অবিলম্বে জাপান ট্যোবাকোসহ চাষীদের কাছ থেকে তামাক ক্রয়ের দাবী

জেটিআই বন্ধের প্রতিবাদে মিরপুরে চাষীদের সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ, স্মারকলিপি প্রদান

মিরপুর অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে জাপান ট্যোবাকো ইন্টারন্যাশনাল (জেটিআই) বন্ধের প্রতিবাদে চাষীরা সড়ক অবরোধ করে  বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। গতকাল রোববার সকালে উপজেলার নওপাড়া বাজারে কুষ্টিয়া তামাক চাষী কল্যাণ সমিতির উদ্যোগে এলাকার শত শত চাষীরা এ বিক্ষোভ করে। এ সময়ে বিক্ষোভকারীরা কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়ক অবরোধ করে। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে তারা অবরোধ প্রত্যাহার করে সমাবেশে মিলিত হয়। কুষ্টিয়া তামাক চাষী কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া তামাক চাষী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, সাংগঠনিক সম্পাদক ও চিথলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন পিস্তুল, সহ-সভাপতি বাবলু রঞ্জন বিশ্বাস, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, নির্বাহী সদস্য সুমন মাহমুদ, জাপান ট্যোবাকোর চাষী কৃষ্ণপুরের গরিবুল্লাহ, চুনিয়াপাড়ার শহিদুল, কৃষ্ণপুরের জাহিদুল, গৌড়দহের মিন্টু, বিএটিবির চাষী মহিশাখোলার জিয়াউর রহমান প্রমুখ। কুষ্টিয়া তামাক চাষী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার বলেন, জাপান ট্যোবাকো ঢাকা ট্যোবাকোর কাছ থেকে মালিকানা ক্রয় করে ঢাক ঢোল পিটিয়ে চাষীদের কে তামাক চাষে উদ্বুদ্ধ করে এখন চাষীদের তামাক ক্রয় না করে ক্রয় কেন্দ্র বন্ধ করে তামাশা শুরু করেছে। অবিলম্বে জাপান ট্যোবাকো সহ আবুল খায়ের কোম্পানী চাষীদের কাছ থেকে তামাক ক্রয়ের দাবী জানান। একই সাথে বিএটিবির ১ একরে ৮৮০ কেজির পরিবর্তে ১ হাজার কেজি তামাক ক্রয়ের আহবান জানান। অন্যথায় তামাক কোম্পানীগুলোর বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। বিক্ষোভকৃত তামাক চাষী চুনিয়াপাড়া গ্রামের মিন্টু, আব্দুল আজিজ, শাহাবুল, মাহাবুল, শহিদুল, একতার আলী কবিরাজ, নাহারুল, জিল্লাল, রবিউল ইসলাম, কৃষ্ণপুর গ্রামের গরিবুল্লাহ, জাহিদুল ইসলাম, নুরুল ইসলাম, গৌড়দহ গ্রামের হাফিজুল, মিন্টুসহ একাধিক তামাক চাষী জাপান ট্যোবাকোর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, তাদেরকে কোম্পানীর সুপারভাইজার তাপস, নুরুজ্জামান ও ম্যানেজার রুহুল তামাক কার্ডের বেশি তামাক উৎপাদনের আশ্বাস দেন। কোম্পানীর কর্মকর্তারা বলেন জাপান ট্যোবাকো বিদেশী কোম্পানী যার কারণে চলতি মৌসুমে অনেক বেশি তামাক ক্রয় করবে। এখন আমরা তাদের কথা বিশ্বাস করে প্রতারিত হচ্ছি। প্রতিটি চাষীর ঘরে ১০ থেকে ৩০ বেল করে তামাক রয়েছে। এছাড়াও সুপারভাইজার নুরুজ্জামান ও তাপসের বিরুদ্ধে চাষীদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে টিপি দেওয়ার অভিযোগ করেন। চাষীরা আরো অভিযোগ করে বলেন, তাতিবন্দ লীফ ডিপোর ম্যানেজার আকতার হোসেন চাষীর কাছ থেকে তামাক না নিয়ে তার শ্বশুর মিরপুর উপজেলার নয়নপুর গ্রামের জহুরুল আলম নান্নুর কাছ থেকে প্রতিদিন অর্ধশত বেল তামাক নিয়ম বর্হিঃভৃতভাবে ক্রয় করেছে। পরে কুষ্টিয়া তামাক চাষী কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, সাংগঠনিক সম্পাদক ও চিথলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন পিস্তুল তামাক চাষীদের পক্ষে মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের নিকট প্রতিকার চেয়ে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন। একই সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কৃষিমন্ত্রী, কৃষি সচিব, পুলিশ সুপার, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ও মিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ’র বরাবর অনুলিপি প্রদান করেন।

আরো খবর...