বাংলা নববর্ষ উদযাপনে কুষ্টিয়াতে বরাবরাই উৎসবের  কেন্দ্রবিন্দুতে থাকে গুরুকুল

মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নিতে সকাল থেকেই শত শত শিক্ষার্থীর ভিড় জমতে থাকে গুরুকুলের কুষ্টিয়াস্থ লালন শাহ ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণে। নানা সাজে আসে শিক্ষার্থীরা। নতুন বছর ১৪২৬ বরণ করতে আয়োজনেরও কমতি ছিলনা তথ্যপ্রযুক্তিবিদ সুফি ফারুকের এই প্রতিষ্ঠানে। ঐতিহ্যবাহি এই প্রতিষ্ঠানে উৎসব মুখর পরিবেশে দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে পালিত হয় বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ এর বর্ষবরণ অনুষ্ঠান।  দিনের শুরুতে বর্ষবরন সঙ্গীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়। সকাল ৮ টায় লালন সাঁই ক্যাম্পাস থেকে শুরু হয় বর্ণিল সাজে বর্ণাঢ্য মঙ্গল  শোভাযাত্রা। কুষ্টিয়া শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন  শেষে, পুনরায় গুরুকুল লালন সাঁই ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণে গিয়ে  শেষ হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা। গ্রামীন ঐতিহ্যবাহি খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বেশাখী সঙ্গীতের আসর অনুষ্ঠিত হয় মঙ্গলশোভাযাত্রা শেষে। বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়া গুরুকুল এর মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ সমূহের কয়েকশ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা আসমা আক্তার। প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গুরুকুল বর্ষবরণ উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করে। গুরুকুল কালচারাল ক্লাবের পক্ষ থেকে প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে  পান্তা আর ৪ রকমের ভর্তা দিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে খাবার পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ করা হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

আরো খবর...