কুমারখালীতে মুরগী ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার

কুমরখালী প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে শামীম আহমেদ (৫৫) নামের এক মুরগী ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সকালে উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের রামনগর দক্ষিণপাড়ার একটি পুকুর পাড় থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত শামীম রামনগর গ্রামের কাজী বজলুর রহমানের ছেলে। বুধবার বিকালে পান্টি বাজারে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন এবং সারারাত নিখোঁজ থাকেন। রাতে বাড়িতে না আসায় খুব সকাল থেকেই স্বজনেরা বিভিন্ন এলাকায় খোঁজা-খুঁজি করতে থাকে। এক পর্যায়ে রামনগর দক্ষিণপাড়ার একটি পুকুর পাড়ে শামীমের মরদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা। এ খবর পেয়ে পান্টি ক্যাম্পের পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দুপুরে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান জানান, মরদেহে কোন প্রকার আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে স্ট্রোক বা অন্য কোন কারণে তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। এ ব্যাপারে কুমারখালী থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। অন্যদিকে, নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, বুধবার ব্যবসায়ীক পাওনাদারেরা পাওনা টাকার দাবীতে শামীমের বাড়িতে আসে এবং তাকে টাকা ফেরত দিতে চাপ দেয়। এ ঘটনার পরপরই (বিকালে) শামীম বাড়ি থেকে বের হয় এবং রাতে বাড়ি ফেরেনি। নিহত শামীমের ভাই দাবী করেন, পাওনাদারদের পাওনা টাকা না দেওয়ার কারণে তাকে কৌশলে হত্যা করে থাকতে পারে।

আরো খবর...