সানি লিয়নের পর টিভি শো ‘বিগবসে’ নতুন চমক

বিনোদন বাজার ॥ সানি লিয়নের পর বিগবসের নতুন আসরে আসছেন নতুন পর্নস্টার। বিগবসের বিশ্বস্ত এক সূত্র জানায়, এবারের আসরে থাকছেন পর্নস্টার ড্যানি ডি। সঙ্গে থাকবে তার গার্লফ্রেন্ড মাহিকা শর্মা। পারিশ্রমিক হিসেবেও তারা পাবেন চড়া মূল্য। পারিশ্রমিক শুনলে যেকারও চোখ কপালে উঠতে পারে। প্রতি সপ্তাহে তারা পাবেন ৯৫ লাখ টাকা। বিগবসের ১২তম আসর শিগগিরই শুরু হতে যাচ্ছে। এ নিয়ে ভক্তদের উন্মাদনার কমতি নেই। সম্প্রতি বিগবসের নতুন আসরের টিজার বের হয়েছে। এবারের ১২তম আসরে থাকছেন ১২ জন প্রতিযোগী। নতুন আসরে থাকার সম্ভাবনা আছে বলিউডের সুপারস্টার ও সাধারণ মানুষের। এছাড়াও থাকবেন স্ট্রিপার, যৌনকর্মী, শাশুড়ি-বৌমা জুটি, বিতর্কিত সাংবাদিক, তান্ত্রিক, মাদকাসক্তরা। বিগবসের মাধ্যমেই ভারতীয় শো-বিজ জগতে পা রেখেছিলেন সানি লিওন।

Ponteiros na criação de um site por e-commerece | Criar Site Profissional Totalmente Gratis

Eles referem que a indústria por web design é 1 negócio baseado em saber e eu não poderia dizer isso o suficiente para minha equipe. Claramente, um empreendimento baseado no conhecimento depende muito, se não inteiramente, do que o visitante sabe. Hoje, mais do que nunca, o conhecimento é poder e isso é em especial verdadeiro na indústria de web design. Então, que tipo por treinamento é necessário para uma empresa de negócios de web design?

Comece com o começo. Se você ultimou oferecer uma ampla gama de serviços de web design, você precisa por desenvolvedores e web designers. Os desenvolvedores da Web são os caras de que fazem a codificação. As coisas difíceis e tediosas, se você não gosta desse género de coisa. Muitos desenvolvedores da web participaram do cursos do treinamento em desenvolvimento na web, enquanto muitos outros aprenderam sobre design e codificação da web. Pessoalmente, acho estes desenvolvedores web autodidatas muito mais criativos e competentes. Digamos que a motivação esteja lá para começar. Então, para mandar seu empreendimento de web design, você precisa do alguns bons codificadores, mesmo que php, asp ou outra linguagem do programação baseada na web.

O visitante precisa por bons designers para criar site

como criar um site profissional

Você igualmente precisa por alguns bons web designers. As primeiras impressões contam e vendem produtos. Não importa quão bom e inteligente mesmo que o seu código, o visitante precisa por um bom design de web, a aparência correcta para atrair seus clientes e conseguir as vendas. É verdade que alguns web designers são ainda mais talentosos e talentosos que outros. Contudo reserve um tempo para revisar e compartilhar bons designs da Web com sua equipe. Que melhor maneira por melhorar suas habilidades de web design do que passar por quaisquer sites bem desenhados e aprender observando. Estude cada linha, cada forma e cor do design da web. Web design foi sobre pormenores. Treine seus rapazes para procurar pormenores em um web design. A espessura de uma borda, os ícones certos no lugar certo podem possibilitar fazer toda a diferença.

Pormenores importantes Treinamento do qualidade é especialmente outro elemento vital do programa de treinamento. Treine seus web designers para entender as expectativas de seus clientes de web design. Desenvolva um olho para detalhes. Os clientes ficam bastante nervosos quando o site deles estacionaestaficafixa jazepararpermanecequeda funcionando. Eles criarsitepro.com.br acreditam que no minuto em de que o web design é especialmente publicado on-line, o universo todo estacionaestaficafixa jazepararpermanecequeda examinando-o. Assim sendo, os clientes de web design são muito intolerantes a falhas de excelência em 1 design da web. Este treinamento foi vital. Deter uma lista de verificação de capacidade e treinar seu web designer para identificar os erros óbvios, como links quebrados, erro de ortografia, desalinhamento pelo design da web. Já que um web design esteja completo, o web designer deve atravessar pelo site com a lista de verificação e marcar cada item pelo site. Ainda que isso pareça óbvio e simples, você não pode vir a subestimar o treinamento.

A 100% esse treinamento leva tempo e, se sua produção de web design estiver ocupada e os prazos forem apertados, isso não será feito. No entanto, o treinamento foi vital para o seu negócio de web design. Eu recomendo definir uma data a cada mês quando o treinamento é feito. Você sabe qual é a data do cada mês para planejar sua produção de pacto. Reserve tempo para seus web designers se reunirem uma vez por mês e compartilharem seus conhecimentos e dicas de design na Web para a equipe. As técnicas de design da Web estão progredindo repetidamente e os web designers podem achar bibliotecas on-line inteiras cheias dos recursos mais recentes. Incentive sua equipe de web design a estiver on-line, aprender as últimas tendências de design da Web e fornecer uma configuração com uma data, hora e local para que 1 treinamento moderar seja acontecido.

গোবিন্দর হৃদয় নাড়া দিয়েছিলেন যেসব বলিউড অভিনেত্রী

বিনোদন বাজার ॥ ভারতীয় চলচ্চিত্রের অন্যতম অভিনেতা গোবিন্দ। নর্মদা আহুজা এবং যশবর্ধন নামের দুই সন্তানসহ স্ত্রী সুনিতার সঙ্গে সুখের সংসার করছেন এ তারকা। তবে জানেন কি স্ত্রী সুনিতাকে এঙ্গেজমেন্ট পড়িয়েও বিয়ে ভেঙ্গে দিতে চেয়েছিলেন তিনি! এছাড়াও অভিনয় ক্যারিয়ারে তিনি একাধারে নিলম, দিব্যা ভারতী, জুহি চাওলা ও শেষপর্যন্ত রানি মুখার্জির প্রেমে পড়েছিলেন। ৯০ দশকের অন্যতম জনপ্রিয় হিরো গোবিন্দ’র মুখেই জানা গেছে এসব তথ্য। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ, গোবিন্দা যখন উঠতি হিরো, সেই সময় তার সঙ্গে পরিচয় হয় সে সময়ের নবাগত নায়িকা নিলমের। নিলমকে প্রথম দেখেই প্রেমে পড়েন গোবিন্দ। এক সাক্ষাৎকারে গোবিন্দা জানান, সাদা শর্টস পরে, চুল ছেড়ে দেওয়া নিলমকে যখন দেখেছিলাম, তখন আর নিজেকে ধরে রাখতে পারিনি। কিন্তু একসঙ্গে ছবিতে অভিনয় করার সময়ও নিলমকে মনের কথা বলতে পারেন নি গোবিন্দ। ঠিক এসবের মাঝেই সুনিতার সঙ্গে গোবিন্দর বিয়ে ঠিক করেন তার মা। মায়ের চাপে বিয়েতে রাজি হলেও নিলমের প্রতি মন পড়ে থাকে তার। সাক্ষাৎকারে গোবিন্দা বলেন, বাগদানের পর নিলমের মত করে নিজেকে তৈরি করতে হবে বলে বারবার চাপ দিতেন তিনি সুনিতাকে। এ কথা শুনে রেগে যেতেন সুনিতা। তর্কে জড়িয়ে পড়তেন তারা। একসময় সুনিতার সঙ্গে এনগেজমেন্ট ভেঙে দেন গোবিন্দ।নিলমকে মন থেকে চেয়েও মায়ের চাপে সুনিতাকে বিয়ে করতে হয় বলে ওই সাক্ষাৎকারে জানান গোবিন্দ।শুধু তাই নয়, নিলমের পাশাপাশি জুহি চাওলা এবং দিব্যা ভারতীকেও পছন্দ করতেন তিনি। দিব্যাকে দ্বিতীয় স্ত্রী বানাবার স্বপ্নও দে শেষ দিকে এসে বাঙালি কন্যা রানি মুখার্জির সঙ্গেও সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন গোবিন্দা। গুঞ্জন ছিল ‘হাদ কার দি আপনে’ নামক শুটিংয়ের সময় রানির সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন গোবিন্দ।এ সময় রানির মন পেতে ফ্ল্যাট থেকে শুরু করে দামি উপহার এবং গাড়িও কিনে দেন তিনি রানিকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রানির সঙ্গেও ভেঙে যায় গোবিন্দার সম্পর্ক। এ বেলায়ও স্ত্রী সুনিতার চাপে পড়েই সে সম্পর্ক আর বেশিদূর গড়ায়নি।

তিন বছরে চামড়া রফতানি কমেছে অর্ধেকের বেশি

কৃষি প্রতিবেদক ॥ দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম রফতানিমুখী খাত চামড়া শিল্প। অথচ তিন বছরের ব্যবধানে চামড়া রফতানি কমেছে অর্ধেকের বেশি। আর গেল জানুয়ারি থেকে কমতে শুরু করেছে চামড়াজাত পণ্যের রফতানি। এর কারণ হিসেবে পরিবেশ বান্ধব উৎপাদন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে না পারাকেই দায়ী করছেন শিল্প মালিকরা। সেই সঙ্গে এই জটিলতা দূর করতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের হস্তক্ষেপ চান তারা। অর্থনীতিবিদরাও বলছেন, দ্রুত সমস্যার সমাধান না হলে বড় ধরনের সঙ্কটের মুখে পড়বে চামড়া শিল্প।
বড় বড় ড্রামে তীব্র এসিড-ক্ষারসহ বিপজ্জনক নানা রাসায়নিক মিশিয়ে প্রক্রিয়াজাত করা হচ্ছে কাঁচা চামড়া। যার অল্প পরিমাণ মেটাবে অভ্যন্তরীণ চাহিদা, বেশিরভাগই হবে রফতানি। যদিও পরিসংখ্যান বলছে, ভাল নেই দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এই রফতানি খাত। গেল অর্থবছরে এই শিল্পের মোট রফতানি কমেছে আগের বছরের চেয়ে ১২ শতাংশ; তিন বছরের ব্যবধানে প্রায় ১১৭ শতাংশ কমেছে প্রক্রিয়াজাত চামড়ার রফতানি। আর, গেল জানুয়ারি থেকে নেতিবাচক প্রবৃদ্ধির ফাঁদে আটকে গেছে চামড়াজাত পণ্যের রফতানিও। ট্যানারি মালিকরা বলছেন, দিন দিন পিছিয়ে পড়ার কারণ, উদ্যোগ নেয়ার পর দেড় দশকেও চামড়া শিল্পে পরিবেশের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারেনি শিল্প মন্ত্রণালয়। এর সঙ্গে ভাবনার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সাম্প্রতিক চীন-মার্কিন বাণিজ্য যুদ্ধ। এ্যাপেক্স ট্যানারির নির্বাহী পরিচালক এমএ মাজেদ বলেন, যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি ও ফ্রান্সসহ অনেক দেশ আমাদের থেকে চামড়া আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে। এর প্রধান কারণ হলো আমাদের সিটিপি এখনও চালু হয়নি। এমবি ট্যানারির পরিচালক মোহাম্মদ রিন্টু বলেন, চীন-যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্য যুদ্ধের কারণেও আমরা পিছিয়ে পড়ছি। অনেক সময় অর্ডার দিয়েও ট্যাক্সের দোহাই দিয়ে অর্ডার বাতিল করছে।
এ অবস্থায় সাভারে নতুন শিল্পনগরী, দ্রুত শতভাগ কার্যকর করার দাবি ট্যানারি মালিকদের সংগঠন- বিটিএর। বিটিএয়ের সভাপতি শাহীন আহমেদ বলেন, ‘রাস্তা-ঘাট ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন করা গেলে খুব দ্রুতই এ অবস্থার উত্তরণ সম্ভব।’ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে একমত অর্থনীতিবিদরা। চামড়া শিল্পের সুরক্ষায়, পোশাক শিল্পের মতো শ্রমিক-মালিক ও সরকার, এই তিন পক্ষকে সমন্বিত উদ্যোগ নেয়ার আহ্বান তাদের। অর্থনীতিবিদ তৌফিকুল ইসলাম খান বলেন, ‘এভাবে চলতে থাকলে আমাদের এই খাত মুখ থুবড়ে পড়বে। এই খাতকে গুরুত্ব দিতে হবে। এজন্য দরকার রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সদিচ্ছা।’ সেই সঙ্গে এই শিল্পে বিনিয়োগ বাড়াতে সাভারে বরাদ্দ পাওয়া প্লটের মালিকানা, ট্যানারি মালিকদের দ্রুত বুঝিয়ে দেয়ার পরামর্শ তাদের।

মুস্তাফিজ স্পেশাল প্রতিভা, ওর স্কিল স্পেশাল – ওয়ালশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বিস্ময় জাগানিয়া আবির্ভাবে চমকে দিয়েছিলেন ক্রিকেট বিশ্বকে। পরে তাকে বারবার থমকে দিয়েছে চোট। তবে ফিট ম্স্তুাফিজ দলের কত বড় সম্পদ, সেটি আবারও মনে করিয়ে দিয়েছেন কোর্টনি ওয়ালশ। আসছে এশিয়া কাপে এই বাঁহাতি পেসারের কাছে ভালো কিছু আশা করছেন বাংলাদেশের বোলিং কোচ। ২০১৬ সালে কাঁধের অস্ত্রোপচারের পর আগের সেই ভয়ঙ্কর চেহারায় আর দেখা যায়নি মুস্তাফিজকে। এর পরও অবশ্য উইকেট নিয়েছেন, দলের জয়ে বড় অবদান রেখেছেন বেশ কবারই। তবে আগের চেহারায় ফিরে যেতে পারেননি এখনও। বারবার বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে চোট। মুস্তাফিজ অবশ্য লড়াই করে চলেছেন। সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়েছিলেন চোট থেকে ফিরে। সেই সফরে তিন ওয়ানডেতে নিয়েছিলেন পাঁচ উইকেট, তিন টি-টোয়েন্টিতে আটটি। এশিয়া কাপের আগে কেমন অবস্থায় আছেন মুস্তাফিজ? গতকাল শনিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ওয়ালশ শোনালেন আশার কথা। “ও ভালোভাবেই এগোচ্ছে। অবশ্যই যে জায়গাটায় থাকা উচিত, এখনও সেখানে যেতে পারেনি। আমার মনে হয়, এই সফরটি মুস্তাফিজের জন্য খুব ভালো হতে পারে। ওয়েস্ট ইন্ডিজে সে ভালো করেছে। ইনজুরিগুলো যদি দূরে থাকে, সে কেবল আরও ভালোই হবে। কারণ সে স্পেশাল প্রতিভা, তার স্কিলও স্পেশাল।” “ফিট মুস্তাফিজকে পাওয়া মানে বোলিং আক্রমণে বাড়তি ধার। সে জানে তাকে কি করতে হবে।” মুস্তাফিজের বোলিংয়ের চাপ কমানো, ইনজুরি প্রবণতার কারণে তাকে ভালোভাবে সামলানো নিয়ে আলোচনা হয়েছে বিস্তর। তবে মুস্তাফিজ নিজেকে ফিট রাখতে পারলেই আর কোনো সমস্যা দেখছেন না ওয়ালশ। “ওয়ার্কলোড সামলানো নিয়ে খুব ভাবনার কিছু নই। ভালোই বোলিং করছে সে। আমি চাইব ওর সঙ্গে স্কিল বাড়ানো নিয়ে আরেকটু কাজ করতে। ইনজুরির কারণে সেই কাজ করার সুযোগ পুরোপুরি পাইনি। আশা করছি, এশিয়া কাপের সময়টায় কিছু কাজ করতে পারব। ওয়ার্কলোডের কথা বললে, সে এমন একজন যে জানে তাকে কি করতে হবে। গ্রেফ সে ফিট থাকলেই হয়।” “আমার কাছে ওয়ার্কলোড বলতে এখন প্রয়োজন, এশিয়া কাপের শুরুটায় তার ম্যাচ ফিটনেস ধরে রাখা। কারণ খানিকটা ফ্লুতে আক্রান্ত হয়েছিল সে। ওয়ার্কলোড নিয়ে সে যদি স্বচ্ছন্দ থাকে, তাহলে আমিও খুশি। দুবাইয়ে যাওয়ার পর প্রথম দুই দিনই হবে চ্যালেঞ্জিং, বোঝা যাবে সে কতটা স্বচ্ছন্দ।” এশিয়া কাপ খেলতে বাংলাদেশ দল দুবাই যাবে রোববার।

 

আলমডাঙ্গা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের উদ্যোগে গ্রীষ্মকালীন খেলাধূলা, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণ

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের উদ্যোগে গ্রীষ্মকালীন খেলাধূলা ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার বেলা ১২ টার দিকে আলমডাঙ্গা পাইলট মাধ্যমিক মাঠে পুরষ্কার বিতরণী সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নান। অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীম আরা, সমাজসেবা অফিসার আফাজ উদ্দিন, সরকারী উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল ইসলাম খান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আব্দুল বারি। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহকারী শিক্ষা অফিসার হুমায়ুন কবীর, প্রধান শিক্ষক আতিয়ার রহমান, নুরুল ইসলাম, আব্দুল হান্নান ও আলমডাঙ্গা আলিম সিদ্দিকীয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম। অনুষ্ঠান শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নান।

আলমডাঙ্গায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের চতুর্থ দিনে দুটি খেলা অনুষ্ঠিত

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুর্ধ্ব-১৭, জাতীয় গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের ৫ম দিনে দুটি খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বেলা ২টায় আলমডাঙ্গা ফুটবল মাঠে খাসকররা ইউনিয়ন, চিৎলা ইউনিয়নকে ২-০ গোলে ও কুমারী ইউনিয়ন, ডাউকী ইউনিয়নকে ১-০ গোলে পরাজিত করে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ কাজী খালেদুর রহমান অরুন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডাউকী ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আহসান উল্লাহ, প্রেসক্লাব সভাপতি খন্দকার শাহ্ আলম মন্টু, সাধারণ সম্পাদক খন্দ. হামিদুল ইসলাম আজম। ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ নুর মোহাম্মদ জকুর সার্বিক পরিচালনায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক টুটুল খন্দকার, কুমারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, ইউপি সদস্য দাউদ আলী, নজরুল ইসলাম, তকবুল হোসেন, আব্দুর রশীদ, ডাবলু, তহমিনা খাতুন। রেফারির দায়িত্বে ছিলেন আব্দুস আবুল হাসান, মুনছুর আলী, রফিকুল ইসলাম, খোকন, শরিফুজ্জামান, মহসীন কামাল ও মোহাম্মদ আলী সিদ্দিক। ফলাফল সংরক্ষণে অফিস সহকারী নাজমূল সাইহাম ও মিজানুর রহমান।

কালুখালীতে উপজেলা পর্যায়ে ৪৭তম গ্রীষ্মকালীন ফুটবল প্রতিযোগীতার ফাইনাল খেলায় ০-১ গোলে সূর্য্যদিয়া চ্যাম্পিয়ন

ফজলুল হক ॥ গতকাল শনিবার রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালীতে উপজেলা পর্যায়ে ৪৭তম জাতীয় স্কুল, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা ক্রীড়া সমিতির গ্রীষ্মকালীন ২০১৮ ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া সমিতি কালুখালীর আয়োজনে বিকেল ৩টায় রতনদিয়া রজনীকান্ত মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে সূর্য্যদিয়া মদাপুর উচ্চ বিদ্যালয় বনাম কালুখালী দাখিল মাদরাসার মধ্যকার ফাইনাল খেলায় ১-০ গোলে দাখিল মাদরাসা কে পরাজিত করে সূর্য্যদিয়া মদাপুর উচ্চ বিদ্যালয় চ্যম্পিয়নশীপ অর্জন করে। খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোফায়েল আহমেদ এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কালুখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী সাইফুল ইসলাম। তিনি তার বক্তব্যে পড়ালেখার পাশে খেলাধুলোকে পড়ার একটি অংশ হিসেবে উপস্থিত শিক্ষার্থীদেরকে রপ্ত করার কথা বলেন। খেলাধুলার মাধ্যমে মনকে সতেজ রাখা যায় এবং মাদক ও সন্ত্রাস থেকে নিজেকে নিরাপদে রাখা যায় সে কারণে খেলাধুলার প্রতি ছাত্রদের মনোনিবেশ হওয়ার কথা বলেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাডঃ সিদ্দিকুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী শারমিন আক্তার অন্যান্যের মধ্যে সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জয়ন্ত কুমার দাস প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও রতনদিয়া রজনীকান্ত সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আয়ুব আলী, মদাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম মৃধা, সূর্যদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঃ জলিল, এসআই মোঃ শহিদুল ইসলাম, কালুখালী দাখিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত সুপার আবু নূর মোঃ ইমারত আলী খান, ক্রীড়া সমিতির সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম, রতনদিয়া ইউপি আওয়ামীলীগের সভাপতি খোন্দকার আনিছুল হক বাবু, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম শাহ আজিজ, খেলা পরিচালনাকারী রেফারি মোঃ মোখলেছুর রহমান, ধারা বিবরণী মঞ্জুরুল ইসলাম জিন্না ও কাজী এজাজ সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। খেলা শেষে অতিথিবৃন্দ সূর্য্যদিয়া মদাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের টিম লিডার ও প্রধান শিক্ষকের হাতে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি এবং রানার্সআপ কালুখালী দাখিল মাদরাসার টিম লিডারের হাতে রানার্সআপ ট্রফি তুলে দেন। এছাড়াও কাবাডি প্রতিযোগীতায় বিজয়ী মৌকুড়ি উচ্চ বিদ্যালয় এবং হ্যান্ডবল প্রতিযোগীতায় কালুখালী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের টিম লিডারদের পুরস্কৃত করাসহ অতিথিদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

ঝিনাইদহে ট্রাফিক পুলিশের অবৈধ যান বিরোধী অভিযান

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ জেলা ট্রাফিক পুলিশের উদ্যোগে মহাসড়কে অবৈধ থ্রী হুইলার নসিমন, করিমন, ইজিবাইক চলাচল বন্ধসহ সকল প্রকার যানবাহনের কাগজপত্র চেকিং অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। শনিবার সকাল ৯ টা থেকে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এতে ইজিবাইক, নছিমনসহ কয়েকটি অবৈধ গাড়ি আটক করা হয়। তাছাড়া কয়েকটি যানবাহনে মামলা করা হয়। সে সময় উপস্থিত ছিলেন, ঝিনাইদহ জেলা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর কৃষ্ণপদ সরকার, খন্দকার কামাল উদ্দিন, মাজহারুল ইসলাম, সার্জেন্ট বুলবুল হোসেন, নুরুল ইসলাম, নাজমুল শিকদার, টিএসআই আমির হোসেন, এটিএসআই, কনষ্টেবলবৃন্দসহ রোভার স্কাউট, মটর শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিনিধিবৃন্দ। সেসময় জেলা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর কৃষ্ণপদ সরকার বলেন, পুলিশ সুপার  মিজানুর রহমানের নির্দেশে সারা দেশের ন্যায় প্রতি শনিবার ট্রাফিক ক্যাম্পেইন এর অংশ হিসেবে মহাসড়কে অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ করাসহ সকল প্রকার যানবাহনের ফিটনেস ও অন্যান্য কাগজপত্র চেকিং করা হয়।

গাংনীতে আর্ন্তজাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ সারা বিশ্বের ন্যায় মেহেরপুরের গাংনীতে আর্ন্তজাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত হয়েছে। দিবস উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দিবসটি উপলক্ষে গাংনী উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি উপজেলা শহরের প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে নেতৃত্ব প্রদান করেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার শামসুজ্জোহা। এ সময় উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহণ করেন। অন্যদিকে দাতা সংস্থা ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও বেসরকারী সংস্থা ‘কারিতাস’আলোঘর, খুলনা অঞ্চল (লাইট হাউজ) প্রকল্পের আয়োজনে চৌগাছা খ্রীষ্টানপাড়া শিশু শিক্ষা কেন্দ্রে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করা হয়। শনিবার সকালে বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী সিরাজুল ইসলাম স্যারের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি চৌগাছা গ্রামের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে শিক্ষাকেন্দ্রের শিক্ষিকা-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশ গ্রহণ করেন। পরে শিক্ষাকেন্দ্র চত্বরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ক্যাথলিক চার্চের বিশপ ও চৌগাছা শিশু শিক্ষাকেন্দ্রের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আব্রাহাম মন্ডলের প্রতিনিধি আব্দুল আলিম মাষ্টার। সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কিন্ডার গার্টেন এসোসিয়েশনের মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি এবং গাংনী ফুলকুঁড়ি কিন্ডার গার্টেন এন্ড হাই স্কুলের অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন গাংনী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ইত্তেফাক সংবাদদাতা আমিরুল ইসলাম অল্ডাম, কারিতাস দামুড়হুদার এডুকেশন সুপারভাইজার মিল্টন মন্ডল, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ সাবেক যুবলীগ নেতা আব্দুস সালাম প্রমুখ। এসময় বক্তব্য রাখেন, গাংনী পাইলট স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক মতিয়ার রহমান, সাংবাদিক সাহাজুল ইসলাম সাজু, চৌগাছা গ্রাম আ.লীগের সভাপতি আব্দুল খালেক, সহ- সভাপতি আনারুল ইসলাম, স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মনা রোজারিও, পল গ্রেগরী, বুলু পেরেরা, তেমতি কোড়াইয়া, শিক্ষা কেন্দ্রের প্রধান শিক্ষিকা কনিকা পারভীন ও সহকারী শিক্ষিকা রতœা কোড়াইয়া প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিরাজুল ইসলাম বলেন, এ বছরের মূলসুর বা প্রতিপাদ্য বিষয়, ‘সাক্ষরতা অর্জন করি, দক্ষ হয়ে জীবন গড়ি’। আমরা সবাই সাক্ষর জ্ঞান সম্পন্ন মানুষ হয়ে উঠি। সন্তানকে সাহসী করে গড়ে তুলতে হলে মাকে সাহসী হতে হবে। এলাকার পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী, হতদরিদ্র-অস্বচ্ছল , ঝরেপড়া, প্রতিবন্ধী ছেলে মেয়েদের শিক্ষার আলো জ্বালাতে কারিতাস শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নে প্রতিষ্ঠানটি কাজ করে যাচ্ছে এটি খুশির বিষয়। তিনি আরও প্রশংসা করে বলেন, গাংনীর অনেক নামী-দামী স্কুলে শিক্ষার্থীরা ফেল করেছে। অথচ এই শিশু শিক্ষা কেন্দ্র থেকে ১৬ জন পিইসি পরীক্ষাই সবাই পাশ করেছে এটা গর্বের ব্যাপার। তিনি শিক্ষকদেরও শিক্ষার্থীদের শিক্ষার মানোন্নয়ন ও শৃংখলা বজায় রাখতে ভূঁয়শী প্রশংসা করেন। এছাড়াও উপজেলার হাড়িয়াদহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাহেবনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কাজীপুর ইউনিয়ন সিবিও দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করে।

আ’লীগ নার্ভাস হয়ে আবোলতাবোল বলছে – মঈন খান

ঢাকা অফিস ॥ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেছেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নার্ভাস হয়ে গেছে। তাই তারা আবোলতাবোল বলছে। গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে যুব জাগপার কেন্দ্রীয় সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। মঈন খান বলেন, এই সরকার যদি তাদের ভেতরে এই আতঙ্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চায়- তাহলে তার একমাত্র উপায় হলো একটি সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন দেয়া, যার মাধ্যমে জনগণ যাকে চায় সেই ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটাবে। তিনি বলেন, এ দেশের রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান আওয়ামী লীগ করতে পারবে না। এ দেশের রাজনৈতিক সমস্যা দূর করতে হলে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। মঈন খান আরও বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে তার সঙ্গে আলোচনায় বসতে হবে। মৌলিক অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে এবং একটি সুষ্ঠু, সুন্দর এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিতে হবে। এছাড়া এ দেশে রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান করা সম্ভব না। আওয়ামী লীগের এত ভয় কীসের প্রশ্ন তুলে বিএনপির এ নেতা বলেন, তারা উন্নয়নের জোয়ারে দেশকে ভাসিয়ে দিয়েছে। বাংলাদেশের মানুষ যদি তাদের ভোট দেয় তাহলে তারা পাবেই। ভোটের মাধ্যমেই তারা পুনরায় সরকার গঠন করবে। তাহলে এত ভয় পাচ্ছে কেন তারা? এখানে কঠিন সত্য হচ্ছে আওয়ামী লীগ নিজেও জেনে গেছে এ দেশের মানুষ ইতিমধ্যে তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। এ দেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে বলেই তারা আজকে ভীত, সন্ত্রস্ত ও আতঙ্কিত-যোগ করেন মঈন খান। সম্মেলনের আহ্বায়ক আরিফুল হক তুহিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, জাগপার ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান, খন্দকার লুৎফর রহমান প্রমুখ।

রাজনৈতিক দালাল ও বিতর্কিত সুশীলদের ততপরতা বাড়ছে – কর্নেল অলি

ঢাকা অফিস ॥ লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বলেছেন, ‘জনভিত্তিহীন আসনবঞ্চিত নেতা, রাজনৈতিক দালাল ও বিতর্কিত সুশীলদের তৎপরতা বাড়ছে। এর থেকে উত্তরণে প্রয়োজন সবার অংশগ্রহণে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে বিজয়ীদের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর।’ তিনি বলেন, ‘দেশকে বিশৃঙ্খলার হাত থেকে বাঁচাতে প্রয়োজন অবাধ, সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও সবার অংশগ্রহণে নির্বাচন। মানুষের মধ্যে শান্তি ও স্বস্তি ফিরিয়ে আনতে প্রভাবমুক্ত নির্বাচনের বিকল্প নেই।’ শনিবার এলডিপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীর এলডিপিতে যোগদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কর্নেল অলি এসব কথা বলেন। এলডিপির সভাপতি বলেন, ‘আজ আমরা একটা কঠিন সময় পার করছি। সবার মনে একটি প্রশ্ন নির্বাচনকে ঘিরে দেশে কী হতে যাচ্ছে। দেশের কি শান্তি ফিরে আসবে? মানুষ কি শান্তিতে ও নির্বিঘেœ বসবাস করতে পারবে? উন্নয়নমূলক কর্মকা- কি অব্যাহত থাকবে? সুশাসন ও ন্যায়বিচার কি প্রতিষ্ঠিত হবে? জনগণ কি ভোট দিতে পারবে?’ তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, সরকারি দল ও বিরোধীদলগুলোর আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে জনগণকে আশার আলো দেখাতে পারে।’ বিএনপিকেও অধিকতর কৌশলী এবং বাস্তববাদী হতে হবে জানিয়ে কর্নেল অলি বলেন, জনবিচ্ছিন্ন ব্যক্তিদের নিয়ে আগালে কোনো ফলাফল আসবে না। বিএনপি একটি শক্তিশালী দল। বিএনপিকে পুনর্গঠন করে এ দেশে যে কোনো কাজ করা সম্ভব। সেই বিশ্বাস নিয়ে নেতাদেরকে মাঠে নামতে হবে। সঠিক নেতৃত্ব পেলে বিএনপির পক্ষে যে কোনো কিছু করা সম্ভব। জ্বালাও-পোড়াও দিয়ে দেশের মঙ্গল হবে না।

ফকিরাবাদ গ্রামে মদিনাতুল উলুম মাদরাসার ভিত্তির শুভ উদ্বোধন

মিলন আলী ॥ কুষ্টিয়ার সদর উপজেলার পাটিকাবাড়ী ইউনিয়নের ফকিরাবাদ গ্রামে মদিনাতুল উলুম মাদরাসা ভিত্তি প্রস্তরের কাজ উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব সেলিনুর রহমান। পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি, সমাজসেবক সাইদুর রহমান বিশ্বাসের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ্ব সেলিনুর রহমান বলেন, প্রায় একশত বছর যাবৎ আমাদের গ্রামে মানুষ ধর্মীয় ভাব গাম্ভীয্যের মাধ্যমে নামাজ, রোজা,এবাদৎ বন্দেগী মিলে মিশে করে আসছে। কোন এক আল¬াহুর প্রিয় বান্দার দোয়ার বরকতে মহান সৃষ্টিকর্তা অশেষ কৃপায় গ্রামবাসির সার্বিক আর্থিক সহায়তায় নবীর ঘর মাদরাসা নির্মাণ কাজের শুভ ভিত্তি প্রস্তুর কাজ উদ্বোধন করছি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা তাবলীগ জামাতের মুরব্বী হাজী রফিকুল ইসলাম, আলহাজ্ব ডা: আহমেদ জামাল, কামরুজ্জামান ফড়িং, পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি লিটন খাঁন, ইউপি সদস্য ইরাদ আলী, আনোয়ার হোসেন, সাবেক মেম্বর আ’লীগ নেতা আবু বক্কর, পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাহফুজুল হক উজ্জ্বল। আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক মেম্বর মোবারক হোসেন, যুবলীগ নেতা ইয়াসির আরাফাত, লিটন আলী, গ্রাম প্রধান বাবল বিশ্বাস।

কালুখালীতে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবসে আলোচনা সভা

ফজলুল হক ॥ সাক্ষরতা অর্জন করি, দক্ষ হয়ে জীবন গড়ি- প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে রাজবাড়ীর কালুখালীতআন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস ২০১৮ উদযাপন উপলক্ষ্যে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে  সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে বিশাল একটি র‌্যালী বের হয়ে র‌্যালিটি আশপাশের রাস্তা প্রদক্ষিণ করে উপজেলা চত্ত্বরে এসে সমাপ্ত করে। র‌্যালী পরবর্তী উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোফায়েল আহমেদের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে তিনি তার বক্তব্যে বলেন নিরক্ষরতা দূর করতে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রম সুন্দরভাবে চালিয়ে নেওয়ার কথা উল্লেখ করে নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্তি পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।  উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো কালুখালী প্রোগ্রাম অফিসার মোঃ গোলাম মহিউদ্দিন। তিনি বলেন স্বাধীনতার পর সাক্ষরতার হার ২০% ছিলো। যা বর্তমানে ৭২.০৯ % এ দাড়িয়েছে উল্লেখ করে বলেন ২০২০ সালের মধ্যে শিক্ষা ব্যবস্থাকে উন্নয়ন করতে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো সারা দেশে ৫০২৫ টি কমিউনিটি লার্নিং সেন্টার স্থাপন করবে। অন্যান্যের মধ্যে প্রোগ্রাম অফিসার পল্লী মুক্তি সংস্থা মোঃ ইয়াসিন মোল্লা ও সুপারভাইজার মাসুদ হাসান প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। এসময় উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রমের সুপারভাইজার ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আলমডাঙ্গা সরকারী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে মানববন্ধন

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা সরকারী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম সরোয়ার মিঠুকে কতিপয় ছাত্র কর্তৃক লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে মানব বন্ধন, স্মারকলীপি প্রদান ও হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। আলমডাঙ্গা সরকারী কলেজের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জানিয়েছে, গতকাল শনিবার সকাল সোয়া ১০টায় কতিপয় ছাত্র রকি, হাসান, অটল, সজিব, ও টিটন অধ্যক্ষের অফিসে প্রবেশ করে। উপবৃত্তির টাকা ও ফরম পূরণের ব্যাপারে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তারা ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম সরোয়ার মিঠুকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। এ ঘটনায় ফুঁসে ওঠে শিক্ষক ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তারা এই লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে প্রথমে কলেজ প্রাঙ্গণে, পরে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসের সামনে মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করে। এ সময় বক্তব্য রাখেন প্রভাষক তাপস রশীদ, সহকারী অধ্যাপক আব্দুল মোনায়েম, আলম হোসেন, সৈয়দ আল মামুন রেজা, মহিদুর রহমান, জেসমিন আরা, ডঃ মাহাবুবুর রহমান, প্রভাষক লুৎফুন নাহার, মাকছুদুর রহমান, সাইদুর রহমান লিটন, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। শেষে হামলাকারী ৫জন শিক্ষার্থীকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নানের নিকট স্মারকলীপি প্রদান করা হয়। এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের উপর যার এই নগ্ন হামলা করে লাঞ্ছিত করেছে তারা যে দলেরই হোক তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। স্মারকলীপি প্রদান শেষে শিক্ষকবৃন্দ থানায় আসেন এবং কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম সরোয়ার মিঠু বাদী হয়ে ৫জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে। অধ্যক্ষ আরো জানান বিষয়টি জাতীয় সংসদের হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপির সাথে আলাপ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, দোষী যেই হোক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। থানা থেকে ফিরে কলেজে শিক্ষক সমিতির এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কলেজের বর্তমান ছাত্র রকি ও টিটনকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। এ সময় নেতৃবৃন্দ আরো বলেন রকি, হাসান, অটল ও টিনকে অবিলম্বে  গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক। সভায় এ ঘটনায় জড়িত ২জন ছাত্রকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের জন্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে চূড়ান্তভাবে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে বলে জানান শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম।

 

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় কুমারখালির বীর মুক্তিযোদ্ধা রামরঞ্জন নাথের শেষকৃত্য সম্পন্ন

কুমারখালি অফিস ॥ না ফেরার দেশে চলে গেলেন কুষ্টিয়ার কুমারখালির বীর মুক্তিযোদ্ধা রাম রঞ্জন নাথ (৬২)। গত ১লা সেপ্টেম্বর ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার করিমপুর থানার বাগচী জামশেদপুর গ্রামে বোনের বাসায় হৃদযন্ত্রক্রীয়া বন্ধ হয়ে তিনি শেষ নিশ^াস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে বৃদ্ধমাতা, স্ত্রী, একপুত্র, ভাই-বোনসহ অসংখ্য আতœীয় স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।  গতকাল শনিবার সকালে তাঁর নিজ বাসভবন কুমারখালির আগ্রাকুন্ডা গ্রামে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এসময় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। পরে কুমারখালি শ্মশানের শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হয়।

গাংনীতে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মাঝে পবিত্র কোরআন শরিফ বিতরণ

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের রামদেবপুর দাওয়াতি-সূন্নাহ-নূরানী-হাফেজিয়া-লিল্লাহ-বোডিং ও এতিমখানার শিক্ষার্থীদের মাঝে পবিত্র কোরআন শরিফ বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুরে মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে আনুষ্ঠানিকভাবে ১০টি পবিত্র কোরআন শরিফ বিতরণ করে স্থানীয় যুব সম্প্রদায় পরিচালিত  একটি ফেসবুকগ্র“প। যুব সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে আর এফ রিপন মাদ্রাসা সুপার হাফেজ মাওলানা ইসরাফিল হোসেনের হাতে পবিত্র কোরআন শরিফ তুলে দেন। পরে এ সম্প্রদায় মাদ্রাসার ৭০জন শিক্ষার্থীদের মাঝে দুপুরের  খাবারের ব্যবস্থা করে।

সৃজনীর বাংলাদেশ নির্বাহী পরিচালক ও তার ছেলেসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ অপহরণ করে ১৩ দিন আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগে ঝিনাইদহের সৃজনী এনজিওর নির্বাহী পরিচালক ড. হারুন অর রশিদ ও তার ছেলে তামিমসহ চার জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মালয়েশিয়া ভিত্তিক মেডিকো গ্র“পের এরিয়া ম্যানেজার ও মহেশপুর উপজেলার গৌরিনাথপুর গ্রামের আব্দুল কাদেরের ছেলে আরিফ হুসাইন বাদী হয়ে ঝিনাইদহ সদর থানায় মামলাটি করেন যার মামলা নং ২১। শুক্রবার (৭ সেপ্টম্বর) মধ্যরাতে মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে। আসামী ড. হারুন অর রশিদ ও তার ছেলে তামিম পলাতক রয়েছে। এই মামলায় সৃজনীর নির্বাহী পরিচালক হারুনের চাচাতো ভাই লাভলু ও কর্মচারী ওহিদুজ্জামানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ মামলা রেকর্ডের কথা স্বীকার করে জানান, অপহরণের ১৩ দিন পর আরিফ হুসাইন (২৯) নামে এক যুবককে পবহাটী গ্রামের একটি টর্চার সেল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। বাদীর অভিযোগ গত ২৬ আগষ্ট ঝিনাইদহ শহরের পায়রা চত্বর থেকে সৃজনী এনজিওর নির্বাহী পরিচালক হারুন অর রশিদের নির্দেশে তার ছেলে তামিম তাকে কিডন্যাপ করে নিয়ে যায়। সেই থেকে আরিফ পবহাটী গ্রামে সৃজনীর হেড অফিসে ৯দিন ও হারুনের বাগান বাড়িতে ৪ দিন আটক ছিলেন। তবে সৃজনীর নির্বাহী পরিচালক ড. হারুন অর রশিদ ঘটনার পর থেকেই বলে আসছেন আরিফকে আটকে রেখে মারধর বা কোন নির্যাতন করা হয়নি। লেনদেনের ঝামেলা মেটাতে সৃজনীর হেড অফিসেই ছিলেন আরিফ।

দৌলতপুরে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ ‘সাক্ষরতা অর্জন করি, দক্ষ হয়ে জীবন গড়ি’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশের ন্যায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুরেও আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের নেতৃত্বে একটি র‌্যালি উপজেলা পরিষদ চত্বরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নাজমুল হক ও প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জয়নাল আবেদীনসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ।

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে কুষ্টিয়ায় বিক্ষোভ সমাবেশ

গতকাল কুষ্টিয়া সদর থানা ও শহর বিএনপির উদ্যোগে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রশাসনের বাধার কারণে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক, সাবেক এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিনের বাসভবনে সংক্ষিপ্ত আকারে কেন্দ্রীয় ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক, সাবেক এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন। তিনি বলেন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবী করেন। সেই সাথে অন্য একটি মিথ্যা মামলায় সরকার দেশের সংবিধান লংঘন করে নির্জন কারাগারে আদালত বসিয়েছে এটা সম্পুর্ণ সংবিধান পরিপন্থী। এ ধরণের আদালতের বিরুদ্ধে জোর প্রতিবাদ করেন। অপর দিকে কুষ্টিয়ায় বিনা কারণে শহর, গ্রাম-গঞ্জে স্বাধীনতা হরণ করে শত শত মানুষকে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হচ্ছে। এমনকি ইবি থানার বিভিন্ন ওয়ার্ড ও শহরে দিনের বেলায় বাসা বাড়ীতে ও চায়ের দোকানে হানা দিচ্ছে। একটা স্বাধীন দেশে প্রশাসন কিভাবে এমন অসংবিধানিক কাজ করতে পারে  তা ভাবতেও অবাক লাগে। এ ধরণের মানুষের মৌলিক অধিকার হরণ করে মিথ্যা মামলা দিয়ে নেতা-কর্মী এবং সাধারণ মনুষকে কারাগারে পাঠিয়ে তাদের মূল্যবান জীবন নষ্ট করার বিরুদ্ধে জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এ সময় বিএনপি ও তার অংগ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

জাতীয় বিদ্যুত ও জালানী সপ্তাহ’র সমাপনী অনুষ্ঠান

কুষ্টিয়া পল্লি বিদ্যুত সমিতির সভাপতি সাইফুদ দৌলা তরুন পেলেন সম্মাননা স্মারক

নিজ সংবাদ ॥ জাতীয় বিদ্যুৎ ও জালানী সপ্তাহ’র সমাপনী অনুষ্ঠানে, শতভাগ বিদ্যুৎ কর্মসূচী সফল করার জন্য ও গ্রাহক হয়রানি প্রতিরোধে সক্রিয় ভূমিকা রাখায়, কুষ্টিয়া পল্লি বিদ্যুৎ সমিতির সভাপতি ও সাবেক ছাত্রনেতা সাইফুদ দৌলা তরুন পেলেন সম্মাননা স্মারক। কুষ্টিয়া পল্লি বিদ্যুৎ সমিতির আয়োজনে, গতকাল কুষ্টিয়ায় পল্লি বিদ্যুৎ সমিতির প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত সমাপনী অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়া পল্লি বিদ্যুৎ সমিতির পক্ষ থেকে এ সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কুষ্টিয়া পল্লি বিদ্যুৎ সমিতির সভাপতি সাইফুদ দৌলা তরুন। উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া পল্লি বিদ্যুৎ এর জিএম হারুন অর রশিদ, মডার্ণ প্লাউড এর প্রোপাইটর প্রমুখ।