বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে কুষ্টিয়ায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

গতকাল  দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক, সাবেক এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিনের মজমপুরস্থ বাসভবনে বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন বলেন, স্বাধীনতার ঘোষক, বীরউত্তম শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের সিপাহী জনতার বিপ¬বের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠার লক্ষে বহুদলীয় গণতন্ত্র চালু করেন। দেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্য শহর, গ্রাম-গঞ্জে উল্কার বেগে ছুটে বেড়িয়ে দেশকে ঐক্যবদ্ধ করে সার্বিক কল্যানের চেষ্টা করেছিলেন। তিনি নিজে সকল লোভ লালসা থেকে মুক্ত হয়ে সততার মাধ্যমে দুর্নীতিমুক্ত একটি সমাজ গঠনের আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তার এ গতিশীল নেতৃত্বকে ভয় পেয়ে দেশী-বিদেশীদের চক্রান্তের মাধ্যমে তিনি শাহাদৎ বরণ করেন। বর্তমান শাসক গোষ্ঠি ভোট ডাকাতির মধ্যেমে ক্ষমতায় এসে হত্যা, গুম, লাখ লাখ বিএনপি নেতা-কর্মীকে কারাগারে পাঠিয়ে অগণতান্ত্রিকভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকার চেষ্টা করছে। দেশটিকে আজ দুর্নীতির স্বর্গরাজ্যে পরিণত করা হয়েছে। গত ২০১৪-এর ৫ জানুয়ারীর মতো আরেকটি ভোটার বিহীন নির্বাচন করে ক্ষমতায় আসার জন্য দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। বিএনপিসহ সকল বিরোধী দলের নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষকে বিনা কারণে কারাগারে পাঠাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় কুষ্টিয়াতে গত কয়েকদিনে বিনা কারণে শত শত নেতা-কর্মীকে আটক করা হয়েছে। আরো শত শত নেতা কর্মীর নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে ঘর ছাড়া করা হয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি এবং অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে তাদের নিশর্ত মুক্তির দাবী জাআচ্ছি। সেই সাথে অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি কামনাসহ মানুৃষের নাগরিক ও মৌলিক অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার জোর দাবী জানাচ্ছি। বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যস্ত আমাদের গণতান্তিক আন্দোলন চলবেই। আলোচনা সভা শেষে দেশের মানুষের সার্বিক অধিকার যাতে ফিরে পায় তার জন্য আল¬াহতায়ালার কাছে মোনাজাত করা হয়। এ সময় বিএনপি ও তার অংগ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

আরো খবর...