বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ব্যাবহার করে ডিটিএইচ সেবার উদ্বোধন

ঢাকা অফিস ॥ দেশে প্রথমবারের মতো বিশ্বমানের ডিটিএইচ (ডিরেক্ট টু হোম) সেবা নিয়ে এসেছে বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স লিমিটেড। ‘আকাশ’ ব্র্যান্ড নামে এ সেবাপণ্য বাজারজাত করা হচ্ছে। বিশ্বে নিজস্ব স্যাটেলাইট থাকা ৫৭তম দেশ বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ থেকে ডিটিএইচ সেবা দেবে ‘আকাশ’। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে ডিটিএইচ সেবা আকাশের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স লিমিটেড জানায়, বিশ্বব্যাপী পে-টিভি শিল্পে ডিটিএইচ একটি উচ্চতর প্রযুক্তি। আগামি ১৯ মে থেকে সর্বোচ্চ মানের ছবি ও শব্দের নিশ্চয়তা দিয়ে প্রায় ১১০টি চ্যানেল ও ২০টি হাইডেফিনেশন চ্যানেল নিয়ে সেবা চালু করছে আকাশ ডিটিএইচ। ভ্যাটসহ মাসিক ৩৯৯ টাকার এ সেবা উপভোগ করতে পারবেন গ্রাহক। শিগগিরই আরও নতুন চ্যানেল এবং ভিডিও অন ডিমান্ড ও প্রোগ্রাম রেকর্ডিংয়ের মতো নতুন সেবা-ফিচার যুক্ত করা হবে। বিদ্যমান ফিচারগুলোর মধ্যে রয়েছে প্রোগ্রাম রিমাইন্ডার, ফেভারিট প্রোগ্রাম লিস্টিং ও প্যারেন্টাল কট্রোল। এছাড়া আকাশ ডিটিএইচ এর এককালীন সংযোগ খরচ ৬ হাজার ৪৯৯ টাকা। সংযোগ সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে অত্যাধুনিক এইচডি সেট টপ বক্স, গ্রাহকবান্ধব ও বহুমুখী ব্যবহার উপযোগী রিমোট কট্রোল, তাপ ও বৃষ্টি প্রতিরোধী ইউনিভার্সাল কেইউ ব্যান্ড ডিশ এবং অন্যান্য উপকরণ। তাছাড়া সীমিত সময়ের জন্য বিনামূল্যে ইনস্টলেশন ও এক মাসের সাবক্রিপশন পাওয়া যাবে। সার্বক্ষণিক ২৪/৭ গ্রাহকসেবার জন্য কল সেন্টার এবং পেশাদার ইনস্টলেশন ও বিক্রয় পরবর্তী সেরা নিশ্চিত করবে আকাশ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ আকাশের উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি বলেন, দেশ ডিজিটালাইজেশনের পথে আরো একধাপ এগিয়ে গেলো। এই ব্যবস্থার মাধ্যমে আমাদের রাস্তার তারের জঞ্জাল কমবে। এ ছাড়া এই ব্যবস্থাপনায় স্যাটেলাইট চ্যানেল সরবরাহের ব্যবসায় সরকারের কর সঠিকভাবে আদায় করা আরো সহজ হবে। তাছাড়া টেলিভিশন সম্প্রচার আইন বাস্তবায়নেও যথেষ্ট সহযোগিতা পাওয়া যাবে। মন্ত্রী আরো বলেন, টেলিভিশন সম্প্রচারের ক্ষেত্রে আমরা শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার কাজ করছি। বিজ্ঞাপন আইন অনুসারে অন্য কোনো দেশই বিদেশি চ্যানেল সম্প্রচারে বিজ্ঞাপন দেখাতে পারে না। আমাদের দেশে তা পারে। ২০০৬ সালে এই আইন পাস হলেও বাস্তবায়ন হয়নি। সেটা বাস্তবায়নের কাজ চলছে। আমাদের দেশেও বিদেশি চ্যানেলগুলো বিজ্ঞাপন না দেখিয়ে সম্প্রচার করতে পারবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি তার বক্তব্যে বলেন, আমাদের আকাশপথে বিচরণের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হচ্ছে, অর্থাৎ দেশ ডিজিটালাইজেশন হচ্ছে। আমাদের লক্ষ্য সারাদেশের জনগণকে উন্নয়ন কাজে সম্পৃক্ত করা। তাই গ্রামে এই সেবা সহজে পৌঁছে দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। পেমেন্ট ব্যবস্থাপনাকে আরো সহজ করতে হবে। তাছাড়া সব বিভাগে পৌঁছে দিতে হবে সেবা। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা এবং বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্সের ভাইস চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান, বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্সের চেয়ারম্যান শায়ান এফ রহমান একই কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ডিএস ফায়সাল হায়দার, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু প্রমুখ। দেশের ২০টি জেলায় আকাশ ডিটিএইএচ বাণিজ্যিকভাবে পাওয়া যাবে। জেলাগুলো হলো- ঢাকা, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, কুমিল্লা, নোয়াখালী, ফেনী, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি, সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও সুনামগঞ্জ। এছাড়া শিগগিরই দেশের অন্য জেলাগুলোতেও অনুমোদিত খুচরা বিক্রেতাদের কাছ থেকে এ ডিটিএইচ পাওয়া যাবে বলেও জানায় বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স।

 

আরো খবর...