মল ছিটিয়ে অর্থ ছিনতাইকারী চক্রের দৌরাত্ব থামছে না 

দৌলতপুরে প্রায়ই ঘটছে অভিনব কায়দায় ছিনতাই

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পায়খানার মল গায়ে ছিটিয়ে অর্থ ছিনতাইকারী চক্রের দৌরাত্ব যেন থামছে না। প্রায়ই ঘটছে অভিনব কায়দায় এ ছিনতাইয়ের ঘটনা। দৌলতপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরের একটি চক্র সোনালী ব্যাংক থেকে অপরিচিত কেউ টাকা উত্তোলন করলে অভিনব কায়দায় তার গায়ে পায়খানার মল ছিটিয়ে দিয়ে তাকে তা পরিস্কার করতে বলে কৌশলে তার টাকা ছিনতাই করে নেয়। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার দুপুরে দৌলতপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরের সোনালী ব্যাংকে ষাটর্দ্ধো মুজিব কোর্ট পরা এক মুরব্বী ৫০ হাজার টাকা উত্তোলন করলে উপজেলা পরিষদের ওই ছিনতাইকারী চক্র তার গায়ে পায়খানার মল ছিটিয়ে দেয়। এসময় ছিনতাইকারী চক্র ওই মুরব্বিকে চাচা আপনার গায়ে পায়খানা লেগে আছে বলে তা পরিস্কার করার জন্য মসজিদের ওযুখানায় যেতে বলে। সহজ সরল অসহায় ওই মুরব্বি মসজিদে গিয়ে মল পরিস্কার করার সময় ছিনতাইকারী চক্র তাকে একা পেয়ে ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। সেসময় ওই মুরব্বি আর্তচিৎকার ও কান্নাকাটি শুরু করলে তার সাহায্যে কেউ এগিয়ে আসেনি। এটিই প্রথম ঘটনা না। এরআগে অন্তত ১৫টিরও বেশী একই কায়দায় অভিনব কৌশলে এরকম টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। সর্বশেষ ঘটনার ১৫দিন আগে একজন মুক্তিযোদ্ধা সোনালী ব্যাংক থেকে মুক্তিযোদ্ধা ভাতার টাকা উত্তোলন করে ব্যাংক থেকে বেরিয়ে আসলে তাকেও একই কায়দায় পায়খানার মল ছিটিয়ে সমুদয় টাকা ছিনিয়ে নেয় ওই চক্র। সেদিন ওই অসহায় মুক্তিযোদ্ধার আর্তনাদ ও তার কান্নায় সোনালী ব্যাংক চত্বর ও আশপাশ ভারী হয়ে উঠলেও পাশ থেকে দাড়িয়ে ওইসকল ছিনিতাইকারী চক্র অট্টহাসি হেসে মুক্তিযোদ্ধাকে বিদ্রুপ করেছে। পায়খানার মল ছিটিয়ে অভিনব কায়দায় একের পর এক অর্থ ছিনতাইয়ের ঘটনা উপজেলা প্রশাসন ও দৌলতপুর থানা পুলিশকে অবহিত করা হলেও অদ্যাবধি কোন ঘটনার কুল কিনারা হয়নি। আর কত মানুষের সর্বনাশ! হলে প্রশাসনের টনক নড়বে তা ভক্তভোগীদের জিঞ্জাসা? তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেকে জানিয়েছে, উপজেলা পরিষদ চত্বরের সাব-রেজিষ্ট্রার অফিস কেন্দ্রিক একটি চক্র আছে যারা দলিল লেখকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে, মূলত তারাই পায়খানার মল ছিটিয়ে টাকা ছিনতাই কার্যক্রমের সাথে জড়িত। আর এদের সহায়তা করে থাকে দলিল লেখকদের সাথে যোগসাজস করে যারা ব্যাংকে পে-অর্ডার করে থাকে সেসকল দালালচক্র। ব্যাংকে কে কখন কত টাকা উত্তোলন করছে তার খোঁজখবর ওই দালালচক্র ছিনতাইকারীচক্রকে জানালে তারা তাদের কৌশল খাটিয়ে অভিনব কায়দায় এ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটায়। এদিকে কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. সরওয়ার জাহান বাদশা’র নির্দেশে কয়েক মাস ধরে সাব-রেজিষ্ট্রার অফিসে উৎকোচ বিহীন ও অতিরিক্ত অর্থ ছাড়াই দলিল লেখার কাজ ও রেজিষ্ট্রি কার্যক্রম চলমান থাকায় বেকায়দায় পড়েছে ওইসব চাঁদাবাজ ও ছিনতাইকারীচক্র। তাই তারা সংসার ধর্ম পালন ও নিজেদের নেশার অর্থ যোগান দিতে সোনালী ব্যাংককে অর্থ উপার্জনের স্থান হিসেবে বেছে নিয়েছে। আর কোন অসহায় বা সহায় ব্যক্তির কষ্টার্জিত অর্থ অভিনব কায়দায় ছিনতাই হওয়ার আগেই প্রশাসন ব্যবস্থা নিবে এমনটাই প্রত্যাশা সচেতন মহলের। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষেরও দ্রুততার সহিত নজরে নেওয়া জরুরী।

 

আরো খবর...