চেন্নাইকে হারিয়ে আইপিএলের রেকর্ড চতুর্থবার শিরোপা জিতলো মুম্বাই

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ চেন্নাই সুপার কিংসকে হারিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দ্বাদশ আসরের শিরোপা জিতে নিলো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। রবিবার রাতে অনুষ্ঠিত উত্তেজনাপূর্ণ ফাইনালে মুম্বাই ১ রানে হারায় চেন্নাই সুপার কিংসকে। এই নিয়ে টুর্নামেন্ট রেকর্ড চতুর্থবার শিরোপা জিতে নিলো মুম্বাই। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ তিনবার আইপিএলের শিরোপা জয় করেছে চেন্নাই সুপার কিংস। হায়দারাবাদে অনুষ্ঠিত ফাইনালে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় মুম্বাই। ব্যাট হাতে নেমে ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার উইকেটরক্ষক কুইন্ট ডি কক ও অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ৪ দশমিক ৫ ওভারেই ৪৫ রান তোলেন তারা। কিন্তু ঐ স্কোরেই চার বলের ব্যবধানে বিদায় নেন দু’জনে। ডি কক ১৭ বলে ২৯ ও রোহিত ১৫ রান করেন। এরপর দলের হাল ধরেন সুরইয়াকুমার যাদব ও ইশান কিশান। ৩৭ রানের জুটি গড়েন তারা। ব্যক্তিগতভাবে বড় ইনিংস খেলতে পারেননি তারা কেউই। সুরইয়াকুমার ১৫ ও কিশান ২৩ রান করে থামেন। পাঁচ নম্বরে নেমে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন ক্রুনাল পান্ডিয়াও। ৭ রান করেন তিনি। এতে ১০১ রানে পঞ্চম উইকেট হারায় মুম্বাই। এ অবস্থায় দলকে ভালো সংগ্রহ এনে দেয়ার চেষ্টা করেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাইরন পোলার্ড ও হার্ডিক পান্ডিয়া। ১টি করে চার-ছক্কায় ১০ বলে ১৬ রান করে থামেন হার্ডিক। তবে ইনিংসের শেষ পর্যন্ত ব্যাট করে মুম্বাইকে সম্মানজনক স্কোর এনে দিতে সক্ষম হন পোলার্ড। ৩টি করে চার-ছক্কায় ২৫ বলে অপরাজিত ৪১ রান করেন তিনি। দল পায় ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪৯ রানের সংগ্রহ। চেন্নাইয়ের দীপক চাহার ৩টি উইকেট নেন। শিরোপা জিততে ১৫০ রানের টার্গেট পায় চেন্নাই। মারমুখী মেজাজে শুরু করে দলকে ৪ ওভারে ৩৩ রান এনে দেন চেন্নাইয়ের দুই ওপেনার দক্ষিণ আফ্রিকার ফাফ ডু-পে¬সিস ও অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়াটসন। ডু-পে¬সিস ১৩ বলে ২৬ রান করে বিদায় নেন। তার বিদায়ের পর মিডল-অর্ডারে দ্রুতই তিন উইকেট হারায় চেন্নাই। তবে এক প্রান্ত আগলে দলের রানের চাকা সচল রেখেছিলেন ওয়াটসন। চেন্নাইয়ের আশা ভরসা হিসেবে ছিলেন তিনিই। অন্য ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার মাঝেও ওয়াটসনের ব্যাটিং-এ জয়ের স্বপ্ন দেখছিলো চেন্নাই। কারণ শেষ ওভারে ৯ রান দরকার ছিলো চেন্নাইয়ের। হাতে ছিলো ৫ উইকেট। উইকেটে ৫৬ বলে ৭৬ রানে অপরাজিত ছিলেন ওয়াটসন। শেষ ওভারে বল হাতে আক্রমনে আসেন মুম্বাইয়ের শ্রীলংকার পেসার লাসিথ মালিঙ্গা। নিজের প্রথম ৩ ওভারে ৪২ রান দিলেও ইনিংসের শেষ ওভারে প্রথম তিন বল থেকে চার রান দেন মালিঙ্গা। চতুর্থ বলে রান আউটের শিকার হন ওয়াটসন। আর শেষ বলে শারদুল ঠাকুরকে তুলে নিয়ে মুম্বাইয়ের শিরোপা জয় নিশ্চিত করেন শ্রীলংকান এ পেসার। ৮টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৫৯ বলে চেন্নাইয়ের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮০ রান করেন ওয়াটসন। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৪৮ রান পর্যন্ত যেতে সক্ষম হয় চেন্নাই। মুম্বাইয়ের পেসার জসপ্রিত বুমরাহ ১৪ রানে ২ উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন বুমরাহ ও টুর্নামেন্ট সেরা হন কলকাতা নাইট রাইডার্সের আন্দ্রে রাসেল।

আরো খবর...