খালদোর জন্য ফরে মডেকিলে র্বোড হবে – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফসি ॥ কারাবন্দি বএিনপি চয়োরপারসন খালদো জয়িার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আবারও মডেকিলে র্বোড গঠন করা হবে বলে জানয়িছেনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তনিি বলছেনে, “পরীক্ষা-নরিীক্ষার পর সুপারশি অনুযায়ী আমাদরে নীতমিালা অনুযায়ী আমরা র্সবােচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করব, যদি প্রয়োজন হয়।” খালদো জয়িার সুচকিৎিসার দাবি নয়িে বএিনপরি স্থায়ী কমটিরি সাত সদস্য গতকাল রোববার সচবিালয়ে এসে দখো করার পর সাংবাদকিদরে এ কথা বলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। বকিাল ৩টা থকেে মন্ত্রীর কক্ষে পৌনে এক ঘণ্টার এই বঠৈক শষেে বরেয়িে এসে বএিনপি মহাসচবি মর্জিা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদকিদরে বলনে, খালদো জয়িাকে দ্রুত ঢাকার ইউনাইটডে হাসপাতালে স্থানান্তররে ব্যবস্থা নতিে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ করছেনে তারা। জয়িা এতমিখানা র্দুনীতি মামলায় পাঁচ বছররে কারাদ-প্রাপ্ত খালদো জয়িা গত ৮ ফব্রে“য়ারি থকেে ঢাকার পুরনো কন্দ্রেীয় কারাগারে বন্দ।ি খালদো জয়িার স্বাস্থ্য পরস্থিতিি নয়িে উদ্বগে জানয়িে আসা বএিনপি নতোরা আগইে জানয়িছেলিনে, তারা এ বষিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দখো করবনে। সে অনুযায়ী মর্জিা ফখরুলরে নতেৃত্বে বএিনপরি সাত সদস্যরে প্রতনিধিি দল বকিালে সচবিালয়ে যায়। বকিাল ৩টা থকেে ৩টা ৫০ র্পযন্ত সচবিালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়রে চর্তুথ তলায় মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালরে কক্ষে এই বঠৈক চল।ে বঠৈকরে এক র্পযায়ে কারা মহাপরর্দিশক ব্রগিডেয়িার জনোরলে সয়ৈদ ইফতখোর উদ্দীনও মন্ত্রীর কক্ষে প্রবশে করনে। বঠৈক শষেে বরেয়িে এসে ফখরুল সাংবাদকিদরে বলনে, “আমরা তাকে (মন্ত্রী) অনুরোধ করছেি যে দশেনত্রেী বগেম খালদো জয়িাকে দ্রুত যনে বশিষোয়তি হাসপাতালে চকিৎিসা দওেয়া হয়। ইউনাইটডে হাসপাতাল- যটো তনিি পছন্দ করনে, সইে হাসপাতালে নওেয়ার জন্য আমরা তাকে অনুরোধ করছে।ি”  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বষিয়টি দখোর প্রতশ্রি“তি দয়িছেনে জানয়িে ফখরুল বলনে, “তনিি বলছেনে, যারা দায়ত্বিে আছনে মন্ত্রণালয়রে সচবি ও আইজি প্রজিনসসহ অন্যদরে সাথে আলাপ করে সদ্ধিান্ত নবেনে। তনিি এও বলছেনে য,ে বশিষেজ্ঞ চকিৎিসক যারা আছনে, তাদরে পরার্মশ নয়িে ব্যবস্থা নবেনে।”

সক্ষেত্রেে কবে নাগাদ ব্যবস্থা নওেয়া হতে পার,ে সইে প্রতশ্রি“তি মলিছেে কি না জানতে চাইলে বএিনপি মহাসচবি বলনে, “সটো সুনর্দিষ্টিভাবে উনি কছিু বলনেন।ি বলছেনে য,ে আজকইে ওই সভাটা করবনে।” বএিনপরি স্থায়ী কমটিরি সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসনে, জমরিউদ্দনি সরকার, রফকিুল ইসলাম ময়িা, মর্জিা আব্বাস, আবদুল মঈন খান ও নজরুল ইসলাম খান এই সাক্ষাতে মর্জিা ফখরুলরে সঙ্গে ছলিনে। বএিনপি নতোরা চলে যাওয়ার পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মো. আসাদুজ্জামান খাঁন কামালও নজি র্কাযালয়ে সাংবাদকিদরে সঙ্গে বঠৈকরে বষিয়ে কথা বলনে। তনিি বলনে, “কারাগারে অন্তরীণ খালদো জয়িার স্বাস্থ্য সর্ম্পকে কছিু রকিোয়স্টে তারা করে গছেনে লখিতি আকার।ে তারা জানয়িছেনে, বগেম খালদো জয়িা অসুস্থ এবং তার অসুস্থতার মাত্রা বড়েে যাচ্ছ।ে “এর আগে যে রকম রকিোয়স্টে করছেলিনে অন্য হাসপাতালে নয়িে যাওয়ার জন্য, এবার লখিতি দয়িছেনে। আমরা লখিতি আবদেনটরি প্রক্ষেতিে সচবি মহোদয় এবং আইজি প্রজিনসকে এখনই দায়ত্বি দয়িছে।ি” মন্ত্রী বলনে, “বশিষেজ্ঞ ডাক্তারদরে নয়িে গতবারও সবাই মলিে যে একটি র্বোডে তরৈি করছেলিনে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য, তদ্রুপ র্বোড গঠন করে আবারও পরীক্ষা নরিীক্ষা করবনে আমাদরে সরকারি ডাক্তার এবং তাকে যারা চকিৎিসা দতিনে।” খালদোর অসুস্থতার কারণে এর আগওে একটি মডেকিলে র্বোড গঠন করছেলি সরকার। কন্তিু পরীক্ষা করে সইে মডেকিলে র্বোড বলছেলি, বএিনপি চয়োরপারসনরে অসুস্থতা গুরুতর নয়। মডেকিলে র্বোডরে চকিৎিসকদরে পরার্মশে এক্সরে করাতে গত ১৪ এপ্রলি খালদো জয়িাকে বঙ্গবন্ধু মডেকিলে বশ্বিবদ্যিালয় হাসপাতালে নওেয়া হয়ছেলি। তবে সরকাররে গঠতি ওই মডেকিলে র্বোড নয়িে অনাস্থা জানয়িছেলি বএিনপ।ি সাংবাদকিদরে প্রশ্নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলনে, “খালদো জয়িা আথ্রাইটসিে ভুগছনে তার সবোর জন্য একজন নারীকে আমরা কারাগারে অ্যালাউ করছে।ি ডাক্তাররে পরার্মশ অনুযায়ী যা যা প্রয়োজন আমরা কন্তিু সবই করে যাচ্ছ।ি” কামাল জানান, একজন ফজিওিথরোপস্টি একদনি পর পর কারাগারে গয়িে খালদো জয়িাকে থরোপি দয়িে আসনে। প্রায় প্রতি সপ্তাহইে চকিৎিসকরা তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করনে। শুধু তাই নয়, একজন ডাক্তার একজন র্ফামাসস্টি প্রতদিনিই তাকে চকে করছনে। আমাদরে আইজি প্রজিনস এটা জানয়িছেনে, তাদরেও জানয়িে দয়িছে।ি” জলকোড অনুযায়ী র্সবােচ্চ সুযোগ-সুবধিা খালদো জয়িাকে দওেয়া হচ্ছে দাবি করে মন্ত্রী বলনে, “তারা (বএিনপি নতোরা) আবারও তাকে ইউনাইটডে হাসপাতালে নওেয়ার কথা বলছনে, এবার সঙ্গে অ্যাপোলো হাসপাতালরে কথাও বলছেনে। আমরা জানয়িে দয়িছে,ি আমরা আবার মডেকিলে র্বোড করব। র্বোডে পরার্মশ অনুযায়ী আমরা র্সবােচ্চ ব্যবস্থা নবি, যদি প্রয়োজন হয়।” বএিনপি নতোদরে দাবি অনুযায়ী খালদো জয়িাকে ব-েসরকারি কোনো হাসপাতালে নওেয়ার সুযোগ আছে কনিা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলনে, “নীতমিালা অনুযায়ী তাকে সরকারি হাসপাতালে নওেয়া হব।ে এটাই আমাদরে জলে কোড অনুযায়ী ব্যবস্থা। দশেরে বড় বড় হাসপাতালগুলো কন্তিু সরকারি হাসপাতাল।” তনিি জানান, নয়িম অনুযায়ী সরকাররে ‘র্সবােচ্চ চকিৎিসা কন্দ্রেইে’ খালদোকে নওেয়া হব।ে তারপরও প্রয়োজন হল,ে চকিৎিসকরা ভন্নি কছিু বলল,ে বঠৈক করে সে বষিয়ে সদ্ধিান্ত নওেয়া হব।ে “ডাক্তাররা যদি বলে বঙ্গবন্ধু মডেকিলে বা আমাদরে বড় বড় হাসপাতালে এই ধরনরে ফ্যাসলিটিসি নইে, তাহলে সটোর (বসেরকারি হাসপাতাল) প্রশ্ন আস।ে বএিনপরি পক্ষ থকেে যমেন বলা হচ্ছ,ে খালদো জয়িা ততটাই অসুস্থ বলে সরকার মনে করছে কনিা- তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জানতে চয়েছেলিনে সাংবাদকিরা। উত্তরে তনিি বলনে, “আমাদরে চষ্টোর কোনো ত্রুটি নইে, কারা র্কতৃপক্ষ তার স্বাস্থ্যরে প্রতি বশিষে নজর রখেছেনে। তারপর তারা যে কথা বলছনে সইে রকম পরস্থিতিি হয়ছেে কনিা সটো ডাক্তাররা পরীক্ষা করে দখেবনে।”

পাংশার মৌরাট ইউপিতে আ’লীগের নির্বাচনী সেন্টার কমিটি গঠনে আলোচনা সভা

কালুখালী প্রতিনিধি ॥ গতকাল রাজবাড়ী জেলাধীন পাংশা উপজেলার মৌরাট ইউনিয়নে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নির্বাচনী সেন্টার কমিটি গঠন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পাংশা উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আঃ রহমান খোকনের সঞ্চালণায় এ উপলক্ষ্যে গতকাল বিকেল ৫টায় মৌরাট ইউপির পুরাতন পরিষদ ভবনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী সরদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন মৌরাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ হাবিবুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কেছমত আলী শেখ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম বকুল, সদস্য আঃ আলিম মিয়া, মৌরাট ইউনিয়নের বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ফজলুল হক, যুবলীগের সদস্য হাফিজুর রহমান, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিন্টু শেখ, এছাড়াও নুরুল ইসলাম ও আঃ রাজ্জাক মাষ্টারসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামীলীগের তৃণমূল নেতাকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভায় বক্তাগণ রাজবাড়ী-২ আসনের বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিমের রাজনৈতিক হাতকে শক্তিশালী করা সহ বর্তমান সরকারের উন্নয়ন মূলক কাজ করার কথা প্রচার করার জন্য উপস্থিত সকলকে সোচ্চার হতে বলেন। পাশাপাশি দলের  জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার কথা বলেন।

আলমডাঙ্গার বিএনপি-জামায়তের ৪ কর্মি আটক

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াতের ৪ কর্মিকে আটক করেছে পুলিশ। নাশকতা সৃষ্টির পাঁয়তারার অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। আটককৃতদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, আলমডাঙ্গার বিভিন্ন গ্রামে অভিযান চালিয়ে বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়। উপজেলার খাসকররা ইউনিয়নের ইব্রাহিম মন্ডলের ছেলে ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি আব্দুর রশিদ মন্ডল, একই গ্রামের মৃত কোরবান মন্ডলের ছেলে জামায়াত নেতা হাসেম আলী মন্ডল, কালিদাসপুর ইউনিয়নের নওদাপাড়া গ্রামের মানোয়ার হোসেনের ছেলে বিএনপি নেতা জামির হোসেন, ওই গোবিন্দপুর গ্রামের সোহরাব আলীর ছেলে ছাত্রদল কর্মি কাজলকে আটক করে। আটকের পর তাদের নাশকতার মামলায় জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সয়ৈদপুরে সাংবাদকিদরে প্রশ্নরে জবাবে ওবায়দুল কাদরে

পরাজয়রে ভয়ে নর্বিাচন থকেে পালানোর পথ খুঁজছে বএিনপি

ঢাকা অফসি ॥ আওয়ামী লীগরে সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরবিহন ও সতেুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদরে বলছেনে, আগামী জাতীয় নর্বিাচনে পরাজয়রে ভয়ে নাশকতা করে নর্বিাচন থকেে বএিনপি পালয়িে যাওয়ার পথ খুঁজছ।ে তনিি বলনে, ‘দশেরে মানুষরে মধ্যে কোন অসন্তোষ নইে। শনবিার ঢাকা থকেে নীলফামারী র্পযন্ত আওয়ামী লীগরে ট্রনে যাত্রায় মানুষরে ঢল তা প্রমাণ করছে।ে র্পূব নর্ধিারতি পথসভাগুলো জনসভায় পরণিত হয়ছেলি।’ সতেুমন্ত্রী বলনে, তারা (বএিনপ)ি আন্দোলনরে নামে সহংিসতা করে সরকার পতনে র্ব্যথ হয়ছে।ে তারা এখন নাশকতা করার জন্য দশেে বদিশেে বঠৈক করছ।ে আওয়ামী লীগরে ট্রনেযাত্রায় মানুষরে স্বতঃর্স্ফূত অংশগ্রহণে তাদরে হরেে যাওয়ার বষিয়টি প্রবল হয়ছে।ে ওবায়দুল কাদরে গতকাল রোববার সকালে সয়ৈদপুর বমিানবন্দররে ভআিইপি লাউঞ্জে দলরে ট্রনে সফর শষেে আয়োজতি সংবাদ সম্মলেনে সাংবাদকিদরে এক প্রশ্নরে জবাবে এ কথা বলনে। এ সময় সংস্কৃতি বষিয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, আওয়ামী লীগরে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এডভোকটে জাহাঙ্গীর কবরি নানক এমপ,ি সাংগঠনকি সম্পাদক আহমদ হোসনে, বএিম মোজাম্মলে হক এমপ,ি খালদি মাহমুদ চৌধুরী এমপ,ি প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপ,ি সংস্কৃতি বষিয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকলি ও উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যরস্টিার বপ্লিব বড়–য়া প্রমূখ উপস্থতি ছলিনে। ওবায়দুল কাদরে বলনে, জাতীয় নর্বিাচনে তফশলি ঘোষনার আর মাত্র দড়ে মাস বাকি রয়ছে।ে এ সময় দশেে কোন অস্থরিতা নইে। আর বএিনপরি রাজনীতি প্রতপিক্ষরে বষিোদগাররে মধ্যইে সীমাবদ্ধ। তনিি বলনে, বএিনপি গত দশ বছরে দশ মনিটিরে জন্যও কোন আন্দোলন করতে পারনে।ি তারা কোটা বরিোধী ও নরিাপদ সড়করে দাবতিে শক্ষর্িাথীদরে আন্দোলনরে ওপর ভর করছেলি। কন্তিু সখোনওে তারা র্ব্যথ হয়ছে।ে কাদরে বলনে, দশেরে বরিোধীদল হওয়ার জন্য যে যোগ্যতা থাকতে হয় বএিনপরি সে যোগ্যতাও নইে। আর দশেরে মানুষ বএিনপকিে দশেরে ইতহিাসে সবচয়েে র্ব্যথ বরিোধী দল হসিবেে চহ্নিতি করব।ে সাংবাদকিদরে অপর এক প্রশ্নরে জবাবে আওয়ামী লীগরে সাধারণ সম্পাদক বলনে, নর্বিাচনকালীন মন্ত্রসিভা কবে দায়ত্বি গ্রহণ করবে এবং এই মন্ত্রসিভার আকার কি হবে সংবধিান অনুযায়ী তা দখোর এখতয়িার প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিার। তনিি বলনে, তবে নর্বিাচনকালীন মন্ত্রসিভার আকার র্বতমান মন্ত্রসিভার মতো আকারে এত বড় হবে না। গত জাতীয় সংসদ নর্বিাচনরে সময়রে মত এই মন্ত্রসিভার আকার ছোট হব।ে মন্ত্রসিভার কছিু সদস্য নর্বিাচনকালীন সরকার থকেে বাদ যাবনে উল্লখে করে সড়ক পরবিহন মন্ত্রী বলনে, সংসদে যে সকল রাজনতৈকি দলরে প্রতনিধিত্বি নইে সইে সকল দলরে নর্বিাচনকালীন সরকাররে মন্ত্রসিভায় থাকার কোন সুযোগ নইে। আওয়ামী লীগরে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদরে বলনে, প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিার ব্যাপক উন্নয়ন র্কমকান্ডে ঢাকা থকেে নীলফামারী র্পযন্ত জনগণরে যে সাড়া পয়েছেি তা সত্যি অচন্তিনীয় বষিয়। ট্রনেযাত্রা নয়িে যাত্রীদরে র্দুভােগ নয়িে একটি খবররে বষিয়ে জানতে চাইলে তনিি বলনে, ঢাকা থকেে চলিাহাটি র্পযন্ত নীল সাগর এক্সপ্রসেে যাত্রীদরে র্দুভােগ হওয়ার কোন সুযোগ ছলি না। কারণ যাত্রীরা পথে পথে নমেে গছে।ে দনিাজপুররে বরিামপুর স্টশেনে পথসভাটি বশিাল জনসভায় পরণিত হয়ছেলি। সখোনে তো কোন যাত্রী র্দুভােগরে শকিার হয়ন।ি সাধারণ সম্পাদক বলনে, সামনে জাতীয় নর্বিাচন, আমরা আমাদরে উন্নয়নরে প্রচার করব ও দলকে আরো সুসংগঠতি করব, সটোই স্বাভাবকি। শনবিার সকালে ঢাকা থকেে নীলফামারী র্পযন্ত নীলসাগর ট্রনেরে বভিন্নি স্টশেনে পথসভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। এ সকল পথসভায় প্রধান অতথিি হসিবেে বক্তব্য রাখনে ওবায়দুল কাদরে। আওয়ামী লীগরে এ ট্রনেযাত্রায় ১১টি সমাবশেরে কথা উল্লখে থাকলওে প্রায় ১৮টি সমাবশেে বক্তব্য রাখনে ওবায়দুল কাদরে। পথসভায় তনিি ঘরে ঘরে বদ্যিুৎ, নারীর ক্ষমতায়ন, মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটলোইট পাঠানো, হাতে হাতে মোবাইল, ডজিটিাল ইউনয়িন সবোকন্দ্রে, সামাজকি নরিাপত্তা বলয়রে সুফল হসিবেে দশেরে উন্নয়নশীল দশেরে র্মযাদা লাভ ও বএিনপ-িজামায়াতরে নাশকতার বভিন্নি চত্রি তুলে ধরনে।

কোনো আন্দোলন-র্কমসূচি নইে তবে গণগ্রপ্তোর কনেো – ড. মোশাররফ

ঢাকা অফসি ॥ বএিনপরি স্থায়ী কমটিরি সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসনে বলছেনে, সারাদশেে নতুন করে গণগ্রপ্তোর শুরু করছেে সরকার। আমাদরে কোনো আন্দোলন-র্কমসূচি নইে এবং রাজপথে কোনো র্কমী নাই। তাহলে এখন কনেো গণগ্রপ্তোর চলছ?ে  উদ্দশ্যে হচ্ছ,ে বগেম জয়িাকে জলেে রখে,ে আমাদরে আদালতরে কাঠগড়ায় রখেে এবং বএিনপি ও ২০ দলকে বাইরে রখেে সরকার নর্বিাচন করতে চায়। তাদরে মতলব জনগণ জান।ে সরকার প্রতটিি গ্রামে গ্রামে যারা বএিনপরি সক্রয়ি র্কমী তাদরে তালকিা করে মামলা দচ্ছি।ে যাকে পারছে গ্রফেতার করছ।ে কারণ সামনরে আন্দোলন ও আগামী নর্বিাচনে তারা চক্রান্ত বাস্তবায়ন করতে চাচ্ছ।ে তনিি বলনে, বগেম খালদো জয়িা গুরুতর অসুস্থ। তাকে চকিৎিসা দয়িে সুস্থ করে তারপর বচিার করুন। এতে আমাদরে কোনো আপত্তি নাই। খালদো জয়িার চকিৎিসা বশিষোয়তি হাসপাতালে দ্রুত নয়োর জন্য সরকাররে কাছে দাবি জানাচ্ছ।ি গতকাল রোববার মহলিা দলরে ৪০তম প্রতষ্ঠিার্বাষকিীতে সংগঠনটরি নতোর্কমীদরে নয়িে জয়িাউর রহমানরে মাজারে পুষ্পমাল্য র্অপণ করে সাংবাদকিদরে এ কথা বলনে খন্দকার মোশাররফ। মোশাররফ বলনে, বগেম খালদো জয়িাকে মুক্তি দয়িে আমাদরে সুযোগ দওেয়া হোক। তাকে আমরা বশিষোয়তি হাসপাতালে চকিৎিসা করাবো। মুক্ত বগেম জয়িাকে নয়িে বএিনপি নর্বিাচনে যাবে এমন মন্তব্য করে মোশাররফ বলনে, এই নর্বিাচন হবে নরিপক্ষে সরকাররে অধীন,ে নর্বিাচন কমশিন পুর্নগঠন কর,ে সংসদ ভঙেে দয়িে এবং সনোবাহনিীর তত্ত্বাবধান।ে বগেম জয়িাকে নয়িে আমরা সইে নর্বিাচনে যাবো। নতোর্কমীদরে উদ্দশ্যে করে বএিনপরি মোশাররফ বলনে, নরিপক্ষে সরকাররে দাবি আমরা আদায় করবো। বগেম জয়িাকে মুক্ত করে নর্বিাচনে যাবো। যতই ষড়যন্ত্র তারা করুক, এবার তারা (সরকার) পার পাবে না। এ সময় মহলিা দলরে সভাপতি আফরোজা আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমদে, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হলেনে জরেনি খানসহ সংগঠনটরি নতোর্কমীরা উপস্থতি ছলিনে।

বএিনপ’র নতেৃত্বে ঐক্যরে প্রস্তাব আসলে ভন্নি রঙরে চক্রান্ত – তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফসি ॥ তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলছেনে, ‘বএিনপ’ির নতেৃত্বে বৃহত্তর ঐক্যরে প্রস্তাব আসলে নানা রঙ-ঢঙে দন্ডতি খালদো জয়িার মুক্ত,ি যুদ্ধাপরাধীদরে বচিার বন্ধ ও নর্বিাচন বানচালরেই চক্রান্ত।’ তনিি বলনে, ‘২০০৮ সালরে নর্বিাচনরে গণরায় ছলি একটি বাঁক বদলরে রায়। জনগণরে এ রায়ে বএিনপ-িরাজাকার চক্র পছিু হটলওে তারা চক্রান্ত ছাড়নে।ি ‘দশেরে রাজনীততিে বর্ষিবক্ষরে মতো একাত্তররে রাজাকার, পঁচাত্তররে খুনী, জঙ্গি ও আগুনসন্ত্রাসীদরে আশ্রয় দয়িে দশেে অস্বাভাবকি সরকার আনার ষড়যন্ত্রই করে চলছেে তারা। সকোরণে তাদরে হাতে দশে কোনোদনিই নরিাপদ নয়’ বলনে তথ্যমন্ত্রী । তথ্যমন্ত্রী গতকাল রোববার দুপুরে রাজধানীর রামপুরায় বাংলাদশে টলেভিশিন মলিনায়তনে বটিভিি জলো প্রতনিধিি সম্মলেন ২০১৮-এ প্রধান অতথিরি বক্তৃতায় একথা বলনে। তথ্য প্রতমিন্ত্রী তারানা হালমি, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বষিয়ক উপদষ্টো ইকবাল সোবহান চৌধুরী, তথ্য মন্ত্রণালয় সর্ম্পকতি সংসদীয় স্থায়ী কমটিরি সদস্য সালাহউদ্দনি আহমদে মুক্তি এমপ,ি তথ্য সচবি আবদুল মালকে এবং বটিভিরি মহাপরচিালক এস এম হারুন-অর-রশীদ সম্মলেনে বশিষে অতথিি হসিবেে বক্তৃতা করনে। হাসানুল হক ইনু এসময় বটিভিরি জলো প্রতনিধিদিরেকে মথ্যিাচার, গুজব ও তথ্যবকিৃতি থকেে দশেবাসীকে রক্ষায় নয়িোজতি সনৈকি হসিবেে অভহিতি করে বলনে, ‘রাষ্ট্র ও সংবধিানরে পক্ষে থাকুন, শখে হাসনিার বস্মিয়কর উন্নয়নে মানুষরে জীবনরে বাঁক বদলরে গল্প তুলে আনুন, একইসাথে দশে বরিোধীদরে হাতে জীবন ধ্বংসরে করুণ কাহনিীও আমাদরে জানান।’ প্রতটিি জলোর জনমানুষরে সকল খবর আরো বস্তিারতিভাবে তুলে ধরতে সরকার প্রতটিি বভিাগে বটিভিরি কন্দ্রে স্থাপনরে উদ্যোগ নয়িছে,ে বলনে মন্ত্রী। বাংলাদশে টলেভিশিনরে ৬৪ জলোর প্রতনিধিদিরে এ সম্মলেনে সভাপতত্বি করনে বটিভিি জলো প্রতনিধিি সমতিরি সভাপতি এম এ সালাম। এর আগে সকালে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু রাজধানীর গুলশানে স্পক্টো কনভনেশন সন্টোরে বসেরকারি সংস্থা শয়োর-নটে আয়োজতি ‘যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য জ্ঞান মলো’য় প্রধান অতথিরি বক্তৃতায় বলনে, ‘যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যরে অধকিার মানুষরে মৌলকি অধকিার। আর এ অধকিার রক্ষা ও র্চচায় প্রয়োজন ব্যাপক জনসচতেনতা।’ নদোরল্যান্ডস দূতাবাসরে উপ-প্রধান জরেন স্টীস, রডে অরঞ্জে মডিয়িা এন্ড কমউিনকিশেন্স এর ব্যবস্থাপনা পরচিালক র্অণব চক্রর্বতী এবং ব্র্যাক ইউনভর্িাসটিরি জমেস পি গ্র্যান্ট স্কুল অভ্ পাবলকি হলেথ এর ডনি অধ্যাপক সাবনিা ফয়জে রশদি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করনে। তথ্যমন্ত্রী বলনে, ‘শখে হাসনিার সরকার বাংলাদশেকে যে বস্মিয়কর উন্নয়নরে পথে এগয়িে নয়িে চলছেনে, জনস্বাস্থ্য সখোনে একটি বশিষে গুরুত্বর্পূণ দকি। মানুষরে মৌলকি অধকিার হসিবেে নরিাপদ যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যরে অধকিার নশ্চিতি করার জন্য সরকাররে পাশাপাশি বসেরকারি সংস্থাগুলোর এগয়িে আসার র্অথ হচ্ছ,ে আরো বশেি মানুষ সচতেন হচ্ছ।

গাংনীতে নারী-মুক্তি সংসদের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী থানা নারী-মুক্তি সংসদের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল রোববার সকাল ১০টার দিকে মেহেরপুর জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির গাংনীস্থ কার্যালয়ে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর গাংনী উপজেলা শহরের বাসস্ট্যান্ড চত্বরে জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির বিশাল জনসভা সফল করার লক্ষে এ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন গাংনী থানা নারী-মুক্তি সংসদের সভানেত্রী রোকছানা খাতুন। সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড আব্দুল মাবুদ। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সদস্য কমরেড মজনুল হক মজনু ও কমরেড আবুল হাশেম প্রমুখ। এ সময় গাংনী থানা নারী-মুক্তি সংসদের সদস্যসহ ওয়ার্কার্স পার্টির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত হলেন সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল কুদ্দুস

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত হয়েছেন সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল কুদ্দুস। গতকাল রবিবার বিকেল সোয়া ৫টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে গার্ড অব অর্নার শেষে মানিকদিয়াড় কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়। উপজেলা বাজার পূর্বপাড়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে দৌলতপুর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার ও অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আব্দুল কুদ্দুসের মরদেহ উপজেলা পরিষদ চত্বরে মুক্তিযোদ্ধা অফিসের সামনে নেয়া হলে সেখানে তাঁকে একনজর দেখার জন্য ৭১’র রনাঙ্গনের সাথী ও বীর যোদ্ধারা ভীড় করেন। এরপর দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের উপস্থিতিতে মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আব্দুল কুদ্দুসকে গার্ড অর্নার প্রদান করা হয়। গার্ড অব অর্নার শেষে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা পূর্ব মরহুমের বিদেহী আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা ও শান্তি কামনা করে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন, কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও দৌলতপুর আওয়ামীলীগের সভাপতি আফাজ উদ্দিন আহমেদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার মানিক কুমার ঘোষ, হোগলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম চৌধুরী, দৌলতপুর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সদ্য সাবেক কমান্ডার কামাল হোসেন দবির ও মরহুমের বড় ছেলে শামীম রেজা। দীর্ঘদিন ধরে আব্দুল কুদ্দুস অসুস্থ থাকার পর গতকাল বেলা ১টার সময় নিজ বাড়িতে তিনি ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে দুই মেয়ে ও দুই ছেলেসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও শুভাকাঙ্খী রেখে গেছেন।

কালীগঞ্জে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের অভিযানে গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তের অভিযানে পৌরসভার ফয়লা হাসপাতাল এলাকা থেকে গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে। ঝিনাইদহের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন কার্যলয়ের পরিদর্শক রাসেল আলী জানান, গতকাল রোববার সকালে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভার ফয়লা হাসপাতাল এলাকায় মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে হাসপাতালপাড়া থেকে ১২০ গ্রাম গাজাসহ আতিয়ার রহমান (৩২) ও মতিয়ার রহমান (২৭) নামে দুইজন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা আপন দুই ভাই এবং ফয়লা হাসপাতালপাড়ার তাকের আলীর ছেলে। এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানায় দুইটি নিয়মিত মামলা করা হয়। এ অভিযানে অংশগ্রহন করা রেইডিং পাটির অন্যান্য সদস্য হলো- জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন কার্যালয় এর পরিদর্শক রাসেল আলী, এএসআই শেখ আববাস উদ্দিন আহমেদ,  এএসআই পাপিয়া সুলতানা, সিপাই জিএম শহীদুল ইসলাম, আজিজ খান, সাইদুল হক ও ঝিনাইদহ জেলা পুলিশ লাইন্সের তিন পুলিশ সদস্য।

কুষ্টিয়ায় রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ^বিদ্যালয়ে মতবিনিময় সভা

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ^বিদ্যালয়ে চা চক্র ও মতবিনিময় সভা বিশ^বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান আলী, রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ^বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর ভাইস চেয়ারম্যান এবং ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোঃ জহুরুল ইসলাম, বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর ট্রেজারার শেখ মোস্তাফিজুর রহমান, বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর অন্যান্য সদস্যবৃন্দ, বিশ^বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) ড. মোছা. ইসমত আরা খাতুন, রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ^বিদ্যালয়ের মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও বাংলা বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মোঃ শহীদুর রহমান, ইংরেজি বিভাগের প্রধান প্রফেসর মোঃ ইকবাল হোসেন, ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক রজত গোস্বামী, বাংলা বিভাগের প্রভাষক এস. এম. হাসিবুর রশিদ। চা চক্র ও মতবিনিময় সভায় আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ হাফিজুর রহমান মিয়া, কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ সফিকুর রহমান খান, গবেষক লালিম হক, ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. গৌতম কুমার দাস, রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী এবং জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ কুষ্টিয়া শাখার সাধারণ সম্পাদক অশোক সাহা, কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর নূর উদ্দিন আহমেদ, জাসদ কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য মোঃ শাহাবুব আলী, জাসদ কুষ্টিয়া শাখার প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক কারশেদ আলম, ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সাবেক প্রফেসর ড. আ.ন.ম. রেজাউল করিম,  প্রবীণ হিতৈষী সংঘ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সভাপতি অধ্যাপক আসাদুর রহমান, কুষ্টিয়া সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ প্রকৌ. মোঃ আফজাল হোসেন, এক্সিম ব্যাংক লি. কুষ্টিয়া শাখার ম্যানেজার লাল মোহাম্মদ, কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মোঃ শফিকুর রহমান, অভিভাবকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নূর-ই-ইসলাম চৌধুরী, মোঃ আব্দুর রব সরকার, মোহাঃ রবিউল ইসলাম, গড়াই মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ উত্তম কুমার ঘোষ প্রমুখ। অতিথিবৃন্দ বিশ^বিদ্যালয়ের সামগ্রিক উন্নয়ন বিষয়ে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন।

 

দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে ফেনসিডিল ও গাঁজা উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে ফেনসিডিল ও গাঁজা উদ্ধার হয়েছে। শনিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের সীমান্ত সংলগ্ন শকুনতলা এবং ভাঙ্গাপাড়া কবরস্থান এলাকা থেকে ২৭০ বোতল ফেনসিডিল ও ১২ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। তবে উদ্ধার করা মাদকের সাথে জড়িত কেউ আটক হয়নি। বিজিবি সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের মহিষকুন্ডি বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার নায়েক সুবেদার হাসেম-এর নেতৃত্বে বিজিবি’র টহল দল ওইদিন রাতে পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে ফেনসিডিল ও গাঁজা উদ্ধার করে।

বঙ্গবন্ধু পরিষদ দক্ষিণা মডেল টাউন শাখা কুষ্টিয়া সদর এর কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন

বঙ্গবন্ধু পরিষদ দক্ষিণা মডেল টাউন শাখা কুষ্টিয়া সদর এর কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়েছে। দক্ষিণা মডেল টাউন (হাউজিং ডি.ই.এফ-ব্লক) কুষ্টিয়া বসবাসরত বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনুসারীদের উপস্থিতিতে গত ৮ সেপ্টেম্বর শনিবার হাউজিং ডি ব্লকে ২০১ নং বাসায় বঙ্গবন্ধু পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ের এক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সাধারণ সভায় সকলের উপস্থিতিতে সর্বসম্মতিক্রমে আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল জলিলকে সভাপতি, আলহাজ্ব মোঃ কদম রসুলকে সাধারণ সম্পাদক ও শাকিল আহম্মেদ (শাহিন)কে সাংগঠনিক সম্পাদক মনোনীত করে ১০ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা মন্ডলী এবং ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি গঠণ করা হয়েছে। যা বঙ্গবন্ধু পরিষদ দক্ষিণা মডেল টাউন শাখা, কুষ্টিয়া সদর, কুষ্টিয়া নামে আত্মপ্রকাশ পেলো। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

দৌলতপুরে পথসভা ও লিফলেট বিতরণকালে ড. মোফাজ্জেল হক

প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে, যা প্রশংসিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মহলেও

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পথসভা ও লিফলেট বিতরণ করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য এবং বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ খুলনা বিভাগীয় শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. মোফাজ্জেল হক। গতকাল রবিবার দৌলতপুরে উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের কালিদাসপুর ও তালবাড়ি এলাকায় পথসভা ও সাধারণ জনগণের মাঝে “যে কারণে দরকার শেখ হাসিনার সরকার” শিরোনামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের বার্তা লিফলেট বিতরণ করেন ড. মোফাজ্জেল হক। পথসভা ও লিফলেট বিতরণকালে ড. মোফাজ্জেল হক বলেন, ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি দ্বিতীয় এবং ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে ১২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। এই সময়ে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীসহ বিভিন্ন খাতের উন্নয়ন দেশের ভেতর-বাইরে প্রশংশিত হয়েছে। বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ এখন শুধু উন্নয়নের রোল মডেলই নয়, একটি মানবিক রাষ্ট্র হিসেবেও প্রশংশিত। কথিত তলাবিহীন ঝুড়ির বাংলাদেশ আজ ১০ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেয়ার পাশাপাশি খাদ্য, বস্ত্র-চিকিৎসার দায়িত্ব নেয়। বিশ্লেষকরা মনে করেন, এ সবকিছুই সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ়চেতা ও সাহসী নেতৃত্বের কারণে। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য ড. মোফাজ্জেল হক আরো বলেন, সরকারের টানা নয় বছরে দেশের রাজনীতিসহ সবকিছুর নিয়ন্ত্রণ শেখ হাসিনার হাতে থাকলেও সে পথ মসৃণ ছিল না। জ্বালাও-পোড়াও, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতাসহ দেশি-বিদেশি নানা ষড়যন্ত্র, বাধা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে এগোতে হয়েছে। বর্তমান সরকারের সময়ে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ, তথ্যপ্রযুক্তি, ক্রীড়া, পরিবেশ, কৃষি, খাদ্য, টেলিযোগাযোগ, সংস্কৃতি, সামাজিক নিরাপত্তা, মানবসম্পদ উন্নয়ন এমন কোনো খাত নেই যে খাতে অগ্রগতি সাধিত হয়নি। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে গত কয়েক বছরে দেশে অবকাঠামো উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচন, পুষ্টি, মাতৃত্ব এবং শিশু স্বাস্থ্য, প্রাথমিক শিক্ষা, নারীর ক্ষমতায়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। যা দেশের গন্ডি পেরিয়ে প্রশংসিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মহলেও। এ সময় আড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তসলিম হোসেন, যুবলীগ নেতা নাসির উদ্দিন, ছাত্রলীগ নেতা সেলিম হোসেনসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

ওজোপাডিকো কুষ্টিয়া সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আরিফুর রহমানকে বিদ্যুত সেবায় দেশ সেরা শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার দিলেন অর্থমন্ত্রী

নিজ সংবাদ ॥ শেখ হাসিনার উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ এ স্লোগানকে ধারণ করে এবছর পালিত হলো বিদ্যুৎ ও জ¦ালানি সপ্তাহ ২০১৮। দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নানা আয়োজনে দিবসটি পালন ছাড়াও গত বৃহষ্পতিবার থেকে শনিবার পর্যন্ত ৩ দিনব্যাপী বর্ণিল এই আয়োজনের মূল কেন্দ্র ছিলো ঢাকাস্থ বসুন্ধরা সিটির আন্তর্জাতিক কনভেশন সেন্টার। সেখানে দেশব্যাপী গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুৎ সেবার মানদন্ডের ভিত্তিতে চুড়ান্ত মূল্যায়নে পশ্চিমাঞ্চল বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ ওজোপাডিকোলি: কুষ্টিয়া-১ দেশসেরা শ্রেষ্ঠত্বে গৌরব অর্জন করায় পুরষ্কার তুলে দেয়া হয় ওজোপাডিকোলি: কুষ্টিয়ার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) আরিফুর রহমানের হাতে। শনিবার সন্ধ্যায় তিনদিনের জমকালো অনুষ্ঠানের সমাপনীতে মাননীয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এই পুরস্কার তুলে দেন।

কুষ্টিয়া অঞ্চলের বিদ্যুৎ সেবার প্রেক্ষাপট তুলে ধরে পশ্চিমাঞ্চল বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানী লি: (ওজোপাডিকো)র কুষ্টিয়া সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) আরিফুর রহমান বলেন, সংশ্লিষ্ট সকল মহলের সর্বোচ্চ আন্তরিকতা ও সমন্বিত দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে গ্রাহক পর্যায়ে আস্থা নির্ভর ও গুনগতমান সম্পন্ন বিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সেবা নিশ্চিত করে দৃশ্যত: সফলতা অর্জন করার মাধ্যমে বিদ্যুৎ সপ্তাহ-২০১৮ তেও ৩য় বারের মতো দেশ সেরা শ্রেষ্ঠত্বের গৌরব অর্জিত হয়েছে। তিনি বলেন, সরকারের ঘোষণা ভিশন ২০/২১। এলক্ষ্যে বিশ^মানের প্রযুক্তি সমৃদ্ধ ডিজিটালাইজড বাংলাদেশের টেকসই উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে ত্বরান্বিত করতে এর বাস্তবায়নে মৌলিক উপাদান পাওয়ার বা বৈদ্যুতিক শক্তির সুলভ সরবরাহ। বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবনে সরকারও  বৈদ্যুতিক ব্যবস্থাকে অতীতের ভঙ্গুর ও নাজুক পরিস্থিতির উত্তোরনে গ্রহণ করেছে  বিশাল কর্মপরিকল্পনা। দেশের বর্তমান বিদ্যুৎ সেক্টরে দৃশ্যত: এক বৈপ্লবিক উন্নয়নের দ্বার উন্মোচিত হয়েছে। দেশব্যাপী এর সুবিধা ইতোমধ্যেই গ্রাহক ও ব্যবহারকারী শ্রেণী পর্যায়ে প্রত্যাশা পূরণে আশা জাগিয়েছে। তবুও এই সেক্টরে সর্বশেষ উৎপাদন, সরবরাহ ও বিতরণ ব্যবস্থা সঠিকভাবে চলমান থাকলে গ্রাহক ও ব্যবহারকারী পর্যায়ে বিদ্যুৎ দুর্ভোগে অসন্তোষ ও বিক্ষোভের মুখে পড়ে সরকারকে আর বিব্রত হওয়ার দিন শেষ।  তবে এখনও বিতরণ ব্যবস্থায় খুব ছোট খাটো অনিয়ম, অদক্ষতা, অব্যবস্থাপনা, অস্বচ্ছতা, জবাবহীনতা ও বিচ্যুতি যেগুলি আছে সেগুলি দুর করতে হাতে নেয়া হয়েছে মেগা প্রকল্প। যাতে করে বিদ্যমান পরিস্থিতিতেই বিতরণকারী প্রতিষ্ঠানসমুহ নবায়ণযোগ্য খাতকে উৎসাহিত করার মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহের ক্ষেত্রে তাদের সাশ্রয়ী বিদ্যুৎ দিয়ে আরও অধিক সংখ্যক গ্রাহক বিদ্যুৎ সুবিধা ভোগ করতে পারে। একইভাবে ওভার লোডজনিত কারণে পূর্বের ঘনঘন বা অস্বাভাবিক বিদ্যুৎ বিভ্রাট হ্রাস পেয়েছে যা গ্রাহকরাও স্বীকার করছেন। এছাড়া গ্রাহক পর্যায়ে আস্থা নির্ভর ও গুনগতমান সম্পন্ন বিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সুবিধার সৃষ্টি হয়েছে।

 

সভাপতি আনোয়ার ॥ সাধারণ সম্পাদক মোতালেব

বাংলাদেশ অটো রাইস মিল ওনার্স এসোসিয়েশন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা কমিটি গঠন

নিজ সংবাদ ॥ চালকল মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ অটো রাইস মিল ওনার্স এসোসিয়েশন কুষ্টিয়া জেলা কমিটি গঠনের পর এবার গঠিত হলো সদর উপজেলা কমিটি। শনিবার এসোসিয়েশনের নিজস্ব কার্যালয়ে  অটো ও হাসকিং মিল মালিকদের এক সভায় চালকল মালিকদের সর্বসম্মতিক্রমে এই কমিটি গঠিত হয়। ২৩ সদস্য বিশিষ্ট ওই কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন আব্দুল্লাহ এগ্রো ফুড প্রোডাক্টস’র স্বত্ত্বাধিকারী আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জনকল্যাণ রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মো: মোতালেব হোসেন। কমিটির অন্যান্যরা হলেন সিনিয়র সহ-সভাপতি কুষ্টিয়া অটো রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী আলহাজ¦ মো: সাহেব আলী, আলহামদুলিল্লাহ রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী আলহাজ¦ মো: হাফিজুর রহমান মাষ্টার, নূর এাগ্রো ফুড প্রোডা: এর স্বত্তাধিকারী আলহাজ¦ মো: আমিরুল ইসলাম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সুমন রাইচ মিলের স্বত্তাধিকারী আলহাজ আবু বক্কর সিদ্দিক, সাংগঠনিক সম্পাদক জনতা রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মো: জহিরুল ইসলাম মামুন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জোয়ার্দ্দার রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মো: ডলার জোয়ার্দ্দার, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক গুরুর দান এগ্রো ফুড প্রোডা:’র স্বত্ত্বাধিকারী মো: সুরুজ্জামান সুজন, সহ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার অটো রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী খ: সোহেল আহম্মেদ সবুজ, দপ্তর সম্পাদক প্রগতি অটো রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী আলহাজ¦ মো: হযরত আলী, প্রচার সম্পাদক এতিম রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী আ: রাজ্জাক, ধর্ম ও শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ইফাদ অটো রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মো: ইউনুস আলী, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক তানিয়া অটো রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মো: মকিম ফকির, সহ-শিল্প বিষয়ক সম্পাদক হালিম অটো রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মো: জহুরুল ইসলাম স্বপন। নির্বাহী সদস্য হলেন তারা অটো রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মো: তারা মিয়া, শ্যামল বাংলা রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী খন্দকার মিজানুর রহমান, এসএইচ রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মো: জনি আহম্মেদ, কাশেম রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী আলহাজ¦ আবুল কাশেম, বাবুর রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী আলহাজ¦ মো: বাবর আলী,মুক্তিযোদ্ধা রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী মিজানুর রহমান, মামুন রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী হাসান আল মামুন, পাঁচ ভাই রাইস মিলের স্বত্ত্বাধিকারী সেলিম জোয়ার্দ্দার। নবগঠিত কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মোতালেব হোসেন জানান চালকল মালিকদের এই সংগঠন সর্বদা চালকল মালিক শ্রমিকদের স্বার্থ রক্ষায় দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।

খালদোকে ইউনাইটডে হাসপাতালে নতিে বএিনপরি অনুরোধ

ঢাকা অফসি ॥ র্দুনীতি মামলায় কারাবন্দি বএিনপি চয়োরর্পাসন খালদো জয়িার চকিৎিসার জন্য দ্রুত তাকে ঢাকার ইউনাইটডে হাসপাতালে স্থানান্তররে ব্যবস্থা নতিে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ জানয়িছেে বএিনপ।ি গতকাল রোববার সচবিালয়ে গয়িে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালরে সঙ্গে বঠৈকরে পর বএিনপি মহাসচবি মর্জিা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদকিদরে এ কথা বলনে। তনিি বলনে, “আমরা তাকে (মন্ত্রী) অনুরোধ করছেি যে দশেনত্রেী বগেম খালদো জয়িাকে দ্রুত যনে বশিষোয়তি হাসপাতালে চকিৎিসা দওেয়া হয়। ইউনাইটডে হাসপাতাল- যটো তনিি পছন্দ করনে, সইে হাসপাতালে নওেয়ার জন্য আমরা তাকে অনুরোধ করছে।ি” স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বষিয়টি দখোর প্রতশ্রি“তি দয়িছেনে জানয়িে ফখরুল বলনে, “তনিি বলছেনে, যারা দায়ত্বিে আছনে মন্ত্রণালয়রে সচবি ও আইজি প্রজিনসসহ অন্যদরে সাথে আলাপ করে সদ্ধিান্ত নবেনে। তনিি এও বলছেনে য,ে বশিষেজ্ঞ চকিৎিসক যারা আছনে, তাদরে পরার্মশ নয়িে ব্যবস্থা নবেনে।” সক্ষেত্রেে কবে নাগাদ ব্যবস্থা নওেয়া হতে পার,ে সইে প্রতশ্রি“তি মলিছেে কি না জানতে চাইলে বএিনপি মহাসচবি বলনে, “সটো সুনর্দিষ্টিভাবে উনি কছিু বলনেন।ি বলছেনে য,ে আজকইে ওই সভাটা করবনে।” বকিাল ৩টা থকেে ৩টা ৫০ র্পযন্ত সচবিালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়রে চর্তুথ তলায় মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালরে কক্ষে এই বঠৈক চল।ে বঠৈকরে এক র্পযায়ে কারা মহাপরর্দিশক ব্রগিডেযির জনোরলে সয়ৈদ ইফতখোর উদ্দীনও মন্ত্রীর কক্ষে প্রবশে করনে। বএিনপরি স্থায়ী কমটিরি সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসনে, জমরিউদ্দনি সরকার, রফকিুল ইসলাম ময়িা, মর্জিা আব্বাস, আবদুল মঈন খান ও নজরুল ইসলাম খান এই সাক্ষাতে মর্জিা ফখরুলরে সঙ্গে ছলিনে। জয়িা এতমিখানা র্দুনীতি মামলায় পাঁচ বছররে কারাদন্ড প্রাপ্ত খালদো জয়িা গত ৮ ফব্রে“য়ারি থকেে ঢাকার পুরনো কন্দ্রেীয় কারাগারে বন্দ।ি

কুষ্টিয়া খোকসা কলেজ

কলেজ জাতীয়করন হওয়ায় এমপিকে খুশি করতে অধ্যক্ষের মহতি উদ্যোগ!

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার খোকসা কলেজটি সম্প্রতি জাতীয়করন করেছে সরকার। স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুর রউফের সুপারিশে কলেজটিকে জাতীয়করন করা হয়েছে। এদিকে কলেজটি জাতীয়করন হওয়ায় অধ্যক্ষ আনিস উজ জামান এমপিকে খুশি করতে সব শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিকট থেকে চাঁদা তুলে এমপিকে দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন। চাঁদা তোলার জন্য অধ্যক্ষ একটি কমিটিও করে দিয়েছেন। আগামী ১৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যে চাঁদার ১৩ লাখ টাকা তুলে এমপিকে দেয়া লাগবে বলে কয়েকজন শিক্ষক জানিয়েছেন।

জানা গেছে, খোকসা উপজেলার মধ্যে কয়েকটি কলেজ জাতীয়করনের তালিকায় ছিল। এর মধ্যে খোকসা কলেজ, অপরটি শোমসপুর ডিগ্রী কলেজ। খোকসা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক আনিস উজ জামান বিশেষ তদ্ববির করে শোমসপুরকে পিছনে ফেলে কলেজটি জাতীয়করণ করিয়ে নেন। চলতি বছরের ৮ আগষ্ট কলেজটি জাতীয়করন করা হয়। এ কলেজটির সভাপতি খোকসা উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আল মাসুম মোর্শেদ শান্ত’র ভাই আমিন মোর্শেদ। শান্ত এমপির ঘনিষ্টজন হিসেবে পরিচিত। আমিন মোর্শেদ ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কলেজের একাধিক শিক্ষক অভিযোগ করে বলেন, ‘এর আগে জাতীয়করনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরি ও ঢাকায় যাতায়াত খরচ বাবদ তাদের কাছ থেকে ৪ লাখ টাকা তোলা হয়। জাতীয়করনের পর এখন নতুন করে এমপিকে দেয়ার কথা বলে অধ্যক্ষ প্রত্যেক শিক্ষকের কাছে মাথাপিছু ১৩ হাজার, কর্মকর্তাদের কাছে ১২ হাজার ও চতুর্থ শ্রেণীর কাছে ১২ হাজার টাকা করে চাঁদা ধার্য করে দিয়েছে। চাঁদা উত্তোলনের জন্য ১৩ সদস্যের একটি কমিটিও করা হয়েছে। ওই কমিটির সদস্যদের কাছে এ অর্থ দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিষয়টি যাতে গোপনীয় থাকে সে জন্যও সবাইকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

জানা গেছে, খোকসা ডিগ্রী কলেজে ৭৯জন শিক্ষক আছেন। এর বাইরে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী আছেন ১৭জন। এদিকে চাঁদা আদায়ের জন্য অধ্যক্ষ আনিস উজ জামান একটি কমিটি করে দিয়েছেন। সেই কমিটিতে হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক রফিকুল ইসলামকে প্রধান করা হয়। এছাড়া এই কমিটিতে অর্থনীতি বিভাগের প্রধান আনিসুর রহমানসহ অন্যান্য বিভাগের ১২জন শিক্ষক আছেন। ইতিমধ্যে টাকার জন্য কমিটির পক্ষ থেকে সকলকে জানানো হয়েছে। দ্রুত টাকা দেয়ার জন্য তাদের ওপর চাপ দেয়া হচ্ছে, যাতে দু’একদিনের মধ্যে টাকা দেয়া হয়।

এ বিষয়ে কথা হলে কলেজের অধ্যক্ষ মো. আনিসুজ্জামান বলেন,‘  ২০১৬ সালে কলেজ জাতীয়করনের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সেই কমিটিই এখনো আছে। তবে সাংসদকে টাকা  দেওয়ার বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি দাবি করেন, এ বিষয়টি তার নলেজেই নেই।

তবে অর্থ তোলা কমিটির সভাপতি শিক্ষক রফিকুল ইসলাম বলেন,‘ আগে খাওয়া-দাওয়া ও অন্যান্য খরচের জন্য কিছু টাকা তোলা হয়েছিল। তবে এখন কোন টাকা তোলা হচ্ছে না বলে দাবি করেন তিনি।

কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনের সাংসদ আব্দুর রউফ বলেন, আমি জাতীয়করন করে দিয়েছি, টাকা নেয়ার প্রশ্নই উঠে না, প্রশ্নই উঠে না। কারা টাকা তুলছে আমি প্রয়োজনে বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখব।

ভিক্ষুকের মেয়েকে ধর্ষণ

দৌলতপুরে ধর্ষণের বিচার চেয়ে দারে দারে ঘুরছে ভিক্ষুক পরিবার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ভিক্ষুকের মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণকারী যুবক আরিফ হোসেন (২৪) এর বিচার চেয়ে দারে দারে ঘুরছে ধর্ষিতা ভিক্ষুক পরিবার। প্রভাবশালী ধর্ষণকারী যুবকের বিচার না করে উল্টো অর্থের বিনিময়ে ধর্ষকের পক্ষ নিয়ে ধর্ষিতার পরিবারকে প্রভাবশালী মানিক মেম্বর নামে স্থানীয় এক ইউপি সদস্য নানাভাবে ভয়ভীতি ও হয়রানি করছে বলে অভিয়োগ উঠেছে। ধর্ষিতা পরিবার ও এলাকাবাসি সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার রিফায়েতপুর ইউনিয়নের নওদাপাড়া গ্রামের ভিক্ষুক চান্দু ফকিরের মেয়ে জোনাকী আক্তারের (১৯) সাথে পার্শ্ববর্তী জোয়ার্দ্দারপাড়া গ্রামের বক্কর মন্ডলের ছেলে আরিফ হোসেনের প্রায় ২বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই এক পর্যায়ে একবছর পূর্বে পার্শ্ববর্তী লক্ষিখোলা গ্রমের সিরাজ আলীর ছেলে বাখের আলীর সাথে জোনাকি আক্তারের পারিবারিকভাবে  বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের দিনই প্রেমিক আরিফ নব বিবাহিত জোনাকি আক্তারের স্বামী বাখেরের বাড়িতে হামলা করে ঘরের দরজা ভাংচুর করে এবং জোনাকি আক্তারকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এমতাবস্থায় স্বামী বাখের আলী ওই রাতেই স্ত্রী জোনাকি আক্তারকে তালাক দিয়ে তার পিতা ভিক্ষুক চান্দু ফকিরের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। এঘটনার বিচার চেয়ে চান্দু ফকির আরিফের পিতা বক্কর মন্ডলকে জানালে বক্কর মন্ডল তার ছেলে আরিফকে নিয়ন্ত্রন করতে ব্যর্থ হয়। এ ঘটনার পর আরিফ হোসেন তার নিজ নামে একটি সিমসহ মোবাইল ফোন কিনে দেয় জোনানিকে। এরপর থেকে নিয়মিত তাদের দুই জনের সাথে মোবাইলে কথা হয়। এরই সূত্র ধরে গত ২৯ আগষ্ট রাত ১১টার দিকে আরিফ হোসেন ভিক্ষুক চান্দুর ফকিরের বাড়িতে গোপনে প্রবেশ করে তার মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। জোনাকী আক্তার বিয়ের প্রস্তাবে রাজি হলে তাকে নিয়ে আরিফ হোসেন বাড়ির পার্শ্ববতী একটি বাগানে যায় এবং তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় ধর্ষিতা চিৎকার ও কান্নাকাটি শুরু করলে ধর্ষক আরিফ হোসেন পালিয়ে যায়। পরে ধর্ষিতা বাড়ি ফিরে বিষয়টি তার পরিবারের লোকজনকে জানালে ভিক্ষুক চান্দু ধর্ষনের ঘটনা স্থানীয় ইউপি সদস্য মানিক মেম্বর ও গন্যমান্য ব্যক্তিদের জানায়। তবে তারা প্রভাবশালী আরিফ হোসেনের বিরুদ্ধে ধর্ষনের বিচার না করে বিষয়টি ধামা চাপা দিতে গড়িমসি করে ও আরিফের আতœীয় স্বজন জোনাকির সাথে তার বিয়ে দিবে বলে আশ্বাস দেয়। গত ১লা সেপ্টেম্বর রাত ৯টার দিকে এলাকার জদ্দারপাড়া মোড়ে এ ঘটনায় একটি গ্রাম্য শালিশ হয়। শালিশে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বরসহ উপস্থিত সকলে উভয়ের বক্তব্য শুনে ছেলে ও মেয়ের মধ্যে প্রেম ও ধর্ষনের ঘটনাটি প্রমানিত হলেও শালিশ বোর্ড বিচার না করে উল্টো জোনাকি আক্তারের ইজ্জতের মূল্য হিসাবে ধর্ষক আরিফকে জোনাকির পিতা চান্দু ফকিরের পা ধরে মাফ চাওয়ার নির্দেশ দেন। এসময় ধর্ষণের সঠিক বিচার না পেয়ে ধর্ষিতা জোনাকি আক্তার আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে জোনাকি ও তার পিতা বিচার না পেয়ে শালিশ বয়কট করে বাড়ি ফিরে যান। কোন উপায় খুঁজে না পেয়ে ধর্ষিতা জোনাকী আক্তার তার ধর্ষনের বিচার চেয়ে ধর্ষক আরিফ হোসেন ও তার পিতা বক্কর মন্ডলের নামে গত ২সেপ্টেম্বর রোববার দৌলতপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন যার নং-৮। এদিকে এ ঘটনায় দেশের বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় ও অনলাইন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে উল্টো ধর্ষনের ঘটনাটি মিথ্যা দাবি করে এ ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রভাহিত করার উদ্দেশ্যে স্থানীয় মানিক মেম্বরের নেতৃত্বে ধর্ষক আরিফের পিতা বক্কার মন্ডল ধর্ষণ মামলা তুলে নেওয়ার জন্য ধর্ষিতা পরিবারকে নানা ধরনের ভয়ভীতি ও হুমকি দিচ্ছে। এছাড়াও সে ধর্ষনের ঘটনা মিথ্যা দাবি করে কথিত সংবাদিক সম্মেলনও করেছে। এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য মানিক মেম্বর বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অর্থনৈতিক লেনদেনের কথা বলা হয়েছে, তার কোন ভিত্তি নেই। একজন জনপ্রতিনিধি হিসাবে আমি শালিশ বৈঠকে উপস্থিত ছিলাম, তবে মেয়েটার সাথে ছেলেটার নাকি বিয়ে হবে এমন কথা শুনেছি। এ ব্যাপারে রিফায়েতপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু বলেন, ঘটনাটি তিনি শুনেছেন ও  ঘটনার একশত ভাগ সত্যতা পেয়েছেন। ছেলে মেয়ে উভয়ের মধ্যে দীর্ঘ দিনের প্রেম ও শারিরিক সম্পর্ক ও  রয়েছে। এবিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ফিরোজ বলেন, আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের জোর তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। ধর্ষিতা তার বিচার পাক এবং ধর্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক এমন দাবি এলাকাবাসীর।

কুষ্টিয়া জেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভায় ডিসি আসলাম হোসেন

সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারী অপরাধীকে কোনভাবেই ছাড় দেয়া হবে না

আরিফ মেহমুদ ॥ কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন বলেছেন, মাদকদ্রব্য পরিবার, দেশ তথা রাষ্ট্রে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরী করছে। আগামীর নেতৃত্বদানকারী আজকের প্রজন্মকে মাদকের ছোয়া থেকে বাইরে রাখতে বেশি বেশি করে সচেতন হতে হবে। জেলাকে মাদকের ভয়াবহতা মুক্ত করতে নিজেদের দায়িত্ববোধ থেকেই মাদকের মুল উৎপাটন করতে হবে। কোন বহনকারীকে সাজা দেয়ার আগে তার তথ্য মতে মাদকের নাটের গুরু গডফাদারকে আইনের আওতায় আনা হবে। সে যে দলেরই হোক না কেন। জেলায় মাদকের ব্যবহার কমাতে মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরসহ আইনশংখলা বাহিনী নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে। তাদেরকে সার্বিক সহযোগিতা করতে এগিয়ে আসতে হবে। গতকাল রবিবার সকালে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে  জেলা আইন-শৃংখলা কমিটির মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, মাদক নির্মুলে যে মোবাইল কোর্টসহ অভিযান চলছে, তা আগের মতই চলবে। এক্ষেত্রে আইনের প্রয়োগ যেন যথার্থই হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে হবে। এতে কিছু মানুষ ক্ষুদ্ধ হলেও অভিযুক্তকে তাৎক্ষনিক সাজা প্রদান করায় দেশের অধিকাংশ মানুষই এই মোবাইল কোর্টকে গ্রহন করেছেন। তিনি ইউএনও এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের উদ্দ্যেশে বলেন, মনে রাখতে হবে অভিযান চলাকালীন সময়ে নানান পরিচয় দিয়ে তোমাকে যেন তার পক্ষে ব্যবহার করতে না পারে। তিনি বলেন, জনজীবনে দূর্ভোগ সৃষ্টি করে কোন বিশৃংখলা করতে দেয়া হবে না। দূর্ভোগ সৃষ্টিকারীদের কঠোরহস্তে দমন করা হবে। জননিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সকল অনিয়ম-দুর্নীতি ও চাঁদাবাজী রোধে প্রয়োজনে কঠোরতম ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। শুধু আইন-কানুন থাকলে হবে না। প্রত্যেকের নৈতিক শিক্ষাও থাকতে হবে। সৃষ্ট সামাজিক অবক্ষয় রোধে এবং এই জনপদের সাধারণ মানুষকে শান্তিতে ও নিরা দে রাখতে সবাইতে এগিয়ে আসতে হবে। জননিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইনশৃংখলা রক্ষা বাহিনীর পাশাপাশি আপনাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। আইনশৃংখলা রক্ষা বাহিনীর একার পক্ষে গোটা জেলাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করা সম্ভব নয়। কোনভাবেই জেলায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে দেয়া হবে না।

সভায় একজন সদস্যের “জেলায় মাদকদ্রব্যের ব্যবহার বেড়েছে এবং শহরের যত্রতত্র মাদকদ্রব্য পাওয়া যাচ্ছে” এমন বক্তব্যের জবাবে কুষ্টিয়ার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার একেএম জহুরুল ইসলাম বলেন, জেলাকে মাদকের ভয়াবহতা মুক্ত করতে নাটের গুরু গডফাদারকে আইনের আওতায় আনা হবে। মাদকদ্রব্য নির্মূলে প্রশাসন সজাগ রয়েছে। জনগণকে সচেতন হওয়ার পাশাপাশি মাদকদ্রব্য বিক্রি বন্ধসহ যে কোন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ডের তথ্য প্রশাসনের কাছে সরবরাহের অনুরোধ জানান তিনি। মাদক সেবী ও ব্যবসায়ীকে সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে।

সভায় গরীব অসহায় দুস্থ্য ২শ মানুষের সাহায্যার্থের চাল ঝাউদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কর্তৃক আত্মসাতের অভিযোগ উঠলে জেলা প্রশাসক বলেন, যেহেতু এটি একটি লিখিত অভিযোগ। বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর। সেহেতু খুব দ্রুত তদন্ত করে দোষী প্রমান হলে ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।  সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারী কোন অপরাধীকে কোনভাবেই ছাড় দেয়া হবে না।  তিনি বলেন, জেলাবাসীর জানমাল ও রাষ্ট্রীয় সম্পদ রক্ষায় সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করা হবে। জেলাবাসীর আন্তরিকতা ও অক্লান্ত প্রচেষ্টায় আগের যে কোন সময়ের চেয়ে জেলার আইনশৃংখলা পরিস্থিতি অনেকটাই ভাল আছে। জেলার আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে হলে সবার আগে আপনাকেই সঠিক দায়িত্ব পালন করতে হবে। বিগত মাসের প্রতিবেদন তুলে ধরে তাকে সার্বিক সহযোগিতা করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হাসান হাবীব। সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) তরফদার সোহেল রহমান, ডিডিএলজি মোস্তাক আহমেদ  কুষ্টিয়ার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার একেএম জহুরুল ইসলাম, মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সফিকুর রহমান খান, বিশিষ্ট লেখক কলামিষ্ট ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শেখ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ মিন্টু,  জেলা জাসদের সভাপতি গোলাম মহসিন, দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার, কুমারখালি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনুজ্জামান, ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল মারুফ, মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম জামাল আহমেদ, জেল সুপার জাকের হোসেন, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আবু হাসানুজ্জামান, এনএসআই’র যুগ্ম-পরিচালক আমিনুজ্জামান, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এ জেড এম শফিউল হান্নান, ওজোপাডিকোর নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান, বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক আব্দুল হান্নান, বিএফএ-সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ, ইসলামীয়া কলেজের অধ্যক্ষ নওয়াব আলী, পল্লী বিদ্যুতের জিএম হারুন-অর-রশিদ, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জাহেদুল হক, জেলা তথ্য কর্মকর্তা তৌহিদুজ্জামান, জেলা শিশু কর্মকর্তা মখলেছুর রহমান বাজার মনিটরিং অফিসার রবিউল ইসলাম প্রমুখ।

সভায় এছাড়াও নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগ বজায় রাখা, আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিয়মিত টহল অব্যাহত রাখা, পল্লী বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার চুরি প্রতিরোধ, ইভটিজিং, কুষ্টিয়া সরকারী কলেজে বহিরাগতদের উপদ্রব বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহন, যৌন হয়রানী এবং চলচ্চিত্রে অশ্লীলতা প্রতিরোধ, অবৈধ যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ, মানব পাচাররোধ, বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আদায়, ফরমালিন সনাক্তকরণে ফলের স্যাম্পল সংগ্রহকরণ ইত্যাদি বিষয়ে বিষদ আলোচনা করা হয়। জেলায় জুলাই মাসে ১৭৫টি এবং আগষ্ট মাসে মামলা কমে ১৪২টি পুলিশ প্রশাসনের কাছে মামলা দায়ের হয়েছে।

কুষ্টিয়ায় প্রশাসনের জব্দ করা অবৈধ ড্রেজার খুলে নিয়ে গেল মালিক

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় প্রশাসনের জব্দ করা অবৈধ ড্রেজার গোপনে খুলে নিয়ে গেছেন ড্রেজার মালিক। শনিবার রাতে রেণউইক বাধ এলাকায় গড়াই নদীর ভিতর থেকে ড্রেজার মেশিনটি নিয়ে যায় মালিকের লোকজন। গত ৫ সেপ্টেম্বর গড়াই নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে ওই ড্রেজার ও পাইপ জব্দ করেছিল সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাকিব-আল রাব্বি। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাকিব-আল রাব্বি জানান, বুধবার দুপুরে রেণউইকের ভেতর অভিযান চালিয়ে গড়াই নদী থেকে অবৈধ  ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে রেণউইক বিনোদন পার্ক ও রিসোর্টে গর্ত ভরাট করা অবস্থায় ড্রেজার ও পাইপ জব্দ করা হয়েছিল। বড় বড় লোহার পাইপ ভুমি অফিসে নিয়ে গেলেও ড্রেজারটি নদীর মধ্যে ছিল। নদীতে তীব্র স্রোত ও মালিককে না পাওয়ায় ড্রেজারটি নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি। ড্রেজারটি নদীর মধ্যে রেখে রেণউইকের নিরাপত্তা রক্ষীদের দেখে রাখতে বলা হয়েছিল। শুনছি কে বা করা ড্রেজারটি নদীর মধ্যে থেকে খুলে নিয়ে গেছে। স্থানীয়রা জানান, শনিবার গভীর রাতে মালিকের লোকজনই নদীর মধ্যে থেকে ড্রেজারটি খুলে নিয়ে যায়। রাতে ওই এলাকায় নিরাপত্তা রক্ষী থাকলেও তারা কোন বাধা দেয়নি। ১৫ দিন ধরে গড়াই নদী  থেকে অবৈধভাবে মিনি ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করে রেণউইক বিনোদন পার্ক ও রিসোর্টের গর্ত ভরাট করছিল সাত্তার মাস্টার নামে এক ব্যক্তি। এতে নদীর পাড়ে ভাঙন দেখা দেয়।

কুষ্টিয়ার নবাগত পুলিশ সুপার এসএম তানভীর

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার নবাগত পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করছেন এসএম তানভীর আরাফাত। তিনি ঢাকা মেন্ট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। একই সাথে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম মেহেদী হাসানকে বদলি করা হয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার হিসেবে। গতকাল  রবিবার স্বরামন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে এই রদবদলের আদেশ জারি করা হয়।  এরই মধ্যে নবাগত পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত তার ফেসবুক আইডিতে তাঁর পদায়নের বিষয়টি নিশ্চিত করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আইজিপিসহ সিনিয়র কর্মকর্তাদের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।