র্ধষণরে বচিারে বশিষে ট্রাইব্যুনাল গঠনরে দাবি

ঢাকা অফসি ॥ র্ধষক ও যৌন নপিীড়কদরে র্সবােচ্চ শাস্তি দ্রুততম সময়ে নশ্চিতি করার জন্য বচিাররে সময় বঁেধে দয়িে বশিষে ট্রাইব্যুনাল গঠনরে দাবি উঠছে।ে গতকাল শুক্রবার রাজধানীতে গণপদযাত্রার এক র্কমসূচি থকেে এ দাবি তোলা হয়। স্বচ্ছোসবেী সংগঠন গৌরব ৭১ ‘যৌন নপিীড়ন ও র্ধষণবরিোধী’ এই গণপদযাত্রার আয়োজন কর।ে র্ধষকরে ফাঁসরি দাবি নয়িে তাদরে সঙ্গে যোগ দয়ে র্পূনমিা ফাউন্ডশেন ও চতেনা পরষিদ। বলো সাড়ে ১১ টায় শাহবাগ থকেে শুরু হয়ে এই গণপদযাত্রা কন্দ্রেীয় শহীদ মনিারে যায়। বভিন্নি শ্রণেী-পশোর শতাধকি মানুষ এই র্কমসূচতিে অংশ নয়িে ‘ফাঁসি চাই, ফাঁসি চাই, র্ধষকরে ফাঁসি চাই’ স্লোগান দনে। গণপদযাত্রা শষেে এক সংক্ষপ্তি সমাবশেে সম্মলিতি সাংস্কৃতকি জোটরে সভাপতি গোলাম কুদ্দুস বলনে, “এ অপরাধরে শাস্তি নশ্চিতি করতে হলে প্রচলতি আইনে এটি সম্ভব নয়। যার কারণে আমরা বলছি বশিষে ট্রাইব্যুনাল গঠন করতে হব।ে” বশিষে ট্রাইব্যুনাল গঠন করে বচিার শষে করার জন্য একটি সময় বঁেধে দওেয়ার দাবি জানয়িে তনিি বলনে, “সটেি ৩০ দনি হোক, ৬০ দনি হোক বা ৯০ দনি হোক। এর মধ্যে এই বচিাররে প্রক্রয়িা সমাপ্ত করে অপরাধীর শাস্তি নশ্চিতি করতে হব।ে এটইি আমাদরে দাব।ি আরকেটি দাবি হল- এই নর্যিাতনরে শকিার হল নারী। অথচ নারীকে পুলশিি তদন্তসহ বভিন্নি র্পযায়ে যে হয়রানরি শকিার হতে হয়, তার জন্য আমরা মনে করি যে তদন্ত ও বচিার প্রক্রয়িার সকল ক্ষত্রেে শুধুমাত্র নারীদরে অর্ন্তভুক্ত করা হোক।”বাংলাদশেরে নারী ও শশিু নর্যিাতন দমন আইন অনুযায়ী, র্ধষণরে র্সবােচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদন্ড। আর র্ধষণরে শকিার নারী বা শশিুর মৃত্যু হলে দোষী ব্যক্তরি র্সবােচ্চ শাস্তি হবে মৃত্যুদন্ড। এর পাশাপাশি দুই ক্ষত্রেইে র্অথ দন্ডরে বধিান আছ।েএ আইনরে মামলায়  নারী ও শশিু নর্যিাতন দমন ট্রাইব্যুনালে তদন্ত প্রতবিদেন দওেয়ার জন্য সাত দনি থকেে এক মাস এবং মামলা নষ্পিত্তরি জন্য একশত আশি দনি (ছয় মাস) সময় বঁেধে দওেয়া থাকলওে বাস্তবে ওই সময়রে মধ্যে রায় দওেয়া সম্ভব হয় না।তাছাড়া র্ধষণ এবং নারী ও শশিু নর্যিাতনরে এক একটি ঘটনা কছিু দনি পর পর সারা দশেকে নাড়া দয়িে গলেে এসব ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বচিার ও শাস্তরি নজরি কম।র্ধষণরে বশেরিভাগ মামলা বচিাররে র্দীঘসূত্রতায় ধামা চাপা পড়ে যায়। তাছাড়া ঠকিমত ডাক্তারি পরীক্ষা না হওয়া, সামাজকি জড়তা, প্রভাবশালীদরে হস্তক্ষপেসহ নানা কারণে বচিার পাওয়া কঠনি হয়ে যায়।সরকাররে হসিাব অনুযায়ী ২০১৪ সালরে জানুয়ারি থকেে ২০১৭ সালরে ডসিম্বের র্পযন্ত দশেে ১৭ হাজার ২৮৯টি নারী ও শশিু নর্যিাতনরে মামলা হলওে তার মধ্যে মাত্র ৩ হাজার ৪৩০টি মামলার বচিার শষে হয়ছে।ে নম্নি আদালতে এসব মামলায় ১৭ জনকে মৃত্যুদন্ড, ৮০ জনরে যাবজ্জীবনসহ ৬৭৩ জনরে সাজা হলওে বাকি মামলার আসামরিা বচিাররে বাইরইে থকেে গছে।েগণপদযাত্রা শষেে গৌরব একাত্তররে সাধারণ সম্পাদক এফ এম শাহীন ঘোষণা দনে, ফনেীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফরি মৃত্যুর জন্য দায়ী সবাইকে আগামী এক সপ্তাহরে মধ্যে গ্রপ্তোর করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তরি ব্যবস্থা করা না হলে আগামী সপ্তাহে শাহবাগ থকেে সংসদ ভবন র্পযন্ত গণপদযাত্রা করবনে তারা। তনিি বলনে, “আজকে আমার মনে হয় প্রত্যকেটি শক্ষিা প্রতষ্ঠিান, ব্যবসা প্রতষ্ঠিানসহ বসেরকারি প্রতষ্ঠিান র্ধষকদরে নরিাপদ আশ্রয়। এইসব প্রতষ্ঠিানে আমাদরে বোনরো নরিাপদ নয়। তাই আমার মনে হয়, মা-বোনদরে নরিাপদ রাষ্ট্র দতিে গলেে আমাদরে রাস্তায় নামা ছাড়া কোনো বকিল্প নইে।”মাদ্রাসার অধ্যক্ষরে যৌন নপিীড়নরে প্রতবিাদ করায় ফনেীর সোনাগাজীর আলমি পরীর্ক্ষাথী নুসরাতরে গায়ে করেোসনি ঢলেে আগুন দওেয়া হয়। বুধবার রাতে হাসপাতালে চকিৎিসাধীন অবস্থায় মারা যায় ওই কশিোরী।র্পূণমিা ফাউন্ডশেনরে সভাপতি র্পূণমিা রানী শীল বলনে, “নুসরাতরে মৃত্যুর জন্য দায়ী অধ্যক্ষ সরিাজ উদ দৌলাসহ তার সহযোগীদরে আমরা আইনরে কাঠগড়ায় দখেতে চাই। এবং তনি মাসরে মধ্যে এই বচিাররে রায় চাই।”২০০১ সালরে নর্বিাচনে বএিনপ-িজামায়াত জোটরে জয়রে পর র্ধষণরে শকিার হন র্পূণমিা। দশ বছর পর সইে মামলার রায়ে ১১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদ- দয়ে আদালত।র্পূণমিা বলনে, “ফাঁসটিাই আমাদরে কাম্য। আমরা ফাঁসি ছাড়া অন্য কছিু চাই না। নয়ত আমাদরে হাতে তুলে দনি, আমরা পুড়য়িে মারব, আমরা পুড়য়িে মারার জন্যই রাস্তায় নমেছে।ি” অন্যদরে মধ্যে চতেনা পরষিদরে সভাপতি জাহদি সোহলে এই র্কমসূচতিে বক্তব্য দনে।

আরো খবর...