দৌলতপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় আহত হওয়ার অভিযোগ

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মঈন উদ্দিন মোহন-এর ওপর মাদক ব্যবসায়ীরা হামলা করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। আহত অবস্থায় তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের ভর্তি করা হয়েছে। তার পিঠে কাধের নিচে কেটে গেছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে দৌলতপুর উপজেলার বালিরদিয়াড় গ্রামের স্থানীয় বাজার এলাকায় হামলার এ ঘটনা ঘটে। মঈন উদ্দিন মোহনের দাবি করেন, মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে বক্তব্য ও সোচ্চার হওয়ায় তার ওপর এ হামলা চালানো হয়েছে। তিনি বলেন, এলাকার কিছু চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে উপজেলার বিভিন্ন সভায় বিভিন্ন সময়ে বক্তব্য দেন। এনিয়ে তার এলাকা বালিরদিয়াড়ের বেশ কিছু মাদক ব্যবসায়ী তার ওপর ক্ষুব্ধ। তারই ধারাবাহিকতায় স্থানীয় বালিরদিয়াড় ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শাহ আলম মোল্লা, আহাদ মোল্লা, চঞ্চল মোল্লা, তুফান, মিলন ও নুরু মোল্লাসহ ৭-৮ জন সশস্ত্র সংঘবদ্ধ হয়ে গতকাল মঙ্গলবার সকালে দৌলতপুর উপজেলা পরিষদ অফিসে যাবার পথে তার ওপর হামলা চালায়। এতে তিনি আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, শাহ আলম মোল্লাসহ তার লোকজন এলাকায় মাদকের ব্যবসা করে। এজন্যই তার ওপর হামলা হয়েছে। তিনি থানায় লোক পাঠিয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। স্থানীয় একটি সূত্র বলছে, শাহ আলম ও তার পরিবারের সাথে ময়েন উদ্দিনের পূর্ব বিরোধ রয়েছে। সম্প্রতি অন্যের স্ত্রীকে প্রলোভন দিয়ে বাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়ার অপরাধে এক ব্যক্তিকে পুলিশ আটক করে। এনিয়েও তাদের মধ্যে বিরোধ আরও প্রকট হয়। এ ঘটনার জের ধরে হামলার এ ঘটনা ঘটেছে। দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ দারা খান বলেন, মাদক নিয়ে কোন ঘটনা না। দু’জনই দু’জনের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা করার অভিযোগ করেন। তাদের মধ্যে পূর্ব ও পারিবারিক বিরোধ রয়েছে। এলাকায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মামলা হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরো খবর...