ঈদে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট ২২ মে থেকে

ঢাকা  অফিস ॥ ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আগামি ২২ মে থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। আর ফিরতি টিকিট বিক্রি শুরু হবে ২৯ মে। গতকাল সোমবার দুপুরে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান রেল সচিব মোফাজ্জেল হোসেন। এ বিষয়ে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা শরিফুল আলম জানান, ঈদে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির বিষয়ে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে। এদিকে জানা গেছে, যাত্রীদের দুর্ভোগ কমাতে কমলাপুর ছাড়াও পাঁচ স্থান থেকে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে। এবার ৫০ শতাংশ টিকিট অনলাইনে বিক্রি হবে। টিকিট কালোবাজারিরোধে জাতীয় পরিচয়পত্র দেখানোর পরই টিকিট দেওয়া হবে। শিডিউল ঠিক রাখতে ঈদের তিন দিন আগে থেকে কনটেইনার ও জ¦ালানি তেলবাহী ট্রেন ছাড়া অন্য মালবাহী ট্রেন চলবে না। ঈদের দিন বিশেষ ব্যবস্থায় কয়েকটি মেইল ট্রেন চালানো হবে, তবে কোনো আন্তঃনগর নয়। রেল সচিব মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, ঈদে মানুষের যাত্রা নিরাপদ করতে সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। রেলপথ মন্ত্রীর নেতৃত্বে সবাই মিলে কাজ করছি। এবার টিকিট কিনতেও ভোগান্তি পোহাতে হবে না। এবারই প্রথম ট্রেনের টিকিট স্টেশনের বাইরে বিক্রি করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এদিকে, ঘরমুখো যাত্রীদের ঈদযাত্রা নির্বিঘœ করতে ব্যাপক পরিকল্পনা নিয়েছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। সে লক্ষ্যে আসন্ন ঈদুল ফিতরে রেলওয়ের সেবায় যুক্ত হবে ১২টি স্পেশাল ট্রেন। ১৩৮টি বগি দিয়ে সাজানো হবে স্পেশাল ট্রেনগুলো। নিয়মিত ৩৩টি আন্তঃনগর ট্রেনের সঙ্গে ১২টি স্পেশাল ট্রেন যুক্ত করে মোট ৪৫টি ট্রেনে ঈদে যাত্রীদের সেবা দেবে বাংলাদেশ রেলওয়ে। ফলে ঈদ যাত্রায় বাড়ি ফেরা মানুষের ভোগান্তি অনেকটা কমবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, ঈদ উপলক্ষে রেলওয়ের সৈয়দপুর ও ঈশ্বরদী ওয়ার্কশপে বাড়তি বগি মেরামতের কাজ পুরোদমে চলছে। এছাড়াও দেশের সবচেয়ে বড় রেলওয়ে স্টেশনের ডিপোতে চলছে বগি মেরামতের কাজ। মেরামত কাজে রেলওয়ের যান্ত্রিক প্রকৌশলীরাও বেশ ব্যস্ত। ঈদুল ফিতরে রেলওয়ের সেবা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিলেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নারী ও প্রতিবন্ধীদের জন্য পর্যাপ্ত কাউন্টার খোলা হচ্ছে। কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে অগ্রিম টিকিট বিক্রির জন্য ২৩টি কাউন্টার খোলা হবে। সংশ্লিষ্টরা জানান, চলমান ৩৩ আন্তঃনগর ট্রেনে মোট আসন ২৫ হাজার ১৭৯টি। এর সঙ্গে স্পেশাল ট্রেনে যোগ হবে অন্তত ৬ হাজার আসন। এ ছাড়া রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলে ১১৬টি এবং পশ্চিমাঞ্চলে ১১১টি লোকোমোটিভ (ইঞ্জিন) সচল রয়েছে। ঈদে আরও দু’টি যুক্ত হবে। ট্রেনের শিডিউল ঠিক রাখতে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। সরেজমিনে দেশের সবচেয়ে বড় রেলওয়ে স্টেশন কমলাপুর গিয়ে দেখা গেছে, পুরাতন বগি মেরামতের কাজ চলছে পুরোদমে। এছাড়াও ট্রেনের তথ্য পেতে ডিজিটালাইজ মেশিন বসানো হয়েছে প্লাটফর্মে। এটিএম মেশিনের মতো এখানে নির্দিষ্ট বাটনে চাপ দিয়ে ট্রেনের সব তথ্য জানতে পারবেন যাত্রীরা। ট্রেনের তথ্য পেতে ভোগান্তি পোহাতে হবে না যাত্রীদের। জানা গেছে, আগামি ২২ থেকে ২৬ মে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি করবে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। ঈদ ফিরতি টিকিট বিক্রি হবে ২৯ মে থেকে ২ জুন। সেই সঙ্গে যাত্রীদের দুর্ভোগ কমাতে কমলাপুর ছাড়াও পাঁচ স্থান থেকে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে। এবার আমরা ৫০ শতাংশ টিকিট অনলাইনে বিক্রি হবে। টিকিট কালোবাজারিরোধে জাতীয় পরিচয়পত্র দেখানোর পরই টিকিট দেওয়া হবে। শিডিউল ঠিক রাখতে ঈদের তিন দিন আগে থেকে কনটেইনার ও জ¦ালানি তেলবাহী ট্রেন ছাড়া অন্য মালবাহী ট্রেন চলবে না। ঈদের দিন বিশেষ ব্যবস্থায় কয়েকটি মেইল ট্রেন চালানো হবে, তবে কোনো আন্তঃনগর নয়। রেল সচিব মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, ঈদে মানুষের যাত্রা নিরাপদ করতে সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। রেলপথ মন্ত্রীর নেতৃত্বে সবাই মিলে কাজ করছি। এবার টিকিট কিনতেও ভোগান্তি পোহাতে হবে না। এবারই প্রথম ট্রেনের টিকিট স্টেশনের বাইরে বিক্রি করার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আরো খবর...