কালুখালীতে ট্রেনের ধাক্কায় বৃদ্ধের মৃত্যু

ফজলুল হক ॥ গতকাল শুক্রবার রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালীতে ট্রেনের ধাক্কায় এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। নিত বৃদ্ধের নাম মিজানুর রহমান ইয়ার মন্ডল (৬৫)। গ্রাম-পশ্চিম দূর্গাপুর, উপজেলা-মান্দা, জেলা-নওগা। ঘটনার বিবরণে নিহতের কন্যা মোছাঃ ইয়াসমিন জানায়, তার স্বামী  গোপলগঞ্জের পাইককান্দা ব্র্যাকের চাকুরির কর্মস্থল থেকে ঐ দিন সকালে  গোপালগঞ্জের গোবরা থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহী গামী টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস ট্রেনে কালুখালী স্টেশনে এসে ৯টা ৩০ মিনিটের দিকে যাত্রা বিরতিকালে তার পিতা ট্রেন থেকে নেমে নাতি ছেলের জন্য চিপস ও পানি কিনতে প্লাটফর্মে নামে। এরপর তিনি ক্রয় করে ট্রেনে উঠার পূর্বের ট্রেনটি ছেড়ে দেয়। এমতাবস্থায় তিনি চলতি ট্রেনে উঠতে গেলে ট্রেনের ধাক্কায় পা পিছলে নিচে পড়ে গিয়ে মাথায় আগাত লেগে রক্তাক্ত হয়। তাৎক্ষনিক স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কালুখালী সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে বোয়ালিয়া মোড় নামক স্থানে পৌছালে তার মৃত্যু হয়। নিহত তার অবর্তমানে তার স্ত্রী ও ১পুত্র ও ১কন্যা রয়েছে।

 

 

যারা গরু-ছাগলের মত বিক্রি হয় তারা দালাল – ড. কামাল

ঢাকা অফিস ॥ গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘মানুষের মাথা কেনা যায় না, গরু-ছাগলের মাথা কেনা যায়। যারা গরু-ছাগলের মত বিক্রি হয় তারা দালাল হিসেবে পরিচিত।’ গণফোরাম থেকে বহিষ্কৃত সুলতান মোহাম্মদ মনসুরের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি শুক্রবার রাজধানীর মতিঝিলে গণফোরামের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর গণফোরামের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, অতীতে রাজনীতি ছিল মানুষকে নিয়ে। এখন অনেকে নিজেদের স্বার্থ নিয়ে রাজনীতি করেন। ড. কামাল হোসেন বলেন, দেশে সুস্থ রাজনীতির চাহিদা আছে এটা অস্বীকার করার কোনো সুযোগ নেই। কুশাসন থেকে জনগণ মুক্তি চায়, মিথ্যার ওপর রাষ্ট্র চলতে পারে না। ড. কামাল বলেন, জনগণের শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করে সার্বক্ষণিক জনগণের সঙ্গে থাকলে অচিরেই সুস্থ ধারার রাজনীতি দৃশ্যমান হবে। দেশের বেশিরভাগ মানুষ সুস্থ ধারার রাজনীতির পক্ষে। এ রাজনীতি চর্চা হতে থাকলে অপরাজনীতি চিরতরে বিদায় নেবে। গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসীন মন্টুর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন সাইদুর রহমান সাইদ, আইয়ুব খান ফারুক, রফিকুল ইসলাম পথিক, হারুনুর রশীদ তালুকদার, মো. রওশন ইয়াজদানী, ফরিদা ইয়াছমীন প্রমুখ। প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-২ আসন থেকে ‘ধানের শীষ’ প্রতীকে নির্বাচিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী গণফোরামের সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ দল ও জোটের সিদ্ধান্তের বাইরে বৃহস্পতিবার সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেন। এজন্য তাকে দল থেকে বহিষ্কার করে ড. কামালের নেতৃত্বাধীন গণফোরাম। গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসীন মন্টু স্বাক্ষরিত একটি চিঠি সুলতান মোহাম্মদ মনসুরকে পাঠানো হয়। চিঠিতে বলা হয়, ‘৩০ ডিসেম্বর ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের নামে জাতীয় কলংক অনুষ্ঠিত হয়েছে। তার মধ্যেও আপনি বিজয়ী হওয়ায় দল এবং ঐক্যফ্রন্ট আপনাকে আগেই অভিনন্দন জানিয়েছে। এই প্রহসনের নির্বাচনের ফলাফল জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত মোতাবেক প্রত্যাখ্যান করেছে। যা আপনি অবহিত। এ ছাড়া এই নির্বাচনে সৌভাগ্যবান বিজয়ী ঐক্যফ্রন্টের ৮ জন নির্বাচিত সংসদ সদস্য শপথ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, যা আপনি অবহিত রয়েছেন’। চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘কিন্তু আপনি দলীয় এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সিদ্ধান্ত অমান্য করে শপথ গ্রহণ করেছেন যাতে দেশের মানুষ চরম হতাশ এবং বিক্ষুদ্ধ। আমাদের দল গণফোরাম এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনে করে, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও ভোটের অধিকার আদায়ের সংগ্রামকে পদদলিত করে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়ে আপনি নৈতিকতাবিরোধী, জনবিরোধী এবং সংসদীয় রীতি বিরোধী কাজ করেছেন। অতএব, আপনার বিরুদ্ধে দলের নীতিবিরোধী, আদর্শবিরোধী, জনবিরোধী কার্যকলাপের অভিযোগে আপনার গণফোরামের প্রাথমিক সদস্যপদ বাতিল করা হলো এবং গণফোরাম থেকে বহিষ্কার করা হলো। একইসঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্যপদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হলো’। এর আগে গত ২ মার্চ সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীকে চিঠি দেন গণফোরামের দুই নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর ও মোকাব্বির খান। ৭ মার্চ শপথ নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন তারা। সে অনুযায়ী সংসদ সচিবালয় বৃহস্পতিবার শপথ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সুলতান মোহাম্মদ মনসুর শপথ নিলেও শেষ মুহূর্তে পিছু হটেন সিলেট-২ আসন থেকে নির্বাচিত গণফোরামের আরেক সংসদ সদস্য মোকাব্বির খান।

‘ইসরাইলরে সঙ্গে সর্ম্পক রাখা হারাম’

ঢাকা অফসি ॥ ফলিস্তিনিরে গাজা উপত্যকার আল-আমরি মসজদিরে খতবি মুফতি নমির আবু আউন বলছেনে, ইহুদবিাদী ইসরাইলরে সঙ্গে সর্ম্পক রাখা হারাম। মুসলমি দশেগুলোর জন্য কোনো পরস্থিতিতিইে ইসরাইলরে সঙ্গে সর্ম্পক প্রতষ্ঠিা করা উচতি হবে না। ইরানরে রাষ্ট্রীয় র্বাতা সংস্থা ইরনার সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলনে তনি।ি মুফতি আবু আউন বলনে, ফলিস্তিনি ভূখ-সহ ইসলামরে পবত্রি স্থানগুলো রক্ষার বষিয়টি গুরুত্বরে সঙ্গে ববিচেনা করতে হব।ে মুসলমানদরে সামগ্রকি পরস্থিতিি অত্যন্ত নাজুক হলওে বষিয়টকিে এড়য়িে যাওয়া যাবে না। আল-আমরি মসজদিরে এ খতবি বলনে, কোনো কোনো আরব সরকার ইসরাইলরে সঙ্গে সর্ম্পক স্থাপন করছ;ে যা অগ্রহণযোগ্য এবং অযৌক্তকি। বশ্বিরে কোনো দশেরেই উচতি নয় খুন,ি অপরাধী ও দখলদার ইসরাইলরে সঙ্গে সর্ম্পক রক্ষা করা। আবু আউন বস্মিয় প্রকাশ করে বলনে, ইসরাইলরে অনকে ইউরোপীয় মত্রিদশেও ইসরাইলি পণ্যরে ওপর নষিধোজ্ঞা জারি করছে।ে কন্তিু দুঃখজনকভাবে অনকে মুসলমি দশে ঘাতক ইসরাইলরে সঙ্গে সর্ম্পক করতে মরয়িা হয়ে উঠছেে এবং ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বনেয়িামনি নতোনয়িাহুকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছ।ে ফলিস্তিনিদিরে ওপর ইসরাইলি নর্যিাতন দনি দনি বাড়ছে বলওে জানান তনি।ি

আলহাজ¦ বেলায়েত হোসেন শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে মাহবুবউল-আলম হানিফ

অর্থের অভাবে দেশে আর কোন মেধাবী শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন থেমে থাকবে না

হাবিবুর রহমান ॥ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, বর্তমান সরকার শিক্ষার ক্ষেত্রে সব চেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে। আমাদের দেশের গ্রামে অনেক মেধাবী শিক্ষার্থী রয়েছে যারা অর্থের অভাবে লেখাপড়া করার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা বৃত্তির ব্যবস্থা করেছেন। ইতিপূর্বে দেখা গেছে নি¤œ আয়ের মানুষেরা বই এবং স্কুলের বেতন দেওয়ার সামর্থ না থাকায় তাদের সন্তানদের স্কুলে পাঠাতো না। বর্তমানে নি¤œ আয়ের মানুষেরাও তাদের সন্তানকে স্কুলে পাঠায়। কারন বর্তমান সরকার বিনামূল্যে বই বিতরন করে, শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করে। আমাদের লক্ষ একটাই সমাজের সকল শ্রেণির মানুষকে শিক্ষার আলোয় আলোকিত করা। অর্থের অভাবে দেশে আর কোন মেধাবী শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন থেমে থাকবে না। দেশের উন্নয়নে শিক্ষার্থীদের আত্মনিয়োগ করতে হবে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে কুষ্টিয়া শহরের দিশা টাওয়ারে গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে আলহাজ¦ বেলায়েত হোসেন শিক্ষা বৃত্তি প্রদানকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে ওয়েস্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বশির আহম্মেদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আজগার আলী, কুষ্টিয়া শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি তাইজাল আলী খাঁন, মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফিন, আলহাজ্ব বেলায়েত হোসেন শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানের প্রধান সমন্বয়ক ও বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ-পরিচালক নাজমুল হুদা, আলহাজ্ব বেলায়েত হোসেন শিক্ষাবৃত্তির আহবায়ক ও জাতীয় সাঁতার প্রশিক্ষক আমিরুল ইসলাম, কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক শেখ মোহাম্মদ আবু সাঈদ, মিরপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার জুলফিকার হায়দার। এসময় অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আমলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারমান আনোয়ারুল ইসলাম মালিথা, সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল হক রবি, পোড়াদহ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ারুজ্জামান বিশ^াস মজনু, মিরপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার আফতাব উদ্দিন খাঁন, জেলা যুবলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম, আমলাসদরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক মকবুল হোসেন, নওদা আজমপুর বিএম কলেজের অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম, বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক হাসান টুটুল, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আতিয়ার রহমান, আব্দুল মান্নান, রিয়াজতুল্লা মালিথা, মিল্টন মালিথা, মিরপুর প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি কাঞ্চন কুমার, সাধারন সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রিমন, মিরপুর উপজেলা তাঁতী লীগের যুগ্ম-আহবায়ক হাবিবুর রহমান, আব্দুর রাফেত বিশ^াস কলেজের প্রভাষক হামিদুল ইসলামসহ আওয়ামী লীগের দলীয় নেতাকর্মী ও সুধিজনরা উপস্থিত ছিলেন। উক্ত অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়া জেলার ৫০ জন দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে ১০ লক্ষ টাকার শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।

পিছিয়ে নেই দৌলতপুরের গ্রামের নারীরা, সব কর্মক্ষেত্রেই রয়েছে তাদের অবদান

শরীফুল ইসলাম ॥ এক সময় নারীদের বাড়ির আঙিনা বা চৌকাঠ পেরোনো ছিল মানা। ঘরের চার দেয়ালের মধ্যেই বন্দী জীবন ছিল তাদের। সেই দিন এখন অতীত প্রায়। পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও এগিয়ে যাচ্ছে সামনের দিকে সমগতিতে। কর্মক্ষেত্রে যেমন অবদান রাখছেন নারীরা তেমনি সংসার বা পরিবারের কর্মক্ষম প্রধান হিসেবে গুরু দায়িত্ব পালন করছেন তাঁরা। আর এর ছোঁয়া শুধু শহরে নয়, গ্রামেও পড়েছে নারীদের এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় বাসনা নিয়ে। কুষ্টিয়া জেলার সীমান্তবর্তী উপজেলা দৌলতপুর। জেলার সর্ববৃহৎ উপজেলা এটি। কয়েক বছর আগেও এখানকার গ্রামের নারীদের কর্মের জন্য বাড়ির বাইরে বের হওয়া ছিল কষ্টসাধ্য। পুরুষ শাসিত পরিবার হওয়ার কারনে এখানকার নারীরা নিজ গৃহের বাইরের বের হতেন না। অথচ এখনকার চিত্র ভিন্ন। পাল্টে গেছে গ্রামের নারী সমাজের চিত্র। এখানকার প্রতিটি গ্রামের নারীরা নিজেদের আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তোলার জন্য বিভিন্ন কর্মে নিয়োজিত রয়েছেন। কেউ করছেন সেলাইয়ের কাজ, কেউ করছেন ব্যবসা, কেউ করছেন শিক্ষকতা, কেউ করছেন সরকারী বা বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকুরী আবার কেউ নিজ সংসারের হাল ধরে ক্ষেতে খামারে কাজ নিজেদেরকে গড়ে তুলেছেন আত্মনির্ভরশীল নারী হিসেবে। উপজেলার ময়রামপুর গ্রামের মর্জিনা খাতুন নামে এক নারী জানান, তিনি নিজে সংসারের সব কাজের পাশাপাশি হাতে সেলাইয়ের কাজ করে সংসারে স্বচ্ছলতা এনেছেন। আরিফা খাতুন নামে অপর এক স্বাবলম্বী নারী জানান, প্রশিক্ষন নিয়ে বাড়িতে পশু পালন করে এখন সে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী। ছেলে-মেয়ের পড়া লেখার খরচ যোগানোর পাশাপাশি সংসারের প্রায় সব খরচই তার উপার্জিত অর্থ দিয়ে চলে। এসব নারীদের ক্ষমতায়নে কাজ করছেন বিভিন্ন বেরসরকারী সংস্থা যারা নারীদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের নারীদের ঘরের বাইরে বের করে বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষন দিয়ে আত্মনির্ভরশীল হতে সহায়তা করছেন। তারমধ্যে মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থা রয়েছে। যারা গ্রামের নারীদের স্বাবলম্বী হওয়ার বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষন দিয়ে থাকেন। শুধু নিজ গৃহে নয় নারীরা এখন শিক্ষার প্রসার ঘটনাতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন। স্কুল, কলেজসহ বিভিন্ন উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও এখানকার নারীরা এগিয়ে এসেছেন বলে জানালেন মানিক দিয়াড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আসমা সরকার। তবে নারীদের অংশীদারিত্ব বেশী হবে, সিদ্ধান্ত গ্রহনে নারীরা বেশী আসবে সেক্ষেত্রে এখনও প্রতিবন্ধকতা আছে বলে মনে করেন নারীদের নিয়ে কাজ করা দৌলতপুরের মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জান্নাতুল ফেরদৌস। আন্তর্জাতিক নারী দিবসে শুধু নারীদের বিষয়ে কথা বলে বা নারীদের নিয়ে না ভেবে সব সময় সব ক্ষেত্রে নারীদের সমঅধিকারে সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে তবেই হবে নারীর উন্নয়ন। নারী দিবসে এই হোক সকলের প্রত্যাশা।

 

দৌলতপুরে হোমিও ও ইউনানী চিকিৎসক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে রাজধানী হোমিও ল্যাবরেটরী ও সৃজন ইউনানী  ল্যাবরেটরীর উদ্যোগে চিকিৎসক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০ টায় উপজেলার খাস মথুরাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এ চিকিৎসক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। চিকিৎসক সম্মেলনে হোমিওপ্যাথিক ডাঃ শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, রাজধানী হোমিও ল্যাবরেটরী ও সৃজন ইউনানী  ল্যাবরেটরীর সেলস এন্ড মার্কেটিং এক্্রজিকিউটিভ ডাইরেক্টর তাপস চন্দ্র দাস। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, খাস মথুরাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রশিদ। এসময় বক্তব্য রাখেন, রাজধানী হোমিও ল্যাবরেটরীর ন্যাশনাল সেলস ম্যানেজার কালিম উল্ল¬াহ, সজীব কেমিক্যাল কোম্পানী লিমিটেডের সেলস ম্যানেজার তারা মিয়া, রাজধানী হোমিও ল্যাবরেটরীর রিজিওনাল ম্যানেজার জহিরুল ইসলাম, ডাঃ আশরাফুল ইসলাম ও ডাঃ রাইসুল আক্তার রুবেল প্রমূখ। সম্মেলনে দৌলতপুর উপজেলার বিপুল সংখ্যক হোমিও প্যাথিক  ডাক্তার উপস্থিত ছিলেন। চিকিৎসক সম্মেললে রাজধানী হোমিও ল্যাবরেটরী ও সৃজন ইউনানী  ল্যাবরেটরীর কর্মকর্তাগন উপস্থিত হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারদের সাথে  বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মত বিনিময় করেন। এসময় রাজধানী হোমিও ল্যাবরেটরী ও সৃজন ইউনানী  ল্যাবরেটরীর পক্ষ থেকে ডাক্তারদের মাঝে ব্যাগ ও ঔষধ সহ বিভিন্ন উপহার সামগ্রী তুলে দেয়া হয়।

 

গাংনীতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ২দিন ব্যাপি বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে-র‌্যালি,আলোচনা সভা ও মেলার আয়োজন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। গাংনী উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কর্মসূচীর আয়োজন করে। কর্মসূচীর অংশ হিসাবে এদিন সকাল ১০টার দিকে গাংনী উপজেলা শহরে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি উপজেলা শহরের প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে নেতৃত্ব প্রদান করেন,গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন,গাংনী থানার ওসি (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম,জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরামের মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি,বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সিরাজুল ইসলাম স্যার,মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সাহিদুজ্জামান খোকন-এর প্রতিনিধি ও গাংনী উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান,উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাসিমা বেগম,দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর যশোর অঞ্চল সমন্বয়কারী খোরশেদ আলমসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। পরে ফিতা কেটে ২দিন ব্যাপি নারী উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ। পরে গাংনী উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাসিমা বেগম। সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন গাংনী থানার ওসি (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম,জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরামের মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি,বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সিরাজুল ইসলাম স্যার,মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সাহিদুজ্জামান খোকন-এর প্রতিনিধি ও গাংনী উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান। সাংবাদিক আমিরুল ইসলাম অল্ডামের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গাংনী উপজেলা সুজন (সুশাসনের জন্য নাগরিক)-এর সভাপতি ও গাংনী সরকারী ডিগ্রী কলেজের সাবেক সহকারী অধ্যাপক আব্দুর রশীদ, গাংনী উপজেলা মৎস্য অফিসার রোকসানা খাইরুন নেছা, উপজেলা ডেভেলপমেন্ট ফ্যাসিলেটেটর শামসুন্নাহার খাতুন, আ.লীগ নেতা মনিরুজ্জামান আতু প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রুরাল ভিশন (আরভি) সংস্থার পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম,সুবাহ সামাজিক উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক বুলবুল আহমেদ,দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ-এর গাংনী অঞ্চল সমন্বয়কারী হেলাল উদ্দীনসহ  একাধিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার নারী-পুরুষরা। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসের ট্রেড প্রশিক্ষক নার্গিস সুলতানা। সভায় স্বাগত বক্তব্য উপস্থাপন করেন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাসিমা খাতুন। আলোচনা সভার আগে অতিথিবৃন্দ গাংনী উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রদর্শিত উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর,দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ,পলাশীপাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতি,ব্র্যাক,সন্ধানী সংস্থা,সুবাহ সামাজিক উন্নয়ন সংস্থা,রুরাল ভিশন (আরভি),মুক্তি-নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থা,আদর্শ মহিলা কল্যাণ সমিতি,ভিটাপাড়া নারী কল্যাণ সমিতি,মা ও মুন্না  নারী কল্যাণ সংস্থা,পাকুড়িয়া নারী কল্যাণ সমিতি,দিপশিখা ও আলোর ঠিকানা নারী কল্যাণ সমিতি,প্রতিবন্ধী জাগরণী সংস্থা,সূর্যোমুখি মহিলা কল্যাণ সমিতি,নেকজান ধলা মহিলা কল্য্যাণ সমিতি,দিশারী মহিলা কল্যাণ সমিতির স্টল পরিদর্শন করেন। গাংনী উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিস সূত্র জানায়,আজ শনিবার মেলার সমাপনী অনুষ্ঠিত হবে।

সৌদি ক্রাউন প্রন্সি ‘পুরাই গুন্ডা হয়ে গছেনে’

ঢাকা অফসি ॥ সৌদি আরব বহু অপর্কমরে হোতা ও এর ক্রাউন প্রন্সি মোহাম্ম বনি সালমান ‘পুরাই গুন্ডা’ হয়ে গছেনে বলে অভযিোগ করছেনে র্মাকনি আইনপ্রণতোরা। সৌদি আরবে র্মাকনি রাষ্ট্রদূতরে পদে সাবকে জনোরলে জন আবজিায়দিরে মনোনয়ন নশ্চিতি করা নয়িে বুধবার সনিটেরে এক শুনানতিে আইনপ্রণতোরা দশেটরি ও এর যুবরাজরে কড়া সমালোচনা করনে, খবর র্বাতা সংস্থা রয়র্টাসরে। জনোরলে আবজিায়দিকে রয়িাদে র্মাকনি রাষ্ট্রদূত হসিবেে নয়িোগ দয়িছেনে প্রসেডিন্টে ডোনাল্ড ট্রাম্প। র্মাকনি সামরকি বাহনিীর সাবকে এই চার তারকা জনোরলে সহজইে সনিটেরে সর্মথন পাবনে বলে মনে করা হচ্ছ।ে ইরাক যুদ্ধরে সময় আবজিায়দি র্মাকনি সন্ট্রোল কমান্ডরে দায়ত্বিে ছলিনে। ওই শুনানতিে ট্রাম্পরে রপিাবলকিান দলরে পাশাপাশি বরিোধী ডমেোক্রটে দলীয় সনিটেররাও ছলিনে। তারা সবাই সৌদি আরবরে নন্দিা করছেনে। ইয়মেনেরে গৃহযুদ্ধে সৌদরি আরবরে জড়য়িে পড়া, দশেটরি এলোমলেো কূটনতৈকি তৎপরতা ও মানবাধকিার ক্ষুণ্নরে ঘটনা তাদরে সমালোচনার কন্দ্রেে ছলি। নারী আন্দোলনকারীদরে ও এক র্মাকনি নাগরকিকে নর্যিাতন ও প্রখ্যাত সৌদি সাংবাদকি জামাল খাশুগজরি খুনরে ঘটনা তাদরে আলোচনায় প্রাধান্য পায়। র্মাকনি আইনপ্রণতোরা সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বনি সালমানরে কড়া সমালোচনা করনে। কয়কেজন আইনপ্রণতো খাশুগজি খুনরে জন্য তাকে দায়ী করনে, অন্যরা তার ওপর মানবাধকিার লংঘনরে দায় দনে। শুনানি কমটিরি চয়োরম্যান রপিাবলকিান জমি রশি বলনে, “সৌদি আরব এমন অনকে কছিুতইে জড়তি যগেুলো পুরোপুরি অগ্রহণযোগ্য।”  শুনানরি এক র্পযায়ে রপিাবলকিান সনিটের র্মাকাে রুবওি বলনে, মোহাম্মদ বনি সালমান ‘পুরোপুরি গুন্ডা’ হয়ে গছেনে। আরকে রপিাবলকিান সনিটের রন জনসনও এই কথাটরি পুনরাবৃত্তি করনে। শুনানকিালে আবজিায়দি খাশোগরি খুনরে বষিয়ে জবাবদহিতিার আহ্বান জানান এবং মানবাধকিাররে পক্ষে কথা বলনে, কন্তিু বারবার ওয়াশংিটন-রয়িাদরে কৌশলগত সর্ম্পকরে গুরুত্ব তুলে ধরে এর ওপর জোর দনে। সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্ররে মধ্যে বাড়তে থাকা চাপা উত্তজেনা সত্বওে ২০১৭ সালরে জানুয়ারতিে ট্রাম্প প্রসেডিন্টেরে দায়ত্বি নওেয়ার পর থকেে রয়িাদে যুক্তরাষ্ট্ররে রাষ্ট্রদূতরে পদটি খালি পড়ে ছলি।

 

নারীর অধিকার সুনিশ্চিত করতে নারী বিচারকদের আন্তরিক হতে হবে – আইনমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক লিঙ্গ সমতাপূর্ণ বাংলাদেশ গড়তে নারী-পুরুষ সবাইকে একসাথে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন। তিনি গতকাল শুক্রবার বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে বাংলাদেশ মহিলা জজ এসোসিয়েশনের ২৯তম সাধারণ সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে এ আহবান জানান। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন । আইনমন্ত্রী বলেন,‘নারীদের অংশগ্রহণ সবক্ষেত্রে এগিয়ে গেলেও ঘরে-বাইরে তারা এখনও নির্যাতিত হচ্ছে। এ নির্যাতন বন্ধ করতে হবে।’ নারীদেরকে পরিবার,সমাজ ও জাতির মূল চালিক শক্তি হিসেবে অবিহিত করে আনিসুল হক বলেন, আইনী কাঠামোর মধ্যে থেকে নারীর অধিকার সুনিশ্চিত করতে নারী বিচারকদের আন্তরিক হতে হবে। সহ¯্রাব্দের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় তাদের নিজেদের স্বচ্ছতা ও সততা সমুন্নত রাখতে হবে। আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের সব সূচকে এগিয়ে যাচ্ছে। বিচারকর্ম বিভাগও এ উন্নয়নের অংশীদার। তিনি বিচারাধীন মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি ও বিচারপ্রার্থী জনগণের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য নারী বিচারকদেরকে স্বীয় মেধা, মনন ও কৌশল প্রয়োগ করারও আহবান জানান। কিভাবে হয়রানীমূলক মামলা কমিয়ে মানুষকে অল্প সময়ে, স্বল্প ব্যয়ে ও সহজে বিচারিক সেবা নিশ্চিত করা যায় সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখা বিচারকদেরই দায়িত্ব বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন। আইনমন্ত্রী নারী বিচারকদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিচারকার্য পরিচালনার ক্ষেত্রে তারা (নারী বিচারপতি) নারী ও পুরুষ নন, শুধুই বিচারক। তাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব সততা, নিষ্ঠা, দক্ষতার সাথে পালন করে বিচারক হিসেবে তাদেরকে জনগণের আস্থাভাজন হয়ে উঠতে হবে। সেজন্য বিচারিক জ্ঞান, তথ্য-প্রযুক্তি ও মামলা ব্যবস্থাপনায় তাদের দক্ষতা অর্জনেও মনোযোগি হতে হবে। দৈনিক কর্মঘন্টা যেন বিচারকর্মে যথাযথভাবে ব্যয় হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখাও তাদের দায়িত্ব বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন। আনিসুল হক বলেন,তথ্য প্রযুক্তির দ্রুত প্রসারে, বিশে^র যে কোন দেশের যে কোন বিষয় এখন ‘আমাদের হাতের মুঠোয়’। তিনি তথ্য প্রযুক্তির এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে নারীদের জ্ঞানের ভান্ডারকে সমৃদ্ধ করারও পরামর্শ দেন। মন্ত্রী বলেন, বিচার বিভাগ অন্য যে কোন পেশার চেয়ে স্বাতন্ত্র বৈশিষ্টপূর্ণ। সোশ্যাল মিডিয়ায় অবাধ বিচরণের ক্ষেত্রে এ স্বাতন্ত্র বৈশিষ্টের কথা মনে রাখতে হবে। যাতে তাদের পেশাগত গোপনীয়তা ও স্বাতন্ত্র বৈশিষ্ট বজায় থাকে। তিনি বলেন, সরকার মেধা ও যোগ্যতা বিবেচনায় নিয়েই নারী বিচারকদের বিচার প্রশাসনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে পদায়নে অগ্রাধিকার দিচ্ছে। বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও প্রশিক্ষণ গ্রহণের বিষয়টি বিশেষ বিবেচনায় নিয়ে তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করছে। যেসব জুডিসিয়াল কাপল রয়েছে, তাদেরকে একই জায়গায় পদায়ন এবং অন্যান্য চাকরিজীবী কাপলদের ক্ষেত্রেও পারিবারিক সুবিধা বিবেচনায় নিয়ে তাদের পদায়নের বিষয়টি সহানুভুতির সাথে দেখছে। তিনি বলেন, নারীদের এটিও মনে রাখতে হবে যে, বিচার বিভাগের চাকরি বদলীযোগ্য হওয়ায় তাদের কর্মজীবনের সকল পোস্টিং সবসময় সুবিধাজনক স্থানে নাও হতে পারে। তাই এই চ্যালেঞ্জকে সহজভাবে মেনে নিয়ে বিচারকর্মে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে। আনিসুল হক বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিচক্ষণ সিদ্ধান্তে ১৯৭৪ সালে প্রথমবারেরমত বিচার বিভাগে নারীদের যোগ দেয়ার বাঁধা বিলুপ্ত করা হয়। শুরু হয় অধস্তন আদালতে নারী বিচারকগণের পথচলা। এরপর বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ২০০১ সালে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে এবং ২০১১ সালে আপিল বিভাগে সর্বপ্রথম নারী বিচারপতি নিয়োগ দেন। এছাড়াও ২০১১ সালে পঞ্চদশ সংবিধান সংশোধনীর মাধ্যমে জাতীয় জীবনের সর্বস্তরে মহিলাদের অংশগ্রহণ ও সুযোগের সমতা নিশ্চিত করার ব্যবস্থা করা হয়। আইনমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন কার্যকর পদক্সেপ নেয়ায় বিচার বিভাগে এখন নারীদের অংশগ্রহণ, অন্যান্য পেশার মতই লক্ষণীয় হারে বাড়ছে। তিনি বলেন, সর্বশেষ ১১তম বিজিএস পরীক্ষার মাধ্যমে ৫৩ জন নারীর বিচার বিভাগে যোগদানের পর বর্তমানে মোট বিচারকের শতকরা প্রায় সাড়ে ২৭ ভাগ হচ্ছেন নারী বিচারক। যা অত্যন্ত আশাব্যাঞ্জক ও উৎসাহমূলক। মন্ত্রী বলেন, ‘এ সংখ্যা ইউরোপ আমেরিকাসহ আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্রের চেয়েও বেশি’। বাংলাদেশ মহিলা জজ এসোসিয়েশনের সভাপতি তানজীনা ইসমাইলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি জিনাত আরা ও সলিসিটর জেসমিন আরা বেগম বক্তৃতা করেন।

 পোড়াদহে নির্বাচনী প্রচারনাকালে কামারুল আরেফিন

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকায় ভোট দিন

আমলা অফিস ॥ আসন্ন কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের নৌকা প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফিন বিভিন্ন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারনা চালিয়েছেন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার পোড়াদহ বাজার এলাকায় এ নির্বাচনী প্রচারণা চালায়। এসময় কামারুল আরেফিন বলেন, আমি পূনরায় উপজেলা চেয়ারম্যান হিসাবে নির্বাচিত হলে পোড়াদহ এলাকার আরো উন্নয়ন করবো। পোড়াদহ কাপড়ের হাটের ব্যবসায়ীদের দূর্ভোগ ও কষ্ট দুর করবো। তিনি আরো বলেন, এই পোড়াদহ হাটের ব্যবসায়ীদের আমি নিরাপত্তা দিয়েছি। তারা নির্ভয়ে ব্যবসা করছে। এলাকায় ব্যপক উন্নয়ন করেছি। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আসন্ন মিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে নৌকা প্রতিকে ভোট দিন। এসময় উপস্থিত ছিলেন পোড়াদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশারফ হোসেন, পোড়াদহ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ারুজ্জামান বিশ^াস মজনু, যুবলীগ নেতা পারভেজসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

 

৭ম এনডিএফ বিডি- কুএমসি জাতীয় মেডিকেল বিতকৃ উৎসবে হানিফ

জনগনের মান রাখতে সুলতান মনসুরের পথ ধরে ঐক্যফ্রন্টের বাকিরাও অচিরেই শপথ নিবেন

নিজ সংবাদ ॥ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, জনগনের মান রাখতে সুলতান মোহাম্মদ মনসুরের পথ ধরে ঐক্যফ্রন্টের বাকি নির্বাচিতরা অচিরেই শপথ নিবেন। আর তারা যদি শপথ না নেন জনগনই এর জবাব দিবেন। মনসুর নির্বাচন করেছিলেন ঐক্যফ্রন্ট থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে। তিনি নির্বাচন করে জয়ী হয়েছিলেন। সুলতান মনসুর সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে শপথ গ্রহণ করে সংসদে যোগ দিয়েছেন। তার দেখাদেখি ঐক্যফ্রন্ট থেকে বিএনপির যারা নির্বাচন করেছিলেন তারাও সঠিক সময়ে শপথ নিবেন বলে আশা করছি। শুক্রবার সকালে ৭ম এনডিএফ বিডি- কুএমসি জাতীয় মেডিকেল বিতকৃ উৎসবে যোগ দেয়ার আগে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। হানিফ এ সময় বলেন, বিএনপি খালেদা জিয়ার রাজনীতি নিয়ে বারবার রাজনীতি করছেন। খালেদা জিয়া আদালত থেকে দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি। কারা বিধি অনুযায়ী দণ্ডপ্রাপ্ত খালেদা জিয়া যে চিকিৎসা সেবা পা”েচ্ছন তা দেশের সর্বোচ্চ। তার উন্নত কোন চিকিৎসার প্রয়োজন হয় তাহলে কারা কর্তৃপক্ষ পরামর্শ করে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করবেন। তাদের কোন কর্মসুচ নেই, জনসমর্থন নেই তাই তারা এসব বলে মাঠ গরম করার চেষ্টা করছেন। হানিফ এ সময় আরো বলেন, বিএনপির আন্দোলন করার কোন ক্ষমতা নেই। ২০১০ সালের পর থেকেই তারা সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামিয়ে দিবেন এমন আওয়াজ দিয়ে আসছেন। তবে তাদের সেই আহবানে দেশের জনগন সাড়া দেয়নি। এখন তারা পলাতক খুনি দাগী সন্ত্রাসী দন্ডপ্রাপ্ত নেতাদের বাঁচাতে নানা ফন্দি ফিকির করছে। এতে কোন কাজ হবে। সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ওবাইদুল কাদেরের চিকিৎসা নিয়ে হানিফ বলেন, তিনি আগের থেকে অনেক সুস্থ। তিনি ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন। সেখানে তার হার্টের বাইপাস সার্জারি করা হবে। দু’এক সপ্তাহের মধ্যে তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে দেশে ফিরে আসবেন বলে আশা করছি। পরে মাহবুবউল আলম হানিফ পরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও পায়রা উড়িয়ে বিতর্ক উৎসবের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. এসএম মুস্তানজীদ, এনডিএফ বিডির চেয়ারম্যান একেএম শোয়েব, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আজগর আলী, যুগ্ম সম্পাদক ফারুকউজ জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম সুমনসহ অন্যরা।

 

 

 নৌকার প্রার্থী কামারুল আরেফীনের পক্ষে পোড়াদহে গন সংযোগোর

মিলন আলী ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা পরিপাবের কৃতি সন্তান, সমাজ সেবক দুলাল হোসেন, আসন্ন মিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফীনের পক্ষে পোড়াদহ ইউনিয়নের আহম্মেদপুর, কলাবাড়ীয়া গ্রামে গন সংযোগ ও মত বিনিময় করেছে। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন যুবলীগ নেতা মাসুম, অধ্যাপক আব্দুস সালাম, মাহাবুল হক, সবুর আলী, ছাত্র লীগ নেতা রাহুল হোসেন প্রমুখ। মিরপুর  উপজেলা যুব লীগের  সহ-সভাপতি দুলাল হোসেন বলেন আহম্মেদপুর ও কলাবাড়ীয়া  হাজরাহাটি গ্রামে অবশ্যই নৌকার প্রার্থী আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক, মিরপুরের মাটি ও মানিষের নেতা  আল হাজ্ব কামারুল ভাইকে বিপুল ভোটে বিজয় করব ইনশাআল্লাহ। তাই আজকে থেকে আওয়ামী লীগের দলীয় নেতা কর্মী,সমর্থকদের নিয়ে সাধারন মানুষের নিকট নৌকা প্রতীকের ভোটের প্রচারনা কাজ করতে হবে।

কালুখালীতে সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এর সুস্থ্যতা কামনায় দোয়া মাহফিল

ফজলুল হক ॥ গতকাল শুক্রবার রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালীতে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও রতনদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যৌথ উদ্যোগে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এর রোগমুক্তি ও সুস্থ্যতা কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। জুম্মা বাদ রতনদিয়া বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কালুখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কাজী সাইফুল ইসলাম, অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার মোঃ আব্দুল খালেক মাষ্টার, আঃ রহমান, রতনদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি খোন্দকার আনিসুল হক বাবু, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম শাহ আজিজ, সহ-সভাপতি রেজাউল আলম চুন্নু এছাড়াও আঃ মতিন ও আবু হাসেম সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। দোয়া মোনাজাত শেষে ওবায়দুল কাদের এমপির রোগমুক্তি ও সুস্বাস্থ্য কামনায় বিশেষ দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন রতনদিয়া কেন্দ্রী জামে মসজিদের খতিব আলহাজ্ব হাফেজ আঃ মালেক।

দৌলতপুরে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ ‘সবাই মিলে ভাবো, নতুন কিছু করো, নারী-পুরুষ সমতায়, নতুন বিশ্ব গড়ো’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশের ন্যায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুরেও আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় দৌলতপুরে আলোচনা সভা ও নারী মেলার আয়োজন করা হয়। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) জান্নাতুল ফেরদৌস, দৌলতখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মজিবর রহমান, মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার প্রকল্প পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক ও সম্মান শ্রেণীর ৪র্থ বর্ষের ছাত্র শাহীন রেজা। আলোচনা সভা সঞ্চালন করেন, প্রভাষক শরীফুল ইসলাম। আলোচনা সভার শুরুতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে নারী মেলার উদ্ধাধন করেন দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার। পরে তিনি নারী মেলার বিভিন্ন ষ্টল ঘুরে দেখেন। আলোচনা সভা ও নারী মেলায় বিভিন্ন এলাকার নারীরা অংশ নেয়।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে

বাংলাদেশ পুলিশ ইউমেন নেটওয়ার্ক এবং জেলা পুলিশ কুষ্টিয়ার বর্ণাঢ্য র‌্যালি

সুজন কর্মকার ॥ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে, বাংলাদেশ পুলিশ ইউমেন নেটওয়ার্ক এবং জেলা পুলিশ কুষ্টিয়ার আয়োজনে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। শুক্রবার সকালে কুষ্টিয়া পুলিশ লাইন্স থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালিটি বের করা হয়। বর্ণাঢ্য র‌্যালিটির নেতৃত্ব দেন কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত পিপিএম (বার)। র‌্যালিতে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন), এ.কে.এম. জহিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (জেলা বিশেষ শাখা)  মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুষ্টিয়া সার্কেল) নূরানী ফেরদৌস দিশা পিপিএম সহ কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের কর্মচারীবৃন্দ। বর্ণাঢ্য র‌্যালিটি কুষ্টিয়া শহর প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় কুষ্টিয়া পুলিশ লাইন এসে শেষ হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম রজব আলী খান ৩য় জাতীয় আমন্ত্রনমুলক মাস্টাস এ্যাথেলিটকস’র উদ্বোধন

বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম রজব আলী খান ৩য় জাতীয় আমন্ত্রনমুলক মাস্টাস এ্যাথেলিটকস এর শুভ উদ্বোধন হয়েছে। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ও যুবও ক্রীড়া বিষযক সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর হারুন-অর রশিদ।  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সচিব ও ফেড়ারেশনের সভাপতি এস এম আলী কবীর, বাংলাদেশ এথলেটিক্স ফেডারেশন এর সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মন্টু,  যুগ্ম-সাধারন  সম্পাদক মোঃ আমজাদ আলী খান, কোষাধ্যাক্ষ মহিউদ্দিন আহমেদ মোস্তাক। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ফেড়ারেশনের যুগ্ম-সম্পাদক ফরিদউদ্দিন খান, মোঃ ইয়াহিয়া, সহ- সভাপতি শাহা আলম ও তোফাজ্জল হোসেন। এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন ভারতের মাস্টার্স এথেলেটিক্স এর বঙ্গ অমর কৃষ্ণ ও সাধারণ সম্পাদক নিমাই চন্দ্র, সহ-সভাপতি কৃষ্ণ চন্দ্র রায় সহ অন্যনো কমর্কতা। ৮ ও ৯মার্চ দুই দিন ব্যাপী প্রতিযোগিতা অংশগ্রহন করবেন বিকেএসপি, বিজিএমসি, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমান বাহিনী, বিজিবি, কাউস্টম, বাংলাদেশ ডাক বিভাগ, পুলিশ বাহিনী ও জেলা সংস্থা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা, বিশ্ববিদ্যালয় সহশিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ থেকে পুুরুষ মহিলা সহ ৫০জন্য সহ বাংলাদেশর ৪০০ জন এ্যাথেটিকস প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করবেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা  মরুহুম রজব আলী খান এর পুত্র বধু মেহেরুননেছা বিউটি, নাতিছেলে ইমরান খান ও কামরান খান। ঐতিহ্যবাহী এ টুর্নামেন্টের সর্বমোট ১৫০টি ইভিন্ট খেলা  হবে। উক্ত খেলায় ১৫০ জন জাজ ও কর্মকর্তা থাকবে। উক্ত খেলায়  সভাপতিত্ব করেন মাস্টার্স এথেলেটিক্স এর সভাপতি নুরদ্দিন চৌধুরী নয়ন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম হবে

ঢাকা অফিস ॥ বাংলাদেশের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ল্যাব ও মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুমের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ২০২৩ সালের মধ্যেই বাংলাদেশের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ল্যাব ও মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুমের ব্যবস্থা করা হবে গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আব্দুল জব্বার গালর্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের সরকারি ৪টি টেলিভিশনসহ ৪টি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের সুবিধা গ্রহণ করছে। টেলিভিশন চ্যানেল পরিচালনার জন্য দেশের প্রায় ৪ হাজার ডলার ব্যয় হচ্ছে যার সম্পূর্ণ অংশ বিদেশে চলে যাচ্ছে। এ মাসের মধ্যে সবকয়টি চ্যানেল বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের সুবিধা গ্রহণ করলে এই বিপুল পরিমাণ অর্থ সাশ্রয় হবে। ভাষানচরে রোহিঙ্গা স্থানান্তর করা হলে টেলিমেডিসিনের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী। প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী, বিজয় ডিজিটাল কোম্পানির সিইও জেসমিন আক্তার জুঁই, জেলা প্রশাসক মো. শওকত আলী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাকিব খান, গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবায়েত হায়ত শিপলু ও কলেজের অধ্যক্ষ সুলতান উদ্দীন আহম্মেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কুষ্টিয়ার ঐতিহ্যবাহী ১৭ হাত কালী পূজার মেলায় হাজারো দর্শনার্থীর ভীর

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার ঐতিহ্যবাহী ১৭ হাত উচ্চতা বিশিষ্ট শ্রীশ্রী কালী মায়ের পূজার মেলায় হাজারো দর্শনার্থী ও ভক্তবৃন্দের উপচেপড়া ভীর লক্ষ্য করা গেছে। কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়ায় কালী মায়ের মন্দির প্রাঙ্গনে এ মেলা চলছে। মন্দির কমিটির সভাপতি এ্যাড: অঘোর সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক সুজিত কুমার ঘোষ বলেন, শুক্রবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দুর-দূরান্ত থেকে দর্শনার্থী ও ভক্তবৃন্দের উপস্থিতি ছিলো। এ পূজা উপলক্ষে মন্দির প্রাঙ্গনে বসেছে এক গ্রামীণ মেলা। মেলায় বাহারী পসরার সমাহার ঘটেছে। ঐতিহ্যবাহী ১৭ হাত উচ্চতা বিশিষ্ট শ্রীশ্রী কালী মায়ের পূজা এটি ৪০ তম। এই মায়ের কাছে বহু দূর-দূরান্ত থেকে শতশত ভক্তবৃন্দ এসে মায়ের কাছে মনের ইচ্ছা পূরণের জন্য প্রার্থনা জানান।

 

গণমাধ্যম একটি প্রসারমান সেক্টর – স্পিকার

ঢাকা অফিস ॥ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, গণমাধ্যম একটি প্রসারমান সেক্টর এবং এতে নারীদের সম্পৃক্ততা বাড়ানোর ক্ষেত্রে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) একটি শক্তিশালী প্লাটফর্ম। গণমাধ্যমে নারীদের অংশগ্রহণে প্রতিবন্ধকতাগুলো দূর করতে ডিআরইউর সদস্যদের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে সকল ক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ আজ দৃশ্যমান। আর তিনিই নারী উন্নয়নকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছেন। এসময় তিনি বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে সাহসিকতার সাথে বাংলাদেশের নারীরা এগিয়ে যাচ্ছেন বলে উল্লেখ করেন। শিরীন শারমিন চৌধুরী গতকাল শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনী মিলনায়তনে ‘আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০১৯’ উপলক্ষে গণমাধ্যমে নারী-পুরুষ সমতা : বাস্ততা ও করণীয় শীর্ষক আলোচনা সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন। ডিআরইউর সভাপতি ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান। অনুষ্ঠানের মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডিআরইউর সাবেক নারী বিষয়ক সম্পাদক ও নাগরিক টিভির চীফ রিপোর্টার শাহানাজ শারমীন। শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছ থেকে সম্মাননা গ্রহণ করেন সাবেক নারী বিষয়ক সম্পাদক আইরিন নিয়াজী মান্না, শাহানাজ শারমীন এবং ঝর্ণা মনি। পরে কন্ঠস্বর গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী । স্পিকার পরে জাতীয় প্রেসক্লাব আয়োজিত বিশ্ব নারী দিবেসের অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

কুষ্টিয়ায় মহিলা পরিষদ জেলা শাখার সভা

কুষ্টিয়ায় মহিলা পরিষদ জেলা শাখার সভা

নিজ সংবাদ ॥ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার আয়োজনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া শহরের কোর্ট পাড়াস্থ বোধদয় কার্যালয়ে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সহ-সভাপতি আসমা ফেরদৗস। সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক তসলিমা খানম লতার পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা আইনজীবী পরিষদ’র সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডঃ খন্দকার শামসুল আলম দুদু, বোধয়ের সভাপতি এ্যাডঃ লালিম হক, সমাজ সেবক আব্দুস সাত্তার, নিত্য গোপাল বিশ্বাস, শরিফুল ইসলাম, দেবাশীষ বাগচী প্রমুখ। বক্তারা বলেন, দেশের দ্রুত উন্নয়নের সাথে সাথে, নারীরাও সর্বত্র এগিয়ে চলেছে। এ সময় সংগঠনটির জেলা শাখার সহ-সভাপতি সামসুন্নাহার, অর্থ সম্পাদক শেখ সামসুন্নাহার, প্রশিক্ষণ সম্পাদক সাঈদ হক, প্রচার সম্পাদক চায়না চক্রবর্তী, সমাজকল্যাণ সম্পাদক রোকসানা পারভীন সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ওবায়দুল কাদেরের রক্তচাপ ও ইনফেকশন নিয়ন্ত্রণে

ঢাকা অফিস ॥ সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। তার রক্তচাপ স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। কিডনি স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে এবং ইনফেকশন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। কাদেরের চিকিৎসায় গঠিত পাঁচ সদস্যের চিকিৎসক দলের সিনিয়র সদস্য কার্ডিওথোরাসিক সার্জন ডা. সিবাস্টান কুমার সামি’কে উদ্ধৃত করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক এবং নিওরোলজিস্ট অধ্যাপক ডা. আবু নাসার রিজভী এ তথ্য জানান। ডা. রিজভী জানান, ওবায়দুল কাদের আগের দিনের তুলনায় আজ আরও ভাল আছেন এবং দিন দিন তার স্বাস্থ্যের উন্নতি হচ্ছে। কোন ধরনের কৃত্রিম সাপোর্ট ছাড়াই তার হৃদযন্ত্র কাজ করছে বলেও তিনি জানান। এর আগে গতকাল ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসার অগ্রগতি জানিয়ে ব্রিফ করেন ডা. সামি। এ সময় তার সহধর্মিনী বেগম ইসরাতুন্নেসা কাদের, সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দীন, সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান ও চিকিৎসা সমন্বয়ক ডা. আবু নাসার রিজভী উপস্থিত ছিলেন। পরে ডা. সামির বক্তব্য সকলকে অবহিত করেন ডা. রিজভী। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী এমপি, ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দীন হাজারী এমপি, সংসদ সদস্য ছোট মনির।