দৌলতপুরে চাঁদার দাবীতে ক্যানসার রোগীকে পেটালো যুবলীগ নেতা বাবু : স্ত্রীকে গণধর্ষণের হুমকি

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে এক লক্ষ টাকা চাঁদা না পেয়ে নাজমুল হুসাইন (৩২) নামে এক ক্যানসার রোগীকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করেছেন যুবলীগ নেতা গাজী সালাউদ্দীন বাবু ও তার ক্যাডার বাহিনী। বুধবার বিকেলে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দাড়েরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত অবস্থায় নাজমুল হুসাইন দৌলতপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সে উপজেলার একই গ্রামের মৃত সামসুজ্জোহার ছেলে। এ ব্যাপারে দৌলতপুর থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। আহত নাজমুল তার অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, গত এক মাসে আগে একই গ্রামের হাসেম মালিথার ছেলে দৌলতপুর যুবলীগ নেতা গাজী সালাউদ্দীন বাবু তার ক্যাডার বাহিনী নিয়ে নিজ বাড়ি থেকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একটি মাঠের মধ্যে নিয়ে তার কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। দাবীকৃত টাকা না দিলে নাজমুলকে হত্যার হুমকি দেয় বাবু। নাজমুল প্রাণের ভয়ে বাবুকে এক লক্ষ টাকা দিয়ে তখন মুক্তি পায়। এ ঘটনার ১৫ দিন পর বাবু ফের নাজমুলের কাছে আবারও পাঁচ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। দাবীকৃত টাকা না দিলে অস্ত্র বা মাদক দিয়ে নাজমুলকে পুলিশে দেয়ার হুমকি দেয় বাবু। সেই সাথে নাজমুলের স্ত্রীকে গণধর্ষণের হুমকিও দেয় বাবু ও তার ক্যাডাররা। চাঁদার পাঁচ লক্ষ টাকা না দেয়ায় গত বুধবার বিকেলে বাবু তার ক্যাডারদের নিয়ে নাজমুলের বাড়িতে গিয়ে নাজমুলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে এবং বেধড়ক মারপিট করে আহত করে। পরে বাড়ির লোকজন নাজমুলকে বাবুর হাত থেকে উদ্ধার করে দৌলতপুর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নাজমুল দৌলতপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আরো খবর...