ভিটামিন ‘এ’ খেয়ে শিশুর মৃত্যু হয়নি – স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খেয়ে কোনো শিশুর মৃত্যু হয়নি বলে দাবি করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেছেন, সংবাদমাধ্যমে যে শিশুটির মৃত্যুর কথা বলা হচ্ছে সে গলায় ভাত আটকে মারা গেছে। গতকাল রোববার রাজধানীর জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের ন্যাশনাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরির (এনএফএসএল) আইএসও সনদ অর্জন এবং দুগ্ধ ও দুগ্ধজাত খাবারের মান সম্পর্কিত গবেষণাকাজের ফলাফল প্রকাশনা অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জাহিদ মালেক বলেন, ‘গতকাল (শনিবার) দেশব্যাপী পরিচালিত ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইনে সোয়া দুই কোটি শিশু ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খেয়েছে। ‘এ’ ক্যাপসুল খেয়ে কোনো শিশুর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি।’ স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পত্রপত্রিকায় যে শিশুটির মৃত্যুর কথা বলা হয়েছে তার মৃত্যু ভিটামিন এ ক্যাপসুলে হয়নি। শিশুটি টিকা খেয়ে বাড়ি গিয়ে চার ঘণ্টা ঘুমিয়েছে। ঘুম থেকে ওঠার পর শিশুটির মা খাবার খাওয়ানোর সময় খাবার গলায় আটকে মৃত্যু হয় তার।’ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সভাপতি প্রফেসর ডা. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (জনস্বাস্থ্য) হাবিবুর রহমান, জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক নির্মল সেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ার পর বমি ও পাতলা পায়খানায় সুনিত নামের এক শিশুর মৃত্যুর তথ্য পাওয়ার কথা বলা হয়। এতে আরও পাঁচ শতাধিক শিশুর আক্রান্ত হওয়া এবং তারে একটি অংশ হাসপাতালে ভর্তি বলে বলা হয়। স্বজনরা জানান, শনিবার বেলা ১১টার দিকে সরিষাবাড়ীর গণময়দান এলাকায় অস্থায়ী ক্যাম্পে ১৫ মাসের সুনিতকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়। বাড়ি ফেরার পর তার বমি ও পাতলা পায়খানা শুরু হয়। তাকে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে বিকাল চারটার দিকে মারা যায় সে। শিশুটি এই হাসপাতালের এক কর্মচারীর সন্তান বলে জানান জামালপুরের সিভিল সার্জন। তিনি বলেন, ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরো খবর...