মাদক সন্ত্রাস বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে গ্রাম পুলিশদের প্রতি ইউএনও’র নির্দেশনা

কুমারখালী প্রতিনিধি  ॥ মাদক, সন্ত্রাস,বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং ও নারী নির্যাতনসহ সকল প্রকার সামাজিক অপরাধমুলক  কার্যক্রম প্রতিরোধে তৎপর হওয়ার নির্দেশনা প্রদান করেছেন কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজীবুল ইসলাম খান। গতকাল সোমবার বেলা ৩টায় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে উপজেলার গ্রাম পুলিশদের মাঝে পেশাগত সহায়ক উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে এই নির্দেশনা দেন তিনি। এ সময় উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদে কর্মরত ৯০ জন গ্রাম পুলিশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার গ্রাম পুলিশ সদস্যদেরকে যে কোন মূল্যে মাদক, সন্ত্রাস, বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং ও নারী নির্যাতনসহ সামাজিক অপরাধমুলক কার্যক্রম প্রতিরোধ করতে হবে। এ জন্য গ্রাম পুলিশ সদস্যদের সাহসিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে। পরে গ্রাম পুলিশদের হাতে পোশাক, ব্যাগ, ছাতা, লাঠি, রেইনকোর্ট, টর্সলাইট, বাঁশি সহ ১৫ প্রকার সহায়ক উপকরণ তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজীবুল ইসলাম খান।

কালুখালীতে বিভিন্ন আয়োজনে  বাংলা বর্ষবরণ

ফজলুল হক ॥ রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালীতে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ নানা আয়োজনে বরণ করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে ১৪ ফেব্র“য়ারী সকাল ৮টায় রতনদিয়া রজনীকান্ত সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু হয়। মঙ্গল শোভাযাত্রাটি উপজেলা শহরের আশপাশ রাস্তা প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে গিয়ে সমাপ্ত হয়। এসময় উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে উপস্থিত সকলের মাঝে পান্তাভোজন করানো হয়। এরপরে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিবাড়ী খেলা, হাড়ীভাঙ্গা, তৈলাক্ত কলাগাছে উঠা, বিস্কুট দৌড় সহ বিভিন্ন প্রতিযোগীতা ও উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বিভিন্ন শিল্পীবৃন্দ ও কর্মকর্তাবৃন্দ গান পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী সাইফুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুন নাহার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাদিয়া ইসলাম লুনা, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ মোঃ নুরুল ইসলাম, অফিসার ইনচার্জ এসএম আবু ফরহাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী শারমিন আক্তার, রতনদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী হাচিনা পারভীন নিলুফা, মদাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম মৃধা, সাওরাইল ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলী, সমাজসেবা অফিসার জিল্লুর রহমান, ইন্সট্রাক্টর মাইনুল ইসলাম হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন মোল্লা, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম, রতনদিয়া ইউপি আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম শাহ আজিজ সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও জনসাধারণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

চাপড়া ইউনিয়ন পরিষদে বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ বরণ

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার চাপড়া ইউনিয়ন পরিষদ আয়োজিত ১ বৈশাখ ১৪২৬ ‘বাংলা নববর্ষ’ উদ্যাপন উপলক্ষে মঙ্গল শোভাযাত্রা শেষে আলোচনা সভা ইউপি অফিস সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত সকলকে পানতা ভাত, ইলিশ মাছ, কাচা মরিজ ও পিয়াজ দিয়ে খাদ্য পরিবেশন করা হয়। মনির হাসান চেয়ারম্যান, মোঃ শহিদুল ইসলাম ইউপি সচিব, মোঃ তারিকুল ইসলাম ক্যাম্প ইনচার্জ, সকল ইউপি সদস্য, উদ্যোক্তা, ইমাম, স্কুল শিক্ষক, গন্যমান্য ব্যক্তি, সমাজ সেবক, সমাজ সেবিকা, গ্রাম পুলিশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কুষ্টিয়া পৌর এলাকায় পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা ও আলোকসজ্জার উপর অবদান রাখায়

এ বছর ২১ জন পৌর নাগরিক ও ৪টি প্রতিষ্ঠান ১টি বাড়ির মালিককে পুরষ্কৃত করেছে কুষ্টিয়া পৌরসভা

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও নিজ আঙ্গিনা ও প্রতিষ্ঠান চত্বর পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখায় ২১ জন পৌর নাগরিক ও ৫টি প্রতিষ্ঠানকে পুরষ্কৃত করেছে কুষ্টিয়া পৌরসভা। পৌর নাগরিকদের মধ্যে  পুরষ্কার পেয়েছে ১ নং ওয়ার্ডের সুরপতি বিশ^াস, ২ নং ওয়ার্ডের সুরাইয়া বেগম, ৩ নং ওয়ার্ডের মিসেস জাহানারা, ৪ নং ওয়ার্ডের কুমকুম রহমান, ৫ নং ওয়ার্ডের সাহিদা বানু, ৬ নং ওয়ার্ডের ৩৩২-৩৩৩, এফ ব্লক, হাউজিং এষ্টেটের শেখ মফিজুর রহমান, ৭ নং ওয়ার্ডের মীর নওশেদ আলী,৮ নং ওয়ার্ডের আধ্যাপক আবু জাফর, ৯ নং ওয়ার্ডের মোঃ শহিদুল ইসলাম, ১০ নং ওয়াডের শ্রী বিশ^নাথ নন্দী, ১১ নং ওয়ার্ডের এনামুল কবীর লাভলু, ১২ নং ওয়াডের মোছাঃ নূরজাহান বেগম, ১৩ নং ওয়ার্ডের মোঃ রুবেল হোসেন, ১৪ নং ওয়ার্ডের মোঃ আসাদুল ইসলাম, ১৫ নং ওয়ার্ডের খাজা ময়েন উদ্দিন, ১৬ নং ওয়ার্ডের হাবিবর রহমান, ১৭ নং ওয়াডের বীর মুক্তিযোদ্ধা এ.কে.এম. হান্নান, ১৮ নং ওয়ার্ডের আব্দুস সালাম, ১৯ নং ওয়ার্ডের মোছাঃ এনা,  ২০নং ওয়ার্ডের কাজী আতিয়ার রহমান রাজা, ২১ নং ওয়ার্ডের রেজাউল ইসলাম।এছাড়াও পৌরসভার সাফল্য ও গৌরবের ১৫০ বছর উদযাপন উপলক্ষে মেলায় সেরা প্যাভিলয়ন, সেরা ষ্টল, সেরা প্রতিষ্ঠান ভবনে, বানিজ্যিক ভবনে ও আবাসিক ভবনে আলোক সজ্জায়  সেরাদের মধ্যে পুরষ্কৃত করা হয়েছে। সেরা প্যাভিলিয়ানে  বিজয়ী হয়েছে বি.আর.বি গ্র“প অব ইন্ডাস্ট্রিজ লিঃ। সেরা ষ্টল বিজয়ী উড ল্যান্ড গ্র“প। পৌরসভার ১৫০ বছর উপলক্ষে ভবনে আলোকসজ্জায় সেরা  বিজয়ী নির্বাহী পরিচালক, সেতু, কুষ্টিয়া। বাণিজ্যিক ভবনে সেরা বিজয়ী ম্যানেজার, সিঙ্গার, মজমপুর গেট। আবাসিক ভবনে  আলোকসজ্জায় সেরা হয়েছে প্রকৌশলী সাইফুল আলম। কুষ্টিয়া পৌরসভার সাফল্য ও গৌররের ১৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সমাপণী দিনের দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের পৌরসভার জননন্দিত মেয়র আনোয়ার আলী ও পৌর কাউন্সিলবৃন্দ বিজয়ীদের মাঝে এই পুরষ্কার প্রদান করেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

প্রয়াত আরজুর বাড়িতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ

সদ্য প্রয়াত কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এমএ শামীম আরজুর পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দ। বৃহস্পতিবার সকালের কারা হেফাজতে থাকা অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মশিউর রহমানের নেতৃত্বে কেন্দ্রিয় বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল রবিবার  বেলা সাড়ে ১১টায় কুষ্টিয়া পৌর গোরস্থানে আরজুর কবর জিয়ারত করেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ ইসলাম অমিত, বাবু জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মাসুদ অরুন, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য রেজা আহমেদ বাচ্চু মোল্লাসহ জেলা, উপজেলা, পৌর বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন সমূহের নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ কবর জিয়ারত শেষে আরজুর বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানান। নেতৃবৃন্দ বেশ কিছু সময় অবস্থানকালে স্ত্রী হাসিনা শামীম তাদের জানান, বিনা অপরাধে আরজুকে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। অসুস্থ অবস্থায় তিনি ২৬মার্চ কুষ্টিয়া কালেক্টরেট চত্বরে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গিয়েছিল। কিন্তু কোন প্রকার কারন ছাড়াই তাকে গ্রেফতার করে। অথচ তাকে গ্রেফতার দেখানো হয় পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়ী ভাংচুরের মামলায়। মিথ্যে কলঙ্ক নিয়ে তাঁকে পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে হলো। যাদের জন্য তার স্বামীর মৃত্যু হলো তাদের বিচার আল্লাহর কাছে ছেড়ে দেন। এসময় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী  টেলিফোনে আরজুর পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেন এবং সমদেনা জানান। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

গাংনীতে শিক্ষক লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে মানবন্ধন

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার মোমিনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান শিক্ষক শামসুল আলম, সহকারী শিক্ষক মিজানুর রহমানসহ সহকারী শিক্ষিকাদের উপর একদল বহিরাগত দুর্বৃত্ত বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে বেধড়ক মারপিট ও লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে মানবন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ১১ টা ২০ মিনিটের সময় স্কুল চলাকালীন সময়ে বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে বহিরাগতরা প্রবেশ করে অশালীন কথাবার্তা বলার একপর্যায়ে শিক্ষকদের উপর হামলা করে  লাঞ্ছিত করে। লাঞ্ছিত শিক্ষক শামসুল আলম জানান, মোমিনপুর গ্রামের শমসের আলীর ছেলে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সহ-সভাপতি ইনামুল হক, আরব আলীর ছেলে আব্দুল গনি, রফেজ উদ্দীনের ছেলে তাহাজসহ ৮-৯ জন দুর্বৃত্ত  নানা বিষয়ে মিথ্যা দোষারোপ করে পূর্ব শক্রতার জের ধরে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে স্কুলে এসে হামলা করে। এ ব্যাপারে ¯ু‹লের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হাজী রমজান আলী কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন। এ ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে গাংনী উপজেলা শিক্ষক সমাজ স্মারকলিপি প্রদান ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে। এদিন বিকেল সাড়ে ৪ টার সময় মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের পাশে গাংনী উপজেলা পরিষদের সামনে দাঁড়িয়ে  প্রায় পৌনে ১ ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করে। মানববন্ধনে শিক্ষকদের উপর বর্বরোচিত হামলায় জড়িত ব্যাক্তিদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও  সুষ্ঠু বিচারের দাবি তুলে বক্তব্য রাখেন, শিক্ষক নেতা জিয়া মহাম্মদ আহসান মাসুম, গোলাম হাসান, শাহাবউদ্দীন, গোলাম ফারুক, মাঝহারুল ইসলাম, হাফিজুর রহমান বকুল, পারভেজ সাজ্জাদ রাজা, তরিকুজ্জামান, রকিবুল ইসলাম, সেলিম রেজা, হাবিবুর রহমান, আমানউল্লাহ, আজিজুল হক, শাহীন, আব্দুল মান্নান, মাসুদ, মুন্তাজ আলী, ইমদাদুল হক, শহিদুল ইসলাম, মাহবুুবুর রহমান কাজল, মইনুল ইসলাম প্রমুখ। পরে  গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর  দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

কালুখালী সরকারী কলেজের আয়োজনে বাংলা বর্ষবরণ

ফজলুল হক ॥ রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালী সরকারী কলেজের আয়োজনে উৎসবমূখর পরিবেশে বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে সকাল ৯টায় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে শিক্ষক- শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মঙ্গলশোবাযাত্রা বের করে চাঁদপুর বাসষ্ট্যান্ড বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য চত্ত্বর প্রদক্ষিণ করে কলেজ ক্যাম্পাসে এসে সমাপ্ত করে। পরে পান্তাভোজন, রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগীতা, তৈলাক্ত কলাগাছ আরোহন, হাড়ীভাঙ্গা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এসময় কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ আবুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক অধ্যক্ষ একেএম জয়নাল আবেদীন অন্যান্যের মধ্যে সহকারী অধ্যাপক মুন্সি মাহবুবুর রহমান, মোঃ হাফিজুর রহমান, মিজানুর রহমান, আঃ রহিম, অমরেশ বাবু, মঞ্জুর রহমান মিয়া, বজলুর রহমান, মোঃ জিল্লুর রহমান ও আব্দুল হালিম সহ অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকামন্ডলী উপস্থিত ছিলেন।

কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে বর্ণাঢ্য নানা আয়োজনে বাংলা বর্ষবরণ পালন

নিয়ামুল হক ॥ কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে বর্ণাঢ্য নানা আয়োজনে বাংলা বর্ষবরণ পালন করা হয়েছে। ১ বৈশাখ ১৪২৬ বাংলা বর্ষবরণ আয়োজনে ও সৃষ্টি সুখের উল¬াসে রবিবার সকাল ৮টায় কলেজ গেট থেকে বিভিন্ন ব্যানারে একটি বিশাল বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রায় অংশ নেয় কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের প্রফেসর কাজী মনজুর কাদিরসহ ১ বৈশাখ ১৪২৬ উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক, প্রফেসর ড. নুরুন নাহার। মঙ্গল শোভাযাত্রায় শৃঙ্খলার সৌন্দর্যকরণে মুখ্যভূমিকা রাখেন উদ্ভিদ বিজ্ঞানের বিভাগীয় প্রধান আহসান কবীর রানা। শোভাযাত্রায় অংশ নেয় কলেজের বাংলা, ইংরেজি, অর্থনীতি, রাষ্ট্্রবিজ্ঞান, হিসাববিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা, ইতিহাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, দর্শন, প্রাণিবিদ্যা, রসায়ন, উদ্ভিদবিদ্যা, পদার্থ বিজ্ঞান, ভুগোল ও পরিবেশ, ইসলামী শিক্ষা, পরিসংখ্যান, গনিত, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং, মার্কেটিং, রোভার, রেঞ্জার, বিএনসিসি শিক্ষার্থীসহ ও কর্মচারী পরিষদ সরকারি কলেজ কুষ্টিয়াসহ পুলিশ প্রশাসন। মঙ্গল শোভাযাত্রাটি কলেজ গেট থেকে বের হয়ে শহরের সিঙ্গার মোড় হয়ে ঘুরে কুষ্টিয়া মডেল থানা বক চত্তর হয়ে কলেজে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে কলেজের মুক্ত মঞ্চে দিনব্যাপি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। উক্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সহকারী অধ্যাপক রসায়নের রবিউল ইসলাম, সহযোগী অধ্যাপক হিসাব বিজ্ঞানের এ.কে.এম. সামসুল হক, সমাজ বিজ্ঞানের প্রভাষক শাহরিয়ার হোসেন।

কুমারখালীতে শিশু ও নারী উন্নয়নে কর্মশালা

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ শিশু ও নারী উন্নয়নে সচেতনতামুলক যোগাযোগ কার্যক্রম (৫ম পর্যায়) শীর্ষক প্রকল্পের অধীনে কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল  সোমবার সকাল ১০টায় শিলাইদহ ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে জেলা তথ্য অফিস এই কর্মশালার আয়োজন করে। সহকারি জেলা তথ্য অফিসার শিল্পী মন্ডল এতে সভাপতিত্ব করেন। কর্মশালায় স্যানিটেশন, মাদক ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ এবং জন্মনিবন্ধন, নিরাপদ মাতৃত্ব, মা ও শিশু স্বাস্থ্যের পরিচর্যা এবং অটিজম ও শিশুর মানসিক স্বাস্থ্য, যৌতুক ও বাল্য বিবাহ রোধ এবং নারীর ক্ষমতায়ন বিষয়ে বিষয়ে আলোচনা করেন সহকারি কমিশনার (ভুমি) মুহাম্মদ নূর- এ আলম, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো: ওমর ফারুক, শিলাইদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: সালাহ্ উদ্দিন খান তারেক।  দুপুরে এ কর্মশালার সমাপনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসাবে আলোচনা করেন, কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজীবুল ইসলাম খান। এর আগে উন্মুক্ত আলোচনায় কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি। কর্মশালায় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, সাংবাদিক ও এনজিও কর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।

মিরপুরে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন: আমাদের করনীয় শীর্ষক আলোচনা সভা

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন: আমাদের করণীয় শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আলো সংস্থার আয়োজনে এ্যকশন এইড বাংলাদেশের সহযোগিতায় মিরপুর উপজেলা অডিটোরিয়ামে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জামাল আহমেদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মিরপুর উপজেলা পরিষদের নব নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কাশেম জোয়ার্দ্দার। অনুষ্ঠানে আলো সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ফিরোজ আহমেদের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের সদস্য মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, আলো সংস্থার সভাপতি আনোয়ার হোসেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রমেশ চন্দ্র ঘোষ, উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা নাজনীন আক্তার, চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন পিস্তল, জনসেবা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক আতিয়ার রহমান বাবলু, মিরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আছাদুর রহমান বাবু, সহ-সভাপতি কাঞ্চন কুমার, এসডিজি ফোরামের আহবায়ক আব্দুল আলীম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বক্তারা টেকসই উন্নয়ন লক্ষমাত্রা অর্জনে তরুন, তরুনী, স্থানীয় সরকার, জনপ্রতিনিধিসহ সর্বস্থরের মানুষের করনীয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক, শিক্ষক প্রতিনিধি, শিক্ষার্থীরা, জনপ্রতিনিধিসহ  শতাধিক যুবক যুবতীরা উপস্থিত ছিলেন।

গাংনীতে প্রতিবন্ধীদের থেরাপি প্রদানের উদ্বোধন 

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে ভ্রাম্যমাণ  থেরাপি ভ্যানের মাধ্যমে ২ দিনব্যাপি প্রতিবন্ধীদের  ফেরাপি প্রদানের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল  সোমবার সকালে গাংনী উপজেলা পরিষদ চত্বরে   ফেরাপি প্রদানের উদ্বোধন করা হয়। সমাজ কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের অধীনস্থ জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন, গাংনী উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা সমাজ সেবা অফিসের যৌথ আয়োজনে থেরাপি প্রদানের উদ্বোধন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে থেরাপি প্রদানের উদ্বোধন করেন গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর জেলা প্রতিবন্ধী সাহায্য ও সহায়তা  কেন্দ্রের কর্মকর্তা তুলসী কুমার পাল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গাংনী উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার তৌফিকুর রহমান, রুরাল ভিশন সংস্থার (আরভি)’র পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম। সারাদেশের প্রতিবন্ধীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার অংশ হিসাবে বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা রুরাল ভিশন (আরভি)’র সহযোগিতায় ২ দিনব্যাপি গাংনী উপজেলার বিভিন্ন বয়সের ১শ জনকে থেরাপি প্রদান করা হবে।

 

বাংলা নববর্ষ উদযাপনে কুষ্টিয়াতে বরাবরাই উৎসবের  কেন্দ্রবিন্দুতে থাকে গুরুকুল

মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নিতে সকাল থেকেই শত শত শিক্ষার্থীর ভিড় জমতে থাকে গুরুকুলের কুষ্টিয়াস্থ লালন শাহ ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণে। নানা সাজে আসে শিক্ষার্থীরা। নতুন বছর ১৪২৬ বরণ করতে আয়োজনেরও কমতি ছিলনা তথ্যপ্রযুক্তিবিদ সুফি ফারুকের এই প্রতিষ্ঠানে। ঐতিহ্যবাহি এই প্রতিষ্ঠানে উৎসব মুখর পরিবেশে দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে পালিত হয় বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ এর বর্ষবরণ অনুষ্ঠান।  দিনের শুরুতে বর্ষবরন সঙ্গীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়। সকাল ৮ টায় লালন সাঁই ক্যাম্পাস থেকে শুরু হয় বর্ণিল সাজে বর্ণাঢ্য মঙ্গল  শোভাযাত্রা। কুষ্টিয়া শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন  শেষে, পুনরায় গুরুকুল লালন সাঁই ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণে গিয়ে  শেষ হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা। গ্রামীন ঐতিহ্যবাহি খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বেশাখী সঙ্গীতের আসর অনুষ্ঠিত হয় মঙ্গলশোভাযাত্রা শেষে। বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়া গুরুকুল এর মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ সমূহের কয়েকশ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা আসমা আক্তার। প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গুরুকুল বর্ষবরণ উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করে। গুরুকুল কালচারাল ক্লাবের পক্ষ থেকে প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে  পান্তা আর ৪ রকমের ভর্তা দিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে খাবার পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ করা হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

গাংনীতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বর্ষবরণ 

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা বর্ষবরণ-(১৪২৬ খ্রীষ্টাব্দ) অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্যদিয়ে বর্ষবরণ করা হয়। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল মঙ্গল শোভাযাত্রা, পান্তা-ইলিশ খাওয়া, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বাংলার ঐতিহ্যবাহি লাঠি খেলা। সকালের দিকে  গাংনী উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি উপজেলা শহরের প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা প্রশাসন, চৌগাছা দৃষ্টান্ত গোষ্ঠী ক্লাবসহ উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন। শোভাযাত্রায় নেতৃত্ব প্রদান করেন মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের সংসদ সদস্য সাহিদুজ্জামান খোকন, সাবেক সংসদ সদস্য মকবুল হোসেন, গাংনী উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান এমএ খালেক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল। এ সময় শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী,বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধি, স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্র-ছাত্রীরা। শোভাযাত্রা শেষে উপজেলা শহীদ মিনার চত্বরে সংক্ষিপ্ত আলোচনার আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল। এ সময় বক্তব্য রাখেন মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের সংসদ সদস্য সাহিদুজ্জামান খোকন, সাবেক সংসদ সদস্য মকবুল হোসেন, গাংনী উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান এমএ খালেক, গাংনী থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার (পিপিএম) প্রমুখ। পরে উপজেলা শিশুপার্কে পান্তা-ইলিশ খাওয়ার আয়োজন করে উপজেলা প্রশাসন। পান্ত-ইলিশ খাওয়ার আয়োজনে অংশগ্রহণ করেন অতিথিবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। পান্তা-ইলিশ খাওয়া শেষে শিশুপার্কে গাংনী উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর শিল্পীদের পরিবেশনায় গান-নৃত্য অনুষ্ঠিত হয়। অতিথি হিসাবে গান ও নৃত্য উপভোগ করেন মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের সংসদ সদস্য সাহিদুজ্জামান খোকন, সাবেক সংসদ সদস্য মকবুল হোসেন, গাংনী উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান এমএ খালেক, গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল, তার সহধর্মীনি মৌসুমী কুন্ডু, গাংনী থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার (পিপিএম), সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সিরাজুল ইসলাম স্যার, গাংনী উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান এমএ খালেকের সহধর্মীনি পাপিয়া খাতুন, ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম জুয়েল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন, জেলা জাতীয় পার্টি (জাপা)’র সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সেলিম, আ.লীগ নেতা রেজাউল হক মাস্টার প্রমুখ ।  অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সাংবাদিক আমিরুল ইসলাম অল্ডাম, গাংনী মহিলা ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক মহিবুর রহমান মিন্টু, গাংনী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পারভেজ সাজ্জাদ রাজা, মুজিবনগর সরকারী ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক মোরাদ আলী। এছাড়াও এ অনুষ্ঠানে প্রতিযোগিতামূলক কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সাংস্কৃতিক কর্মী মুনজুর মুর্শেদ শান্তি। বিকেলে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা চত্বরে বাংলার ঐতিহ্যবাহি লাঠি খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় অংশগ্রহণ করে উপজেলার সহড়াতলা তরুণসংঘ ক্লাবের খেলোয়াড়রা। এছাড়াও বর্ষবরণ উপলক্ষে উপজেলার মিকুশিস মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ৩ দিনব্যাপি বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল রোববার দুপুরে মিনাপাড়া এফএনএফ ক্লাবের উদ্যোগে এ মেলার উদ্বোধন করা হয়। মেহেরপুর জেলা পরিষদের সদস্য আইয়ূব আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে মেলার উদ্বোধন করেন মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন গাংনী উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান এমএ খালেক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গাংনী পৌরসভার সাবেক মেয়র আহম্মেদ আলী, গাংনী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম জুয়েল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন, গাংনী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন, গাংনী পৌর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আনারুল ইসলাম বাবু, কৃষকলীগ নেতা আতিয়ার রহমান প্রমুখ।

কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৫০ বছর উদযাপন উপলক্ষে শুভেচ্ছা কুপনের বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করলেন মেয়র আনোয়ার আলী

গতকাল সোমবার সকালে পৌরসভার মেয়র ভবনের নিচতলায় বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী। ৫০তম পুরষ্কার ১১০ সিসি হোন্ডা বিজয়ী পৌরএলাকার  হাউজিং’র লুপা, ১০০তম পুরষ্কার ১৬০ সিসি হর্নেট হোন্ডা বিজয়ী মিরপুর থানার আমলা’র জারা ও ইলেকট্রিক বাইক বিজয়ী চৌড়হাস এলাকার সাইদুল  গ্রহন করেন।  এসময় উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া পৌর পরিষদের কাউন্সিলরগন ও পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। উল্লেখ্য কুষ্টিয়া পৌরসভার সাফল্য ও গৌরবের ১৫০ বছর উদযাপন উপলক্ষে শুভেচ্ছা কুপন ছাড়া হয়েছিল। গত রবিবার নববর্ষের অনুষ্ঠান শেষে জনসম্মূখে মেয়র আনোয়ার আলী’র ও পৌরপরিষদের উপস্থিতিতে শুভেচ্ছা কুপনের ড্র অনুষ্ঠিত হয়। বিজয়ীরা অফিস চলাকালীন সময়ে পৌরসভার কর নির্ধারন শাখায় যোগাযোগ করে পুরষ্কার গ্রহন করার জন্য অনুরোধ করা হল। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

বর্ষবরণে মুক্তিযোদ্ধা সাংগঠনিক কমান্ডের মঙ্গল শোভাযাত্রা

নিজ সংবাদ ॥ পহেলা বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। শুভ নববর্ষ। জাতি যথাযথ মর্যাদা আর আনন্দ-উল্লাসের মধ্যদিয়ে বর্ণিল আয়োজনে দিনটি পালন করেছে। জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কুষ্টিয়া জেলা সাংগঠনিক কমান্ড নববর্ষকে বরণ করতে আয়োজন করে মঙ্গল শোভাযাত্রার। বর্ণিল ব্যানার হাতে এসো হে বৈশাখ লেখা মাথায় পরে সাদা টুপি এবং রঙ্গিন গামছায় কোমর বেঁধে মঙ্গল শোভা যাত্রায় অংশ গ্রহণ করে বীর মুক্তিযোদ্ধারা। নেতৃত্বে ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক- সাংগঠনিক কমান্ডের কমান্ডার ও মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের সাবেক জেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক কুমার ঘোষ। ঢাক, ঢোল, খোল আর সানাইসহ বাদ্যের তালে তালে মুক্তিযোদ্ধাদের শোভাযাত্রাটি জেলা পাবলিক লাইব্রেরী চত্বর থেকে যাত্রা করে জেলা কালেক্টরেট চত্বরের ছায়াবীথিতে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় মোয়া-মুড়ি, বাতাসা-খইসহ বাঙালি খাবার দ্বারা সকলকে আপ্যায়িত করা হয়। সাংগঠনিক কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকবাল মাসুদ, স্বপন কুমার নাগ চৌধুরী, সদর উপজেলা কমান্ডের সাবেক উপজেলা কমান্ডার খন্দকার লিয়াকত আলী নীলা, সাবেক সহকারী কমান্ডার মহসিন আলী মন্ডল (যুদ্ধাহত), সাবেক সহকারী কমান্ডার সাইদুর রহমান, সহকারী কমান্ডার শেখ আবু হানিফ, মুক্তিযোদ্ধা জাহিদ হোসেন, রবীন্দ্রনাথ সেন প্রমুখ। মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দের সার্বিক সহযোগিতায় এই মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ নিজাম উদ্দিন, সৈনিক উম্মত আলী, মকবুল হোসেন, জিল্লুর রহমান, আব্দুর রাশেদ, আহসান হাবিব দুলাল, কমরেড রফিকুল ইসলাম, শহিদুর রহমান, সার্জেন্ট (অব:) আব্দুল খালেক, সার্জেন্ট (অব:) সোলাইমান হোসেন, আবুল হোসেন, আ: আলিম, সার্জেন্ট (অব:) রিয়াজুল, আব্দুল জব্বার, শাকের আলী, রওশন আলী (ওসি), আ: মজিদ, আতাহার হোসেন তারা, শহিদুল ইসলাম মনি, তাইবুর রহমান মহিউদ্দিন, সৈনিক কামরুজ্জামান প্রমুখ সহ প্রায় তিনশত বীর মুক্তিযোদ্ধা উপস্থিত ছিলেন। সাংগঠনিক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক কুমার ঘোষ মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ গ্রহনের জন্য সকলকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান এবং সার্বিক কল্যাণ ও দীর্ঘায়ু কামনা করে শোভাযাত্রা কর্মসূচীর সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

ভেড়ামারায় নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে বাংলা নববর্ষ পালন

আল-মাহাদী ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালন করা হয়েছে বাংলা নববর্ষ। ভেড়ামারা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এ উপলক্ষে গত রোববার সকাল ৯টার দিকে উপজেলা চত্ত্বর থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রার নেতৃত্ব  দেন ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল মারুফ।  শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে উপজেলার উম্মুক্ত মঞ্চে গিয়ে শেষ হয়। মঙ্গল শোভাযাত্রায় ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান হাজী আক্তারুজ্জামান মিঠু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ ইন্দোনেশিয়া খাতুন,  ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খন্দকার শামীম উদ্দিন, পৌর মেয়র আলহাজ¦ শামিমুল ইসলাম ছানা, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটি’র সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ¦ আব্দুল আলীম স্বপন, উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আনসার আলী সহ মঙ্গল শোভাযাত্রায় উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, সরকারী-বেসরকারি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশ নেয়। এছাড়াও ভেড়ামারায় পৃথকভাবে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শোভাযাত্রা, পান্তা উৎসব ও  লোকজ সাংস্কৃতিক উৎসবসহ দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

দৌলতপুরে বর্নাঢ্য নানা আয়োজনে বর্ষবরণ  

শরীফুল ইসলাম ॥ ‘মস্তক তুলিতে দাও, অনন্ত আকাশে’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশের ন্যায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুরেও নানা আয়োজনে ১লা বৈশাখ বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দকে বরণ করা হয়েছে। বর্ষবরণ উপলক্ষে দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে রবিবার সকাল সাড়ে ৭টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে ইলিশ বর্জিত পান্তা উৎসবের আয়োজন করা হয়। সকাল ৮টায় বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. আ. কা. ম. সরওয়ার জাহান বাদশা, নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন ও দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারসহ উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা অংশ নেন। মহিষ ও ঘোড়ার গাড়িসহ বিভিন্ন গ্রামীণ ঐতিহ্যে সাজ ও সজ্বায় শোভাযাত্রা উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে বের হয়ে দৌলতপুর থানা বাজার প্রদক্ষিণ করে। সকাল সাড়ে ৮টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরের বৈশাখী মঞ্চে দৌলতপুর শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশের বরেণ্য শিল্পিরা সংগীত পরিবেশ করেন। এসময় কবিতা অবৃত্তি করে উপস্থিত সকলকে মুগ্ধ করেন, সাংসদ এ্যাড. সরওয়ার জাহান বাদশা। দেশের চলমান উন্নয়ন ধারা নিয়েও পরিবেশিত হয় গম্ভীরা। এরপর অনুষ্ঠিত হয় গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য হা-ডু-ডু খেলা এবং হাড়ি ভাঙ্গা প্রতিযোগিতা। বর্ষবরণ উদ্যাপন কমিটির সভাপতি ও দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে দিনব্যাপী বর্নাঢ্য বর্ষবরণ উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. আ. কা. ম সরওয়ার জাহান বাদশা। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন, দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলী ও দৌলতপুর থানার ওসি মো. নজরুল ইসলাম।  বৈশাখী মঞ্চে তাঁরা মাদক, সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে উপস্থিত সকলকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান। এসময় উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, আমন্ত্রিত সুধী ও সর্বসাধারণের স্বত:স্ফূর্ত উপস্থিতি বর্ষবরণ উৎসবকে প্রাণবন্ত করে। অপরদিকে দৌলতপুর কলেজ বর্নাঢ্য আয়োজনে বাংলা নববর্ষকে বরণ করেছে। এরমধ্যে ছিল মঙ্গল শোভাযাত্রা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও দই-চিড়া-মিষ্টি দিয়ে অতিথি আপ্যায়ন। দৌলতপুর কলেজের অধ্যক্ষ মো. ছাদিকুজ্জামান খান-এর নেতৃত্বে মঙ্গল শোভাযাত্রা কলেজ চত্বর থেকে বের হয়ে উপজেলা পরিষদ চত্বর প্রদক্ষিণ করে। এছাড়াও নানা আয়োজনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন সংগঠন বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দকে বরণ করেছে।

কুষ্টিয়ায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে মাই টিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় র‌্যালী, আলোচনা সভা ও কেক কাটা মধ্যদিয়ে বাংলাদেশের জনপ্রিয় বে-সরকারী টেলিভিশন মাই টিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। মাই টিভির ১০ম বর্ষে পদার্পন উপলক্ষ্যে গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া শহরের চিলিস ফুড পার্ক রেষ্টুরেন্টে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও দি-কুষ্টিয়া চেম্বার অব কর্মাসের সভাপতি হাজী রবিউল ইসলাম। মাইটিভির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আব্দুর রাজ্জাক বাচ্চুর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মোস্তাফিজুর রহমান, বঙ্গবন্ধু পরিষদের কুষ্টিয়া জেলা শাখার সভাপতি মতিউর রহমান লাল্টু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের আহবায়ক আব্দুর রশিদ চৌধুরী, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের (কেপেসি) সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, দৈনিক কুষ্টিয়া দর্পন ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খন্দকার সাজেদুর রহমান বাবলু, কুষ্টিয়ার দর্পন পত্রিকার সম্পাদক মজিবুল শেখ,  দৈনিক আন্দোলন বাজার পত্রিকার সম্পাদক ও চ্যানেল আই প্রতিনিধি আনিসুজ্জামান ডাবলু, কুষ্টিয়া পৌরসভার কাউন্সিলর খান এ করিম ওকুল, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুকুল খসরু, দৈনিক মাটির ডাক পত্রিকার সম্পাদক লুৎফর রহমান কুমার, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান লাকী, চ্যানেল টুয়েন্টি ফোরের এর কুষ্টিয়া স্টাফ রিপোর্টার ও দৈনিক দি-টিচারের সম্পাদক শরিফ বিশ্বাস, ডেইলী ইন্ডিপেন্ডেন্ট পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি মীর আল আরেফীন বাবু, দৈনিক যুগান্তরের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি এএম যুবায়েদ রিপন, বাংলা ভিশন এর কুষ্টিয়া প্রতিনিধি হাসান আলী, বৈশাখী টেলিভিশনের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি রবিউল ইসলাম দোলন, দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার তৌহিদ হাসান শিপলু, দৈনিক সমকাল পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি সাজ্জাদ রানা, আরটিভির স্টাফ রিপোর্টার শেখ হাসান বেলাল, ইন্ডেপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি মিলন উল্লাহ, ৭১ টিভির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি শাহিন আলী, এন টিভির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি সাবিনা ইয়াসমিন শ্যামলী খন্দকার, যমুনা টিভির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি মাহাতাব উদ্দিন লালন, বাংলা টিভির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি লিটন উজ্জামান, ডেইলী অথেনেটিক পত্রিকার সম্পাদক আফরোজা আক্তার ডিউ, দৈনিক মাটির পৃথিবীর সম্পাদক এমএ জিহাদ, দৈনিক দিনের খবর পত্রিকার সম্পাদক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু, দৈনিক সময়ের দিগন্ত পত্রিকার সম্পাদক নাহিদ হাসান তিতাস, দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি দেলোয়ার মানিক, দৈনিক কুষ্টিয়া বার্তা পত্রিকার সম্পাদক খাদেমুল ইসলাম, দৈনিক নয়াদিগন্ত পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আফম নুরুল কাদের, দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি খালিদ হাসান সিপাই, দৈনিক আমাদের অর্থনিতি পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আব্দুম মুনিব, দৈনিক পতিজ্ঞা পত্রিকার সম্পাদক নুরুনাহার সীমা, দৈনিক সময়ের কাগজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নুরুনবী বাবু, সাপ্তাহিক রবি বার্তা পত্রিকার সম্পাদক গোলাম মওলা, দৈনিক আমার বার্তা পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম মুকুল, দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি এনামুল হক, দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি রবিউল ইসলাম ইভান, দৈনিক কুষ্টিয়ার দর্পন পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার আসলাম আলী, কুষ্টিয়া জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ শামস তানিম মুক্তি, জেলা যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক খন্দকার সাসুদ্দোহা লাল্টু, জেলা কৃষকদলের নেতা মোকারম হোসেন মোকা, এনটিভি ক্যামেরা পার্সন আশিকুজ্জামান শারফু, বাংলাদেশ টেলিভিশনের ক্যামেরা পার্সন সম্রাট, চ্যানেল টুয়ান্টি ফোরের এর ক্যামেরা পার্সন সুমন, ইন্ডেপেন্ডেন্ট এর ক্যামেরা পার্সন টুটুল, ৭১ টিভির ক্যামেরা পার্সন কোহিনুর ইসলাম। এ ছাড়াও জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন মাই টিভির ক্যামেরা পার্সন আরিফুজ্জামান। অনুষ্ঠানে বক্তারা মাইটিভির উত্তর উত্তর সাফল্য কামনা করেন। আলোচনা শেষে অতিথিরা কেক কেটে মাইটিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেন। পরে সেখান থেকে একটি র‌্যালী বের হয়ে কুষ্টিয়া শহর প্রদক্ষিণ করে। এসময় অতিথিরা ছাড়াও কুষ্টিয়ার গণমাধ্যমকর্মীরা অংশ নেন।

মিরপুরে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা বর্ষবরণে বক্তারা

মানুষের ভেতরে শুভ বোধ মানবিক চেতনা জাগ্রত করতে হবে

কাঞ্চন কুমার ॥ দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে কুষ্টিয়ার মিরপুরে পালিত হয়েছে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ ও বর্ষবরণ । এ উপলক্ষে গতকাল রবিবার সকালে উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক-সাংস্কৃতক সংগঠনের উদ্যোগে বিভিন্ন ব্যানার,  ফেস্টুন, রং-বেরঙের সাজ-সজ্জা এবং বাঙ্গালী জাতির ঐতিহ্যের প্রতিক, গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী মহিসের গাড়ীসহ বর্ণাঢ্য শোভযাত্রা বের করা হয়। মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিনের নেতৃত্বে উপজেলা চত্ত্বর থেকে শোভাযাত্রাটি উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা এস এম জামাল আহম্মেদ, সহকারী কমিশনার ভূমি শরিফ আসিফ রহমান, মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট আব্দুল হালিম, উপজেলা লেডিস ক্লাবের সভাপতি তানভীরা সুলতানা, সদস্য সচিব শামসুন্নাহার পারভীন শেফালী, উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কাশেম জোয়ার্দ্দার, মহিলা ভাইস শারমিন আক্তার নাসরিন, নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান মর্জিনা খাতুন, জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার আফতাব উদ্দিন খান, নজরুল করিম, সাবেক আহবায়ক মোশারফ হোসেন, সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল হক রবি, আমলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম মালিথা, ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী আব্দুস সালাম, চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন পিস্তুল, বহলবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল রানা বিশ্বাস, ধুবাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান, পৌরসভার প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সেলিম হোসেন ফরাজী, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ রমেশ চন্দ্র ঘোষ, সম্প্রসারণ কর্মকর্তা সাবিহা সুলতানা, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ সোহাগ রানা, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা প্রকৌশলী মিজানুর রহমান, উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর ফিরোজা পারভীন, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম এনামুল হক, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম নান্নু, উপজেলা সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হোসনে মোবারক, উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা শেখ ফরিদ, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা তমান্নাজ খন্দকার, উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা নাজনীন আক্তার, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শিরিনা আক্তার বানু, উপজেলা বিআরডিবির প্রকল্প পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক, কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এলাকা পরিচালক ও প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি কাঞ্চন কুমার, সাধারন সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রিমন, আমলা প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান, উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মিঠু, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস ওয়াহেদ জোয়ার্দ্দার, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিম, সহ সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মী, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহন করেন। শোভাযাত্রা শেষে উপজেলা কাঁঠাল বাগানে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান   ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, অমানবিক অশুভ অপশক্তির ভিত্তি নাড়িয়ে  দেয়ার বৈশাখ এসেছে পহেলা বৈশাখ। বাঙালীর শেকড়ের শক্তি নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার শপথ নিতে হবে। মানুষের ভেতরে শুভ বোধ মানবিক  চেতনা জাগ্রত করতে হবে। পেছনের যত ভুলে এ সময় ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখে বাঙালী। মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা/অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা…। পুরনো দিনের শোক-তাপ-বেদনা-অপ্রাপ্তি-আপে ভুলে অপার সম্ভাবনার দিকে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ঘোষণা করে নতুন বছর। ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে দেশের সব শ্রেণী-পেশার মানুষ আজ একাত্মা হয়ে স্বাগত জানায় নতুন বছরকে। এসো, এসো, এসো হে বৈশাখ …। এর আগে উপস্থিত সকলকে পান্তা ভাতসহ বাঙালী খাবার দিয়ে দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়। এছাড়াও বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ বরণ ও উদযাপন উপলক্ষে বর্ষ বরণ নিয়ে নানা আয়োজন, গ্রামীণ মেলা, খেলাধূলা, র‌্যাফেল ড্র এবং পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলা বর্ষ বরণের মধ্যদিয়ে শেষ হল কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৫০ বছর উদযাপন

রবিবার দিনব্যাপী বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ বরণের মধ্যে দিয়ে শেষ হল কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৫০ বছর উদযাপন। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে দিনব্যাপী সর্ববৃহৎ বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ উদ্যাপন করা হয়েছে। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে পৌরসভায় দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের প্রথম প্রহরে সূর্য উদয় এর সাথে সাথে মঙ্গল প্রদ্বীপ প্রজ¦লনের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। পরে বেলুন উড়িয়ে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন মেয়র আনোয়ার আলী। সকালে পৌরচত্তরে আলোচনা সভা, সকালের গান, কবিতা আবৃত্তি, নৃত্য, অভিভাবক ও শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহনে গ্রাম বাংলার বিভিন্ন খেলাধুলা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও পৌর নাগরিকদের নিজ আঙ্গিনা পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখায় ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ করা হয়। দুপুরে পৌর পরিষদ ও পৌর কর্মকর্তাদের পরিবার এর অংশগ্রহণে কুষ্টিয়া পৌর অডিটোরিয়ামে ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান মিলন উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে ভারতীয় জি বাংলা ও ইন্ডিয়ান আইডলদের গানে গানে দর্শক স্রোতারা আনন্দে মেতে উঠে। মেয়র আনোয়ার আলীর সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. সরওয়ার মুর্শেদ রতন, জাতীয় রবিন্দ্র সম্মেলন পরিষদ, কুষ্টিয়া জেলা শাখার সভাপতি আলম আরা জুঁই, জ্যোতি ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী  সৈয়দা হাবিবা। আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী বলেছেন, স¤্রাট আকবরের আমল থেকে পয়লা বৈশাখ পালনের রেওয়াজ শুরু। তখন চৈত্র মাসের শেষ দিনের মধ্যে বাদশাকে সমস্ত খাজনা মিটিয়ে দিতে হত। পয়লা বৈশাখে জমির মালিক মিষ্টি মুখ করাতেন। হিসাব রাখার খাতা বা হালখাতা চালু হয় এই দিনে। সেই থেকে পয়লা বৈশাখে গ্রামে-গঞ্জে মিষ্টি মুখ, বকেয়া মেটানো, হালখাতা শব্দগুলি জুড়ে দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, পরবর্তিকালে ব্যবসায়ীরা ক্রেতাদের সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করার জন্য এই দিনটিকে বেছে নেন। বহু ব্যবসায়ী পরিবার বংশপরম্পরায় এই দিনটিকে উৎসব হিসেবে পালন করে আসছে। আজ এটি সকলের অংশ গ্রহণে সার্বজনীন উৎসব হিসেবে গণ্য হয়েছে। মেয়র আনোয়ার আলী পৌরবাসী সহ দেশবাসীর সার্বিক মঙ্গল ও সু-স্বাস্থ্য কামনা করে দিনব্যাপী আয়োজনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।  পৌর পরিষদ ও  কর্মকর্তা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে মিলন উৎসব পরিচালনা করেন কাউন্সিলর পিয়ার আলী জুমারত, উপ-সহকারী প্রকৌশলী সাবিনা ইসলাম ও কর নির্দ্ধারক আমান উল্লাহ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

হরিনারায়ণপুর বালিকা বিদ্যালয়ের ক্রীড়ানুষ্ঠানে আতাউর রহমান আতা 

কুষ্টিয়ায় ভালো খেলোয়াড় সৃষ্টিতে সকল প্রকার সুবিধা প্রদান করা হবে

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার নব-নির্বাচিত  চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান আতা বলেছেন- আজকের শিক্ষার্থী  আগামী দিনের ভবিষ্যৎ, ভালো খেলোয়াড় ও শিক্ষার্থীদের জন্য আগামী দিনগুলো অপেক্ষা করছে। জাতীয় পর্যায়ে খেলার জন্য ভালো কিছু করতে হবে। সমাজে মাথা উচু করে বাঁচার জন্য সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। খেলায় পুরষ্কার পাওয়াটা বড় বিষয় নয়, অংশগ্রহন করাটা মুল বিষয়। খেলাধুলা মাদক থেকে দুরে রাখতে সহায়তা করে, এছাড়াও সমাজ বিরোধী কাজ থেকে দুরে রাখে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান  খেলাকে ভালোবাসতেন, বঙ্গকণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় এসে খেলোয়াড়দের প্রতি সুনজর দিয়েছেন,  খেলোয়াড়দের সকল সুবিধা দিয়েছে।

কুষ্টিয়ায় ভালো খেলোয়াড় সৃষ্টিতে সকল প্রকার সুবিধা প্রদান করা হবে।

গতকাল সোমবার সকাল ১১টায় সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুর বালিকা বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন ।

প্রধান অতিথি আতাউর রহমান আতা আরো বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় এসে দেশের উন্নয়নের পাশাপাশি কুষ্টিয়ার ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে।  জেলার উন্নয়নমূলক কাজ করে এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি। তিনি অবহেলিত কুষ্টিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, কুষ্টিয়ায় যে সকল কাজ অসমাপ্ত রয়েছে, সে সকল কাজ শেষ হলে কুষ্টিয়া হবে একটি আধুনিক জেলা। অনুষ্ঠানের শুরুতে সদর উপজেলা পরিষদে আতাউর রহমান আতা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহকারি অধ্যাপক আনিচুর রহমান। অনুষ্ঠানে পরিচালনা করেন ও শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক একরামুল হক। প্রধান বক্তা ছিলেন, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বিশ্বাস।

বিশেষ অতিথি ছিলেন ইবি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রতন শেখ, হরিনারায়ণপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি সরকার আক্তারুজ্জামান টগর, সাধারন সম্পাদক চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মন্ডল, হরিনারায়ণপুর বহুমূখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম ফারুক। উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া শহর ৫নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ডা: আফিল উদ্দিন, সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজু, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জহুরুল ইসলাম, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আনিচুর রহমান আনিচ, যুগ্ম-আহবায়ক আবির হোসেন আমান প্রমুখ।