আর্জেন্টিনা দলে ফিরলেন মেসি

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ দীর্ঘ বিরতি শেষে আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে ফিরেছেন লিওনেল মেসি। এ মাসে হতে যাওয়া ভেনেজুয়েলা ও মরক্কোর বিপক্ষে দুটি প্রীতি ম্যাচের জন্য বার্সেলোনা তারকাকে নিয়ে দল ঘোষণা করেছেন কোচ লিওনেল স্কালোনি। আট মাস পর আবারও জাতীয় দলের হয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছেন আন্তর্জাতিক ফুটবলে ১২৮ ম্যাচে ৬৫ গোল করা মেসি। গত বছর জুন-জুলাইয়ে হওয়া রাশিয়া বিশ্বকাপে ফ্রান্সের কাছে হেরে শেষ ষোলো থেকে আর্জেন্টিনা ছিটকে পড়ার পর আন্তর্জাতিক ফুটবলে আর মাঠে নামেননি ৩১ বছর বয়সী তারকা। আনহেল দি মারিয়াকেও দলে রেখেছেন স্কালোনি। মেসির মতো পিএসজির এই উইঙ্গারও গত বিশ্বকাপের পর মাঝে দেশের হয়ে কোনো ম্যাচ খেলেননি। তবে বৃহস্পতিবার ঘোষিত ৩১ সদস্যের দলে আগের মতোই জায়গা হয়নি দুই ফরোয়ার্ড সের্হিও আগুয়েরো ও গনসালো হিগুয়াইনের। আর চোটের কারণে বাইরে থাকা ইন্টার মিলান ফরোয়ার্ড মাউরো ইকার্দি স্বাভাবিকভাবেই ডাক পাননি। আগামী জুন-জুলাইয়ে হতে যাওয়া কোপা আমেরিকার আগে মেসির ফেরাটা আর্জেন্টিনার জন্য দারুণ এক সুখবর। গত বিশ্বকাপে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি সময়ের অন্যতম সেরা ফুটবলার। করেছিলেন মাত্র একটি গোল। তবে বরাবরের মতো বার্সেলোনার জার্সিতে  চলতি মৌসুমে দুর্দান্ত ছন্দে আছেন তিনি। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে করেছেন ৩৩ গোল। সংবাদ সম্মেলনে মেসির ফেরা প্রসঙ্গে স্কালোনি বলেন, “মেসিকে ডাকা হয়েছে। সে একটি নাকি দুটি ম্যাচ খেলবে, এ বিষয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নিব। (বার্সেলোনার হয়ে) সে অনেক ম্যাচ খেলছে এবং মৌসুমের এ সময়ে খেলোয়াড়রা ক্লান্ত থাকে এবং আন্তর্জাতিক সূচিতে বিশ্রাম নেয়। কিন্তু মেসি আসতে চেয়েছে আর এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা পদক্ষেপ। মেসি কতখানি খেলবে সে বিষয়ে আমি সিদ্ধান্ত নিব, অন্য কেউ নয়। আমি এখনও জানি না।” “বিশ্বকাপে যা হয়েছিল তা আমাদের জন্য একটা ধাক্কা, মেসির জন্যও তাই। তবে এখন সে ফিরতে মরিয়া।“ ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনাল ও পরের দুই বছরে কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু কোনোবারই শিরোপা জিততে পারেনি তারা। এ প্রসঙ্গে স্কালোনি বলেন, “অবশ্যই আমাদের দলে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় আছে। কিন্তু যেকোনো কারণেই হোক আমরা ভালো করতে পারিনি।” “আমরা তার সঙ্গে তিনটি ফাইনালে উঠেছি। শিরোপার খুব কাছাকাছি এসেছিলাম আমরা। জয় ও হারের মাঝে খুব সুক্ষ্ম একটা পার্থক্য আছে। আমার মনে হয়, আমরা মেসির সর্বোচ্চটা কাজে লাগিয়েছি আর আর্জেন্টিনা যদি একটা ম্যাচ জিততো তাহলে গল্পটা ভিন্ন হতো।” সাম্প্রতিক সময়ে ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে বেশ ভালো ছন্দে আছেন আগুয়েরো। তারপরও তাকে দলে না রাখাটা কিছুটা বিস্ময় জাগিয়েছে। তবে ৩০ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকারের সঙ্গে তার কোনো সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন স্কালোনি। “আগুয়েরোর সঙ্গে আমার সম্পর্ক দারুণ। তার সঙ্গে আমার কখনও কোনো মতানৈক্য হয়নি। সে খুব ভালো খেলোয়াড়। তাকে পরখ করার কিছু নেই, অন্য খেলোয়াড়দেরকে আমার দেখতে হবে।” আগামী ২২ মার্চ আতলেতিকো মাদ্রিদের মাঠ ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোতে ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে খেলবে আর্জেন্টিনা। এর চার দিন পর মরক্কোর বিপক্ষে মাঠে নামবে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

 

 

আরো খবর...