মোকসুদকে ৭ দনিরে রমিান্ডরে আবদেন

নুসরাত হত্যা মামলা

ঢাকা অফসি ॥ ফনেীর সোনাগাজী ইসলাময়িা সনিয়ির ফাজলি ডগ্রিি মাদ্রাসার আলমি পরীর্ক্ষাথী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার অন্যতম আসামি সোনাগাজী পৌর আওয়ামী লীগরে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক, পৌর কাউন্সলির মোকসুদ আলমকে ৭ দনিরে রমিান্ড আবদেন করছেে পুলশি ব্যুরো অব ইনভস্টেগিশেন (পবিআিই)। গতকাল শুক্রবার ফনেীর সোনাগাজীর সনিয়ির জুডশিয়িাল ম্যাজস্টিটে শরাফ উদ্দনিরে আদালতে আবদেন করা হয়। আদালত আগামী সোমবার রমিান্ড শুনানি অনুষ্ঠতি হবে বলে জানান। এরআগে বৃহস্পতবিার রাত ১০টায় ঢাকার একটি আবাসকি হোটলে থকেে মোকসুদ আলমকে গ্রফেতার করে পুলশি ব্যুরো অব ইনভস্টেগিশেন (পবিআিই)। তনিি বলনে, এ বষিয়ে বস্তিারতি তথ্য গণমাধ্যমকে পরে জানানো হব।ে নুসরাতরে ভাই নোমানরে করা মামলার এজাহারনামীয় আসামি ছলিনে তনি।ি এছাড়া হত্যা মামলার প্রধান আসামি অধ্যক্ষ সরিাজ উদ্দৌলা সাত দনিরে রমিান্ডে আছনে। ওই মাদ্রাসার ইংরজেি বভিাগরে প্রভাষক আফসার উদ্দনি এবং নুসরাতরে সহপাঠী আরফিুল ইসলাম, নুর হোসনে, কফোয়াত উল্লাহ জন,ি নুসরাতরে সহপাঠী ও মামলার প্রধান আসামি সোনাগাজী ইসলাময়িা ফাজলি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সরিাজউদ্দৌলার ভাগ্নি উম্মে সুলতানা পপি ও আরকে মাদ্রাসা শক্ষর্িাথী জোবায়রে আহমদে পাঁচ দনিরে রমিান্ডে আছ।ে এজাহারভুক্ত আসামদিরে মধ্যে এখনও পলাতক রয়ছেনে- সোনাগাজী পৌরসভার উত্তর চরচান্দয়িা গ্রামরে ওই মাদ্রাসার ছাত্র শাহাদাত হোসনে শামমি, হাফজে আবদুল কাদরে। গত ৬ এপ্রলি সোনাগাজী ইসলাময়িা সনিয়ির ফাজলি মাদ্রাসায় আলমি পরীক্ষার কন্দ্রেে গলেে মাদ্রাসার ছাদে ডকেে নয়িে নুসরাতরে গায়ে করেোসনি ঢলেে আগুন ধরয়িে পালয়িে যায় মুখোশধারী র্দুবৃত্তরা। এর আগে ২৭ র্মাচ মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সরিাজউদ্দৌলার বরিুদ্ধে করা শ্লীলতাহানরি মামলা প্রত্যাহাররে জন্য নুসরাতকে চাপ দয়ে তারা। পরে আগুনে ঝলসে যাওয়া নুসরাতকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে এবং পরে ঢামকে হাসপাতালে র্ভতি করা হয়। বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় না ফরোর দশেে চলে যান ফনেীর সোনাগাজী ইসলাময়িা সনিয়ির ফাজলি মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফ।ি চকিৎিসকদরে প্রাণপণ চষ্টোর পরও তাকে বাঁচানো গলে না। টানা ১০৮ ঘণ্টা মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে অবশষেে হার মাননে এ ছাত্রী। প্রসঙ্গত ৬ এপ্রলি ফনেীর সোনাগাজীতে পরীক্ষাকন্দ্রেরে ভতের ওই ছাত্রীর গায়ে করেোসনি ঢলেে আগুন ধরয়িে হত্যাচষ্টো চালায় র্দুবৃত্তরা। শনবিার সকালে সোনাগাজী পৌর এলাকার ইসলাময়িা সনিয়ির ফাজলি মাদ্রাসাকন্দ্রেে এ ঘটনা ঘট।ে ওই ছাত্রী ওই মাদ্রাসা থকেইে আলমি পরীক্ষা দচ্ছিলিনে। পরীক্ষার জন্য নর্ধিারতি কক্ষ থকেে ছাদে ডকেে নয়িে কয়কেজন বোরকাপরা নারী পরকিল্পতিভাবে তাকে হত্যার চষ্টো করে বলে অভযিোগ করছেনে ওই শক্ষর্িাথীর পরবিাররে সদস্যরা। তারা জানান, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সরিাজউদ্দৌলার বরিুদ্ধে শ্লীলতাহানরি অভযিোগে করা মামলা তুলে না নয়োয় এ ঘটনা ঘটছে।ে এ তথ্য ফনেী সদর হাসপাতালে চকিৎিসাধীন স্থানীয় পুলশিকওে জানয়িছেনে নুসরাত। তার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় এদনি বকিালে ঢাকা মডেকিলে কলজে (ঢামকে) হাসপাতালরে র্বান ইউনটিরে ১০২ নম্বর কক্ষে র্ভতি করা হয়। পরে তাকে নবিড়ি পরর্চিযাকন্দ্রেে (আইসইিউ) র্ভতি করা হয়। তাকে লাইফসার্পোট দয়ো হয়। পরবিার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ২৭ র্মাচ সোনাগাজী ইসলাময়িা সনিয়ির ফাজলি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সরিাজউদ্দৌলার বরিুদ্ধে শ্লীলতাহানরি অভযিোগে মামলা করনে ওই ছাত্রীর মা। মামলার এজাহারে উল্লখে করা হয়ছে,ে ২৭ র্মাচ সকাল ১০টার দকিে অধ্যক্ষ তার অফসিরে পয়িন নূরুল আমনিরে মাধ্যমে ছাত্রীকে ডকেে ননে। পরীক্ষার আধাঘণ্টা আগে প্রশ্নপত্র দয়োর প্রলোভন দখেয়িে ওই ছাত্রীর শ্লীলতাহানরি চষ্টো করনে অধ্যক্ষ। পরে পরবিাররে করা মামলায় গ্রফেতার হন অধ্যক্ষ। সইে মামলা তুলে না নয়োয় অধ্যক্ষরে লোকজন ওই ছাত্রীর গায়ে আগুন দয়িছে।ে

আরো খবর...