সিটিকে হারিয়ে সেমির পথে এগিয়ে টটেনহ্যাম

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হলেন সের্হিও আগুয়েরো। ম্যাচ এগিয়ে যাচ্ছিল গোলশূন্য ড্রয়ের দিকে। শেষ দিকে পার্থক্য গড়ে দিলেন সন হিউং-মিন। ম্যানচেস্টার সিটিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে ওঠার পথে কিছুটা এগিয়ে গেল টটেনহ্যাম হটস্পার। টটেনহ্যাম হটস্পার স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার রাতে শেষ আটের প্রথম লেগে ১-০ গোলে জিতেছে স্বাগতিকরা। ম্যাচে বল দখলে পিছিয়ে থাকলেও আক্রমণে আধিপত্য করে টটেনহ্যাম। অষ্টম মিনিটে প্রথম উলে¬খযোগ্য সুযোগও পায় তারা; কিন্তু মুসা সিসোকোর ক্রস পেনাল্টি স্পটের কাছে ফাঁকায় পেয়ে উড়িয়ে মারেন ডেলে আলি। শেষ ষোলোয় শালকের বিপক্ষে দুই লেগে পেনাল্টি থেকে একটিসহ মোট তিন গোল করা আগুয়েরো ত্রয়োদশ মিনিটে সেরা সুযোগটি পান। কিন্তু আর্জেন্টাইন ষ্ট্রাইকারের স্পট কিক ঝাঁপিয়ে রুখে দেন ফরাসি গোলরক্ষক উগো লরিস। রাহিম স্টার্লিংয়ের শটে ডি-বক্সে ড্যানি রোজের হাতে বল লাগলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি। দ্বিতীয়ার্ধের দশম মিনিটে বড় ধাক্কা খায় টটেনহ্যাম। ফাবিয়ান ডেলফের সঙ্গে বল দখলের লড়াইয়ে পায়ে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন হ্যারি কেইন। ৭৯তম মিনিটে অবশেষে মেলে গোলের দেখা। ক্রিস্তিয়ান এরিকসেনের ক্রস ডি-বক্সে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডিফেন্ডারদের বাধা এড়িয়ে কোনাকুনি শটে বল ঠিকানায় পাঠান দক্ষিণ কোরিয়ার ফরোয়ার্ড হিউং-মিন। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা লড়াইয়ে থাকা সিটিকে এ ম্যাচে স্বরূপে দেখা যায়নি। অধিকাংশ সময় বল দখলে রেখে খেললেও ওই পেনাল্টিটি ছাড়া নিশ্চিত কোনো সুযোগই তৈরি করতে পারেনি দলটি। ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ চারের টিকেট পেতে আগামী বুধবার ঘরের মাঠে খেলবে পেপ গুয়ার্দিওলার দল। দিনের আরেক ম্যাচে ইংলিশ ক্লাব লিভারপুল ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হারিয়েছে পর্তুগালের পোর্তোকে।

 

ঔষধিগুণ গুণ সমৃদ্ধ সবজি করলা চাষ লাভজনক

কৃষি প্রতিবেদক ॥ উচ্ছে ও করলা তিতা বলে অনেকেই খেতে পছন্দ করেন না। তবে এর ঔষধিগুণ অনেক বেশি। ডায়াবেটিস, চর্মরোগ ও কৃমি সারাতে এগুলো ওস্তাদসবজি। ভিটামিন ও আয়রন-সমৃদ্ধ এই সবজির অন্যান্য পুষ্টিমূল্যও কম নয়। উচ্ছে ও করলা এ দেশের প্রায় সব জেলাতেই চাষ হয়। আগে শুধু গরমকালে উচ্ছে-করলা উৎপাদিত হলেও এখন জাতের গুণে প্রায় সারা বছরই চাষ করা যায়। যেগুলো অপেক্ষাকৃত ছোট, গোলাকার, বেশি তিতা, সেগুলোকে বলা হয় উচ্ছে। বড়, লম্বা ও কিছুটা কম তিতা স্বাদের ফলকে বলা হয় করলা। উচ্ছেগাছ ছোট ও কম লতানো হয়। করলাগাছ বেশি লতানো ও লম্বা লতাবিশিষ্ট, পাতাও বড়। উচ্ছে ও করলা তিতা বলে অনেকেই খেতে পছন্দ করেন না। তবে এর ঔষধিমূল্য অনেক বেশি। ডায়াবেটিস, চর্মরোগ ও কৃমি সারাতে এগুলো এক ওস্তাদসবজি। ভিটামিন ও আয়রন-সমৃদ্ধ এই সবজির অন্যান্য পুষ্টিমূল্যও কম নয়।
মাটি ঃ প্রায় সব রকমের মাটিতে ও পানি জমে না এমন জায়গায় উচ্ছে-করলার চাষ করা যায়। তবে জৈব পদার্থসমৃদ্ধ দো-আঁশ ও বেলে দো-আঁশ মাটিতে ভালো হয়। ছায়া জায়গায় ভালো হয় না।
জাত ঃ উচ্ছে ও করলা পরপরাগায়িত সবজি হওয়ায় এর জাত বৈচিত্রের শেষ নেই। এক জাত লাগালেও পরের বছর সে জাত থেকে রাখা বীজ লাগিয়ে হুবহু একই বৈশিষ্ট্যের ফল পাওয়া যায় না। তাই প্রতি মৌসুমেই বিশ্বস্ত উৎস থেকে ভালো জাতের ভালো বীজ সংগ্রহ করে এর চাষ করা উচিত। উচ্ছের প্রায় সব জাতই দেশী বা স্থানীয় । চাষিরাই এগুলোর বীজ রাখেন ও লাগান। এ দেশে করলার যেসব জাত রয়েছে সেগুলো হলো-
উচ্চফলনশীল জাত বারি করলা ১। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এ জাত উদ্ভাবন করেছে। এ জাতের একটি গাছে ২৫ থেকে ৩০টি করলা ধরে। হেক্টরপ্রতি ফলন ২৫ থেকে ৩০ টন (প্রতি শতকে ১০০ থেকে ১২০ কেজি)।
বিএডিসির ‘গজ করলা’ নামে আর একটি জাত আছে। এ জাতও ভালো, গাছপ্রতি ১৫ থেকে ২০টি করলা ধরে। ফলন ২০ থেকে ২৫ টন (প্রতি শতকে ৮০ থেকে ১০০ কেজি)। হাইব্রিড জাত বুলবুলি, টিয়া, প্যারট, কাকলি, প্রাইম-এক্সএল, টাইড, গ্রিন স্টার, গৌরব, প্রাইড ১, প্রাইড ২, গ্রিন রকেট, হীরা ৩০৪, মিনি, গুডবয়, ওয়াইজম্যান, জাম্বো, গজনি, ইউরেকা, হীরক, মানিক, মণি, জয়, কোড-বিএসবিডি ২০০২, কোড-বিএসবিডি ২০০৫, পেন্টাগ্রিন, ভিভাক, পিয়া, এনএসসি ৫, এনএসসি ৬, রাজা, প্রাচী ইত্যাদি।
জমি ও মাদা তৈরি ঃ জমি ভালোভাবে চাষ দিয়ে আগাছা পরিষ্কার করে প্রতি শতাংশে জমি তৈরির সময় ৪০ কেজি পচা গোবর সার মিশিয়ে দিতে হবে। মই দিয়ে সমান করার পর ১ মিটার চওড়া বেড করে তার মাঝে ৩০ সেন্টিমিটার চওড়া করে নালা কাটতে হবে। জমি যতটুকু লম্বা ততটুকুই লম্বা বেড হতে পারে। খুব বেশি লম্বা হলে মাঝখানে খন্ড করা যেতে পারে। উচ্ছের ক্ষেত্রে ১ মিটার ও করলা ক্ষেত্রে ১.৫ মিটার দূরে দূরে মাদা তৈরি করতে হবে। সব দিকে ৪০ সেন্টিমিটার করে মাদা তৈরি করতে হবে। বীজ বোনার ৭ থেকে ১০ দিন আগে মাদায় পচা গোবর ও সার মাদার মাটির সাথে মিশিয়ে দিতে হবে।
বীজ বোনা ঃ বছরের যেকোনো সময় এখন করলা লাগানো যায়। তবে খরিপ বা গ্রীষ্ম-বর্ষা মৌসুমে সবচেয়ে ভালো হয়। এ মৌসুমে চাষ করতে হলে ফেব্র“য়ারি থেকে মে মাসের মধ্যে বীজ বুনতে হবে। আগাম ফলন পেতে চাইলে ফেব্র“য়ারির মাঝামাঝি সময়ে বীজ বোনা ভালো। তবে উচ্ছে বসন্ত-গ্রীষ্মেই ভালো হয়। উচ্ছে চাষ করতে চাইলে জানুয়ারি থেকে মার্চ মাসের মধ্যে বীজ বুনতে হবে। করলার বীজ মার্চ থেকে জুন পর্যন্ত বোনা যেতে পারে। প্রতি মাদায় দু’টি করে বীজ বুনতে হবে। বীজের খোসা শক্ত বলে বোনার আগের দিন রাতে পানিতে বীজ ভিজিয়ে রাখতে হবে, তাহলে ভালো গজাবে। তবে মাদায় সরাসরি বীজ না বুনে কলার ঠোঙা বা পলিব্যাগেও চারা তৈরি করে সেসব চারা মাদায় রোপণ করা যেতে পারে। সাধারণত ১০০ গ্রাম বীজে ৬০০ থেকে ৭০০টি চারা হয়। প্রতি শতকে ১২-১৫ গ্রাম উচ্ছে ও ২৫ থেকে ৩০ গ্রাম করলার বীজ লাগে।
সারের পরিমাণ ঃ করলা চাষে জৈবসার খুব দরকার। মোট জৈবসারের অর্ধেক জমি চাষের সময় ও বাকি অর্ধেক বীজ বোনা বা চারা লাগানোর ১০ দিন আগে মাদায় দিতে হবে। অন্যান্য সার নিচের ছক অনুযায়ী দিতে হবে।
বাউনি দেয়া ঃ চারা ২০ থেকে ২৫ সেন্টিমিটার লম্বা হয়ে গেলে চারার সাথে কাঠি পুঁতে বাউনি দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। পাশাপাশি মাটি থেকে এক থেকে দেড় মিটার উঁচু করে মাচা তৈরি করতে হবে। যেহেতু বেড ১ মিটার চওড়া, সে জন্য মাচাও অনুরূপ চওড়া রাখলে ভালো হয়। এতে করলা তোলা ও পরিচর্যার কাজ সহজ হয়। বাঁশের শক্ত খুঁটি পুঁতে তার মাথায় জিআই তার, রশি ইত্যাদি বেঁধে খাঁচা তৈরি করে তার উপর দিয়ে পাটকাঠি বা বাঁশের সরু কাঠি ফাঁকা করে বিছিয়ে মাচা তৈরি করা যেতে পারে। মাটিতে লতিয়ে দেয়ার চেয়ে মাচায় লতিয়ে দিলে করলার ফলন ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ বেশি হয়।
সেচ ও আগাছা পরিষ্কার ঃ মাদায় জো রেখে বীজ বুনতে হবে। চারা গজানোর পর মাদা শুকিয়ে গেলে সেচ দিতে হবে। সেচ দেয়ার পর মাটি চটা বেঁধে গেলে তা নিড়ানি দিয়ে আগাছা পরিষ্কার করে ভেঙে দিতে হবে। পানির অভাবে গাছের বাড়বাড়তি কমে যায়, ফুল ও কচি ফল ঝরে যায়, ফল ছোট হয়। সে জন্য খরা হলে বা জমি শুকিয়ে গেলে সেচ দিতে হবে। প্রতিবার সার প্রয়োগের পর সেচ দিতে হবে। গাছের গোড়া থেকে ছোট ছোট কিছু ডগা বের হয়। সেগুলো ছেঁটে দিলে ফলন ভালো হয়। জমিতে যেন পানি জমতে না পারে সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে।
করলা তোলা ঃ চারা গজানোর ৪০ থেকে ৫০ দিন পর থেকেই উচ্ছেগাছ ফল দেয়া শুরু করে। করলাগাছ ফল দেয়া শুরু করে ৬০ দিন পর। ফল আসা শুরু হলে গাছ থেকে প্রায় দু’মাস ফল তোলা যায়।

পূর্ণ রানআপে বোলিং করলেন তাসকিন

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ আগেই জানা গিয়েছিল, বুধবার মাঠে ফিরছেন তাসকিন আহমেদ। ইনজুরি কাটিয়ে এদিন চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে নামছেন তিনি। অবশেষে খেলায় ফিরলেন তাসকিন। বল হাতে মাঠে দেখা গেল তাকে। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে বোলিং করেছেন তিনি। মোট পাঁচ ওভার বোলিং করেছেন দেশের দ্রুতগতির পেসার। তাসকিন সবশেষ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) খেলেন। সিলেট সিক্সার্সের হয়ে মাঠ মাতান তিনি। তবে হঠাৎই পড়েন গোড়ালির চোটে। তা থেকে সেরে উঠে মাঠে ফিরলেন ডানহাতি পেসার। অবশ্য প্রত্যাবর্তনটা সুখকর হয়নি তার। ৫ ওভারে ৩৬ রান খরচ করে থেকেছেন উইকেটশূন্য। তাসকিন উইকেট না পেলেও রূপগঞ্জের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে দুইশ’ পেরোয়নি উত্তরার দলীয় সংগ্রহ। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে স্কোরবোর্ডে ১৮০ রান জমা করতে সক্ষম হয়েছে দলটি। সুখবর এ যে, পূর্ণ রানআপে বোলিং করেছেন তাসকিন। তার ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। তা দেখে মনে হয়েছে, শিগগির রিদমে ফিরবেন তিনি।

আট নাটক নিয়ে ব্যস্ত মৃণাল দত্ত

বিনোদন বাজার ॥ নতুন আটটি নাটক নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃণাল দত্ত। এসব নাটকের শুটিং সিলেটের শ্রীমঙ্গলের বিভিন্ন জায়গায় শেষ হয়েছে। নাটকগুলোতে নতুন প্রজন্মের জনপ্রিয় কিছু অভিনয়শিল্পীও অভিনয় করেছেন এর আগে মৃণাল দত্ত সরকারি অনুদানে নির্মিত প্রায় একডজন সিনেমায় অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমি অভিনয় পাগল মানুষ। অভিনয়ের জন্য চাকরি ছেড়েছি। নিয়মিত অভিনয় করতে পারছি তাতে আমি খুব খুশি এবং নতুন এই ৮টি নাটকের পরিচালককে ধন্যবাদ জানাই যে, তারা আমাকে এসব নাটকে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে কাজ করার সুযোগ করে দিয়েছেন।’ নতুন ওই নাটকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন ৪জন- জোভান, সাফা কবির, তৌসিফ ও টয়া। আর এই ৮ নাটকের শুটিং করেছেন চারজন পরিচালক। এরা হলেন- এল আর সোহেল, কে এম নাইম, রাফাত মজুমদার রিংকু ও মেহেদি হাসান হৃদয়। শেষ হওয়া ৮টি নাটকের মধ্যে নির্মাতা এল আর সোহেলের দু’টি নাটক হলো- সবুজ ওয়াহিদের রচনায় ‘রং চা’, অন্যটি মেজবাহ উদ্দিন সুমনের রচনায় ‘শ্রীমঙ্গলের মঙ্গল’। কে এম নাইম নির্মাণ করেছেন ‘বাড়ি থেকে পালিয়ে’ ও ‘মিমি কাব্য’। নাটক দু’টো রচনা করেছেন জাফর ইকবাল সুজন। ‘শুকনো চা পাতা’ ও ‘টান নির্মাণ’ করেছেন রাফাত মজুমদার রিংকু। নাটক দু’টো রচনা করেছেন মুনতাহা বৃত্তা ও সেরনিয়াবাত শাওন। এছাড়াও মেহেদি হাসান নির্মাণ করেছেন ‘পাগল পাহাড় কিনবে’ ও ‘টু মার্চ’

আয়াক্সের বিপক্ষে ইউভেন্তুস দলে রোনালদো

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ চোট কাটিয়ে ইউভেস্তুস দলে ফিরেছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। আয়াক্সের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড খেলতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন ইতালিয়ান ক্লাবটির কোচ মাস্সিমিলিয়ানো আলে¬গ্রি। গত মাসের আন্তর্জাতিক বিরতিতে সার্বিয়ার বিপক্ষে পর্তুগালের ইউরো বাছাইপর্বের ম্যাচে ডান পায়ে চোট পান রোনালদো। আন্তর্জাতিক বিরতির আগের দুই ম্যাচে বিশ্রামে ছিলেন সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ তারকা। সব মিলিয়ে ক্লাবের হয়ে মোট পাঁচ ম্যাচে খেলেননি তিনি। বুধবার বাংলাদেশ সময় রাত একটায় আয়াক্সের মাঠে খেলতে নামবে সেরি আ চ্যাম্পিয়নরা। নতুন কোনো সমস্যা না হলে এই ম্যাচে দলের সেরা তারকাকে পাওয়ার আশা করছেন কোচ। ম্যাচটির জন্য রোনালদোকে নিয়ে ২১ সদস্যের দল ঘোষণা করেছেন আলে¬গ্রি। মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “কোনো কিছু না ঘটলে রোনালদো খেলবে।” গত বছর জুলাইয়ে রিয়াল থেকে ইউভেন্তুসে যোগ দেওয়া রোনালদো চলতি মৌসুমে সেরি আয় ১৯ গোলসহ সব প্রতিযোগিতা মিলে মোট ২৪ গোল করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে অবশ্য ডিফেন্ডার জর্জো কিয়েলি¬নি ও মিডফিল্ডার এমরে কানকে পাচ্ছে না ইউভেন্তুস। সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, চোটে ভুগছেন তারা দুজন। অভিজ্ঞ এই দুজনকে না পাওয়াটা হতাশাজনক বলে মন্তব্য করেন আলে¬গ্রি।

সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন আলাউদ্দিন আলী

বিনোদন বাজার ॥ সুস্থ হয়ে গত ৮ এপ্রিল নিজ বাসায় ফিরেছেন দেশের প্রখ্যাত সঙ্গীতজ্ঞ, সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী। তিনি রাজধানীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দীর্ঘ আড়াই মাস চিকিৎসাধীন ছিলেন।এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্ত্তী এ তথ্য জানান। গত ২২ জানুয়ারি দিবাগত রাতে তীব্র শ্বাসকষ্ট, কাশি এবং জ্বর নিয়ে তিনি এ হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভর্তি হন।তিনি ফুসফুসের ক্যান্সারে ভুগছিলেন। ভর্তি হওয়ার একদিন পর অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়। এরপর কয়েক দফায় মেডিকেল বোর্ড গঠনের মাধ্যমে তাকে সমন্বিত সর্বাধুনিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় তাকে পর্যায়ক্রমে নিবিড় পরিচর্যা থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয় এবং বিশেষ চিকিৎসা সেবা প্রদানের মাধ্যমে তিনি সুস্থতার দিকে এগিয়ে যান।তার এই দীর্ঘ চিকিৎসার ব্যয় বহন করতে হাসপাতালের পাশাপাশি বিশেষ সহায়তার হাত বাড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ফিরমিনোর নৈপুণ্যে পোর্তোকে হারাল লিভারপুল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ইউরোপের প্রতিযোগিতায় আগের ছয় ম্যাচে পোর্তোর কাছে কখনও হারেনি লিভারপুল। রবের্তো ফিরমিনোর নৈপুণ্যে সে আধিপত্য ধরে রেখেছে তারা। পর্তুগালের দলটিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে ওঠার পথে এক ধাপ এগিয়ে গেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। অ্যানফিল্ডে মঙ্গলবার রাতে কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগে ২-০ গোলে জিতে প্রতিযোগিতাটির পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। নাবি কেইতাকে দিয়ে গোল করানোর পর নিজেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফিরমিনো। আগামী ১৭ এপ্রিল ফিরতি লেগে পোর্তোর মাঠে মুখোমুখি হবে দুই দল। সেরা চারে উঠতে হলে ২০০৪ সালের চ্যাম্পিয়ন পোর্তোকে জিততে হবে অন্তত তিন গোলের ব্যবধানে। নিজেদের মাঠে পঞ্চম মিনিটে তৈরি করা প্রথম সুযোগটি কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায় লিভারপুল। ফিরমিনোর পাস ধরে পেনাল্টি স্পটের কাছাকাছি থেকে গিনির মিডফিল্ডার কেইতার নেওয়া শট অলিভার তোরেসের গায়ে লেগে জাল খুঁজে নেয়। ষোড়শ মিনিটে ফিরমিনের বাড়ানো বলে মোহামেদ সালাহর শট লক্ষ্যে থাকেনি। একটু পর নাবির  তৈরি করে দেওয়া সুযোগও কাজে লাগাতে পারেননি মিশরের এই ফরোয়ার্ড। তবে আক্রমণের ধারা ধরে রেখে ২৬তম মিনিটে ফিরমিনোর গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় প্রিমিয়ার লিগে শীর্ষে থাকা লিভারপুল। ডান দিক থেকে ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার-আরনল্ডের আড়াআড়ি পাস থেকে পাওয়া বল সহজেই পে¬সিং শটে জালে জড়িয়ে দেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। ৫২তম মিনিটে দানিয়েল পেরেইরার হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে পোর্তোর ম্যাচে ফেরার ভালো একটি সুযোগ নষ্ট হয়। বলের নিয়ন্ত্রণ ও আক্রমণে এগিয়ে থাকা লিভারপুলের ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ নষ্ট হয় ৭০তম মিনিটে। সাদিও মানের শট পোস্টের অল্প একটু বাইরে দিয়ে বেরিয়ে যায়। বাকিটা সময় ব্যবধান বাড়াতে না পারলেও সহজ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইংল্যান্ডের দলটি। একই রাতে অপর কোয়ার্টার-ফাইনালে ৭৮তম মিনিটের গোলে টটেনহ্যাম হটস্পার ১-০ ব্যবধানে হারিয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের আরেক দল ম্যানচেস্টার সিটিকে। আগামী ১৭ এপ্রিল ফিরতি লেগে সিটির মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে দুই দল।

 

আবারও একসঙ্গে জাহিদ হাসান ও চঞ্চল চৌধুরী

বিনোদন বাজার ॥ জনপ্রিয় অভিনয় তারকা জাহিদ হাসান ও চঞ্চল চৌধুরী আবারও একসঙ্গে অভিনয় করবেন নাটকে। আগামী ঈদের জন্য নির্মিতব্য নাটকটির নাম ‘হেভিওয়েট মিজান’।বৃন্দাবন দাসের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করবেন সাগর জাহান।মিডিয়ায় ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে নাটকটির গল্প তৈরি করা হয়েছে। এতে জাহিদ হাসান ও চঞ্চল চৌধুরী গাড়ির ড্রাইভারের ভূমিকায় অভিনয় করবেন। নাটকে নায়িকার গাড়িচালক চরিত্রে দেখা যাবে জাহিদ হাসানকে এবং নায়কের ড্রাইভার থাকবেন চঞ্চল।৬ মে থেকে নাটকটির শুটিং শুরু হবে। এ নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে জাহিদ হাসান বলেন, ‘ঈদ উৎসবে মানুষকে বিনোদিত করবে এ নাটকটি। নাটকের গল্প এবং চরিত্র ভালো লেগেছে।আশা করছি নাটকটি সবার ভালো লাগবে।’ চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘এ নাটকের নাট্যকার এবং নির্মাতা দু’জনই আমার পছন্দের মানুষ। নাটকের গল্পটি ঈদ উৎসবের জন্য মানানসই। জাহিদ ভাইয়ের সঙ্গে এর আগে নাটকে একবার অভিনয় করেছিলাম।তার সঙ্গে কাজটি আশা করছি উপভোগ্য হবে।’  প্রসঙ্গত, ফুটবল বিশ্বকাপের সময় নির্মিত আবু হায়াত মাহমুদ পরিচালিত একটি নাটকে জাহিদ হাসান ও চঞ্চল চৌধুরী একসঙ্গে অভিনয় করেছিলেন।এছাড়া গত বছর একটি টিভি বিজ্ঞাপনেও একসঙ্গে তাদের দেখা গেছে। এ নাটক ছাড়াও ঈদের বেশ কয়েকটি নাটকের শুটিং নিয়ে বর্তমানে চঞ্চল চৌধুরী ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। কিছুদিন আগে তিনি ওয়েব সিরিজের কাজেও যুক্ত হয়েছেন।অন্যদিকে জাহিদ হাসান বর্তমানে সপরিবারে আমেরিকায় অবস্থান করছেন। কয়েকদিনের মধ্যেই দেশে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। ফিরেই আগামী ঈদের নাটকের শুটিং করবেন।

যে কারণে ১ দিনের মধ্যে জয়াকে বিয়ে করেছিলেন অমিতাভ

বিনোদন বাজার ॥ বলিউডে তারকা দম্পতি হিসেবে কোনোরকম বিপত্তি ছাড়াই ৪৬টি বছর পার করলেন অমিতাভ বচ্চন ও জয়া বচ্চন।তাদের এই জুটিকে বলিউসম্প্রতি জীবনের ৭১টি বসন্ত পেরিয়ে গেলেন অভিনেত্রী জয়া বচ্চন। সে উপলক্ষে ‘স্টোরি নাইটস ২’ নামের একটি টিভি অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন এই দম্পতি।সেখানে তাদের জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, ১৯৭৩ সালে হঠাতই কেন দুজনে বিয়েতে আবদ্ধ হয়েছিলেন? এর পেছনের রহস্য কী?জবাব এলো বিগবির কাছ থেকে। নিজেদের বিয়ে নিয়ে লুকানো রহস্য উন্মোচন করলেন।তিনি হেসে দিয়ে বলেন, এক প্রকার বিপদে পড়ে বাধ্য হয়ে জয়াকে বিয়ে করেছিলাম।তিনি বলেন, তখন জয়া আর আমি জঞ্জির ফিল্মের জন্য কাজ করছিলাম। ছবির পরিচালক থেকে প্রযোজক ও অন্যান্য সব সদস্য মিলে ঠিক করেছিল যে, যদি ছবিটি বক্স অফিসে হিট হয় তবে সবাই মিলে লন্ডনে বেড়াতে যাব।সিনেমাটি সুপার হিট হয়। কথামতো সবাই মিলে লন্ডন যাবার দিন তারখি ঠিক করে।বিষয়টি আমি বাবাকে জানাই। তখন বাবা আমাকে জিজ্ঞেস করেন, আমার সঙ্গে কী সিনেমার নায়িকা জয়াও যাবেন?এর পর অমিতাভ বলেন, আমি বাবাকে হ্যা বলতেই তিনি অবাক হন। তিনি আমাকে বলেন, বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত আমি তোমাদের দুজনকে একসঙ্গে লন্ডনে যেতে দেব না। তখন আমি বলি, ঠিক আছে এমনটা হলে কালই আমরা বিয়ে করব। ব্যস যা বলা তাই কাজ। তাড়াহুড়ো করে সামান্য একদিনের প্রস্তুতিতেই বিয়ে সেরে ফেলি আমরা। পরদিনই নতুন বউকে নিয়ে লন্ডনে পাড়ি জমাই।

বৈশাখের নাটক ‘আমি প্রেমিক’

বিনোদন বাজার ॥ অমি ও বৃষ্টি প্রেমিক যুগল। অমির চাকরি না থাকায় বৃষ্টি তার বাবাকে পছন্দের ছেলের কথা বলতে পারে না। এদিকে অমি একটি কোম্পানিতে ইন্টারভিউ দিতে যায়। আর সেখানেই বিপত্তি ঘটে। কোম্পানির এমডি অমিকে বিয়ে করতে চায়। এক কঠিন পরিস্থিতিতে পড়ে অমি। এমনই এক গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে বৈশাখের বিশেষ নাটক ‘আমি প্রেমিক’। সময়ের জনপ্রিয় জুটি জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও মেহজাবীন চৌধুরী এতে জুটি বেঁধে কাজ করেছেন। সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্ন লোকেশনে নাটকটির শুটিং হয়েছে। নাটকটি প্রসঙ্গে অপূর্ব বলেন, পরিচালকের কাছে গল্পটি শোনার পর আমি কাজটি করতে রাজি হয়ে যাই। গল্পটি খুব ভালো লেগেছে। নাটকটি সবার ভালো লাগবে আশা করছি। মেহজাবীন চৌধুরী বলেন, সুন্দর একটি গল্পে কাজটি করেছি। পরিচালক খুব যতœ নিয়ে তৈরি করেছেন এটি। আমি-অপূর্ব ভাইসহ সবাই চেষ্টা করেছি ভালোভাবে কাজটি ফুটিয়ে তোলার। কতটা পেরেছি দর্শকরা বলবেন। রাসেল আজমের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন শাহনেওয়াজ সজীব। নাটকটি ইউটিউবে আরটিভি ড্রামা চ্যানেলে ১৪ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭টায় প্রকাশ করা হবে।

অভিষেককে নিয়ে যে তথ্য দিলেন অমিতাভ

বিনোদন বাজার ॥ ৭৬ বছর বয়সী অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন। ছেলে অভিষেক বচ্চনকে তিনি বন্ধুর মতোই মনে করেন। নিজের টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করে এ কথা জানালেন অমিতাভ। পোস্টে অমিতাভ বচ্চন লিখেছেন, ‘যখন শুধু আমার জুতা ওর পায়ের মাপে ফিট করতে শুরু করল তখনই শুধু নয়, আমার পাশের চেয়ারে বসার যোগ্যও হয়ে উঠল তখন থেকে ও শুধু ছেলে নয়, ও আমার প্রিয় বন্ধু হয়ে উঠল।’ অমিতাভ ও অভিষেকের মধ্যে সম্পর্ক খুবই যে মধুর তা তাদের পরস্পরের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল ঘাঁটলেই বোঝা যায়। মাঝেমধ্যেই পুরনো দিনের ছবি শেয়ার করেন অমিতাভ। সেখানে অভিষেকের ছোটবেলার ছবি থাকে। অভিষেকও বাবার ছবি শেয়ার করেন। বাবা- ছেলে একসঙ্গে বেশকিছু সিনেমায় কাজ করেছেন। তার মধ্যে ‘বান্টি আউর বাবলি’, ‘পা’, ‘সরকার রাজ’ এবং ‘কাভি আলবিদা না কেহ না’ উল্লেখ্য।

 

প্রথমবার ওয়েব সিরিজ নির্মাণে অমিতাভ রেজা

বিনোদন বাজার ॥ গত সোমবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আমন্ত্রিত অতিথি ও গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে ‘ঢাকা মেট্রো’র অফিসিয়াল ট্রেলার প্রকাশ করল হইচই। পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরী নির্মিত প্রথম ওয়েব সিরিজ ‘ঢাকা মেট্রো’। এ ওয়েব সিরিজে প্রধান চরিত্রগুলোয় অভিনয় করেছেন অভিনয়শিল্পী অপি করিম, অভিনেতা নেভিল ফেরদৌস হাসান এবং শিশুশিল্পী শরিফুল ইসলাম। ওয়েব সিরিজটি প্রযোজনায় রয়েছে অমিতাভ রেজা চৌধুরীর নির্মাণ প্রতিষ্ঠান হাফ স্টপ ডাউন। আগামী ১১ এপ্রিল থেকে ওয়েব সিরিজটি দেখা যাবে অনলাইন স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হইচই-এ। ঢাকা মেট্রোর মাধ্যমে বাংলাদেশের দৃশ্যশিল্পীকে বিশ্বব্যাপী দর্শকের কাছে পৌঁছে দিবে হইচই। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়েব সিরিজটির প্রযোজক মেহজাবিন রেজা চৌধুরী ও মো. আসাদুজ্জামান, লেখক নাসিফ আমিন এবং ওয়েব সিরিজের অভিনয়শিল্পীদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন নেভিল ফেরদৌস হাসান, অপি করিম, শারমিন জোহা শশী, শরিফুল ইসলাম এবং মোস্তফা মনোয়ার।