না ফেরার দেশে সবার প্রিয় ওয়ারেশ স্যার

নিজ সংবাদ ॥ না ফেরার দেশে চলে গেলেন সবার প্রিয় ওয়ারেশ হোসেন (ওয়ারেশ স্যার) ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না এলাইহে রাজিউন। শনিবার রাত সাড়ে ৯ টায় রাজধানী ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল(সিএমএইচ)এ চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। বুধবার সন্ধ্যায় তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে কুষ্টিয়ার মান্নান হার্ট সেন্টারে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর অবস্থার অবনতি ঘটলে রাত পৌনে ১২টার দিকে ঢাকার উদ্দেশ্যে নেয়া হয়। বৃহস্পতিবার সকালে ভর্তি করা হয় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে। সেখানে সিসিউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হার্ট এ্যাটাক হলে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয় তাকে। শনিবার রাত ১০টার দিকে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন ওয়ারেশ হোসেন।  আজ রোববার বাদ এশা ঢাকা সেনানিবাস কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। পরদিন তাঁকে নেয়া হবে তাঁর নিজ জেলা কুষ্টিয়ায়। ওয়ারেশ হোসেন কুষ্টিয়া সিরাজুল হক মুসলিম হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। সকলের প্রিয় ওয়ারেশ স্যার না ফেরার দেশে চলে যাওয়ার সংবাদে শোকের ছায়া নেমে আসে গোটা কুষ্টিয়াজুড়ে। তাঁর অসংখ্য প্রিয় শিক্ষার্থী প্রিয় স্যারের মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। ওয়ারেশ হোসেনের বাড়ি কুষ্টিয়া শহরের থানাপাড়া এলাকায়। দুই পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জনক তিনি। তাঁর দুই সন্তানই সেনাবাহিনীতে চাকরী করেন। বড় ছেলে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল হাসনাত মো: খায়রুল বাশার। তিনি বর্তমানে সুদানে সেনা  প্রধানের সাথে সফরসঙ্গী রয়েছেন। বাবার মৃত্যু সংবাদে তিনি আজ রোববার দেশে ফিরবেন বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। ছোট ছেলে  মেজর আবুল হাসনাত মো: মোফাজ্জেল করিম।

সোমবার কুষ্টিয়ায় জানাযা শেষে কুষ্টিয়া পৌর গোরস্থানে দাফন সম্পন্ন হবে। ওয়ারেশ হোসেনের মরদেহ বর্তমানে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে।

 

আরো খবর...