সেমি-ফাইনালে নিজেদের ‘আন্ডারডগ’ মানছে নিউ জিল্যান্ড

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে নিজেদের ‘আন্ডারডগ’ মানছে নিউ জিল্যান্ড। বিশ্বমঞ্চে টানা দ্বিতীয় ফাইনাল খেলতে নিজেদের সেরার কাছাকাছি পারফর্ম করতে হবে বলে মনে করেন কিউই কোচ গ্যারি স্টেড। অন্যদিকে পেসার লকি ফার্গুসন মনে করেন, নির্দিষ্ট দিনে যারা ভালো খেলবে ফাইনালে পৌঁছাবে তারাই। বিশ্বকাপের প্রাথমিক পর্বের শেষটা ভালো কাটেনি নিউ জিল্যান্ডের। পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের কাছে টানা তিন ম্যাচে হেরে পয়েন্ট তালিকার চতুর্থ স্থানে থেকে প্রাথমিক পর্ব শেষ করেছে কেন উইলিয়ামসনের দল। শেষ চারে ভালো করতে আত্মবিশ্বাসী বলে সাংবাদিকদের জানান স্টেড। “আমাদের এখানে থাকা উচিত কিনা সে বিষয়ে অন্য মানুষ কি ভাবছে তা নিয়ে দুশ্চিন্তা করে আমি অনেকটা সময় ব্যয় করতে চাই না।” প্রাথমিক পর্বে মাত্র একটি ম্যাচ হেরেছে ভারত। পয়েন্ট তালিকায় সবার ওপরে থেকেই সেমি-ফাইনালে খেলতে নামবে বিরাট কোহলির দল। নিউ জিল্যান্ড ও ভারতের মধ্যে প্রাথমিক পর্বের ম্যাচটি অবশ্য ভেসে যায় বৃষ্টিতে। ভারতের বিপক্ষে নিজেদের প্রমাণ করতেই দল মাঠে নামবে বলে জানান স্টেড। “ভারত দারুণ একটা দল তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। তাদের পুরো লাইনআপ জুড়ে বেশ কয়েকজন ম্যাচ-উইনার আছে। একদম শুরুতেই আমি বলেছিলাম, যাদের বিপক্ষেই খেলি না কেন তাদের হারাতে আমাদের সেরার কাছাকাছি খেলতে হবে।” সেটাই রোমাঞ্চ, সেটাই আমাদের সামনে চ্যালেঞ্জ। আশা করছি আপনারা দেখতে পারবেন কিউইরা কোন ধাতুতে গড়া।” সেমি-ফাইনালের আগে সেরে উঠেছেন হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়া লকি ফার্গুসন। প্রতিপক্ষকে সমীহ করছেন গতিময় এই পেসার। “আমি মনে করি, বিশ্বকাপে বড় ম্যাচ সবসময় উত্তেজনা বাড়ায়। আর আমরা চতুর্থ স্থানে থেকে সেমি-ফাইনাল শুরু করব। তাই স্বাভাবিকভাবেই আমি মনে করি, তারা ভারতকে সমর্থন দিবে।” “কিন্তু আমরা, নিউ জিল্যান্ডাররা প্রায়ই আন্ডারডগ থাকি। আর আমি মনে করি, এই অবস্থায় থাকতে আমরা পছন্দ করি। এটা নকআউট পর্ব। তাই মঙ্গলবারের পারফরম্যান্সের উপর পুরোটা নির্ভরশীল। তুলনামূলক ভালো যারা খেলবে তারাই ফাইনালে যাবে।”

আরো খবর...