ধর্ষক-নিপীড়ক ও হত্যাকারীদের কঠিন শাস্তির দাবি মহিলা ফোরামের

ঢাকা অফিস ॥ নারী ও শিশু ধর্ষক, নিপীড়ক ও হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম। গতকাল শুক্রবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সংগঠনটি সমাবেশের আয়োজন করে এ দাবি জানায়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, সারাদেশে নারী ও শিশু নির্যাতন, হত্যা ও ধর্ষণের মতো ঘটনা ঘটেই চলেছে। একটি নির্যাতনের ঘটনার বর্বরতা আরেকটিকে পেছনে ফেলে দিচ্ছে। এ বছরের প্রথম ছয় মাসে দুই হাজার ৮৩ জন নারী ও শিশু নির্যাতন, ধর্ষণসহ উত্ত্যক্তকরণের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ১১৩ জন এবং ধর্ষণ করা হয়েছে ৭৩১ জনকে। বক্তারা আরও বলেন, প্রতিনিয়ত এসব ঘটনা ঘটলেও প্রতিবাদকারীদের ওপর হামলা ও হত্যার ঘটনা ঘটছে। ফেনীর নুসরাত অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছিল, তাকে পুড়িয়ে মারা হলো। বরগুনায় হত্যায় বাধা দেওয়ায় মিন্নিকে রিমান্ডে নেওয়া হলো। অথচ যারা প্রকাশ্যে খুন করলো, তারা এখনও সবাই গ্রেফতার হয়নি। এসব খুনিদের গডফাদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। মিন্নির পক্ষে কোনো আইনজীবী নেই। এসব ধর্ষক, নিপীড়ক ও হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি যদি দেওয়া হতো, তাহলে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি আর হতো না। সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শম্পা বসুর সভাপতিত্বে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির সাংগঠনিক সম্পাদক দিলরুবা নূরী, নারীনেত্রী ডা. মনিষা চক্রবর্তী, জেসমিন আক্তার, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের নগর সাধারণ সম্পাদক মুক্তা বাড়ৈ প্রমুখ।

আরো খবর...