আমব্রিসের বীরত্বে উইন্ডিজের রেকর্ড গড়া জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ অ্যান্ডি বালবার্নির সেঞ্চুরি আর কেভিন ও’ব্রায়েনের ঝড়ো ফিফটিতে বড় সংগ্রহ গড়েছিল আয়ারল্যান্ড। তিনশ রানের লক্ষ্য তাড়ার অভিজ্ঞতা খুব বেশি না থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ গড়ল রেকর্ড। সুনিল আমব্রিসের বীরত্বে নিজেদের ইতিহাসের সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জিতে ক্যারিবিয়ানরা উঠে গেল ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে। সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে ৫ উইকেটে জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৩২৮ রানের লক্ষ্য পেরিয়ে গেছে ১৩ বল বাকি থাকতে। টুর্নামেন্টে এটা ক্যারিবিয়ানদের দ্বিতীয় জয়। ওয়ানডেতে এর আগে একবারই তিনশ বা তার বড় লক্ষ্য তাড়া করে জিতেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০১৭ সালে দেশের মাটিতে ৩০৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করে হারিয়েছিল পাকিস্তানকে। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটেও এর আগে সেঞ্চুরি ছিল না আমব্রিসের। জন ক্যাম্পবেলের চোটে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে খেলার সুযোগ পাওয়া এই ওপেনার ১২৬ বলে খেলেন ১৪৮ রানের দারুণ এক ইনিংস। ১৯ চার ও এক ছক্কায় গড়া ইনিংস তাকে এনে দেয় ম্যাচ সেরার পুরস্কার। মালাহাইডের দা ভিলেজে শনিবার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই জেমস ম্যাককলামকে হারায় আয়ারল্যান্ড। পল স্টার্লিংয়ের সঙ্গে ১৪৬ রানের জুটিতে দলকে পথ দেখান বালবার্নি। আট চার ও দুই ছক্কায় ৭৭ রান করা স্টার্লিংকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। গতিময় এই পেসার দ্রুত বিদায় করেন অধিনায়ক উইলিয়াম পোর্টারফিল্ডকে। ৫৫ বলে পঞ্চাশ ছোঁয়া বালবার্নি চতুর্থ সেঞ্চুরিতে পৌঁছান ১০০ বলে। দলকে বড় সংগ্রহের পথে নিয়ে শেষ পর্যন্ত ফিরেন ১১ চার ও চার ছক্কায় ১২৪ বলে ১৩৫ রান করে। তার বিদায়ের পর রানের গতিতে দম দেন ও’ব্রায়েন। ৪০ বলে তিনটি করে ছক্কা-চারে খেলেন ৬৩ রানের বিস্ফোরক ইনিংস।  আট বোলার ব্যবহার করেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। তাদের মধ্যে সবচেয়ে সফল গ্যাব্রিয়েল ২ উইকেট নেন ৪৭ রানে। বড় রান তাড়ায় উদ্বোধনী জুটি ভালো শুরু এনে দেয় সফরকারীদের। আগের দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করা শেই হোপকে এবার ৩০ রানে থামান বয়েড র‌্যানকিন। রানের পাহাড় তাড়ায় দলকে পথ দেখান মাত্র চতুর্থ ওয়ানডেতে খেলতে নামা আমব্রিস।

রোস্টন চেইসের সঙ্গে ১২৮ রানের জুটিতে দলকে গড়ে দেন জয়ের ভিত। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি পাওয়া আর আমব্রিসকে থামান র‌্যানকিন। শেষ ১০ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৭৬ রান। হোল্ডার ও জোনাথন কার্টারের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সহজেই সেই লক্ষ্য পেরিয়ে যায় ক্যারিবিয়ানরা। ২৭ বলে ৪৩ রানে অপরাজিত থাকেন কার্টার। ২৪ বলে এক চার ও দুই ছক্কায় ৩৬ রান করে ফিরে যান হোল্ডার। খরুচে বোলিংয়ে ৬৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন র‌্যানকিন। এই জয়ে বাংলাদেশকে পেছনে ফেলে ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠে এলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের পয়েন্ট ৬। মাশরাফি বিন মুর্তজাদের বিপক্ষে পরিত্যক্ত ম্যাচ থেকে দুই পয়েন্ট পাওয়া আয়ারল্যান্ড আছে তলানিতেই। আজ সোমবার বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে আয়ারল্যান্ড। সংক্ষিপ্ত স্কোর: আয়ারল্যান্ড: ৫০ ওভারে ৩২৭/৫ (স্টার্লিং ৭৭, ম্যাককুলাম ৫, বালবার্নি ১৩৫, পোর্টারফিল্ড ৩, ও’ব্রায়েন ৬৩, অ্যাডায়ার ২৫*, উইলসন ৪*; কটরেল ১/৬৭, রোচ ০/৬২, অ্যালেন ০/১৯, গ্যাব্রিয়েল ২/৪৭, হোল্ডার ১/৫৫, নার্স ০/৩৭, চেইস ০/১৩, কার্টার ১/১৯)। ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৪৭.৫ ওভারে ৩৩১/৫ (হোপ ৩০, আমব্রিস ১৪৮, ব্রাভো ১৭, চেইস ৪৬, কার্টার ৪৩*, হোল্ডার ৩৬, অ্যালেন ০*; মারটাঘ ০/৬২, অ্যাডায়ার ০/৫৭, লিটল ১/৭৮, ডকরেল ০/৫৩, র‌্যানকিন ৩/৬৫, স্টার্লিং ১/১৪)। ফল: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫ উইকেটে জয়ী। ম্যান অব দা ম্যাচ: সুনিল আমব্রিস।

আরো খবর...