সাড়ে ৪টায় ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্সের বোয়িং বিমানে তিনি ভারতের রাজধানী দিল্লী থেকে কলকাতা হয়ে তৎকালীন ঢাকা কুর্মিটোলা বিমানবন্দরে এসে পৌঁছেন। শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে তাঁর বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগ এবং তার সহযোগী সংগঠনের নেতারা গতকাল শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে দলের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, বেগম মতিয়া চৌধুরী ও ড. আবদুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এবং আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহা উদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ও এনামুল হক শামীম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। পরে একে একে প্রধানমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানায় ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণ, আওয়ামী যুবলীগ, ছাত্রলীগ, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগ, তাঁতি লীগেরনেতা-কর্মীরা। শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে বিকেলে আওয়ামী লীগ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, ইতিহাসবিদ সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ ও জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তার কন্যা শেখ হাসিনাকে দেশে আসতে দেওয়া হয়নি। তিনি নির্বাসনে থাকা অবস্থায়ই আওয়ামী লীগ তাকে সভাপতি নির্বাচিত করে। শেখ হাসিনাকে সেদিন আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত করা সঠিক ছিল। সেদিন আওয়ামী লীগ যে কারণেই সভাপতি নির্বাচিত করুক না কেনো, আজ সেটা সঠিক প্রমাণ হয়েছে। আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নত, সমৃদ্ধ দেশের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের মানুষ আজ আত্মমর্যাদা নিয়ে নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকুক, এটাই আজকের দিনের প্রত্যাশা। সভাপতির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী বলেন, শুধু পিতৃহত্যার বিচার, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য নয়, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি দেশে ফিরে এসে মানুষের ভোটের ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন। শুধু ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠাই করেননি, বাংলাদেশকে উন্নয়নের উৎকর্ষের দিকে নিয়ে গেছেন, মানুষের উন্নত জীবনের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, আজ যারা কথায় কথায় আইনের শাসনের কথা বলেন, তাদের নেতা খুনি জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করে দিয়ে আইনের শাসন ধ্বংস করেছিলেন। শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছেন। পাকিস্তানের এজেন্ট, পাকিস্তানের সহযোগী শক্তি বিএনপি-জামায়াত আবারও গণতন্ত্রের কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। অশুভ তৎপরতা চালিয়ে উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে বাধার সৃষ্টি করেছেন। এই অশুভ তৎপরতাকে প্রতিহত করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবো, এটাই আজকের দিনের প্রত্যয়। আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনা এদশের মানুষের সঙ্গে আছেন, থাকবেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ বদলে গেছে। শেখ হাসিনা মানে গণতন্ত্র, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি। এটাকে আরও গতিশীল করতে হলে শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সপরিবারে নির্মমভাবে নিহত হন। এ সময় তার দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা প্রবাসে থাকায় ঘাতকদের হাত থেকে তারা রেহাই পান। পরবর্তীতে ১৯৮১ সালের ১৪, ১৫ ও ১৬ ফেব্র“য়ারিতে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল অধিবেশনে শেখ হাসিনার অনুপস্থিতিতে তাঁকে আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত করা হয়। শেখ হাসিনাকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানানোর জন্য উপস্থিত প্রায় ১৫ লাখ মানুষের হৃদয় ছোঁয়া ভালবাসার জবাবে তিনি এদিন বলেন, বাংলার মানুষের পাশে থেকে মুক্তির সংগ্রামে অংশ নেয়ার জন্য আমি দেশে এসেছি। আমি আওয়ামী লীগের নেত্রী হওয়ার জন্য আসিনি। আপনাদের বোন হিসাবে, মেয়ে হিসাবে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী আওয়ামী লীগের কর্মী হিসাবে আমি আপনাদের পাশে থাকতে চাই।

বসলো রেলওয়ে স্প্যান

জাজিরা প্রান্তে দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতু

ঢাকা অফিস ॥ এবার জাজিরা প্রান্তের ভায়াডাক্টে (নদীর পাড়ে) দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতু। ৩৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে রেলওয়ে স্প্যান বসানোর মাধ্যমে ভায়াডাক্টে সেতু দৃশ্যমান হলো। গত ২০ এপ্রিল থেকে শুরু হয়ে প্রায় ২৭ দিনের মাথায় জাজিরা প্রান্তে ভায়াডাক্টে ২০ ও ২১ নম্বর পিয়ারে জে-৩ স্প্যানটি বসানোর কাজ শেষ হয়। এই স্প্যানে মোট ৬টি আই-গার্ডার রয়েছে। পদ্মাসেতুর প্রকল্পের সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির এই খবর নিশ্চিত করেছেন। প্রকৌশলীরা জানান, মাওয়া প্রান্তে ৭ টি ও জাজিরা প্রান্তে ৭ টি করে এরকম মোট ১৪টি স্প্যান বসবে। যার মধ্যে থাকবে ৮৪টি আই- গার্ডার। প্রথম স্প্যানটি বসানোর জন্য একটু বেশি সময় লাগলেও পরবর্তী স্প্যানগুলো বসাতে এত সময় লাগবে না। আজ শনিবার থেকে জাজিরা প্রান্তে ২১ ও ২২ নম্বর পিয়ারে জে-৪ স্প্যানের গার্ডার বসানোর কাজ শুরু হবে। এই স্প্যানের ওপর দিয়ে রেললাইন বসানো হবে। এই ধরণের ১৪টি স্প্যানের বেশিরভাগের কাজ সমাপ্ত। এদিকে, সেতুতে রোডওয়ে স্ল্যাব ও রেলওয়ে স্ল্যাব বসানো হচ্ছে জোরেসোরে। এরইমধ্যে সেতুতে মোট ৩১২ টি রেলওয়ে স্ল্যাব ও ১৬ টি রোডওয়ে স্ল্যাব বসানো সম্পন্ন হয়েছে। আর বসানোর জন্য প্রস্তুত রয়েছে ২০০০টি রেলওয়ে স্ল্যাব ও ৮০০ টি রোডওয়ে স্ল্যাব। সেতুতে মোট ২৯৪টি পাইল ড্রাইভ করতে হবে। এ পর্যন্ত সম্পন্ন হয়েছে ২৩৫টি পাইল ড্রাইভ আর ৪২টি পিলারের মধ্যে ২৫টি পিলারের কাজ পুরোপুরি সম্পূর্ণ হয়েছে। প্রকল্পের কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডে মোট ১২টি স্প্যান (সুপার স্ট্রাকচার) রয়েছে যার মধ্যে ৭টি স্প্যান পিলারে বসানোর জন্য প্রস্তুত আছে। এদিকে, পদ্মা সেতুর মূল অংশে একাদশ স্প্যান বসানোর জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারে আরেকটি স্প্যান (সুপার স্ট্রাকচার) বসতে যাচ্ছে এ মাসেই। ৩ বি স্প্যানটি কত তারিখে বসবে সেটি এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি বলে প্রকৌশলীরা জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পদ্মাসেতুতে বসানো হয় প্রথম স্প্যান। এর প্রায় চার মাস পর ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্প্যানটি বসে। এর দেড় মাস পর ১১ মার্চ জাজিরা প্রান্তে তৃতীয় স্প্যান বসানো হয়। এর ২ মাস পর ১৩ মে বসে চতুর্থ স্প্যান। এরপর এক মাস ১৬ দিনের মাথায় পঞ্চম স্প্যানটি বসে ২৯ জুন। ৬ মাস ২৫ দিনের মাথায় ২৩ জানুয়ারি বসে ষষ্ঠ স্প্যানটি। গত ২০ ফেব্র“য়ারি ৩৫ ও ৩৬ নম্বর পিলারে বসে জাজিরাপ্রান্তের সপ্তম স্প্যান। ২২ মার্চ বসে অষ্টম স্প্যান এবং মাওয়াপ্রান্তে গত ১০ এপ্রিল বসে নবম স্প্যান। জাজিরাপ্রান্তে মাত্র ১৩ দিনের ব্যবধানে ২২ এপ্রিল স্থায়ীভাবে বসে দশম স্প্যান। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। জাজিরাপ্রান্তে সেতুর ১৩৫০ মিটার ও মাওয়াপ্রান্তের একটি স্থায়ী ও একটি অস্থায়ী স্প্যান মিলে মোট ৩০০ মিটার এবং সেতুর মাঝ বরাবর ৫-এফ স্প্যানটি অস্থায়ীভাবে বসানো শেষ হওয়ায় সেতুর মোট ১৮০০ মিটার দৃশ্যমান হলো। তবে স্প্যানগুলো ভিন্ন ভিন্ন মডিউলে বসানোর কারণে দৃশ্যমান অংশগুলো এক সারিতে নয়, বরং বিচ্ছিন্নভাবে থাকবে।

হিমালয়ের ফার্চামো পর্বত অভিযানে যাচ্ছেন ৪ বাংলাদেশি

ঢাকা অফিস ॥ হিমালয় অঞ্চলের ২০ হাজার ৩০০ ফুট উচ্চতার ফার্চামো পর্বত শিখরে প্রথমবারের মত বাংলাদেশের পতাকা ওড়াতে অভিযানে যাচ্ছেন ৪ বাংলাদেশি। এভারেস্টজয়ী এম এ মুহিতের নেতৃত্বে এই অভিযাত্রী দলে আরও আছেন বাহলুল মজনু, শায়লা পারভীন ও রিয়াসাদ সানভী। বাংলা মাউন্টেইনিয়ারিং অ্যান্ড ট্রেকিং ক্লাবের পক্ষ থেকে শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযানের বিস্তারিত তুলে ধরা হয়। দলনেতা মুহিত সংবাদ সম্মেলনে জানান, ১৯ মে তারা নেপালের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন। তাদের এই অভিযান হবে ২১ দিনের। সংবাদ সম্মেলন শেষে অ্যান্টার্কটিকা ও সুমেরু অভিযাত্রী ইনাম আল হকের হাত থেকে বাংলাদেশের পতাকা গ্রহণ করেন অভিযাত্রী দলের সদস্যরা। তাদের মধ্যে মুহিত, বাহলুল ও শায়লা গত বছর ১৭ মে হিমালয় পর্বতমালার উত্তর-পূর্বে ২৩ হাজার ১১৩ ফুট উচ্চতার লাকপা রি পর্বতশৃঙ্গে প্রথমবারের মত বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা উড়িয়ে এসেছেন। এর আগে এম এ মুহিত দুই বার এভারেস্টে উঠেছেন। বাহলুল মজনু পাঁচটি এবং শায়লা পারভীন একটি পর্বতশৃঙ্গে উঠেছে, যেগুলোর উচ্চতা ছয় হাজার মিটারের বেশি। অভিযাত্রী রিয়াসাদ সানভী সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ফার্চামো পর্বতের উচ্চতা ২০ হাজার ৩০০ ফুট। এভারেষ্টের দক্ষিণ পশ্চিমে হিমালয়ের রোল ওয়ালিং অঞ্চলে এই পর্বত। এই পর্বতের বেইজ ক্যাম্পে পৌঁছাতে অতিক্রম করতে হবে নেপাল হিমালয়ের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গিরিপথ তাশিলাপচা। জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, “ঝুঁকিপূর্ণ ও আনন্দদায়ক কাজের জন্য প্রশিক্ষণ নিতে হয়। যারা এ বিষয়ে দক্ষ তারা নতুনদের সহায়তা করবেন। এতে করে তারা দেশের জন্য গৌরব বয়ে আনবে।” ঢাকায় নেপাল দূতাবাসের শার্জ দ্য অ্যাফায়ার্স ধন বহাদুর ওলী, অভিযানের স্পন্সর ইস্পাহানি টি লিমিটেডের মহা ব্যবস্থাপক (জিএম) ওমর হান্নান, আজিম গ্র“পের এজিএম মো. আবু সাঈদ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-মাদকের চেয়ে ভয়াবহ খাদ্যে ভেজাল

ঢাকা অফিস ॥ সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ ও মাদকের চেয়েও ভয়াবহ খাদ্যে ভেজাল মেশানো বলে মন্তব্য করেছেন পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের (পবা) সাধারণ সম্পাদক এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের সাবেক সচিব প্রকৌশলী আবদুস সোবহান। গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় ঢাকার কলাবাগানে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ‘বিষাক্ত খাদ্য: সাম্প্রতিক পদক্ষেপ ও করণীয়’ শীর্ষক একটি গোলটেবিল বৈঠকে তিনি একথা বলেন। প্রকৌশলী আবদুস সোবহান বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকের শিকার একটি নির্দিষ্ট বয়স বা গোত্রের মানুষ। কিন্তু খাবারে ভেজাল ও বিষ প্রয়োগের শিকার দেশের শিশু থেকে শুরু করে সব বয়সের এবং শ্রেণীর মানুষ। তাই খদ্যে ভেজাল ও বিষাক্ত খাদ্য রোধ করতে আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। পাশাপাশি কঠোর আইন করে তার যথাযথ প্রয়োগ করতে হবে। গোলটেবিল বৈঠকটি পরিচালনা করেন পবার সভাপতি আবু নাসের খান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পবার সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সোবহান। আলোচনা করেন, বায়োমেডিক্যাল রিসার্চ সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক আ ব ম ফারুক, বারডেমের ডা. আবু সাঈদ প্রমুখ। অধ্যাপক আ ব ম ফারুক তার আলোচনায় বলেন, আমরা যে খাবার খাই তা যদি ভালো ও বিশুদ্ধ থাকে, তাহলে আমাদের যে সমস্ত রোগবালাই হয় তার অর্ধেক এমনিতেই ভালো হয়ে যাবে। সেই রোগ আমাদের হবেই না। তাই নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও বিএসটিআইকে সারা বছর যে কোনো সময় পণ্য বাজার থেকে সংগ্রহ করে পরীক্ষা করতে হবে। কোম্পানিগুলো বিএসটিআইকে যে পণ্য পরীক্ষার জন্য দেবে শুধু সেই পণ্যের পরীক্ষা করেই অনুমোদন দেওয়া যাবে না। ডা. আবু সাঈদ বলেন, আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা খাবার নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষার অভাব। আমাদের উচিত বিজ্ঞানভিত্তিক তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে গবেষণা করে বের করা, কোন খাবারে কি ধরনের ভেজাল, ফরমালিন বা বিষ মেশানো হয়, তার ফলে মানুষের শরীরে কি ধরনের ক্ষতি হয়। একেকজন একেক রকম তথ্য বা কথা বললে হবে না। বিজ্ঞানভিত্তিক বাস্তবসম্মত তথ্য-প্রমাণসহ কথা বলতে হবে। গোলটেবিল বৈঠক থেকে মানসম্পন্ন, ভেজাল ও বিষমুক্ত খাদ্য নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং সংস্থার মধ্যে সমন্বয় করে আটটি করণীয় তুলে ধরা হয়।

কুষ্টিয়া জেলা আ’লীগের আয়োজনে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান  বলেন- ১৯৭৫ এর বিয়োগান্তক অধ্যায়ের পর শেখ হাসিনা প্রবাসে দীর্ঘদিন কাটাতে বাধ্য হবার পর আওয়ামী লীগ তাকে সভাপতি নির্বাচন করলে ১৯৮১ সালের এই দিনে তিনি দেশে ফিরে আসেন। এদিন বিকেল সাড়ে ৪টায় ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্সের  বোয়িং বিমানে তিনি ভারতের রাজধানী দিল্লী থেকে কলকাতা হয়ে তৎকালীন ঢাকা কুর্মিটোলা বিমানবন্দরে এসে পৌঁছেন।

গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সভায়  সভাপতির বক্তব্যে কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান এসব কথা বলেন। সভাপতির বক্তব্যে সদর উদ্দিন খান আরও বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে না এলে বাংলাদেশ এখনও অন্ধকারে থাকতো। সারাবিশ্বের কাছে ভিক্ষুকের জাতি হিসাবে থাকতো। জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজগর আলীর সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন  কুষ্টিয়া সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. আ.স.ম আক্তারুজ্জামান মাসুম, শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি  সাধারন সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শেখ গিয়াস উদ্দিন আহম্মেদ মিন্টু, যুগ্ম সম্পাদক ফারুকুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ হাসান মেহেদী, দপ্তর সম্পাদক হাজী তরিকুল ইসলাম মানিক, যুবলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল ইসলাম স্বপনসহ আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।