জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া আর তারেক এই তিনজন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের রক্ষা করেছে

মিরপুরে বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কাজের উদ্বোধনকালে হাসানুল হক ইনু

কাঞ্চন কুমার ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে দিনব্যাপি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের উদ্বোধন করেছেন জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। গতকাল শুক্রবার সকালে মিরপুর উপজেলার জিএম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের উদ্বোধন করেন তিনি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জিএম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ইয়াদুল হকের সভাপতিত্বে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। এসময় তিনি বলেন, বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বাধীনতা বিরোধী ও কিছু দুস্কৃতিকারীরা হত্যা করেছে। বর্তমান সরকার তাদের বিচার করছে। বাংলাদেশের রাজনীতি অনেক ইতিহাস রয়েছে। সরকার অদল বদল করে ইতিপূর্বে কোন লাভ হয়নি। ইতিপূর্বের বিএনপি সরকার সাধারন মানুষের উন্নয়ন করেনি। তারা দূর্নীতি করে নিজেদের উন্নয়ন করেছে। বিএনপির ক্ষমতাকালে ঘরে বিদ্যুৎ ছিলনা, অন্ধকার ছিল, পাকা রাস্তা ছিলো না, যাতায়াত ব্যবস্থা ভালো ছিলো না। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ছিলো, মানুষ নিরাপদে বসবাস করতে পারতো না। আমি যখন ২০০৮ সালে নির্বাচিত হই, তখন বলেছিলাম আমি এই এলাকা থেকে অন্ধকার দুর করে দেব, কাঁদা দুর করে দেব, এলাকার সন্ত্রাস ধ্বংস করবো। বর্তমানে এলাকায় সন্ত্রাস বন্ধ করে দিয়েছি, পাকা রাস্তা দিয়েছি, প্রায় ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো পৌছে দিয়েছি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন করেছি। বেকারত্ব অনেকটাই কমে গেছে। তিনি আরো বলেন, দেশে এই মুহুর্তে আগামী ডিসেম্বর নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। খালেদা জিয়া বর্তমানে কারাগারে রয়েছে। তিনি এতিমদের টাকা আত্মসাৎ করেছে। তার বড় ছেলে টাকা বিদেশে পাচারের আসামী। জেনারেল জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া আর তারেক এই তিনজন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের রক্ষা করেছে। বাংলাদেশে যত রাজনৈতিক অপকর্ম রয়েছে হত্যা, খুন, গুম, আগুন সন্ত্রাস, জঙ্গি সন্ত্রাস, টাকা পাচার, রাজাকার আমদানীসহ সব অপকর্মের সাথে জড়িত এই তিনজন। তিনি খালেদা জিয়াকে উদ্যেশ্য করে বলেন, আপনি চুরি করবেন আর আমি চোরকে চোর বলবো না এটা কেমন কথা। মামার বাড়ীর আবদার নাকি? আপনারা চুরি বন্ধ করেন আমি বলবো না। মন্ত্রী বলেন, ১৫ আগষ্ট সারা দেশের মানুষ জাতীর পিতার আত্মার জন্য দোয়া করলো, শোক পালন করলো আর খালেদা জিয়া ও বিএনপি মিথ্যা জন্মদিন পালন করলো। তার মানে তারা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সমর্থন করলো। জন্মদিন পালনের নামে মিথ্যা আনন্দ বাদ দিন। তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকারের সময়ে যে উন্নয়ন হয়েছে তার ধারা অব্যহত রাখতে হলে আপনাদের আগামী জাতীয় নির্বাচনে আবারো মহাজোট সরকারকে ভোট দিয়ে ক্ষমতায় আনতে হবে। তাই আপনাদের কাছে আমাদের একটাই চাওয়া দেশের শান্তির জন্য শেখ হাসিনার পক্ষে থাকবেন এবং আবারো মহাজোটকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন। মিরপুর উপজেলা জাসদের সাংগাঠনিক সম্পাদক আফতাব উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুর-ই-আলম সিদ্দিকী, জাসদ কেন্দ্রীয় নেতা মহাম্মদ আব্দুল্লাহ, কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী সায়েদুর রহীম, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আনান্দ কিশোর সাহা, মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জামাল আহম্মেদ, জেলা জাসদের সভাপতি গোলাম মহসীন, মিরপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বাহাদুর শেখ, মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, মিরপুর উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক আহাম্মদ আলী, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক কারশেদ আলম, ভেড়ামারা উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক এসএম আনসার আলী, মিরপুর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম, আমবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মিলন, মালিহাদ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বদর উদ্দিন ভদু, বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশনের সাবেক যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলাম, হাজ্বী নুরুল ইসলাম কলেজে অধ্যক্ষ শরিফুল ইসলাম, সদরপুর ইউনিয়ন জাসদের সভাপতি সাবদার আলী, বহলবাড়ীয়া ইউনিয়ন জাসদের সভাপতি সাইদুর রহমান মিন্টু প্রমুখ। এসময় স্থানীয় বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ, মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। এর পরে মন্ত্রী উপজেলার আমলা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আফতাব উদ্দিনের স্ত্রী মারা যাওয়ায় শোক সন্তপ্ত পরিবারের কাছে সমবেদনা জানাতে যান। এরপর মন্ত্রী উপজেলার পোড়াদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় গেট থেকে বাবুপাড়া ভায়া জিপিএস পোষ্ট অফিস সড়কের উন্নয়ন কাজের শুভ উদ্বোধন করেন এবং পোড়াদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে হলে সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

আরো খবর...