উন্নত জাতের মুরগি ‘স্বর্ণা’ লেয়ার

কৃষি প্রতিবেদক ॥ নতুন জাতের ডিম পাড়া (লেয়ার) মুরগি উদ্ভাবন করেছে বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএলআরআই)। উদ্ভাবিত এ নতুন জাতের মুরগির নাম দেয়া হয়েছে ‘বিএলআরআই লয়ার স্ট্রেইন-২’ বা ‘স্বর্ণা’। বিএলআরআই সূত্র জানায়, স্বর্ণা মুরগির উদ্ভাবক মো. নজরুল ইসলাম। নতুন জাতের মুরগি উদ্ভাবনের গবেষণায় তার সহযোগী ছিলেন বিএলআরআইয়ের পোলট্রি উৎপাদন গবেষণা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মো. সাজেদুল করিম সরকার, গবেষক মো. রাকিবুল হাসান ও মো. আবদুর রশিদ। বিএলআরআই কর্তৃপক্ষের দাবি, খামারপর্যায়ে মুরগিটি পালন করে এর উৎপাদনদক্ষতা যাচাই করা হয়েছে এবং তাতে আশাব্যঞ্জক ফল পাওয়া গেছে। এ ছাড়া মুরগিটির সম্ভাবনা দেশের বিভিন্ন এলাকায় মাঠপর্যায়ে যাচাই করা হচ্ছে। এই জাতটির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো, একদিন বয়সের বাচ্চার গায়ের রং দেখেই এটি মোরগ না মুরগি, তা শনাক্ত করা যায়। এটি ১০০ সপ্তাহ পর্যন্ত লাভজনক হারে ডিম উৎপাদন করে। ডিমের রং বাদামি এবং আকারে বড়। গবেষক মো. রাকিবুল হাসান জানান, বর্তমানে খামারে যেসব মুরগি বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করা হয়, সেগুলো ৮০ সপ্তাহ পর্যন্ত লাভজনক হারে ডিম উৎপাদন করে। কিন্তু স্বর্ণা মুরগি এর থেকে ২০ সপ্তাহ বেশি ডিম উৎপাদন করে। নতুন উদ্ভাবিত মুরগির জাতটি প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর ও ব্রিডিং কোম্পানিগুলোর মাধ্যমে দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে পারলে খামারিরা লাভবান হবেন বলে মনে করেন তিনি।
গবেষক মো. সাজেদুল করিম সরকার বলেন, বিএলআরআই ও জাইকার কারিগরি সহায়তায় শুভ্রা নামের একটি সাদা জাতের ডিম পাড়া মুরগি উদ্ভাবন করে। এরপর বিএলআরআই আরও গবেষণা চালায়। এরই ধারাবাহিকতায় উদ্ভাবিত হয়েছে সোনালি ডিমের মুরগি ‘স্বর্ণা’। তিনি আরও জানান, একদিন বয়সেই পুরুষ বাচ্চার পালকের রং সাদা এবং মেয়ে বাচ্চার পালকের রং হালকা বাদামি বর্ণের হয়। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মুরগির পালকের রং গাঢ় বাদামি বা সোনালি বর্ণ ধারণ করে। লাল ঝুঁটি ও সোনালি পালকবিশিষ্ট এই নতুন জাতের মুরগি অন্যান্য হাইব্রিড মুরগির মতোই ২০ সপ্তাহ বয়সে ডিম দেয়া শুরু করে এবং টানা ১০০ সপ্তাহ পর্যন্ত ডিম দেয়।

আরো খবর...