কালীগঞ্জে চাল কম দেওয়ায় চেয়ারম্যানের গালে ভ্যান চালকের চড়

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ভিজিএফ’র চাল ওজনে কম দেওয়ায় চেয়ারম্যান নাসির উদ্দীন চৌধুরীকে চড় মেরেছে শরিফুল ইসলাম নামে এক ভ্যান চালক। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ৫নং শিমলা রোকনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে। ঈদ উপলক্ষ্যে জনপ্রতি ২০ কেজি করে দেওয়ার কথা থাকলেও শিমলা-রোকনপুর ইউনিয়নে ১০ কেজি করে দুস্থদের মাঝে চাল বিতরণ করা হয়। রোববার দুপুরে চেয়ারম্যান নাসির চৌধুরীর উপস্থিতিতে ভ্যান চালক শরিফুলকে ৭ কেজি চাল দেয় গ্রাম পুলিশ আব্দুল হাকিম। ওজনে কম দেওয়া চাল নিতে অস্বীকৃতি জানায় ভ্যান চালক শরিফুল। এসময় ক্ষুদ্ধ চেয়ারম্যান নাসির উদ্দীন ভ্যান চালকের মুখে চড় মেরে বলে “ হাট শালা তোর চাল দেওয়া হবে না”। এ সময় ভ্যান চালক শরিফুলও চড়ের প্রতিবাদে পাল্টা চড় বসিয়ে দেয় চেয়ারম্যানের মুখে। চেয়ারম্যানের মুখে চড় মরার পর সেখানে উপস্থিত গ্রাম পুলিশের সদস্যরা ভ্যান চালক শরিফুলকে বেধড়ক মারপিট বের করে দেয়। ঘটনার পর রোববার বিকালেই ভ্যান চালক শরিফুল ইসলাম কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দেন। শরিফুল ইসলাম কালীগঞ্জ উপজেলার ছোটশিমলা গ্রামের ছবেদ আলী মন্ডলের ছেলে। তথ্য নিয়ে জানা গেছে, ইউনিয়নে মোট ভিজিএফ কার্ডধারী ৮৮৪ জন। সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক ওই ইউনিয়নের ৪৮৩ জনকে ২০ কেজি করে চাল বিতরণ করার কথা থাকলেও কারো কারো ১০ কেজি করে দেওয়া হয়। এ ব্যাপারে শিমলা রোকনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাসির উদ্দীন চৌধরী মুঠোফোনে জানান, শরিফুল ইসলাম ভিজিএফএর তালিকাভুক্ত না। গরিব হওয়ায় মানবিক কারনে তাকে ১০ কেজি চাল দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি চাল না নিয়ে গ্রাম পুলিশদের মারধর করেন। তার মুখে ভ্যান চালক শরিফুল চড় মরেনি বলেও তিনি জানান। তবে শরিফুল জানান, চেয়ারম্যান তাকে চড় মারলে তিনিও প্রতিবাদ স্বরূপ একটি চড় মেরে প্রতিশোধ নেন।

আরো খবর...