বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে খালেদার দাঁতের চিকিৎসা

ঢাকা অফিস ॥ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে মুখের ঘায়ের জন্য ডেন্টাল ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গত ১ এপ্রিল থেকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের কেবিন ব্লকের ৬২১ নম্বর কেবিনে ভর্তি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদাকে গতকাল বুধবার দুপুরে একটি মাইক্রোবাসে করে হাসপাতালের ‘এ’ ব্লকে নেওয়া হয়। পরে হুইল চেয়ারে বসিয়ে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় চতুর্থ তলায় ডেন্টাল ইউনিটে। ঘণ্টাখানেক পর কড়া নিরাপত্তার মধ্যে আবার তাকে কেবিনে ফিরিয়ে নেওয়া হয় বলে হাসপাতালের অতিরিক্ত পরিচালক নাজমুল করিম জানান। তিনি বলেন, ডেন্টাল ও ম্যাক্সিলোফেসিয়াল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মাহমুদা আকতারের তত্ত্বাবধানে খালেদা জিয়াকে দাঁতের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকরা জানান, একটি দাঁতের অসমান অবস্থানের কারণে খালেদা জিয়ার মুখে ও জিহ্বায় ঘা হচ্ছিল। ডেন্টাল ইউনিটে গ্রাইন্ডিং করে ওই দাঁত ঠিক করা হয়েছে। গত বছরের ফেব্র“য়ারি থেকে দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছরের সাজা খাটছেন খালেদা জিয়া। ৭৪ বছর বয়সী এই সাবেক প্রধানমন্ত্রী আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিসসহ বয়সজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন। হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একে মাহবুবুল হক রোজার ঈদের সপ্তাহ খানেক আগে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, মুখে জিহ্বায় ঘা হওয়ায় খালেদা জিয়ার খেতে সমস্যা হচ্ছিল। তবে তা অনেকটাই সেরে গেছে। মাহবুবুল হক সেদিন বলেছিলেন, মুখের ওই ঘা মারাত্মক কিছু না। অনেকেরই তা হয়। অনেক সময় ছত্রাকের সংক্রমণে ঘা হয়। আবার দাঁতের কারণেও তা হতে পারে। প্রয়োজনে বিষয়টি তারা পরীক্ষা করে দেখবেন। দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছিল পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন সড়কের পরিত্যক্ত কারাগারে। চিকিৎসার জন্য তাকে গত ১ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সরকারের তরফ থেকে ইতোমধ্যে জানানো হয়েছে, সুস্থ হলে খালেদাকে আর পুরনো কারাগারে ফেরানো হবে না। তার জন্য কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

আরো খবর...