অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়তে ১৪ দল ঐক্যবদ্ধ থাকবে – নাসিম

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগ সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, অসাম্প্রদায়িক, জঙ্গী, রাজকার ও শোষণমুক্ত দেশ গড়তে কেন্দ্রীয় ১৪ দল সব সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাশে ছিল এবং থাকবে। তিনি বলেন, অনেকে ১৪ দল নিয়ে অনেক কিছু ভাবছেন। যে ১৪ দল থাকবে কি না? আমি বলতে চাই ১৪ দল ছিল, আছে, থাকবে। ক্ষমতার জন্য ১৪ দল গঠিত হয়নি, একটি আদর্শিক জোট হিসাবে ১৪ গঠিত হয়েছে। মোহাম্মদ নাসিম বৃহষ্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ৯৭ তম ঐতিহাসিক সলঙ্গা দিবস উপলক্ষে গণ আজাদী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। গণ আজাদী লীগের সভাপতি এস কে শিকদারের সভাপতিত্বে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু, জাতীয় পার্টি জেপির মহাসচিব শেখ সহিদুল ইসলাম, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এজাজ আহমেদ মুক্তা, ন্যাপ নেতা ইসমাইল হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ১৪ দল জাতির পিতার স্বপ্নের দেশ গড়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করে যাবে। ১৪ দলের নেতাদের চাওয়া পাওয়ার কিছু নেই। তাদের লক্ষ্য ঐক্যবদ্ধ থেকে রাজাকার, জঙ্গিমুক্ত বাংলাদেশ গড়া। তিনি বলেন, সরকার ও বিরোধী দল উভয়কেই হতে হবে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তির। এ লক্ষ্যেই বিরোধী দলের ভূমিকায় থাকবে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের জোট ১৪ দলের নেতারা। সরকার পরিচালনায় কোন ক্রটি-বিচ্যুতি হলে তা ধরিয়ে দিয়ে সতর্ক করা এবং পরাজিত অশুভ শক্তি কোন চক্রান্ত করলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তা রুখে দেওয়া। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, গত ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনে বিশাল বিজয় হলেও স্বাধীনতাবিরোধীদের চক্রান্ত এখনো আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এ চক্রান্ত মোকাবেলা করেই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। দেশের অগ্রযাত্রা কেউ বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না। ষড়যন্ত্রকারীদের চক্রান্ত রুখে দিতে ১৪ দল মাঠে থাকবে। আসন্ন উপজেলা নির্বাচন প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, উপজেলা নির্বাচন যেহেতু স্থানীয় নির্বাচন তাই এখানে ১৪ দল গত ভাবে কোন প্রার্থী দেওয়া হবে না। জোটের শরিকরা নিজ নিজ দল থেকে আলাদা ভাবে অংশগ্রহণ করবেন। হাসানুল হক ইনু বলেন, বিএনপি জামায়াত জোট সংসদীয় গণতন্ত্র প্রক্রিয়া নষ্ট করার পাঁয়তারা করছে। তাই তারা বার বার বলছে, সংসদীয় গণতন্ত্রে শক্তিশালী বিরোধী দল দরকার। কিন্তু তার মানে আমরা তো কোন খুনিদের আদর করে সংসদে ডেকে এনে বসাতে পারি না।

আরো খবর...