দোলাসহ আরও ৫ জনের লাশ শনাক্ত

চুড়িহাট্টা ট্রাজেডি

ঢাকা অফিস ॥ চুড়িহাট্টা অগ্নিকান্ডের পর একসঙ্গে নিখোঁজ ছিলেন দুই বন্ধু রেহনুমা তারান্নুম দোলা ও ফাতেমাতুজ জোহরা বৃষ্টি। দুই সপ্তাহ পর আগুনে পোড়া লাশের মধ্যে বৃষ্টিকে শনাক্ত করা গেলেও পাওয়া যাচ্ছিল না দোলাকে। ঢাকা মেডিকেল কলেজসহ বিভিন্ন হাসপাতলের মর্গে থাকা বাকি লাশগুলো থেকে ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে তিন সপ্তাহ পর শনাক্ত করা হয়েছে দোলাকেও। দোলাসহ আরও পাঁচজনের মরদেহ শনাক্ত করার কথা গতকাল মঙ্গলবার জানিয়েছেন সিআইডি’র অতিরিক্ত আইজিপি শেখ হিমায়েত হোসেন। অন্য চারজন হলেন হাজী ইসমাইল, ফয়সাল সারওয়ার, মোস্তফা ও মোহাম্মদ জাফর। রাজধানীর মালিবাগে সিআইডি সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে এই পাঁচজনের লাশ শনাক্ত করা হয়েছে। তিনি জানান, মর্গে থাকা মোট ১৬টি মরদেহের পরিচয় ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে শনাক্ত করা হয়েছে। এখনও তিনটি লাশ অশনাক্ত অবস্থায় আছে।

চকবাজারের চুড়িহাট্টায় গত ২০ ফেব্র“য়ারি ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের পর ৬৭টি লাশ আনা হয়েছিল ঢাকা মেডিকেলে। তার মধ্যে ৪৮টি লাশ তাদের স্বজনরা চিহ্নিত করে নিয়ে গেলেও বাকিগুলো আগুনে পুড়ে যাওয়ায় খালি চোখে তা শনাক্ত করা যাচ্ছিল না। তাই ডিএনএ পরীক্ষার জন্য সিআইডিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। এই অগ্নিকান্ডে আহতদের মধ্যে চারজনের মৃত্যু ঘটায় নিহতের সংখ্যা ৭১ জনে পৌঁছেছে।

আরো খবর...