গুয়ার্দিওলার ক্যারিয়ারের ‘সবচেয়ে কঠিন’ শিরোপা জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ প্রিমিয়ার লিগের শেষ ম্যাচ পর্যন্ত ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছিল লিভারপুল। শেষ পর্যন্ত এক পয়েন্টের ব্যবধান ধরে রেখে লিভারপুলকে পেছনে ফেলে লিগের মুকুট ধরে রেখেছে ম্যানচেস্টার সিটি। পেপ গুয়ার্দিওলাও জানিয়েছেন, এটাই তার কোচিং ক্যারিয়ারের সবচেয়ে কঠিন শিরোপা। রোববার লিগের শেষ দিনে ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিওনের মাঠে ৪-১ গোলে জিতে ৯৮ পয়েন্ট নিয়ে শিরোপা ধরে রাখে সিটি। আর অ্যানফিল্ডে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সকে ২-০ গোলে হারানো লিভারপুল ৩৮ ম্যাচে ৯৭ পয়েন্ট নিয়ে রানার্সআপ হয়। কোচিং ক্যারিয়ারে বার্সেলোনার হয়ে স্পেনের লা লিগা, বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে জার্মানির বুন্ডেসলিগার শিরোপা জেতা গুয়ার্দিলার হাত ধরে গত মৌসুমেও সিটি ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জিতেছিল। তবে গতবার এত বেগ পেতে হয়নি দলটিকে। ইপিএলের এবারের শিরোপাকে তাই সবচেয়ে কঠিন বলেই ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন গুয়ার্দিওলা। “এই শিরোপাটি জিততে আমাদের টানা ১৪টা ম্যাচ জিততে হয়েছে। এখন পর্যন্ত এটাই আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে কঠিন শিরোপা জয়।” গতবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের চেয়ে ১৯ পয়েন্ট এগিয়ে থেকে ১০০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শিরোপা জিতেছিল সিটি। এবার লিভারপুলের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান মাত্র ১। গুয়ার্দিওলা তাই লিভারপুলকে ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি। “অবশ্যই আমি লিভারপুলকে অভিনন্দন জানাতে চাই-তোমাদেরকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। গত মৌসুমে ম্যানচেস্টার সিটি একটা মানদন্ড তৈরি করেছিল। লিভারপুল আমাদের গত মৌসুমের চেয়ে মানদন্ড আরো বাড়াতে সাহায্য করেছে।” লিগের ইতিহাসে একমাত্র ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেরই আছে টানা তিন মৌসুমে শিরোপা জয়ের কীর্তি। দুইবার করে করেছিল তারা ১৯৯৮-৯৯, ১৯৯৯-২০০০ ও ২০০০-০১ এবং ২০০৬-০৭, ২০০৭-০৮ ও ২০০৮-০৯ মৌসুমে। আগামী মৌসুমে সিটির সামনেও থাকবে সুযোগ। গুয়ার্দিওলার আশাবাদী। “এটা করা আরও কঠিন হবে কিন্তু আমরাও আরও শক্তিশালী হবো।” “যখন আপনি টানা দুইবার জিততে পারবেন, আমি অনুভব করছি পরের মৌসুমে আমরা ফিরে এখন যে জায়গাতে আছি, সেখানে থাকার চেষ্টা করব।”

আরো খবর...