কাশ্মিরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিরাপত্তা বাহিনীর ৪ সদস্য নিহত

ঢাকা অফিস ॥ পাকিস্তান সীমান্তে উত্তেজনার মধ্যেই ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের কুপওয়ারা জেলায় ‘সন্ত্রাসীদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে’ দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর চার সদস্য নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (১ মার্চ) নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান চলাকালে এই ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়। এতে আরও প্রায় ৮ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। কুপওয়ারা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, বিশেষায়িত বাহিনী সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স (সিআরপিএফ) ও পুলিশ মিলে একটি এলাকায় যৌথ অভিযানে গেলে সন্ত্রাসীরা বেরিয়ে নির্বিচারে গুলি ছুড়তে থাকে। এ সময় সিআরপিএফের এক পরিদর্শক, এক জওয়ান এবং দুই পুলিশ সদস্য নিহত হন। আহত হন আরও ৮ জন। একইদিন সকালে কাশ্মিরেই আরেকটি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে বলে জানায় নিরাপত্তা বাহিনী। উত্তপ্ত কাশ্মিরে গত ১৪ ফেব্র“য়ারি বিকেলে সিআরপিএফের গাড়িবহরে ভয়াবহ জঙ্গি হামলায় ৪৪ জওয়ান নিহত হন। জঙ্গিদের মদত দেওয়ার জন্য ইসলামাবাদকে অভিযুক্ত করে এর মোক্ষম জবাব দিতে গত ২৬ ফেব্র“য়ারি ভোরের দিকে পাকিস্তানের বালাকোট শহরে জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদের আস্তানায় হামলা চালায় ভারতীয় বিমান বাহিনী। এর একদিন পরই বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ভারতের দু’টি যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত ও পাইলট উইং কমান্ডার অভিনন্দনকে আটক করে পাকিস্তান। এরপর ভারত তাদের পাইলটকে ফেরত চেয়ে দিল্লিতে নিযুক্ত দেশটির উপ-হাইকমিশনারকে ডেকে পাঠায়। এর মাঝেই বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্র“য়ারি) পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ঘোষণা দেন, ‘শান্তির স্বার্থে’ শুক্রবার অভিনন্দনকে মুক্তি দেওয়া হবে। তার ঘোষণা অনুযায়ী এখন সীমান্তে অভিনন্দনকে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

আরো খবর...