পারমাণবিক শক্তিতে ভারত-পাকিস্তান

ঢাকা অফিস ॥ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর উপর জঙ্গি হামলার পর ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে নতুন করে যুদ্ধের দামামা বেজে ওঠার প্রেক্ষাপটে দু’দেশের পারমাণবিক শক্তি-সামর্থ্য নিয়ে চলছে নানা বিশ্লেষণ। দু’দেশের কী পরিমাণ অস্ত্র আছে, সেনাবাহিনীর সক্ষমতা কতটুকু, দু’দেশের বিভিন্ন সময়ের যুদ্ধ পরিস্থিতিসহ নানা বিষয়। সংঘাত এবং উত্তেজনার পুরো সময়টায় আলোচনায় রয়েছে ভারত ও পাকিস্তান দু’দেশের সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনী। যুদ্ধ শুরু হলে দু’দেশের কী পরিমাণ পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে তা নিয়েও চলছে গবেষণা। আর এ সব কিছু জানতে গিয়ে আলোচনায় উঠে এসেছে বিশ্বে কোন দেশের কাছে কত পারমাণবিক অস্ত্র মজুদ আছে। সুইডেনভিত্তিক গবেষণা সংস্থা স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) ২০১৮ সালের রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতের তুলনায় পাকিস্তান কিছুটা এগিয়ে রয়েছে বলে মনে করছে গবেষণা সংস্থাটি। ভারতের যেখানে পরমাণু অস্ত্রের সংখ্যা ১৩০টি, সেখানে পাকিস্তানের ১৪০টি অস্ত্র রয়েছে বলে ধরে নেওয়া হয়। তবে পারমাণবিক অস্ত্রের অধিকারী সব দেশই এসব তথ্যের ব্যাপারে কড়া গোপনীয়তা বজায় রাখে। পাকিস্তানের পরমাণু অস্ত্রের সক্ষমতা ভারতের সাথে পাল্লা দিয়ে পাকিস্তানও পারমাণবিক অস্ত্র উৎপাদন এবং উৎক্ষেপণের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। জানুয়ারি ২০১৮ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের ১৪০-১৫০টি ওয়ারহেড বা পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে বলে হিসেব পাওয়া যায়। আগামী দশকে তা আরো অনেক বেশী বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করছে স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট। মিসাইল পদার্থ উৎপাদন পাকিস্তান প্লুটোনিয়াম এবং অধিক বিশুদ্ধ ইউরেনিয়াম (হাইলি এনরিচড ইউরেনিয়াম বা এইচইইউ) দিয়ে তার সামরিক পারমাণবিক সক্ষমতা বৃদ্ধি করে চলছে। চারটি ভারী পানির বা হেভি ওয়াটার নিউক্লিয়ার রিঅ্যাক্টর এবং একটি ভারী পানি উৎপাদন প্লান্ট নিয়ে গঠিত পাকিস্তানের প্লুটোনিয়াম উৎপাদন কারখানা মূলত পাঞ্জাবের খুশাব অঞ্চলে। অন্যদিকে, ইউরেনিয়াম পাঞ্জাবের কাহুতার খান রিসার্চ ল্যাবরেটরিজ (কেআরএল) কমপ্লেক্সের প্লান্টে এবং গাদওয়ালের একটি ছোট প্লান্টে উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাতকরণ করা হয়। বিমান পারমাণবিক বোমা বহনের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত বিমান হলো পাকিস্তান বিমান বাহিনী (পিএএফ)’র মিরেজ-৩ এবং মিরেজ-৫ যুদ্ধবিমান। মিরেজ-৩ ব্যবহার করে পারমাণবিক ক্ষমতাসম্পন্ন ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলকভাবে উৎক্ষেপণ করা হয়। আবার মিরেজ-৫কে পারমাণবিক মধ্যাকর্ষণ বোমা নিয়ে আঘাত হানার মতো দায়িত্বও দেওয়া হচ্ছে বলে সুইডিশ সংস্থাটি বলছে। এছাড়া চীনের যৌথ সহযোগিতায় তৈরি জেএফ-১৭ থান্ডার যুদ্ধবিমানটি পাকিস্তান কিনে নিচ্ছে, যা মিরেজ বিমানগুলোর পরিবর্তে ব্যবহৃত হতে পারে। ১৯৮০’র দশকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে কেনা ৪০টি এফ-১৬বি যুদ্ধবিমানও রয়েছে পাকিস্তানের। এগুলোর পারমাণবিক অস্ত্র বহন করার সক্ষমতা আছে বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। ভূপৃষ্ঠ থেকে উৎক্ষেপণযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র পাকিস্তানে স্বল্প এবং দূর পাল্লার উভয় ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করে যাচ্ছে। বর্তমান গজনভী (হাটফ-৩) এবং শাহীন-১ (হাটফ-৪) নামে দুটি স্বল্প পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রস্তুত রেখেছে। পাশাপাশি আরো বেশি দূরে ছোড়া যায় এমন শাহীন-১ এবং শাহীন-১/এ এখন তৈরির পর্যায় রয়েছে। পাকিস্তান দু’ধরনের পারমাণবিক বোমা বহনযোগ্য  ক্ষেপণাস্ত্র স্থাপন করেছে। একটি মধ্যম পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ঘুরি (হাটফ-৫), যার রেঞ্জ ১,২৫০ কিলোমিটার এবং অন্যটি দ্বিস্তর বিশিষ্ট ১,৫০০ কিলোমিটার রেঞ্জের শাহীন-২ (হাটফ-৬)।

২০১৫ সালে পরীক্ষামূলকভাবে উৎক্ষেপণ করা আরো বেশি দূরপাল্লার শাহীন-৩ মিসাইল এখন প্রযুক্তিগত ও কৌশলগত উন্নয়নের পর্যায় রয়েছে। এখন পর্যন্ত পাকিস্তানের ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর মধ্যে এটি সর্বোচ্চ দূরত্বের (২,৭৫০ কিলোমিটার) লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারবে। শাহীন-৩ এর আদলে পাকিস্তান জাতীয় প্রতিরক্ষা কমপ্লেক্স আরেকটি নতুন মধ্যম পাল্লার পারমাণবিক অস্ত্র বহনযোগ্য ‘আবাবিল’ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে। ২০১৭ সালের ২৪শে জানুয়ারি পাকিস্তান ঘোষণা করেছিল যে কারিগরি বিষয়টি পরীক্ষা করার জন্য এটি সফলভাবে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে।সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্রভারতের সাথে তাল মিলিয়ে পাকিস্তানও সমুদ্র থেকে ছোড়া যায় এমন ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে। ২০১৭ সালের ৯ই জানুয়ারি পাকিস্তান ঘোষণা করেছিল যে তারা পানির নিচের ভ্রাম্যমাণ প্লাটফর্ম থেকে ভারত মহাসাগরে বাবুর-৩ নামের একটি সাবমেরিন-লঞ্চড ক্রুজ মিসাইল (এসএলসিএম)-এর পরীক্ষা চালিয়েছে।এটি স্থলভিত্তিক বাবুর-২ গ্রাউন্ড-লঞ্চড ক্রুজ মিসাইল (জিএলসিএম) -এর অনুরুপে তৈরি এবং ৪৫০ কিলোমিটার রেঞ্জ পর্যন্ত আঘাত হানতে পারে।ভূমি ও আকাশপথ ভিত্তিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রবাবুর-৩ এসএলসিএম’র পাশাপাশি পাকিস্তান দুই ধরনের ক্রুজ মিসাইল তৈরি অব্যাহত রেখেছে। বাবুর (হাটফ-৭) উন্নত ভার্সন হলো ৭০০-কিলোমিটার রেঞ্জের বাবুর-২ । এটি ২০১৬ সালে প্রথম উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল। ৩৫০ কিলোমিটার দূরত্বে সাধারণ বা পারমাণবিক ওয়ারহেড বহন করার মত শক্তিসম্পন্ন রা’আদ (হাটফ-৮) ২০০৭ সাল থেকে এ পর্যন্ত অন্তত সাতবার পরীক্ষামূলকভাবে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। ২০১৭ সালে এটির একটি উন্নত সংস্করণ রাআদ-২ উদ্ভাবন করে দেশটি, যেটি আরো বেশি দূরত্বে ছোড়া যায়।ভারতের পরমাণবিক অস্ত্রের সক্ষমতাভারতের পারমাণবিক অস্ত্র মূলত প্লুটোনিয়ামের উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছিল। মুম্বাইয়ের ভাভা অ্যাটোমিক রিসার্চ সেন্টারে (বিএআরসি) প্লুটোনিয়াম তৈরি হয়। ২০১০ সালে বন্ধ হয়ে যাওয়া ৪০ মেগাওয়াট থার্মাল ভারী পানির (সিআইআরইউএস) রিঅ্যাক্টর বা পারমাণবিক চুল্লী এবং ১০০ মেগাওয়াটের ধ্রুব ওয়াটার রিঅ্যাক্টরে এটি তৈরি হতো।ইন্টারন্যাশনাল প্যানেল অন ফিসাইল ম্যাটারিয়েল (আইপিএফএম)-এর তথ্য অনুযায়ী, সামরিক উদ্দেশ্যে ভারত বিএআরসি’তে প্লুটোনিয়াম পুনঃপ্রক্রিয়া প্লান্ট চালু রেখেছে।ভারত ২০৩০-এর দশকের মধ্যে ছয়টি দ্রুতগতিতে উৎপাদনে সক্ষম পারমাণবিক চুল্লী নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে, যা থেকে প্রচুর প্লুটোনিয়াম উৎপন্ন করা সম্ভব হবে। এগুলো ব্যবহৃত হবে মূলত অস্ত্র তৈরির কাজে-২০১৬ সালের এক নিবন্ধে এমনটাই বলছে আণবিক বিজ্ঞানীদের জার্নাল বুলেটিন অব অ্যাটোমিক সায়েন্টিস্টস। পাশাপাশি ইউরেনিয়াম উৎপাদনে সক্ষমতা বাড়ানোর চেষ্টাও চালিয়ে যাচ্ছে ভারত।বিমানবিমানের মাধ্যমেই সবচেয়ে নির্ভুল উপায়ে ভারত পারমাণবিক অস্ত্র নিক্ষেপ করতে সক্ষম বলে মনে করা হয়। ভারতীয় বিমান বাহিনী ইতিমধ্যে মিরেজ-২০০০ এইচ যুদ্ধ বিমান কেনার অনুমোদন করেছে, যা পারমাণবিক মধ্যাকর্ষণ বোমা বহনের জন্য ব্যবহৃত হয়। এমনকি বিমান বাহিনীর জাগুয়ার আইএস যুদ্ধ-বোমারু বিমান পারমাণবিক অস্ত্র পরিবহনে ব্যবহৃত হতে পারে।ভূপৃষ্ঠ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র

১৯৮৩ সালের সুসংহত ক্ষেপণাস্ত্র উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় ভারতের সেনা গবেষণা সংস্থা ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গাইজেশন (ডিআরডিও) স্থলপথ ভিত্তিক দুটি ব্যালিস্টিক মিসাইল বা ক্ষেপণাস্ত্রÑ একটি পৃথ্বী গোত্রের এবং অন্যটি অগ্নি গোত্রের।পৃথ্বী গোত্রটি তিনটি রোড মোবাইল ইঞ্জিন ও স্বল্প পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে তৈরি (যদিও পৃথ্বী-২ কে শুধু পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম বলে মনে করা হয়)। অন্যদিকে অগ্নি গোত্রের মিসাইলগুলো বেশ দূরত্বে যেতে সক্ষম অর্থাৎ দূরপাল্লার। পরমাণু অস্ত্রের সক্ষমতার পরীক্ষা যাতে খুব দ্রুত দেওয়া যায় সেজন্য এগুলো তৈরি করা হয়েছে, যা পৃথ্বী গোত্রের চেয়ে অনেক বেশী ক্ষমতাসম্পন্ন।২০০৭ সালে স্থাপন করা অগ্নি ১ প্রায় ৭০০ কিলোমিটার দূরত্ব পর্যন্ত আঘাত হানতে পারে। পরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর স্ট্রাটেজিক ফোর্সেস কমান্ড (এসএফসি)-র আওতায় আরো অধিকতর প্রযুক্তি সম্পন্ন দ্বিস্তর বিশিষ্ট অগ্নি ২ আসে, যার রেঞ্জ বা ব্যাপ্তি ১,০০০ কিলোমিটার। এসএফসি দেশের অন্যান্য পারমাণবিক অস্ত্র পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ করে।এদিকে, ২০১৭ সালের ২৭শে এপ্রিল এসএফসি বা কৌশলগত সেনা কমান্ড প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্যে অগ্নি ৩ সফলভাবে পরীক্ষা করে। দ্বিস্তর বিশিষ্টি এই মিসাইলটির সীমা ৩,২০০ কিলোমিটার। এছাড়া আরো বেশি দূরসীমার দু’টো ব্যালিস্টিক মিসাইল তৈরি করছে ভারত। এগুলো হলোÑ অগ্নি ৪ এবং অগ্নি ৫। এগুলো দিয়ে দেশটি চীনের ওপর দিয়ে লক্ষ্যে আঘাত হানতে সক্ষম।২০১৭ সালের ২রা জানুয়ারিতে প্রায় ৩ হাজার ৫০০ কিলোমিটার গতিসীমা বিশিষ্ট অগ্নি ৪ সফলভাবে পরীক্ষা করা হলেও এখনো আরো প্রযুক্তিগত পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।তবে ভারতের সেনা গবেষণা সংস্থা ডিআরডিও তিনস্তর বিশিষ্ট স্থল মিসাইল অগ্নি ৫ এর উপর বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে। এটি ৫,০০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যভেদে আঘাত হানতে সক্ষম।

ক্ষেপণাস্ত্রটি এমনভাবে তৈরি হয়েছে যেন মোবাইল ক্যানিস্টার সিস্টেম থেকে সহজে স্থানান্তর করা যায় এবং ছোড়া যায়। এর ফলে সংকটের সময়ে খুব দ্রুত ও কম সময়ে এটি কাজে লাগানোর জন্য প্রস্তুত করা যায়। এই সুবিধাটি অন্যান্য ক্ষেপণাস্ত্রগুলোয় নেই।গত বছরের ১৮ জানুয়ারি, আবদুল কালাম দ্বীপ (সাবেক হুইলার আইল্যান্ড) থেকে অগ্নি ৫-এর পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করা হয়। তখন এটি ৪ হাজার ৯০০ কিলোমিটার দূরে গিয়ে পড়েছিল। তবে পুরোদস্তুর কাজে লাগানোর আগে আরো কিছু পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ দরকার হবে।সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্রচার দশকের পুরনো অ্যাডভান্সড টেকনোলজি ভেসেল (এটিভি) প্রকল্পের অংশ হিসেবে ভারত কমপক্ষে পাঁচটি পারমাণবিক শক্তি সম্পন্ন মিসাইল সাবমেরিনের একটি নৌবহর তৈরি করছে।ভারতের নিজস্ব তৈরি করা প্রথম পারমাণবিক শক্তি সম্পন্ন সাবরেমিরন ‘আইএনএস অরিহন্ত’ ২০০৯ সালে উদ্বোধন করা হয়েছিল, যেটি ২০১৬ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে মোতায়েন করা হয়।পরে ২০১৭ সালের নভেম্বরে দ্বিতীয় সাবমেরিন জাহাজ ‘আইএনএস আরিঘাট’ চালু করা হয়। এছাড়া তৃতীয় ও চতুর্থ সাবমেরিন তৈরির কাজও এগিয়ে চলছে, যেগুলো যথাক্রমে ২০২০ এবং ২০২২ সালে উদ্বোধন হতে পারে।ক্রুজ মিসাইল ২০০৪ সাল থেকে ভারতীয় সেনা গবেষণা সংস্থা ডিআরডিও অনেক দূরত্বের শব্দের চেয়ে কম গতিসম্পন্ন ক্রুজ মিসাইল তৈরি করে আসছে। ‘নির্বাহী’ নামে ৭০০ কিলোমিটার রেঞ্জের এই মিসাইলটি স্থল, জল এবং আকাশ থেকেও উৎক্ষেপণ করা যায়। তবে দুবার যান্ত্রিক ত্রুঁটির কারণে ব্যর্থ হওয়ায় এটি যেকোন সময় বাতিল হয়ে যেতে পারে। তবে ২০১৭ সালের ৭ই নভেম্বর ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ঘোষণা দিয়েছিল যে আবদুল কালাম দ্বীপে নির্বাহী ক্রুজ মিসাইলটি উৎক্ষেপণ করেছে ডিআরডিও। তবে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়নি যে এটি পারমাণবিক অস্ত্র বহন করতে সক্ষম কি-না।

 

আমি মোদির মতো বাথরুম উদ্বোধন করতে যাই না – মমতা

ঢাকা অফিস ॥ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সমালোচনা করে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বলেছেন, আমি মোদির মতো বাথরুম উদ্বোধন করতে যাই না। বুধবার বেশকয়েকটি সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধন ও নামফলক কর্মসূচিতে সাঁতরাগাছির আড়ুপাড়ায় গিয়ে মমতা এসব কথা বলেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কাজের চেয়ে বেশি নিজের বিজ্ঞাপন প্রচার করেন বলেও অভিযোগ করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মমতা বলেন, একসঙ্গে সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধন করে দিলেই তো হয়। আমি মোদির মতো বাথরুম উদ্বোধন করতে যাই না। এত পাবলিসিটি কেন? এ দিনের অনুষ্ঠান থেকে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন করেন মমতা। এ দিন ৩০টি হেলিপ্যাডসহ একাধিক প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই সঙ্গে জানান, নবান্নের পেছনে নতুন করে তৈরি হবে স্বাস্থ্যভবন। এর জন্য তিন একর জায়গা ইতিমধ্যেই চিহ্নিত করে ফেলেছে সরকার। এ দিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, নোটবন্দির পর দেশে দু’কোটি ছেলেমেয়ে কাজ হারিয়েছে। বাংলায় সেখানে ৪০ শতাংশ কর্মসংস্থান বেড়েছে। কর্মসংস্থান তৈরিতে বাংলা দেশের মধ্যে সেরা। এরপরই কেন্দ্রের দিকে খোঁচা দিয়ে মমতার প্রশ্ন, কাজ করলে প্রচারের কী দরকার? পুলওয়ামা ঘটনা নিয়ে এ দিনও বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগের সুরে বলেন, জওয়ানদের রক্ত নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীর আরও অভিযোগ, গুগলে গিয়ে সার্চ করে আমার ধর্ম  দেখছে। আমার ধর্ম মানবতা। মানবতা জানো? আমি দাঙ্গা করতে দেব না। কিছুতেই না। নোটবন্দির প্রসঙ্গ টেনে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আমিই প্রথম বলেছিলাম নোটবন্দি খারাপ। বলেছিল বিদেশে থাকা টাকা দেশে ফেরাবে। আর নোটবন্দি করে দেশের টাকা বাইরে পাঠিয়ে দিয়েছে। সরকারি সভা হলেও, এ দিনও নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন মমতা। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে ঘোষণা করেন, মোদিবাবু আর অমিত শাহবাবুর সাইনবোর্ড উঠিয়ে দেবই। তবে বাথরুম উদ্বোধন নিয়ে মোদির বিরুদ্ধে মমতার মন্তব্য নিয়ে পাল্টা জবাব দিয়েছে বিজেপিও। গেরুয়া শিবিরের বাংলার এক শীর্ষ নেতার কথায়, আপনারা কেউ দেখেছেন মোদি কোথাও বাথরুম উদ্বোধন করতে গিয়েছেন? কিন্তু বাংলার রাস্তাঘাটে যে কোনও বাথরুমেও এ রাজ্যের মানুষ মমতার অনুপ্রেরণা দেখতে পান।

 

 

নবনির্বাচিত ডিএনসিসি মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহণ

ঢাকা অফিস ॥ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলররা আজ সকালে এখানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে শপথ গ্রহণ করেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) নবনির্বাচিত কাউন্সিলররাও একই অনুষ্ঠানে শপথ নেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিএনসিসি’র মেয়র আতিকুল ইসলামকে শপথ বাক্য পাঠ করান। এসময় ডিএনসিসি’র ২৬ কাউন্সিলর এবং ডিএসসিসি’র ২৪ কাউন্সিলর এলজিআরডি ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের কাছে শপথ নেন। স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব এসএম গোলাম ফারুক এ শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। ডিএনসিসি’র মেয়র পদের উপনির্বাচন এবং ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি’তে নতুন করে যুক্ত হওয়া ৩৬টি ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর পদ ও সংরক্ষিত আসনে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম এ উপনির্বাচনে নির্বাচিত হন।

তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে ৮ লাখ ৩৯ হাজার ৩০২ ভোট পান। অপরদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির শাফিন আহমেদ লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে ৫২ হাজার ৪২৯ ভোট পেয়েছেন।

 

কালুখালীতে ঐতিহাসিক ৭মার্চ পালনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাসহ পুষ্পমাল্য অর্পণ

ফজলুল হক ॥ গতকাল বৃহস্পতিবার রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালীতে গভীর শ্রদ্ধাভরে ঐতিহাসিক  ৭মার্চ পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে সকাল ১০টায় উপজেলার দ্বারপ্রান্তে অবস্থিত চাঁদপুর বাসষ্ট্যান্ড মোড় বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্যে শ্রদ্ধাঞ্জলী সহ পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়েছে। প্রথমে উপজেলা পরিষদের পক্ষে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী সাইফুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুন নাহার, সমাজসেবা অফিসার মোঃ জিল্লুর রহমান সহ অন্যান্য অফিসারবৃন্দ। পরে কালুখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষে সভাপতি কাজী সাইফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তনয়  চক্রবর্তী শম্ভু, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন মোল্লা এছাড়াও মদাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম মৃধা, বোয়ালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান হালিমা বেগম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক ডেপুটি কমান্ডার মোঃ আব্দুল খালেক মাষ্টার, আওয়ামীলীগ নেতা ড. আবুল কালাম আজাদ, আঃ রহমান, আজিজুল ইসলাম, ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম, রতনদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি খোন্দকার আনিছুল হক বাবু, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম শাহ আজিজ, রেজাউল ইসলাম চুন্নু ও আসাদ সহ অন্যান্য আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

হালসায় ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ একাংশের উদ্যোগে হালসা বাজারে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত হয়েছে ৷ আমবাড়ীয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আজম আলী মেম্বরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, আমবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দাউদ আলী মেম্বর ৷দাউদ আলী মেম্বর তার বক্তব্যে বলেন, বাঙালি জাতির স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের এক অনন্য দিন । ১৯৭১ সালের এই দিনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (তদানিন্তন রেসকোর্স ময়দান) বিশাল জনসমুদ্রে দাঁড়িয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ডাক দেন। এ দিন লাখ লাখ মুক্তিকামী মানুষের উপস্থিতিতে এই মহান নেতা বজ্রকণ্ঠে ঘোষণা করেন, “রক্ত যখন দিয়েছি রক্ত আরো দেব, এ দেশের মানুষকে মুক্ত করে ছাড়বো ইনশাআল্লাহ। এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”। আকরাম আলীর পরিচালনায় ও আবু সাঈদ মিঠু’র তত্বাবধানে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আমবাড়ীয়া ২ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি বিজয় কুমার ঘোষ, আ’লীগ নেতা নুরুল ইসলাম ফারাস, পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, আমবাড়ীয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিরাজ কুমার, যুবলীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ প্রমূখ ৷ অনুষ্ঠান শেষে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সকল শহীদ সদস্যদের আত্মার মাগফিরাত কামনা সহ বাংলাদেশ সরকারের সেতুমন্ত্রী ওবাইদুল কাদেরের সুস্থ্যতা কামনা করে দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন, হালসা ঈদগাহ জামে মসজিদের খতিব হাফেজ মাওঃ ছগির আহমেদ মাদানী ৷

মুজিবনগরে সড়ক দূর্ঘটনায় শিশুর মৃত্যু

মুজিবনগর প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের মুজিবনগরে সড়ক দূর্ঘটনায় আরাফাত (৭) নামের এক শিশু মারা গেছে। সে মুজিবনগর উপজেলার ভবেরপাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে ও স্থানীয় মুজিবনগর সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ছাত্র। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৪ টায় দিকে সড়ক দূর্ঘটনায় শিশু আরাফাত নিহত হয়। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান- আরাফাত বাড়ির পাশের রাস্তায় বাইসাইকেল চালিয়ে বেড়াচ্ছিল। ওই সময় একটি গম মাড়াই করা ঠেসারের সাথে ধাক্কা লেগে সাইকেলসহ সে রাস্তার উপর ছিটকে পড়ে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়া হয়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মুজিবনগর থানার ওসি আব্দুল হাশেম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন- নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে, আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সদরপুরে নৌকার তোরণ উদ্বোধন

আমলা অফিস ॥ আসন্ন মিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী কামারুল আরেফিনের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। সদরপুর ইউনিয়নের চৌধুরিপাড়া এলাকায় নৌকার এক বিশাল তোরণের উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে  সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চৌধুরীপাড়া গ্রামে এ তোরণের উদ্বোধন করা হয়। এসময় সদরপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি আশরাফুল ইসলামের নেতৃত্বে নৌকার সমর্থকরা ও এলাকাবাসী এ তোরন উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের নেতা খাইরুল ইসলাম মাষ্টার, কাশেম আলী, রবিউল হক, যুবলীগ নেতা সুমন আহমেদ, রশিদুল ইসলাম, জিন্নাত আলী, কামরুজ্জামান বাবু, সিহাব উদ্দিন, টুটুল, আরিফুল ইসলাম, বাবুল চৌধুরী, গোলাম কিবরীয়া মাসুম, জাহাঙ্গীর আলম, আলমগীর হোসেন, শফিকুল ইসলাম, সেলিম হোসেন প্রমুখ।

মিরপুরে কামারুল আরেফিনের পক্ষে গণজোয়ার

জাতীয় প্রার্টির নেতৃবৃন্দরা কামারুল আরেফিনকে সমর্থন দিয়ে নৌকার প্রচারনায়

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফিনকে সমর্থন দিয়ে নৌকার প্রচারনায় অংশ নিয়েছে মিরপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দরা। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে আমলাসদরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় সভাকক্ষে এক মতবিনিময় সভায় নেতৃবৃন্দরা এ সমর্থন দেয়। এসময় মিরপুর পৌর জাতীয় পার্টির সভাপতি শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফিন। মতবিনিময় কালে বক্তব্য রাখেন সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল হক রবি, সাবেক চেয়ারম্যান নিয়াত আলী লালু, আমলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম মালিথা, জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক জহুর মন্ডল, মিরপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি কাউছার আলী, সাধারন সম্পাদক শামীম আহম্মেদ, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক এম রবিউল হক, ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি রবিউল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক সরোয়ার হোসেন, জাতীয় পার্টির নেতা আনিসুজ্জামান বাস্তবসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি ও সম্পাদকগণ। মতবিনিময়কালে বক্তারা আসন্ন মিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী কামারুল আরেফিনের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারনা শুরু করেন এবং বিপুল ভোটে জয়ী করার জন্য জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের আহবান জানান।

 

চরমিল পাড়ায় সিডিসি সদসবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভা

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সেলিনা পারভীন আয়না ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করলেন

গতকাল চরমিল পাড়ায় সিডিসি সদস্যবৃন্দের সাথে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী, জেলা আওয়ামীলীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা.রবিউল হক খানের সহধর্মীণী জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিশিষ্ট সমাজ সেবক সেলিনা পারভীন আয়না এক মতবিনিময় সভা করে। সভায় বক্তব্য রাখেন, ১০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা লাভলু, বিশিষ্ট সমাজ সেবক আকবর আলী, সিডিসি নেত্রী শিউলী প্রমূখ। সেলিনা পারভীন আয়না তার বক্তব্যে বলেন, কুষ্টিয়া  উন্নয়নের রূপকার মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি এর উন্নয়নের ধারাকে অব্যহত রাখতে আমাকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত করুন। আমি সব সময় আপনাদের পাশে থেকে আপনাদের পরামর্শে উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড করে যাবো। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ গ্রেফতার ২

নিজ সংবাদ ॥ র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল গাঁজাসহ ২জনকে গ্রেফতার করেছে। র‌্যাব জানায়, ৭ মার্চ বৃহস্পতিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানাধীন রেফায়েতপুর গ্রামের বাগানপাড়াস্থ জনৈক আহম্মেদ আলীর বাড়ীর পিছনে বাদল সরকারের বাঁশ  বাগানের ভিতর হতে ধৃত আসামী ১। মোঃ আব্দুর রব (৩২), পিতা-মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, ২। মোঃ মফিজুল মোল্লা (৩৫), পিতা-মোঃ আজিজুল হক, উভয় সাং-রিফাইতপুর, থানা-দৌলতপুর, জেলা-কুষ্টিয়াদ্বয়কে ০৭ কেজি ৭০০ গ্রাম গাঁজা, ০২টি মোবাইল, ৪টি সিম এবং নগদ-৯৯৩০/-টাকাসহ গ্রেফতার করেন। পরর্বতীতে উদ্ধারকৃত আলামতসহ ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে দেশী তৈরি বাংলা মদসহ ৭ জন গ্রেফতার

নিজ সংবাদ ॥ র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল দেশী তৈরি বাংলা মদসহ ৭ জন গ্রেফতার করেছে। র‌্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা পৌরসভাধীন ভেড়ামারা পাইলট হাইস্কুলের উত্তর পাশের্^ মজিরউদ্দিন কোম্পানীর দোকানের ভিতর হতে ধৃত আসামী ১। মোঃ গেদা মন্ডল (৪৭), পিতা-মৃত তাইজেল মন্ডল, সাং-চাঁদগ্রাম, থানা-ভেড়ামারা,  ২। মোঃ ইয়াকুব শেখ (৬০), পিতা-মৃত মল্লিক শেখ, ৩। মোঃ মোহন বিশ^াস (৪০), পিতা-মৃত মুজিব উদ্দিন বিশ^াস, উভয় সাং-কাচারী পাড়া, থানা-ভেড়ামারা, ৪। মোঃ আফান (৫২), পিতা-সারন আলী, সাং-মিরপুর, থানা-মিরপুর, ৫। শ্রী সুকুমার প্রামানিক (৫২), পিতা-মৃত সমরেশ চন্দ্র প্রামানিক, ৬। শ্রী অশোক কুমার (৬০), পিতা-মৃত দেবেন্দ্রনাথ প্রামানিক, উভয় সাং-বামনপাড়া, থানা-ভেড়ামারা, ৭। মোঃ ছানারুল ইসলাম (২৮), পিতা-মৃত কুতুব আলী, সাং-সুলতানপুর, থানা-মিরপুর, সর্বজেলা-কুষ্টিয়াদেরকে সর্বমোট ৪৮ লিটার দেশী তৈরি বাংলা মদ, ৬ টি মোবাইল ও ০৮ টি সিম ও নগদ ২২৪৬৯ টাকাসহ গ্রেফতার করেন। পরর্বতীতে উদ্ধারকৃত আলামতসহ ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

 

দৌলতপুর কলেজে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর কলেজে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় দৌলতপুর কলেজ ছাত্রলীগ ও দৌলতপুর কলেজ পৃথকভাবে দিবসটি পালন করে। দৌলতপুর কলেজের অধ্যক্ষ মো. ছাদিকুজ্জামানের সভাপতিত্বে কলেজ চত্বরে দিবসের প্রতিপাদ্য নিয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর কলেজের উপাধ্যক্ষ মো. আজিজুল হক, বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সরকার আমিরুল ইসলাম ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক নুরুল ইসলাম। আলোচনা সভা পরিচালানা করেন, প্রভাষক শরীফুল ইসলাম। এরআগে দৌলতপুর কলেজ ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে একটি শোভাযাত্রা কলেজ চত্বর থেকে বের হয়ে উপজেলা পরিষদ চত্বরসহ বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে। পরে কলেজ চত্বরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হলে সভায় বক্তব্য রাখেন দৌলতপুর কলেজ ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

দৌলতপুরে জাতীয় শিশু দিবস ও মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের প্রস্তুতি সভা

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় ১৭ মার্চ জাতীয় শিশু দিবস, ২৫ গণহত্যা দিবস এবং ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযানের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক ডে-পুটি কান্ডার ও দৌলতপুর দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, দৌলতপুর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার কামাল হোসেন দবির, জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুল্লাহেল বাঁকীসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ ও আমন্ত্রিত সুধীজন। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় আগামী ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস দু’দিন ব্যাপী উদযাপনের লক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়। একই সাথে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালনে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। সভায় মতামত তুলে বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইদুর রহমান, দৌলতপুর প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) বখতিয়ার রহমান, দৌলতপুর শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সরকার আমিরুল ইসলাম, দৌলতখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মজিবর রহমান ও প্রভাষক শরীফুল ইসলাম প্রমুখ। এছাড়াও আগামী ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় শিশু দিবস যথাযোগ্য মর্যদায় পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস, জাতীয় শিশু দিবস এবং গণহত্যা দিবস যথাযোগ্য মর্যদায় পালনের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের রায়

স্ত্রী হত্যা ও ধর্ষন চেষ্টা মামলায় স্বামীর যাবজ্জীবন  কারাদন্ড

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা থানায় স্ত্রী হত্যা ও ধর্ষনচেষ্টার অভিযোগে দায়ের করা পৃথক দুটি মামলায় বিজয় নামে একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ ও ৬০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৮মাস কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহষ্পতিবার সকালে কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সী মশিয়ার রহমান এক জনাকীর্ণ আদালতে আসামীর উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষনা করেন। দন্ডপ্রাপ্ত আসামী হলেন- ভেড়ামারা উপজেলার নওদা ক্ষেমিরদিয়া গ্রামের সাহাবুল ইসলামের ছেলে বিজয় (২৮)। আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর, স্ত্রী ববিতার সাথে বনিবনা না হওয়ায় কথা কাটা-কাটির এক পর্যায়ে স্বামী বিজয় ববিতা খাতুন (২০) কে গলায় ওড়না পেচিয়ে শ^াসরোধে হত্যা করে। এ ঘটনায় ববিতার পিতা কালু মালিথা বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় বিজয়কে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। দায়েরকৃত মামলাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতে সেসন ২৬৯/২০১৫ নং মামলায় নথিভূক্ত হয়ে বিচার কাজ শুরু হয়। অন্যদিকে ২০১৩ সালের ২৪জুন বিজয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষন চেষ্টা অভিযোগে ঘটনার পরদিন ২৫জুনে ভিকটিমের মা বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। মামলা নং জিআর ১৬৬/১৩। মামলা দুটির আসামী একই ব্যক্তি বিজয়ের বিরুদ্ধে স্ত্রী ববিতা হত্যার দায়ে ৩০২ এবং ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (৪) ধারা দ:বি:তে অভিযোগ এনে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন ভেড়ামারা থানা পুলিশ। রাষ্ট্রপক্ষের মামলা পরিচালনাকারী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এ্যাড.আকরাম হোসেন দুলাল জানান, বিজ্ঞ আদালত আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগে চার্জ গঠন পূর্বক স্বাক্ষ্য দীর্ঘ স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে আসামী বিজয়ের বিরুদ্ধে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় দ:বি: ৩০২ ধারায় যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৮মাস কারাদন্ড এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন দ:বি: ৯(৪)ধারায় অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় ৭বছর সশ্রম কারাদন্ডসহ ১০হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করেছেন বিজ্ঞ আদালত। বিজ্ঞ আদালতের এই রায় একই সাথে চলতে থাকবে এবং ২০১৪ সালের অক্টোবর থেকে শুরু করে অদ্যবদি আসামীর হাজতবাস কর্তন হবে মোট কারাদন্ড থেকে। আসামী পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এ্যাড.মীর আরশেদ আলী।

মিরপুরে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে প্রস্তুতি সভা

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়া মিরপুরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে  ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস, ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস, ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপনে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা সভাকক্ষে এ প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম জামাল আহমেদ’র সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ আনোয়ারুজ্জামান বিশ^াস, পৌর মেয়ল হাজী এনামুল হক, জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ¦ মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল আলিম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার আফতাব উদ্দিন খান, নজরুল করিম, আমলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম মালিথা, ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী আব্দুস সালাম, চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন পিস্তুল, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কর্মকর্তা ডাঃ সেলিম হোসেন ফরাজি, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রমেশ চন্দ্র ঘোষ, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রাজিউল ইসলাম, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা সোহাগ রানা, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম প্রকৌশলী এনামুল হক,উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জুলফিকার হায়দার, উপজেলা প্রকৌশলী মিজানুর রহমান, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম নান্নু, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা তমান্নাজ খন্দকার, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রিমন, আলো সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ফিরোজ আহাম্মেদ, উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মিঠু, বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শাহিনুল ইসলাম প্রমুখ।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম রজব আলী খান

৩য় জাতীয় আমন্ত্রণমূলক মাস্টার্স এ্যথলেটিক প্রতিযোগিতা উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন

বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম রজব আলী খান ৩য় জাতীয় আমন্ত্রনমুলক মাস্টার্স এ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতা ২০১৯ উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেড়িয়াম গতকাল সকাল ১১ ঘটিকায় সংবাদ সম্মেলন টি অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মাস্টার্স এ্যাথেলিটিকস এসোসিশনের সভাপতি এ্যডঃ মহিউদ্দিন চৌধুরী নয়ন।  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি তোফাজ্জের হোসেন শাহ আলম, সাধারন সম্পাদক ইকবাল হোসের ও যুগ্ন-সাধারন  সম্পাদক মো আমজাদ আলী খান এবং কোষাধ্যাক্ষ মহিউদ্দিন আহমেদ মোস্তাক। এসময়  আরো উপস্থিত  ছিলেন ফেড়ারেশনের যুগ্ম-সম্পাদক ফরিদউদ্দিন খান মোঃ ইয়াহিয়া সহ অন্যনো কমর্কতা ও ইলেক্ট্রিক ও প্রিন্ট  মিডিয়ার সংবাদিক গণ। ৮ ও ৯মার্চ দুই দিন ব্যাপী প্রতিযোগিতা অংশগ্রহন করবেন বিকেএসপি, বিজিএমসি, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমান বাহিনী, বিজিবি, কাউস্টম বাংলাদেশ, ডাক বিভাগ, পুলিশ বাহিনী, জেলা ক্রিড়া সংস্থা ও  বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্হা, বিশ্ববিদ্যালয় সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,  ভারতের পচ্মিবঙ্গ  থেকে পুুরুষ মহিলা সহ ৫০জন সহ বাংলাদেশর ২৫০ জন এ্যাথলেটিকস এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করবেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মরুহুম রজব আলী খান এর পুত্র বধু মেহেরুননেছা বিউটি, নাতিছেলে ইমরান খান ওকামরান খান। ঐতিহ্যবাহী এ টুর্ণামেন্টে  সর্বমোট ১৫০ টি ইভেন্ট খেলা  হবে। উক্ত খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন যুবও ক্রীড়া বিষযক সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ হারুনুর রশিদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন  সাবেক সচিব ফেডারেশনের সভাপতি  এস এম আলী কবীর। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হিসাবে পুরস্কৃত

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ সন্ত্রাস দমন, মাদক নির্মুল ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে বিশেষ অবদান রাখায় কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ এ, কে, এম মিজানুর রহমানকে শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হিসেবে পুরস্কৃত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়া পুলিশ সুপারের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত মাসিক কল্যাণ সভায় পুলিশ সুপার এস, এম তানভীর আরাফাত শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হিসাবে কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ এ, কে, এম মিজানুর রহমানের নাম ঘোষনা দেন এবং তার হাতে সম্মাননা ক্রেষ্ট তুলে দেন। এ ছাড়াও বিশেষ অভিযানে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করায় কুমারখালী থানার বাঁশগ্রাম পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ ফারুক হোসেনকেও পুরস্কৃত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ এ, কে, এম মিজানুর রহমান জানান, এই অর্জনের অবদান কুমারখালী থানা পুলিশ টিমের সকল সদস্যের। তিনি পুলিশ টিমের সকল সদস্যদেরকে মাদক, সন্ত্রাস সহ সকল প্রকার অপরাধমুলক কার্যক্রম দমনে আরো আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহবান জানান।

নবনির্বাচিত ডিএনসিসি মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহণ

ঢাকা অফিস ॥ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলররা আজ সকালে এখানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে শপথ গ্রহণ করেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) নবনির্বাচিত কাউন্সিলররাও একই অনুষ্ঠানে শপথ নেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিএনসিসি’র মেয়র আতিকুল ইসলামকে শপথ বাক্য পাঠ করান। এসময় ডিএনসিসি’র ২৬ কাউন্সিলর এবং ডিএসসিসি’র ২৪ কাউন্সিলর এলজিআরডি ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের কাছে শপথ নেন। স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব এসএম গোলাম ফারুক এ শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। ডিএনসিসি’র মেয়র পদের উপনির্বাচন এবং ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি’তে নতুন করে যুক্ত হওয়া ৩৬টি ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর পদ ও সংরক্ষিত আসনে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম এ উপনির্বাচনে নির্বাচিত হন।

তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে ৮ লাখ ৩৯ হাজার ৩০২ ভোট পান। অপরদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির শাফিন আহমেদ লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে ৫২ হাজার ৪২৯ ভোট পেয়েছেন।

 

শপথ নিলেন গণফোরামের সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ

ঢাকা অফিস ॥ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৩৬, মৌলভীবাজার-২ আসন থেকে নির্বাচিত সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ শপথ গ্রহণ করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তার কার্যালয়ে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যকে শপথ বাক্য পাঠ করান। সুলতান মোহাম্মদ মনসুর গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গণফোরামের মনোনয়নে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। শপথ অনুষ্ঠানে ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, চিফ হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরী, হুইপ ইকবালুর রহিম, হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি এবং গাজী মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ উপস্থিত ছিলেন। জাতীয় সংসদের জ্যেষ্ঠ সচিব ড. জাফর আহমেদ খান শপথ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। এ সময় সংসদ সদস্যের নির্বাচনী এলাকার নেতৃবৃন্দ ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

যন্ত্রের সহায়তা ছাড়াই কাজ করছে কাদেরের হৃদপিন্ড

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি হয়েছে বলে জানিয়েছে সিঙ্গাপুরেরর মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের মেডিকেল বোর্ড। সিঙ্গাপুরে কাদেরের সঙ্গে থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক অধ্যাপক আবু নাসির রিজভী গতকাল বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের জানান, সেতুমন্ত্রীর হৃদযন্ত্রে যে আইএবিপি মেশিন বসানো হয়েছিল, তা সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ফলে কৃত্রিম ‘সাপোর্ট’ ছাড়াই তার হৃদযন্ত্র স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে। সিঙ্গাপুরেরর মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে কার্ডিওলজিস্ট ডা. ফিলিপ কোহের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ডের অধীনে ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসা চলছে। ডা. রিজভী বলেন, “আজকে বেলা সাড়ে ১২টায় আমি মেডিকেল বোর্ডের সাথে কথা বলেছি। মেডিকেল বোর্ড খুব সন্তুষ্ট। মেডিকেল বোর্ডের একজন কাদের ভাইয়ের সাথে কথা বলেছেন। চিকিৎসকের কথায় তিনি রেসপন্স করেছেন, দিস ইজ নম্বর ওয়ান পজিটিভ সাইন। “হার্টের সাপোর্টিভ মেশিন আজকে খুলে ফেলা হয়েছে। উনার প্রেসার স্টেবল আছে।… বাকি সব প্যারামিটারসগুলোও দিন দিন ভালো হচ্ছে।” গত রোববার সকালে শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঢাকার বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে ভর্তি হন ৬৭ বছর বয়সী ওবায়দুল কাদের। সেখানে এনজিওগ্রামে তার হৃদপি-ের রক্তনালীতে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে। এর মধ্যে একটি ব্লক স্টেন্টিংয়ের মাধ্যমে অপসারণ করেন চিকিৎসকরা। অবস্থা কিছুটা স্থিতিশীল হলে সোমবার বিকালে উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার আম্বুলেন্সে করে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় সিঙ্গাপুরে। সেদিন রাতেই মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসকরা ওবায়দুল কাদেরের জন্য একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে চিকিৎসা শুরু করেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে কয়েক দিনের মধ্যে বাইপাস সার্জারি করার কথা ভাবছেন তারা। ডা. রিজভী বলেন, “মন্ত্রীর কিডনি আগের তুলনায় অনেক ভাল অবস্থায় রয়েছে। উনার ঘুমের ওষুধের পরিমাণও কমিয়ে আনা হয়েছে, ইনফেকশন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসেছে।” কাদেরের স্ত্রী ইসরাতুন্নেসা কাদের ছাড়াও কয়েকজন সংসদ সদস্য ও সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। সেতুমন্ত্রীর সর্বশেষ অবস্থা জানাতে শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকাল ৪টায় মাউন্ট এলিজাবেথের মেডিকেল বোর্ড আবার ব্রিফ করবে বলে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপপ্রধান তথ্য কর্মকর্তা আবু নাছের জানিয়েছেন।

 

গাংনীতে সড়ক দূর্ঘটনায় ব্যবসায়ী নিহত  আহত কুষ্টিয়ার ২ যুবক

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে শামসুল ইসলাম (৪৮) নামের এক ভাঙ্গাড়ি ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। নিহত শামসুল গাংনী উপজেলা শহরের মহিলা কলেজ পাড়ার খেদের আলীর ছেলে। আহত হয়েছেন দু’জন যুবক। আহতরা হলেন- কুষ্টিয়া আড়–য়াপাড়ার হারুন-অর-রশীদ ওরফে হারুনের ছেলে শাওন (২৫) ও তার বন্ধু কুষ্টিয়ার কুমারখালীর চড়াইতলার মজনুর রহমান ওরফে মজনুর ছেলে নয়ন হোসেন(২৫)। গতকাল বৃহস্পতিবার সাড়ে সকাল ১০ টার দিকে গাংনী মহিলা কলেজ মোড়ে যাত্রীবাহি বাসের ধাক্কায় নিহতের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বাসের সুপারভাইজার রিপন হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ সময় দূর্ঘটনা কবলিত বাসটি জব্দ করেছে পুলিশ। স্থানীয়রা জানান,শামসুল ইসলাম বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল যোগে গাংনী বাজারে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যাচ্ছিলেন। পথে মহিলা কলেজ মোড় পার হয়ে মেইন (প্রধান) সড়কে উঠার সময় মেহেরপুর থেকে ছেড়ে আসা কুষ্টিয়াগামী একটি যাত্রীবাহি বাস পিছন থেকে চাপা দিলে সে মারাত্বক আহত হয়। আহতাবস্থায় তাকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়া হলে, কর্তব্যরত চিকিৎসক আশরাফি ইয়াসমিন আশা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  একইসাথে কুষ্টিয়ার দিক থেকে আসা দু’জন মোটর সাইকেল আরোহী গাংনী মহিলা কলেজ মোড়ে দূর্ঘটনা কবলিত বাসটির পিছনে ধাক্কা খেয়ে গুরুতর আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। গাংনী থানার ওসি হরেন্দ্র নাথ সরকার জানান,ঘাতক বাসটি জব্দ করা হয়েছে। বাস চালককে আটক করার চেষ্টা চলছে। নিহতের পরিবার মামলা দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।