মিরপুরে ব্রি ধান চাষের উপরে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে ব্রিধান-৫৮ জাতের ধান চাষের উপরে মাঠ দিবস অনুষ্ঠান ও নমুনা শস্যকর্তন করা হয়েছে। গতকাল রবিবার বিকেলে উপজেলার চিথলিয়া ইউনিয়নের মাঠে এ নমুনা শস্যকর্তন ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। মাঠ দিবস অনুষ্ঠানে মিরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ রমেশ চন্দ্র ঘোষের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (উদ্ভিদ সংরক্ষন) কৃষিবিদ বিভাষ চন্দ্র সাহা। এসময় তিনি বলেন, অধিক ফলন ও লাভের জন্য এলাকা ভিত্তিক চাষ উপযোগী সঠিক জাত নির্বাচন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ভাল বংশ ও মা ছাড়া যেমন ভাল সমন্বিত আশা করা যায় না তেমনি ভাল জাতের ভাল বীজ ছাড়া উত্তম ফসল পাওয়া যায় না। নানা জাতের বীজের মধ্যে তাই সঠিক জাতটি নির্বাচন করে চাষ করা একজন কৃষকের প্রাথমিক দায়িত্ব। বর্তমানে বাংলাদেশে হাইব্রিড, উফশী ও নানা ধরনের আধুনিক জাতের ধান চাষ করা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, ব্রিধান-৫৮ এর জীবনকাল ব্রিধান-২৮ এর চেয়ে ৬-৭ দিন নাবি কিন্তু ব্রিধান-২৯ জাতের চেয়ে ৭-১০ দিন আগাম। ব্রিধান-৫৮ মাঝারি ঢলে পড়া প্রতিরোধ ক্ষমতা সম্পন্ন যা ব্রিধান-২৮ এ নেই। এ জাতের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলোÑ শিষ থেকে ধান ঝরে পড়ে না। পরিপক্ব শিষগুলো ডিগপাতার উপরে অবস্থান করে বিধায় পুরো ক্ষেত  দেখতে খুব আকর্ষণীয় এবং অধিক ফলনশীল। এ জাতের জীবনকাল ১৫০-১৫৫ দিন এবং উপযুক্ত পরিচর্যা পেলে ব্রিধান-৫৮ চাষে হেক্টরে ৭.০ টন থেকে ৭.৫ টন পর্যন্ত ফলন পাওয়া যায়। তিনি আরো বলেন, আধুনিক জাতের ধান চাষ করা সনাতন জাতের চেয়ে অধিক লাভ। তাই আপনারা আধুনিক জাতের ধান চাষ করুন। অনুষ্ঠানে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শুকেশ রঞ্জন পালের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেকেজিআরএডিপি’র অতিরিক্ত উপপরিচালক (সম্প্রসারণ ও সমন্বয়) কৃষিবিদ সেলিম হোসেন, মিরপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাবিহা সুলতানা, চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন, মডেল কৃষক আব্দুল মোমিন প্রমুখ। নমুনা শস্য কর্তন করে দেখা যায় বিঘাপ্রতি প্রায় ২০মন ফলন হয়েছে।

আরো খবর...