খুনের চেয়েও বড় অপরাধ ম্যাচ ফিক্সিং – ধোনি

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বিশ্ব ক্রিকেটে স্পট ফিক্সিং তথা ম্যাচ গড়াপেটার ঘটনা এখন খুবই প্রকট হয়ে দাঁড়িয়েছে। একের পর এক বড় ধরনের শাস্তি দিয়েও থামানো যাচ্ছে না ম্যাচ পাতানোর ঘটনা। এ নেতিবাচক কাণ্ডের বিরুদ্ধে সোচ্চার সাবেক ভারতীয় বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ক্রিকেটার বা সংশ্লিষ্টদের নিজ দলের সঙ্গে প্রতারণা করে প্রতিপক্ষ দলকে বাড়তি সুবিধা দেয়া কিংবা বাজিকরদের কাছ থেকে মোটা অংকের অর্থ নিয়ে বিশেষ কোনো উদ্দেশ্য পূরণ করাকে হালকাভাবে নেয়ার সুযোগ নেই। ফিক্সিং প্রমাণিত হলে অবশ্যই শাস্তি পেতে হয় তাদের। একবার ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগে উঠেছিল খোদ ধোনির বিরুদ্ধেও। আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে ওঠা অভিযোগে জড়িয়ে যায় তার নাম। পরে তদন্তে নির্দোষ প্রমাণিত হন তিনি। তবে ২ বছর নিষিদ্ধ হয় অধিনায়কের দল। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে গেল বছর আইপিএলে ফিরেছে চেন্নাই। ফিরেই করেছে বাজিমাত করেছে। রাজকীয় প্রত্যাবর্তনে ফের জিতেছে শিরোপা। এ ম্যাচ ফিক্সিং ইস্যু এবং পরে দোর্দন্ড প্রতাপে ফিরে আসাকে ফুটিয়ে তুলতে ধোনিকে নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র (ডক্যুমেন্টারি) বানাতে যাচ্ছে এক খ্যাতনামা স্বদেশি প্রতিষ্ঠান। এর আগে ধোনিকে নিয়ে ‘মহেন্দ্র সিং ধোনি : দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ নামে একটি সিনেমা তৈরি হয়েছে। এবার হতে যাচ্ছে ‘রোর অব দ্য লায়ন’। এতে আগের ছবিতে বাদ পড়া অনেক ঘটনাও থাকবে। গেল রোববার মুক্তি পেয়েছে এ সিনেমার ট্রেইলার। এতে ম্যাচ ফিক্সিংকে খুনের চেয়েও বড় অপরাধ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন ধোনি। তার মতে, একজন মানুষের সর্বোচ্চ অপরাধ হত্যা নয়। এটি ম্যাচ ফিক্সিং। ক্যাপ্টেন কুল বলেন, আমার দল একবার এ জঘণ্য কাজে জড়িয়ে ছিল। আমার নামও এসেছিল। সেটা আমাদের জন্য কঠিন সময় ছিল। সমর্থকেরা বলত, শাস্তিটা বেশি হয়ে গিয়েছিল। ফলে পুনরায় ফেরাটা ছিল খুবই আবেগপূর্ণ। আমি সবসময়ই বলি,যা মানুষকে মেরে ফেলতে পারে না। তা তাকে আরো শক্তিশালী করে।

আরো খবর...