অলরাউন্ড নৈপুণ্যে উদ্বোধনী ম্যাচের সেরা স্টোকস

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ইংলিশ অলরাউন্ডার বেন স্টোকস বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে দেখালেন নিজের সামর্থ্য। ব্যাটে-বলে-ফিল্ডিংয়ে নিজেকে মেলে ধরে জিতে নিলেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। কেনিংটন ওভালে বৃহস্পতিবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের ১০৪ রানের জয়ে ফিফটি করার পর স্টোকস নেন দুটি উইকেট। ফিল্ডিংয়ে মুঠোয় জমান দুটি ক্যাচ। ২০তম ওভারে ক্রিজে আসেন স্টোকস। চার বলের মধ্যে জেসন রয় ও জো রুটকে হারিয়ে তখন কিছুটা চাপে ইংল্যান্ড। স্টোকস শুরুতে ছিলেন সাবধানী। প্রথম ৩৬ বলে করেছিলেন ৩১ রান। এরপর চড়াও হন বোলারদের ওপর। ৪৫ বলে তুলে নেন ফিফটি। অধিনায়ক ওয়েন মর্গ্যানের বিদায়ের পর কেউ সেভাবে সঙ্গ দিতে পারছিলেন না। শেষের দিকে প্রায় একাই দলকে টেনে বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দলকে এনে দেন প্রথম তিনশ ছোঁয়া সংগ্রহ। ৪৯তম ওভারের শেষ বলে ফেরার আগে ৯ চারে ৮৯ রান করেন স্টোকস, যা বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ। আগের সেরা ছিল ১৯৯২ বিশ্বকাপে গ্রায়েম হিকের ৮৩। ব্যাটিংয়ের পর ফিল্ডিংয়ে নিজের সামর্থ্য  দেখান স্টোকস। মইন আলির বলে জেপি দুমিনির ক্যাচ ছিল সহজ। তবে আদিল রশিদের বলে আন্দিলে ফেলুকোয়ায়োর ক্যাচ ছিল ভীষণ কঠিন। ডিপ মিডউইকেটে ঝাঁপিয়ে পড়ে এক হাতে বল মুঠোয় নেন স্টোকস, ধরেন অবিশ্বাস্য এক ক্যাচ। দেরিতে বল হাতে পাওয়া স্টোকস ১২ রানে নেন ২ উইকেট। ৩৯তম ওভারে পরপর দুই বলে দুই উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে থামিয়ে দিয়ে দলকে এনে দেন শতরানের জয়। ইংল্যান্ডের দাপুটে জয়ে তিন বিভাগে অবদান রেখে জিতে নেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

 

আরো খবর...