দৌলতপুর সীমান্তে ভারতীয় মদ ও গাঁজা উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে ভারতীয় মদ ও গাঁজা উদ্ধার হয়েছে। তবে উদ্ধার হওয়া মাদকের মালিক বা জড়িত কেউ আটক হয়নি। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার চিলমারী ইউনিয়নের সীমান্ত সংলগ্ন ছলিমপাড়া মাঠে অভিযান চালিয়ে এসব মাদক উদ্ধার করা হয়। বিজিবি সূত্র জানায়, মাদক বিরোধী অভিযানে ৪৭বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনস্থ চিলমারী বিওপি’র হাবিলদার মো. নুরে আলমের নেতৃত্বে বিজিবি’র টহল দল ছলিমপাড়া মাঠ নামক স্থানে অভিযান চালিয়ে মালিক বিহীন ৩০বোতল ভারতীয় জেডি মদ ও ২কেজি গাঁজা উদ্ধার করে।

বীজ বিস্তার ফাউন্ডেশনের আয়োজনে কুমারখালীতে ভোক্তা কমিটির মাসিক আলোচনা সভা

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ নিরাপদ খাদ্য নিশ্চয়তায়, নিরাপদ পোল্ট্রি উৎপাদনে কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ভোক্তা কমিটির মাসিক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদ সভাকক্ষে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ব্রিটিশ কাউন্সিলের  প্রোকাশ প্রোগ্রামের কারিগরি সহায়তায় ও ইউকে এইড এর আর্থিক সহায়তায় বীজবিস্তার ফাউন্ডেশন এই আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে ভোক্তা কমিটির সদস্য ও মুরগি খামারিরা অংশগ্রহণ করে। কুমারখালীর নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: নওশের আলী বিশ্বাস এতে সভাপতিত্ব করেন। আলোচনা সভার শুরুতেই প্রকল্প সম্পর্কে ধারণা ও মাসিক আলোচনা সভার উদ্দেশ্য তুলে ধরেন এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বীজ বিস্তার ফাউন্ডেশনের ফিল্ড কো-অর্ডিনেটর ডলি ভদ্র। খাদ্য নিরাপদতায় ও ভোক্তা কমিটির কার্যক্রমকে গতিশীল করতে নিয়মিত বাজার মনিটরিং সহ নানাদিক তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, আলাউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রী কলেজের জীব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক আরিফুজ্জামান, ভোক্তা কমিটির সদস্য ও কুমারখালী বণিক সমিতির সভাপতি কেএম আলম টমে, সাংবাদিক হাবীব চৌহান, খামারী সীমা আক্তার, জোসনা খাতুন প্রমূখ। আলোচনা সভায় এন্টিবায়োটিক ব্যবহারে প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন, পশুখাদ্য আইন ও বিধি মোতাবেক লাইসেন্স গ্রহণ ও নিরাপদ পশুখাদ্য বিক্রয়, পশুখাদ্য বিক্রয়কারক হিসাবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর থেকে লাইসেন্স পেতে করণীয়, রাসায়নিক দূষণমুক্ত নিরাপদ ব্রয়লার উৎপাদন ব্যবস্থা সহ উত্তম জবাই পদ্ধতি অনুশীলন, বাজারে ঝুঁকি ছড়িয়ে পড়া হ্রাস, উত্তম স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ, বাজারে রোগ-জীবানুর অনুপ্রবেশ এবং ছড়িয়ে পড়া রোধ, শুধুমাত্র সুস্থ্য মুরগি ক্রয় ও বিক্রয়, ক্ষতিকর রাসায়নিক দ্রব্যমুক্ত মানসম্পন্ন খাদ্য ক্রয়, ঝুঁকিপূর্ণ রাসায়নিক দ্রব্যমুক্ত মানসম্পন্ন ভিটামিন ও মিনারেল ক্রয়, ঝুঁকিপূর্ণ রাসায়নিক দ্রব্যমুক্ত নিরাপদ ও পরিস্কার পানি ব্যবহার, প্রাণিচিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া এন্টিবায়োটিক ব্যবহার রোধ, খাদ্য, ঔষধ ও পানিকে ঝুঁকিপূর্ণ রাসায়নিক দ্রব্যদ্বারা দূষিত হওয়া থেকে রক্ষা করা, মুরগির খামারকে পৃথকীকরণের মাধ্যমে সুরক্ষা, নিরাপদ উৎপাদন উপকরণ ব্যবহার, উত্তম খামার ব্যবস্থাপনা ও রোগ প্রতিরোধ কার্যক্রম অনুসরণ, উত্তম ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতা ও স্বাস্থ্যবিধি অনুশীলন, উত্তম বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় পরিবেশ বান্ধব পদ্ধতি অনুশীলনসহ মুরগি পালনে এন্টিবায়োটিক ব্যবহারে নিজে সচেতন হওয়ার পাশাপাশি অন্যকেও সচেতন করে তোলার মাধ্যমে ভোক্তার সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করণ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। এ ছাড়াও ২০১০ সালের মৎস্য ও পশুখাদ্য আইনের আওতায় খামারি ও ডিলারদের রেজিষ্ট্রেশন ও লাইসেন্স গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করা হয়। উল্লেখ্য, দেশের বেকার যুবক-যুব মহিলারা মুরগী খামার স্থাপনে আগ্রহী হওয়ার কারণে দিনে দিনে পোল্ট্রি শিল্প ব্যাপক প্রসার লাভ করেছে। দেশের প্রাণীজ প্রোটিনের চাহিদার প্রায় শতকরা ৪৫ ভাগ পোল্ট্রি সেক্টর পূরণ করে যাচ্ছে। তুলনামূলক দামে সস্তা হওয়ায়  দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য প্রোটিনের মূল উৎস হচ্ছে পোল্ট্রি মুরগী। কিন্তু সচেতন নাগরিক ও বিশেষজ্ঞদের মধ্যে নিরাপদ খাদ্যের বিবেচনায় পোল্ট্রি সেক্টর নিয়ে উদ্বেগ রয়েছে। নিন্মমানের পোল্ট্রি ফিড, পোল্ট্রি ফিডে মাত্রারিক্তি ও অপ্রয়োজনীয় এন্টিবায়োটিকের ব্যবহার পোল্ট্রি খাদ্যকে অনিরাপদ করে তুলছে। এ জন্য নিরাপদ পোল্ট্রি উৎপাদনের লক্ষ্যে কনজুমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) ও বীজ বিস্তার ফাউন্ডেশন (বিবিএফ) জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সাথে সমন্বয় রেখে ভোক্তা সাধারন, সিভিল সোসাইটি, মুরগী খামারি, পোল্ট্রি ফিড বিক্রেতা, ডিলার ও বেসরকারি সংগঠনসমূহের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পৃক্ত থেকে পোল্ট্রি ফিড উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানসমূহকে জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ে বিধিসম্মতভাবে পরিচালনার গতিপথ প্রদর্শনের সহায়তার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির নতুন কমিটিকে সদর থানা বিএনপির  অভিনন্দন

দীর্ঘদিন পর হলেও সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী ও অধ্যক্ষ  সোহরাব উদ্দিনের নেতৃত্বে কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির একটি সুন্দর কমিটি উপহার দেওয়ায় বিএনপির কেন্দ্রিয় কমিটি ও জেলা বিএনপির নতুন কমিটিকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছে কুষ্টিয়া সদর থানা বিএনপির সভাপতি বশিরুল আলম চাঁদ, সহ-সভাপতি রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ, সহ-সভাপতি ওয়াহেদুজ্জামান ওয়াহেদ, সহ-সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলামসহ কুষ্টিয়া সদর থানা বিএনপির সকল  নেতাকর্মী।  সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

কুষ্টিয়ায় বিলুপ্তির পথে কামার শিল্প

ভেড়ামারা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় আধুনিকতার ছোঁয়ায় বদলে গেছে মানুষের জীবনধারা। সেই সাথে বদলে গেছে মানব রুচি। দিন বদলের প্রতিযোগিতার সাথে তাল মিলিয়ে যেসব শিল্প মানুষের দৈনন্দিন জীবনের প্রয়োজনীয় উপকরণ তৈরী করতে পারছে না তাদের প্রথম সারিতে রয়েছে কামার শিল্প। আধুনিকতার চাহিদা মেটাতে না পারায় দিন-দিন পিছিয়ে যাচ্ছে কামার শিল্প। আর কামার শিল্পীদের জীবনে নেমে আসছে চরম দূর্দিন। সম্প্রতি এ শিল্পের উৎপাদিত পণ্যের চাহিদা কমে যাওয়ায় অর্থনৈতিক টানাপোড়নে বিপাকে পড়েছে শিল্পীরা। দিনরাত কঠোর পরিশ্রম করেও দু’বেলা পেট পুরে খাওয়ার সৌভাগ্য হচ্ছে না তাদের। তাছাড়া অর্থাভাবে শিক্ষা, চিকিৎসাসহ সর্বক্ষেত্রেই ভোগান্তির শিকার হচ্ছে কামার শিল্প তথা কারিগররা। ফলে ইতিমধ্যে অনেকেই ছেড়ে দিয়েছে বাপ-দাদার এ পেশা। দুঃখভরা হৃদয়ে উপজেলার ফিলিপনগর কামার শিল্পের কারিগর সাজদার কর্মকার (৫০) জানান, দেশজুড়ে দা, বটি, খুন্তা, কুড়াল, কোদাল, ছুরি, নিড়ানী, লাঙ্গলের কিছু চাহিদা থাকলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রে উৎপাদন খরচ বেশী হওয়ায় লাভের পরিবর্তে লোকসান হচ্ছে আমাদের। এ শিল্পের প্রধান উপকরণ হচ্ছে লোহা ও ইস্পাত। লোহা ও ইস্পাতের অস্বাভাবিক হারে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই সাথে বৃদ্ধি পেয়েছে কারিগরদের ব্যবহৃত হাতুড়ি, সাঁড়াশিসহ অন্যান্য যন্ত্রপাতির মূল্য। বর্তমানে এক বস্তা কাঠ কয়লা ক্রয় করতে আড়াইশো থেকে ৩ শত টাকা লাগে। যা ২/৩ বছর আগে অর্ধেকেরও কম মূল্যে পাওয়া যেত। অথচ আমাদের তৈরী জিনিসপত্রের দাম খুব একটা বাড়েনি। উপজেলার আল্লারদর্গা হিন্দু পাড়ার কামার শিল্পের সুদিপ্ত কর্মকার বলেন, আমি ২৪  বছর ধরে কামার শিল্পের কাজ করে যাচ্ছি। বর্তমানে কয়লা ও লোহার দাম অতিরিক্ত বৃদ্ধি পাওয়া লাভের স্থলে লোকসান শুণতে হচ্ছে। তাই সরকার যদি আমাদের কামার শিল্পের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়ায় হয়তো আবার এ শিল্প মাথা উচু করে দাড়াতে পারবে। তাছাড়া এখন আধুনিক প্রযুক্তিতে ষ্টীল দিয়ে নির্মিত দা, ছুরি, কুড়ালসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় উপকরণ বাজারে রেডিমেট কিনতে পাওয়া যায়। তাই অনেকে আমাদের তৈরী জিনিস ক্রয় করতে চায় না। এ কারণেই অনাহারে, অর্ধাহারে আমাদের জীবন হয়ে উঠেছে চরম দুর্বিসহ। বাচ্চাদের লেখা-পড়ার খরচ যোগানোও দুঃসাধ্য হয়ে উঠেছে। এমতাবস্থায় সরকারসহ দেশের সকল বিত্তশালীদের সহযোগিতা কামনা করেছেন অসহায় এ সম্প্রদায়ের কামার শিল্প কারিগররা।

নারী নির্যাতনকারীরা বিএনপি-জামায়াতের চেয়েও ভয়ঙ্কর – নাসিম

ঢাকা অফিস ॥ নারী নির্যাতনকারীরা বিএনপি-জামায়াতের চেয়েও ভয়ঙ্কর বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ‘শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস’ উপলক্ষে এক আলোচনাসভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন এই দেশে পয়সা দিলেই আইনমৃঙ্খলা বাহিনীকে কেনা যায়, পয়সা দিয়ে আইনজীবী কেনা যায়- এমনকি আদালত পর্যন্ত কেনা যায় পয়সা দিয়ে। তাই বলতে চাই- ধর্ষণের বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনাল করে দ্রুত বিচার করুন। তা হলে দেখবেন এসব অপরাধ কমে গেছে। বিএনপি-জামায়াতের চেয়েও ভয়ঙ্কর এসব অপরাধী। নাসিম বলেন, প্রতিদিন দেখছি নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, শিশু হত্যা এসব আমাদের গভীরভাবে উদ্বিগ্ন করে। এ ঘটনার ক্রিমিনালরা প্রকাশ্য ঘুরে বেড়াচ্ছে। আইনমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে সাবেক এই স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এ সামাজিক অপরাধগুলো বন্ধ করার জন্য দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রয়োজনে বিশেষ ট্রাইব্যুনালের ব্যবস্থা করুন। বাইরের দেশগুলোতে দেখুন, তারা প্রতিটি ঘটনার দ্রুত বিচার করে। তাই তাদের অপরাধগুলো কমে আসে।

ধান পোড়ানোর ঘটনা পরিকল্পিত – খাদ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, টাঙ্গাইলে ধান পোড়ানোর ঘটনা একটি পরিকল্পিত বিষয়। কারণ, একজন পিতা তাঁর সন্তান বিকলাঙ্গ হোক না কেন, গলাটিপে মেরে ফেলতে পারবে না। ধানের দাম দুইশ টাকা হলেও কৃষক পোড়াবে না। মনে ক্ষোভ হবে। গতকাল বুধবার সকালে সিরাজগঞ্জে খাদ্য বিভাগ আয়োজিত অভ্যন্তরীণ বোরো সংগ্রহ ২০১৯-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন খাদ্যমন্ত্রী। খাদ্যমন্ত্রী বলেন, কিন্তু এমনই পরিকল্পিত যে, প্রথম আলো পত্রিকার রিপোর্টাররা সকালেই চলে গেল। টিভি সকাল বেলাই চলে গেল। তার পরে ধানে আগুন দেওয়া হলো। এটি সরকারকে পর্যুদস্ত করার একটা পরিকল্পনা। েেজলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে খাদ্যমন্ত্রী আরো বলেন, আমরা শপথ নিতে চাই, প্রকৃত প্রান্তিক কৃষক ছাড়া ধান একটি কেজিও বাইরে কিনতে দেব না। কারণ, সরকারকে পর্যুদস্ত করার জন্য নানাভাবে পরিকল্পনা করা হচ্ছে। কৃষকরা ন্যায্যমূল্য পাচ্ছে না। আমিও একজন কৃষক। ধান বিক্রি করি। আমারও কষ্ট আছে। আমি এবং কৃষিমন্ত্রী এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেছি। কারণ, প্রকৃত কৃষকের কাছ থেকে ধান না কেনা পর্যন্ত আমরা কিন্তু কৃষকদের ঠিকমতো মূল্যায়ন করতে পারব না। কারণ, যে লক্ষ টন ধান কেনা তা এক্কেবারে কম বলে আমি মনে করি। সাধন চন্দ্র মজুমদার আরো বলেন, ১০ লক্ষ টন সিদ্ধ চাল, দেড় লক্ষ টন আতপ চাল কেনা সম্ভব। কিন্তু ধান এবং চাল যদি একই গোডাউনে রাখা যায়, তাহলে ধান ও ক্ষতিগ্রস্ত হয়; চালও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। কৃষকরা ধান নিয়ে আসার পর ১৪ শতাংশ ময়েশ্চার যেন না থাকে, তখন ওসি এলএসডিও মনে করে এ ধান নেওয়া যাবে না। যতই ঘোরানো যায়, ততই মজা পাওয়া যায়। তার ওপর লেবারদের একটি খবরদারি দিয়ে দেয় তোরা অত্যাচার করবি, যাতে কৃষকরা চলে যায়। এটা বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক ইফতেখার উদ্দিন শামীম, সিরাজগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট আবু ইউসুফ সূর্য্য, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি কে এম হোসেন আলী হাসান, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন, সিরাজগঞ্জ মিল মালিক সমিতির সভাপতি আবদুল মোতালেব, কাজীপুর উপজেলার চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তী।

 

ভেড়ামারায় সন্ত্রাসী হামলার প্রধান আসামী কর্ণকুন্ডুসহ আটক-২

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা কলেজ বাজারের বিশিষ্ট মুদি ব্যবসায়ী জুলফিকার আলীর দোকানে চাঁদাবাজি, হামলা, দোকানের মালামাল তছরুপ, ভাংচুর ও তাকে বেধড়ক মারপিটের ঘটনায় ভেড়ামারা থানায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামি কর্ণকুন্ডু ও তার সহদর কাজল কুন্ডুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার সকালে ভেড়ামারা থানার সাব-ইন্সপেক্টর কুদ্দুস কবিরের নেতৃত্বে তাদের ২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানা গেছে।

ব্যক্তির পেট থেকে বের হলো ১১৬ পেরেক ও লোহার তার

ঢাকা অফিস ॥ রাজস্থানের কোটার বুন্দি সরকারি হাসপাতালে ভোলা শঙ্কর (৪২) নামে এক ব্যক্তির পেটে অস্ত্রোপচারের পর ১১৬টি পেরেক বের করেছেন চিকিৎসকরা। এ ছাড়া তার পেট থেকে বের করা হয়েছে লোহার তার ও পাত। দেড় ঘণ্টার অপারেশন শেষে এসব ধাতব বস্তু বের করা হয়। এ বিষয়ে চিকিৎসক ড. অনিল সাইনি জানান, গত রোববার পেটের ব্যথা নিয়ে ভোলা শঙ্কর আমাদের কাছে আসেন। প্রথমে এক্সরে করে ওই রোগীর পেটে পেরেকজাতীয় বস্তুর উপস্থিতি টের পাওয়া যায়। বিষয়টি নিশ্চিত হতে তাকে সিটিস্ক্যান করতে বলা হয়। সেই রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরই তার অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে এসব ধাতব বস্তু বের করা হয়। তিনি জানান, পেরেকের বেশিরভাগের দৈর্ঘ্য সাড়ে ছয় সেন্টিমিটার। অপারেশনের পর ভোলা শঙ্কর সুস্থ আছেন এবং স্বাভাবিকভাবেই কথাবার্তা বলতে পারছেন। ভোলা শঙ্কর পেশায় একজন মালি। তবে এসব পেরেক কিভাবে তার পেটে গেল সে বিষয়ে কিছুই বলতে পারছেন না তিনি। এমনকি তার পরিবারের লোকজনও বিষয়টি সম্বন্ধে কিছুই জানে না। এর আগে কলকাতাতেও এমন এক ঘটনা ঘটেছিল। সেখানে এক ব্যক্তির পেট থেকে আড়াই সেন্টিমিটার লম্বা বেশ কয়েকটি পেরেক উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়া ২০১৭-র জুলাইতে সেখানকারই বদ্রীলাল নামে এক ব্যক্তির পেট থেকে অন্তত ১৫০টি সুচ ও পেরেক বের করা হয়।

 

মিরপুরে শিক্ষা অফিসারকে হাত করে অবৈধভাবে সভাপতি ভাঙ্গলেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন

মিরপুর অফিস ॥ নিজের স্বার্থ রক্ষায় বিদ্যালয়ের জমিতে অবৈধভাবে স্থাপিত দোকান ঘরকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যালয়ের একটি ভবন অবৈধভাবে ভেঙ্গে তা হরিলুট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলামের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে মঙ্গলবার (১৪ মে) বিদ্যালয়ে পরিচালনা পরিষদের জরুরী সভা ডেকে বিষয়টি ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন নুরুল ইসলাম। জানা যায়, কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের কচুয়াদহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়নের লক্ষে সরকার প্রায় দুই কোটি টাকা ব্যয়ে নতুন ভবনের অনুমোদন দেয়। এরই প্রেক্ষিতে বিদ্যালয়ের একটি পুরাতন ভবন যা ১৯৯৭ সালে প্রতিষ্ঠিত। গত ৪ মে তারিখেও যার ৫টি শ্রেণী কক্ষে পাঠদান করা হয়েছে। ভবনটিকে ঝুকিপূর্ণ, পরিত্যক্ত ও অব্যবহৃত দেখিয়ে গত ১২ মার্চ তারিখে নিলামে দেওয়া হয়। এসময় উক্ত বিদ্যালয়ের সভাপতি নুরুল  ইসলামকে নিলামে সর্বোচ্চ ১৫ হাজার টাকা দরদাতা হিসাবে ভবনটি ভেঙ্গে অপসারণের দায়িত্ব পান। বিদ্যালয়ের দেওয়া তথ্য মতে, ১৯৯৭ সালে এই ভবনটি নির্মান করতে ব্যয় হয় ৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। যা মাত্র ২১ বছরেরই নষ্ট হয়ে গেছে। এদিকে নিলামে দেওয়া হয় যে ভবন সেটিসহ বিদ্যালয়ের আরেকটি ভবন ভেঙ্গে তা আত্মসাৎ করেছেন নুরুল ইসলাম। এছাড়া নিলামকৃত ভবনের আসবাবপত্র, বৈদ্যুতিক পাখা, জানালা, দরজা, বেঞ্চসহ কিছুই অবৈধভাবে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অনান্য সদস্যদের না জানিয়ে বিক্রি করে দিয়েছেন ঐ সভাপতি। বিষয়টি জানা জানি হওয়ার পরে মঙ্গলবার (১৪ মে) সকালে জরুরী সভা ডাকা হয়। সেখানে বিষয়টি অন্যান্য সদস্যদের কাছে জানান সভাপতি নুরুল ইসলাম। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সহ-সভাপতি জিয়াউল হক জানান, বিদ্যালয়ের ভবন নিলাম হওয়ার ব্যাপারে আমরা কমিটির অন্য সদস্যরা কেউ কিছু জানি না। শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে সভাপতি এবং ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক চায়েনা খাতুন এ কাজ করেছেন। আর বিদ্যালয়ের একটি ভবন নিলামে ভাঙার কথা থাকলেও সভাপতি দুইটি ভবন ভেঙ্গেছেন। এটা মুলত তার ব্যক্তিগত স্বার্থে এবং  অবৈধ দোকান বাঁচানোর জন্য। তিনি আরো জানান, ভবনটিতে আসবাবপত্রসহ ৮টি বৈদ্যুতিক ফ্যান ছিলো যা বর্তমানে সভাপতির ভাইয়ের পোল্টি ফার্মে কাজে লাগিয়েছেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কচুয়াদহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক চায়েনা খাতুন জানান, বিদ্যালয় বর্তমানে ছুটি রয়েছে। আমি কিছু জানি না। বিষয়টি সভাপতি এবং শিক্ষা অফিসার জানেন। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলাম জানান, আমি নিলামে ভবন নিতে চাইনি। উপজেলা শিক্ষা অফিসার সিরাজুল ইসলাম জোর করে আমাকে এ কাজ দিয়েছেন। আমি অতিরিক্ত যে ভবন ভেঙ্গেছি সেটা নিলামে নেই। তবে শিক্ষা অফিসার সিরাজুল ইসলাম বলেছেন নিলামে অর্ন্তভূক্ত করে দিবেন। তিনি আরো জানান, বিদ্যালয়ের সীমানায় ৫টি দোকান রয়েছে। যেগুলো স্থানীয়রা অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে। আমরা আজকে ম্যানেজিং কমিটির সভায় সেগুলো ভাঙ্গার ব্যপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আর ভেঙ্গে ফেলা ভবনের ফ্যানসহ আসবাবপত্র আমি ফেরত দিয়ে দেবো। এদিকে স্থানীয়দের অভিযোগ রয়েছে বিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় যে ৫টি দোকান রয়েছে সেগুলো বিদ্যালয়ের সভাপতি নুরুল ইসলামের ছত্রছায়ায় চলে। নিয়মিত সেখান থেকে টাকা নিয়ে থাকে।মিরপুর উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার সেলিনা হক জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে আমি সরেজমিনে গিয়ে দেখে তদন্ত করে এসেছি। মুলতঃ বিদ্যালয়ের সীমানায় থাকা অবৈধ দোকান ঘর বাঁচানোর জন্যই বিদ্যালয়ের সভাপতি অন্য ভবনটি ভেঙ্গেছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এদিকে সদ্য বিদায়ী মিরপুর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম যিনি বর্তমানে যশোর সদর উপজেলায় কর্মরত। একাধিকবার তার মুঠোফোনে চেষ্টা করা হলেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।  সদ্য যোগদানকৃত মিরপুর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ব্যাপারে মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম জামাল আহম্মেদ জানান, আমি বিষয়টি জানি না। তবে খোঁজ নিয়ে দেখছি। কুষ্টিয়া জেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সানাউল হাবিব জানান, নিলামের বাইরে কোন ভবন ভাঙলে যদি কেউ লিখিত অভিযোগ করেন তাহলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কুমারখালীর নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা

কুমরখালী প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার ৫নং নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদ সভাকক্ষে বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ সহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের উপস্থিতিতে ১ কোটি ১০ লক্ষ টাকার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা করেন, নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: নওশের আলী বিশ্বাস। উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কুমারখালী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল মান্নান খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি টিপু সুলতান, ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা আব্দুল হক, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা নূরুল ইসলাম। উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: নওশের আলী বিশ্বাস। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সুকুমার বিশ্বাস।

ঢাকায় সড়ক দূর্ঘটনায় গাংনীর জুয়েল রানা নিহত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ ঢাকায় চাকরীতে যোগদান করে   কাজের যাওয়ার পথে ট্রাকের ধাক্কায় জুয়েল রানা (২৪) নামের একজন নিহত হয়েছেন। নিহত জুয়েল রানা মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার ষোলটাকা ইউনিয়নের ভোলাডাঙ্গা গ্রামের মুনতাজ আলী মোল্লার ছেলে এবং গাংনী ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের অন্যতম সদস্য। এ সময় আহত হয়েছেন তুহিন হোসেন (২৪) নামের তার এক সহকর্মী। আহত তুহিন একই গ্রামের সানোয়ার হোসেনের ছেলে। গতকাল বুধবার সকালের দিকে ঢাকার নারায়ণগঞ্জ এলাকায় একটি ট্রাকের ধাক্কায় হতাহতের ঘটনা ঘটে। নিহত জুয়েল রানার পারিবারিক সূত্র জানায়, জুয়েল রানা ও তুহিন একটি কোম্পানীর চাকুরী  পেয়েছিল। তারা গত রবিবার বাড়িতে থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। বুধবার সকালে তারা কোম্পানীতে যোগদান করে। যোগদানের পরপরই জুয়েল ও তুহিনসহ কয়েকজন স্টাফ কোম্পানীর একটি ট্রাকে চড়ে ঢাকার নারায়ণগঞ্জ এলাকার একটি সড়ক দিয়ে যাচ্ছিল। তাদের বহন করা ট্রাকটি নষ্ট হয়ে গেলে, ট্রাকের পাশে জুয়েল রানা ও তুহিন দাঁড়িয়ে ছিল। এ সময় পাশ দিয়ে যাওয়া দ্রুতগামি অপর একটি ট্রাক দু’জনকে ধাক্কা দেয়। ওই ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই জুয়েল রানা নিহত হয়। আহত হয় সহকর্মী তুহিন। এ সময় পথচারীরা তুহিনকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় জুয়েল রানার লাশ গ্রামের বাড়ি ভোলাডাঙ্গায় পৌঁছালে তাকে দেখতে আসা কয়েক হাজার মানুষের কান্নায় স্তব্ধ হয়ে যায় পুরো এলাকা। পাগল প্রায় তার মা-বাবাসহ নিকট আত্মীয়রা। রাত ৮টার দিকে জানাজা শেষে ভোলাডাঙ্গা গোরস্থান ময়দানে দাফন সম্পন্ন হয়। এদিকে ছোট বেলা থেকে বেঁড়ে উঠা তরুন সমা সেবক জুয়েল রানার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন, জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরামের মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী সিরাজুল ইসলাম স্যার, দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর ভিটিআর ও গাংনী মহিলা ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক মহিবুর রহমান মিন্টু, দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর গাংনী এলাকা সমন্বয়কারী হেলাল উদ্দীনসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ।

দৌলতপুরে দোকান ঘর ভাংচুর ও লুট : জমি দখল

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মন্টু মিয়া নামে এক দরিদ্র ব্যবসায়ীর ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মুদি দোকান ঘর ভাংচুর ও লুট করে জমিখ দখল নিয়েছে একটি প্রভাবশালী মহল। এ ঘটনায় দৌলতপুর থানায় অভিযোগ করা হলে পুলিশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলাকারী হাবলুকে আটক করার পর অজ্ঞাত কারনে ছেড়ে দিয়েছে। উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের চকঘোগা মোড়ে অবস্থিত একই এলাকার মো. মন্টু মিয়ার ক্ষুদ্র ব্যবসা মুদি দোকানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লক্ষাধিক টাকার সম্পদ লুট শেষে দোকান ঘর উচ্ছেদ করে জমি দখল করে নেয়। গতকাল বুধবার দুপুরে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে মন্টু মিয়া অভিযোগ করে বলেন, সে চকঘোগা মোড়ে ক্ষুদ্র মুদি ব্যবসার মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিল। হঠাৎ করে গত ৬ মে সকাল ৮টার দিকে একই এলাকার প্রভাবশালী হাবলু (৪০), রানা (৩৫), ডলার (৩০) ও সাহাবুদ্দিন (৬৫) সশস্ত্র সংগবদ্ধ হয়ে তার দোকান ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট শেষে দোকান ঘর উচ্ছেদ করে এবং জোরপূর্বক জমি দখল করে নেয়। এ ঘটনায় দৌলতপুর থানায় অভিযোগ করা হলে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হাবলুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসার পর ছেড়ে দেয়। বর্তমানে অসহায় দরিদ্র মন্টু মিয়া পরিবার পরিজোন নিয়ে অনাহার অর্ধাহারে সুবিচারের আসায় বিভিন্ন জনের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে। মন্টু মিয়া আরো অভিযোগ করেন, জমি জবরদখলকারী প্রভাবশালী হাবলু গংরা পুলিশের সাথে পরামর্শ করে তার দোকান ঘর ভাংচুর ও লুট শেষে জমি দখল নিয়েছে বলে হামলাকারীরা এলাকাবাসীকে জানিয়েছে। তাই রক্ষক যদি ভক্ষক হয় তা’হলে আমাদের মত অসহায় মানুষের জায়গা কোথায় বলে মন্তব্য করেন মন্টু মিয়া। দোকান ঘর ভাংচুর ও লুটের বিষয়ে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আল মামুন বলেন, একজন নিরীহ দরিদ্র ব্যক্তি মন্টু মিয়ার দোকান ঘর ভেঙ্গে উচ্ছেদ করে তার জায়গা দখল নেওয়ার বিষয়টি মগের মূল্লুকের মত অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে মন্টু ওই দোকান দিয়ে কোনমতে সংসার পরিচালনা করে আসছে। পুলিশকে জানানোর পরও তাকে এভাবে জবরদস্তি করে উচ্ছেদ করা অনৈতিক বলে মনে করি। এ বিষয়ে অভিযোগ তদন্তকারী অফিসার দৌলতপুর থানার উপ-পরিদর্শক প্রকাশ কুমার জানান, দোকান ঘর ভাংচুরের খবর পেয়ে তৎক্ষনাত ঘটনাস্থলে গিয়ে একজনকে আটক করা হয়। পরে কি হয়েছে তা আমার জানা নেই।

খালেদাকে কেরাণীগঞ্জ কারাগারে স্থানান্তরে বিএনপির খুশি হওয়ার কথা ঃ তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কারাগার থেকে খালেদা জিয়াকে কেরানীগঞ্জের নতুন কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তরে সরকারের সিদ্ধান্তে বিএনপির খুশি হওয়া উচিত বলে মনে করছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ। সচিবালয়ে গতকাল বুধবার ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাসের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তথ্যমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা হাছান মাহমুদ। দুর্নীতির দুই মামলায় সাজা নিয়ে গত বছর ফেব্র“য়ারি থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের পরিত্যক্ত পুরনো কারাগারে রয়েছেন বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়া। পরিত্যক্ত ওই কারাভবনের স্যাঁতস্যাঁতে কক্ষে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের মারাত্মক অবনতি হয়েছে বলে অভিযোগ করে আসছিলেন বিএনপি নেতারা। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে খালেদার চিকিৎসা চলছে। চিকিৎসা শেষে তাকে কেরানীগঞ্জের নতুন কারাগারে স্থানান্তর করা হবে বলে গত মঙ্গলবার জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির পক্ষ থেকে বার বার বলা হচ্ছিল যে খালেদা জিয়াকে পুরনো একটি বিল্ডিংয়ে স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশে রাখা হয়েছিল। একটি পুরনো ভবনে নির্জন কারাগারে তাকে রাখা হচ্ছিল, যেখানে অন্য কোনো বন্দি নেই। যদিও খালেদা জিয়াকে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখার আগে ওই ভবনকে সংস্কার করে সেখানে সব সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হয়েছিল বলে দাবি করেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, কেরানীগঞ্জের কারাগারে অন্য সব বন্দিকে অনেক আগেই স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সেখানে নতুন ভবন এবং সেটি একেবারে আধুনিক ভবন, সেখানে সমস্ত সুযোগ-সুবিধা আছে। এতে তো বিএনপির খুশি হওয়ার কথা। কিন্তু দেখলাম যে রিজভী আহমেদ এটি নিয়েও একটি সংবাদ সম্মেলন করেছেন। এখন কোথায় রাখলে যে তারা খুশি হবে সেটি বুঝতে পারছি না। পুরনো কারাগারকে জাদুঘরে রূপান্তরের সিদ্ধান্ত হওয়ায় খালেদা জিয়াকে কেরানীগঞ্জের কারাগারে স্থানান্তরিত করা হচ্ছে জানিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, এটি (পুরানো কারাগার) এখন আর রেগুলার কারাগার নয়, কেরানীগঞ্জের কারাগারটি রেগুলার কারাগার। আমি মনে করি বিএনপির তো খুশি হওয়ার কথা। যেহেতু তারা বলেছিল পুরনো ভবনে রাখা হয়েছে খালেদা জিয়াকে, এখন তো নতুন ভবনে নিয়ে যাওয়া হবে। ‘সরকার হতাশায় নিমজ্জিত হয়েছে’- মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপিই অকার্যকর হয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের মহাসড়কে দেশ অদম্য গতিতে এগিয়ে চলছে। বাংলাদেশ এখন স্বল্প উন্নত দেশের তালিকা থেকে উঠে এসে মধ্যম আয়ের দেশ। খাদ্য ঘাটতির দেশ থেকে খাদ্য উদ্বৃত্ত দেশে রূপান্তরিত হয়েছে। মানুষের মাথাপিছু আয় ৬০০ ডলার থেকে প্রায় দুই হাজার ডলারে উন্নীত হয়েছে। গড় আয়ু ৬৭ বছর থেকে ৭৩ বছরে উন্নীত হয়েছে, রাষ্ট্র এগিয়ে যাচ্ছে, বিএনপি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবদের নেতৃত্বে অকার্যকর হয়ে গেছে। এটিই যদি তিনি বলতেন তাহলে সঠিক বলতেন। ভারতে বিটিভি প্রদর্শন নিয়ে অগ্রগতি: বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভিশন চ্যানেল বিটিভি ভারতে প্রদর্শন নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে বলে জানান তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, এ নিয়ে সুসংবাদ তৈরি হয়ে আছে, এখন শুধু ঘোষণার অপেক্ষা। তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলো যাতে ভারতে দেখানো সম্ভবপর হয় সেটি নিয়ে আলোচনা করেছি। বিটিভি ভারতে দেখানোর ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে। আমি এখনই এ ব্যাপারে বলতে চাই না, যেহেতু ভারতে নির্বাচন চলছে। কিন্তু খুব সহসা আপনাদের সুসংবাদ আমরা দিতে পারব, সুসংবাদ তৈরি হয়ে আছে, (এখন) ঘোষণা করতে চাই না। বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণে স্ক্রিপ রাইটার আগামি সপ্তাহে বাংলাদেশে আসবেন বলে জানান হাছান মাহমুদ। ভারত-বাংলাদেশের প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধুর ওপর একটি ছবি নির্মিত হতে যাচ্ছে। সেই ছবির পরিচালক হচ্ছেন শ্যাম বেনেগাল। সেটি নিয়ে বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা গওহর রিজভীর নেতৃত্বে তথ্য সচিবসহ সেখানে গিয়েছিলেন। সেখানে অনেক গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে। বঙ্গবন্ধু ফিল্মের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। স্ক্রিপ রাইটার আগামি সপ্তাহে বাংলাদেশে আসবেন এবং দুই সপ্তাহ থাকবেন। হাছান মাহমুদ জানান, যৌথ মালিকানা ও প্রযোজনায় এই চলচ্চিত্রটিতে বাংলাদেশের ৬০ ভাগ এবং ৪০ ভাগ মালিকানা ভারত সরকারের। ইতোমধ্যে ভারতের পক্ষ থেকে প্রযোজনীয় অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, কাজ শুরু হয়ে গেছে। ভারতের হাই কমিশনারের সঙ্গে ভারত-বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী।

পাটিকাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ইফতার ও দোয়া মাহফিল

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার পাটিকাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপির আয়োজনে  পাটিকাবাড়ি বাজার জামে মসজিদে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান আতা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পাটিকাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান বিশ্বাস ও পরিচালনা করেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও  ইউপি চেয়ারম্যান সফর উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বিশ্বাস, শহর আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মীর রেজাউল ইসলাম বাবু, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সভাপতি সাইফুদৌলা তরুন, পাটিকাবাড়ি ক্যাম্প ইনচার্জ আব্দুল লতিফ, শহর ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ডা. আফিল উদ্দিন, কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও আলামপুর কলেজ কমিটির সভাপতি আব্দুল কাদের,  স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জহুরুল ইসলাম।

চুয়াডাঙ্গায় ট্রাকের ধাক্কায় বাবা নিহত, ছেলে আহত

ঢাকা অফিস ॥ চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় ট্রাকের ধাক্কায় হাফিজুর রহমান (৫০) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে এক কিশোর। গতকাল বুধবার সকালে উপজেলার হিজলগাড়ী বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত হাফিজুর উপজেলার নেহালপুর দোকান পাড়া গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে। আহত কিশোর আবু তালহা নিহত হাফিজুরের ছেলে। আহত তালহা জানান, সকালে বাবার সঙ্গে মোটরসাইকেলযোগে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার হিজলগাড়ী বাজারে যাচ্ছিলো সে। এ সময় হিজলগারী বাজারে পৌঁছানোর আগেই পেছন থেকে দ্রুতগতির একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে তার বাবা হাফিজুর ও সে রাস্তায় ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা দ্রুত তাদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তার বাবা হাফিজুরকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত তালহা বর্তমানে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান জানান, ট্রাকটি বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। কিন্তু দুর্ঘটনার পর চালক পালিয়েছেন।

চিকিৎসার জন্য ব্যাংকক গেলেন মির্জা ফখরুল

ঢাকা অফিস ॥ চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে গেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। স্ত্রী রাহাত আরা বেগমকে নিয়ে বুধবার সকাল ১১টা ২০ মিনিটে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে করে ঢাকা ছাড়েন তিনি। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান জানান, ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসা নেবেন বিএনপি মহাসচিব। সেখানকার একজন হৃদরোগের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের এপয়েন্টমেন্টও নেওয়া হয়েছে। আগামী ২০ মে তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে। হৃদরোগের চিকিসার জন্য সর্বশেষ গত বছরের ৩ জুন ব্যাংকক গিয়েছিলেন ফখরুল। হৃদরোগ ছাড়াও বিএনপি মহাসচিবের ঘাড়ে ইন্টারনাল ক্যারোটিভ আর্টারিতে জটিলতা রয়েছে। এর চিকিসা বাংলাদেশে না থাকায় ২০১৫ সালে ১৪ জুলাই কারাবন্দি ফখরুলকে বিদেশে যেতে জামিন দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। এরপর কয়েক দফায় তিনি সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক ও নিউ ইয়র্কে বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

চিকিৎসার জন্য লন্ডন গেলেন রাষ্ট্রপতি

ঢাকা অফিস ॥ চোখের চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য যুক্তরাজ্য ও জার্মানির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। গতকাল বুধবার সকাল ৯টায়  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে রাষ্ট্রপতি লন্ডনের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়েন। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে মোমেন বিমানবন্দরে তাকে বিদায় জানান। কূটনৈতিক কোরের ডিন, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির দূত, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, মুখ্য সচিব, তিন বাহিনীর প্রধান, আইজিপি ও স্বরাষ্ট্র সচিব এ সময় উপস্থিত ছিলেন। লন্ডনের মুরফিল্ড আই হসপিটালে চোখের চিকিৎসা এবং বুপা ক্রমওয়েল হসপিটালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাবেন রাষ্ট্রপতি। পরে সেখান থেকে তিনি জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টে যাবেন। এই সফর শেষে ২৬ মে রাষ্ট্রপতির দেশে ফেরার কথা রয়েছে বলে তার প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন জানান।  ৭৫ বছর বয়সী আবদুল হামিদ দীর্ঘদিন ধরে গ্লুকোমায় ভুগছেন। স্পিকার থাকা অবস্থায় চিকিৎসার জন্য নিয়মিত তাকে সিঙ্গাপুরে যেতে হত। রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর সিঙ্গাপুরের পাশাপশি লন্ডনেও স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও চোখের চিকিৎসার জন্য যেতে হচ্ছে তাকে।

 

বিতর্কিতদের ছাত্রলীগের কমিটি থেকে বাদ দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

ঢাকা অফিস ॥ ছাত্রলীগের সদ্য ঘোষিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি থেকে বিতর্কিতদের বাদ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বুধবার দুপুরে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ নির্দেশ দেন। রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বিষয়টি নিশ্চিত করেবলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছি। হামলায় জড়িত ও কমিটিতে পদ পাওয়া বিতর্কিতদের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। তদন্ত করে হামলায় জড়িত ও বিতর্কিতদের বিষয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে সেসব পদ শূণ্য ঘোষণা করা হবে। তিনি আরও বলেন, কমিটি নিয়ে যারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন পোস্ট দিচ্ছেন ও অভিযোগ করছেন তাদেরকে বলবো, আপনারা সেসব তথ্য আমাদেরকে দিন। আমরা ব্যবস্থা নেবো। এদিকে ছাত্রলীগের ‘পদবঞ্চিতদের ওপর হামলা’র ঘটনা তদন্তের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। বুধবার রাতে বা বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যেই তদন্তের প্রতিবেদন দফতর সেলে জমা হওয়ার কথা জানান কমিটির সদস্য ও ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। এরআগে, ঘটনার দিন তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে ঘটনার দিন হতে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওেয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। উল্লেখ্য, ৩০১ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটিতে অছাত্র, ছাত্রদলের কর্মী, বিবাহিত ও বিতর্কিতদের স্থান দেওয়া হয়েছে, এমন অভিযোগ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনের সময় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে।

আয়ারল্যান্ডকে উড়িয়ে বাংলাদেশের ফাইনাল ‘প্রস্তুতি’

ঢাকা অফিস ॥ আয়ারল্যান্ড দাঁড় করলো ২৯২ রান। আগের দুই ম্যাচের তুলনায় ছিল চ্যালেঞ্জিং স্কোর। যদিও শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একবারের জন্য লক্ষ্যটা কঠিন মনে হয়নি বাংলাদেশের। হেসেখেলেই আইরিশদের উড়িয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালের ‘প্রস্তুতি’ পর্ব সেরে নিলো টাইগাররা। ডাবলিনের জয়টা বাংলাদেশের ৬ উইকেটের। শুক্রবার শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তার আগে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি ছিল নিয়মরক্ষার। তবে বিশ্বকাপের আগে খেলোয়াড়দের যাচাই-বাছাই করার সঙ্গে ফাইনালের প্রস্তুতিতে গুরুত্ব কম ছিল না। ডাবলিনের ম্যাচে সেই প্রস্তুতিও হলো দুর্দান্ত। আইরিশদের নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে করা ২৯২ রান ৭ ওভার আগেই মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে টপকে গেছে বাংলাদেশ। তবে এই জয়ের মাঝে অস্বস্তিও মিশে থাকলো। দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় সাকিব আল হাসানকে যে চোট নিয়ে ছাড়তে হয়েছে মাঠ! হাফসেঞ্চুরি পূরণ করে তিনি রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছেড়েছেন সাইড স্ট্রেইনের সমস্যায়। এই অংশ বাদ দিলে আয়ারল্যান্ডে আরেকটি চমৎকার দিন কাটিয়েছে বাংলাদেশ। আবু জায়েদ রাহীর ৫ উইকেট প্রাপ্তির পর ব্যাটিয়েও চমৎকার শুরু পায় টাইগাররা। ‘নতুন’ ওপেনিং সঙ্গী লিটন দাসকে নিয়ে তামিম ইকবাল গড়েন ১১৭ রানের জুটি। দুজনই পূরণ করেন হাফসেঞ্চুরি। তামিম করে যান ৫৭ রান, আর সুযোগ পেয়ে ৭৬ রানের ইনিংস খেলে নিজেকে প্রমাণ করেন লিটন। এরপর সাকিব (৫০*) ও মুশফিকুর রহিমের (৩৫) ব্যাটে জয়ের সুবাস পেতে থাকে বাংলাদেশ। যেটা নিশ্চিত করেন মাহমুদউল্লাহ (৩৫*) ও সাব্বির রহমান (৭*)। মোসাদ্দেক হোসেন করেছেন ১৪ রান। বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের দাপটের দিনে আয়ারল্যান্ডের সবচেয়ে সফল বোলার বয়েড রানকিন। এই পেসার ৭ ওভারে ৪৮ রান দিয়ে পেয়েছেন ২ উইকেট।
ম্যাচসেরা রাহী ঃ বিশ্বকাপের আগে নিজেকে চেনালেন আবু জায়েদ রাহী। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ম্যাচেই এই পেসার তুলে নিয়েছেন ৫ উইকেট। ৯ ওভারে ৫৮ রান খরচায় ৫ উইকেট নেওয়ার পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি ম্যাচসেরা হয়ে।
চোট পেয়ে মাঠ ছাড়লেন সাকিব ঃ লেগ সাইডে পুল করে রান নিতে গিয়েই কোমরের ঠিক উপরের দিকে চেপে ধরলেন সাকিব আল হাসান। সেজন্য মাঠেই চিকিৎসা নিলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার। তবে তাকে নিয়ে হয়তো ঝুঁকি নিতে চায়নি বাংলাদেশ। তাই রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছেড়েছেন সাকিব।
টিভি পর্দায় সাকিবকে দেখে বোঝা গেছে, সাইড স্ট্রেইনে সমস্যা হচ্ছিল তার। পুল করতে গিয়েই টান লেগেছে তার। মাঠে চিকিৎসা নেওয়ার পরও খেলা চালিয়ে যাচ্ছিলেন সাকিব। তবে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪২তম হাফসেঞ্চুরি পূরণ করার পর রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন তিনি।
দুর্দান্ত ক্যাচে থামলেন মুশফিক ঃ ছোঁ মেরে বল গ্লাভসবন্দী করলেন গ্যারি উইলসন। মুশফিকুর রহিমের সম্ভাবনাময় ইনিংসটিও থেমে যায় তাতে। অসাধারণ এক ক্যাচে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন এই ব্যাটসম্যান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আগের খেলায় ম্যাচজেতানো ৬৩ রানের ইনিংস এসেছিল মুশফিকের ব্যাট থেকে। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষেও শুরুটা হয়েছিল তার দারুণ। কিন্তু বয়েড রানকিনের বলে আইরিশ উইকেটরক্ষক উইলসনের চমৎকার ক্যাচে ৩৫ রানে শেষ হয়েছে তার ইনিংস। ৩৩ বলের ইনিংসে মেরেছেন তিনি ৫টি বাউন্ডারি। লেগ সাইডে মুশফিকের ফ্লিক করা বলটি বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে গ্লাভসবন্দী করেন উইলসন।
চমৎকার ইনিংস খেলে ফিরলেন লিটন ঃ টিম ম্যানেজমেন্টের কাজ কঠিন করে তুললেন লিটন দাস। আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে একাদশে সুযোগ পাননি তিনি। তবে স্বাগতিকদের বিপক্ষে সৌম্য সরকারের বিশ্রামে জায়গা পাওয়া এই ওপেনার প্রমাণ করলেন নিজেকে। আইরিশদের বিপক্ষে খেলে গেছেন ৭৬ রানের কার্যকরী ইনিংস। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় হাফসেঞ্চুরি পূরণ করে বোল্ড হয়ে ফিরেছেন তিনি ব্যারি ম্যাকার্থির বলে। আউট হওয়ার আগে ৬৭ বলে ৯ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ৭৬ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ফাইনালের সঙ্গে বিশ্বকাপের একাদশে থাকার জোর দাবি জানিয়ে গেছেন লিটন।
হাফসেঞ্চুরি করেই তামিম আউট ঃ আরেকবার হতাশায় ডুবলেন। আরেকবার ভালো শুরু করেও ইনিংস লম্বা করতে না পারার আক্ষেপে পুড়লেন তামিম ইকবাল। চমৎকার ব্যাটিংয়ে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করার পরপরই আউট হয়ে গেছেন বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল ওপেনার। আগের ম্যাচের হতাশা দূর করে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪৬তম হাফসেঞ্চুরি পূরণ করলেও ৫৭ রানে দুর্ভাগ্যজনক আউটে ফিরতে হয়েছে তাকে। রয়েড রানকিনের বল তার ব্যাটে লেগে আঘাত করে স্টাম্পে। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে ৫৩ বলের ইনিংসটি তামিম সাজান ৯ বাউন্ডারিতে।
সুযোগ পেয়েই লিটনের ফিফটি ঃ সুযোগ পেয়েই নিজেকে প্রমাণ করলেন লিটন দাস। সৌম্য সরকারকে বিশ্রাম দিয়ে লিটনকে নামানো হয়েছে ওপেনিংয়ে। তামিমের সঙ্গে ইনিংস শুরু করে এই ব্যাটসম্যান পূরণ করেছেন হাফসেঞ্চুরি। তামিম ফিফটি পূরণ করার পরপরই তিনিও স্পর্শ করেন মাইলফলকটি। জর্জ ডকরেলের বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেন লিটন। ৪৭ বলে তিনি পান ফিফটির দেখা।
তামিমের হাফসেঞ্চুরি ঃ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ফিরতি ম্যাচটা ভালো কাটেনি তামিম ইকবালের। এক ম্যাচ বিরতি দিয়ে আবার হাফসেঞ্চুরি পূরণ করলেন ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৮০ রানের ইনিংস খেলা বাঁহাতি ওপেনার। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে পূরণ করেছেন তিনি ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪৬তম হাফসেঞ্চুরি। রয়েড রানকিনের বল থার্ডম্যানে ঠেলে দিয়ে ৪৬ বলে ফিফটি পূরণ করেন তামিম। মাইলফলকটি স্পর্শ করতে তামিম মেরেছেন ৮টি বাউন্ডারি।
তামিম-লিটনের ব্যাটে দারুণ শুরু ঃ এই ম্যাচে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে সৌম্য সরকারকে। ত্রিদেশীয় সিরিজের আগের দুই ম্যাচে হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করে এই ওপেনারের বিশ্বকাপ ‘প্রস্তুতি’ হয়েছে দুর্দান্ত। তাকে বিশ্রাম দিয়ে সুযোগ দেওয়া হয়েছে লিটন দাসকে। তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নেমে শুরুটা দারুণ করেছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। তাতে বাংলাদেশের শুরুটাও হয়েছে দারুণ। আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের চেয়ে ঠান্ডা মাথায় দেখেশুনে খেলার পথে হেঁটেছেন তামিম-লিটন। এরপরও ৮.৪ ওভারেই ৫০ ছাড়ায় বাংলাদেশের স্কোর।
আয়ারল্যান্ডের রান ২৯২ ঃ পল স্টারলিংয়ের সেঞ্চুরি (১৩০) ও উইলিয়াম পোর্টারফিল্ডের (৯৪) সেঞ্চুরি ছুঁইছুঁই ইনিংসে আয়ারল্যান্ড নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে করেছে ২৯২ রান। বল হাতে দারুণ দিন পার করেছেন আবু জায়েদ রাহী। এই পেসারের শিকার ৫ উইকেট। আয়ারল্যান্ডের দ্বিতীয় উইকেটটি তুলে নেন রাহী। গত সোমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে অভিষেকে ৯ ওভারে ৫৬ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন এই পেসার। অবশেষে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৫তম ওভারে প্রথম উইকেট পান তিনি। শেষ পর্যন্ত ৯ ওভারে ৫৮ রান দিয়ে তার শিকার ৫ উইকেট। রাহীর ৫ উইকেট প্রাপ্তির দিনে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের শিকার ২ উইকেট। একটি উইকেট পেয়েছেন রুবেল হোসেন।

বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

ঢাকা অফিস ॥ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির ‘আন্তর্জাতিক কর্মসূচি ও যোগোযোগ উপকমিটি’র দ্বিতীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সভাপতিত্বে এ সভা হয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বঙ্গবন্ধুকে আরো বেশি তুলে ধরার জন্য বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। স্বনামধন্য বিভিন্ন আন্তর্জাতিক পত্র-পত্রিকা, ম্যাগাজিনে বাংলাদেশ সৃষ্টিতে বঙ্গবন্ধুর অবিসংবাদিত নেতৃত্ব, সংগ্রামী জীবনালেখ্য, বিখ্যাত ভাষণ প্রভৃতি কিভাবে তুলে ধরা যায় সেসব দিক নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে বিদেশের বাংলাদেশ মিশনসমূহ ও প্রবাসী বাংলাদেশিদের সম্পৃক্ত করার বিষয়ে বিশদ আলোচনা হয় বলেও জানায় সূত্র। সভায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের, ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব মাহবুবুজ্জামান, সাবেক প্রধান তথ্য কমিশিনার মোহাম্মদ জমির, সাবেক রাষ্ট্রদূত সোহরাব হোসেন, ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই-এর সভাপতি শফিউল আলম মহিউদ্দিন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বহিঃপ্রচার অনুবিভাগের মহাপরিচালক মাসুদুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জুলাই থেকে ১০ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট

ঢাকা অফিস ॥ এ বছরের জুলাই থেকে ১০ বছর মেয়াদী ইলেকট্রোনিক্স পাসপোর্ট ইস্যূ করা হবে। সংসদ ভবনে গতকাল বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয স্থায়ী কমিটির সভায় এ কথা জানানো হয়। কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান এতে সভাপতিত্ব করেন। সভায় বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশী মিশনগুলোকে পাসপোর্ট ইস্যু ও নবায়ন কার্যক্রম দ্রুত সম্পন্ন করতে মনিটরিং কার্যক্রম জোরদার করার সুপারিশ করা হয়। কমিটির সদস্য পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ. কে. আবদুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার আলম, নুরুল ইসলাম নাহিদ, মোঃ আবদুল মজিদ খান, নাহিম রাজ্জাক এবং নিজাম উদ্দিন জলিল (জন) সভায় অংশগ্রহণ করেন। সভায় ২০২০ সালের ‘মুজিব বর্ষ’পালনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মপরিকল্পনা ও প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। ‘মুজিব বর্ষ’পালনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে গঠিত আন্তর্জাতিক যোগাযোগ কমিটির সিদ্ধান্তসমূহ স্থায়ী কমিটিকে অবহিত করা এবং গৃহীত কর্মসূচীগুলো চূড়ান্ত করে সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের জন্য সাব- কমিটি গঠন এবং সম্ভাব্য বাজেট প্রণয়নের সুপারিশ করা হয়। এছাড়াও ‘মুজিব বর্ষ’ পালনকালে সকল মিশনের সামনে দৃষ্টিনন্দন ব্যানার ও ফেস্টুন দিয়ে বছরব্যাপী অনুষ্ঠান পালনের আবহ তৈরী করার সুপারিশ করা হয়। সভায় তিউনেশিয়ার ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলে অবৈধভাবে বিদেশ গমনের সময় নিহত বাংলাদেশীদের জন্য শোক ও দুঃখ প্রকাশ করা হয়। যে সব দালাল চক্র অবৈধ মানব পাচারের সঙ্গে জড়িত তাদেরকে চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট মিশনসমূহকে আহত ও নিহতদের সহযোগিতা প্রদানের সুপারিশ করা হয়। সভায় মিশনগুলোতে জনবলের স্বল্পতা নিয়ে আলোচনা করে এ সমস্যা সমাধানে মন্ত্রণালয়কে দ্রুত জনবল নিয়োগের পাশাপাশি তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়িয়ে স্বল্প জনবল সমস্যার সমাধান করার সুপারিশ করা হয়। সভায় কমিটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রশিক্ষণ একাডেমি পরিদর্শনের জন্য মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। সভায় বিদেশী মিশনগুলোকে সমন্বয়ের মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা, ডাটাবেইজ তৈরীর মাধ্যমে প্রবাসীদের সম্পৃক্ত করে সেবার মানোন্নয়ন এবং মিশনে কর্মরতদের মাধ্যমে যাতে প্রবাসীরা কোনভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে বিষয়ে খেয়াল রাখার সুপারিশ করে। সভায় বিদেশে বাংলাদেশী মিশন ও মন্ত্রণালয় সম্পর্কে গণমাধ্যমে কোন বিরূপ সংবাদ প্রকাশিত হলে তাৎক্ষণিক সন্তোষজনক জবাব প্রস্তুত করে পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। সভায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মাহবুবুজ্জামান, মেরিটাইম এফেয়ার্স ইউনিটের সচিব খোরশেদ আলম, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।