দৌলতপুরে এক মাসেও সন্ধান পাওয়া যায়নি হ্যাবলের

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে নিখোঁজ হওয়ার প্রায় এক মাস হতে চললো তারপরও সন্ধান পাওয়া যায়নি হ্যাবলের। গত ২১ এপ্রিল বিকেলে উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের পাকুড়িয়া হাইস্কুল মাঠ থেকে সাদা পোশাকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে হ্যাবল মালিথা (৪৮) কে আটক করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় হ্যাবল মালিথার মেয়ে মেরিনা আক্তার হাসি দৌলতপুর থানায় একটি জিডি করেছেন এবং তার ছেলে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগও করেছেন। জিডি ও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, উপজেলার পাকুড়িয়া গ্রামের মৃত সিরাজ মালিথার ছেলে হ্যাবল মালিথাকে গত ২১ এপ্রিল বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সাদা পোশাকধারী কতিপয় ব্যক্তি প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে হ্যাবলকে অস্ত্রের মুখে হ্যান্ডকাফ পরিয়ে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে নিয়ে যায়। এরপর থেকে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরসহ সম্ভাব্য সব স্থানে সন্ধান চালিয়ে তার খোঁজ মিলেনি। এঘটনার ৩দিন পর ২৪ এপ্রিল দৌলতপুর থানায় একটি জিডি করা হয় যার নং ১০৫৯। হ্যাবল মালিথা নিখোঁজের ঘটনায় বিভিন্ন দপ্তরে তার ছেলে আকাশ আহমেদ অভিযোগ করেন, সীমান্তবাসী হওয়ায় বিনা কারনে পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বিভিন্ন সময় হ্যাবল মালিথাকে হয়রানি করে থাকে। যার কারনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আত্মসমর্পন করার সিদ্ধান্ত নেয় হ্যাবল মালিথা। এর আগেই তাকে সাদা পোশাকধারীরা আটক করে নিয়ে যায়। সন্ধান চেয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের নজরে নেওয়ার জোর দাবি জানিয়েছে নিখোঁজ হ্যাবল মালিথার পরিবার।

আরো খবর...