নাসরির নিষেধাজ্ঞা বাড়িয়ে ১৮ মাস করা হয়েছে

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ২০১৬ সালে লস এ্যাঞ্জেলসে একটি ক্লিনিকে চিকিৎসারত অবস্থায় ইন্ট্রাভেনাস ড্রিপ ট্রিটমেন্ট গ্রহণের দায়ে ফ্রেঞ্চ তারকা সামির নাসরির নিষেধাজ্ঞা ৬ মাস থেকে বাড়িয়ে ১৮ মাস পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছে উয়েফা। বর্তমানে ক্লাব বিহীন রয়েছেন ৩১ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার। ওয়ার্ল্ড এন্টি ডোপিং এজেন্সি (ডব্লিএডিএ)’র আইনানুযায়ী দোষী প্রমানীত হওয়ায় নাসরিকে ফেব্র“য়ারি মাসে ছয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। যদিও গত বছরের ১ জুলাই থেকে নাসরি নিষিদ্ধ রয়েছে। যে কারনে ম্যানচেস্টার সিটি ও আর্সেনালের সাবেক এই মিডফিল্ডার আগামী জানুয়ারি মাসে মাঠে ফিরতে পারবেন। নভেম্বরের শুরুতে তিনি ক্লাবের অনুশীলনও শুরু করতে পারবেন। ২০১৬-১৭ মৌসুমে ধারে সেভিয়াতে খেলার সময় নাসরি ড্রিপ ট্রিটমেন্ট নিয়েছিলেন। আর সে কারণেই স্প্যানিশ এন্টি-ডোপিং এজেন্সি বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে। নিষেধাজ্ঞার বিপরীতে নাসরি আপিল করলেও ইউরোপীয়ান সর্বোচ্চ সংস্থা তাতে কোন সায় দেয়নি। ম্যানচেস্টার সিটি থেকে আসার পরে ছয় মাসের হতাশাজনক সময় কাটিয়ে তুরষ্কের দল আনটালিয়া ত্যাগ করেন নাসরি। একই ধরনের চিকিৎসা নেবার অভিযোগে ছয়বারের অলিম্পিক সাঁতার চ্যাম্পিয়ন রায়ান লোচেকেও ১৪ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করেছে সংশ্লিষ্ট সংস্থা।

আরো খবর...