জীবনের ঝুঁকি তবুও দেখার কেউ নেই !

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে নির্মাণ শ্রমিকেরা। সম্প্রতি এই ভবনের পার্শ্ববর্তী আরেকটি ভবনের তৃতীয় তলা থেকে দুইজন নির্মাণ শ্রমিক পড়ে গিয়ে গুরুত্ব আহত হয়েছে। তবুও জীবনের ঝুঁকি নিয়েই কাজ করে যাচ্ছে তারা। এ নিয়ে মাথাব্যথা নেই ভবন মলিক কিংবা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। ছবিটি গতকাল রবিবার দুপুরে কুমারখালী উপজেলা পরিষদ সড়ক থেকে তোলা হয়েছে।

গাংনীতে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ ‘দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুতি, হ্রাস করবে জীবন ও সম্পদের ঝুঁকি’  এই প্রতিপাদ্যেকে সামনে নিয়ে মেহেরপুরের গাংনীতে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল রোববার সকালে দিবসটি উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আয়োজন করে গাংনী উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি। এদিন সকালে দিবসটি উপলক্ষে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি গাংনী উপজেলা শহরের প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে নেতৃত্ব প্রদান করেন গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণপদ পাল। র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করে গাংনী ফুলকুঁড়ি কিন্ডার গার্টেন এন্ড হাই স্কুলের শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। র‌্যালি শেষে  ফুলকুঁড়ি কিন্ডার গার্টেন এন্ড হাই স্কুলের মুক্তমঞ্চে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন গাংনী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) প্রকৌশলী নিরঞ্জন চক্রবর্তী। সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার  বিষ্ণুপদ পাল। সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন গাংনী উপজেলা প্রকৌশলী সেলিম চৌধুরী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সিরাজুল ইসলাম স্যার। পিআইও অফিসের উপ-সহকারী প্রকৌশলী জাকির হোসেনের সঞ্চালনায় এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার তৌফিকুর রহমান, উপজেল মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাসিমা খাতুন,  গাংনী উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি আমিরুল ইসলাম অল্ডাম প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী নিরঞ্জন চক্রবতী।

কুমারখালীতে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উদযাপন

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ “দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রস্তুতি, হ্রাস করবে জীবন ও সম্পদের ঝুঁকি” স্লোগানে কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উদযাপন করা হয়েছে। দিবসটি উদযাপনে গতকাল রবিবার সকালে কুমারখালী উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে র‌্যালি বেরা করা হয়। র‌্যালিটি শহর প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ মাঠে গিয়ে শেষ হয়। পরে কুমারখালী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ইউনিটের কর্মীরা দুর্যোগ মুহুর্তের (ভুমিকম্প ও অগ্নিকান্ড) উদ্ধার কার্যক্রম প্রদর্শন করে। ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের উদ্ধার কার্যক্রম মহড়ায় শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। এ কার্যক্রমের নেতৃত্ব দেন, কুমারখালী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ইউনিটের স্টেশন অফিসার অমিও কুমার বিশ্বাস। এ সময় উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণী- পেশার ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

 

গাংনীর রাইপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার রাইপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচীর আয়োজন করে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ ও জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরাম। আয়োজনে সহযোগিতা করে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ। গতকাল রোববার সকালে দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল র‌্যালি-আলোচনা সভা ও খেলাধুলা এবং পুরস্কার বিতরণ। র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন রাইপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রীসহ এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। র‌্যালিতে নেতৃত্ব প্রধান করেন রাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) হযরত আলী ও রাইপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সাহিবুল ইসলাম। প্রথমে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি রাইপুর বাজার এলাকায় প্রদক্ষিণ করে। পরে রাইপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় চত্বরে খেলাধুলা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাইপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সাহিবুল ইসলাম। দি হাঙ্গার বাংলাদেশ-এর ইউনিয়ন সমন্বয়কারী গোলাম আম্বিয়ার সঞ্চালনায়- অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, রাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) হযরত আলী। এ সময় বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় স্বেচ্ছাব্রতি নেতা সাহাজুল সাজু ইসলাম সাজুসহ রাইপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ।

কালুখালীতে জলাতঙ্ক নির্মূলে অবহিতকরণ সভা

ফজলুল হক ॥ গতকাল রবিবার রাজবাড়ীর কালুখালীতে জলাতঙ্ক রোগ নির্মূলের লক্ষ্যে উপজেলায় ব্যাপক হারে কুকুরের টিকাদান (এমডিভি) কার্যক্রম বাস্তবায়নের নিমিত্তে উপজেলা অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ১১টায় কালুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হলরুমে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কালুখালী উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী শারমিন আক্তার। এসময় অন্যান্যের মধ্যে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ খোন্দকার আবু জালাল, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ কাজী আলমগীর হোসেন, উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) আব্দুর রশিদ, বোয়ালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান হালিমা বেগম, সেনেটারী ইন্সপেক্টর তালেবুর রহমান, স্বাস্থ্য পরিদর্শক সুশিল কুমার রাহা, ইপিআই টেকনোলজিস্ট  শম্ভুনাথ দেবনাথ, এমডিডিভি সুপার ভাইজার ইমতিয়াজ উদ্দিন, সুশান্ত শীল, ইউপি সদস্য আঃ করিম মোল্লা, মোহাম্মদ আলী, প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তাগন ২০২২ সালের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে জলাতঙ্ক নির্মূলের লক্ষ্যে ব্যাপক হারে কুকুরের টিকাদান (এমডিভি) কার্যক্রম ২০১৯ কালুখালী উপজেলায় আগামী  ১৩ মার্চ থেকে ১৭ মার্চ পর্যন্ত বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে কুকুরের টিকা প্রদান করা হবে এজন্য সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।

ভেড়ামারায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে দলীয় পরিচয় ব্যবহারের অভিযোগ

আল-মাহাদী ॥ তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলাম বিধি বহির্ভূতভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সজীব ওয়াজেদ জয় ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফের ছবি ব্যবহার করে পোষ্টার ও লিফলেট তৈরীর অভিযোগ উঠেছে। তালা মার্কা নিয়ে ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনি। ভাইস চেয়ারম্যান পদের অন্যান্য প্রার্থীরা বিষয়টি ইতিমধ্যে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দায়ের করেছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভেড়মারা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা জানান, বিধি বহির্ভূতভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সজীব ওয়াজেদ জয় ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফের ছবি ব্যবহার করে পোষ্টার তৈরী করে তা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়েছেন। তাদের অভিযোগ ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী কোন দল বা সংগঠনের নাম, মনোগ্রাম ছবি তাদের লিফলেটে বা পোষ্টারে ছাপতে পারবেন না। এ বিষয়ে ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোছাঃ ফাতেমা খাতুন জানান, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের কোন দল, কোন দলের মনোগ্রাম বা দায়িত্বশীল পদের কোন ব্যক্তির ছবি বা নাম ব্যবহার করার সুযোগ নেই। কেউ যদি এইটা করে থাকে তবে সেটা অবশ্যই নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন। আমরা অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নির্বাচন কমিশনকে অবহিত করবো। ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল মারুফ জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, তবে কেউ যদি এইটা করে থাকে তবে সেটা অবশ্যই নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন। এ বিষয়ে ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি আমার বোঝার ভূল ছিল, এজন্য আমি ক্ষমা প্রার্থী। আমি পোষ্টারগুলো সরিয়ে ফেলার ব্যবস্থা করছি।

 

কুষ্টিয়ায় জিকে সেচ প্রকল্প ও গড়াই পরিদর্শকালে পানি সচিব কবির বিন আনোয়ার

বিদ্যমান সেচ প্রকল্প সম্প্রসারণ ও গড়াই নদীর নাব্যতা পূনরুদ্ধারে হাতে নেয়া হয়েছে মাস্টার প্লান

নিজ সংবাদ ॥ দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০ জেলায় মিঠা পানি সরবরাহে আরও আধুনিক প্রযুক্তি সমৃদ্ধ জিকে সেচ প্রকল্প সম্প্রসারণ ও গড়াই নদীর নাব্যতা উদ্ধারে ঝটিকা সফর করলেন পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার। শনিবার সন্ধ্যায় ভেড়ামারাস্থ গঙ্গা কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্প থেকে শুরু করে রবিবার দুপুর ১টা পর্যন্ত গড়াই নদীর উৎসমুখ পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন- বাপাউবো ফরিদপুরের প্রধান প্রকৌশলী একেএম ওয়াহেদ উদ্দিন চৌধুরী, কুষ্টিয়া অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আজাদ জাহান, বাপাউবো কুষ্টিয়ার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান, নির্বাহী প্রকৌশলী পীযুষ কৃষ্ণ কুন্ডু, নির্বাহী প্রকৌশলী ভেড়ামারা পাম্প হাউজ শফিকুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ। এসময় পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের সচিব বলেন, জিকে পাম্প হাউজের অধীন ৯শত কি:মি: দীর্ঘ এই প্রকল্পের সাথে ৪শত ৪৪টি টারসিয়ারী ক্যানালে পানি সরবরাহ নিশ্চিত করে। এখানাকার সেচ সুবিধা পেয়ে এঅঞ্চলে অন্তত: এক লক্ষ হেক্টর তিন ফসলী জমিতে খাদ্য শস্য উৎপাদন এবং মৎস্য চাষসহ জীববৈচিত্র রক্ষায় গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখছে। সে কারণে এই প্রকল্পের উপর সরকারের গুরুত্বপূর্ন বিবেচনা ও দৃষ্টি রয়েছে। এখানে প্রয়োজনীয় সেচ সরবরাহে যে পাম্প হাউজ সচল থেকে কাজ করছে এর পাশাপাশি আরও একটি পাম্প হাউজ যেটা পূর্ব থেকেই এখানে সাবসিডিয়ারী হিসেবে আছে সেটাকে আরও আধুনিক প্রযুক্তি সমৃদ্ধ করা হবে। এসময় গড়াই নদীর নাব্যতা পুনরুদ্ধাদের সরকারের পরিকল্পনা বিষয়ে এক প্রশ্নের জবারে তিনি আরও বলেন, দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০ জেলার জনজীবন, কৃষি, জীববৈচিত্র ও সুন্দরবন রক্ষার পাশাপাশি লবণাক্ততা রোধে গড়াই নদীর স্থায়ী নাব্যতার কোন বিকল্প নেই। বিগত ১৯৯৬ সাল থেকে শুরু করে অদ্যবধি দুই ধাপে ক্যাপিটাল ড্রেজিংসহ মেইনটেন্যান্স ড্রেজিং করে নদীর নাব্যতা সচল রাখার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় মাঝাখানে ৫বছর খনন বন্ধ এবং নানাবিধ কারণে নদীর হাইড্রো-মরফোলজিক্যাল পরিবর্তন ঘটে যাওয়ায় গড়াই নদী পূনরুদ্ধার এখন একটা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে সুখবর যে, সরকার এই চ্যালেঞ্জকে গ্রহণ করেই এগুচ্ছে। আগামী ১শ’ বছর সময়কাল ধরে স্থায়ী উপযোগিতা সম্পন্ন টেকসই প্রক্রিয়াকে বাস্তবায়নে সরকার ইতোমধ্যে ডেল্টা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। পানি সচিব পূর্নব্যক্ত করে বলেন, এই পরিকল্পনা শুধুমাত্র গড়াই নদী নিয়ে কর্ম পরিকল্পনা নয়; বরং গড়াইয়ের সাথে সংযুক্ত দক্ষিণাঞ্চলের যে কয়টা নদী আছে তার সবগুলি নিয়েই প্রকল্পট বাস্তবায়ন হবে। সেই সাথে বিগত দিনে গড়াই খননে অনিয়ম-অসন্তোষের বিষয়গুলি বিবেচনায় নিয়েই প্রকল্প বাস্তবায়নে সরকার বদ্ধপরিকর। দক্ষিনাঞ্চলের লবণাক্ততা রোধসহ সুন্দরবনের জীব বৈচিত্র রক্ষায় গড়াই নদীর নাব্যতা পূনরুদ্ধার করতে সরকারের ডেল্টা  প্রকল্পের অধীন ৩য় ধাপে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে হাতে নেয়া হয়েছে মাস্টার প্লান যা আগামী ৩ বছরের মধ্যে বাস্তবায়ন করা হবে।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতাকে বঙ্গবন্ধু ওলামা পরিষদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান আতা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হওয়ায় ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছে বঙ্গবন্ধু ওলামা পরিষদের নেতৃবৃন্দ। গতকাল সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া শহরের হানিফ নগরে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফের বাসায় কুষ্টিয়া জেলা বঙ্গবন্ধু ওলামা পরিষদের পক্ষ থেকে এই ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বঙ্গবন্ধু ওলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা ফারুক আজম জিহাদী, সাধারন সম্পাদক ও হক্কানী দরবার শরীফের পীর মাওলানা খালিদ হুসাইন সিপাহী, সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব হাফেজ আব্দুল্লাহ আল মামুন, সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম চুন্নু, মাওলানা মিরাজুল ইসলাম, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মাওলানা হাফিজুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা ইউনুস আলী, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক মাওলানা ফারুক সিদ্দীকিসহ পরিষদের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও শহর আওয়ামীলীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দও এসময় উপস্থিত ছিলেন। শুভেচ্ছা গ্রহনকালে  আতাউর রহমান আতা বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদের গড়ার লক্ষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

গাংনী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী এমএ খালেককে বিজয়ী করতে আ.লীগের কর্মীসভা

গাংনী প্রতিনিধি ॥ আসন্ন মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ.লীগের চেয়ারম্যান প্রাথী এমএ খালেককে বিজয়ী করতে কর্মীসভা ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল রোববার গাংনী পাইলট মাধ্যমিক স্কুল এন্ড কলেজ চত্বরে কর্মীসভার আয়োজন করে স্থানীয় আ.লীগ। সভায় আ.লীগের উপজেলা ও ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা। কর্মীসভায় সভাপতিত্ব করেন মেহেরপুর জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সিরাজুল ইসলাম স্যার। সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন মেহেরপুর জেলা আ.লীগের সাবেক সভাপতি ও মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন। গাংনী উপজেলা আ.লীগের সহ-প্রচার সম্পাদক মহিবুর রহমান মিন্টুর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গাংনী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ.লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী এমএ খালেক, গাংনী পৌরসভার সাবেক মেয়র ও আ.লীগ নেতা আহম্মদ আলী। এ সময় বক্তব্য রাখেন আ.লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীবৃন্দ। কর্মীসভার আগে গাংনী উপজেলা শহরে একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলে নেতৃত্ব প্রদান করেন মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন।

কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে ২য় বিভাগ দাবা লীগের উদ্বোধন

নিজ সংবাদ ॥  গতকাল রবিবার বিকেলে ষ্টেডিয়ামে কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে ২য় বিভাগ দাবা লীগের উদ্বোধন করা হয়েছে। প্রধান অতিথি হিসেবে দাবা লীগের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি মোঃ আসলাম হোসেন। তিনি তার বক্তব্যে বলেন “ক্রীড়া দেয় সুস্থ দেহ, সুন্দর মন” তাই খেলাধূলায় পারে একমাত্র দেহকে সুস্থ রাখতে ও মনকে সুন্দর রাখতে। লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধূলার কোন বিকল্প নাই। জেলার কৃতি খেলোয়াড়রা মেধা ও মনন কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন পর্যায়ে যে সব অবদান রাখছে অতি অল্প সময়েই সুমন, মিথুন, বিজয়ের মতো নতুন কোন খেলোয়াড় তৈরী হবে এই কুষ্টিয়ার মাটিতে। তিনি সকল অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানান সন্তানদের লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধূলায় মনোনিবেশ করতে। যুব সমাজ ধ্বংসের ভয়াল মাদকের ছোবল থেকে রক্ষা পেতে তাদের পাশে থেকে সবাইকে সচেতন হয়ে কাজ করতে হবে। তিনি আরোও বলেন আজকের প্রতিযোগীতায় যে সব দাবারু অংশগ্রহন করেছেন তারা এখান থেকে বিজয়ী হয়ে দেশের বিভিন্ন পর্যায়ে কৃতিত্বের স্মারক বহন করবে। জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ লিয়াকত আলী খানের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন দাবা উপ-পর্ষদের সাধারণ সম্পাদক অর্থপেডিক সার্জন ডাঃ রতন কুমার পাল। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি সেখ সুলতান আহমেদ, জহুরুল হক চৌধুরী রনজু, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ অনুপ কুমার নন্দী, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক খন্দকার ইকবাল মাহমুদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খন্দকার রাশিদুল ইসলাম মঞ্জুসহ কায্যনির্বাহী পরিষদের সকল সদস্য। এ সময় কুষ্টিয়া জেলা ভলিবল দল আঞ্চলিক চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় প্রাপ্ত ট্রফি জেলা প্রশাসকের হাতে তুলে দেন টিম ম্যানেজার খন্দকার রাশিদুল ইসলাম ও ম্যানেজার আরজু। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন নির্বাহী সদস্য আফরোজা আক্তার ডিউ।

 

কুমারখালীতে সাবেক এমপি তরুনের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম আবুল হোসেন তরুনের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। গতকাল রোববার কুমারখালী জে এন মাধ্যমিক বিদ্যালয় জামে মসজিদে বাদ যোহর মসজিদ কমিটির আয়োজনে দোয়া ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক, মসজিদের খতিব পীরজাদা মাওলানা খোন্দকার আব্দুস শুকুর। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন কুমারখালী এম এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক মাওলানা আব্দুল হালিম। অন্যান্যের মধ্যে মরহুম আবুল হোসেন তরুনের জীবন ও কর্মের উপর স্মতিচারণমূলক বক্তব্য রাখেন বুলবুল টেক্সটাইলের এমডি শিল্পপতি আব্দুর রফিক বিশ^াস। উল্লেখ্য, কুমারখালীর সর্বস্তরের আপামর জনতার কাছে মিয়া ভাই খ্যাত মরহুম আবুল হোসেন তরুন কুমারখালী শহরের জে এন মাধ্যমিক বিদ্যালয় জামে মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন।

মিরপুর পৌরসভা এলাকায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কাশেমের গনসংযোগ

মিলন আলী ॥ গতকাল দিনব্যাপী মিরপুর উপজেলার ভাইস  চেয়ারম্যান প্রার্থী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আবুল কাশেম জোয়ার্দ্দার পৌরসভার ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে পথসভা, গনসংযোগ ও শুভেচ্ছা  বিনিময় করেন। দলীয় নেতা-কর্মী, সমর্থকসহ প্রচুর মানুষের সমাগমে নির্বাচনী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির  বক্তব্য রাখেন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কাশেম। আওয়ামী লীগের প্রবীন  নেতা কুরবান আলী সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রবীন আ’লীগ নেতা শক্তি নান্দন দেবনাথ, প্রচার সম্পাদক  মোমিন মন্ডল, যুব লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি সাইফুর রহমান,  যুব লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহাগ আহমেদ, প্রবীন আ’লীগ  নেতা আছেন আলী, যুব লীগ নেতা নান্নু আলী, আ’লীগ নেতা সাবান আলী, জহুরুল, ছাত্র লীগ  নেতা আকাশ, আব্দুল কুদ্দুস। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন যুবলীগের ধর্মীয় সম্পাদক হাফেজ মোস্তাক আহমেদ।

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মুক্তিযোদ্ধা সুপ্রীম কমান্ডের শ্রদ্ধা নিবেদন

নিজ সংবাদ ॥ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সুপ্রীম কমান্ড নেতৃবৃন্দ। ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ উপলক্ষ্যে ৩২ নং ধানমন্ডিতে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ আব্দুল আহাদ চৌধুরী, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ হোসেন, মিনহাজুর রহমান আলো, মোঃ সেলিম, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক-জেলা সাংগঠনিক কমান্ডের কমান্ডার ও মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের সাবেক জেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক কুমার ঘোষ, ফরিদপুর মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের সাবেক জেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সালাউদ্দিন, কুষ্টিয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকবাল মাসুদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইদুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মজনু সহ প্রায় চারশত বীর মুক্তিযোদ্ধা।

॥ নাজীর আহ্মদ জীবন ॥

বাংলাদেশের স্বাধীনতায় বারো-শরীফের ইমাম (রঃ) এর ভূমিকা

স্বাধীনতা আল¬াহ্র এক নেয়ামত। যা সৃষ্টি জীবের জন্মগত অধিকার। তাই কবির কথায়Ñ “স্বাধীনতাহীনতায়, কে বাঁচিতে চায়রে/কে বাঁচিতে চায়। দাসত্ব শৃঙ্খল বলো কে পরিবে পায়েরে/কে পরিবে পায়ে। এ মাস বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের মাস। ১৯৭১ সালে সারাটা দেশজুড়ে স্বাধীনতা সংগ্রামের জোয়ার। প্রকৃতির রাজ্যে ও অভূতপূর্ব বন্যার জোয়ার। নিজের জীবন বাঁচাতে এবং দেশের স্বাধীনতার জন্য সংগ্রাম করতে অনেকে দেশ ছেড়ে ভারতে আশ্রয় নেন। কিন্তু একজন সূফী সাধক এ দেশের প্রতি তার ভালবাসার নিদর্শন রেখে দেশ ছেড়ে এমন কি নিজ সাধনার স্থান ছেড়ে কোথাও গেলেন না। যদি মরতে হয় তো দেশের মাটিতেই মরবো, দেশের মাটিতেই চিরনিদ্রায় শায়িত হবো।

তখন, কুষ্টিয়া শহরের হানাদার বাহিনীর অপারেশন চলছে। একদিন মিলেটারি তার সাধনা ঘরে ঢুকলো। কাউকে দেখতে না পেয়ে বুটের শব্দ করতে করতে ঘর থেকে বের হয়ে গেল। তিনি তখন ঘরে নির্দিষ্ট স্থানে বসেছিলেন। এতো বন্যা। উনার ঘরে তখন ১৮”-পানি। ঘরে ইটের উপর চৌকিতে উনি থাকতেন, তবুও দেশ ও প্রিয় কুষ্টিয়া ছেড়ে যান নাই একদিন কথা প্রসঙ্গে বললেন, “১৯৭১-এ-অনেক আলেম ও পীর-তৎকালিন পাকিস্তানের অখন্ডতার জন্য দোয়া করেছিল। বারোশরীফ সেদিন ‘স্বাধীন বাংলার’ জন্য হাত তুলেছিল আল¬াহর কাছে রাসুল (সাঃ) এর নির্দেশে। দেশ স্বাধীন হলো। এবার শেখের জন্য দোয়া করতে বলা হলো। শেখ ফিরে এলেন।

উনার মাঝে ছিলÑদেশপ্রেম। বলতেন “দেশপ্রেম ঈমানের অঙ্গ”। মাঝে মধ্যে এ দেশ ও দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছেন তাদের জন্য দোয়া করতেন। ২৬শে মার্চ ও ১৬ ডিসেম্বর উপলক্ষে দরবারে আলোক সজ্জা করতেন। ১৬-১২-৮৩ তে বিজয় দিবসের আলোক সজ্জায় দরবারÑপ্রথম পুরস্কার পায়। এ দেশ ও এদেশের প্রকৃতিকে তিনি ভালবাসতেন। এর বহু প্রশংসা করতেন। তার সাধনা জীবন শুরু হয়েছিল ময়মনসিংহের মধুপুর জঙ্গলে ১৯৬৩ সালে। এরপর পার্বত্য চট্টগ্রামে।

সবুজ গাছ আর জংগল ঘেরা মধুপুর, আর পাহাড়, সমুদ্র ও ঘণ গাছপালা বেস্টিত চট্টগ্রাম।

মানুষ  নিজেকে চেনার আগে পাঠ গ্রহণ করে ‘্িবশ্ব প্রকৃতি’ হতে। এ যেন, মহান “স্রষ্টার পাঠশালা”। ইমাম (রঃ) তাই তখন থেকে হয়ে ওঠেন প্রকৃতি প্রেমিক। প্রকৃতিকে তিনি আধ্যাত্মিকতার সাথে যুক্ত করেছিলেন এভাবে। পবিত্র কোরানে নামাজ-রোজা-হজ্ব-যাকাত ইত্যাদি সম্পর্কে আড়াইশ’ আয়াত আছে। কিন্তু বিশ্ব প্রকৃতির দৃশ্যরূপ সুষমাকে কেন্দ্র করে আয়াতের সংখ্যা সাড়ে’নশ। কারণ, বিশ্ব প্রকৃতির দিকে আল¬াহ মানুষের সৃষ্টি বিশেষ ভাবে আকর্ষণ করেছেন। এজন্য যে, প্রকৃতির সঙ্গে একাত্ম হলেই স্রষ্টার মহিমা ও বিষ্ময়কর সৃজন শক্তির লীলা রহস্য সম্যক অনুধাবন এবং অন্তর গভীরে তার প্রতি প্রেম ও উপলব্ধি সহজ ও স্বার্থক হয়ে ওঠে। তাই, সাধক শেখ সাদী (রঃ) বলেছেন,” বুদ্ধিমানের দৃষ্টিতে সবুজ বৃক্ষের প্রতিটি পত্র স্রষ্টার পরিচয় লাভ করার জন্য এক একখানা মহাগ্রন্থ”।

কারণ, আল¬াহর প্রেমের নূরে রাসূল (সাঃ) আর তাঁর নূরেই সৃষ্টি জগৎ তথা এ বিশ্বপ্রকৃতি। তাই রাসুল (সাঃ) তাঁর জীবনে সবুজ রং বেশী ভালবাসতেন। বারো শরীফের ইমাম (রঃ) সবুজ টুপি, সবুজ ফতুয়া (মারেফাত) পড়তেন। প্রকৃতির মাঝে পেয়েছিলেন রাসুল প্রেম ও সাধনার শক্তি। আর তা তো সুন্দর ও প্রশান্তির এক দিক। সবুজ তো শান্তিরই প্রতীক। কারণ, এ বিশ্ব প্রকৃতি এত আল¬াহর ‘শান্তি নিকেতন’। একদিন আমার প্রশ্নের উত্তরে বলেছিলেন,” এ দেশের প্রতি রাসূলের বিশেষ খেয়াল ছিল, এ দেশকে তিনি ভালবাসতেন।” এ রাসুল প্রেমিক সুফী সাধক “বারো শরীফ তথা মোহাম্মদ” পাবার পর এ দেশকে “মোহাম্মদ ভূমি বাংলাদেশ” বলতেন। দোয়া করতেন, “এ দেশকে বিশ্বের বুকে নেতৃস্থানীয় করে দেবার।”

এ দেশে তখন ঋতুরাজ বসন্ত চলছে। রাসুল ও একদিন আরবে বসন্ত ঋতুতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি যে “আধ্যাত্মিক বসন্তের” অমর প্রাণ পুরুষ। আসেন আমরা এদেশ ও এদেশের প্রকৃতি ও মানুষকে ভালবাসি। ভালবাসি “আধ্যাত্মিক পুণ্যভূমি কুষ্টিয়াকে।” এই হোক এ স্বাধীনতার মাসে আমাদের ‘দেশব্রতী”।

লেখক ঃ নাজীর আহ্মদ জীবন, থানাপাড়া, কুষ্টিয়া। মোবাঃ ০১৭১৮-০৩৫৮৯০

কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে আর্ন্তজাতিক নারী দিবস পালন

আর্ন্তজাতিক নারী দিবস উপলক্ষে কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। সময় এখন নারীর, উন্নয়নে তারা বদলে যাচ্ছে গ্রাম-শহরের কর্ম-জীবন ধারা। নারী-পুরুষ সমতা উন্নয়নের যাত্রা, বদলে যাবে বিশ^, কর্মে নতুন মাত্রা। অগ্রগতির মূল কথা নারী-পুরুষ সমতা। এই স্লোগানকে সামনে রেখে গতকাল সকালে কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী’র নেতৃত্বে র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে কুষ্টিয়া পৌরসভার বিজয় উল্লাস চত্তরে এসে শেষ হয়। পরে মেয়র আনোয়ার আলী’র সভাপতিত্বে পৌরসভার বিজয় উল্লাস চত্তরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায়  বক্তব্য রাখেন প্যানেল মেয়র-৩ পারভীন হোসেন, জ্যোতি ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী সৈয়দা হাবিবা তার বক্তব্যে বলেন, ১৮৫৭ খ্রিষ্টাব্দে মজুরি বৈষম্য, কর্মঘন্টা নির্দিষ্ট করা, কাজের অমানবিক পরিবেশের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের রাস্তায় নেমেছিল সুতা কারখানার নারী শ্রমিকেরা। ১৯০৯ সালের ২৮ ফেব্র“য়ারি নিউইয়র্কের স্যোশাল ডেমোক্রান্ট নারী সমাবেশে জার্মান সমাজতান্ত্রিক নেত্রী ক্লারা জেটকিনের নেতৃত্বে সর্বপ্রথম নারী সম্মেলন হয়। এই সম্মেলনে ক্লারা প্রতি বছর ৮ মার্চ নারী দিবস ঘোষনা করা হয় ও পরে জাতিসংঘ এই দিবসটি স্বীকৃতি দেয়। এরপর হতে বিশে^র সবদেশে নারী দিবস পালন করে আসছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া পৌরসভার কাউন্সিলর সাবা উদ্দিন সওদাগর, খন্দকার মাজেদুল হক, বদরুল ইসলাম, ইসলাম শেখ, শাহানাজ সুলতানা বনি, নুরজাহান, মমতাজ জাহান, কুষ্টিয়া পৌরসভার সচিব কামাল উদ্দিন, সহকারী প্রকৌশলী পূর্ত ওয়াহেদুর রহমান, সহকারী প্রকৌশলী আবুল কাশেম, বস্তি উন্নয়ন কর্মকর্তা এ.কে.এম, মনজুরুল ইসলাম, উপ-সহকারী প্রকৌশলী সাবিনা ইসলাম, কর নির্ধারক আমান উল¬াহ, কুষ্টিয়া পৌরসভা এম্পয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি গোলাম সারওয়ার, সাধারণ সম্পাদক একরামুল ইসলাম, পৌরসভার  কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিভিন্ন প্রকল্পের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

খাজানগরে এলাকাবাসীর মিছিল, সমাবেশ ও মানববন্ধন

জেলা ছাত্রলীগ নেতা রুবেলসহ ১৩জনকে আসামী করে মামলা

হামলার ৮দিন পর ঢাকা মেডিকেলে এসএসসি পরীক্ষার্থী হৃদয়ের মৃত্যু

নিজ সংবাদ ॥ ৮দিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর শনিবার দুপুরে মৃত্যু হয়েছে মেহেদী হাসান হৃদয় নামের এক কিশোরের। নিহত হৃদয় এ বছর কবুরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। গতকাল রোববার হৃদয়ের লাশ নিয়ে মিছিল, সমাবেশ ও মানববন্ধন করে এলাকাবাসী। এ ঘটনায় জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল মোল¬াসহ ১৩ জনের নামে মামলা হয়েছে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত ১ মার্চ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নের খাজানগর নর্থ বেঙ্গল রাইচ মিলের চাতালে ওয়াজ মাহফিল চলাকালে বাদামের খোসা ফেলাকে কেন্দ্র করে খাজানগর গোলবার সর্দার পাড়ায় বাড়ি ছাত্রলীগ নেতা রুবেল  মোল¬া গ্র“পের দিপু, হাসান ওরফে হোল্ডার ও হানিফের সঙ্গে  দোস্তপাড়ার আকুব্বার মন্ডলের ছেলে হৃদয়, তার বন্ধু সুমন, জিহাদ ও রাসেল মন্ডলের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি পর্যন্ত হয় । এ ঘটনার একদিন পর গত ৩ মার্চ বিকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে হৃদয়, জিহাদ ও রাসেল খাজানগর উত্তরপাড়ায় যায়। তারা উত্তরপাড়ায় নির্মাণাধীন একটি বাড়ির সামনে পৌঁছালে আবারও রুবেল মোল¬া গ্র“পের দিপু, হাসান ওরফে  হোল্ডার সাথে কথাকাটাকাটি হয়। এরই এক পর্যায়ে রুবেল  মোল¬াসহ বেশ কয়েকজন ধাওয়া দিলে পালাতে গিয়ে তাদের হাতে ধরা পরে হৃদয় ও জিহাদ। পরে রুবেল, দিপু হাসান ওরফে  হোল্ডার ও হানিফ লাঠি ও রড দিয়ে এলোপাথাড়িভাবে পিটিয়ে হৃদয় ও জিহাদকে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা ছুটে এসে হৃদয় ও জিহাদকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় উদ্ধার উদ্ধার করে কুষ্টিয়া  জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে হৃদয়ের অবস্থার অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। ৮ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর শনিবার দুপুরে হৃদয়ের মৃত্যু হয়। হৃদয়ের মৃত্যুর খবরে এলাকায় শোকের ছায়া  নেমে এসেছে ওপর দিকে উত্তেজনা বিরাজ করছে। গতকাল রোববার সকালে হৃদয়ের দাফন করা হয়। এলাকার হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে আছে। তারা মানববন্ধন, মিছিল ও সমাবেশ করে। দ্রুত খুনিদের গ্রেফতারের দাবি জানান। এ ঘটনায় পর হৃদয়ের চাচা আবুছ উদ্দিন বাদী হয়ে গত ৪ মার্চ কুষ্টিয়া মডেল থানায় রুবেল  মোল¬াসহ ১৩ জনের নাম উল্লেখসহ আরও ১০/১২ জন অজ্ঞাতনামার নামে মামলা করেন। রুবেলের চাচা আবুছ উদ্দিন বলেন, আগেই মামলা করা হয়েছে। ওই মামলায় জড়িতদের নামসহ মামলা করা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে আমরা আশা করছি। কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসির উদ্দিন বলেন, মামলাটি হত্যা মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হবে। ইতিমধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী বাদশার গণসংযোগ অব্যাহত

আসন্ন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং কুষ্টিয়া সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ আবু তৈয়ব বাদশা’র গণসংযোগ অব্যাহত রয়েছে। গতকাল রবিবার তিনি মনোহরদিয়া, ঝাউদিয়া, উজানগ্রাম, বিত্তিপাড়া, পূর্ব মজমপুর, পশ্চিম মজমপুর, উদিবাড়ীসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও মতবিনিময় করেন। এসময় তিনি তাঁর প্রতীক পালকি মার্কায় ভোট প্রার্থনা করে বলেন, ইতোমধ্যে জননেতা মোঃ আতাউর রহমান আতা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। আমি তাঁর সহযোগি হিসেবে এক ও ঐক্যবদ্ধ হয়ে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার উন্নয়নে কাজ করতে চাই। আশারাখি আমাকে ভোট দিয়ে সদর উপজেলার উন্নয়নসহ আপনাদের পাশে থাকার সুযোগ দিবেন। গণসংযোগকালে বাদশা’র সাথে ছিলেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান (মিজু), যুগ্ম-সম্পাদক লাল্টু রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক জিল্লুর রহমান এবং সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মৃদুল হাসান প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কুমারখালী উপজেলা নির্বাচন

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় করলেন আ’লীগ চেয়ারম্যান প্রার্থী মান্নান খান

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীর কাপুড়িয়া ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আব্দুল মান্নান খান। গতকাল রবিবার বেলা ১১টায় শহরের মেসার্স রানা টেক্সটাইল ইন্ডাষ্ট্রিজের বিক্রয় কেন্দ্রে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুমারখালী মার্চেন্ট এসোসিয়েশন ও পাওয়ারলুম এসোসিয়েশনের সভাপতি মো: শাহজাহান আলী মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, কুমারখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান খান। এ সময় মান্নান খান ব্যবসায়ী নেতা সহ সাধারন ব্যবসায়ীদের কাছে তাঁর অতীতের ভুল-ক্রটির জন্য ক্ষমা, নিজের জন্য দোয়া এবং নৌকার জন্য ভোট প্রার্থনা করেন। তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, দেশব্যাপী উন্নয়নের জোয়ার চলছে। আমরাও পিছিয়ে থাকতে চাইনা। ঐতিহ্যবাহি কুমারখালী উপজেলার উন্নয়নের স্বার্থে আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হই এবং নৌকায় ভোট দিয়ে বিজয় নিশ্চিত করি। এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র মো: সামছুজ্জামান অরুণ, ব্যবসায়ী পিয়ার মহম্মদ বিশ্বাস, ব্যবসায়ী আব্দুল কাইয়ুম, পৌর সভার কাউন্সিলর হারুন অর রশীদ হারুন, কাউন্সিলর এস, এম রফিকুল ইসলাম প্রমূখ। মতবিনিময় সভা সঞ্চালনা করেন, মেসার্স রানা টেক্সটাইল ইন্ডাষ্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ রানা। মতবিনিময় সভা শেষে ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে নিয়ে শহরের হলমোড় পর্যন্ত পদযাত্রা ও গণসংযোগ করেন আব্দুল মান্নান খান।

বিশিষ্ট চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. তুষার সিকদার’র এফআরসিপি ডিগ্রী লাভ

নিজ সংবাদ ॥ সম্প্রতি রয়েল কলেজ, ইংল্যান্ড থেকে অত্রাঞ্চলের স্বনানধন্য চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ তুষার সিকদার এফআরসিপি ডিগ্রী লাভ করেছেন। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ কুষ্টিয়া সনো সেন্টারে চর্ম, এলার্জি ও যৌন রোগাক্রান্ত রুগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছেন। তিনি দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন সেমিনারে প্রবন্ধ পাঠ এবং চেয়ারপার্সন হিসেবে আমন্ত্রিত হয়ে চর্ম ও যৌন রোগের চিকিৎসায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন।

শেখ হাসিনা ও মোদি আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৪টি প্রকল্প উদ্বোধন করবেন

ঢাকা অফিস ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি)কে ১১০০ বাস ও ট্রাক সরবরাহসহ বাংলাদেশে ৪টি প্রকল্প যৌথভাবে উদ্বোধন করবেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্র জানায়, দুই প্রধানমন্ত্রী আজ বাংলাদেশ সময় বেলা ১টা ১০ মিনিটে নিজ নিজ রাজধানী থেকে প্রকল্পগুলো উদ্বোধন করবেন। বিআরটিসি চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ মিয়া জানান, তারা ভারত থেকে প্রাপ্ত ঋণে কেনা ৬শ’ বাস ও ৫শ’ ট্রাক বিআরটিসিকে সরবরাহ উদ্বোধন করবেন। বাসগুলোর মধ্যে ৩শ’টি ডবল ডেকার, ১শ’টি নন এসি, ১শ’টি সিটি এসি ও ১শ’টি ইন্টারসিটি এসি বাস। ট্রাকগুলোর মধ্যে রয়েছে ৩৫০টি ১৬ দশমিক ২ মেট্রিক টন বহন ক্ষমতা সম্পন্ন ও ১৫০টি ১০ দশমিক ২ মেট্রিক টন বহন ক্ষমতা সম্পন্ন ট্রাক। বিআরটিসি চেয়ারম্যান বলেন, এ পর্যন্ত ৪৭টি বিআরটিসি বাস ও ২৫টি ট্রাক বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে। বাকি বাস ও ট্রাক চলতি বছরের জুনের মধ্যে এসে পৌঁছবে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্র জানায়, দুই প্রধানমন্ত্রী ভারত সরকারের অনুদান অর্থায়নের আওতায় জামালপুর, শেরপুর, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩৬টি কমিউনিটি ক্লিনিক উদ্বোধন করবেন। দুই প্রধানমন্ত্রী বাকি যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন সেগুলো হলো ভারত সরকারের অনুদান সহায়তার আওতায় পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া পৌরসভায় ১১টি পানি বিশুদ্ধকরণ প্লান্ট এবং সার্ক দেশগুলোতে ন্যাশনাল নলেজ নেটওয়ার্ক (এনকেএন) সম্প্রসারণের আওতায় বাংলাদেশে এনকেএন সম্প্রসারণ।

মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে স্কাউটদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান

ঢাকা অফিস ॥ রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ দেশব্যাপী স্কাউট আন্দোলন জোরদার করার ওপর গুরুত্বারোপ করে তাদের মাদকের অপব্যবহার সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। গতকাল রোববার বিকেলে গাজীপুরের মৌচাকস্থ জাতীয় স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ১০তম বাংলাদেশ এবং তৃতীয় এসএএনএসও (দক্ষিণ এশীয় এসোসিয়েশন অব ন্যাশনাল স্কাউট অর্গানাইজেশন) স্কাউট জাম্বুরী-২০১৯ এর উদ্বোধনীকালে তিনি স্কাউটদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনাদেরকে মাদকের অপব্যবহার, সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে এবং সর্বদা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, দেশপ্রেম ও মানবতার প্রতি দায়িত্ববোধ সমুন্নত রাখতে হবে।’ প্রধান স্কাউট আব্দুল হামিদ বলেন, ‘তোমরা আগামীতে জাতিকে নেতৃত্ব দেবে। তোমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত এবং সম্পদশালী বাংলাদেশ গড়ে তুলবে।’ শিশু-কিশোর ও যুবকদের ধর্মান্ধতা, সাম্প্রদায়িকতা সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিষবাষ্প থেকে নিরাপদ ও দূরে রাখতে স্কাউটিং ইতিবাচক অবদান রাখতে পারে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, কেবল স্কাউটরাই আধুনিক প্রগতিশীল ও সৃষ্টিশীল নতুন প্রজন্ম গড়ে তুলতে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে। তিনি বলেন, স্কাউটিংয়ের মাধ্যমে দক্ষ নেতৃত্ব গড়ে তোলার পাশাপাশি বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য স্কাউট আন্দোলনকে তরান্বিত করতে অভিভাবক ও স্কাউট লিডারসহ সকলের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশ স্কাউটয়ের ব্যতিক্রম ধর্মী কার্যক্রম আমাকে মুগ্ধ করেছে। সম্প্রতি চকবাজারে ঘটে যাওয়া ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে উদ্ধার কাজ এবং দেশব্যাপী সড়ক নিরাপদ ও ট্রাফিক শৃঙ্খলা রক্ষায় সহায়তা করে বাংলাদেশ স্কাউটস উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।’